Logo
আজঃ বুধবার ১৯ জুন ২০২৪
শিরোনাম

মেসির আগমনের ঘোষণায় টিকিটের দাম বাড়ল ১০৩৪ শতাংশ!

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ জুন ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ২৬৭জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবলে তোলপাড় শুরু হয়ে গেছে! এর একটিই কারণ, মেজর লিগ সকারের দল ইন্টার মায়ামিতে যোগ দিচ্ছেন লিওনেল মেসি। আর্জেন্টাইন অধিনায়কের আগমনে টিকিটের দামও ১ হাজার শতাংশের বেশি বেড়ে গেছে!

অনলাইন মার্কেটপ্লেস ‘টিকপিক’ জানাচ্ছে, মঙ্গলবার পর্যন্ত বাজারে সেই টিকিটের দাম ছিল ২৯ ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩১৩৩ টাকা। বুধবার মেসির এক ঘোষণায় টিকিটের দাম হয়েছে ৩২৯ ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩৫,৫৪৪ টাকা। ম্যাচের টিকিটের দাম বেড়েছে ১০৩৪ শতাংশ! এর দাম আরও বাড়তে পারে বলে জানানো হয়।

মেসির আগামী ২১ জুলাই নতুন ক্লাবের হয়ে অভিষেক হতে পারে। ইন্টার মায়ামি সেদিনই লিগ কাপের প্রথম ম্যাচ খেলবে।

রয়টার্সকে টিকপিক-এর ব্র্যান্ড ম্যানেজার কাইল জর্ন বলেন, ‘ইন্টার মায়ামির হয়ে মেসির ম্যাচে মেজর লিগ সকারের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি দামে টিকিট বিক্রি হতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ‘মেসি এই ক্লাবে যোগ দিতে যাচ্ছেন, এই কথাটি শোনার পর তাৎক্ষণিকভাবেই ইন্টার মায়ামির টিকিটের দাম তরতর করে বাড়তে দেখি আমরা। তর্কযুক্তভাবে বিশ্বের সেরা ফুটবলার তিনি। ইন্টার মায়ামির হয়ে তিনি যতবার সফরে খেলতে যাবেন, ততবারই টিকিট বিক্রির রেকর্ড দেখতে পারব আমরা।


আরও খবর



তানোরে পোস্ট অফিস থেকে টাকা আত্মসাত ফেরত পেতে গ্রাহকের আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ মে 20২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১৩৮জন দেখেছেন

Image

আব্দুস সবুর তানোর থেকে:রাজশাহীর তানোরে ডিজিটাল  পোস্ট অফিসে জমানো টাকা ফেরত পেতে অফিসের ভিতরেই গলায় ফাঁস দিয়ে  স্বামী পরিত্যক্তা পারুল নামের এক মহিলা আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে নিশ্চিত করেন ভারপ্রাপ্ত পোস্ট মাষ্টার আব্দুল মালেক। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে পোস্ট মাষ্টার থানায় মোবাইল করলে পুলিশ এসে  নিয়ন্ত্রণ করেন। এর আগেও অফিসের ভিতরে গাছের সাথে দড়ি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলে ওই দিনও পুলিশ এসে পরিস্থিতি  নিয়ন্ত্রণ করেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টার দিকে কুঠিপাড়া গ্রামে অবস্থিত ডিজিটাল  পোস্ট অফিসে ঘটে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি। এখবর ছড়িয়ে পড়লে পাশ্ববর্তী আরো কয়েকজন গ্রাহক এসে অফিস ঘেরাও করলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের পরামর্শে গ্রাহকদের নিয়ে বিভাগীয় ডাক অফিসে রওনা দেন ভারপ্রাপ্ত পোস্ট মাষ্টার আব্দুল মালেক। প্রতি নিয়তই গ্রাহকরা তাদের টাকা ফেরত পেতে অফিসে ভীড় করছেন। কিন্তু টাকা না পেয়ে আত্মহনন সহ নানা ধরনের গালমন্দ করছেন অসহায় গ্রাহকরা । ফলে পোস্ট অফিসের মত নিরাপদ জায়গায় টাকা রেখেও লোপাটের ঘটনায় চরমভাবে মর্মাহত অসহায় গ্রাহকরা। এমনকি টাকা ফেরতে পাবে কিনা এনিয়েও সন্দিহান গ্রাহকরা। 

এদিকে স্বামী পরিত্যক্তা পারুলের আর্তনাদে পুরো গ্রামবাসী অফিসে ভীড় করেন। পারুলের বাড়ি তানোর পৌর এলাকার গোকুল গ্রামে। সে ইসরাফিলের মেয়ে।

সরেজমিনে দেখা যায়, পোস্ট অফিসের ভিতরে দেয়ালের সাথে দাড়িয়ে কান্না জড়িত কন্ঠে পারুল আর্তনাদ করছেন। তাকে সান্ত্বনা দিচ্ছেন পুলিশ প্রশাসনের লোকজন। পারুলের একই কথা আমার জমানো টাকা ফেরত চাই তানাহলে অফিস থেকে আমার লাশ বের হবে। পুলিশ পারুলের নাম ঠিকানা লিখছেন আর বলছেন মারা গেলে টাকার কি হবে। আপনি বেঁচে থাকলে কোন না কোন ব্যবস্থা হবেই।  আপনার ছোট বাচ্চা আছে আত্মহনন করবেন কেন। আপনি মারা গেলে বাচ্চার কি হবে। এসব কথা বলেও পারুলকে শান্ত করতে পারছিল না প্রশাসনের লোকজন। প্রায় ঘন্টা ধরে চলে এমন ঘটনা।  পরে এক প্রকার বাধ্য হয়ে পারুলসহ আরো কয়েকজন গ্রাহককে নিয়ে ভারপ্রাপ্ত পোস্ট মাষ্টার আব্দুল মালেক বিভাগীয়  অফিসে রওনা দেন।

তার আগে অফিসের ভিতরে পারুল বলেন, বিগত ৫ বছর ধরে ২ লাখ টাকা জমা রেখেছি। আমি একেবারেই অসহায়, সম্বল বলতে এই ২ লাখ টাকা। গত প্রায় ১৫ দিন আগে পোস্ট মাষ্টার আমার টাকা ফেরত দিবেন এমন কথা দিয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার আমার পুরো টাকা ফেরত দেওয়ার কথা। কিন্তু আমি এসে টাকার কথা বলা মাত্রই পোস্ট মাষ্টার সাব জানিয়ে দেয় যে পোস্ট মাষ্টার টাকা আত্মসাত করেছে তার বিরুদ্ধে দুদকে মামলা হয়েছে। মামলার রায় হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। কার বিরুদ্ধে দুদকে মামলা হল কিনা সেটা আমি কি করে বলব, আমার টাকা ফেরত পেলেই হলো। আমি অসহায় গ্রাহক মামলা মোকদ্দমার কি বুঝি। টাকা জমা রেখেছি মেয়াদ শেষ হয়েছে টাকা ফেরত দিবে ঝামেলা শেষ। গত বছরের নভেম্বর মাস থেকে আজ না কাল, এমাসে না সামনের মাসে টাকা ফেরত দিবে বলে আমাকে হয়রানি করাচ্ছে। যেখানেই নিয়ে যাক টাকা ফেরত না পেলে আমি অফিসে এসে আত্মহত্যা করব বলে কাঁদতে কাঁদতে পোস্ট মাষ্টারের সাথে বিভাগীয়  অফিসে যান পারুলসহ কয়েকজন। 

ভারপ্রাপ্ত পোস্ট মাষ্টার আব্দুল মালেক জানান, প্রায় পুনে দুই কোটি টাকা আত্মসাত করেছে আগের পোস্ট মাষ্টার মুকছেদ। সে সাসপেন্ড হয়ে আছেন। দুদকে মামলা হয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বিষয় টি গুরুত্ব সহকারে দেখছেন। কতজন গ্রাহকের টাকা আত্মসাত হয়েছে জানতে চাইলে তিনি জানান, সঠিক ভাবে বলা যাবেনা। তবে ৬০ থেকে ১০০ জন গ্রাহক হতে পারে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ও আমিসহ সাসপেন্ড হওয়া পোস্ট মাষ্টার মুকছেদের মেয়ে জামাইকে ডেকে টাকার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু তারা সাব জানিয়ে দিয়েছে মামলায় কি হচ্ছে দেখা যাক। এসব অনেক প্রক্রিয়ার বিষয়,  সময় লাগবে। প্রতিনিয়তই গ্রাহকেরা আসছেন গালমন্দ করছেন, সাথে সাথে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ কে অবহিত করা হচ্ছে। আমি চাকুরী করি, কর্তৃপক্ষ যে নির্দেশনা দিবেন, সে মোতাবেক আমাকে কাজ করতে হবে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের পরামর্শে গ্রাহকদের বিভাগীয়  অফিসে নিয়ে যাচ্ছি। 

রাজশাহী বিভাগের ডাক অফিসের ডেপুটি পোষ্ট মাস্টার জেনারেল মনিরুজ্জামানের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মুকছেদের বিরুদ্ধে দুদকে মামলা হয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যে তদন্ত শুরু হবে। সে প্রায় পুনে দুই কোটি টাকা আত্মসাত করেছে। গ্রাহকেরা টাকা পাবে কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান, তদন্ত করে টাকা আত্মসাতের প্রমান পেয়ে তাকে  সাসপেন্ডসহ মামলা দায়ের হয়েছে। আদালত রায় না দেয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। আমাদের নিয়ম অনুযায়ী কাজ করা হয়েছে। তবে দেরি হলেও গ্রাহকেরা টাকা পাবেন বলে তিনি বিশ্বাস করেন।

প্রসঙ্গত, পোস্ট অফিস থেকে টাকা উধাও হওয়ার ঘটনা ফাঁস হয়ে পড়লে চলতি বছরের  (১৮ মার্চ) সোমবার সকালে রাজশাহী ডাক বিভাগের ডেপুটি পোস্ট মাস্টার জেনারেল মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে একটি তদন্ত টিম তানোর ডিজিটাল পোস্ট অফিসে উপস্থিত হয়ে গ্রাহকদের কাগজপত্র দেখা শুরু করেন। এ সময় পোস্ট অফিসে একের পর এক গ্রাহকরা উপস্থিত হতে শুরু করেন। অফিস থেকে টাকা উধাও হওয়ার ঘটনা শুনে গ্রাহকরা অফিসের মধ্যেই উত্তেজনা শুরু করেন। এ সময় ডেপুটি জেনারেল কর্মকর্তা গ্রাহকদের শান্ত করে তাদের কথা শুনেন এবং আশ্বস্ত করে তাদের কষ্টের অর্জিত টাকা ফিরিয়ে দেবার জোর চেষ্টা করবেন বলে জানান তিনি।


আরও খবর



রাণীশংকৈলে স্বর্ণের খনি ইটভাটায় ভূতত্ত্ব বিভাগ টিমের অনুসন্ধান ও মাটির নমুনা সংগ্রহ

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ৭৮জন দেখেছেন

Image
মাহাবুব আলম,রাণীশংকৈল(ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার ব্যাপক আলোচিত সেই সোনার খনি খ্যাত আরবিবি ইটভাটার মাটির স্তুপে সোনা পাওয়ার প্রচারিত সংবাদ ও হাইকোর্টে রিটের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ভূতত্ত্ব অধিদপ্তরের দুই সদস্যর একটি টিম সরেজমিনে অনুসন্ধান করেছেন। মঙ্গলবার ও বুধবার ৪ ও ৫ জুন সহকারী পরিচালক (ভূতত্ত্ব) আনোয়ার সাদাৎ মুহাম্মদ সায়েম ও সহকারী পরিচালক (ভূতত্ত্ব) মোহাম্মদ আল রাজী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রকিবুল হাসান, বাচোর ইউপি চেয়ারম্যান জীতেন্দ্রনাথ বর্মণ স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সাংবাদিকদের নিয়ে আরবিবি ইটভাটায় রক্ষিত মাটির স্তুপ, এবং যে স্থান থেকে মাটি নিয়ে আসা হয়েছিল সেই শ্যামরাই মন্দিরের পাশের জমি ও পাশ্ববর্তী পীরগঞ্জ উপজেলার নানাহার পুকুরের মাটির নমূনা সংগ্রহ করেন। 

অনুসন্ধান শেষে টিমের সদস্যরা এদিন দুপুরে এ প্রতিবেদনকে জানান,আমরা এ এলাকার তিনটি স্থানের মাটির নমুনা সংগ্রহ করেছি এবং চোখে দেখে এ মাটি পরীক্ষা করেছি। এরপর এ মাটির নমুনা প্রতিবেদনসহ সংশ্লিষ্ট ল্যাবরেটরিতে  পরীক্ষার জন্য জমা দেবো। সংগৃহীত মাটি অনুযায়ী এসব স্থানে সোনা থাকার সম্ভাবনা আছে কিনা এ প্রশ্নের জবাবে তারা বলেন, আসলে এটি ভূতাত্ত্বিকভাবে প্রাকৃতিক সম্পদ অনুসন্ধানের বিষয়। সে হিসেবে এ মাটিতে সোনা থাকার সম্ভাবনা না থাকলেও প্রত্নতাত্ত্বিকভাবে গুপ্তধন আকারে দেশের যে কোনো স্থানে সোনা ইত্যাদি থাকতে পারে। বিষয়টি প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানানো হবে। 

প্রসঙ্গত: গত একমাস ধরে কাতিহার এলাকায় আরবিবি ইটভাটার মাটির ঢিবিতে সোনা পাওয়ার আশায় হাজার হাজার মানুষ মাটি খোঁড়ার কাজে ছুটে এসেছিল। কেউ কেউ সোনার মোহরসহ বিভিন্ন স্বর্ণের জিনিষ পেয়েছিল বলে অনেক মাধ্যমে জানা গেছে। বর্তমানে 
ওই ইটভাটায় ১৪৪ ধারা জারি বলবৎ রয়েছে।

আরও খবর



ঈদের আগের তিনদিন রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলা থাকবে যেসব এলাকায়

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১০৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:১৪ জুন থেকে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত তিনদিন রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যাংকিং কার্যক্রম চলবে ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরী এবং নাটোরের সিংড়া পৌরসভায় ব্যাংকের শাখা ও উপ-শাখায় বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

মঙ্গলবার (১১ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ (বিআরপিডি) এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এবং নাটোরের সিংড়া পৌরসভার তত্ত্বাবধানে ও ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত কোরবানির পশুর হাটগুলোতে অধিক সংখ্যক ব্যবসায়ীর সমাগম ঘটে এবং বিপুল পরিমাণ নগদ অর্থের লেনদেন হয়ে থাকে। ফলে হাটগুলোতে আর্থিক লেনদেনের নিরাপত্তার বিষয়টি অতীব গুরুত্বপূর্ণ।

এই পরিস্থিতিতে ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরী এবং নাটোরের সিংড়া পৌরসভার পশুর হাটগুলোর নিকটবর্তী ব্যাংকের শাখা বা উপ-শাখাগুলোতে বিশেষ ব্যবস্থায় আগামী ১৪ জুন থেকে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত রাত ১০টা পর্যন্ত স্বাভাবিক ব্যাংকিং কার্যক্রম চলবে। আর পর্যাপ্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করে কোরবানির পশুর হাটে অস্থায়ী বুথ স্থাপনের ব্যবস্থা গ্রহণ ও সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের শাখা, উপ-শাখা ও বুথগুলোতে অতিরিক্ত সময়ে দায়িত্ব পালনকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিশেষ ভাতা প্রদানের নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

উল্লেখ্য, ঈদুল আজহা ১৭ জুন (সোমবার) উদযাপিত হবে।


আরও খবর



শাহরুখ খান হিট স্ট্রোক করে হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১৪৪জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন । আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচ শেষে হিট স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি।

মঙ্গলবার (২১ মে) দলের খেলা দেখতে আহমেদাবাদে হাজির ছিলেন কিং খান। সেখানে অসুস্থবোধ করায় শহরের কেডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আইপিএলের প্লেঅফ ম্যাচ দেখতে আহমেদাবাদে গিয়েছিলেন শাহরুখ খান। গ্যালারিতে বসে দলের জয় উপভোগ করেন তিনি। কিন্তু এরপরই প্রচণ্ড গরমে হিটস্ট্রোকে আক্রান্ত হন তিনি। পরে তাকে আহমেদাবাদের কেডি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

জানা গেছে, আহমেদাবাদের তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রির উপরে থাকায় গরম সহ্য হয়নি শাহরুখের। এরপরই সকাল থেকে অসুস্থ বোধ করায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে।

কেডি হাসপাতালের চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, ডিহাইড্রেশনের কারণে মঙ্গলবার রাতেই অসুস্থ হয়ে পড়েন কিং খান। এরপর বুধবার দুপুরে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার স্টেডিয়ামে শাহরুখের সঙ্গেই উপস্থিত ছিলেন কন্যা সুহানা ও পুত্র আব্রাম। ছিলেন অনন্যা পাণ্ডে এবং শানায়া কপূরও। মাঠে বসেই দলের জয় উপভোগ করেছেন তারা।


আরও খবর



ভিকারুননিসার ১৬৯ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল, অনিয়ম তদন্তের নির্দেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১৮৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রথম শ্রেণিতে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ১৬৯ শিক্ষার্থীর ভর্তিতে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এ জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বে কমিটি গঠন করে দিয়েছেন আদালত। যেখানে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের একজন প্রতিনিধি ও বুয়েটের একজন আইটি বিশেষজ্ঞকে রাখতে বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২১ মে) বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি রাজিক-আল-জলিলের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এ রায়ের ফলে ১৬৯ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিলই থাকছে। পাশাপাশি প্রথম শ্রেণিতে অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আদালত বলেছেন, ভিকারুননিসায় ১৬৯ শিশুর ভর্তি নিয়ে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে এক্ষেত্রে অভিভাবকরাও দায় এড়াতে পারেন না।

আদালতে রিট আবেদনকারীদের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান, ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন, আইনজীবী শামীম সরদার। ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মোহাম্মদ রাফিউল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী মাঈনুল হাসান।

এর আগে, গত ১৯ মে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রথম শ্রেণির ১৬৯ ছাত্রীর ভর্তি কেন বাতিল হবে না, এই মর্মে জারি করা রুলের শুনানি শেষ হয়। শুনানি শেষে রায়ের জন্য আজকের দিন ধার্য করা ছিল।

তারও আগে, গত ২০ মার্চ এ ১৬৯ ছাত্রীর ভর্তি কেন বাতিল হবে না, এই মর্মে জারি করা রুল ২ মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ আদেশ দেন আপিল বিভাগ। একইসঙ্গে ১৬৯ ছাত্রীর ভর্তি ওপর স্থিতাবস্থা জারি করেন আদালত।

ভিকারুননিসায় ভর্তি নিয়ে বয়সের নিয়ম না মানার অভিযোগ এনে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তিচ্ছু দুই শিক্ষার্থীর মা গত ১৪ জানুয়ারি রিট করেন। প্রাথমিক শুনানি নিয়ে ২৩ জানুয়ারি হাইকোর্ট রুলসহ আদেশ দেন। তারই ধারাবাহিকতায় ২৮ ফেব্রুয়ারি মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) একটি স্মারক হাইকোর্টে উপস্থাপন করে।

মাউশির ওই আদেশ মতে, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ ২০২৪ শিক্ষাবর্ষে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তির ক্ষেত্রে বয়সের ঊর্ধ্বসীমা অনুসরণ করেনি। ১ জানুয়ারি ২০১৭ সালের আগে জন্মগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের ভর্তি করার প্রক্রিয়া ছিল বিধিবহির্ভূত।

এসব ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে ২০১৫ সালে জন্মগ্রহণকারী ১০ জন ও ২০১৬ সালে জন্মগ্রহণকারী শিক্ষার্থী সংখ্যা ১৫৯ জন। এসব শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল করে শিগগিরই মাউশিকে অবহিত করার অনুরোধ করা হলো।

এরপর স্কুল কর্তৃপক্ষ ১৬৯ জনের ভর্তি বাতিল করে। ১৬৯ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিলের পর এখন অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে এক সপ্তাহের মধ্যে শূন্য আসনে ভর্তি নিতে গত ৬ মার্চ নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। ওই আদেশের বিরুদ্ধে ভর্তি বাতিল হওয়া শিক্ষার্থীর অভিভাবক আপিল বিভাগে আবেদন করেন।


আরও খবর