Logo
আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

পবিত্র শবে মেরাজ ১৮ ফেব্রুয়ারি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ২৮০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশের আকাশে পবিত্র রজব মাসের চাঁদ দেখা গেছে। আগামীকাল থেকে পবিত্র রজব মাস গণনা শুরু হবে। ফলে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে পবিত্র শবে মেরাজ পালিত হবে।

আজ সোমবার সন্ধ্যায় বায়তুল মুকাররম সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. মুনিম হাসান।

শবে মেরাজ উপলক্ষে দেশের সকল মসজিদ ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠান এবং সামষ্টিক উদ্যোগে মহানবীর (সা.) মিরাজ সংক্রান্ত আলোচনা, মিলাদ ও দোয়া-মাহফিলের আয়োজন করা হয়ে থাকে।

উল্লেখ্য, ১৪০০ বছর আগে মানুষকে আলোর পথ দেখাতে পৃথিবীতে আগমন করেন বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)। চল্লিশ বছর বয়সে নবুয়ত লাভ করেন তিনি। নবুয়ত প্রাপ্তির একাদশ বছরে আরবি রজব মাসের ২৬ তারিখ দিবাগত রাতে মহান আল্লাহ তায়ালার বিশেষ মেহমান হিসেবে ফেরেশতা জিবরাঈলের (আ.) সঙ্গে আরশে আজিমে আরোহণ করেন বিশ্ব মানবতার মুক্তির দূত মহানবী (সা.)। তারপর থেকে মুসলমানদের কাছে রাতটি বরকতময় রাত হিসেবে পরিচিত। এই রাতে স্রষ্টার নৈকট্য লাভের জন্য মুসলমানরা ইবাদতে মশগুল থাকেন।



আরও খবর



বগুড়ার গাবতলী ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলা সম্পন্ন: আজ বউ মেলা

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৩জন দেখেছেন

Image

আল আমিন মন্ডল (বিপ্লব) বগুড়া:ঢাকঢোল পিটিয়ে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে পূর্ব বগুড়ার তথা গাবতলী ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ সন্ন্যাসী ও জামাই মেলা বুধবার (১৪ই ফেব্রুয়ারি-২৪) শান্তিপূর্ন ভাবে সম্পন্ন হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার হবে বউ মেলা।

দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে হাজার হাজার মানুষ মেলায় এসে ক্রয়-বিক্রয় করেছে। উপভোগ করেছে নানা ধরনের বিনোদন ও খেলা। মেলায় বিক্রি হয়েছে কয়েক হাজার মন মাছ ও মিষ্টি। মাছের দাম কিছুটা চড়া হলেও বিক্রি হয়েছে বড় বড় চিতল, ভেউস, বোয়াল, রুই ও কাতলা’সহ বিভিন্ন প্রজাতির দেশী-বিদেশী মাছ। হিন্দু-মুসলমান-পুরুষ-নারী বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষের ঢল নেমে ছিল ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলায়। তবে মেলায় বাঘাইড় মাছ না পাওয়া গেলেও দেশী-বিদেশী বিভিন্ন প্রজাতির বড় বড় অসংখ্য মাছ ছিল। এরমধ্যে মেলায় ভেউস মাছ কেজি প্রতি বিক্রি করা হয় ১হাজার ৫শ থেকে ২হাজার টাকা, পাখিমাছ প্রতি কেজী বিক্রি হয়েছে ১৫শত থেকে ২হাজার টাকা, বোয়াল মাছ কেজি প্রতি বিক্রি হয়েছে ৭শ থেকে ১হাজার ৫শ টাকা, রুই মাছ প্রতি কেজি বিক্রি করা হয় ৮শ থেকে ১হাজার টাকা, কাতলা মাছ কেজি প্রতি বিক্রি করা হয় ৮শ থেকে ৯শ টাকা, ব্লাক-কাপ প্রতিকেজী ৭শ থেকে ৯শত টাকা, আরকাটা প্রতিকেজী ২২শত থেকে ২৫শত টাকা, ব্রি-কেট প্রতিকেজী ৬শত থেকে ৮শত টাকা, গ্লাস-কাপ প্রতিকেজী ৫শত থেকে ৮শত টাকা। এছাড়া বিভিন্ন রকমের মাছ নানা মূল্যে বিক্রি করা হয়েছে। শেষ পর্য়ন্ত ১থেকে ২কোটি টাকার মাছ বিক্রি আশা করছেন ব্যবসায়ীরা। স্থানীয় সন্ন্যাসী পূজা উপলক্ষে ৪শত বছর পুরানো এ মেলায় ছিল প্রশাসনের কঠোর নজরদারী। মেলায় প্রসিদ্ধ হলো বড় বড় মাছ, হরেক রকম মিষ্টি, কাঠ বা ষ্ট্রীল র্ফানিচার, বড়ই (কুল) ও কৃষি সামগ্রী বিভিন্ন আসবাবপত্র এবং খাদ্য দ্রব্য হাট-বাজার ন্যায় কেনা-বেচা করা হয়। এছাড়া বিনোদন মূলক ছিল সার্কাস, মোটর সাইকেল খেলা, নৌকা খেলা ও নাগোরদোলা এবং শিশুদের জন্য দোলনা। উল্লেখ্য, গাবতলী উপজেলার মহিষাবান ইউনিয়নের অর্ন্তগত গোলাবাড়ী বন্দর সংলগ্ন প্রায় ৪শত বছরপূর্বে থেকে স্থানীয় সন্ন্যাসী পূর্জা উপলক্ষে গাড়ীদহ নদী ঘেঁষে সম্পূর্ন ব্যক্তি মালিকানা জমিতে একদিন জন্য মেলাটি বসে। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে হাজার হাজার মানুষ মেলায় এসে ক্রয়-বিক্রয় করে। মেলা উপলক্ষে আশপাশের গ্রামের প্রতিটি বাড়ীতে আতœীয়-স্বজন এসে সমবেত হয়। ঈদ বা কোন উৎসবে জামাই-মেয়ে অন্যান্য আতœীয়-স্বজন’কে দাওয়াত না দিলেও


আরও খবর



কিশোর গ্যাং বিভিন্ন গ্রুপের অতিষ্ঠ মানুষ, গ্রেপ্তার গ্যাংয়ের ৩৭ কিশোর

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৭২জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:বাবা গ্রুপ, ০০৭ গ্রুপ, জাউরা গ্রুপ, ভোল্টেজ গ্রুপ,ডি কোম্পানি ও জাহাঙ্গীর গ্রুপসহ বিভিন্ন নামে গড়ে উঠেছে কিশোর গ্যাং গ্রুপ। প্রতি গ্রুপে আনুমানিক ১০/১৬ জন করে কিশোর। টাকার বিনিময়ে মারামারি, দখলবাজি, পিকেটিং, ছিনতাই, ডাকাতি, খুনসহ বিভিন্ন অনৈতিক কাজ করে থাকে। তাদের ক্ষমতার জাহিরে অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে মানুষ।গত বৃহস্পতিবার মাত্র ৩ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাংয়ের ৩৭ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১। এলাকাবাসী ও র‌্যাব-১ সূত্রে জানা গেছে, দেশের বিভিন্ন এলাকায় প্রায় আনাচে-কানাচে গড়ে উঠেছে কিশোর গ্যাং। তাদের নামে বেনামে গড়ে তুলেছে বিভিন্ন গ্রুপ। বর্তমান সময়ে কিশোর গ্যাং, গ্যাং কালচার, উঠতি বয়সি ছেলেদের মাঝে ক্ষমতা বিস্তারকে কেন্দ্র করে এক গ্রুপের সাথে অন্য গ্রুপের মারামারি করা বহুল আলোচিত ঘটনায় পরিনত হয়েছে।

গ্যাং সদস্যরা এলাকায় নিজেদের অস্তিত্ব জাহির করার জন্য উচ্চ শব্দে গান বাজিয়ে দল বেধে ঘুরে বেড়ায়, বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালায়, পথচারীদের উত্ত্যক্ত করে এবং ছোট খাটো বিষয় নিয়ে সাধারণ মানুষের উপর চড়াও হয়ে হাতাহাতি- মারামারি করে। এছাড়াও তারা নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখার জন্য একই এলাকায় অন্যান্য গ্রুপের সাথে প্রায়সই কোন্দলে লিপ্ত থাকে। তাদের এই ধরনের চলাফেরার কারণে সাধারণ লোকজন তাদের অনেকটাই এড়িয়ে চলে। এই এড়ানোর বিষয়টিকে তারা তাদের ক্ষমতা হিসেবে ভাবে এবং কোন ঘটনায় কেউ কোন প্রতিবাদ করলেও ক্ষমতা জাহির করতে মারামারি করাসহ অনেক সময় খুন করতেও দ্বিধাবোধ করে না। সস্প্রতি র‌্যাব-১ এর গোয়েন্দা অনুসন্ধানে রাজধানীর মহাখালী, বিমানবন্দর, বনানী, গাজীপুর ও

টঙ্গী থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় কতিপয় কিশোর গ্যাংয়ের কার্যক্রম সংক্রান্ত তথ্য পাওয়া যায়। কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা গড়ে তুলেছে বাবা গ্রুপ, ০০৭ গ্রুপ, জাউরা গ্রুপ, ভোল্টেজ গ্রুপ, ডি কোম্পানি ও জাহাঙ্গীর গ্রুপসহ নামে বেনামে বিভিন্ন গ্রুপ। প্রত্যেক গ্রুপের আনুমানিক সদস্য ১০/১৫ জন সদস্য রয়েছে। তারা দীর্ঘদিন যাবৎ এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের নামে পেশীশক্তি প্রদর্শন করে আসছে। মাদক সেবন, সাইলেন্সারবিহীন মোটরসাইকেল চালিয়ে বিকট শব্দ করে জনমনে ভীতির সঞ্চার, স্কুল-কলেজে বুলিং, র‌্যাগিং, ইভটিজিং, ধর্ষণ, ছিনতাই, ডাকাতি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অশ্লীল ভিডিও শেয়ারসহ নানাবিধ অনৈতিক কাজে লিপ্ত কিশোর গ্যাং। তারা টাকার বিনিময়ে যে কোন পক্ষের হয়ে মারামারি, দখলবাজি, পিকেটিং করে। যা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে নিশ্চিত ক্ষতির মুখে ধাবিত করছে। এরই প্রেক্ষিতে কিশোর গ্যাং এর বিপথগামী সদস্যদের আইনের আওতায় আনতে সস্প্রতি র‌্যাব-১ গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে। এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত বৃহস্পতিবার রাত ৭টার থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায় র‌্যাব-১। মাত্র ৩ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে রাজধানী ঢাকার মহাখালী, বনানী, বিমানবন্দর, টঙ্গি ও গাজীপুর এলাকা থেকে ‘০০৭ গ্রুপের দলনেতা আল-আমিন, জাউরা গ্রুপের দলনেতা মাহাবুব, বাবা গ্রুপের দলনেতা সাদ, ভোল্টেজ গ্রুপের মনা, ডি কোম্পানি- (লন্ডন পাপ্পু চালায়) আকাশ ও আমির হোসেন গ্রুপ’ জাহাঙ্গীর গ্রুপ ওরফে বয়রা জাহাঙ্গীর গ্রুপসহ বিভিন্ন কিশোর গ্যাং গ্রুপের ৩৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- রাসেল, আরাফাত, রবিন, আল-আমিন, ইসলাম, জুয়েল, রবিউল, মুরাদ, মাহাবুব, সাদ, রোহান, মনা, হৃদয়, ওবায়েদ, জিসান, আকাশ, ঈমন, রমজান, সজিব, শাকিব, রাজিব, আমির হোসেন, শাহজাহান সাজু @ রাসেল, জিলাদ মিয়া, হৃদয়, রায়হান, বাবু মিয়া, শাহজাহান, জালাল মিয়া,লামিম মিয়া, রাকিব, হিরা মিয়া, ইমরুল হাসান, সাকিন সরকার রাব্বি, সুজন মিয়া, খাইরুল, রাহাত। এসময় তাদের কাছ থেকে ৫০০ গ্রাম গাজা, ২৪টি মোবাইল, ১টি ব্লেড, ১টি কুড়াল, ১টি পাওয়ার ব্যাংক, ৫টি রড, ১৬টি চাকু, ৩টি লোহার চেইন, ১টি হাতুড়ী, ১টি মোটরসাইকেল এবং ২৪ হাজার ২৫০ টাকা উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে ১৭ জনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় চুরি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, মাদক, অস্ত্র, ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টাসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

র‌্যাব-১ এর সহকারী পুলিশ সুপার ও সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার) মোঃ মাহফুজুর রহমানের স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, টাকার বিনিময়ে যে কোন পক্ষের হয়ে মারামারি, দখলবাজি, পিকেটিং, ছিনতাই, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অনৈতিক কাজে লিপ্ত ছিল মর্মে স্বীকার করে। কিশোর গ্যাং এর বিপদগামী সদস্যদের আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-১ এর অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তবে গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


আরও খবর



বিরামপুর আদর্শ হাইস্কুলের অভিভাবক সমাবেশ ও মতবিনিময় সভা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৭জন দেখেছেন

Image

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃদিনাজপুর জেলার বিরামপুর পৌর শহরের বিরামপুর আদর্শ হাইস্কুলের শিক্ষার মানোন্নয়নে অভিভাবক সমাবেশ ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারী) সকাল ১০ টার দিকে বিরামপুর আদর্শ হাইস্কুলের হলরুমে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মুহাদ্দিস ডক্টর এনামুল হক এর সভাপতিত্বে শিক্ষার মানোন্নয়নে অভিভাবক সমাবেশ ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আল মারুফ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার রেজাউল করিম শামীম, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ মকছেদ আলী চৌধুরী, অভিভাবক ও মুকুন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, ইঞ্জিনিয়ার শাহীনুর ইসলাম, অধ্যাপক সারোয়ার রাশেদ, সাংবাদিক অধ্যাপক এসএম আলমগীর প্লেটো, আলহাজ্জ আনোয়ার হোসেন, মজনুর রশীদ, কামারুজ্জামান, রায়হান কবীর, মামুনুর রশীদ, আসমাউল হুসনা ও মোস্তারী পারভীন প্রমূখ।

শিক্ষার মানোন্নয়নে অভিভাবক সমাবেশ ও মতবিনিময় সভাটি সঞ্চালনা করেন সহকারী শিক্ষক জাকির হোসেন।


আরও খবর



হিলিতে মেয়র কাপ ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট এর উদ্বোধন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৪৯জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:ক্রীড়াই শক্তি ক্রীড়ায় বল,মাদক ছেড়ে খেলতে চল এই প্রতিবাদ্যকে সামনে রেখে দিনাজপুরের হিলিতে মরহুম এজাজ হোসেন চৌধুরী ছোটন স্মৃতি মেয়র কাপ ক্রিকেট টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন করা হয়েছে।

আজ শুক্রবার সকাল ১০ টায় হাকিমপুর হিলি পৌরসভার আয়োজনে বাংলাহিলি পাইলট স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে এই খেলার উদ্বোধন করেন হাকিমপুর পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত।

উদ্বোধনী খেলায় পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড চন্ডিপুর একাদশ বনাম ৬নং ওয়ার্ড ডাঙ্গাপাড়া একাদশ অংশগ্রহন করেন। খেলায় টসেজিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ১৬ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে ৯২ রান করে চন্ডিপুর একাদশ। পরে নির্ধারিত ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ৯৩ রান সংগ্রহ করে ডাঙ্গাপাড়া একাদশ জয় লাভ করেন। হাকিমপুর হিলি পৌরসভার মোট ৯ টি দল এই টুর্নামেন্টে অংশ গ্রহন করবেন।

পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত বলেন, হাকিমপুর হিলি পৌর সভা সীমান্তবর্তী একটি পৌরসভা। তাই প্রতি বছরের ন্যায় এবারও মাদকের ভয়াল থাবা থেকে যুব সমাজকে দুরে সরিয়ে রাখতে এই ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়েছে। আপনাদের সকলের সহযোগিতা পেলে হাকিমপুর হিলি পৌরসভাকে মাদক মুক্ত করতে ছেলে-মেয়েদের বিভিন্ন খেলার মাধ্যমে আগ্রহী করে তোলা হচ্ছে। পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ড এর যুব সমাজ (যুবকরা) সুস্থ বিনোদন ও খেলাধুলার মাধ্যমে সুন্দর ও সুস্থ শরীর গঠন করবে এবং সেই সাথে মাদক থেকে দুরে সড়ে থাকবে এটিই আমাদের প্রত্যাশা।

এসময় সেখানে, প্যানেল মেয়র মিনহাজুল ইসলাম লিটন, উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি সোহরাব হোসেন প্রতাপ, শাহেদ মল্লিক বাবু, প্রভাষক আশরাফ আলী প্রধান, আব্দুল লতিফ মাষ্টার, বীর মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত আলী, পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ টুকু, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক কাহের আলী, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক অনিক সরকার, সাবেক যুবলীগ নেতা মার্শাল, ছাত্রলীগ নেতা সোহাগ মন্ডল,মোস্তাকিম হোসেনসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



ঝিনাইদহ-১ আসনের আব্দুল হাইয়ের এমপি পদ স্থগিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৪০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. আব্দুল হাই ঝিনাইদহ-১ আসনের বিজয়ী ঘোষণা করে ইসির গেজেট স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামানের একক হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

গণমাধ্যমকে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আইনজীবী মো. মজিবুর রহমান মিয়া।

এর আগে ভোটগ্রহণ ও ভোট গণনায় অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগে ঝিনাইদহ-১ আসনের এমপি পদের গেজেট স্থগিত চেয়ে ইলেকশন পিটিশন দায়ের করেন ওই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী নজরুল ইসলাম দুলাল।

গত ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের বেসরকারি ফলে ঝিনাইদহ-১ (শৈলকূপা) নৌকার প্রার্থী আব্দুল হাইকে বিজয়ী ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, এই আসনে আব্দুল হাই পেয়েছেন ৯৪ হাজার ৩৭৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী নজরুল ইসলাম দুলাল (ট্রাক প্রতীক) পেয়েছেন ৮০ হাজার ৫৪৭ ভোট।


আরও খবর