Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

নাসিরনগরে তুচ্ছ ঘটনার জেরে সংঘর্ষে ১৩ পুলিশসহ আহত অর্ধশতাধিক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২৮১জন দেখেছেন

Image

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ফান্দাউক ইউনিয়নের আতুকুড়া গ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু পক্ষের সংঘর্ষে ১৩ পুলিশসহ অর্ধশতাধিক নারী পুরুষ আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। রোববার সন্ধ্যায় শুরু হওয়া চার ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে জড়িত সন্দেহে ৩২ জনকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ। 


স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ১১ মার্চ উপজেলার ফান্দাউক ইউনিয়নের ফান্দাউক দরবার শরিফের বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল হয়। সেখানে আতুকুড়া গ্রামের দুই যুবক মোতাব্বির ও বাদল মিয়ার মধ্যে বসার জায়গা নিয়ে তর্কবির্তক হয়। পরদিন সন্ধ্যায় আতুকুড়া গ্রামে গিয়ে সেই ঘটনায় আবার তর্কে জড়ায় দুই যুবক’।এর জের ধরে এক পর্যায়ে দুই ওয়ার্ডের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।


সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে পুলিশ সদস্য,গ্রামবাসীসহ উভয় পক্ষের অর্ধশতাধিক নারী পুরুষ আহত হয়। আহত পুলিশ সদস্যদের নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

ঘটনার রাতে অভিযান চালিয়ে দুই পক্ষের অন্তত ৩২ জনকে আটক করেছে পুলিশ।তাছাড়াও শতাধিক লোককে আসামি করে একটি মামলা করা হয়েছে।


আতুকুড়া গ্রামের  ইউপি সদস্য ফরিদ মিয়া জানান,‘ফান্দাউক দরবার শরিফে ওয়াজে গিয়ে ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের দুই যুবকের মাঝে ঝগড়া হয়।ঝগড়ার জের ধরে পরদিন আকুতুড়া বাজারে গেলে ৮নং ওয়ার্ডের লোকজন আমাদের লোকদের ওপর হামলা করে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষই পরে সংঘর্ষে জড়ায়। ৯নং ওয়ার্ডের ২৫ জন নাসিরনগর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে গেলে সেখান থেকে পুলিশ সবাইকে আটক করে।’ তবে এ ব্যাপারে ৮নং ওয়ার্ডের কারও কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।


মুঠোফোনে ঝগড়ার বিষয়ে জানতে চাইলে নাসিরনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাবিবুল্লাহ সরকার বলেন তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু পক্ষের  লােকজনের মাঝে মারামারি হয়।সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে ১৩ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে।বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা


আরও খবর



জুমাবার সপ্তাহের শ্রেষ্ঠ দিন হওয়ার কারণ

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক:শুক্রবার বা জুমার দিন সপ্তাহের শ্রেষ্ঠ দিন। এ দিনটির মর্যাদা ও তাৎপর্য ইসলামে অনেক। জুমার দিনকে ফজিলতের কারণে সাপ্তাহিক ঈদের দিন বলা হয়ে থাকে। জুমার দিনের ফজিলত সম্পর্কে নির্ভরযোগ্য হাদিস গ্রন্থগুলোতে একাধিক হাদিস বর্ণিত হয়েছে।

প্রিয় নবী রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, নিঃসন্দেহে জুমার দিন সেরা দিন ও আল্লাহর কাছে সর্বোত্তম দিন। আল্লাহর কাছে তা ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহার দিনের চেয়েও উত্তম। (ইবনে মাজাহ)।

অন্য হাদিসে আছে, যেসব দিনে সূর্য উদিত হয়েছে এরমধ্যে সর্বোত্তম হলো জুমার দিন।’ জুমার দিনকে মুসলমানদের সাপ্তাহিক ঈদের দিন হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

জুমার ফজিলত সম্পর্কে রাসূল (সা.) বলেছেন, এক জুমা থেকে অপর জুমা উভয়ের মাঝে (গোনাহের জন্য) কাফ্ফারা হয়ে যায়, যদি কবিরা গোনাহের সঙ্গে সম্পৃক্ত না হয়ে থাকে। (মুসলিম)।

পবিত্র জুমার দিন সম্পর্কে মহান আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, মনে রাখবে সপ্তাহের শ্রেষ্ঠ দিন পবিত্র জুমাবার। জুমার নামাজ আদায়ে রয়েছে অশেষ কল্যাণ।

জুমার নামাজ সম্পর্কে মহান আল্লাহর রাসূল (সা.) আরো বলেছেন, যে ব্যক্তি বিনা কারণে তিন জুমার নামাজে যাওয়ায় অবহেলা করে সে যেন ইসলামকে অবজ্ঞা করল এবং তার হৃদয়ে মরিচা পড়ে যায়।

জুমার দিন আজানের পরও মসজিদগুলো ফাঁকা থাকে। খুৎবার শেষ পর্যায়ে তড়িঘড়ি করে মুসল্লিরা মসজিদে প্রবেশ করে যা ধর্মীয় দৃষ্টিতে অপছন্দনীয়।

পবিত্র জুমা দিবসে মুসলমান ধনী-দরিদ্র, উচু-নীচু, ছোট-বড় সবাই একই কাতারে দাঁড়িয়ে জুমার নামাজ আদায় করে। কেন না মহান আল্লাহ তায়ালা পবিত্র জুমার নামাজ আমাদের ওপর অপরিহার্য করেছেন।

অনেক গুরুত্বপূর্ণ ফরজ ইবাদাত জুমার নামাজ মুসলিম উম্মাহর জন্য। আর জুমার দিনের মর্যাদা ও বৈশিষ্ট্য অন্যান্য দিনের চেয়ে অনেকগুণ বেশি। সুতরাং জুমার নামাজ এবং এ দিনের আমল বর্জন থেকে বিরত থাকা জরুরি। আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে এ দিনের নামাজ ও আমল যথাযথ পালন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।


আরও খবর



সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশি নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮৩জন দেখেছেন

Image
নিহত সবুজ চৌকিদার, মো. সাব্বির ও মো. রিফাত

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক :সৌদি আরবে বাংলাদেশি তিন যুবক কাজে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৩) দুপুরে আল আলিফ শহরে স্থানীয় সময় সকাল ৯টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলার ২নং আলগী দূর্গাপুর উত্তর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের কমলাপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেন এর ছেলে মোহাম্মদ মোস্তফা গাজী রিফাত। সাড়ে চার বছর প্রবাসে। কিছুদিন পূর্বে একমাত্র বোনের বিয়ে হয়েছে। তাকে দেখতে ঈদের পর বাড়িতে আসার কথা। কিন্তু ঈদের পর রিফাত আসলেও জীবিত নয় আসবে তার মরদেহ এতে শোকে কাতর বাবা। সড়ক দুর্ঘটনা প্রাণ কেড়ে নিয়েছে তার আদরের সন্তানের।

একই উপজেলার ৩নং দক্ষিণ আলগী ইউনিয়নের চরভাঙ্গা গ্রামের ইসমাইল ছৈয়ালের ছোট ছেলে সাব্বির। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে মেজ ছেলে সে। তিন বছর প্রবাসী হলেও অধিকাংশ সময় ছিল না কাজ। তাই আয় রোজগার ছিল না তেমন। তবুও মাকে ফোন করে বলেছিল ঈদ উদযাপনের প্রস্তুতি নিতে। টাকা পাঠাবে সে । তবে ঈদে কোরবানির টাকা না আসলেও এসেছে ছেলের মৃত্যুর সংবাদ। এমন সংবাদে আহাজারি করছে নিহতের গর্ভধারানী মা ও আত্মীয় স্বজনরা।

ফরিদগঞ্জ উপজেলার ১২নং চরদুখিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম বিষকাটালী এলাকার জামাল চৌকিদার এর ছেলে সবুজ চৌকিদার। ১৮ বছর প্রবাসে। ১০-১২ দিন পূর্বে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে গেছেন সৌদি আরব। সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন তিনিও। তার এমন মৃত্যুতে পাগলের মত আহাজারী করছেন তার বাবা-মাও। তিন প্রবাসীর মৃত্যুর সংবাদে এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া।

সাব্বির আর রিফাতকে সৌদিতে কাজের জন্য নিয়েছেন সবুজ চৌকিদার। তিনি তাদের নিয়ে আপিপ শহর ও আশপাশের এলাকায় ভবন নির্মাণের কাজ করতেন। নিজেদের গাড়িতে তারা কাজে আসা-যাওয়া করতেন। গাড়ির চালক ছিলেন সবুজ। দুর্ঘটনার সময়ও গাড়ির চালাচ্ছিলেন সবুজ। এসব তথ্য জানালেন সবুজের বাবা জামাল চৌকিদার।

তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবার বাংলাদেশি সময় ৪টায় সবুজসহ ৩ জনের দুর্ঘটনার খবর পান। রাত ১০টায় সেখানে অবস্থানরত স্বজনদের মাধ্যমে জানতে পারেন দুর্ঘটনার পর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে নিহত তিন যুবকের মরদেহ দেশে ফিরিয়ে আনতে সরকারের সর্বোচ্চ আন্তরিকতা আশা করছেন নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী।


আরও খবর



ভারতীয় ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৪৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতীয় ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন। কনফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান ইন্ডাস্ট্রির (সিআইআই) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ আহ্বান জানান। শেখ হাসিনা বলেন, আপনারা (ভারতীয় ব্যবসায়ীরা) বাংলাদেশে এসে বিনিয়োগ করেন।প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান প্রধানমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে বলেন, ‘বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য আমরা আপনাদের স্বাগত জানাই।’

সংবাদ সম্মেলনে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী সব সময় বলতেন ‘প্রতিবেশী সবার আগে’ এবং তিনি বাংলাদেশের সব প্রতিবেশী দেশকে ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগের জন্য অগ্রাধিকার দেন।বাংলাদেশ ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা ভারতীয় ব্যবসায়ীদের জানান, তারা এটা ব্যবহার করতে পারেন এবং সেখানে বিনিয়োগ করতে পারেন।

বৈঠকে অংশ নেওয়া সিইওরাও বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে চান এবং বাংলাদেশের সঙ্গে ব্যবসা করতে চান।সালমান বলেন, বাংলাদেশে যারা ব্যবসা করছেন তারা তাদের ব্যবসা সম্প্রসারণে আগ্রহী।সিআইআই পক্ষের সিইওরা প্রধানমন্ত্রীকে বলেন, তারা এফবিসিসিআই-এর সঙ্গে যৌথভাবে বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতে কাজ করতে চান।

এক্ষেত্রে তারা বিশেষ করে কৃষি, আইটি ও লজিস্টিক সেক্টরে যৌথভাবে কাজ করার উপায় খুঁজে বের করার ওপরও গুরুত্বারোপ করেন।তারা ভারতের বিভিন্ন খাতে বিশেষ করে আইটি খাতে তাদের সাফল্য তুলে ধরেন এবং ব্যবসা সম্প্রসারণে বাংলাদেশে সেই সাফল্যের পুনরাবৃত্তি করতে চান।বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা নিজ দেশে বিরাজমান সুযোগ-সুবিধার কথা তুলে ধরে বাংলাদেশের ব্যবসায়িক বিষয়গুলো নিয়েও আলোচনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব মো. নাঈমুল ইসলাম খান। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, অ্যাম্বাসেডর-অ্যাট-লার্জ মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু, মুখ্য সচিব তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ,

এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম, নিটল নিলয় গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুল মাতলুব আহমদ, প্রাণ আরএফএল গ্রুপের চেয়ারম্যান আহসান খান চৌধুরীসহ কয়েকজন বাংলাদেশি ব্যবসায়ী।


আরও খবর



দোষী সাব্যস্ত ট্রাম্প, ১১ জুলাই সাজা ঘোষণা

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৪০জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:প্রথমবারের মতো সাবেক কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্প ফৌজদারি অপরাধের জন্য দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (৩০ মে) নিউইয়র্কের আদালত তাকে ব্যবসায়িক নথিপত্রে তথ্য গোপনের মামলায় ৩৪টি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করেন। সূত্র: লজাজিরা

পর্ন তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে মুখ বন্ধ রাখার জন্য অর্থ প্রদানের বিষয়টি ব্যবসায়িক নথিপত্রে তথ্য গোপনের অভিযোগে ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করেন বিচারক। মামলার ৩৪টি অভিযোগের প্রতিটি জন্য তাকে চার বছর করে কারাদণ্ড হতে পারে। তবে, তার প্রবেশন পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

৭৭ বছর বয়সী রিপাবলিকান এই নেতা এখন একজন অপরাধী। এটি ঐতিহাসিক রায়, যেখানে বিশ্বের প্রভাবশালী দেশটির কোনো সাবেক প্রেসিডেন্ট দোষী সাব্যস্ত হলেন। এ মামলায় আগামী ১১ জুলাই সাজা ঘোষণা করা হবে। তাকে অবশ্য নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে লড়াইয়ে অংশ নিতে বাধা দেওয়া হয়নি।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি খুবই নির্দোষ মানুষ।’ তিনি এ রায়কে ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ ও ‘অসম্মানজনক’ বলে উল্লেখ করেছেন। আগামী ৫ নভেম্বর প্রকৃত রায় দেবে জনগণ।

ট্রাম্প বলেন, জনগণ জানে, এখানে কী ঘটেছে। নিজেকে নির্দোষ দাবি করে তিনি এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আবেদন করার ইঙ্গিত দেন। আমরা আমাদের সংবিধানের জন্য লড়াই করব।

বাইডেনের প্রচার শিবিরের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বিচারক দেখিয়েছেন, কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। ট্রাম্প আমাদের গণতন্ত্রের জন্য যে হুমকি সৃষ্টি করেছেন, এর চেয়ে বড় হুমকি আগে কখনও হয়নি।

মিলওয়াকিতে রিপাবলিকান দলের জাতীয় সম্মেলনের চার দিন আগে ১১ জুলাই সাজা ঘোষণার জন্য দিন নির্ধারণ করেন বিচারক জুয়ান মার্চান।

২০২০ সালের নির্বাচনের ফলাফল উল্টে দেওয়ার ষড়যন্ত্রের অভিযোগের মামলাতেও বিচার মুখোমুখি হয়েছেন ট্রাম্প। এ ছাড়া হোয়াইট হাউস ছাড়ার সময় সরকারি গোপন নথিপত্র সঙ্গে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগেও তার বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে। আদালতের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তিনি শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত লড়াই করে যাবেন।

উল্লেখ্য, দেশটিতে কয়েক মাস পরে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান দলের হয়ে অংশ নেওয়ার দৌড়ে আছেন ট্রাম্প।


আরও খবর



ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচনীয় প্রচারণায় গিয়ে নিখোঁজ

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২৫৯জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মদ হেদায়েতুল্লাহ নবীনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধিঃব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রীতি খন্দকার হালিমা নিখোঁজ হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।মঙ্গলবার (২৮ মে) বেলা ২টার সময় নির্বাচনী প্রচারণায় গিয়ে প্রীতি খন্দকার নিখোঁজ হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন তার পরিবার।প্রীতি খন্দকারের স্বামী মাসুদ খন্দকার জানান, আগামী ৫ জুন বিজয়নগর উপজেলা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এই নির্বাচনে তাঁর স্ত্রী মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে পদ্মফুল প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন।গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে হরষপুর ইউনিয়নে দুই জনকে সঙ্গে নিয়ে নির্বাচনি প্রচারণায় যায় প্রীতি। হরষপুরের ঋষি পাড়ায় ঢুকে প্রচার করা অবস্থায় দুজন মহিলা বাইরে আসেন আর প্রীতি ভোটারদের সাথে ভেতরে কথা বলছিলেন। এর কিছু সময় পর ভেতরে গিয়ে  প্রীতিকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলো না।

পরে প্রীতিকে না পেয়ে বাড়িতে চলে আসেন তারা। সন্ধ্যা পর্যন্ত অপেক্ষা করে উপজেলা সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ থানার ওসিকে অবগত করে বুধবার সকাল ১০টায় জিডি করেন তিনি।বুধবার (২৯মে) দুপুর ১ টা ১৫ মিনিটে বিজয়নগর থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুল ইসলাম জানান, দিনের বেলা যেখান থেকে প্রীতি খন্দকার নিখোঁজ হয়েছে সেখানে বাজারে ৫শত লোক ছিল। এখনো উদ্ধার হয়নি তিনি,উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর