Logo
আজঃ Wednesday ১০ August ২০২২
শিরোনাম
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ২৪৩৫ লিটার চোরাই জ্বালানি তেলসহ আটক-২ নাসিরনগরে বঙ্গ মাতার জন্ম বার্ষিকি পালিত রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে ব্যবসায়ী-শিক্ষার্থী

প্রকাশিত:Tuesday ২৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৬৭জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর বনানী ও সাভারের হেমায়েতপুরে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়েছেন এক ব্যবসায়ী ও এক শিক্ষার্থী। অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা কৌশলে অচেতন করে তাদের কাছ থেকে মোবাইল ও টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

ভুক্তভোগীরা হলেন, হেমায়েতপুরের ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নান (৫৫) ও বনানীর শিক্ষার্থী মো. ফয়সাল আহমেদ (২৪)।

একজনকে সোমবার (২৭ জুন) সন্ধ্যায় ও আরেকজনকে রাত ৯টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ফয়সালের বাবা শাহজাহান বলেন, আমার ছেলে গাজীপুর থেকে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তির কোচিং করে ঢাকায় ফিরছিলেন। পথে বাসের মধ্যে অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা তাকে অচেতন করে টাকা ও মোবাইল নিয়ে যায়। পরে বনানীতে একটি বাস কাউন্টারে তাকে নামিয়ে দেওয়া হয়। এসময় তার কাছে একটি কাগজে আমাদের মোবাইল নাম্বার ছিল। সেখান থেকে আমাদের খবর দেওয়া হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢামেকে নিয়ে আসলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ভর্তি করা হয়।

তিনি আরও বলেন, আমাদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার দেবিদ্বারে। বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিববাড়ি স্টাফ কোয়ার্টারে থাকি।

অপরদিকে ভুক্তভোগী আব্দুল মান্নানের শ্যালক সুমন জানান, তার দুলাভাই ব্যবসা করেন। পাশাপাশি হেমায়েতপুরে বাসা রয়েছে। মিরপুর বাঙলা কলেজের পাশেও তার একটি বাসা রয়েছে। সোমবার হেমায়েতপুরের একটি ব্যাংক থেকে ৫৫ হাজার টাকা তুলে বাসে করে ঢাকায় ফিরছিলেন। পথে অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা তাকে অচেতন করে কাছে থাকা টাকা নিয়ে নেয়। পরে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢামেকে আনা হয়। এখন তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা ভুক্তভোগীদের কাছে থাকা মোবাইল ও ৬০ হাজার টাকা কৌশলে নিয়ে নিয়েছে।


আরও খবর



রাজধানীতে মাদক কারবার-সেবনের অভিযোগে গ্রেফতার ৫৩

প্রকাশিত:Thursday ২১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৩৯জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে ৫৩ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ।

এ সময় তাদের কাছ থেকে নয় হাজার ২৯৩ পিস ইয়াবা, ১০ গ্রাম হেরোইন, নয় কেজি ৯৪৮ গ্রাম গাঁজা, ৩৮ বোতল ফেনসিডিল ও ১০টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন উদ্ধার করা হয়।

বুধবার (২০ জুলাই) ভোর ৬টা থেকে বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) ভোর ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৩৭টি মামলা রুজু হয়েছে।


আরও খবর



দেশকে শিল্পোন্নত করতে জাপানি মডেল অনুকরণে আগ্রহ ছিল বঙ্গবন্ধুর

প্রকাশিত:Sunday ২৪ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ৭১জন দেখেছেন
Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৩ সালের অক্টোবরে জাপান সফর করেন। তার সেই সফরই আজকের বাংলাদেশ-জাপান সম্পর্কের ভিত্তি তৈরি করেছিল। বঙ্গবন্ধু জাপানের আর্থ-সামাজিক ও প্রযুক্তিগত অগ্রগতির একজন প্রশংসক ছিলেন। তিনি একটি কৃষিভিত্তিক দেশকে শিল্পোন্নত দেশে রূপান্তরের জন্য জাপানি মডেল অনুকরণ করতে চেয়েছিলেন।’

রোববার (২৪ জুলাই) বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন জাপানের পররাষ্ট্রবিষয়ক সংসদীয় ভাইস মিনিস্টার হোন্ডা তারো ও জাপান ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশন এজেন্সি (জাইকা) প্রেসিডেন্ট তানাকা আকিহিতো। এসময় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বৈঠকের বিষয়ে জানাতে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

তিনি জানান, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী ও জাপানের দুই নেতা ২০১৪ সালে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের বাংলাদেশে সফরের কথা স্মরণ করেন। শেখ হাসিনা শিনজো আবে হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানান এবং তাকে বাংলাদেশের একজন মহান বন্ধু হিসেবে উল্লেখ করেন।

এসময় জাপানের নেতারা বলেন, শিনজো আবের বাংলাদেশ সফরে বাংলাদেশ ও জাপানের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে একটি ব্যাপক অংশীদারত্বে উন্নীত করেছে।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের তাদের মাতৃভূমি মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনে জাপানের সহায়তা চেয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী জাপানের নেতাদের জানিয়েছেন, রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়ার পর বেশ কয়েক বছর কেটে গেছে এবং তারা এখন আমাদের জন্য বোঝা হয়ে উঠেছে।

জবাবে জাপানের পররাষ্ট্রবিষয়ক সংসদীয় ভাইস মিনিস্টার হোন্ডা তারো বলেন, ‘আমরাও রোহিঙ্গাদের মর্যাদাপূর্ণভাবে প্রত্যাবাসন চাই। এ ইস্যুতে জাপান সবসময় বাংলাদেশকে সমর্থন করছে।’

এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে জাপানের নেতারা অর্থনৈতিক উন্নয়নে পারস্পরিক সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করেছেন। নিজস্ব অর্থায়নে বহুল আলোচিত পদ্মা সেতু নির্মাণের জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে জাপানের নেতা ও জাইকা প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘সেতুটি বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করবে।’

এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘পদ্মা সেতু ও যমুনা নদীর ওপর নির্মিত বঙ্গবন্ধু সেতু দেশের দক্ষিণ ও উত্তরাঞ্চলকে দেশের অবশিষ্ট অংশের সঙ্গে যুক্ত করেছে। জাপান বাংলাদেশের তিনটি মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। মহেশখালীতে কয়লাচালিত মাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্র, মেট্রোরেল ও ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তৃতীয় টার্মিনাল। যা বাংলাদেশের উন্নয়নে বিশেষভাবে সহায়ক হবে।’

জবাবে জাইকা প্রেসিডেন্ট চলমান তিনটি মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নে বাংলাদেশ সরকারের সর্বাত্মক সহায়তার প্রশংসা করেন। জাপানের এ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশের উত্তোরণেরও প্রশংসা করেন।

এসময় প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস ও বাংলাদেশে জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



উচ্চ রক্তচাপের কারণে খেলতেই পারলেন না বাংলাদেশের বক্সার

প্রকাশিত:Friday ২৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ১৮জন দেখেছেন
Image

ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে শুরু হয়েছে ২২তম কমনওয়েলথ গেমস। বৃহস্পতিবার রাতে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে প্রতিযোগীদের লড়াই। প্রথম দিনই বাংলাদেশের খেলা চার ডিসিপ্লিনে।

এর মধ্যে প্রথম হতাশার খবর পাঠিয়েছেন বক্সার সুরকৃষ্ণ চাকমা। এ সময়ের দেশের অন্যতম সেরা বক্সারের শুক্রবার খেলার কথা ছিল ফিজির প্রতিযোগীর বিপক্ষে। তবে সকালে তার রক্তচাপ বেড়ে যাওয়ায় খেলতেই পারেননি।

বার্মিংহাম থেকে বাংলাদেশ কন্টিনজেন্টের শেফ দ্য মিশন অ্যাডভোকেট আবদুর রকিব মন্টু জাগো নিউজকে বলেছেন, ‘খেলার আগে নিয়মমাফিক তার ফিজিক্যাল চেকের সময় অতিরিক্ত রক্তচাপ ধরা পড়ে। একটু পর রক্তচাপ স্বাভাবিক হলেও তাকে খেলতে দেওয়া হয়নি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মেডিক্যাল চেকআপে উত্তীর্ণ না হতে পারায়।’


আরও খবর



অপশক্তির চাপে মাথা নত করবো না: সিইসি

প্রকাশিত:Thursday ২১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ২৮জন দেখেছেন
Image

‘কোনো অপশক্তির চাপে মাথা নত করব না। সংসদ নির্বাচন কঠিন ও ব্যাপক কর্মযজ্ঞ। তবে, সবার আন্তরিক ও সমন্বিত প্রয়াস থাকলে এ ধরনের কর্মযজ্ঞ সাধন অসাধ্য নয়। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) একার পক্ষে এ নির্বাচন অবাধ-নিরপেক্ষ করা সম্ভব নয়। এতে সবার সমবেত প্রয়াস দরকার।

বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) নির্বাচন কমিশন ভবনে গণফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে এসব মন্তব্য করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

সিইসি বলেন, এ পর্যন্ত সংলাপগুলো থেকে অভিন্ন কয়েকটি প্রস্তাব পেয়েছি। অধিকাংশ দল অস্ত্রশক্তি, অর্থশক্তি, পেশিশক্তি প্রদর্শনের অভিযোগ তুলে ধরেছে। অবাধ, নির্বঘ্ন ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য এ বিষয়গুলো প্রতিরোধ করতে হবে।

সিইসি বলেন, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে বিতর্ক চলছে। আমি বিষয়টি সরকারের কাছে তুলে ধরব। এটি নিয়ে রাজনৈতিক সংলাপের প্রয়োজন। আপনারা সরকারের কাছে প্রস্তাব দেন। আমি বিশ্বাস করি, নির্বাচনের স্বার্থে যেকোনো উপযুক্ত প্রস্তাব মেনে নেওয়ার মানসিকতা অবশ্যই একটি দায়িত্বশীল সরকারের থাকবে।

অপশক্তির চাপে মাথা নত করবো না: সিইসি

কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, অন্তত নির্বাচনকালীন সময়ে জনপ্রশাসনকে বিরাজনীতিকরণ করতে হবে। প্রশাসনের লোকজন যাতে নিরপেক্ষ থেকে দায়িত্ব পালন করতে পারেন তার জন্য আইন করা প্রয়োজন। এছাড়া, সমঝোতার প্রয়োজন আছে। এর মাধ্যমে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা আসতে পারে।

সিইসি বলেন, নির্বাচন পরিচালনায় ইসির অনেক সীমাবদ্ধতা থাকতে পারে, আছে। নির্বাচনকালীন সরকারকে নিরপেক্ষ থেকে ইসিকে সহায়তা করতে হবে। এটি সরকারের সাংবিধানিক সংবিধিবদ্ধ দায়িত্ব হবে। কমিশন তার ক্ষমতা সংবিধান, আইন ও বিধি-বিধানের আলোকে প্রয়োগ করবে। প্রয়োজনে নির্বাহী সব কর্তৃপক্ষকে ইসির আদেশ-নির্দেশনা মেনে চলতে হবে।

গণফ্রন্টের চেয়ারম্যান মো. জাকির হুসেনের নেতৃত্বে ১৩ সদস্যের প্রতিনিধি দল সংলাপে অংশ নেয়। এছাড়া, চার নির্বাচন কমিশনার, ইসি সচিবসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



মিলছে না কাঙ্ক্ষিত অনুদান, রাজস্ব আয়ই ভরসা ঢাকার দুই সিটির

প্রকাশিত:Wednesday ০৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ২৪জন দেখেছেন
Image

# পর্যাপ্ত সরকারি-বিদেশি অনুদান না পাওয়ায় বাজেটের দুই-তৃতীয়াংশই বাস্তবায়ন করতে পারছে না ডিএসসিসি ও ডিএনসিসি।
# ১২টি সিটি করপোরেশনকে নিজের আয়ে চলার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর। ফলে রাজস্ব আয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে তারা।
# কিছু অনুদান পাওয়ার আশায় নতুন বাজেটে আগের মতোই সরকারি ও বৈদেশিক উৎস থেকে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরে রেখেছে ঢাকার দুই সিটি।

সরকারি ও বিদেশি উৎস থেকে পর্যাপ্ত অনুদান পাচ্ছে না ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। এতে সংস্থা দুটি তাদের বাজেটের দুই-তৃতীয়াংশই বাস্তবায়ন করতে পারছে না। এমন অবস্থায় রাজস্ব আয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে তারা।

২০২১-২২ অর্থবছরে ৬ হাজার ৫৯৩ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করেছিল ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। এর মধ্যে সরকারি ও বৈদেশিক উৎস থেকে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৪ হাজার ৮২৯ কোটি ২৩ লাখা টাকা। অথচ এই খাতে সংস্থাটি মাত্র ৫২৭ কোটি ৩০ লাখ টাকা পেয়েছে। একই অর্থবছরে ৪ হাজার ৮০৬ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করেছিল ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। এর মধ্যে সরকারি ও বৈদেশিক উৎস থেকে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৩ হাজার ৪৯ কোটি টাকা। আয় হয়েছে মাত্র এক হাজার ২৪০ কোটি টাকা।

ডিএসসিসি ও ডিএনসিসির হিসাব বিভাগের সংশ্লিষ্টরা বলছেন, করোনা মহামারি এবং পরে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে দেশে অর্থনৈতিক সংকট দেখা দেয়। এর ফলে অনেক বড় বড় প্রকল্পের কাজ বন্ধ হয়েছে গেছে। নতুন করে তেমন কোনো বড় প্রকল্পের অনুমোদন দিচ্ছে না সরকার। কয়েক মাস আগে ঢাকার দুই সিটিসহ দেশের ১২টি সিটি করপোরেশনকে নিজের আয়ে চলার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এমন পরিস্থিতিতে রাজস্ব আয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি। তবে কিছু অনুদান পাওয়ার আশায় আগের মতোই ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেটে সরকারি ও বৈদেশিক উৎস থেকে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরে রেখেছে সংস্থা দুটি।

২০২০ সালের মে মাসে ডিএসসিসিতে শেখ ফজলে নূর তাপস ও ডিএনসিসিতে আতিকুল ইসলাম মেয়র পদে নির্বাচিত হন। তখন করোনা মহামারির কারণে সারা দেশ টানা লকডাউনে ছিল। এর মাস দুয়েক পর ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা করে ডিএসসিসি ও ডিএনসিসি। কিন্তু এই বাজেটের চার ভাগের এক ভাগও বাস্তবায়ন করতে পারেনি ডিএসসিসি। ডিএনসিসিও দুই-তৃতীয়াংশ বাস্তবায়ন করতে পারেনি। সরকারি এবং বিদেশি অনুদান না পাওয়ায় এই বাজেট বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

গত ১৯ এপ্রিল জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণসহ দেশের ১২টি সিটি করপোরেশনকে নিজের আয়ে চলার নির্দেশ  দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন তুলে ধরে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, সিটি করপোরেশনগুলো প্রায় অনুদাননির্ভর। প্রধানমন্ত্রী তাদের নিজেদের আয়ে চলতে ও আয় বুঝে ব্যয় করতে বলেছেন। আমরা আর সিটি করপোরেশনগুলোকে টানবো না।

রাজস্ব আয় বাড়াতে দুই সিটির উদ্যোগ
ডিএসসিসি ও ডিএনসিসির হিসাব বিভাগ সূত্র জানায়, সিটি করপোরেশন কর (হোল্ডিং, পরিচ্ছন্ন ও লাইটিং), বাজার সালামি, ট্রেড লাইসেন্স, স্থাবর সম্পত্তি হস্তান্তর কর, বাজার ভাড়া, কোরবানির পশুর হাট ইজারা, রাস্তা খোঁড়া ফি, গাড়ি পার্কিং, কমিউনিটি সেন্টার ভাড়াসহ বিভিন্ন খাত থেকে রাজস্ব আদায় করে। এ ছাড়া সরকারের অন্যান্য খাত থেকেও করপোরেশনের রাজস্ব আয় হয়।

এসব খাতে ২০২০-২১ অর্থবছরে ৭০৩ কোটি ও ২০২১-২২ অর্থবছরে ৮৭৯ কোটি টাকা আয় করেছে ডিএসসিসি। এখন ২০২২-২৩ অর্থবছরে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে এক হাজার ২০৮ কোটি টাকা। গত ২৬ জুলাই ডিএসসিসির নগর ভবনে করপোরেশন সভায় এই বাজেট অনুমোদন দেওয়া হয় 

বাজেট অনুমোদনের সময় ডিএসসিসি মেয়র বলেন, সর্বকালের ইতিহাস ভঙ্গ করে বিগত অর্থবছরে আমরা ৮৭৯ কোটিরও বেশি রাজস্ব আহরণ করেছি। আমরা মাত্র দুই বছরের মধ্যে একটি ভঙ্গুর করপোরেশনকে ঢাকাবাসীর আস্থার করপোরেশনে পরিণত করেছি।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বেলা ১১টায় ডিএসসিসির নগর ভবনে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বাজেট ঘোষণা করবেন মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস । আজ (বুধবার) বিকেলে গণমাধ্যমে এই তথ্য জানিয়েছেন সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা আবু নাছের।

এদিকে, গত ২৮ জুলাই ডিএনসিসির নগর ভবনে অনুষ্ঠিত করপোরেশন সভায় ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট অনুমোদ  দেয় সংস্থাটি। সেদিন ২০২১-২২ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটও অনুমোদন দেওয়া হয়। বাজেটের কপি পর্যালোচনা করে দেখা যায়, ২০২১-২২ অর্থবছরে এক হাজার ১৯৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্র নির্ধারণ করেছিল ডিএনসিসি। আদায় হয়েছে প্রায় ৭৯৮ কোটি টাকা। ২০২২-২৩ অর্থবছরে এই খাতে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে এক হাজার ৬৪৬ কোটি ৯০ লাখা টাকা।

২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট প্রসঙ্গে ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, পুরো বিশ্ব বর্তমানে তিন সি-এর (কোভিড, কনফ্লিক্ট এবং ক্লাইমেট চেঞ্জ) জন্য টালমাটাল অবস্থায় রয়েছে। এই তিন সি আমাদের দেশের জন্যও চ্যালেঞ্জ। প্রধানমন্ত্রীর দক্ষ নেতৃত্বে আমরা এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে এগিয়ে যাচ্ছি। বৈশ্বিক মহামারি করোনা, নানা দেশে (বিশেষ করে রাশিয়া-ইউক্রেনে) চলা সংঘর্ষ এবং জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলা করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন গত ২০২১-২২ অর্থবছরে প্রায় ৮০০ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় করেছে।


আরও খবর