Logo
আজঃ রবিবার ২৬ মে ২০২৪
শিরোনাম

নির্বাচন ইস্যুতে শীর্ষ দুই জাপা নেতার ভিন্ন সুর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | ২৬২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক ;দলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের জন্মদিনের কর্মসূচিতেও এক প্ল্যাটফর্মে আসতে পারেননি জাতীয় পার্টির (জাপা) শীর্ষ দুই নেতা। দিনটি উপলক্ষে দলটির প্রধান পৃষ্ঠপোষক বেগম রওশন এরশাদ এবং বর্তমান চেয়ারম্যান জিএম কাদের ভিন্ন ভিন্ন কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছেন। এমনকি আগামী জাতীয় নির্বাচন নিয়ে দলের নীতিগত বিষয়েও পরস্পরবিরোধী বক্তব্য রেখেছেন তারা।

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের জন্মদিন উপলক্ষে নিজ বাসভবনে আলোচনাসভার আয়োজন করেন রওশন এরশাদ। সেখানে তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি এরশাদের নিজস্ব পার্টি। কল্যাণমূলক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে তিনি এই পার্টি দাঁড় করিয়েছেন। আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনের এখনো অনেক দেরি আছে। সাংবিধানিক ধারা মেনে আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে জাতীয় পার্টি।’

এরশাদের জন্মদিনে পৃথক আয়োজনের বিষয়ে রওশন বলেন, ‘পৃথক অনুষ্ঠান দলের মধ্যে দ্বন্দ্ব প্রমাণ করে না। দলীয়ভাবে নেতার জন্মদিন স্মরণ করে কর্মসূচি পালন করেছে। বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে আমিও দোয়ার আয়োজন করেছি। এতে কোনোভাবেই দলের মধ্যে দ্বন্দ্ব বা বিভেদ প্রমাণ করে না।’ জাতীয় পার্টিতে কোনো বিভেদ নেই বলে দাবি করেন তিনি।

এতে আরও বক্তব্য রাখেন বিরোধীদলীয় নেতার মুখপাত্র কাজী মামুনূর রশীদ, সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য মাসুদ পারভেজ সোহেল রানা, বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গা, সাবেক উপদেষ্টা জিয়াউল হক মৃধা এবং এরশাদের ছেলে রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদ প্রমুখ।

অন্যদিকে গতকাল সোমবার রাজধানীর কাকরাইলে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এরশাদের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘কোনো কর্তৃত্ববাদী সরকারের অধীনেই সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। নির্বাচনের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের এবং প্রশাসনকে সরকারদলীয় স্বার্থে ব্যবহার করছে। এমন অবস্থায় কখনো সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়।’ সার্বিক অবস্থা বিবেচনা করে নির্বাচনের আগে জাতীয় পার্টি তাতে অংশগ্রহণ করবে কিনা সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।

বড় দুটি রাজনৈতিক দলের অবস্থানে দেশ সহিংসতা ও রাজনৈতিক অস্থিরতার দিকে ধাবিত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন জিএম কাদের। আগামী নির্বাচনে ৩০০ আসনে প্রার্থী দিতে জাপা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাপা মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নু, কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, প্রেসিডিয়াম সদস্য গোলাম কিবরিয়া টিপু, এসএম আব্দুল মান্নান, সুনীল শুভ রায়, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন প্রমুখ।

এ ছাড়াও এরশাদের স্মৃতিবিজড়িত প্রেসিডেন্ট পার্কে এরশাদপুত্র এরিকের উদ্যোগে মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় তার মা বিদিশা সিদ্দিক উপস্থিত ছিলেন। পরে তারা বিভিন্ন এতিমখানায় গিয়ে খাবার বিতরণ করেন।


আরও খবর



স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রীকে গুলি, অবস্থা আশঙ্কাজনক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১৬৯জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী রবার্ট ফিকো বন্দুকধারীর গুলিতে গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

স্থানীয় সময় বুধবার (১৫ মে) বিকেলে হ্যান্ডলোভা শহরের হাউস অব কালচারের বাইরে তাকে তাকে লক্ষ্য করে পরপর চারটি গুলি করা হয়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্ত হামলাকারীকে আটক করেছে পুলিশ। খবর  সিএনএন-এর।

স্থানীয় বার্তা সংস্থা টিএএসআর’র বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, রাজধানী ১৫০ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বের শহর হ্যান্ডলোভায় নিজ দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করছিলেন ফিকো। এ সময় তার ওপর গুলি চালানো হয়। তার পেটে ৪টি গুলি লেগেছে। এরই মধ্যে এক সন্দেহভাজনকে আটক করা হয়েছে।

ফিকোর গুলিবিদ্ধ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পার্লামেন্টের ভাইস চেয়ারম্যান লুবস ব্লাহা। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী গুলিবিদ্ধ হওয়ায় অনির্দিষ্টকালের জন্য সংসদের অধিবেশন স্থগিত রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, হাউস অব কালচার সেন্টারের বাইরে বেশ কিছু মানুষ হামলাকারীকে ধরতে ছুটছে।

স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী রবার্ট ফিকো’র ফেসবুক পেজ থেকে তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীকে লক্ষ্য করে একাধিক গুলি ছোড়া হয়েছে এবং তার জীবন হুমকির মধ্যে রয়েছে। এই মুহূর্তে তাকে হেলিকপ্টারে করে বাঙ্কসা বায়াসত্রিকাতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। কারণ ব্রাতিসলাভাতে পৌঁছাতে বেশি সময় প্রয়োজন হবে।

তবে ঠিক কী কারণে গুলি চালানো হয়েছে, সেটার কারণ আপাতত স্পষ্ট নয়। বিষয়টি নিয়ে স্লোভাকিয়ার কর্তৃপক্ষ কোনো মন্তব্য করেনি।


আরও খবর



হিলি স্থলবন্দরে আন্তর্জাতিক মে দিবস পালিত

প্রকাশিত:বুধবার ০১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৯৩জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:আলোচনা সভা,র‌্যালী ও পতাকা উত্তোলনের মধ্যে দিয়ে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে আন্তার্জাতিক মে দিবস পালিত হয়েছে।

বুধবার সকাল সাড়ে ৯ টায় হিলি চারমাথা মোড়ে স্থলবন্দর শ্রমিক সংগঠন কার্যালয়ে জাতীয় ও মে দিবসের পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে একটি র‌্যালি বের হয়ে বন্দরের প্রধান প্রধান সড়কগুলি প্রদক্ষিণ করে।

এরপর সেখানে মে দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ইদ্রিস আলী মিঠু এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন,হিলি স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন উর রশিদ হারুন।

এতে অন্যান্যদের মধ্য বক্তব্য রাখেন,বাংলাহিলি কাস্টমস সিআ্যন্ডএফ এজেন্ট আ্যসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত,উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শাহেদ মল্লিক বাবু,সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার লিয়াত আলী,মে দিবস উদযাপন কমিটির সমন্বয়ক

মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরীসহ স্থলবন্দর কুলি শ্রমিক,ইমারত নির্মাণ শ্রমিক,ট্রাক ট্যাংকলরী শ্রমিক,হিলি-বগুড়া-দিনাজপুর বাস মালিক সমিতি,স্থলবন্দর ট্রাক ড্রাইভার সমিতি, ইজিবাইক, অটোরিকশা,ভ্যান চালকসহ বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহণ করেন মে দিবসে। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন,আগামীতে হিলি স্থলবন্দর এলাকার যে কোন সংগঠনের শ্রমিকদের সকল প্রকার সমস্যার দ্রুত সমাধান করার দেন। সেই সাথে সকল শ্রমিক সংগঠন মিলে একটি সংগঠন তৈরির আহবান জানানও তিনি।


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়ার পথে

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ | ৯৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজ বাড়ি ও নির্বাচনি এলাকা গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন। আজ শুক্রবার (১০ মে) সকাল ৭টার পর গোপালগঞ্জের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং তা জানিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধে শ্রদ্ধা নিবেদনের পাশাপাশি ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেবেন।

পরে ‘আমার বাড়ি আমার খামার’ কর্মসূচির আওতায় দাঁড়িয়ারকুল সমবায় সমিতির সদস্যদের মধ্যে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে কৃষি উপকরণ ও নগদ সহায়তা দেবেন প্রধানমন্ত্রী। এ ছাড়া আওয়ামী নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। এরপর বিকেলে ঢাকায় ফিরে আসবেন শেখ হাসিনা।

এদিকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে টুঙ্গিপাড়াসহ জেলাজুড়ে নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা।


আরও খবর



ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত মেধাবী শিক্ষার্থী তাসলিমা চিকিৎসার জন্য সাহায্যের আবেদন

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ২১জন দেখেছেন

Image
সাইদুর রহমান মাগুরা থেকে:স্ত্রী আর তিন সন্তান নিয়ে টেনেটুনে সংসার চলছিল জুয়েল হোসেনের। ভ্যান চালিয়ে যা আয় হয়, তা দিয়ে চলত জুয়েলদের পরিবার। এরই মধ্যে তাঁর আদরের বড় কন্যা তাসলিমার দেহে বাসা বাঁধে মরণব্যাধি ব্লাড ক্যানসার। ক্যানসার আক্রান্ত মেয়েকে নিয়ে দিশেহারা জুয়েল ও রাশিদা দম্পতি। হাতপায়ের ব্যাথায় বাড়িতে বিছানায় ছটফট করলেও অর্থাভাবে মিলছে না তাসলিমার চিকিৎসা। 

 নহাটা রাণী পতিত পাবনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী তাসলিমা৷ মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা ইউনিয়নের ইন্দ্রপুর গ্রামে বসবাস তাদের। জেলা সদর থেকে শুরু করে দেশের নামীদামী সব হাসপাতালে চিকিৎসার একপর্যায়ে তাসলিমার ঠাঁই হয় ঢাকা মেডিকেলের হেমাটোলজি ডিপার্টমেন্টে।  বহু পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে জানা যায় তাসলিমা ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত। নিজেদের সামান্য অর্থ, ধারদেনা, আত্মাীয়স্বজনের সহায়তা ও স্থানীয়দের আর্থিক অনুদানে পরীক্ষা- নিরীক্ষা আর হাসপাতালে ঘুরতে ঘুরতে সব শেষ। 

জরুরি তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা না দিলে বাঁচানো কঠিন হয়ে পড়বে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। তাসলিমার চিকিৎসা এগিয়ে নিতে কমপক্ষে দুই লাখ টাকার প্রয়োজন। সেই অর্থ জোগাড়ের উপায়ন্তর না দেখে সংকটাপন্ন মেয়ে ও পরিবার নিয়ে অসহায় হয়ে পড়েছেন জুয়েল। 

তাসলিমার জীবন বাঁচাতে সে তার সহপাঠী, বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী, দেশে এবং প্রবাসে অবস্থিত বিত্তবান ও মানবিক মানুষদের কাছে অর্থ সহায়তা চেয়েছে।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা
সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর ০১০০২২২৭৯৫৩৮৩। 

আরও খবর



টাঙ্গাইলের মধুপুরে শান্তিপূর্ণ ভাবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সম্পূর্ণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ মে 20২৪ | ১৪৮জন দেখেছেন

Image

বাবুল রানা মধুপুর প্রতিনিধিঃহাজারো জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অত্যান্ত সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভাবে শেষ হলো ১ম ধাপে মধুপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন।মধুপুরের লালমাটির অঞ্চলের মানুষ প্রায় দীর্ঘ ৩৪ বছর পর ২য় বারের মতো উপজেলা চেয়ারম্যান পেলেন।৯০ দশকে বৃহত্তর মধুপুর ধনবাড়ী নিয়ে গঠিত উপজেলায় পাহাড়ি অঞ্চলের সরকার পরিবার থেকে  প্রথমবারের মতো  আব্দুল বাছিদ সরকার মোমবাতি প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয় লাভ করেন।

হিন্দু, বোদ্ধ, খৃষ্টান আদিবাসী মিলে রাজনৈতিক মতাদর্শ ভুলে এক কাতারে সবাই চলে আসেন আব্দুল বাছিদ সরকার কে বিজয়ী করতে।এবারেও উপজেলা নির্বাচনে জাতী ধর্ম, দলমত ভুলে সবাই একজন মানুষ গড়ার কারিগর এডভোকেট ইয়াকুব আলীকে বেছে নিয়েছেন। এ নির্বাচনে হাজারো ভিন্ন মতের মানুষ রয়েছেন যারা নির্বাচন করেছেন অন্যের কিন্তু বাড়ি পরিজনের ভোটটি দিয়েছেন ইয়াকুব আলীকে। তিনি একজন সৎ সাদা মনের মানুষ বলেই সর্বস্তরের ৭৩৩২৮ জন ভোটার ব্যালটের মাধ্যমে তার প্রমান দেখিয়েছে। 

এ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তিনজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ছয়জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এ উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ৫৫ হাজার ২১৮ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের একজন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ২৭ হাজার ৪১৯ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ২৭ হাজার ৭৯৮ জন। মোট ভোটকেন্দ্র ছিলো ৯০টি এবং ভোটকক্ষ ৬০৪টি।নির্বাচনের পরিবেশ অবাধ ও সুষ্ঠু করতে নিয়োজিত ছিলো  সাত প্লাটুন বিজিবি, দুই প্লাটুন র‍্যাব, প্রতিটি কেন্দ্রে চারজন পুলিশ।

১৫ জন আনসার সদস্য এবং একজন  নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেছেন।নির্বাচন পরিদর্শনে আসেন, টাঙ্গাইল জেলা সহকারী পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার। তার দিকনির্দেশনায় মধুপুর সহকারী পুলিশ সুপার ফারহানা আফরোজ জেমি ও থানা ইনচার্জ মোল্লা আজিজুর রহমান   তাঁর চৌকস পুলিশ অফিসারদের নিয়ে   মধুপুর উপজেলাকে  নিরাপত্তার চাদরের প্রাচীর তৈরি করেন। যেকারণে  কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।এখানে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী আনারস প্রতীক নিয়ে এডভোকেট ইয়াকুব আলী ৭৩৩২৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে ৪৪৪১৫ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন মো. সজীব এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে ৭২৯৯০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন নিগার সুলতানা রুবি।মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনায় এ উপজেলা নির্বাচন সুষ্ঠু অবাধ ও শান্তিপূর্ণ হওয়ায় দেশে  আবারও নতুন করে ভোটের পরিবেশ খোঁজে পেয়েছে সর্বস্তরের জনগণ। প্রতিহিংসা, আক্রোশ, বিভেদ ভুলে নতুন এই উপজেলা চেয়ারম্যান হোক সকল মানুষের, প্রতিটি নাগরিকের এমন প্রত্যাশা সকলের।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর