Logo
আজঃ শনিবার ২৫ মে ২০২৪
শিরোনাম

নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জে এক যুবককে আটক করে জোর পূর্বর হত্যা মামলায় আসামী করার চেষ্টা পিবিআই'র

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ২২৯জন দেখেছেন

Image

 নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জে একটি হত্যা মামলাকে কেন্দ্র করে সুজন নামে এক যুবককে ঐ হত্যা মামলায় জোরপূর্বক স্বীকারোক্তি আদায় করতে আটক করছে নারায়নগঞ্জ পিবিআই । এই ঘটনায় ভুক্তভোগীর স্ত্রী পূর্ণিমা শেখ পুলিশের আইজিপি সেল ও সিনিয়র সচিব জন নিরাপত্তা বিভাগ স্বরারাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ে একটি লিখিত অভিযোগ করেন।অভিযুক্ত কর্মকর্তার নাম নজরুল ইসলাম (এস আই) তিনি পুলিশ  ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) নারায়ণগঞ্জে কর্মরত রয়েছেন।


অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১২ মে শুক্রবার পূর্ণিমা জানতে পারে তার স্বামী মো সুজন শেখকে নারায়নগঞ্জ জেলার পিবিআইর সাব-ইন্সপেক্টর নজরুল ইসলাম আটক করেন। খবর পেয়ে তিনি পিবিআই নারায়নগঞ্জের সাইনর্বোড গিয়ে  , দেখে তার স্বামী খুবই অসুস্থ। তার সমস্ত শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। স্বামীর সাথে কথা বলে জানতে পারে পিবিআই কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম শারীরিক ভাবে নির্যাতন করেছে। এসময় তার স্বামীকে কেন ধরে এনেছে জানতে চাইলে এস আই নজরুল জানান, সুজনকে একটি হত্যা কান্ডের মামলায় সন্দেহজনক ভাবে আটক করছে।


এ কথা বলতে বলতে তিনি আমার সামনে আমার স্বামীকে অকর্থ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। পরে একটি লাঠি দিয়ে বেধড়ক পিটায়। আমি বাধা দেওয়ায় আমাকে ধাক্কা দিলে আমি পড়ে যাই ও আহত হই। মারতে মারতে নজরুল বলেন, তুই স্বীকার কর যে ঐ হত্যা কান্ডে তুই (সুজন) জড়িত।  তা না হলে গাড়ী চাপা দিয়ে তোকে মেরে ফেলব। তারপর সড়ক দুর্ঘটনা বলে চালিয়ে দিব। যার রেকর্ড পূর্ণিমার মোবাইলে রয়েছে।  সুজনের ভাই মজিবর জানান,গত ১ বছর আগে রূপগঞ্জে বরপা এলাকায় এক রাখাল খুন হয়।


এই ঘটনায় এস আই নজরুল গত এক মাস ধরে আমাদের এলাকায় গিয়ে আমার ভাইকে ডেকে এই খুনের হত্যাকারীদের ধরতে সোর্স হিসাবে কাজ করতে চাপ প্রয়োগ করে। কিন্তু আমার ভাই সুজন এই বিষয় কাজ করতে অস্বীকার করলে তাকে এই হত্যা মামলায় আসামী করবে বলে হুমকি প্রয়োগ করে আসছিল। পিবিআই এর কর্মকর্তার ভয়ে আমার ভাই ফরিদপুর গেলে সেখান থেকে গত শুক্রবার আটক করে নিয়ে আসে।পুলিশ সুপার নারায়নগঞ্জ গোলাম রাসেল মোস্তফা গণমাধ্যমকে জানান, এই বিষয়টি আমি অবগত নাই।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



শাহরুখ খান হিট স্ট্রোক করে হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৫৭জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন । আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচ শেষে হিট স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি।

মঙ্গলবার (২১ মে) দলের খেলা দেখতে আহমেদাবাদে হাজির ছিলেন কিং খান। সেখানে অসুস্থবোধ করায় শহরের কেডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আইপিএলের প্লেঅফ ম্যাচ দেখতে আহমেদাবাদে গিয়েছিলেন শাহরুখ খান। গ্যালারিতে বসে দলের জয় উপভোগ করেন তিনি। কিন্তু এরপরই প্রচণ্ড গরমে হিটস্ট্রোকে আক্রান্ত হন তিনি। পরে তাকে আহমেদাবাদের কেডি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

জানা গেছে, আহমেদাবাদের তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রির উপরে থাকায় গরম সহ্য হয়নি শাহরুখের। এরপরই সকাল থেকে অসুস্থ বোধ করায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।

কেডি হাসপাতালের চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, ডিহাইড্রেশনের কারণে মঙ্গলবার রাতেই অসুস্থ হয়ে পড়েন কিং খান। এরপর বুধবার দুপুরে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার স্টেডিয়ামে শাহরুখের সঙ্গেই উপস্থিত ছিলেন কন্যা সুহানা ও পুত্র আব্রাম। ছিলেন অনন্যা পাণ্ডে এবং শানায়া কপূরও। মাঠে বসেই দলের জয় উপভোগ করেছেন তারা।


আরও খবর



এলপিজি ব্যবহারে মন্ত্রণালয়ের সতর্কবার্তা

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১৪৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সতর্কবার্তা জানিয়েছে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়,বাসাবাড়িতে এলপিজি সিলিন্ডার ব্যবহারের ক্ষেত্রে গ্রাহকদের প্রতি ।

শনিবার (২৭ এপ্রিল) এক বার্তায় মন্ত্রণালয় জানায়, এলপিজি সিলিন্ডার ব্যবহার সম্পর্কে অজ্ঞতার কারণে বিভিন্ন স্থানে কিছু প্রান্তিক ব্যবহারকারী অগ্নিদুর্ঘটনা ও গ্যাস বিস্ফোরণের সম্মুখীন হচ্ছেন।

এলপিজি সিলিন্ডার ব্যবহারের ক্ষেত্রে রান্না শেষে রেগুলেটরের সুইচ অন থাকলে গ্যাস লিক হয়ে ঘরে জমা হতে পারে। এলপি গ্যাস বাতাস থেকে ভারী বলে কোনো লিক বা সংযোগের ত্রুটির কারণে নিঃসৃত গ্যাস ঘরের মেঝেতে জমা হয়। এ অবস্থায় গ্যাসপূর্ণ ঘরে আগুন জ্বালালে বা স্পার্ক করলে বিস্ফোরণ ঘটতে পারে। সিলিন্ডার আগুনে বা অন্যভাবে গরম হলে তরল এলপিজি দ্রুত গ্যাসে রূপান্তরিত হয়ে অস্বাভাবিক চাপ বৃদ্ধির ফলে সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হতে পারে। সিলিন্ডার কাত করে রাখলে বা চুলার উপরে রাখলে রান্নাঘরে অগ্নিকাণ্ড বা বিস্ফোরণ ঘটতে পারে।

এমতাবস্থায়, এলপিজি সিলিন্ডার ব্যবহারের ক্ষেত্রে সর্বসাধারণকে নিম্নলিখিত সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে-

১. রান্না শেষে চুলা ও এলপিজি সিলিন্ডারের রেগুলেটরের সুইচ অবশ্যই বন্ধ করুন। সিলিন্ডার কোনোভাবেই চুলার/আগুনের পাশে রাখবেন না।

২. চুলা থেকে যথেষ্ট দূরে বায়ু চলাচল করে এমন স্থানে এলপিজি সিলিন্ডার রাখুন।

৩. এলপিজি সিলিন্ডার খাড়াভাবে রাখুন, কখনই উপুড় বা কাত করে রাখবেন না।

৪. চুলা সিলিন্ডার থেকে নিচুতে রাখবেন না, কমপক্ষে ৬ ইঞ্চি উপরে রাখুন।

৫. গ্যাসের গন্ধ পেলে দ্রুত দরজা-জানালা খুলে দিন এবং এলপিজি সিলিন্ডারের রেগুলেটর বন্ধ করুন।

৬. অতিরিক্ত গ্যাস বের করার জন্য এলপিজি সিলিন্ডারে তাপ দেবেন না।

৭. রান্নাঘরে স্থাপিত আবদ্ধ কোনো ক্যাবিনেটে এলপিজি সিলিন্ডার রাখবেন না।

৮. রান্না শুরু করার ৩০ মিনিট আগে রান্নাঘরের দরজা জানালা খুলে দিন।

৯. সিলিন্ডারের ভান্তের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ রেগুলেটর ব্যবহার করুন।

১০. ত্রুটিপূর্ণ ক্লিপ, হোসপাইপ পরিবর্তন করুন।


আরও খবর



টাঙ্গাইলের মধুপুরে নব নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যানের গন সংবর্ধনা

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১৪৩জন দেখেছেন

Image

বাবুল রানা মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:- টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলায় গত ৮মে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিপুল ভোটের ব্যবধানে এডভোকেট ইয়াকুব আলী বিজয়ী হওয়ায় এক বিশাল গন সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। 


শনিবার (১৮মে) বিকেলে মধুপুর রানী ভবানী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিতব্য এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি। 


 মধুপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে এবং গণ সংবর্ধনা কমিটির আহবায়ক ও মধুপুর পৌরসভার মেয়র সিদ্দিক হোসেন খান এর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন , জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বাপ্পু সিদ্দিকী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবু সাইদ তালুকদার দুলাল, সহ-সভাপতি কাজী মোতালেব হোসেন, সহ-সভাপতি আক্তার হোসেন খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদিকুল ইসলাম সাদিক, সাংগঠনিক সম্পাদক হেলাল উদ্দিন সহ উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ সহ আরও অন্যান্য অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। 


অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, নব নির্বাচিত উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সজীব, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিগার সুলতানা রুবি সহ আরও অনেকে। 


দুপুর গড়াতে না গড়াতেই বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে হাজার হাজার নেতাকর্মী ও সমর্থকগন তাদের প্রিয় ব্যাক্তি সাবেক কৃষি মন্ত্রী ড.আব্দুর রাজ্জাক এমপি ও মধুপুরবাসীর আশা আকাংখার প্রদীপ নব নির্বাচিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট ইয়াকুব আলীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানাতে রানী ভবানী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ কানায় কানায় পরিপূর্ণ হতে থাকে। বিভিন্ন এলাকা থেকে ব্যান্ডপার্টি ও লাঠি খেলার দল এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানকে আরও প্রাণবন্ত ও উৎসবমুখর করে তুলে।


অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে ব্যান্ড সম্রাট হাসান তার দল নিয়ে গানে গানে দর্শকদের আরও আনন্দ উল্লাসে মাতিয়ে তুলে।

     -খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



ভ্যাপসা গরমের পাশাপাশি বিদ্যুত বন্ধ গাংনী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের রোগীদের অবস্থা ত্রাহি মধুসুদন

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৭৮জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুরঃএমনিতেই গেল ১০ দিন যাবত প্রচন্ড তাপদাহ আর গরম অপরদিকে পল্লী বিদ্যুতের মেইনটেনেন্সের অজুহাতে বিদ্যুত বন্ধ। এতে রোগিদের অবস্থা মারাত্মক পর্যায়ে পৌছেছে। জ্বর ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগিদের পাশাপাশি অন্যান্য রোগি সেবা নিতে আসা রোগিদের অবস্থা আরো নাজুক। বিদ্যুত পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটিতে একটি জেনারেটর থাকলেও সেটি দীর্ঘ দিন অচল। ফলে কোন ক্রমেই সংকট কাটছে না। রোগিদের চাপ সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছেন ডাক্তার ও নার্সগণ। তবে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ কোন স্বদুত্তর দিতে পারেনি।

মেহেরপুর চুয়াডাঙ্গা আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিস সুত্রে জানা গেছে, গত বুধবার মেহেরপুরের ৪১.২ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। বৃহষ্পতিবার বেলা ৩ টায় সর্বোচ্চ ৪২.২ ডিগ্রী,শুক্রবার ৪২.৭ ডিগ্রী ও আজ শনিবার দুপুর ১২ টা পর্যন্ত তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩৯.৩ ডিগ্রী। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে তাপমাত্রার কোন পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই বলেও মন্তব্য করেছে আবহাওয়া অফিস। বৈরী আবহাওয়ায় অনেকেই তৃষ্ণা মেটাতে রাস্তার পাশে বিক্রি করা শরবত কিনে খাচ্ছেন। এতে করে দেখা দিচ্ছে নানা রোগবালাই। রোগীদের অধিকাংশই জ্বর, স্বর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্ট ও ডাইরিয়া রোগে আক্রান্ত।

বিশেষ করে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বৃদ্ধরা। বিভিন্ন হাসপাতালে রোগিদের উপচে পড়া ভীড়। পা ফেলার জায়গা নেই। মেঝে ও সিঁড়িতেও রোগীরা ভর্তি রয়েছেন। শিশুদের কান্নায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবেশ ভারি হয়ে উঠেছে। অনেকেই আউটডোরে পরামর্শ নিয়ে বাড়ি ফিরছেন। প্রতিদিন আড়াই শতাধিক রোগী আউটডোরে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আর যে রোগির অবস্থা একটু সংকটাপন্ন তাকে ভর্তি রাখা হচ্ছে।

আজ রোব্বার সকালে গাংনী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ৩০ জন পুরুষ, ৩৩ নারী, ৩৫ জন শিশু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। এদের মধ্যে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগি রয়েছে ২৮ জন। ৫০ শয্যা বিশিষ্ট এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি দ্বিগুন রোগি ভর্তি থাকলেও প্রচন্ড রোগ ও ভ্যাপসা গরমে বিদ্যুতের কোন বিকল্প ব্যবস্থা নেই। এমনিতেই গরম আর দাবদাহ অন্যদিকে বিদ্যুতের মেইনটেনেন্সের নামে দুপুর পর্যন্ত বিদ্যুত বন্ধ। ফলে রোগিদের অবস্থা ত্রাহি মধুসুদন। অসুস্থ রোগিরা আরো অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শিশু রায়হানের মা রাশিদা জানান, তার ছেলে ডাইরিয়া রোগ নিয়ে আজ ৪ দিন ভর্তি।

প্রচন্ড গরমে আরো অসুস্থ হয়ে পড়তে হচ্ছে। বিদ্যুত বন্ধ হলে সিঁিড়তে আশ্রয় নিতে হয়। হাসপাতালের কোন জেনারেটরের ব্যবস্থা নেই। একই কথা জানালেন নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত শিশু শাহানাজের মা জামিলা খাতুন। তিনি তার মেয়েকে নিয়ে ৫দির ভর্তি রয়েছেন। গরমে তাদের ভরসা একমাত্র তালের পাখা।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত কয়েকজন জানান, এখানে একটি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন জেনারেটর রয়েছে। প্রতি মাসে তেলেরও পর্যাপ্ত বরাদ্দ অথচ সেটি চলেনা। বছর খানেক হলো জেনারেটরটি নষ্ট হয়ে পড়ে আছে। মেরামত  করার কোন উদ্যোগ নেই। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত কর্মকর্তা কর্মচারীই নয় রোগী সাধারনের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। তবুও কোন উদ্যোগ নিতে দেখা যাচ্ছে না।

গাংনী পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম জানান, প্রচন্ত তাপদাহ ও ভ্যাপসা গরম হলেও বাধ্য হয়ে বিদ্যুত বন্ধ রাখা  হয়েছে। পল্লী বিদ্যুতের মেইনটেনেন্সের কারনে ঘোষণা দিয়ে বন্ধ রাখা হয়। নিরবিচ্ছন্ন বিদ্যুতের জন্য সাময়িকভাবে এটি করতে হচ্ছে। এতে রোগি ও সাধারণ মানুষের দূর্ভোগ বেড়েছে কিন্ত কর্তৃপক্ষের কিছুই করার নেই।

গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সুপ্রভা রাণী জানান, জেনারেটরটি অকেজো হবার দুবার মেকানিক্স এনে ঠিক করার চেষ্টা করা হয় কিন্ত সেটি আর ভাল করা যাবে না। সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জানানো হয়েছে এবং বরাদ্দ চেয়ে চিঠি দেয়া হয়েছে। আগামী বাজেটে ছাড়া কোন বরাদ্দ পাওয়া যাবে না। এখানে অসহায়ত্ব প্রকাশ করা ছাড়া কিছুই নেই।

গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রীতম সাহা জানান, উপজেলার বিভিন্ন উন্নয়নে যে বারাদ্দ পাওয়া যায় সেখানে সেটি ব্যায় করতে হয়। তাছাড়া এ বিষয়টি নিয়ে কোন প্রস্তাব উত্থাপন করেননি স্বাস্থ কর্মকর্তা। সরেজমিনে গিয়ে দেখে কোন ব্যবস্থা করা যায় কিনা তা দেখবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সভাপতি ও সংসদ সদস্য ডাক্তার এএসএম নাজমুল হক সাগর জানান,তিনি বিষয়টি জানেন এবং জেনারেটরসহ অন্যান্য বিষয়গুলো যাতে সমাধান হয় তা দেখবেন বলে আশ্বস্ত করেন।



আরও খবর



আগুন নেভাতে সুন্দরবনে হেলিকপ্টার থেকে পানি ছিটাচ্ছে বিমানবাহিনী

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১৪৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:হেলিকপ্টার দিয়ে পানি ছিটাচ্ছে বিমানবাহিনী সুন্দরবনে ২৪ ঘণ্টা ধরে জ্বলতে থাকা আগুন নেভাতে।

রোববার (৫ মে) দুপুর থেকে সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের আমরবুনিয়া এলাকায় পানি দেওয়া শুরু করে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টারটি।

এছাড়া সকাল থেকে আগুন নির্বাপনের জন্য ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট, কোস্টগার্ডের একটি ও নৌবাহিনীর একটি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজ করছে।

বনবিভাগ ও প্রশিক্ষিত ফায়ার ফাইটারদের পাশাপাশি স্থানীয় বাসিন্দা ও বন সংশ্লিষ্ট স্বেচ্ছাসেবকরা অংশ নিয়েছেন।

এছাড়া বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোহা. খালিদ হোসেন, পুলিশ সুপার আবুল হাসনাথ খান, মোরেলগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এস এম তারেক সুলতানসহ ফায়ার সার্ভিস ও বন বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন।

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক মোহাম্মদ শাহিদুল আলম চৌধুরী বলেন, ভোলা নদী থেকে অন্তত দুই কিলোমিটার দূরে আগুনের উৎসে সকাল থেকে পানি ছিটানো হচ্ছে। ফাইভ লাইন কাটা হয়েছে। তাতে আগুন নতুন এলাকায় ছড়িয়ে পড়তে না পারে। তিনদিক দিয়ে ফায়ার সার্ভিস পানি দিচ্ছে। এখন বনের মধ্যে বড় ধরনের আগুন নেই।


আরও খবর