Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নওগাঁয় প্রকাশ্যে বিএনপি নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশিত:সোমবার ২০ নভেম্বর ২০23 | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২১২জন দেখেছেন

Image

নওগাঁ সংবাদদাতা:নওগাঁ শহরের ইয়াদালীর মোড় নামক স্থানে মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা কামাল হোসেন (৫২) নামে এক বিএনপি নেতাকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করেছে। শনিবার অনুমান রাত ১০টার দিকে হত্যাকান্ডের এ ঘটনা ঘটে। নিহত কামাল হোসেন শহরের রজাকপুর এলাকার বাসিন্দা। তিনি নওগাঁ পৌর এলাকার ৯নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ছিলেন। এছাড়া তিনি নওগাঁ নজরুল একাডেমির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস) নওগাঁ জেলা কমিটির সদস্য ছিলেন বিলে জানা গেছে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এদিন রাত ১০টার দিকে সড়কের পাশে কামাল মোটর সাইকেলে বসে মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন। এসময় হঠাৎ করেই মুখোশধারী ও মাথায় হেলমেট পড়া ৫ থেকে ৭জন যুবক চাপাতি ও দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে প্রকাশ্যে কুপিয়ে জখম করে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। দুর্বৃত্তরা কামালের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। ঘটনার পর রক্তাক্ত অবস্থায় কামাল হোসেনকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়ে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। হত্যাকান্ডের কারণ এখনো নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। 

নওগাঁ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফায়সাল বিন আহসান জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আলামত সংগ্রহ ও জড়িতদের চিহ্নিত করার চেষ্টা করছে। লাশের  ময়না তদন্তের পর স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ বিষয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হবে জানান ওসি।


আরও খবর



নেচার ফটো কনটেস্ট ২০২৪ শুরু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১০৩জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক:দেশের জনসংখ্যা বাড়ছে জ্যামিতিক হারে, তার সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে পরিবেশ বিপর্যয়। দেশকে এই বিপর্যয়ের হাত থেকে বাঁচাতে চাইলে দরকার প্রচুর পরিমানে বৃক্ষরোপন। এই লক্ষ্যে উদ্ভুদ্ধ হয়ে ‘মিশন গ্রিন বাংলাদেশ’ এবং ভ্রমণ ও পরিবেশ বিষয়ক জনপ্রিয় কন্টেন্ট ক্রিয়েটর ‘গো উইথ আশরাফুল আলম’ আয়োজন করেছে নেচার ফটো কনটেস্ট ২০২৪।

গাছ লাগানোর সময়ে একটি ফটো তুলে সেটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে #MissionGreenBangladesh এবং #GowithAshrafulAlam হ্যাশট্যাগ লিখে পোস্ট করলেই দশজন পাবেন শ্রীমঙ্গলে দিনব্যাপী নেচার ট্রিপ ও ৫০ জন পাবেন আকর্ষনীয় পোলো শার্ট। গাছ লাগানো এবং প্রতিযোগিতার বিষয়ে বিষয়ে জানতে চাইলে মিশন গ্রিন বাংলাদেশের আহ্বায়ক আহসান রনি জানান, গাছ ঘরে (ইন্ডোর), বারান্দা, ছাদ, বাড়ির বাহিরে কিংবা যেকোন যায়গায় গাছ লাগানো যাবে।

তিনি আরও বলেন প্রতিটি পোস্টে ১ টি ফটো দেয়া যাবে। তবে অনেকগুলো গাছ লাগানো হলে গাছপ্রতি আলাদা আলাদা পোস্ট দেয়া যাবে। কমেন্ট ও রিয়েক্টের ভিত্তিতে সেরা বিজয়ী নির্বাচন করা হবে।

ইচ্ছামত বন্ধুদের ট্যাগ/ম্যানশন করা যাবে এবং সেটাও কমেন্ট হিসেবে বিবেচিত হবে।গো উইথ আশরাফুল আলম প্ল্যাটফর্মের কনটেন্ট ক্রিয়েটর আশরাফুল আলম বলেন ‘বৃক্ষরোপনের অনেক উপকারিতা আছে এবং এইজন্যই বিপন্ন পরিবেশকে ঠিক করতেই আমরা এই ধরনের উদ্যোগ নিয়েছি। মূলত এই ধরনের ছোট ছোট কাজ আমাদের নিজেদেরই জন্যই করা উচিৎ কেননা আমরা প্রকৃতি থেকে যে বিপুল পরিমান অক্সিজেন নেই সেটা কিন্তু বিনামূলতে নিয়ে থাকি। বেঁচে থাকার দায় মেটানোর জন্য হলেও আমাদের নিজেদের অক্সিজেনের যোগান নিজেদেরই দেয়া উচিৎ’।

প্রসঙ্গত, একটি গাছ গড়ে পঞ্চাশ বছরে যে উপাদান ও সেবা দিয়ে থাকে তার আর্থিকমূল্য বিবেচনা করলে গিয়ে দাঁড়াবে প্রায় চল্লিশ লাখ টাকার অংকে। একটি গাছ এক বছরে দশটি এসি’র সমপরিমাণ শীতলতা দেয়, ৭৫০ গ্যালন বৃষ্টির পানি শোষণ করে, ৬০ পাউন্ড ক্ষতিকর গ্যাস বাতাস থেকে শুষে নেয়। এক হেক্টর সবুজ ভূমির উদ্ভিদ সালোকসংশ্লেষণ চলাকালে প্রতিদিন গড়ে প্রায় নয়শ কেজি কার্বন ডাই অক্সাইড গ্রহণ করে এবং ৬৫০ কেজি বিশুদ্ধ অক্সিজেন প্রকৃতিতে ছেড়ে দেয়। এছাড়াও বৃক্ষরাজি আবহাওয়ার তাপমাত্রা হ্রাস করে, বাতাসে আর্দ্রতা বাড়ায় ও ভূমিক্ষয় রোধ করে। তাই পরিবেশ রক্ষায় গাছ লাগানোর কোনো বিকল্প নেই।

উল্লেখ্য, প্রতিযোগিতাটি যৌথভাবে আয়োজন করেছে মিশন গ্রিন বাংলাদেশ ও কনটেন্ট ক্রিয়েটর গো উইথ আশরাফুল আলম অংশগ্রহনেরর শেষ সময় ৩১ জুলাই, ২০২৪ রাত ১১:৫৯ পর্যন্ত।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপারের উদ্যােগে বর্ষাবরণ ও ঈদ পুনর্মিলনী উদযাপন

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১২৭জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সুপারের উদ্যোগে বর্ণিল আয়োজন  ”বর্ষাবরণ ও ঈদ পুনর্মিলনী” উদযাপন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুত্রুবার (২৮ জুন) সন্ধ্যায় খাগড়াছড়ি পুলিশ লাইন্স ড্রিল শেডে পুলিশ সুপারের উদ্যােগে “বর্ষাবরণ ও ঈদ পুনর্মিলনী  অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার) এর সভাপতিত্ব মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্রগ্রাম।বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা এমপি।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক  মো: সহিদুজ্জামান ও তার সহধর্মিণী, খাগড়াছড়ি পৌর  নির্মলেন্দু চৌধুরী, শিক্ষামন্ত্রণালয়ের উপ-পরিচালক, টুটুল কুমার নাগ, সহ খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ,বিভিন্ন পর্যায়ের পুলিশ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের শিল্পী থেকে শুরু করে পুলিশ সদস্যদের নাচ এবং মধুর কন্ঠে গাওয়া গান ও সুর ধ্বনিতে এক অন্যরকম আনন্দঘন পরিবেশে সৃষ্টি হয়েছিল।

সভাপতি,র বক্তব্যে খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মুক্তা ধর  আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ'দের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বলেন যে, প্রাত্যহিক কর্মব্যস্ততার বাইরে পরিবারের সাথে এই বর্ণিল ও উৎসবমুখর দিনটি জেলা পুলিশের প্রত্যেক সদস্যের চিরায়ত সংস্কৃতির প্রতি ভালবাসা বৃদ্ধি ও বাংলা সংস্কৃতিকে হৃদয়ে লালন করতে সহায়ক হবে।খাগড়াছড়ির আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি আমুল উন্নয়নের কারিগর কর্মগুনে আলো ছড়ানো পুলিশ সুপার আরও বলেন আমরা আশা করি, কর্মব্যস্ত সময়ের ফাঁকে আবারও কোনো অবসরে আমরা একই আনন্দ ও উচ্ছ্বাস হৃদয়ে ধারণ করে আবারও মিলিত হব এরকম কোনো আয়োজনে।

প্রধান অতিথি,র বক্তব্যে পার্বত্য চট্রগ্রাম।বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা এমপি বক্তব্যে বলেন, খাগড়াছড়ি জেলার  পুলিশ সুপারকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বলেন যে,রাষ্ট্রের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে রয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী।  সেক্ষেত্রে সমতল জেলা থেকে পাহাড়ি জেলা এলাকায় দায়িত্ব পালন করা অনেক চ্যালেঞ্জিং বলে মনে করেন মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মহোদয়।পুলিশ সদস্যদের দায়িত্বের পাশাপাশি  মানসিক শান্তি রক্ষার্থে বিনোদনের খোরাক হিসেবে এধরণের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনেক সুফল বয়ে আনবে । মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মহোদয় নিজেও উক্ত অনুষ্ঠান অত্যান্ত প্রাণভরে উপভোগ করেছেন বলে জানান।

আরও খবর



ফোর্বস এর প্রচ্ছদে রিয়েলমি’র সিইও স্কাই লি: আবারও জিটি সিরিজ আনার ঘোষণা

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৩১জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:ফোর্বস ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে এবার জায়গা করে নিয়েছেন জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি’র প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও স্কাই লি। দীর্ঘ দুই বছরের বিরতির পর বিশ্ব স্মার্টফোনের বাজারে আবারও জিটি সিরিজ আনার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশের স্মার্টফোনপ্রেমীদের জন্য এ ঘোষণা একটি উল্লেখযোগ্য মাইলফলক। কেননা এবার এআই (কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা) প্রযুক্তির উদ্ভাবনকে সঙ্গী করে নতুন প্রাণশক্তি নিয়ে তীব্র প্রতিযোগিতাপূর্ণ স্মার্টফোনের বাজারে হাজির হতে প্রস্তুত রিয়েলমি’র জিটি সিরিজ।

 ফোর্বস এর সঙ্গে একটি সাম্প্রতিক সাক্ষাত্কারে, প্রতিযোগিতামূলক স্মার্টফোনের বাজারে আলোড়ন তোলার ব্যাপারে রিয়েলমি’র সক্ষমতার ওপর আস্থা প্রকাশ করেছেন স্কাই লি। তিনি তরুণ ব্যবহারকারীদের চাহিদা বোঝার এবং আসন্ন জিটি ৬ সিরিজ গ্রাহকদের প্রত্যাশাকেও ছাড়িয়ে যাওয়ার বিষয়ে ব্র্যান্ডের প্রতিশ্রুতির উপর গুরুত্ব দেন। জিটি সিরিজের ফোন আবারও বাজারে আনতে ব্র্যান্ডের ভক্তদের কাছ থেকে তুমুল দাবির বিষয়টি স্বীকার করে স্কাই লি নিশ্চিত করেন যে, রিয়েলমি তার বিশ্বস্ত গ্রাহকদের হতাশ করতে পারে না।

 স্মার্টফোনের তীব্র প্রতিযোগিতাপূর্ণ বাজারে এমন সময়ে রিয়েলমি’র এ ফোনটি আনার ঘোষণা এলো যখন গ্রাহকরা বিদ্যমান ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনের উদ্ভাবনী বিকল্প খুঁজছেন। জিটি ৬ আনার মাধ্যমে রিয়েলমি’র লক্ষ্য হলো ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনের ধারণাকে নতুন করে সংজ্ঞায়িত করা, যা অতুলনীয় পারফরম্যান্স প্রদর্শনের পাশাপাশি স্মার্টফোন ব্যবহারকারীকে এআই এর অভিজ্ঞতাও প্রদান করবে। ফোনটির আগের সিরিজ রিয়েলমি জিটি ৫জি, যা ভারতে “ফ্ল্যাগশিপ কিলার ২০২১” হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছিল, তার সাফল্যের ওপর ভিত্তি করে নতুন জিটি সিরিজটি পারফরম্যান্স ও ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতায় নতুন মানদণ্ড স্থাপন করতে প্রস্তুত।

 মোবাইল ইন্ডাস্ট্রির কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার যুগে প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে রিয়েলমি একটি এআই নেতৃত্বাধীন স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে যাত্রা করতে প্রস্তুত। স্কাই লি প্রযুক্তির ক্ষেত্র পুনর্নির্মাণে এআই-এর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা তুলে ধরেন। ব্র্যান্ডের স্মার্টফোনগুলোতে অত্যাধুনিক এআই প্রযুক্তিসমূহকে একীভূত করার জন্য রিয়েলমি’র প্রতিশ্রুতির ওপর জোর দেন তিনি। ইমেজিং এবং দৈনন্দিন কাজের বিষয়গুলোতে ফোকাস করে, নতুন রিয়েলমি জিটি সিরিজ সহজবোধ্য এআই সল্যুশন দিয়ে তরুণ ভোক্তাদের ক্ষমতায়ন করবে, যা তাদের ক্রমবর্ধমান চাহিদা ও পছন্দ পূরণে সহায়ক হবে।

 তীব্র প্রতিযোগিতাপূর্ণ স্মার্টফোনের বাজারে রিয়েলমি’র ফিরে আসা এবং এআই উদ্ভাবনের প্রতি গুরুত্ব দেওয়া ব্র্যান্ডের যুগান্তকারী প্রযুক্তি সরবরাহের প্রতি অটল প্রতিশ্রুতিকে তুলে ধরে, যা বাংলাদেশ এবং এর বাইরের তরুণ ভোক্তাদের আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৩৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:এই বাংলাদেশ এগিয়ে যাওয়ার বাংলাদেশ, এই বাংলাদেশ বদলে যাওয়ার বাংলাদেশ। আগামী দিনগুলোয় তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে। ভবিষ্যতে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত করাই সরকারের লক্ষ্য,বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

সোমবার (২৪ জুন) সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে শিক্ষা মন্ত্রণালয় আয়োজিত মাধ্যমিক থেকে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের উপবৃত্তি ও টিউশন ফি বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপির আমলে স্বাক্ষরতার হার ৪৫ ভাগ। আমরা সেটিকে বর্তমানে ৭৬.৮ ভাগে উন্নীত করেছি। এ সময় ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেটে শিক্ষা খাতে বাজেট বাড়ানোয় তা সমাজে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। বিনামূল্যে বই বিতরণের বিষয়টি অনেকে অসম্ভব মনে করলেও আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে তা করে দিয়েছে। ২০১০ সাল থেকে আমরা বিনামূল্যে বই বিতরণ করছি। এখন পর্যন্ত ৪৬৪ কোটির বেশি বই বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বিজ্ঞান, গবেষণা ও প্রযুক্তিজ্ঞান ছাড়া কোনও দেশ বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারে না। আমরা সমস্ত টেলিফোন সিস্টেমকে ডিজিটালাইজ করি। কম্পিউটার শিক্ষার জন্য সুযোগ সৃষ্টি করে দেই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হয় দুই তিনটা কম্পিউটার দিয়ে। ছেলেমেয়েরা যাতে শিক্ষা নিতে পারে তার ব্যবস্থা আমরা নিয়েছি। তাছাড়া আইন পাশ করে ১২টা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণ কাজ শুরু করি। ৭৫ পরবর্তী যারা ক্ষমতায় ছিল তারা গবেষণায় কোনও বরাদ্দ দেয়নি। গবেষণা আমাদের কোনও বরাদ্দ ছিল না। আমাদের প্রথম বাজেট অল্প ছিল। সেখান থেকেও গবেষণার জন্য টাকা দিয়ে দেই। পরে যখন বাজেট দেই তখন ১০০ কোটি টাকা থোক বরাদ্দ দিয়েছিলাম। সেটা ছিল কম্পিউটার শিক্ষা এবং গবেষণায়।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের শুধু একটা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ছিল। আমি আরও কয়েকটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় করে দেই। সেইসঙ্গে ১৬টি বেসরকারের বিশ্ববিদ্যালয়, নভোথিয়েটার প্রতিষ্ঠা, সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউট, বায়ু টেকনোলজি ইনস্টিটিউট, এই সবগুলো আওয়ামী লীগ সরকার আমলে শুরু করেছিলাম।

শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী, শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বেগম শামসুন্নাহার, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব সোলেমান খান।


আরও খবর



প্রাইম ব্যাংক পিএলসি’র সাথে পেরোল ব্যাংকিং চুক্তি করেছে রিভ গ্রুপ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৫৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:শীর্ষ স্থানীয় বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক প্রাইম ব্যাংক পিএলসি’র সাথে পেরোল ব্যাংকিং চুক্তি সই করেছে প্রযুক্তি ও পোশাক খাতের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান রিভ গ্রুপ। চুক্তির প্রধান উদ্দেশ্য রিভ গ্রুপের কর্মীদের জন্য ব্যাংকিং সেবা বাড়ানো।

আজ (১০ জুলাই) গুলশানে ব্যাংকের করপোরেট অফিসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে এ চুক্তি সই হয়।

চুক্তির আওতায়, রিভ গ্রুপের কর্মীদের এক্সক্লুসিভ সুবিধা প্রদান করবে প্রাইম ব্যাংক। সুবিধাগুলোর মধ্যে রয়েছে: অ্যাকাউন্ট, ক্রেডিট কার্ড, ঋণ এবং ডিজিটাল ব্যাংকিং সেবা গ্রহণে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সেবা প্রদান।

প্রাইম ব্যাংকের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. নাজিম এ চৌধুরী এবং রিভ গ্রুপের সিইও মো. রেজাউল হাসান নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন- প্রাইম ব্যাংকের হেড অব কমার্শিয়াল ব্যাংকিং মো. আসিফ বিন ইদ্রিস, হেড অব পেরোল ব্যাংকিং অনুপ কান্তি দাশ, কমার্শিয়াল ব্যাংকিং বিভাগের টিম হেড মেহেদী জামান খান এবং রিভ গ্রুপের ডেপুটি সিএফও মো. শহীদুল ইসলাম সহ উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর