Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

মাশরাফি নড়াইল-২ আসনে আবারও নৌকার প্রার্থী

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ২২১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নড়াইল-২ আসন থেকে এবারও নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

রোববার (২৬ নভেম্বর) রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে চূড়ান্ত মনোনয়নপ্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

এর আগে ২৩ নভেম্বর থেকে ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে দলটির সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় আসন্ন নির্বাচনের দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেতে ৩০০ আসনের বিপরীতে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনেছেন মোট তিন হাজার ৩৬৯ জন। প্রতি আসনে গড়ে ১১ জন এ ফরম কিনেছেন।

প্রসঙ্গত, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নড়াইল-২ আসন থেকে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিক নিয়ে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা।


আরও খবর



মেহেরপুরে মাদক সেবীর এক বছরের কারাদন্ড

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭৩জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ,মেহেরপুর প্রতিনিধিঃআছাদুজ্জামান রাব্বি (২৪) নামের এক মাদক সেবীকে এক বছরের কারাদন্ড ও এক হাজার টাকা অর্থদ- দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত। আজ বৃহষ্পতিবার বেলা ১১টার দিকে মেহেরপুরের গাংনী হাসপাতাল পাড়ার ক্ষণিকালয় বোডিং এর পাশে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী হাকিম নাদির হোসেন শামীম এ দন্ড প্রদান করেন আছাদুজ্জামান রাব্বি মেহেরপুরের গাংনীর গোপালনগর গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে। তাকে মেহেরপুর জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী হাকিম ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাদির হোসেন শামীম জানান, গাংনী র‌্যাব ক্যাম্পের একটি টীম দন্ডিত আছাদুজ্জামান রাব্বিকে ৮ টি নেশা জাতীয় ইঞ্জেকশন, দুই পুরিয়া গাঁজা ও ইঞ্জেকশন পুশ করার সিরিঞ্জসহ আটক করে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসানো হয়। রাব্বি নিজেই তার দোষ স্বীকার করায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ এর ৯/১(গ) ধারায় ৩৬/১(১৬) ধারা মোতাবেক এক বছর কারাদন্ড ও এক হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। দন্ডিতকে মেহেরপুর জেলা কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেয়া হয়েছে।

গাংনী র‌্যাব ক্যাম্প কমান্ডার এএসপি মনিরুজ্জামান জানান, হাসপাতালের পরিত্যক্ত ভবন ও এর আশে পাশে বেশ কিছুদিন যাবত কতিপয় মাদক সেবী নেশা করতো। বিষয়টি অবগত হওয়ার পর র‌্যাবের একটি টীম অভিযান চালিয়ে তাকে মাদক ও মাদক ব্যবহারের সরঞ্জামাদীসহ আটক করে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসানো হয়। এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।


আরও খবর



হজের নিবন্ধন সময় বৃহস্পতিবার শেষ হচ্ছে, আসন খালি অর্ধেক

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:তিন দফা মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে হজের নিবন্ধনের।বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) নিবন্ধনের সময়সীমা শেষ হচ্ছে। এ সময়ের মধ্যে নিবন্ধনকারীর সংখ্যা সৌদি সরকারকে জানিয়ে বাংলাদেশের বাকি কোটা ফেরত দেওয়া হবে। তবে সৌদি আরবের দেওয়া কোটার অর্ধেকও পূরণ হয়নি এখনও।

এবছর বাংলাদেশ থেকে ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জনের হজে যাওয়ার কোটা রয়েছে।

বুধবার (৩১ জানুয়ারি) সকাল পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৬৪ হাজার ৪৫ জন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৩ হাজার ৯৭৬ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬০ হাজার ৬৯ জন নিবন্ধন করেছেন। সে হিসেবে এখনও কোটা খালি রয়েছে ৬৩ হাজার ১৫৩টি।

গত বছরের ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে এবারের হজ নিবন্ধন শুরু হয়, যা ১০ ডিসেম্বর শেষ হওয়ার কথা ছিল। প্রত্যাশিত সাড়া না পাওয়ায় প্রথম সময় বাড়ানো হয় ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। পরে সময় ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত এবং তৃতীয় দফায় ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

প্রসঙ্গত, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ১৬ জুন (১৪৪৫ হিজরি সনের ৯ জিলহজ) পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে।


আরও খবর



রাজনীতির মাঠে পা দিলেন থালাপতি বিজয়

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১৩০জন দেখেছেন

Image

বিনোদন প্রতিনিধি;অবশেষে জল্পনার অবসান। রাজনীতির মাঠে পা দিলেন দক্ষিণ ভারতের জনপ্রিয় তারকা থালাপতি বিজয়। খুলে ফেললেন নতুন দল। নতুন দলের নাম রাখলেন ‘তামিলাগা ভেত্রি কোঝাগম’।

তামিলনাড়ুর যেকোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত থাকে কোঝাগম নামটি। এই নামের নেপথ্যে রয়েছে দ্রাবিড়দের সংগ্রামের গল্প। নিজেদের অস্তিত্ব, সংস্কৃতি ও নিজস্বতাকে বজায় রাখতে এবং এগিয়ে নিয়ে যেতেই ১৯৪৪ সালে দ্রাবিড় কোঝাগম নামে এক আন্দোলনের জন্ম হয়। যার নায়ক ছিলেন ইভি রামস্বামী। তার লড়াইয়ে উৎসর্গ করেই তামিলনাড়ুতে যেকোনো দলের নামের সঙ্গেই যুক্ত হয় এই কোঝাগম শব্দটি। বিজয় থালাপতিও তার দলের নামে সঙ্গে জুড়ে দিলেন দ্রাবিড়দের সেই সংগ্রামের ইতিহাসকে।

দক্ষিণী তারকাদের নিজেদের রাজনৈতিক দল খোলার ঘটনা প্রথম নয়। এর আগেও এনটি রামারাও, জয়ললিতা, রজনীকান্ত, কমল হাসান, পবন কল্যাণরাও রাজনীতির ময়দানে নেমেছিলেন নিজের দল খুলে। আর এবার সেই তালিকায় নাম লেখাতে চলেছেন দক্ষিণী তারকা থালাপতি বিজয়। সূত্রের খবর, এরইমধ্যে প্রায় ২০০ দলকর্মীকে নিয়ে রেজিস্ট্রেশনের জন্য বৈঠক সেরেছেন বিজয়। নায়কই হবেন এই দলের সভাপতি।

সূত্র থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী, ২০২৬ সালে তামিলনাড়ুতে বিধানসভা নির্বাচন। তার আগেই নতুন দল খুলে চমক দিতে চলেছেন দক্ষিণী তারকা। রাজনীতির মাঠে বিজয়ের পাখির চোখ বিধানসভা নির্বাচনই। তবে ভক্তদের অনুরোধ বিবেচনা করে তিনি সিদ্ধান্ত নেন ২০২৪ লোকসভা নির্বাচনেই লড়বে তার দল।

প্রায় ৬৮টি তামিল ছবিতে এখনও পর্যন্ত অভিনয় করেছেন থালাপতি বিজয়। প্রতিটি ছবিই বক্স অফিসে দারুণ ব্যবসা করেছে। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই নিজের ফ্যানবলয় তৈরি করেছেন নায়ক। এবার সেই ফ্যানদের দিকে তাকিয়েই নির্বাচনের মাঠে বিজয়।


আরও খবর



আজ ডব্লিউএইচওর আঞ্চলিক পরিচালকের দায়িত্ব নিচ্ছেন সায়মা ওয়াজেদ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১১০জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক :সায়মা ওয়াজেদ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালকের (আরডি) হচ্ছেন।আজ বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) আগামী পাঁচ বছরের জন্য এই দায়িত্ব গ্রহণ করবেন তিনি।

গত ১ জানুয়ারি, ২০২৪ তারিখে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের জন্য ডব্লিউএইচওর আঞ্চলিক কমিটির ৭৬তম অধিবেশনে সদস্য দেশগুলো ভোটের মাধ্যমে তাকে এ পদে মনোনীত করে।

ডব্লিউএইচও থেকে জানা যায়, সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় ২২-২৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ডব্লিউএইচওর নির্বাহী বোর্ডের ১৫৪তম অধিবেশনে তার এ মনোনয়ন অনুমোদন করা হয়। সায়মা ওয়াজেদ ডব্লিউএইচও-এর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের বিদায়ী আঞ্চলিক পরিচালক ড. পুনম ক্ষেত্রপাল সিংয়ের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন।

নয়াদিল্লিতে এ ভোটগ্রহণে বাংলাদেশ, ভুটান, গণতান্ত্রিক গণপ্রজাতন্ত্রী কোরিয়া (ডিপিআরকে), ভারত, ইন্দোনেশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড ও তিমুর-লেস্তে অংশ নেয়। এতে বিশিষ্ট অটিজম বিশেষজ্ঞ ওয়াজেদ আটটি ভোট পান। অপর প্রার্থী নেপাল মনোনীত ডা. শম্ভু প্রসাদ আচার্য্য পেয়েছেন দুটি ভোট।

সায়মা ওয়াজেদ বাংলাদেশের প্রথম ও ডব্লিউএইচওর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের দ্বিতীয় মহিলা আঞ্চলিক পরিচালক। তিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা ও একজন মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ। তিনি অটিজমের ভূমিকার জন্য বিশ্বব্যাপী খ্যাতি অর্জন করেছেন। তিনি ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালকের মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক উপদেষ্টা। সায়মা ওয়াজেদ প্রথম বাংলাদেশি- যিনি ডব্লিউএইচওর আঞ্চলিক বিভাগের অংশ হিসেবে ১৯৪৮ সালে তৈরি করা পদটিতে অধিষ্ঠিত হতে যাচ্ছেন।

তিনি এমন একসময়ে বাংলাদেশে অটিজম সচেতনতার প্রচারণার নেতৃত্ব দিয়েছেন যখন পিতা-মাতারা সামাজিক কলঙ্কের ভয়ে তাদের সন্তানদের অটিজম হওয়ার বিষয়টি লুকিয়ে রাখতেন। সায়মা ওয়াজেদ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার ব্যারি ইউনিভার্সিটি থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন ও ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংগঠনিক নেতৃত্বে ডক্টরেট প্রার্থী।

২০১৯ সাল থেকে সায়মা ওয়াজেদ মানসিক স্বাস্থ্য ও অটিজম সম্পর্কিত ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালকের অন্যতম উপদেষ্টা ছিলেন এবং ২০১৪ সাল থেকে মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কিত ডব্লিউএইচওর বিশেষজ্ঞ উপদেষ্টা প্যানেলের সদস্য ছিলেন। সায়মা ওয়াজেদ ২০১৭ সালে ডব্লিউএইচও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার অটিজম বিষয়ক শুভেচ্ছাদূত মনোনীত হন। তিনি একই বছর প্রকাশিত অটিজম স্পেকট্রাম ডিসঅর্ডার সম্পর্কিত ডব্লিউএইচও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক কৌশলপত্রের সহলেখক।

তিনি গ্লোবাল হেলথ প্রোগ্রাম চ্যাথাম হাউস, ইউকের একজন সহযোগী ফেলো, অটিজম ও এনডিডি, ঢাকা বাংলাদেশের জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারপারসন এবং শুচনা ফাউন্ডেশন, ঢাকা, বাংলাদেশের চেয়ারপারসন।

সায়মা ওয়াজেদ অটিজম ও নিউরোডেভেলপমেন্ট ডিসঅর্ডার নিয়ে কাজের জন্য ২০১৪ সালে ডব্লিউএইচও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া আঞ্চলিক কার্যালয় প্রদত্ত ‘এক্সিলেন্স ইন পাবলিক হেলথ’ পুরস্কার এবং ২০১৬ সালে ডা. ইব্রাহিম মেমোরিয়াল কাউন্সিল, বাংলাদেশ প্রদত্ত ইব্রাহিম মেমোরিয়াল গোল্ড মেডেল পান। ২০১৭ সালে সায়মা ওয়াজেদ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় অটিজম নিয়ে কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ মার্কিন সংস্থা শেমা কোলাইনু থেকে আন্তর্জাতিক চ্যাম্পিয়ন পুরস্কার পান। ২০১৯ সালে তাকে গ্লোবাল মেন্টাল হেলথ প্রোগ্রামস, কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটি, ইউএসএ ইনোভেটিভ উইমেন লিডারস ইন গ্লোবাল মেন্টাল হেলথ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করে।


আরও খবর



তানোরে কিনা কাজে ব্যাপক অনিয়ম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৩জন দেখেছেন

Image
আব্দুস সবুর তানোর থেকে:রাজশাহীর তানোরে কিনে রাস্তার রিপিয়ারিং কাজের শুরুতেই ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এর আগে ইউড্রেন নির্মানেও অনিয়ম করে কাজ করার সময় স্থানীয়রা বাধা দেন। কিন্তু কোনকিছুরই তোয়াক্কা না করে নানান অজুহাতে ইউড্রেন নির্মানের কাজ শেষ করা হয়েছে। উপজেলার কামারগাঁ ইউনিয়ন (ইউপির) মাদারিপুর প্রাথমিক স্কুল মোড় থেকে মালশিরা মোড় পর্যন্ত রাস্তার কাজে এমন অনিয়মের ঘটনা ঘটে রয়েছে। কাজের সময় এলজিইডির কর্তারা থাকছেন না বলে অহরহ অভিযোগ । এতে করে ঠিকাদার ইচ্ছে মত কাজ করছেন, দেখার কেউ নেই বললেই চলে । 

সরেজমিনে দেখা যায়, মালশিরা মোড় থেকে রঘুনাথ পুর গ্রামে পুরাতন রাস্তা উল্টিয়ে রাখা হয়েছে। পুরাতন রাস্তার খোয়া ব্যবহার করে বেড তৈরি করা হয়েছে। নতুন বেড দিয়ে ট্রলিতে করে ইট নিয়ে যাওয়ার সময় পুতে যায়। ট্রলি চালক বলেন, নামমাত্র বেড তৈরি করা হয়েছে। উপরে লাল দেখা গেলেও কয়েক ইঞ্চি পর ভিজে মাটি বের হওয়া শুরু হয়। এত পরিমান অনিয়ম হচ্ছে কল্পনাতীত। যেন ঠিকাদারের লোকজনই বড় ইঞ্জিনিয়ার। 

স্থানীয়রা জানান, রাস্তার দুপাশে এজিং করা হয়েছে। এজিংয়ে পুরাতন ভাঙ্গা ইট ব্যবহার হয়েছে। এজিংয়ের ভিতরে বাইরে সমান তালে মাটি দিয়ে ভরাট করা হয়েছে। শুধু তাই না সেই মাটিগুলো সরে যাচ্ছে, আর সরে যাওয়া সেই মাটি আটকাতে জমি থেকে মাটি দেয়া হচ্ছে। উপজেলা প্রকৌশলী সহজে কোন কাজের জায়গায় যেতে চান না। তিনি শহর থেকে কারে করে অফিসে আসেন। অফিসে রয়েছে এসি। যার কারনে বসে থেকেই সব সিন্ডিকেট করছেন বলেও অহরহ অভিযোগ রয়েছে। আবার কোন রাস্তায় গেলেও ঠিকাদারকে কারে তুলে নেন। সহজে নামেন না।এদিকে কামারগাঁ ইউনিয়ন (ইউপির)  মালার মোড় হতে কলমা ইউপির চন্দনকোঠা পর্যন্ত রিপিয়ারিং রাস্তার কাজ চলছে। দুই রাস্তার কাজ করছেন রাজশাহীর ঠিকাদার মুকছেদ ও পার্টনার হাসিব। কাজগুলো দেখভাল করছেন পারভেজ ও সুরুজ নামের দুই ব্যক্তি। দুই কাজের মধ্যে একটি কাজ অগ্রিম লাভ দিয়ে কিনে করা হচ্ছে বলে নিশ্চিত করেন উপসহকারী প্রকৌশলী শাহিন সালাম। 
মাদারিপুর স্কুল সংলগ্ন জায়গায় ছিলেন রাস্তার কাজ করা শ্রমিকরা। তারা বলেন,  ঠিকাদারের ম্যানেজার সুরুজ যে ভাবে কাজ করতে বলেছে সে ভাবে কাজ করছি। অফিসের লোক আসে কিনা  জানতে চাইলে তারা জানান আমরাতো অফিসের লোকজনদের কে চিনিনা।সুরুজের সাথে মোবাইলে কথা বলা হলে তিনি জানান, শিডিউলের বাহিরে কোন কাজ করা হচ্ছে না, আপনাদের যতখুশি লিখতে পারেন, কর্তৃপক্ষ কে জবাব দিব।

ঠিকাদার মুকছেদের মোবাইল নম্বর দিতে না চাইলেও হাসিব নামের আরেক জনের নম্বর দেন শ্রমিক রা। হাসিব জানান, কাজ কিনে করি আর যেভাবে করি কাজ হচ্ছে কিনা সেটা দেখতে হবে। এজিংয়ে খোয়া বালুর পরিবর্তে ভিজে মাটি দেয়া যায় কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান, এসব অফিস দেখবে, সবকিছু নিয়মমত হচ্ছে বলেও দাম্ভিকতা দেখান তিনি।

উপসহকারী প্রকৌশলী (এসও) শাহিন সালাম জানান, মাদারিপুর থেকে মালশিরা ও মালার মোড় থেকে চন্দনকোঠা পর্যন্ত দুটি রাস্তার রিপিয়ারিং কাজ করছেন ঠিকাদার মুকছেদ। এর একটি কাজ কিনে করছেন, অন্যটি দরপত্রে পেয়েছেন। প্রায় ৮ কিলোমিটার রাস্তা রিপিয়ারিংয়ের কাজ চলছে। শিডিউলের বাহিরে কাজ করা হলে বিল বন্ধ করা হবে। সার্বক্ষণিক ভাবে কাজ দেখভাল করা হচ্ছে। দুটি কাজের ব্যয় কত জানতে চাইলে তিনি জানান অফিসের ফাইল দেখে বলতে হবে বলে দায় সারেন তিনি। 

এদিকে মুন্ডুমালা থেকে জোটাবটতলা রাস্তার সাতপুকুরিয়া পর্যন্ত রিপিয়ারিং কাজের কার্পেটিং করা হয়েছে। কার্পেটিংয়ে প্রচুর পরিমানে অনিয়ম করেছেন ঠিকাদার কামরুজ্জামান। রাস্তাটি শুরু থেকেই নানা অনিয়ম করলেও নিরব ভূমিকায় ছিলেন এলজিইডি। প্রায় ৪ কিলোমিটার রাস্তাটি অগ্রিম কয়েক পারসেন্ট লাভ দিয়ে কিনে করা হয়েছে বলে অকপটে স্বীকার করেন এসও শাহিন। রাস্তাটির বেশির ভাগ জায়গার কার্পেটিং না উল্টিয়ে তার উপর দিয়ে পিচ দেয়া হয়েছে। প্রায় ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা ব্যয়ে রাস্তা টি রিপিয়ারিং করা হয়েছে। কার্পেটিং করার পরও সমান হয়নি, উঁচু নিচু হয়ে আছে এবং এজিংয়ে কার্পেটিং না করার কারনে রাস্তাটি আগের চেয়ে সরু হয়ে গেছে স্থানীয়দের অভিযোগ ।

আরও খবর

জয়পুরহাটে হুমকি পাওয়া সেই বিচারক প্রত্যাহার

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪