Logo
আজঃ Wednesday ০৮ December ২০২১
শিরোনাম
নৌকা পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান হলো তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু! তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা কুমিল্লায় নৌকা পেয়েও সরে দাড়ালেন বাহালুল, প্রাথমিক সদস্য না হয়েও মনোনীত নূরুল! মাতুয়াইলে সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্ধোধন করলেন সংসদ সদস্য কাজী মনু পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা গাজীপুরে ৩০ সেকেন্ডেই মা-মেয়ের জীবন শেষ করল দুই খুনি হয়নি হাফ পাসের সিদ্ধান্ত,টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব আলেম-ওলামাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা-ভক্তি রয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত কুমিল্লার তিতাস ও মেঘনা উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা !
নাসিরনগরে জশনে জুলুছে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী পালিত

নাসিরনগরে জশনে জুলুছে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী পালিত

প্রকাশিত:Wednesday ২০ October ২০21 | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ১৯১জন দেখেছেন
Image


 

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর :

 

 ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার  নাসিরনগর উপজেলা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের উদ্যোগে বিশ্ব নবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর পবিত্র জন্মদিন উপলক্ষে জশনে জুলুছে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী পালিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের সমন্বয়ে এক বিশাল র‌্যালী  উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে স্থানীয়  নাসিরনগর সরকারী ডিগ্রী কলেজ মাঠ প্রাঙ্গনে এক বিশাল আলোচনা সভায় মিলিত হন। 

উপজেলা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সভাপতি আলহাজ্ব মাওলানা রিয়াজুল করিম আল কাদরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১, সংসদীয় ২৪৩ নাসিরনগর আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রাফি উদ্দিন আহমেদ।  আলোচনা সভায় উপজেলার বিভিন্ন আলেম ওলামায়েগণ  জ্ঞানগর্ভ পূর্ণ বক্তব্য রাখেন।

 

জানা গেছে ৫৭০ খ্রিঃ ১২ই রবিউল আউয়াল বিশ্বনবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) পবিত্র মক্কা নগরীর কুরাইশ বংশে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবার নাম আব্দুল্লাহ ও মায়ের নাম আমেনা।  প্রতি বছর ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা এ দিনকে অত্যন্ত শ্রদ্ধার সাথে ঈদে মিলাদুন্নবী পালন করে থাকেন।

 খবর প্রতিদিন / সি.বা 


আরও খবর



হাজার হাজার শৌখিন মৎস শিকারিদের আনা গোনায় রহুল বিল

পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ December ২০২১ | ১৬৬জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

মাছ ধরা বা মাছ শিকার করা বিলাঞ্চলের মানুষদের আজন্ম শখ। বিশেষ করে চলন বিল এলাকায় বর্ষা মৌসুমে নিম্নাঞ্চলের খাস বা সরকারি জলাভূমিতে পানি অল্প থাকাকালে মাছ শিকারিরা দল বদ্ধ হয়ে পলো, ছোট জাল নিয়ে একটি নিদিষ্ট দিনে মাছ শিকার করে থাকে। এলাকায় এটি পলো উৎসব বা বাউত উৎসব নামের পরিচিত।

 

শনিবার পাবনার ভাঙ্গুড়ার উপজেলার পারভাঙ্গুড়া ইউপির বিল রুহুলে এমনই এক শৌখিন মাছ শিকারিদের মিলন মেলা হয়েছে। এতে সবার কাছে মাছ ধরা পড়ুক বা না পড়ুক এক সঙ্গে বছরের এই দিনে মাছ ধরতে আসার মজাই যেন অন্য রকম।

 

সরেজমিন শনিবার উপজেলার বিল রুহুল এলাকা ঘুরে দেখা যায় , পাবনাসহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে শৌখিন মাছ শিকারিরা ভোর বেলার কুয়াশা ভেদ করেই বিভিন্ন যানবাহন বাস, নছিমন, আটো ভ্যান, ভটভটি যোগে এই বিল পাড়ে আসতে থাকে। তাদের হাতে পলো, জাল ঠেলাজাল, ধর্মখরাসহ মাছ ধরার বিভিন্ন উপকরণ নিয়ে বিলের পাড়ে এসে হাজির হয়ে এক সঙ্গে মাছ ধরতে পানিতে নামে। তারা মাছ ধরার সময় বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। কেউ মাছ পেলে সবাই মিলে তাকে আরো উৎসাহ দিতে থাকে।

 

এদিনে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে বিলপাড়ে বিস্কুট রুটি ও চায়ের দোকান নিয়েও বসেছে। মাৎস শিকারিদের কেউ কেউ পেয়েছে সোল, বোয়াল, রুই, গজার । আবার অনেকেই মাছ পায় নি। তবে প্রায় সবার মুখেই ছিল মাছ ধরতে আসতে পারায় আনন্দের ছোয়া।

শিশু, কিশোর, যুবক, বৃদ্ধসহ সব ধরণের হাজার হাজার শৌখিন মৎস শিকারিদের আনা গোনায় রহুল বিল ছিল কানায় কানায় পরিপূর্ণ।

জানা গেছে, ভাঙ্গুড়া উপজেলার পারভাঙ্গুড়া ইউপি ও পার্শ্ববর্তী চাটমোহর উপজেলার পার্শ্বডাঙ্গা ইউপির কিছু অংশ নিয়ে কয়েক হাজার একর জমি নিয়ে রয়েছে রুহুল বিল। বিশেষত বর্ষার পানি চলে যাওয়ার পর কয়েক শ’ একর জমিতে বিভিন্ন গভীরতায় পানি থাকে। সেখানে বর্ষার পানিতে আটকে থাকা বোয়াল, সোল, গজার, পুঁটি, সিং সহ দেশীয় প্রজাতির বিভিন্ন মাছ।

 

বছরের একটি নিদিষ্ট দিনে একে অন্যেরে সঙ্গে মোবাইল ফোন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যোগাযোগ করে নাটোর, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল থেকে বাস, ভটভটি, নছিমন যোগে ভোরে এই বিলে মাছ ধরার জন্য এসে হাজির হয়। এদিনে তাদের হাতে ধরা পড়ে নানা ধরণের মাছ। বেলা বাড়ার  সঙ্গে সঙ্গে মাছ শিকারির সংখ্যাও কমতে থাকে।

মাছ ধরতে আসা নাটোরের পঞ্চাশোর্ধ আলম হোসেন বলেন, এই দিনটিতে রহুল বিলে মাছ ধরার জন্য প্রতি বছর অপেক্ষা করে থাকি। লোক মুখে খবর পেয়ে মাছ ধরতে এসেছি।

টাঙ্গাইলের বাছের উদ্দীন বলেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মাছ ধরার খবর পেয়ে তারা একাধিক বাস রিজার্ভ করে পলো ও মাছ ধরার উপকরণ নিয়ে কয়েকশ শৌখিন মাৎস শিকারি মাছ ধরতে এসেছেন।

 

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



আজকের ইউপি নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে কেউ মারা যায়নি: ইসি সচিব

প্রকাশিত:Thursday ১১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ২১৬জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে সহিংসতায় নিহতদের মধ্যে ভোটকেন্দ্রে কেউ মারা যায়নি বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার।বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় নির্বাচন ভবনে দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

 

ইসি সচিব বলেন, আপনারা বলেছেন ছয়জন মারা গেছেন, এটি ঠিক। এটির জন্য কমিশন ব্যথিত। এটি আমরা কখনো চাইবো না রাষ্ট্রের একজন নাগরিকও যেকোনো কারণেই নিহত হোক। আজ যে ছয়জন মারা গেছে তারা কেউ আমাদের ভোটকেন্দ্রে মারা যায়নি। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী যারা তাদের মধ্যেই ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, তাদের মধ্যেই সহিংসতা হয়েছে এবং তারা মারা গেছে।

 

তিনি বলেন, মোট যে ৮৩৪টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোট হয়েছে আমরা সব জেলা-উপজেলায় খোঁজ নিয়েছি, প্রার্থীরাও কেউ কেউ আমাদের কাছে অভিমত ব্যক্ত করেছেন, আমরা জানতে পেরেছি ভোটটি খুব সুন্দর হয়েছে, উৎসবমুখর হয়েছে।

 

হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, এই ধাপের ৮৩৪টি ইউপি নির্বাচনে ৮ হাজার ৪০০ ভোটকেন্দ্র। আমরা গণমাধ্যম ও ল’ মনিটরিং সেন্টারের মাধ্যমে রিপোর্ট পেয়েছি ১০টি কেন্দ্রে ব্যালট ছিনতাইয়ের চেষ্টা করেছে। আমাদের প্রিসাইডিং অফিসাররা ওই ১০ কেন্দ্রের ভোট বন্ধ করে দিয়েছেন। এগুলোতে পরে ভোটগ্রহণ করা হবে। অন্য কেন্দ্রগুলোর রেজাল্ট নিয়েও যদি ডিসিশন না হয় তখন পরবর্তীতে ভোট নেওয়া হবে। আমরা মনে করি পুরো দেশে ভালো ভোট হয়েছে।

 

গতকাল চতুর্থ ধাপের ভোটের তফসিল হয়েছে, পরবর্তী ধাপের ভোট নিয়ে আবার কমিশনের বৈঠক হবে বলেও জানান ইসি সচিব।

 

এর আগে আজ দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দেশের বিভিন্ন স্থানে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। নির্বাচনী সহিংসতায় অন্তত ছয়জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন শতাধিক।

 

নিহতদের মধ্যে নরসিংদীতে তিনজন, কক্সবাজারে একজন, চট্টগ্রামে একজন ও কুমিল্লায় একজন রয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় শুরু হয়ে বিকেল ৪টায় ভোটগ্রহণ শেষ হয়।

 

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 

নিউজ ট্যাগ: ইউপি নির্বাচন

আরও খবর



বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ পাসের বিষয়ে পরিষ্কার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি

হয়নি হাফ পাসের সিদ্ধান্ত,টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ December ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ পাসের বিষয়ে পরিষ্কার কোনো সিদ্ধান্ত না হলেও সড়ক-পরিবহন-মালিক-শ্রমিকসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে সমন্বিত করে একটি টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব করা হয়েছে।

 

শনিবার রাজধানীর বনানীতে বিআরটিএ কার্যালয়ে বেলা পৌনে ১২টা থেকে দুপুর সোয়া ২টা পর্যন্ত চলা বাস মালিক সমিতি, শ্রমিক ফেডারেশনের সঙ্গে বিআরটিএসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বৈঠকে কয়েকটি প্রস্তাবের সঙ্গে এ প্রস্তাব আনা হয়।

 

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকে হাফ পাসের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে কী কী কারণে বা কী উপায় হাফ পাসের দাবি পূরণ করা যায়, সে বিষয়ে সবার মধ্যে বিস্তর আলোচনা হয়। হাফ পাসের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই বৈঠক শেষ হয়েছে। পরিবহন নেতাদের পক্ষ থেকে টাস্কফোর্স গঠনসহ বেশ কয়েকটি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। প্রস্তাবগুলো বিবেচনা নিয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। 

 

বৈঠক শেষে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্লাহ বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবি যৌক্তিকভাবে সমাধানে চেষ্টা চলছে। ঢাকার ৮০ শতাংশ বাস মালিক গরিব। হাফ ভাড়া নিলে মালিকদের যে ক্ষতি হবে, তা সরকার কীভাবে পূরণ করবে? সেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আমরা কিছু প্রস্তাব দিয়েছি। সবার সমন্বয়ে টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব দিয়েছি। 

 

ছাত্রদের অনুরোধ জানিয়ে এ পরিবহন নেতা বলেন, হাফ ভাড়ার দাবিতে বাস ভাঙচুর, শ্রমিকদের মারধর অব্যাহত রয়েছে। শিক্ষার্থীদের প্রতি অনুরোধ থাকবে, তারা যেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে যায়। 

 

টাস্কফোর্স কবে গঠন করা হবে এ প্রশ্নে বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, এটা নতুন প্রস্তাব। টাস্কফোর্স গঠনের বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত হবে। টাস্কফোর্স গঠনের মাধ্যমে যে সিদ্ধান্ত আসবে তা সেভাবে বাস্তবায়ন হবে।

তিনি আরো বলেন, পরিবহন নেতাদের পক্ষ থেকে কনসেশন (সুবিধা) দেওয়ার প্রস্তাব এসেছে। কত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কত ছাত্র, কতজন বাস ব্যবহার করে তার একটা পরিসংখ্যান চেয়েছেন নেতারা। শিক্ষা মন্ত্রণালয় সেই তথ্য দেবে। 

 

টাস্কফোর্স গঠনের বিষয়ে বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ বলেন, বাসে হাফ ভাড়া বাস্তবায়নে পরিবহন নেতারা আন্তরিক। কিন্তু তাদের যে ক্ষতি হবে তা কীভাবে পূরণ করা হবে, কত ভর্তুকি দেবে সেসব বিষয়ে সিদ্ধান্তের জন্য সরকার ও পরিবহনে সম্পৃক্তদের নিয়ে টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব এসেছে। সরকারকে টাস্কফোর্সের বিষয়ে জানাবে।

 

এদিকে বাসে হাফ পাসের সিদ্ধান্ত আসার আগ পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের সড়ক ছেড়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে যাওয়ার আহবান জানিয়েছেন বিআরটিএ চেয়ারম্যান এবং পরিবহন নেতারা।


-খবর প্রতিদিন/ সি.বা   


আরও খবর



রাজধানীর কদমতলী রায়েরবাগে কাঠের ভুসি কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে ৪ কারখানা বশীভূত।

প্রকাশিত:Sunday ০৫ December ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ December ২০২১ | ৩৩জন দেখেছেন
Image

 


নিজস্ব প্রতিনিধি।

ঢাকা মহাসড়কে রায়েরবাগ এলাকায় ৪ টি কয়েল তৈরীর কাঁচামাল কাঠের ভূসির কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। প্রায় দুই ঘন্টা প্রচেষ্টার ফলে ফায়ার সার্ভিসের ৮ টি ইউনিট আগুন নেভাতে সক্ষম হয়েছে। 

রবিবার (৫ ডিসেম্বর) রাত ১ঃ৩০ মিনিটে এ আগুনের লাগার ঘটনা ঘটে। 

এ ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে তাহের এন্টারপ্রাইজ আলমগীর এন্টারপ্রাইজ,মোফাজ্জেল হোসেন এন্টারপ্রাইজ ও  মোঃ শহিদ এন্টারপ্রাইজ নামে ৪ টি কারখানা পুড়ে ছাই হয়ে যায়।


তাহের এন্টারপ্রাইজের একজন মহিলা শ্রমিক বলেন রাত আনুমানিক ১ঃ৩০ আমরা ১২ জন শ্রমিক কাজ করছি এসময় হঠাৎ করে আগুন আগুন বলে চিৎকার করলে আমরা বেরিয়ে পড়ি। এসময় মুহুতর্র ভিতর দেখি চারিদেকে আগুন।

তিনি আরো বলেন এসব কারখানায় সারা রাত কাজ চলে।

এখানে কাঠার ভূসি তেতুলের বিচি ও ক্যামিকেল দিয়ে কয়েল তৈরীর কাঁচামাল বানান হয়।


স্থানীয়রা জানান, এই কারখানা গুলোতে এ নিয়ে তিনবার আগুন লেগেছে।

তারা আরো অভিযোগ করেন আবাসিক এলাকায় কি করে এসব কারখানা চলে।

যাদের কোন ধরনের অনুমতি নাই অথচ বছরের পর বছর এ ভাবে কারখানা গুলে চলছে। এ কারখানা গুলোর  বিরুদ্ধে একাধিকবার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। 



কদমতলী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রলয় কুমার সাহা জানান, রাত আনুমানিক ১ঃ৩০ মিনিটে রায়ের বাগে তাহের এন্টারপ্রাইজ আগুন লাগার ঘটনা ঘটে।

এটি মুলত কয়েল তৈরীর কাঁচামাল কাঠের ভুসির ৪ টি কারখানা। তবে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। 


ঢাকা ফায়ার সার্ভিসের এ ডি আব্দুল হালিম, জানান, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা যাচ্ছে বৈদ্যুৎ সর্ট সার্কিটের ফলে আগুনের সূত্রপাত ঘটতে পারে।

আগুন নেভাতে ফায়ার সার্ভিসের ৮ টি ইউনিটি কাজ করছে। ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় ৪ টি কারখানা ভসিভুত হয়ে যায়।

তবে কারখানা গুলো টিনের তৈরী সেই সাথে কারখানাগুলোতে আগুন প্রতিরোধের কোন ব্যবস্থা না থাকায় আগুনের ভয়বহতা ব্যাপক হয়েছে।

তিনি আরো বলেন প্রায় ২ ঘন্টা চেষ্টার ফলে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা হয়েছে ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 



আরও খবর



কুমিল্লার তিতাস ও মেঘনা উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা !

প্রকাশিত:Thursday ১১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ৩১২জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image



বৃহস্পতিবার রাতে বেসরকারিভাবে প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী দুই উপজেলার ১২ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে জয়ি হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা।দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কুমিল্লার মেঘনার আটটি এবং তিতাসের নয়টি ইউনিয়নে হয়েছে ভোটগ্রহণ।

 

বৃহস্পতিবার রাতে বেসরকারিভাবে প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী দুই উপজেলার ১২ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে জয়ি হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা।অন্য ছয়টি ইউনিয়নে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী হিসেবে নির্বাচন করা স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. দুলাল তালুকদার।

 

মেঘনা উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবুর রহমান, মানিকারচরে আওয়ামী লীগের জাকির হোসেন, চালিয়াভাঙ্গায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হুমায়ুন কবির, ভাওরখোলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম, লুটেরচরে নৌকা প্রতীকের সানাউল্লাহ সিকদার, গোবিন্দপুরে আওয়ামী লীগের মাইনুদ্দিন মুন্সি তপন ও বড়কান্দায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ফারুক হোসেন রিপন জয়ী হয়েছেন।

 

এ উপজেলায় বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হয়েছেন চন্দনপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থী আহসান উল্লা।এদিকে তিতাসের সাতানী ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী সামছুল হক, জগৎপুরে নৌকার প্রার্থী মজিবুর রহমান, বলরামপুরে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নুরুন্নবী, কলাকান্দিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী ইব্রাহিম সরকার, ভিটিকান্দিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বাবুল আহমেদ, নারানদিয়ায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী আরিফুজ্জামান ভুইয়া খোকা, জিয়ারকান্দিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আলী আশরাফ ও মজিদপুরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম সরকার জয়ী হয়েছেন।এ উপজেলায় বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হয়েছেন সদর কড়িকান্দি ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী সাইফুল আলম মুরাদ।

 

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা

নিউজ ট্যাগ: ইউপি নির্বাচন

আরও খবর