Logo
আজঃ সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? কর্মীদের দক্ষ করে বিদেশে পাঠাতে হবে : প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশকে কত বিলিয়ন অনুদান-ঋণ দেবে চীন, জানালেন প্রধানমন্ত্রী নাসিরনগরে খুনের মামলার বাদীর এখন দিন কাটছে আতংকে মধুপুরে ক্লিনিং স্যাটারডে কার্যক্রম অনুষ্ঠিত এবার কোটা আন্দোলনের পক্ষে কথা বললেন আয়মান সাদিক ভারতে পাচার হওয়া ৫ বাংলাদেশি সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে শিক্ষার্থীরাই হবে আগামী বাংলাদেশের কর্ণধার: ধর্মমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী: প্রধানমন্ত্রী বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ সামন্ত লাল সেন

মমতাজউদদীন নাট্যকার পুরস্কার পাচ্ছেন কবি ও নাট্যকার রুমা মোদক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | ৩৩৭জন দেখেছেন

Image

অনলাইন ডেস্ক : কবি ও নাট্যকার রুমা মোদককে মমতাজউদদীন নাট্যকার পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়েছে। আগামী ১৮ জানুয়ারি নাট্যজন মমতাজউদদীন আহমদের ৮৯তম জন্মদিনে এ পুরস্কার প্রদান করা হবে।

সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

মমতাজউদদীন আহমদ সংগ্রহশালার পক্ষে বিশিষ্ট সাংবাদিক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবেদ খান ও নাট্যকার অধ্যাপক ড. রতন সিদ্দিকী এ বছর নাট্যগ্রন্থ হিসেবে রুমা মোদকের ‘নির্বাচিত নাটক’ গ্রন্থটিকে নির্বাচিত করেন। 

সৃজনশীল প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান বিশ্বসাহিত্য ভবনের সত্ত্বাধিকারী তোফাজ্জল হোসেনের অর্থায়নে পুরস্কারটি প্রদান করা হবে। পুরস্কার হিসেবে নাট্যকার পাচ্ছেন নগদ ১০ হাজার টাকা এবং বিশ্বসাহিত্য ভবন থেকে প্রকাশিত অধ্যাপক মমতাজ উদদীন আহমদ রচিত প্রায় ৭০টি গ্রন্থ।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক মমতাজউদদীন আহমদ নাট্যজন পুরস্কার নামে ইতোমধ্যে একটি পুরস্কার বাংলা একাডেমি থেকে প্রদান করা হচ্ছে।

মমতাজউদদীন আহমদ সংগ্রহশালার সমন্বয়কারী শাহরিয়ার মাহমুদ প্রিন্স জানান, বিশ্ববরেণ্য চিত্রশিল্পী ও বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন আহমেদ, বরেণ্য অর্থনীতিবিদ ড. আতিউর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ডা. আমজাদ হোসেন ও মমতাজউদদীন আহমদের জীবনসঙ্গী কামরুননেসা মমতাজ আগামী ১৮ জানুয়ারি রুমা মোদকের হাতে পুরস্কার ও সম্মাননা তুলে দেবেন।


আরও খবর



মাগুরার শ্রীপুরের দ্বারিয়াপুর দরবার শরীফে ইছালে সওয়াব ও ওয়াজ মাহফিল

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১০১জন দেখেছেন

Image
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার দ্বারিয়াপুর দরবার শরীফের কুতুবুল আলম পীরে কামেল শাহ সূফী তোয়াজ উদ্দিন আহমদ (রহঃ) ও সুলতানুল ওয়ায়েজ্বীন পীরে কামেল শাহ সূফী আবু সাঈদ মুহাম্মদ আবদুল হান্নান (রহঃ) এর ওফাৎ দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার ইছালে সওয়াব ও ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

ওয়াজ মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে ওয়াজ করেন ভারতের জৈনপুরের পীর সাহেব কেবলা সাইয়্যেদ ড. মুহাম্মদ এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী ওয়া সিদ্দিকী ।ইশায়াতে ইসলামের আমির ও দ্বারিয়াপুর দরবার শরীফের পীরজাদা শাহ আবু তালহা মুহাম্মদ মুস্তাইন বিল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ ওয়াজ মাহফিলে ডোবরার পীর ওবায়েদ বিন নাসের, বিভিন্ন দরবার শরীফের পীর সাহেবগণ, ইসলামী চিন্তাবিদগণসহ স্থানীয় ওলমায়ে কেরামগণ বক্তব্য রাখেন। 

ওয়াজ মাহফিলে সম্মানিত অতিথি ছিলেন শ্রীপুর উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়তউল্লাহ হোসেন মিয়া রাজন, থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ তাসনীম আলম,  ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বাবুল রেজা। আসর বাদ হতে শুরু হয়ে মধ্যরাত পর্যন্ত চলা এ ওয়াজ মাহফিলে ইসলামের নীতি আদর্শ নিয়ে বক্তাগণ বক্তব্য রাখেন।

আরও খবর



লাশ নিয়ে লঙ্কাকান্ড,পরে গভীর রাতেই দাফন লাশ

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১১৮জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:হাসপাতালে চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণার পর লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে গ্রামে আসে সাপের কামড়ে নিহত সাইফুলের লাশ। কাপনের কাপড়ে মুড়িয়ে জানাযার নামাজ ও দাফনের প্রস্তুতি চলছিল তার লাশের। এমন সময় হঠাৎ এক কবিরাজের বেলকিবাজিতে লাশ দাফনে বাঁধা দেয় স্বজনরা। মৃত ব্যক্তিকে ঝাড়ফুঁক দিয়ে জীবিত করা হবে এমন খবরে হাজারো উৎসুক মানুষ সেখানে ভিড় জমায়। কবিরাজ লাপাত্তা হলে অবশেষে গভীর রাতে লাশের দাফন সম্পূর্ণ করা হয়। গত শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত উপজেলার বাসুরা এলাকায় এমন লঙ্কাকান্ডের ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনার ঝড়। নিহত হলেন, কালিয়াকৈর উপজেলার বাসুরা গ্রামের ইউনুছ আলীর ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪০)।

এলাকাবাসী ও নিহতের স্বজন সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার রাঁতে সাইফুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তিকে কালিয়াকৈর উপজেলার বাসুরা গ্রামের একটি বিলে রাতে মাছ ধরতে গেলে বিষধর সাপে কামড়ে দেয়। এরপর সঙ্গে থাকা অন্য ব্যক্তি টেঁটা দিয়ে সাপটি মেরে ফেলেন। পরে মৃত সাপটি নিয়ে সাইফুল বাড়িতে ফিরে স্বজন ও এলাকাবাসীকে ঘটনাটি জানায়। প্রথমে কবিরাজের কাছে নিয়ে ঝাড়ফুঁক শেষে রাতেই তাঁকে

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে কুমুদিনী হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার ভোরে তিনি মারা যান। হাসপাতালে চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণার পর লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে গ্রামে আসে সাইফুলের লাশ। কাপনের কাপড়ে মুড়িয়ে বেলা ২টার দিকে জানাযার নামাজ ও দাফনের প্রস্তুতি চলছিল। এমন সময় হঠাৎ এক কবিরাজের আভির্ভাব ও তার বেলকিবাজীতে পড়ে লাশ দাফনে বাঁধা দেয় স্বজনরা। ঝাড়ফুঁক ও কড়ি চালান দিয়ে মৃত ওই ব্যক্তিকে জীবিত করা সম্ভব, এমন আজব তথ্য দিয়ে ব্যাপক আয়োজন চালাচ্ছিলেন এক কবিরাজ।বাড়ির পাশে একটি খেতে চারটি কলাগাছ পুঁতে চার পাশে ঘেরাও করে কয়েকটি নতুন সিলভারের পানির কলস বসানো হয়।

কলাগাছের চার কোনায় চারটি গ্লাসে দুধ ও একটা মহিষের শিং রাখা, রাতের আঁধার দূর করতে একাধিক বৈদ্যুতিক বাতির ব্যবস্থা করা হয়। এছাড়াও ওই চারটি কলাগাছের মধ্যে টেবিলের ওপর মৃত সাইফুলের লাশ রাখা হবে। এরপাশেই রাখা ছিল সেই মৃত সাপটি। এভাবেই কবিরাজ তাঁকে জীবিত করার চেষ্টা করছিলেন। এমন খবর পেয়ে বাসুরা পশ্চিমপাড়া বাইতুন নুর জামে মসজিদ এলাকার আশপাশে কয়েকটি গ্রামের হাজারো উৎসুক মানুষ সেখানে ভিড় করে। কিন্তু কবিরাজ কড়ি আনার কথা বলে প্রথমে ঢাকার সাভারে পরে গাজীপুর টঙ্গী যান। এরপর থেকে ওই কবিরাজ লাপাত্তা হলে অবশেষে শনিবার গভীর রাতে লাশের দাফন সম্পূর্ণ করা হয়। এদিকে এই আধুনিক যুগে এমন ঝাড়ফুঁক কুসংস্কার মেনে নেওয়া যায় না। গভীর রাত পর্যন্ত এমন লঙ্কাকান্ডের ঘটনাস্থলে পুলিশ ও সচেতন মহলের লোকজনের উপস্থিতি থাকলেও কোনো প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। তবে লাশ নিয়ে এমন লঙ্কাকান্ডের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মহলে ব্যাপক আলোচনা- সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

স্থানীয় মসজিদের ইমাম আবদুল জলিল জানান, মৃত সাইফুলের জানাজার জন্য দুপুরে এলাকায় মাইকে ঘোষণা ও কবরও খোঁড়া হয়েছিল। কাফনের কাপড় পরানো হয়েছিল। হঠাৎ এক কবিরাজ এসে মৃত সাইফুলকে দেখে চিকিৎসার মাধ্যমে তাঁকে জীবিত করা সম্ভব বলে স্বজনদের জানায়। পরে স্বজনেরা কবিরাজের কথা বিশ্বাস করে ঝাড়ফুঁকের আয়োজন করেছিল। কিন্তু কবিরাজ লাপাত্তা হলে অবশেষে গভীর রাতে তার লাশ দাফন সম্পূর্ণ করা হয়।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম নাসিম জানান, যেহেতু তাঁর পরিবারের আত্মবিশ্বাস, যদি ওঝা ভালো করতে পারেন, সেজন্য এমন আয়োজন করে তারা। সেখানে উৎসুক জনতার ভিড় ছিল। সেখানে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে, সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল।


আরও খবর



রাণীশংকৈলে নবম শ্রেণীর ছাত্র কুলিক নদীতে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১০৮জন দেখেছেন

Image

মাহাবুব আলম, রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি:ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় নবম শ্রেণির ছাত্র সঞ্চয় মহন (১৫) নামে এক ব্যাক্তি কুলিক নদীতে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজের সংবাদ পাওয়া গেছে।  ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (৩ জুলাই) বিকেল ৩টায়। সঞ্চয় উপজেলার পৌর শহরের ডাবতলী শিবমন্দির পাড়া গ্রামের অমল ঘোষের ছেলে।

স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিস টিম লিডার তোজাম্মেল হক জানান, প্রতিদিনের ন্যায় সঞ্চয় স্কুল শেষে বাড়ী ফিরার পথে বন্ধুদের সাথে স্কুল সংলগ্ন পাইলট কুলিক নদীর ব্রিজ থেকে পানিতে ঝাঁপ দেয় গোসল করার উদ্দেশ্য। ঝাপ দেওয়ার পর পানিতে তলিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পর । না পেয়ে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসকে ফোন দেয়। আমরা ঘটনাস্থলে এসে খোঁজাখুঁজি করি । এখন পর্যন্ত কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। রংপুর থেকে ডুবুরি দল প্রতিমধ্যেই রয়েছেন । 

এ ব্যাপারে রাণীশংকৈল থানার ওসি জয়ন্ত কুমার সাহা জানান,এখন পর্যন্ত আমরা খবর পাইনি। আপনার মাধ্যমে জানতে পারলাম। খোঁজ নিয়ে দেখি ।

আরও খবর



রাবেয়া খাতুনের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৯৪জন দেখেছেন

Image

কামরুজ্জামান ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:ঝিনাইদহ জেলা শৈলকুপা উপজেলার ভাটই রাবেয়া খাতুন মডেল মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা মহীয়সী নারী রাবেয়া খাতুনের তৃতীয় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে বালিকা বিদ্যালয়ের হল রুমে রুহের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও আলোচনা সভা বালিকা বিদ্যালয়ের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান এস.এম আনিছুর রহমান খোকা। বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক নাহিদুজ্জামান, মাদ্রাসার অধ্যাপক তাহেরুল ইসলাম, অধ্যক্ষ কে.এফ.এম আবু বকর সিদ্দিক, শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ। অনুষ্ঠান শেষে বিশেষ দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.



আরও খবর



রাতে ভারতের মুখোমুখি বাংলাদেশ

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১৫৫জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:আজ মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ভারত সুপার এইটে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে । অ্যান্টিগায় রাত সাড়ে আটটায় শুরু হবে ম্যাচটি। সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে এই ম্যাচে জয় পেতে হবে শান্ত'র দলকে। টাইগারদের হারালে শেষ চার অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যাবে টিম ইন্ডিয়ার।

গ্রুপপর্বে চার ম্যাচে তিন জয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো সুপার এইটে কোয়ালিফাই করে বাংলাদেশ। যদিও সুপার এইটের শুরুটা ভালো হয়নি শান্তদের। বৃষ্টি আইনে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ২৮ রানে হেরে গেছে। সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে অ্যান্টিগার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে নামছে টাইগাররা। আজ বাংলাদেশ সময় রাত ৮টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে ম্যাচটি।

টাইগারদের জন্য এই ম্যাচটা কার্যত বাঁচা-মরার। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলতে এই ম্যাচে জয়ের কোনো বিকল্প নেই। সংবাদ সম্মেলনে পেসার তাসকিন আহমেদও জানিয়েছেন নিজেদের জয়ের প্রত্যাশার কথা। আশা রাখছেন এখনো শেষ হয়নি সেমি-ফাইনাল খেলার স্বপ্ন।

এদিকে এই ম্যাচের আগে বাংলাদেশ বিশেষ সুবিধা পাবে বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠোর। ভারতীয় এ কোচের মতে অ্যান্টিগার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামের উইকেট স্পিনারদের সহায়তা করছে। আর এ ধরনের কন্ডিশনে বাংলাদেশ সব সময় ভালো করে। ফলে ভারতের বিপক্ষেও বাংলাদেশের ভালো করার সম্ভাবনা আছে বলে মনে করেন তিনি।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চারবার দেখা হয়েছে দু’দলের। সব ম্যাচই জিতেছে টিম ইন্ডিয়া। পরিসংখ্যান বাংলাদেশের পক্ষে না থাকলেও, ভারতকে বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ানোর আশা টিম টাইগার্সের।


আরও খবর