Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার বর ও কনের বাড়ীতে শোকের মাতম রাশিয়ায় বন্দুকধারীদের ভয়াবহ হামলায় ১৫ পুলিশ সদস্য নিহত

নেপাল থেকে ৪০ মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ কিনবে সরকার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৯৬জন দেখেছেন

Image

সরকার ভারতের জাতীয় গ্রিড ব্যবহার করে নেপাল থেকে পাঁচ বছরের জন্য ৪০ মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ আমদানি করবে । যার প্রতি ইউনিট ব্যয় হবে ৮ টাকা ১৭ পয়সা। মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুরে এ জলবিদ্যুৎ আমদানির অনুমোদন দিয়েছে পণ্য ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

জানা গেছে, বিদ্যুৎ আমদানির বিষয়ে গত বছরের মে মাসে বাংলাদেশ ও নেপালের মধ্যে একটি চুক্তি হয়। চুক্তি অনুযায়ী নেপালের ত্রিশুলি প্রকল্প থেকে ২৪ মেগাওয়াট এবং অন্য একটি বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে ১৬ মেগাওয়াটসহ মোট ৪০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ বাংলাদেশে আসবে। ভারত হয়ে বাংলাদেশের ভেড়ামারায় জাতীয় গ্রিডে এ বিদ্যুৎ আসবে।

নেপালের এ বিদ্যুৎ আমদানির লক্ষ্যে গত ১০ সেপ্টেম্বর বৈঠকে বসে ‘বিদ্যুৎ খাত উন্নয়ন ও আমদানি’ সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। সাবেক অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ওই কমিটির প্রধান ছিলেন। বৈঠকে আ হ ম মুস্তাফা কামাল নেপাল থেকে বিদ্যুৎ আমদানির ট্যারিফ জানতে চাইলে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ জানান, নেপাল থেকে আমদানি করা বিদ্যুতের দাম দেশে কয়লাভিত্তিক উৎপাদিত বিদ্যুতের দামের তুলনায় কম পড়বে।

ওই বৈঠকের আলোচনায় উঠে আসে, নেপাল শীতকালে বাংলাদেশ কাছ থেকে বিদ্যুৎ নিতে আগ্রহী। শীতে নেপালে বিদ্যুতের চাহিদা বেশি থাকে, অন্যদিকে বাংলাদেশে চাহিদা কম থাকে


আরও খবর



ফুলবাড়ীতে যুবকদের হুইসেল ব্লোয়ার হিসাবে অন্তর্ভূক্তিকরণ সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৫৫জন দেখেছেন

Image

আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার পৌরসভা এলাকার সুজাপুর মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভা কক্ষে নাগরিক প্লাটফর্ম ও অন্যান্য স্টেক হোল্ডার দের সাথে যুবকদের হুইসেল ব্লোয়ার হিসেবে অর্ন্তরভূক্তিকরন সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল শনিবার বিকেল ৪টায় সুজাপুর মডেল প্রাথমিক সভা কক্ষে নাগরিক প্লাটফর্ম ও অন্যান্য স্টেট হোল্ডারদের সাথে যুবকদের হুইসেল ব্লোয়ার হিসেবে অন্তরভূক্তিকরণ সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বীরমুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক ডিপুটি কমান্ডার মোঃ এছার উদ্দীন। এ সময় উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন ডেমক্রেস ওয়াচ অস্থা প্রকল্পের জেলা সমন্বয়কারী মোঃ কামরুজ্জামান, মনিটরিং রিপোটিং কালেক্টর মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। তিনি বলেন, বর্তমান যুব সমাজ প্রযুক্তি ও স্যোসাল মিডিয়ার প্ল্যাটফর্মগুলোতে পারদর্শী। হুইসেল ব্লোয়িং করার জন্য প্রযুক্তির ব্যবহারে একটি শক্তিশালী হাতিয়ার হতে পারে। আজকের যুব সমাজ বিভিন্ন পরিচয়ে নেতা, কর্মচারী, ভোক্তা ইত্যাদি আগামী দিনের নাগরিক। তাই হুইসেল ব্লোয়িং প্রক্রিয়ায় যুবকদের অন্তর্ভুক্ত করা হলে, তারা ভবিষ্যতে নিজ সম্প্রদায় বা সংস্থায় দায়িত্বশীল স্টেকহোল্ডার হয়ে উঠবে। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন মাদিলহাট কলেজের প্রভাষক আবু শহীদ, সাংবাদিক মোঃ রজব আলী, ইমাম আব্দাল সাত্তার, ফুলবাড়ী থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সিনিয়র সাংবাদিক মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ওয়াহেদুল ইসলাম ডিফেন্স, গুপ্তা প্লাইউড এর এমডি আনন্দ কুমার, ফুলবাড়ী উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান উজ্জ্বল। যুবকদের হুইসেল ব্লোয়ার অন্তর্ভূক্তিকরণ সভায় উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রী, মসজিদের ইমাম, মুক্তিযোদ্ধা, সমাজের বিত্তবান, ব্যবসায়ী, কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা সহ শতাধিক বিভিন্ন সমাজের সচেতন ব্যক্তিরা, স্টেক হোল্ডার এবং যুবকদের হুইসেল প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করেন। আয়োজনে ছিলেন ডেমোক্রেসি ওয়াচ।


আরও খবর



নবীনগরে ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাকুট উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২৭জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মাদ হেদায়েতুল্লাহ্ নবীনগর ব্রাহ্মণবাড়ীয়া প্রতিনিধিঃব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বিদ‍্যাপিট, বিদ‍্যাকুট অমর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠার শতবর্ষ পূর্তি উৎসব উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত হয়েছে।শনিবার দিনব্যাপী অত্র বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি , শিক্ষকমন্ডলী ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের এক যৌথ উদ্দ্যোগে,বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে, জেলা ও উপজেলার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গগণের উপস্থিথিতে মনোমুগ্ধকর।

`মনোরম পরিবেশে, বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠার শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভাও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত হয়েছে।সকাল থেকে রাত পর্যন্ত নবীন- প্রবীণ ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পদচারণে মুখরিত ছিল অত্র বিদ্যালয়ের প্রাঙ্গণ।অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য ফয়জুর রহমান বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে শতবর্ষ স্মৃতি স্তম্ভের উদ্বোধন করেন।অনুষ্ঠানের পূর্বে, আমন্ত্রিত অতিথিদেরকে প্রথমে ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়ে বরণ করে নেয়ার পড়ে সাদা কবুতর উড়িয়ে শান্তির কামনায় অনুষ্ঠান টি সূচনা করেন।

অনুষ্ঠান চলাকালে অত্র বিদ্যালয়ের বর্তমান শিক্ষার্থীরা, প্রাক্তন সকল শিক্ষার্থীদের হাতে  রজনীগন্ধা স্টিক দিয়ে বরণ করে নেয়।উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অত্র বিদ‍্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আবদুল আউয়ালের সভাপতিত্বে ও আব্দুল মতিন শিপনের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর)আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ফয়জুর রহমান বাদল।

এছাড়াও বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নবীনগরের কৃতি সন্তান ট্যুরিস্ট পুলিশের সিলেট জোনের পুলিশ সুপার বিল্লাহ হোসেন,ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোনাহর আলী, নবীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জহিরউদ্দিন চৌধুরী শাহন, উপজেলা সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউল হক সরকার, বিদ্যাকুট ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান জাকারুল হক,শিবপুর সুর সম্রাট আলাউদ্দিনের ডিগ্রী  কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ  সিরাজুল ইসলাম।

অত্র বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি শফিকুর রহমান,  অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আসাদুজ্জামান সরকার, ডা. মাহবুবুর রহমান - সহ শতবর্ষ উদযাপন কমিটির সকল নেতৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার অসংখ্য অগণিত গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় শতবর্ষ উৎসবে চিরকুট, কনসার্ট চলে মধ্যরাত পর্যন্ত।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



মাগুরায় সহকারি জজ আদালত বর্জন মানববন্ধন

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জুন 2০২4 | হালনাগাদ:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরা সদর সহকারি জজ  আদালতের বিচারক মোঃ শফিকুর ইসলামের অযোগ্যতা,  অদক্ষতা বেআইনী ও অবৈধ কর্মকান্ডের  প্রতিবাদে আদালতে কর্মরত আইনজীবীরা তার আদালত বর্জন করে মানববন্ধন করেছে। রবিবার সকালে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে মাগুরা বারের সিনিয়র আইনজীবী প্রত্যুত কুমার সিংহ,  এড,তপন কুমার ঘোষ, এড, মফিজুর রহমান, এড, মিজানুর রহমান  নেতৃত্ব দেন। আইনজীবীরা মাগুরা জেলা জজ আদালতের সামনে আয়োজিত এ মানববন্ধনে বলেন, অযোগ্য ব্যাক্তির আদালতে অবৈধ বৈধভাবে কাজ করা দুরুহ হয়ে উঠেছে। অভিলম্বে  এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা দাবি করেন আইনজীবীরা।


আরও খবর



গাংনীতে শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রি উত্যক্তর অভিযোগ

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১১০জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুরঃমেহেরপুরের গাংনীর বাওট সোলাইমানি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক মিরাজুল ইসলামের বিরুদ্ধেসপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রিকে উত্যক্ত করার অভিযোগ উঠেছে । লজ্জ্বা ভয়ে ওই ছাত্রি বিদ্যালয়ে আসা বন্ধ করে দিয়েছে। এ ঘটনায় ফুঁসে উঠেছেন এলাকাবাসি। তোপের মুখে আত্মগোপন করেছেন ওই শিক্ষক । এদিকে অভিযুক্ত শিক্ষককে বাঁচাতে গোপনে সমঝোতার চেষ্টা ও ঘটনা আড়াল করতে ব্যর্থ হয়েছেন প্রধান শিক্ষক। 

জানা গেছে, বেশ কিছুদিন যাবত ওই ছাত্রিকে শিক্ষক মিরাজুল ইসলাম বিভিন্ন সময় নানা ধরনের কুরচিপূর্ণ কথা বলেন। দিন পাঁচেক আগে শিক্ষক মিরাজুল ওই ছাত্রিকে বিদ্যালয়ে একটি কক্ষে নিয়ে কু প্রস্তাব দেয়। লোক লজ্জ্বার ভয়ে ছাত্রিটি বিদ্যালয়ে আসা বন্ধ করে দেয় ও পরিবারের লোকজনকে জানায়। বিষয়টি জানানো হয় প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষককে। সেই সাথে জেনে যান বিদ্যালয়ে পরিচালনা পর্ষদসহ এলাকার লোকজন।

এলাকার কয়েকজন জানান, একজন ছাত্রি একজন শিক্ষকের মেয়ে তুল্য। কীভাবে তাকে কুপ্রস্তাব দেয় ? তার বিচার হওয়া প্রয়োজন। এজন্য ছাতিয়ান ও বাওট গ্রামের লোকজন ফুঁসে উঠেছে। গত রোববার ও আজ সোমবার এলাকার লোকজন বিদ্যালয়ে আশে পাশে অবস্থান নেয়। অবস্থা বেগতিক দেখে ওই শিক্ষক আত্মগোপন করেন। শিক্ষক মিরাজুল দুশ্চরিত্রের মানুষ। তাকে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না বলেও জানান তারা।

এলাকাবাসি আরো জানান, ওই শিক্ষককে বাঁচাতে ও ঘটনা আড়াল করতে প্রধান শিক্ষক সোহরাব হোসেন মিথ্যাচার করেন। ঘটনাটি আদৌ সত্য নয় বলে প্রচার করতে চাইলে ওই শিক্ষার্থী ও তার পরিবারের লোকজন পুরো ঘটনাটি এলাকার জনপ্রতিনিধিদেরকে অবহিত করেন। এর পরই প্রধান শিক্ষক দমে যান। তাছাড়া ঘটনার ৫দিন অতিবাহিত হলেও প্রধান শিক্ষক ওই ক্রিড়া শিক্ষকের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেন নি এবং উর্ধ¦তন কর্মকর্তাকে অবহিত করেন নি।

কয়েকজন শিক্ষক জানান, ২০১৮ সালে এনটিআরসি থেকে নিয়োগ পান শিক্ষক মিরাজুল। তখন থেকেই তার বিরুদ্ধে নারী কেলেঙ্কারীর অভিযোগ রয়েছে। এমতাবস্থায় প্রধান শিক্ষক ও বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ কারো কথায় কান না দিয়ে তাকে যোগদান করান। বিদ্যালয়ে যোগদানের পর থেকেই ছাত্রিদের সাথে অসদাচরণ এবং বাজে উক্তি করতেন। হাসির ছলে কথা বলায় তখন কেউ কিছু মনে করতেন না। কিন্তু উত্যক্ত করা ছাড়াও ছাত্রিদের সাথে খারাপ আচরণ করায় সকলেই বিরক্ত।

প্রধান শিক্ষক সোহরাব হোসেন জানান, ক্রিড়া শিক্ষক মিরাজুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠায় ওই শিক্ষক আর বিদ্যালয়ে আসেন নি। আবার তার ব্যবহৃত মুঠো ফোনটিও বন্ধ রেখেছেন। তাকে মৌখিকভাবে বিদ্যালয়ে না আসার জন্য বলা হয়েছে। সেই সাথে ওই শিক্ষার্থীকে ঘটনার বিবরন দিয়ে লিখিত অভিযোগ দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। শিক্ষককে বাঁচাতে গোপন আঁতাতের বিষয়টি অস্বীকার করেন এই প্রধান শিক্ষক।

বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি সাহাবুল ইসলাম জানান, তিনি দুদিন আগে ঘটনাটি শুনেছেন। প্রধান শিক্ষক তাকে ঘটনাটি জানান নি। লোকমুখে ঘটনাটি শুনে বিদ্যালয়ে আসেন এবং আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রধান শিক্ষককে বলেন।


আরও খবর



মধুপুরে ভিজিএফ এর চাল বিতরণে বাঁধা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে লাঞ্চিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৩৪জন দেখেছেন

Image

বিশেষ প্রতিনিধি মধুপুর টাঙ্গাইল:টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলাধীন শোলাকুড়ি ইউনিয়ন পরিষদে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফএর চাল বিতরণকালে বহিরাগতদের বাঁধা এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও মারধর  করার অভিযোগ করেছেন উক্ত পরিষদের সকল ইউপি সদস্যগন।

গত বৃহস্পতিবার (১৩জুন) দুপুরে শোলাকুড়ি ইউনিয়ন পরিষদে প্রধানমন্ত্রীর নিজ তহবিল থেকে ঈদ উপহার হিসেবে দুস্থ ও হতদরিদ্র মানুষের মাঝে চাল বিতরণ কালে এ ঘটনাটি ঘটে বলে তারা জানান। 

ভুক্তভোগী ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো.রোস্তম আলী জানান, তিনি ১৩৫৪  জনের নামের তালিকা অনুযায়ী সাড়ে তের টন চাল পরিষদে নিয়ে আসেন এবং ওয়ার্ড ভিত্তিক তালিকা অনুযায়ী ইউপি সদস্যদের মাঝে বন্টন করে দেন।

ইউপি সদস্যগন চাল বিতরণ শুরু করলে শহিদুল ইসলাম শহিদ ফকির এবং পিয়াস মোহাম্মদ শামীম ফকির তাদের লোকজন নিয়ে এসে চাল বিতরণের মাস্টার রোলের তালিকা জোরপূর্বক কেড়ে নিয়ে তারা নিজেরাই চাল দেওয়া শুরু করেন। 

১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুস সামাদ, ২নং ওয়ার্ডের সাইম সরকার, ৪নং ওয়ার্ডের আঃ কাদের, ৭নং ওয়ার্ডের তুহিন নকরেক, ৮ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নাজির এবং ১,২,৩, নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা আসনের ইউপি সদস্য শ্যামা, ৪,৫,৬,নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা আসনের ইউপি সদস্য শেফালী বেগম ও ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা আসনের ইউপি সদস্য কনা এ ঘটনার

সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমরা সবাই মাস্টার রোলের তালিকা অনুযায়ী চাল বিতরণ শুরু করলে অভিযুক্তরা লোকজন নিয়ে এসে আমাদের তালিকা জোরপূর্বক ছিনিয়ে নেয় এবং তারা তাদের ইচ্ছে মতো চাল দেওয়া শুরু করে। আমরা বাঁধা দিলে তারা আমাদের হুমকি ধামকি দিয়া সরিয়ে দেয়। 

তারা আরও জানান, চেয়ারম্যান এসে প্রতিবাদ করলে তারা তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং মারধর করে। 

পরবর্তীতে ইউপি চেয়ারম্যান বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুবায়ের হোসেনের নিকট জানালে তিনি চাল বিতরণ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন এবং পরের দিন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট ইয়াকুব আলীকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট ইয়াকুব আলী দুঃখ প্রকাশ করেন এবং দু'পক্ষের সাথে  আলোচনা করে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার মিমাংসা করেন। নিয়মানুযায়ী ইউপি সদস্যদের মাধ্যমেই চাল বিতরণ হবে বলেও তিনি জানান।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর