Logo
আজঃ Wednesday ১০ August ২০২২
শিরোনাম
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ২৪৩৫ লিটার চোরাই জ্বালানি তেলসহ আটক-২ নাসিরনগরে বঙ্গ মাতার জন্ম বার্ষিকি পালিত রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড

পাহাড়ধসের আতংকে মিরসরাইয়ের ২০ হাজার মানুষ

প্রকাশিত:Saturday ১৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৫৭জন দেখেছেন
Image

ঝুঁকিতে রয়েছে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পাহাড়ের পাদদেশে বসবাস করা মানুষ। টানা বৃষ্টির ফলে পাহাড়ধসের আতংকে রয়েছেন অন্তত ২০ হাজার মানুষ।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার করেরহাট ইউনিয়নের সামনের খিল, নলকূপ-আশ্রয়ণ কেন্দ্র, কালাপানিয়া, কয়লা, ঝিলতলী পাহাড়ে বাঙালি ও ক্ষুদ্রনৃগোষ্ঠী সম্প্রদায়ের প্রায় এক হাজার ৫০০ পরিবার বসবাস করে। হিঙ্গুলী ইউনিয়নে ৮০ পরিবার, দূর্গাপুর ইউনিয়নে ২০০ পরিবার, সংশটিলায় ৫০ পরিবার, রব্বাইন্নাটিলা এলাকায় ৫০টি পরিবার বসবাস করে। মিরসরাই সদর ইউনিয়নের উত্তর তালবাড়িয়া, মধ্যম তালবাড়িয়া গ্রামের পাহাড়ে ৫০০ পরিবার, খৈয়াছড়া ইউনিয়নে ৮০ পরিবার, কাঁঠালবাগান এলাকায় ৪০ পরিবার, রেলস্টেশন এলাকায় ৮০ পরিবার বাঙালি বসবাস করে। এছাড়া নিজতালুক এলাকায় প্রায় ৬০০ ত্রিপুরা পরিবার, ওয়াহেদপুর ইউনিয়নে ২০০ পরিবার, বাওয়াছড়া সেচ প্রকল্প এলাকায় ১০০ পরিবার, হাদি ফকিরহাট এলাকায় ৮০ পরিবার বসবাস করে।

মিরসরাই সদর ইউনিয়নের তালবাড়িয়া গ্রামের ছোটন ত্রিপুরা (৪০) বলেন, ছোট বেলা থেকে আমরা এখানে বসবাস করে আসছি। আগে পাহাড়ে বসবাসকারী কম থাকলেও এখন তা বেড়ে গেছে। কেননা বড় পরিবারগুলো আস্তে আস্তে ভেঙে যাচ্ছে। আমাদের নিজস্ব কোনো ভূমি নেই। সরকারি জায়গায় থাকি। বাঁচলেও এখানে থাকবো মরলেও এখানে মরবো।

jagonews24

রবার্ট ত্রিপুরা নামের আরেকজন বলেন, পাহাড়ের চূড়ায় ভাঙা ঘরে ছেলে মেয়ে নিয়ে বসবাস করছি। বর্ষাকালে ডরে ডরে (ভয়ে ভয়ে) থাকি কখন পাহাড়ধসে পড়ে। সারারাত জেগে থাকি। বর্ষাকালে মেম্বার-চেয়ারম্যানরা আমাদের সরে যেতে বললেও কোনো স্থায়ী বসবাসের ব্যবস্থা করেন না।

মিরসরাই সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুল আলম দিদার বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড় থেকে সরে যেতে পাহাড়ের অধিবাসীদের সর্তকতা করা হয়েছে। তাছাড়া উত্তর ও মধ্য তালবাড়ীয়া এলাকায় বসবাসকারীরা পাহাড়ের উঁচুতে থাকেন। ফলে তারা কিছুটা ঝুঁকিমুক্ত।

ওয়াহেদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল কবির ফিরোজ বলেন, ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের বড়দারোগারহাট থেকে নয়দুয়ার পর্যন্ত প্রায় ২৫০ পরিবার বসবাস করে। যাদের অধিকাংশ বাঙালি। যাদের নিজস্ব কোনো জায়গা নেই।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মিনহাজুর রহমান বলেন, ইউপি চেয়ারম্যানদের সঙ্গে আলোচনা করেছি। তারা জানিয়েছেন পাহাড়ে বসবাসকারীরা ঝুঁকিপূর্ণ নয়। তারপরও কোনো পাহাড়ে লোকজন ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাস করছেন কী না খতিয়ে দেখা হবে।


আরও খবর



জুমার মুসল্লীদের জন্য যেসব পুরস্কার নির্ধারিত

প্রকাশিত:Friday ২২ July 20২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
Image

গরিবের হজের দিন ইয়াওমুল জুমআ। মুমিন মুসলমানের জন্য এটি খুশির দিনও বটে। এ দিন ঈমানদারের ঈমান বৃদ্ধি পায়। আনন্দ-উৎসবের সঙ্গেই ছোট থেকে বড় সবাই জুমআর নামাজ আদায়ে মসজিদে সমবেত হয়। হাদিসে পাকে এ দিনের ইবাদত-বন্দেগি করা ব্যক্তিদের জন্য রয়েছে চমকপ্রদ অনেক ঘোষণা। কী সেসব সুখবর ও ঘোষণা?

জুমআর দিন পরিবারের বড়দের হাত ধরে ছোট সদস্যরাও মসজিদে নামাজ পড়তে আসে। এ এক অন্যরকম দৃশ্য। যে দৃশ্য মহান আল্লাহর কাছে সংরক্ষিত থাকে। কেননা এ দৃশ্যের অবতারণা করতে আল্লাহ তাআলা নিজেই ঘোষণা করেন-
’হে মুমিনগণ! জুমআর দিনে যখন নামাজের আজান দেয়া হয়, তখন তোমরা আল্লাহর স্মরণে দ্রুত ধাবিত হও। আর বেচাকেনা বন্ধ কর। এটা তোমাদের জন্য উত্তম যদি তোমরা উপলব্ধি করতে পার।’ (সুরা জুমআ : আয়াত ৯)

আল্লাহর নির্দেশ মেনে যারা জুমআর নামাজ আদায় করে তাদের জন্য হাদিসে ঘোষিত চমকপ্রদ পুরস্কারও রয়েছে। তাহলো-
১. দোয়া কবুলের দিন
জুমআর দিনে একটি মুহূর্ত রয়েছে যে মুহূর্তে দোয়া করলে আল্লাহ তাআলা দোয়া কবুল করেন। তবে মুহূর্তটিকে অজ্ঞাত করে রাখা হয়েছে। যাতে মানুষ পুরো জুমআর দিনটিকে গুরুত্বসহকারে অনুসন্ধান করতে থাকে। হাদিসে এসেছে-
রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘জুমআর দিন এমন একটি মুহূর্ত রয়েছে যদি কোনো বান্দাহ ঐ মুহূর্তে দাঁড়িয়ে নামাজরত অবস্থায় আল্লাহর কাছে কোনো কিছু প্রার্থনা করে তবে আল্লাহ তাআলা তা অবশ্যই দেবেন। (বুখারি ও মুসলিম)

এ সময়টি কখন
জুমআর দিনের এ বিশেষ সময়ের ব্যাপারে মতভেদ রয়েছে। তবে হাদিসের বর্ণনা অনুযায়ী সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য দুটি মত রয়েছে। তাহলো-
> ইমাম মিম্বারে বসা থেকে নিয়ে নামাজ শেষ করা পর্যন্ত সময়। হজরত আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘ইমাম মিম্বারে বসা থেকে নিয়ে সালাত শেষ করা পর্যন্ত।’ (মুসলিম, ইবনু খুজাইমা, বয়হাকি)
> যাদুল মাআ`দ-এ বর্ণিত আছে- মুহূর্তটি হচ্ছে জুমআর দিন আসরের নামাজ আদায়ের পর।

২. সাদকা করার উত্তম দিন
সপ্তাহের অন্যান্য দিনের তুলনা জুমআর দিন সাদকা করা ঐ রকম উত্তম, যেমন সারা বছর সাদকা করার চেয়ে রমজান মাসে সাদকা করা উত্তম। হজরত কা`ব ইবনে মালিক রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, ‘জুমআর দিনই সাদকা করা অন্যান্য দিন সাদকা করার তুলনায় অধিক সাওয়াব ও গুরুত্বপূর্ণ।’ (মুসলিম)

৩. আল্লাহর সঙ্গে সাক্ষাতের দিন
জুমআর দিন জান্নাতিদের সঙ্গে আল্লাহ তাআলা সাক্ষাৎ করবেন। তাফসিরে এসেছে- আল্লাহ তাআলা প্রতি জুমআ`র দিন জান্নাতিদের সাক্ষাতের জন্য প্রকাশ্যে আসেন।

৪. মুসলমানের সাপ্তাহিক ঈদের দিন
হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘এটি ঈদের দিন। আল্লাহ তাআলা মুসলমানদের জন্য নির্ধারণ করেছেন। যে ব্যক্তি জুমআর নামাজে উপস্থিত হয়, সে যেন অজু করে উপস্থিত হয়।’ (ইবনু মাজাহ)

৫. ক্ষমা লাভের দিন
এদিন আল্লাহ বান্দার গোনাহ ক্ষমা করে দেন। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি জুমআর দিন গোলস করল, যথাযথ পবিত্রতা অর্জন করল, তেল লাগাল এবং ঘর থেকে আতর খুশবু লাগিয়ে বের হল, দুই ব্যক্তির মাঝে ফাঁক করে সামনে গেল না। অতপর তার তকদিরে যত নামাজ পড়া নির্ধারিত ছিল তা পড়ল, ইমামরে খুতবার সময় চুপ থাকল, তাহলে তার এ জুমআ থেকে পরবর্তী জুমআ পর্যন্ত সংঘটিত গোনাহসমূহ ক্ষমা করে দেয়া হবে।’ (বুখারি)

৬. বছরজুড়ে নফল রোজা ও তাহাজ্জুদের সাওয়াব লাভের দিন
জুমআর দিনের প্রতিটি পদক্ষেপে রয়েছে সাওয়াবের ভাণ্ডার। যারা যথাযথ আদব রক্ষা করে জুমআর নামাজ আদায় করে তাদের প্রতিটি পদক্ষেপের বিনিময়ে তাদের জন্য পুরো এক বছরের রোজা পালন এবং রাত জেগে তাহাজ্জুদ পড়ার সাওয়াব লেখা হয়। হাদিসে এসেছে-
হজরত ইবনে আউস আস সাকাফী রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘জুমাআর দিন যে ব্যাক্তি গোসল করায় (অর্থাৎ সহবাস করে, ফলে স্ত্রী ফরজ গোসল করে এবং) নিজেও ফরজ গোসল করে, আগে আগে মসজিদে যায় এবং নিজেও প্রথম ভাগে মসজিদে গমন করে, পায়ে হেঁটে মসজিদে যায় (অর্থাৎ কোন কিছুতে আরোহণ করে নয়), ইমামের কাছাকাছি গিয়ে বসে, মনোযোগ দিয়ে খুতবা শোনে, কোনো কিছু নিয়ে খেল তামাশা করে না; সে ব্যাক্তির প্রতিটি পদক্ষেপের জন্য রয়েছে বছরব্যাপী রোজা পালন ও সারা বছর রাত জেগে ইবাদত করার সমতুল্য সাওয়াব।’ (মুসনাদে আহমাদ)

৭. জাহান্নামের আগুন বন্ধ রাখার দিন
যাদুল মাআদে এসেছে- সপ্তাহের প্রতিদিন জাহান্নামকে উত্তপ্ত করা হয়। জুমআর দিনের সম্মানে এদিনটিতে জাহান্নামের আগুনকে প্রজ্জলিত বা উত্তপ্ত করা হয় না।

৮. জুমআর দিন বা রাতে মৃত্যুবরণ কল্যাণের
জুমআর দিন বা রাতে মৃত্যুবরণ করা উত্তম পরিণতির লক্ষণ। কারণ এ দিন বা রাত যে ব্যক্তি মারা যায় সে ব্যক্তি কবরের আজাব বা মুনকার নকিরের প্রশ্ন থেকে বেঁচে যায়। হাদিসে এসেছে-
হজরত আবদুল্লাহ বিন আমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘যে কোনো মুসলিম জুমআর দিন বা জুমআর রাতে মারা গেল; আল্লাহ তাআলা অবশ্যই তাকে কবরের আজাব থেকে রেহাই দেবেন।’ (মুসনাদে আহমদ, তিরমিজি)

মুমিন মুসলমানের উচিত, জুমআর দিন ও রাতের সময়গুলোকে কাজে লাগানো। কোনো সমস্যা না থাকলে যথাযথভাবে জুমআর নামাজ আদায় করা। হাদিসে ঘোষিত জুমআর ফজিলত ও মর্যাদাগুলো নিজেদের করে নেয়া।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে জুমআর দিনের বিশেষ আমলগুলো করার মাধ্যমে ঘোষিত পুরস্কার ও প্রতিদান পাওয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।


আরও খবর



দু’ঘণ্টায় দু’বার বিশ্বরেকর্ড গড়লেন নাইজেরিয়ান অ্যাথলেট

প্রকাশিত:Monday ২৫ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ১৫জন দেখেছেন
Image

সেমিফাইনালে প্রথমে ভাঙলেন পুরনো বিশ্বরেকর্ড। মাত্র দুই ঘণ্টার ব্যবধানে নিজের গড়া বিশ্বরেকর্ডটিকে আবারও ভেঙে দিলেন নাইজেরিয়ান নারী অ্যাথলেট টবি অ্যামুসান।

যুক্তরাষ্ট্রের ইউজেনে চলমান বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে সোমবার ১০০ মিটার হার্ডলসে দুই বিশ্বরেকর্ডের পর সোনা জয় করেন নাইজেরিয়ান এই অ্যাথলেট। বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের আসরে এই প্রথম নাইজেরিয়ার হয়ে কোনো অ্যাথলেট স্বর্ণ জয় করার রেকর্ড গড়লেন।

১০০ মিটার হার্ডলসের ফাইনালে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়ে অ্যামুসান দৌড় শেষ করেন মাত্র ১২.০৬ সেকেন্ডে। মাত্র দু’ঘণ্টা আগে নিজেরই গড়া বিশ্বরেকর্ড ভাঙলেন তিনি। সেমিফাইনালে ১২.১২ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করে নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন অ্যামুসান।

শুধু তাই নয়, আরও একটি রেকর্ড গড়েন তিনি এই আসরে। ১০০ মিটার হার্ডলসের হিটে প্রথমে ১২.৪০ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করে আফ্রিকান রেকর্ড গড়েন তিনি। অবশ্য ফাইনালের পর এখন সব রেকর্ডই অতীত হয়ে গেছে।

tobi Amushan

সেমিফাইনালে অ্যামুসান ভাঙেন আমেরিকার কেন্দ্রা হ্যারিসনের ২০১৬ সালে গড়া বিশ্বরেকর্ড। সেবার হ্যারিসন বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন ১২.২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে। তার চেয়ে ০.০৮ সেকেন্ড কম সময় নিয়ে সেমিফাইনালেই রেকর্ড ভেঙে দেন অ্যামুসান।

বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনালে অ্যামুসানের অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন হ্যারিসন। তিনি দ্বিতীয় স্থানে দৌড় শেষ করেন ১২.২৭ সেকেন্ড সময় নিয়ে। ফাইনালে তার দৌড়টি অবশ্য বাতিল করে দেওয়া হয়।

১২.২৩ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করে রুপা জিতেছেন জামাইকার ব্রিটানি অ্যান্ডারসন। একই সময় নিলেও ফটোফিনিসে তৃতীয় হয়েছেন পুয়ের্তো রিকোর জ্যাসমিন ক্যামাচো-কুইন।

বিশ্বরেকর্ড গড়ে খুশি নাইজেরিয়ার ২৫ বছরের এই স্প্রিন্টার। অ্যামুসান বলেন, ‘নিজের ক্ষমতার উপর বিশ্বাস ছিল। তবে এই প্রতিযোগিতায় বিশ্বরেকর্ড গড়ে ফেলতে পারব, এমনটা কখনোই ভাবিনি। আমি জিততে চেয়েছিলাম। সেরা টাইমিং করতে পেরে ভাল লাগছে।’

amushan

এর আগে তার সেরা সময় ছিল ২০১৯ সালে দোহায় আয়োজিত বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে। ১২.৪৯ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করে সেবার চতুর্থ হন অ্যামুসান। টোকিও অলিম্পিকেও চতুর্থ হয়েছিলেন তিনি। ২০১৮ কমনওয়েলথ গেমসের সোনাই ছিল তার সেরা সাফল্য। অরিয়নে বিশ্বরেকর্ডসহ সোনা জিতে অ্যামুসান ছাপিয়ে গেলেন নিজের সব রেকর্ড।


আরও খবর



ডাস্টবিনে মিললো জীবিত নবজাতক

প্রকাশিত:Wednesday ০৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ২০জন দেখেছেন
Image

সাভারের আশুলিয়ায় ডাস্টবিন থেকে এক জীবিত নবজাতককে উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (০২ আগস্ট) রাত ৮টার দিকে আশুলিয়ার ঘোষবাগের সোনিয়া মার্কেট এলাকার রিপন সিকদারের বাড়ির পেছনের ডাস্টবিন থেকে ওই নবজাতককে উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, হঠাৎ ডাস্টবিন থেকে শিশুর কান্নার আওয়াজ শুনতে পাওয়া যায়। পরে বাড়ির পেছনের ডাস্টবিনে গিয়ে একটি জীবিত নবজাতকে দেখে তাকে উদ্ধার করেন। পরে তাকে নারী ও শিশুস্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়।

নারী ও শিশুস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ম্যানেজার হারুন-অর-রশিদ বলেন, রাত সাড়ে ৮টার দিকে একটি নবজাতককে হাসপাতালে আনেন স্থানীয়রা। ছেলে নবজাতকটি সদ্য ভূমিষ্ট বলে ধারণা করা হচ্ছে। বর্তমানে শিশুটি সুস্থ রয়েছে।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইউনুস আলী বলেন, নবজাতক উদ্ধারের পর আমরা খোঁজ খবর নিচ্ছি। বর্তমানে শিশুটি সুস্থ আছে। নবজাতকটি স্থানীয় নুর মোহাম্মদ ও রিপন সিকদারের জিম্মায় রয়েছে। উপজেলা সমাজসেবা বিভাগ বিষয়টি দেখবে।


আরও খবর



৯০ বার পেছালো সাগর-রুনি হত্যা মামলার প্রতিবেদন

প্রকাশিত:Tuesday ১৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৪৩জন দেখেছেন
Image

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সারোয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার তারিখ ৯০ বারের মতো পিছিয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২৪ আগস্ট দিন ঠিক করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ঠিক ছিল। তদন্ত সংস্থা র‌্যাব প্রতিবেদন দাখিল না করায় ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারী প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নতুন এদিন ঠিক করেন।

২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সারোয়ার ও এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন রুনিকে হত্যা করা হয়। এরপর নিহত রুনির ভাই নওশের আলম রোমান শেরেবাংলা নগর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

প্রথমে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন ওই থানার এক উপ-পরিদর্শক (এসআই)। চারদিন পর চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলার তদন্তভার ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কাছে হস্তান্তর করা হয়।

দুই মাসেরও বেশি সময় তদন্ত করে রহস্য উদঘাটনে ব্যর্থ হয় ডিবি। পরে হাইকোর্টের নির্দেশে একই বছরের ১৮ এপ্রিল হত্যা মামলাটির তদন্তভার র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর করা হয়।


আরও খবর



মার্কিন বিনিয়োগ রিপোর্টে ‘ইতিবাচক পয়েন্ট’ দেখছেন পররাষ্ট্র সচিব

প্রকাশিত:Tuesday ০২ August 2০২2 | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
Image

পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সম্প্রতি প্রকাশিত বিনিয়োগ রিপোর্টে বাংলাদেশের জন্য অনেক ‘ইতিবাচক পয়েন্ট’ আছে। তথ্যপ্রযুক্তিতে মার্কিন বিনিয়োগ বাংলাদেশের জন্য ভালো হবে।

সোমবার (১ আগস্ট) বিকেলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

সচিব বলেন, তাদের মূল আগ্রহ জ্বালানি ও আইটিতে। জ্বালানিতে তাদের অনেক বিনিয়োগ আছে। আইটিতেও তাদের বিনিয়োগ এলে সেটা আমাদের জন্য ভালো হবে।

যেসব বিষয় (প্রতিবন্ধকতা) নিয়ে সবাই কথা বলছে সেটি নিয়ে কাজ করতে হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

আগামী সপ্তাহে ঢাকা সফরে আসতে পারেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। এ সফরের প্রসঙ্গ টেনে সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের বহুমাত্রিক সম্পর্ক রয়েছে। তার সফরে রোহিঙ্গা ইস্যু, চীনের সহায়তায় বিভিন্ন চলমান এবং ভবিষ্যৎ প্রকল্প নিয়ে আলোচনা হতে পারে।


আরও খবর