Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

মেসি এখনো যে পুরস্কার জিততে পারেননি

প্রকাশিত:সোমবার ২৬ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ২৯০জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক; আর্জেন্টিনাকে দীর্ঘ ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপ শিরোপা এনে দিয়েছেন লিওনেল মেসি। নিজের ব্যক্তিগত সংগ্রহশালাতেও ফুটবলের সবচেয়ে বড় ট্রফির স্বাদ পেয়েছেন। এবারসহ দুবার গোল্ডেন বল জিতেছেন। এ ছাড়া নিজের ক্যারিয়ারে অসংখ্যবার ব্যালন ডি’অর ও ফিফা বেস্ট পুরস্কার জিতেছেন।

তবে তার প্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো বা হালের রবার্ট লেভান্ডভস্কিরা এমন একটি পুরস্কার জিতেছেন যা মেসি এখন পর্যন্ত ছুঁতে পারেননি। সম্প্রতি ‘গোল্ডেন ফুট’ অ্যাওয়ার্ড জিতলেন বার্সেলোনায় খেলা পোল্যান্ডের ফরোয়ার্ড লেভান্ডভস্কি। এই পুরস্কারটিই এখনো অধরা মেসির।

কাতার বিশ্বকাপের ফাইনালে ফ্রান্সকে টাইব্রেকারে হারিয়ে বিশ্বকাপ জেতে মেসির আর্জেন্টিনা। পুরো টুর্নামেন্টে অসাধারণ খেলে গোল্ডেন বল পুরস্কার জেতেন। কিন্তু এত কিছুর পরেও এ বছরের ‘গোল্ডেন ফুট’ জিততে পারেননি মেসি। সে শিরোপা পেয়েছেন লেভা। যিনি গত মৌসুমেই বায়ার্ন মিউনিখ ছেড়ে বার্সেলোনায় যোগ দিয়েছেন। এই মরসুমে স্পেনের ক্লাবের হয়ে এখন পর্যন্ত ১৮টি গোলও করে ফেলেছেন তিনি। তাকেই এ বারের ‘গোল্ডেন ফুট’ পুরস্কার দেওয়া হয়।

‘গোল্ডেন ফুট’ পুরস্কারটি গত ২০ বছর ধরে দেওয়া হচ্ছে। অতীতে বিশ্ব ফুটবলের বহু তারকা এই পুরস্কার জিতেছেন। তবে এই পুরস্কার পাওয়ার জন্য ফুটবলারের বয়স অন্তত ২৮ বছর হতে হয়। প্রতি বছর সাংবাদিকরা ভোট দিয়ে বেছে নেন এই পুরস্কারের বিজেতা। মেসির বয়স ৩৫ বছর। অর্থাৎ গত সাত বছরে এই পুরস্কার জেতার সৌভাগ্য হয়নি তার। এক জন ফুটবলার তার ক্যারিয়ারে এই পুরস্কার একবারই জিততে পারেন।

এদিকে ৩৪ বছরের লেভা তার ফুটবল ক্যারিয়ারে সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ৫২৭টি গোল করেছেন। ‘গোল্ডেন ফুট’ পেয়ে তিনি বলেন, ‘প্রচণ্ড গর্ব হচ্ছে এই পুরস্কার পেয়ে। আমি জানি কতটা পরিশ্রম করেছি এটা পাওয়ার জন্য। নিজেকে নিয়ে গর্ব হচ্ছে। অতীতে এই পুরস্কার যারা জিতেছেন, সেই তালিকা দেখলে সত্যিই গর্ব বোধ হয়।’

অবশ্য মেসি পরের বছর এই পুরস্কার জেতার অন্যতম দাবিদার। আশা করা হচ্ছে তিনি প্যারিসের ক্লাবের হয়েই খেলবেন। ক্লাব এবং দেশের হয়ে ছন্দে রয়েছেন তিনি। বিশ্বকাপের সেরা ফুটবলার হয়েছেন। শুধু এই ‘গোল্ডেন ফুট’ পুরস্কারটাই পাওয়া বাকি রয়েছে তার।


আরও খবর



৩ মার্চ থেকে ডিসি সম্মেলন শুরু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আগামী ৩ মার্চ (রোববার) মাঠ প্রশাসনের সবচেয়ে বড় আয়োজন জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলন শুরু হয়ে চলবে ৬ মার্চ (বুধবার) পর্যন্ত।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবরের মতো এবারও তার কার্যালয়ে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (জেলা ও মাঠ প্রশাসন অনুবিভাগ) মো. আমিন উল আহসান এ তথ্য জানিয়েছেন।

সচিব বলেন, আগামী ৩ মার্চ সকালে ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন। বরাবরের মতো প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এটি হবে। গত বছরের মতো এবারও জেলা প্রশাসক সম্মেলনের মূল ভেন্যু রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তন।

আসন্ন জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনে প্রথমবারের মতো প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) ও চার কমিশনারের সঙ্গে বৈঠক করবেন ডিসিরা।

কার্য-অধিবেশনগুলোতে মন্ত্রণালয় ও বিভাগের প্রতিনিধি হিসেবে মন্ত্রী, উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, সিনিয়র সচিব ও সচিবরা উপস্থিত থাকেন। সম্মেলন উপলক্ষে জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনাররা লিখিতভাবে মাঠ প্রশাসনের সমস্যাগুলো নিয়ে প্রস্তাব দিয়ে থাকেন। অধিবেশনের সময় এগুলো ছাড়াও ডিসিরা তাৎক্ষণিক বিভিন্ন প্রস্তাব তুলে ধরেন। কার্য অধিবেশনগুলোতে সভাপতিত্ব করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

রেওয়াজ অনুযায়ী, ডিসি সম্মেলনে ৬৪ জন ডিসির সঙ্গে আট বিভাগের বিভাগীয় কমিশনাররাও উপস্থিত থাকেন। সম্মেলনের সব কার্য অধিবেশনে সভাপতিত্ব করবেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন। আগামী ৩ মার্চ সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রিসভার সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য, সরকারের সচিবসহ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকেন।

চার দিনের এই সম্মেলনে পর্যায়ক্রমে ডিসি ও বিভাগীয় কমিশনারেরা রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন, জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ও প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের সঙ্গে দেখা করবেন। এ ছাড়া সামরিক-বেসামরিক সহযোগিতা আরও কার্যকর করতে তিন বাহিনীর প্রধানদের সঙ্গেও দেখা করতে পারেন তারা। গত বছর এই সম্মেলন ২৪ জানুয়ারি শুরু হয়ে ২৬ জানুয়ারি পর্যন্ত চলে। কিন্তু এবার চার দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

সরকারের নীতিনির্ধারক এবং জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনারদের মধ্যে সামনা-সামনি মতবিনিময় এবং প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা দেওয়ার জন্য সাধারণত প্রতি বছর জুলাই মাসে ডিসি সম্মেলনের আয়োজন করা হতো। করোনা মহামারির কারণে দু-বছর (২০২০ ও ২০২১ সাল) ডিসি সম্মেলন হয়নি। এরপর ২০২২ সাসের ১৮ থেকে ২০ জানুয়ারি এ সম্মেলন হয়। গত বছর ডিসি সম্মেলন হয় ২৪ থেকে ২৬ জানুয়ারি।


আরও খবর



বগুড়ায় মিষ্টি খাওয়া নিয়ে বাকবিতন্ডে বাবার বাটামের আঘাতে ছেলে খুন

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image
বগুড়া বিশেষ প্রতিনিধি:বাবা সোহরাব হোসেনের ঘরে রাখা মিষ্টি খেয়ে ফেলে ছোট ভাই। বৃহস্পতিবার ২৫ জানুয়ারি তুচ্ছ এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাকবিতন্ডায় বগুড়ার শিবগঞ্জে বাবার বাটামের আঘাতে খুন হয়েছে ছেলে ফারাজ আলী (২৫)। বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) সকাল ৯ টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এর আগে বুধবার দুপুরে উপজেলার পিরব ইউনিয়নের বানিহার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত যুবক, বগুড়ার শিবগঞ্জের বানিহার গ্রামের সোহরাব হোসেনের ছেলে ফারাজ আলী (২৫)।

স্থানীয়রা জানান, নিহত ফারাজ আলীর সাথে তার বাবা সোহরাব হোসেন ও মা রোজিনা বেগমের সম্পর্ক ভালো ছিল না। ঘটনার দিন ফারাজের ঘরে রাখা মিষ্টি খেয়ে ফেলে তার ছোট ভাই উজ্জল। এতে ফারাজ রাগ করে ছোট ভাইয়ের উপর চড়াও হলে তাদের মা ছুটে আসেন। ফারাজ মায়ের সঙ্গে বাকবিতন্ডায় লিপ্ত হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বাবা সোহরাব আলী ফারাজের মাথায় কাঠের বাটাম দিয়ে আঘাত করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসকরা ফারাজের অবস্থার অবনতি দেখে ঢাকা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। বৃহস্পতিবার সকালে সেখানে নেওয়ার পথে ফারাজের মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে বগুড়ার শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রউফ জানান, নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শজিমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকে সোহরাব পলাতক আছেন‌। 

আরও খবর



ইভ্যালির মেগা ক্যাম্পেইন ‘বিগ ব্যাং-২’ আজ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১২৭জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার:দেশের শীর্ষ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি শুক্রবার রাতে নিয়ে আসছে ‘বিগ ব্যাং-২’। প্রথম ক্যাম্পেইনে সফল হওয়ার পর দ্বিতীয় ক্যাম্পেইন আরো বড় প্রস্তুতি নিয়ে আসছে। এবারও স্যামসাং, ওয়ালটন, ইউসিসি, যমুনা, মিনিস্টার, ইউনিলিভার, টিকে গ্রুপ, সেনা, তীর, নোকিয়ার মতো দেশ সেরা প্রতিষ্ঠানের পণ্য পাওয়া যাবে। বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শুক্রবার ‘বিগ ব্যাং-২’ মেগা ক্যাম্পেইনে ২৬ টাকায় বিভিন্ন সেলার তাদের সীমিত সংখ্যক জামা, জুতা, গ্যাজেট গ্রাহকদের জন্য অফার করবে। এবার সবচেয়ে বড় আকর্ষণ থাকছে রানার, হিরো এবং কাউয়াসাকি মোটরসাইকেলে। বাজার মূল্য থেকে কিছুটা ডিসকাউন্ট দিবে এই কোম্পানিগুলো। অফারে মাত্র ৫০০ টাকায় ফ্লোরা লিমিটেডের একটি এইচপি কীবোর্ড-মাউস কম্বো পাওয়া যাবে। ওয়ান+ এন২০ এসই স্মার্টফোন পাওয়া যাবে মাত্র ১৪৯৯৯ টাকায়। ম্যারিকোর সকল পণ্যে ডিসকাউন্ট পাওয়া যাবে। ফুড এগ্রো নেটওয়ার্ক শুধু ঢাকার গ্রাহকদের জন্য ৫৫০ টাকা কেজিতে গলদা চিংড়ি অফার করবে। বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, ইভ্যালির প্রতিটি পণ্যে তাদের মুনাফা যোগ করে পণ্য মূল্য নির্ধারণ করেছে। ইভ্যালিতে যেসব অর্ডার আসবে সেগুলো মার্চেন্ট সরাসরি ই-কুরিয়ারের মাধ্যমে গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দেবেন। গ্রাহক পণ্য হাতে পেয়ে এরপর মূল্য পরিশোধ করবে। নতুন অফার সম্পর্কে ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোহাম্মাদ রাসেল বলেন, ইভ্যালি গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করতে ‘বিগ ব্যাং-২’ নিয়ে আমরা হাজির হচ্ছি। সম্পূর্ণ ক্যাশ অন ডেলিভারি মেথডে বিক্রেতারা তাদের হাজারো পণ্য নিয়ে ইভ্যালির এই ক্যাম্পেইনে যোগ দিয়েছেন। আশা করি এবারের ক্যাম্পেইন গ্রাহকরা অনেক বেশি পছন্দ করবেন।

আরও খবর



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দ. আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট ও জর্জিয়ার প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | ৯১জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক :শেখ হাসিনাকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট মাতামেলা সিরিল রামাফোসা ও জর্জিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইরাকলি গরিবাশভিলি৷

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট মাতামেলা সিরিল রামাফোসার পাঠানো এক চিঠিতে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পুনরায় নির্বাচিত হওয়ায় শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান। শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো ওই চিঠিতে দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রপতি লিখেছেন, দক্ষিণ আফ্রিকার সরকার ও জনগণের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আপনি পুননির্বাচিত হওয়ায় আমাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানানোর অনুমতি দিন।

তিনি উল্লেখ করেন যে, দক্ষিণ আফ্রিকা বাংলাদেশের সাথে সম্পর্ককে বিশেষভাবে গুরুত্ব দেয়, বিশেষ করে সংহতি, বন্ধুত্ব ও পারস্পরিক বোঝাপড়ার ওপর ভিত্তি করে শক্তিশালী ভিত্তি। কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার পর থেকে আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের শক্তিশালীকরণে প্রতিফলিত স্থির অগ্রগতিতে আমি উৎসাহিত হয়েছি। গত আগস্টে ব্রিকস-আফ্রিকা আউটরিচ এবং ব্রিকস প্লাস সংলাপে আপনার উপস্থিতির দ্বারা এটি পাকাপক্ত করা হয়েছিল। আমি আপনাকে আশ্বস্ত করতে চাই যে, দক্ষিণ আফ্রিকাসহ আমাদের দেশগুলোর মধ্যে পারস্পরিক উপকারী দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের আরও সম্প্রসারণে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

তিনি শেখ হাসিনার অব্যাহত সুস্বাস্থ্য কামনা করেন এবং দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান বন্ধুত্বের বন্ধনকে আরও জোরদার ও সুসংহত করার আকাঙ্ক্ষা পুনর্ব্যক্ত করেন।

এক শুভেচ্ছা বার্তায় জর্জিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইরাকলি গরিবাশভিলি লিখেছেন, জর্জিয়া সরকারের পক্ষ থেকে এবং আমার নিজের সরকারের পক্ষ থেকে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আপনার পুননির্বাচিত হওয়ার জন্য আন্তরিক অভিনন্দন জানাতে এবং আপনার দায়িত্বশীল দায়িত্ব পালনে সাফল্য কামনা করছি। আমি এটা দেখে আনন্দিত যে, আমাদের দেশগুলো পারস্পরিক বোঝাপড়া ও সম্মানের ভিত্তিতে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তুলেছে। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে, আমাদের সহযোগিতামূলক প্রচেষ্টার মাধ্যমে বর্তমান সম্পর্কগুলো ভাগ করা স্বার্থের সব ক্ষেত্রেই জোরদার হতে থাকবে।


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১৫ বছরে অবিশ্বাস্য উন্নয়নের নজির সৃষ্টি হয়েছে: তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৭জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত ১৫ বছরে অবিশ্বাস্য উন্নয়নের নজির সৃষ্টি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত। 

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর গুলশানে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের উন্মুক্ত স্থানসমূহের আধুনিকায়ন, উন্নয়ন ও সবুজায়ন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় উন্নয়নকৃত শহীদ ডা. ফজলে রাব্বি পার্কের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ভিশন, রুচি ও চেষ্টা থাকলে অনেক কিছু করা যায়। অনেক সময় বড় কিছু করতে গেলে অনেকে অনুৎসাহিত করার চেষ্টা করবে, আটকে দেয়ার চেষ্টা করবে। অনেক বড় কিছু করার চিন্তা ও তা চেষ্টা করা হলে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি বদল হয়। দৃষ্টিভঙ্গি বদল হলে অনেক বড় কিছু অর্জন করা যায়। গত ১৫ বছর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তার বিভিন্ন নজির আমরা দেখেছি। দেশের মানুষ যা কিছু চিন্তা করতে পারেনি সে ধরণের উন্নয়নের ঘটনা বাংলাদেশে ঘটে গেছে। ১৫ বছর আগে যদি বলা হতো, ঢাকা শহরে মেট্রোরেল চলবে, সেটা কেউ বিশ্বাস করতো না। যদি বলা হতো বাংলাদেশের শতভাগ মানুষের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছাবে, সেটা কেউ বিশ্বাস করতো না। পদ্মা সেতু আমরা নিজের টাকায় করবো, বাংলাদেশের মানুষ এটাও বিশ্বাস করেনি।

তিনি আরও বলেন, গত ১৫ বছরে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন ঘটে গেছে। আমরা অনেক সাহসী হয়েছি, আমরা এখন অনেক বড় স্বপ্ন দেখতে পারি এবং তা বাস্তবায়ন করতে পারি। সেই জায়গা থেকেই ডিজিটাল বাংলাদেশ থেকে স্মার্ট বাংলাদেশে রূপান্তরের বিষয় চলে এসেছে। 

শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ডা. ফজলে রাব্বির নামে পার্কের নামকরণ করায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সাথে সম্পৃক্ত নামগুলো আমরা আরও স্মরণ করতে চাই, স্বর্ণাক্ষরে লিখে রাখতে চাই এবং আমাদের নতুন প্রজন্মের কাছে নজির হিসেবে রাখতে চাই। যখনই শহীদ ডা. ফজলে রাব্বির বিষয়ে আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম প্রশ্ন করবে, জানবে তখন আরও দেশপ্রেমে উজ্জীবিত হবে এবং সেভাবেই আগামী দিনের ইতিহাস রচিত হবে।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ১৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো.মফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদান করেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মীর খায়রুল আলম। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে নিকেতন সোসাইটির সভাপতি ডা. এম. এ. বাসার, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী ব্রি. জেনারেল মুহাম্মদ আমিরুল ইসলাম পিএসসি, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের সংরক্ষিত ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আমেনা বেগম, শহীদ ডা. ফজলে রাব্বির ছেলে ওমর রাব্বি প্রমুখ বক্তব্য প্রদান করেন।

পরে উন্নয়নকৃত শহীদ ডা. ফজলে রাব্বি পার্কের উদ্বোধনী ফলক উন্মোচনে অংশগ্রহণ করেন প্রতিমন্ত্রী। এছাড়াও বৃক্ষরোপণ,পার্ক পরিদর্শন এবং নবনির্মিত পুলিশ বক্স উদ্বোধনে অংশগ্রহণ করেন তিনি।

আরও খবর