Logo
আজঃ Wednesday ১০ August ২০২২
শিরোনাম
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ২৪৩৫ লিটার চোরাই জ্বালানি তেলসহ আটক-২ নাসিরনগরে বঙ্গ মাতার জন্ম বার্ষিকি পালিত রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড

নজরুলকে ‘জাতীয় কবি’ ঘোষণার গেজেট প্রকাশে রিট শুনানির তালিকায়

প্রকাশিত:Tuesday ২৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৯০জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামকে ‘জাতীয় কবি’ হিসেবে ঘোষণার গেজেট প্রকাশের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশনা চেয়ে করা রিট আবেদনটি শুনানির জন্য কার্যতালিকায় (কজলিস্টে) উঠেছে।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি এসএম মনিরুজ্জামান এর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে এটি শুনানির জন্য রয়েছে।

গত ২২ জুন হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামকে ‘জাতীয় কবি’ হিসেবে ঘোষণা করে গেজেটভুক্ত করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশনা চেয়ে রিট আবেদন করা হয়। এ দিন হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় সুপ্রিম কোর্টের ১০ আইনজীবীর পক্ষে এ রিট করেন আইনজীবী মো. আসাদ উদ্দিন। রিটকারী আইনজীবী নিজেই বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছিলেন।

সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক এবং কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালককে রিটে বিবাদী করা হয়েছে।

এর আগে গত ৩১ মে সুপ্রিম কোর্টের ১০ আইনজীবীর পক্ষে আইনজীবী মো. আসাদ উদ্দিন সংশ্লিষ্টদের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠান। নোটিশ পাঠানোর পরও কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় এ রিট আবেদন করা হয়।

রিটটির বিষয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি এসএম মুনিরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে শুনানির জন্য উপস্থাপন করা হবে বলেও জানান তিনি।

আইনজীবী মো. আসাদ উদ্দিন জানান, কাজী নজরুল ইসলাম মৌখিকভাবে বাংলাদেশের জাতীয় কবি হিসেবে পরিচিত হলেও লিখিতভাবে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি নেই। বলা হয়ে থাকে, ১৯২৯ সালের ১৫ ডিসেম্বর কলকাতার আলবার্ট হলে একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে সর্বভারতীয় বাঙালিদের পক্ষ থেকে কবিকে জাতীয় সংবর্ধনা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু, শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হকসহ গুরুত্বপূর্ণ অনেকে উপস্থিত ছিলেন। ওই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নজরুলকে ‘জাতীয় কবি’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়। সেই থেকে মুখে মুখে তিনি জাতীয় কবি। কিন্তু আজ পর্যন্ত সরকারিভাবে তাকে ‘জাতীয় কবি’ হিসাবে ঘোষণা করে কোনো প্রজ্ঞাপন বা গেজেট প্রকাশ করা হয়নি। এটি অত্যন্ত দুঃখজনক। কারণ রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি কোনো মৌখিক বিষয় নয়।

তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালের ২৪ মে কবিকে বাংলাদেশে আনা হয়। বসবাসের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে ধানমন্ডিতে তাকে একটি বাড়ি দেওয়া হয়। বাংলাসাহিত্য ও সংস্কৃতিতে অবদানের জন্য ১৯৭৪ সালের ৯ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে তাকে ডি-লিট উপাধিতে ভূষিত করা হয়।

এরপর ১৯৭৬ সালে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব দিয়ে সরকারি আদেশ জারি করা হয়। ১৯৭৬ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি তাকে ‘একুশে পদক’ দেওয়া হয়। সবকিছুরই ছবি, তথ্যসহ লিখিত দলিল আছে। কিন্তু নির্মম সত্য এটিই যে, ‘জাতীয় কবি’ হিসেবে সরকারি ঘোষণার কোনো লিখিত দলিল বা প্রমাণক নেই।

বাংলাদেশের দু’টি আইনে জাতীয় কবি হিসেবে নজরুলের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। বিভিন্ন সরকারি আয়োজনে তাকে জাতীয় কবি হিসেবে উল্লেখও করা হয়। কিন্তু সবই পরোক্ষ স্বীকৃতি। এমন স্বীকৃতি কালের পরিবর্তনে মুছে যেতে পারে। আগামীর প্রজন্ম একদিন হয়তো না-ও জানতে পারে যে, আমাদের জাতীয় কবির নাম কাজী নজরুল ইসলাম।

তিনি আমাদের ইতিহাসের অংশ। ইতিহাস ও জাতীয় স্বীকৃতি কখনো অলিখিত থাকতে পারে না। অলিখিত ইতিহাস ও তথ্য সময়ের বিবর্তনে বিলিন হয়ে যায়। এজন্য ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সংরক্ষণে রাষ্ট্রকে বিপুল অর্থ বরাদ্দ দিতে হয়।

এছাড়া নজরুলকে জাতীয় কবি হিসেবে ঘোষণার দাবিতে কবি পরিবারের পক্ষ হতে বার বার দাবি তোলা হয়েছে। নজরুল গবেষক এবং সাহিত্য-সংস্কৃতি সংশ্লিষ্টদের পক্ষ থেকেও দাবি জানানো হয়েছে। কিন্তু অদ্যাবধি এ বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো দৃশ্যমান উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।তাই দেশের সচেতন নাগরিক এবং উচ্চ আদালতের আইনজীবী হিসেবে রিট করা হয়েছে।

রিটকারী আইনজীবীরা হলেন- মোহাম্মদ মিসবাহ উদ্দিন, মো. জোবায়দুর রহমান, আল রেজা মো. আমির, মো. রেজাউল ইসলাম, কে এম মামুনুর রশিদ, মো. আশরাফুল ইসলাম, শাহীনুর রহমান, মো. রেজাউল করিম এবং মো. আলাউদ্দিন।


আরও খবর



ওয়ানডে ক্রিকেট ধীরে ধীরে মরে যাচ্ছে: খাজা

প্রকাশিত:Friday ২২ July 20২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৩৪জন দেখেছেন
Image

অস্ট্রেলিয়ার তারকা ওপেনার উসমান খাজার মতে, ধীরে ধীরে মরে যাচ্ছে ওয়ানডে ক্রিকেট। যে কারণে ইংল্যান্ডের তারকা অলরাউন্ডার বেন স্টোকসের ওয়ানডে থেকে অবসরের খবর অবাক হননি খাজা।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চলতি ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ খেলে এই ফরম্যাট ছেড়ে দিয়েছেন ৩১ বছর বয়সী স্টোকস। ইংল্যান্ডের ২০১৯ সালের বিশ্বকাপের অবিসংবাদিত নায়ক নিজের ক্যারিয়ারে খেলেছেন মাত্র ১০৫টি ওয়ানডে।

অবসরের ঘোষণা দেওয়া বিবৃতিতে একের পর এক খেলার ক্লান্তির কথা উল্লেখ করেছিলেন স্টোকস। কর্তৃপক্ষের ওপর ক্ষোভ ঝেড়ে তিনি বলেছিলেন, ‘আমরা খেলোয়াড়রা মোটরগাড়ি নই যে, তেল ভরলেই চলা শুরু করবো।’

বাস্তবিক চিন্তা করেই একসঙ্গে তিন ফরম্যাট না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন স্টোকস। প্রায় একই পথের পথিক অসি ওপেনার খাজা। ২০১৯ সালের পর অস্ট্রেলিয়ার হয়ে আর সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলেননি এ বাঁহাতি ওপেনার।

তবে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগগুলোতে রয়েছে খাজার উপস্থিতি। তার ভাষ্য, ‘আমার একান্ত নিজস্ব মতামত হলো, টেস্ট ক্রিকেট এখন চূড়া। আবার আছে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট, যেগুলোর অনেক লিগ রয়েছে। সবাই এটি পছন্দ করে।’

খাজা আরও যোগ করেন, ‘এরপর আসে ওয়ানডে ক্রিকেট। আমার মতে, এটি এখন তিন নম্বরে রয়েছে। ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, ধীরে ধীরে মরে যাচ্ছে ওয়ানডে ক্রিকেট। হ্যাঁ এখনও ওয়ানডে বিশ্বকাপ রয়েছে, যা সত্যিই উপভোগ্য। তবে এর বাইরে আমি তেমন আগ্রহ পাই না।’


আরও খবর



আরও ৫০ পয়সা কমেছে টাকার মান

প্রকাশিত:Thursday ২১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | ৬৫জন দেখেছেন
Image

ডলারের বিপরীতে ফের মান হারিয়েছে দেশীয় মুদ্রা টাকা। বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) কেন্দ্রীয় ব্যাংক বিভিন্ন ব্যাংকের কাছে এক ডলার বিক্রি করেছে ৯৪ টাকা ৪৫ পয়সায়। যা বুধবার (২০ জুলাই) আন্তবাজারে বিক্রি হয়েছে ৯৩ টাকা ৯৫ পয়সায়।

জানা গেছে, এক মাসের ব্যবধানে ডলারের বিপরীতে টাকার মান ৫ শতাংশ কমেছে। আর বছরের ব্যবধানে কমেছে ১০.৮০ শতাংশ। অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার খোলাবাজারে এক ডলার বিক্রি হয়েছে ১০১ টাকা পর্যন্ত।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, বৃহস্পতিবার ব্যাংকগুলোর চাহিদা অনুযায়ী ডলার বিক্রি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। আজ আন্তব্যাংকে ৯৪ টাকা ৪৫ পয়সায় এক ডলার বিক্রি করা হয়েছে। এদিন ব্যাংকগুলোর কাছে মোট সাতকোটি ডলার বিক্রি করা হয়।

আমদানি ব্যয় বৃদ্ধি ও প্রবাসী আয় কমে যাওয়ায় দেশে ডলারের তীব্র সংকট তৈরি হয়েছে। এ কারণেই ডলারের দাম প্রতিনিয়ত বাড়ছে । এ সংকট কাটাতে রিজার্ভ থেকে ডলার ছেড়ে বাজার নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

চলতি অর্থবছরের প্রথম ১৮ দিনে (১ জুলাই-১৮ জুলাই) মোট ৬৮ কোটি ডলার বিক্রি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এতেই রিজার্ভে টান পড়ে। প্রায় দুই বছর পর ৪০ বিলিয়ন ডলারের নিচে নেমে এসেছে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ।


আরও খবর



ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ১১৯জন দেখেছেন
Image

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর,ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ-


 ই- প্রেস ক্লাব  বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সারাদিন ব্যাপি চট্রগ্রামের আগ্রাবাদস্থ,ধ্রুবতারা কনভেনশন হলে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে কাজী জিয়া উদ্দিন সোহেল এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ই- প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ও উদ্যোক্তা  সৈয়দ ফজলুল কবীর, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ই- প্রেস ক্লাবের সিলেট বিভাগীয় উদ্যোক্তা মাসুদ লস্কর, চট্রগ্রাম বিভাগীয় উদ্যোক্তা আলহাজ্ব  সৈয়দ আবু মুসার সভাপতিত্বে অন্যান্য দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কর্ণফুলী টেলিভিশন এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক  এম,আর,তাওহীদ, হবিগঞ্জের কামাল হোসেন,মাষ্টার মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন ,এম,এ,আজাদ চৌধুরী, উদ্যোক্তা  নাজমুল কবীর,  মোঃ জাফর ইকবাল তালুকদার- দৈনিক বাংলার ডাক,সাংবাদিক কফিল উদ্দিন, মোঃ মফিজ উদ্দিন, প্রমুখ। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি মাসুদ লস্কর অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা প্রনয়ন করেন। 


প্রধান অতিথির বক্তব্যে সৈয়দ ফজলুল কবীর বলেন, ই প্রেস ক্লাব এর  মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত সাংবাদিকদের জন্য দেশের  মাত্র প্রথম ও একমাত্র প্রযুক্তি সম্পন্ন গণমাধ্যম  শিল্প প্রতিষ্ঠান হিসাবে বাংলাদেশ সরকারের অনুমোদন পেয়েছে।


যা" ই -প্রেস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড" সাংবাদিক দের স্বাবলম্বী করার এক ক্ষুদ্র প্রয়াস মাত্র,যা আগে কোন সাংবাদিক সংগঠন করেনি। তাছাড়া সাংবাদিক দের মুখপাত্র হিসাবে "প্রেস নিউজ "নামে পত্রিকা প্রকাশের উদ্যোগ  নেওয়া হয়েছে। , তিনি আরো বলেন ইতিমধ্যেই আমরা দেশের বাইরে ২১ টি কমিটির অনুমোদন দিয়েছি। শীঘ্রই সারা বিশ্বে আমাদের পদচারণা শুরু করব। ই প্রেস ক্লাবের পথ চলায় উপদেষ্টা হিসাবে সকল প্রকার সহযোগিতা করার জন্য তিনি আরিফুল ইসলাম জিয়া কে ধন্যবাদ জানান। 


বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাসুদ লস্কর বলেন, ই -প্রেস  ইন্ডাস্ট্রিজ সাংবাদিক দের আত্ন নির্ভরশীল করে গড়ে তুলার অন্যতম প্লাটফর্ম।  গণমাধ্যম একটি  লাভজনক শিল্প প্রতিষ্ঠান যা আমাদের দেশের সংবাদকর্মীরা অবগত নয় বিধায় বেশিরভাগ পত্রিকা সংবাদকর্মীদের বেতন ভাতা দেয় না। তারা বিনাবেতনে শ্রম দেয়, এবং অনৈতিক সুবিধা গ্রহণ করে। তাই ই -প্রেস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড  সাংবাদিকদের কর্মক্ষেত্র তৈরির পাশাপাশি বেকারত্ব দূরীকরণে অন্যতম ভুমিকা পালন করবে।


চট্টগ্রাম বিভাগীয় উদ্যোক্তা আলহাজ্ব সৈয়দ আবু মুসা , ই প্রেস ক্লাব প্রথম ৩৬০ আউলিয়ার পুন্যভুমি সিলেটে মানবিক কাজের মাধ্যমে তাদের কার্যক্রম সকলের নজরে আনে আর আজ ১২ আউলিয়ার পুন্যভুমি চট্রগ্রামের মাটিতে বসে পরিকল্পনা প্রনয়ন ও বাস্তবায়নের এজেন্ডা প্রকাশ করায় কেন্দ্রীয় কমিটি কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।


আলোচনা শেষে  প্রশ্নোত্তর পর্বে এক প্রশ্নের জবাবে প্রধান অতিথি সৈয়দ ফজলুল কবীর বলেন " শীঘ্রই আমরা সাংবাদিকদের মুখপাত্র হিসাবে প্রেস নিউজ এবং স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলার জন্য ই-প্রেস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড ও  প্রেস হেলথ কেয়ারের যাত্রা শুরু করব। অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন অল্পদিনের মধ্যেই ই- প্রেস ক্লাব  ইউ,কে,তে নিবন্ধন পেতে যাচ্ছে।


যা ইউ,কে সরকারের কাছে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আলোচনা শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়, এতে বাংলাদেশ বেতারের কয়েকজন শিল্পী সহ স্হানীয় সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন।


আরও খবর



১৫৪ যাত্রী নিয়ে টরন্টো গেল বিমানের প্রথম ফ্লাইট, ফাঁকা ১৪৪ আসন

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৬১জন দেখেছেন
Image

অবশেষে কানাডার টরন্টোর উদ্দেশে উড়াল দিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের প্রথম বাণিজ্যিক ফ্লাইট। বুধবার (২৭ জুলাই) ভোর ৩টা ৫০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ফ্লাইটটি টরন্টোর উদ্দেশ্যে উড়াল দেয়। ফ্লাইটটিতে ১৫৪ জন যাত্রী ছিল।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার জাগো নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ব্র্যান্ড নিউ বোয়িং ৭৮৭-৯ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজের মাধ্যমে ঢাকা-টরন্টো রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান। এ উড়োজাহাজে আসন সংখ্যা ২৯৮টি।

‘টরন্টোগামী বিজি-৩০৫ ফ্লাইটটি তুরস্কের ইস্তাম্বুল বিমানবন্দরে নেমে জেট ফুয়েল নেবে। এ জন্য সেখানে ১ঘন্টা বিরতি নিবে। এরপর এটি আবার টরন্টোর উদ্দেশে রওনা দিবে। তবে ফেরার সময় টরন্টো থেকে সরাসরি ঢাকায় আসবে। যাওয়ার সময় ফ্লাইটটির প্রায় ২০ ঘণ্টা লাগবে। সেখান থেকে বাংলাদেশে ফিরতে সময় লাগবে ১৬ ঘণ্টা।

মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে টরন্টো ফ্লাইটের সময়সূচি জানান তাহেরা খন্দকার। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৭ জুলাই থেকে সপ্তাহে প্রতি বুধবার বিজি-৩০৫ বাংলাদেশ সময় ভোর ৩টা ৩০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে টরন্টোর উদ্দেশে যাত্রা করবে। যাত্রাপথে ফ্লাইটটি রিফুয়েলিংয়ের জন্য স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় তুরস্কের ইস্তাম্বুলে অবতরণ করবে। ১ঘণ্টা বিরতি শেষে ইস্তাম্বুল থেকে রওনা দিয়ে স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ৫৫ মিনিটে ফ্লাইটটি টরন্টো পৌঁছাবে।

এর আগে গত ২৬ মার্চ প্রথমবারের মতো ঢাকা থেকে টরেন্টোর উদ্দেশে পরীক্ষামূলক বাণিজ্যিক ফ্লাইট পরিচালনা করেছিল বিমান।


আরও খবর



বাসে গৃহবধূকে ধর্ষণ: আদালতে পাঁচ আসামির স্বীকারোক্তি

প্রকাশিত:Sunday ০৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

গাজীপুরে তাকওয়া পরিবহনের একটি বাসে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার পাঁচ আসামি আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। রোববার (৭ আগস্ট) বিকেলে পৃথক আদালতে তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়।

এছাড়া ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূর ডাক্তারি পরীক্ষা দুপুরে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছে।

হাসপাতালে চিকিৎসক এএনএম আল মামুন জানান, ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। তারপরও ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য ওই নারীর ডিএনএ পরীক্ষা জন্য আলামত পাঠানো হয়েছে।

গাজীপুরের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক ইখলাস উদ্দিনের আদালতে আসামি সজিব ও শাহীন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে। মো. রকিব মোল্লা ও সুমন হাসান জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইসরাত জেনিফার জেরিনের আদালতে ও আসামি মো. সুমন খান জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জুবাইদা নাসরিন বর্নার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

এছাড়া ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রিফাত আরা সুলতানার আদালতে জবানবন্দি দেন।

পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ সাংবাদিকদের জানান, আসামিরা ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে। ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশের কয়েকটি টিম তথ্যপ্রযুক্তি ও বিভিন্ন সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে আসামিদের শনাক্ত করতে সক্ষম হয়। ঘটনার ১২ ঘণ্টার মধ্যে জড়িত সব আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শ্রীপুর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল আজিজ বলেন, ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ প্রথমে শ্রীপুরের কদমতলী এলাকা থেকে তিনজনকে গ্রেফতার করে। পরে গাজীপুর মহানগরীর চান্দনা চৌরাস্তা এলাকা থেকে অপর দুজনকে গ্রেফতার বাসটি জব্দ করা হয়।

মো. রাকিব মোল্লা (২৩) নারায়নগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার থানার দরিপাড়া গ্রামের আলী আকবরের ছেলে, সুমন খান (২০) নেত্রকোনা জেলার সদর উপজেলার গুপিরঝুপা গ্রামের মৃত সানোয়ারের ছেলে। তিনি ওই বাসের চালক, মো. সজিব (২৩) ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল থানার কাঁঠালকাচারি গ্রামের মৃত কফিলের ছেলে, মো. শাহিন মিয়া (১৯) একই জেলার হালুয়াঘাট থানার বিলডোলা গ্রামের তুলা মিয়ার ছেলে ও মো. সুমন হাসান (২২) খুলনার রূপসা থানার খান মোহাম্মদপুর গ্রামের মৃত নুর আলমের ছেলে।

এর আগে শনিবার নওগাঁ থেকে ভোর ৩টার দিকে গাজীপুর মহানগরের ভোগড়া বাইপাসে স্বামীর সঙ্গে নামেন এক নারী। ময়মনসিংহের স্কয়ার মাস্টারবাড়ি এলাকায় ভাড়া বাড়িতে যেতে অপর একটি গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন। ভোর ৩টা ১০মিনিটে স্কয়ার মাস্টারবাড়ি যাওয়ার উদ্দেশে তাকওয়া পরিবহনে উঠে ওই বাসে ৬-৭ জন যাত্রীর দেখতে পান। রওনা দেওয়ার কিছু সময় পর বাসটি ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের হোতাপাড়ায় পৌঁছালে দুজন যাত্রী নেমে যান। রাত ৩টা ৪০ মিনিটে বাসটি মহাসড়কের মাওনা চৌরাস্তা ফ্লাইওভার পার হয়ে কিছু দূর সামনে গেলে চলন্ত বাসে থাকা অজ্ঞাতনামা ২-৩ জন লোক হঠাৎ ওই নারীর স্বামীকে মারধর শুরু করলে তাদের ঠেকানোর চেষ্টা করেন ওই নারী।

এ সময় অজ্ঞাত লোকজন ওই নারীর মুখ চেপে ধরে রাখেন এবং তার স্বামীকে মারধর করে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের এমসি বাজার এলাকায় চলন্ত বাস থেকে ফেলে দিয়ে ওই নারীকে ঢাকার দিকে চলে যায়। স্বামী বাস থেকে পড়ে আঘাত পেয়ে স্কয়ার মাস্টারবাড়ি এলাকার বোনের বাসায় চলে যান। সকালে অপরিচিত একটি মোবাইল থেকে ফোন করে ওই নারী বিস্তারিত ঘটনা জানান। তিনি জয়দেবপুর থানায় আছেন বলে স্বামীকে জানান।


আরও খবর