Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

মেয়ের বাবা হলেন অভিনেতা সনি রহমান

প্রকাশিত:Saturday ১৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৯১জন দেখেছেন
Image

মেয়ের বাবা হলেন অভিনেতা সনি রহমান। গত শুক্রবার, ১৭ জুন নরসিংদীর মাধবদী হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতালে তার স্ত্রী ফুটফুটে এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। অভিনেতা জানিয়েছেন, মা ও শিশু দুজনেই সুস্থ আছেন।

সনি রহমান বলেন, ‘প্রথম সন্তানের বাবা হলাম, তাও কন্যা সন্তান। অনুভূতিটা কতোটা মধুর তা সন্তান বুকে জড়িয়ে নেয়ার পর বুঝলাম। অনুভূতিটা সত্যিই অসাধারণ। বাবা হওয়ার অনুভূতিটা কি সেটা যাদের সন্তান হয়েছে তারাই একমাত্র বলতে পারবেন।

আমি মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে শুকরিয়া আদায় করছি। সেই সঙ্গে সবার কাছে আমার সন্তান ও স্ত্রীর জন্য দোয়া প্রার্থনা করছি।’

সনি রহমান বেশ অনেক বছর ধরেই মঞ্চ, টিভি ও সিনেমায় কাজ করে যাচ্ছেন। মুক্তির অপেক্ষায় আছে তার ‘রাগি’ নামের একটি সিনেমা।

এফডিসিতে ব্যয়বহুল মসজিদটি তৈরির পেছনেও এই সনি রহমানের অনেক ভূমিকা রেখেছেন।


আরও খবর



নির্মাণের ২২ বছর পরও আলোর মুখ দেখেনি ফেনীর সুইমিংপুল

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৫৪জন দেখেছেন
Image

খাল-বিল, নদী-নালার দেশে ভালোমানের সাঁতারু বের করে আনার লক্ষ্যে রাজধানী ঢাকা, বন্দরনগরী চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন বিভাগীয় শহর এবং বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ জেলায় জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের অর্থায়নে নির্মাণ করা হয়েছে সুইমিংপুল। যে সব সাঁতারুরা শুধুমাত্র এসএ গেমস নয়, দেশের মুখ উজ্জ্বল করবে এশিয়ান গেমস, এমনকি অলিম্পিক গেমসেও।

শুধু সাঁতারু বের করে আনাই নয়, বিভিন্ন ক্রীড়া ডিসিপ্লিনে খেলোয়াড়দের শরীরচর্চার অন্যতম অনুসঙ্গ হিসেবেও খুব প্রয়োজন সাঁতার। সাধারণ মানুষের সাঁতার শেখাটাও জীবনের অন্যতম প্রয়োজনীয় বিষয়।

সবকিছুকে সামনে রেখে সারা দেশে অন্তত ২৩টি সুইমিংপুল নির্মাণ করা হয়। কিন্তু নির্মাণের পর অধিকাংশ পুলই পড়ে রয়েছে জরাজীর্ণ অবস্থায়। কোনো কোনো পুলে তো একদিনের জন্যও কেউ নামতে পারেনি। কোথাও পানি নেই, কোথাও পাম্প নষ্ট, কোথাও নোংরা পানি- নানা অব্যবস্থায় পড়ে রয়েছে কোটি কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত সুইমিংপুলগুলো।

অব্যবস্থাপনায় জর্জরিত এসব সুইমিংপুল নিয়েই জাগোনিউজের ধারাবাহিক আয়োজন। চতুর্থ পর্বে আজ থাকছে ফেনী সুইমিংপুলের চালচিত্র...

* ২০০০ সালে ৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা ব্যায়ে নির্মাণ করা হয় ফেনী সুইমিংপুল।
* ২২ বছরেও চালু না হওয়ায় অযত্ন আর অবহেলায় নষ্ট হচ্ছে বিভিন্ন স্থাপনাসহ যন্ত্রপাতি।
* টাইলস্গুলো উঠে যাচ্ছে, পলেস্তারা খসে পড়ছে, দেয়ালে দেখা দিয়েছে ফাটল।
* পুল এলাকা এখন দিন-রাত মাদকের আখড়া ও বখাটেদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে।
* ক্রীড়ামোদীদের ক্ষোভ ও অসন্তোষ।
* জেলা ক্রীড়া সংস্থা বলছে, ২০২২ সালের মধ্যেই এটি চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

নির্মাণের ২২ বছর পরও ফেনীতে নির্মিত মরহুম মাহবুবুল হক পেয়ারা সুইমিংপুলটি চালু করা হয়নি। নির্মাণ ক্রুটির অজুহাতে এটি চালু না রাখায় অযত্ন আর অবহেলায় নষ্ট হয়ে যাচ্ছে পুলটিতে স্থাপিত মোটর ও যন্ত্রপাতি, দেয়ালে দেখা দিয়েছে ফাটল, ধসে পড়ছে পলেস্তারা।

Feni Swimmingpool

পুল চাল না থাকায় জনমানবশূন্য তিন একরের এ জায়গাটিতে এখন দিন-রাত মাদকের আখড়া ও বখাটেদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। তবে জেলা ক্রীড়া সংস্থা বলছে, ২০২২ সালের মধ্যেই এটি চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০০০ সালে ৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা ব্যয়ে ফেনী শহরের দাউদপুর এলাকায় জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের উদ্যোগে নির্মাণ করা হয় ফেনী জেলা সুইমিংপুল।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার তত্ত্বাবধানে ৩ একর জায়গাজুড়ে নির্মিত ৮ লেনের এ সুইমিংপুলটি ২০১৪ সালে মরহুম মাহবুবুল হক পেয়ারা সুইমিংপুল নামকরণ করা হয়। জেলা পর্যায়ে সাঁতার শেখানো, বিভিন্ন সাঁতার প্রতিযোগিতার আয়োজন এবং স্থানীয় ও আশপাশের জনসাধারণের জন্য সাঁতারের ব্যবস্থা করতেই সুইমিংপুলটি নির্মাণ করা হয়।

ঢাকা-চট্টগ্রামের মাঝামাঝি হওয়ায় ফেনীর এ সুইমিংপুলটি সাঁতার প্রতিযোগীতার জন্য জাতীয় একটি গুরুত্বপূর্ণ ভেন্যু হওয়ার কথা ছিলো; কিন্তু ক্রীড়া সংস্থার উদাসীনতা, আর্থিক সংকট, জনবল না পাওয়া ও সংস্কারের প্রয়োজনীয় বরাদ্দ না পাওয়ার কারণে নির্মাণের ২২ বছর পরও এটি চালু করা যায়নি।

Feni Swimmingpool

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সুইমিংপুলের মূল ভবনের সামনে বৃহদায়তনের মাঠে ক্রিকেট প্র্যাকটিস গ্র্যাউন্ড। যেখানে কয়েকজন কিশোর অনুশীলন করছে। আশপাশে শুনশান নীরবতা। এখানে একজন দারোয়ান নিয়োজিত থাকলেও দীর্ঘ ২ ঘণ্টা পর্যন্ত তার দেখা মেলেনি।

সুইমিংপুলের পাশে দাঁড়িয়ে কয়েকজন কিশোর ধুমপানের পাশাপাশি আড্ডায় মত্ত্ব। দীর্ঘদিন পরিচ্ছন্নতা না করায় পূর্বপাশ এবং পশ্চিম পাশ আগাছায় ভরে উঠেছে। মূল ভবনের ভেতরে প্রবেশ করে দেখা যায়, দীর্ঘদিন অব্যবহৃত থাকায় এখানকার পুলের বেসিনের টাইলস্গুলো উঠে যাচ্ছে, পলেস্তারা খসে পড়ছে, দেয়ালে দেখা দিয়েছে ফাটল। অযত্ন আর অবহেলায় যন্ত্রপাতিগুলো মরিচা পড়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

পুল থাকার পরও ব্যবহার করতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করে স্থানীয় কিশোর সায়মন বলেন, ‘নগরায়নের কারণে দিনদিন ফেনী শহরে পুকুরের সংখ্যা কমছে। কোটি কোটি টাকা ব্যয় করে এখানে সুইমিংপুলটি নির্মাণের পরও কেন এটি চালু হচ্ছে না তা কেউ জানে না। এটি চালু না হওয়ায় দিনরাত এখানে বখাটেদের আড্ডা জমে উঠেছে। জিনিসপত্র নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এটি চালু করলে আমরা সাঁতার শিখতে পারতাম। বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় অংশ নিতে পারতাম। এতে করে স্থানীয় যুবকদের মাঝে মাদকাসক্তের হার কমতো, কিশোরগ্যাং সমস্যা থাকতো না।’

Feni Swimmingpool

কিশোর ক্রিকেটার নিহান বলেন, ‘ফেনীর বিভিন্ন উপজেলা থেকে প্রায় সময় ক্রিকেট প্র্যাকটিসের জন্য আমাদেরকে এ মাঠে আসতে হয়। প্র্যাকটিস শেষে শরীরে দুর্গন্ধ, ঘাম আর ক্লান্তিতে একাকার হয়ে যাই। ভেজা শরীর নিয়ে বাড়ি ফিরতে হয়। এখানে সুইমিংপুলটি চালু থাকলে প্র্যাকটিস শেষে গোসল করে বাড়ি ফিরতে পারতাম।’

ফেনী জেলা ক্রিকেট এসোসিয়েশনের সভাপতি ইমন উল হক বলেন, ‘২২ বছরেও ফেনীর সুইমিংপুলটি চালু না হওয়া দুঃখজনক। এটি শুধু শিশু-কিশোরদের জন্য প্রয়োজন তা নয়; এটি চালু হলে সাঁতারু সৃষ্টি হবে। প্রতিযোগিতার আরো একটি ইভেন্ট যোগ হবে। আমরা বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্টদের সাথে বারবার আলোচনা করেও কোন ফল পাইনি।’

ফেনী জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন বাহার জাগোনিউজকে বলেন, ‘এটি ২০০০ সালে নির্মাণ করা হয়েছে। কিছু ক্রুটির কারণে এটি চালু করা সম্ভব হয়নি। ২০১০ সালে আমি দায়িত্বে আসার পর চেষ্টা করেছি এটি চালু করার জন্য। এখানে বসানো মোটরে ক্রুটি রয়েছে। পুলেও ক্রুটি আছে। চেষ্টা করেছি ক্রুটিগুলো সংস্কার করে চালু করার জন্য। এর সংস্কারের জন্য যে পরিমাণ বরাদ্দ প্রয়োজন তা বহনের সক্ষমতা ক্রীড়া সংস্থার নেই। তারপরও ২০২২ সালের মধ্যেই এটি চালুর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো।’

Feni Swimmingpool

এ বিষয়ে ফেনী জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি আবু সেলিম মাহমুদ উল হাসান জাগো নিউজকে বলেন, ‘ফেনীর সুইমিংপুলটি বড় একটি স্থাপনা; কিন্তু দূর্ভাগ্যের বিষয় যে, শুরুর পর থেকে এটি চালু করা হয়নি। এটি চালু করতে হলে নতুনভাবে অনেক কাজ করতে হবে। বিষয়টি আমরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করবো। এটি চালু হলে স্থানীয়রা সুইমিং শিখতে পারবে। সাধারণ মানুষও সুইমিং করতে পারবে। ফেনীতে সাঁতার প্রতিযোগী সৃষ্টি হবে।’


আরও খবর



ইন্দোনেশিয়ার বিপক্ষে লড়াই আগ্রহ বাড়িয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিদের

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ২৫ June ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
Image

বাহরাইনের বিপক্ষেই নয়, এশিয়ান কাপ ফুটবলের বাছাইয়ের তিনটি ম্যাচ নিয়েই বিপুল আগ্রহ মালয়েশিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশিদের। ৩ জুন জাতীয় ফুটবল দল ইন্দোনেশিয়া থেকে মালয়েশিয়া পৌঁছালে প্রবাসী বাংলাদেশিরা বিমানবন্দরে উপস্থিত হয়ে অভ্যর্থনা জানিয়েছিলেন জামাল ভূঁইয়াদের।

সেখানেই থেমে ছিল না তারা। বাংলাদেশ যেদিন যে ভেন্যুতে অনুশীলন করেছে, সেই ভেন্যুতেই অনেক প্রবাসী উপস্থিত হয়েছেন। তারা বিভিন্নভাবে বাংলাদেশের ফুটবলারদের উৎসাহ দিয়েছেন।

প্রবাসী বাংলাদেশিদের অপেক্ষার পালা শেষ হচ্ছে বুধবার বিকেলে। বাংলাদেশ সময় বিকেল সোয়া ৩টায় প্রথম ম্যাচ খেলতে নামছে বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষ এই গ্রুপের সবচেয়ে শক্তিশালী দল বাহরাইন।

মঙ্গলবার অনুশীলন মাঠে উপস্থিত হয়ে প্রত্যেকটি ম্যাচের দিনে গ্যালারিতে বসে দলকে উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা দেবেন বলে ঘোষণা করেছেন সাইফুদ্দিন নামের এক প্রবাসী বাংলাদেশি। মালয়েশিয়া থেকে তার বক্তব্যের ভিডিওটি পাঠিয়েছে বাফুফে।

সাইফুদ্দিন বলেছেন, ‘বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল মালয়েশিয়া এসেছে। আমরা প্রবাসী বাংলাদেশিরা ওনাদেরকে বিমানবন্দরে সংবর্ধনা দিয়েছি। প্রত্যেকদিন চেষ্টা করছি দলকে কিভাবে সহযোগিতা করা যায়। আমরা অনুশীলন মাঠে থাকছি। প্রতিটি ম্যাচেও আমরা মাঠে গিয়ে উৎসাহ দেবো।’

বাংলাদেশের ম্যাচ নিয়ে প্রবাসীদের তুমুল আগ্রহের কথা উল্লেখ করে সাইফুদ্দিন বলেছেন, ‘এখানে অবস্থান করা বাংলাদেশিদের তুমুল আগ্রহ ম্যাচগুলো নিয়ে। আমরা মাঠে গিয়ে বাংলাদেশ দলকে সাপোর্ট করার জন্য মুখিয়ে আছি। আমরা সবাই ভালো রেজাল্টের আশা করছি।’

জাতীয় দলের বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ের নাম উল্লেখ করে এই প্রবাসী বাংলাদেশি বলেছেন, ‘আমাদের জামাল ভূঁইয়া, ইব্রাহিম, জিকো, ফাহাদ বিশ্বনাথ, সোহেল রানা এমন সত্তরভাগ খেলোয়াড়ের নাম এখানকার বাংলাদেশিরা জানেন। ইন্দোনেশিয়ার বিপক্ষে আমাদের দল খুব ভালো রেজাল্ট করেছে। এ কারণে প্রবাসীদের আগ্রহ আরো বেড়ে গেছে। ইন্দোনেশিয়ার বিপক্ষে যেমন খেলেছি আমরা, এখানে সেরকম ম্যাচ এবং ওই রকম ফলও আশা করছি।’


আরও খবর



শহরের রাস্তায় রয়েল বেঙ্গল টাইগার!

প্রকাশিত:Saturday ১৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৭৯জন দেখেছেন
Image

ফাঁকা রাস্তায় হাঁটছে একটি রয়েল বেঙ্গল টাইগার। এ সময় একজনকে ছবি তুলতে দেখা যাচ্ছে। এ ধরনের একটি লোমহর্ষক ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে মেক্সিকোর নায়ারিত রাজ্যের টেকুয়ালা শহরে।

স্থানীয়রা রাস্তায় বাঘটি দেখে হতভম্ব হয়ে যায়। অ্যাটর্নি জেনারেল ফর এনভায়রনমেন্টাল প্রোটেকশন জানায়, সিনালোয়ার সীমান্ত থেকে বাঘটিকে জব্দ করা হয়েছে।

সিডনি মর্নিং হেরাল্ডের প্রতিবেদনে বলা হয়, শহরের রাস্তায় বাঘটিকে ঘুরতে দেখে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে কর্তৃপক্ষ। তাছাড়া বাঘটিকে অবৈধভাবে পোষা হচ্ছিল বলেও জানানো হয়।

ভিডিওতে দেখা যায়, বাঘটিকে রাস্তায় হাঁটতে দেখে এক তরুণী চিৎকার করছে। ভিডিওর শেষ দিকে দেখা যায়, বাঘটি কারও জন্য অপেক্ষা করছে। এরপর একজন এসে এটির গলায় রশি বেঁধে নিয়ে যাচ্ছে। এরই মধ্যে ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। টুইটারে এটির ভিউ হয়েছে ১৩ হাজার বার।


আরও খবর



হবিগঞ্জে ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা স্কুলছাত্রী, খালা-খালু কারাগারে

প্রকাশিত:Thursday ০২ June 2০২2 | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৩৯জন দেখেছেন
Image

হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলায় খালুর ধর্ষণের শিকার হয়ে ছয়মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়েছে এক স্কুলছাত্রী। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত খালুসহ খালাকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতাররা হলেন- বাহুবল উপজেলার ছোট বড়ইউড়ি গ্রামের আব্দুর রউফ (৪৫) ও তার স্ত্রী মোছা. হাফসা বেগম (৩৫)।

বাহুবল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) প্রজিত কুমার দাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর তাদের গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, মা মারা যাওয়ার পর থেকে ওই ছাত্রী তার খালার বাড়িতে থেকে পড়াশোনা করছিল। এ সুযোগে ভয়ভীতি দেখিয়ে খালু ওই ছাত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। ফলে সে ছয়মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। সম্প্রতি বিষয়টি জানাজানি হলে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত খালু আব্দুর রউফ ও খালা মোছা. হাফসা বেগমকে গ্রেফতার করে। বৃহস্পতিবার (২ জুন) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়।


আরও খবর



নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লায় মাদ্রাসা ছাত্রী উদ্ধার অপহরণকারী গ্রেফতার

প্রকাশিত:Sunday ১২ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ১০৬জন দেখেছেন
Image

স্টাফ রিপোর্টারঃ মোঃআবু কাওছার মিঠু 

ফতুল্লায় অপহৃত মাদ্রাসা ছাত্রী (১৫) কে উদ্ধারসহ অপহরনকারী সাজ্জাদ হোসেন (২০) কে গ্রেফতার করেছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ।


গ্রেফতারকৃত সাজ্জাদ হোসেন শরিয়তপুর জেলার পালং মডেল থানার বালাখানা মাদ্রাসার শারজাহান মীরের পুত্র। 


শনিবার (১১ জুন) বিকালে ফতুল্লা মডেল থানার শিয়াচর তক্কার মাঠ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।


এ ঘটনায় অপহৃত মাদ্রাসার ছাত্রীর বাবা খোকন শিকারী বাদী হয়ে অপহরনের অভিযোগ এনে গ্রেফতারকৃত সাজ্জাদ ও তার বাবা শাহজাহান মীরের বিরুদ্ধে  ফতুল্লা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।


মামলায় উল্লেখ্য করা হয়ে, বাদীর মেয়ে ফতুল্লা থানার দেলপাড়া পেয়ারা বাগানস্থ উম্মোলকোবড়া মহিলা মাদ্রাসায় ৭ম শ্রেনীতে পড়াশুনা করেন।


গ্রেফতারকৃত সাজ্জাদ হোসেন বাদীর বোনের বাসায় যাতায়াত করতো, সেই থেকে বাদীর স্ত্রীর  মোবাইল ফোন নাম্বার নিয়ে প্রায় সময় ফোন দিতো। বাদীর স্ত্রী বাসার কাজে ব্যস্ত থাকায় প্রায় সময় বাদীর মেয়ে ফোনে কথা বলতো। বাদীর মেয়ে মাদ্রাসায় যাতায়াতের পথে প্রায় সময়  সাজ্জাদ প্রেমের প্রস্তাব সহ উত্যক্ত করতো। 


এ নিয়ে পরিবারের সদস্যদের জানালে তারা গ্রেফতারকৃত সাজ্জাদসহ তার অভিভাবকদের অবগত করেন। এতে সাজ্জাদ ক্ষিপ্ত হয়ে আরো বেশী বেপরোয়া হইয়ে উঠে এবং মেয়েকে জোর পূর্বক  তুলে নেওয়ার জন্য হুমকি দিতে থাকে। ১৫ মে রাত সাতটার দিকে  শিয়াচর তক্কারমাঠস্থ লোকমান মিয়ার ফার্মেসীর সামনে রাস্তার উপর পৌছাইলে সাজ্জাদ বাদীর  মেয়েকে জোর পূর্বক একটি সিএনজিতে উঠিয়ে অপহরণ করে একটি অজ্ঞাত স্থানে  নিয়ে যায়। তবে এলাকার একাধিক সূত্র জানিয়েছে বিষয়টি প্রেমঘটিত।


এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম জানায়, শনিবার দুপুর তিনটার দিকে তক্কার মাঠ স্টেডিয়াম সংলগ্ন রাস্তা থেকে সাজ্জাদকে গ্রেফতারসহ মেয়েটিকে উদ্ধার করা হয়।

 

মাদ্রাসা ছাত্রীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয় এবং গ্রেফতারকৃত সাজ্জাদকে আদালতে পাঠানো হয়।


আরও খবর