Logo
আজঃ রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? কর্মীদের দক্ষ করে বিদেশে পাঠাতে হবে : প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশকে কত বিলিয়ন অনুদান-ঋণ দেবে চীন, জানালেন প্রধানমন্ত্রী নাসিরনগরে খুনের মামলার বাদীর এখন দিন কাটছে আতংকে মধুপুরে ক্লিনিং স্যাটারডে কার্যক্রম অনুষ্ঠিত এবার কোটা আন্দোলনের পক্ষে কথা বললেন আয়মান সাদিক ভারতে পাচার হওয়া ৫ বাংলাদেশি সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে শিক্ষার্থীরাই হবে আগামী বাংলাদেশের কর্ণধার: ধর্মমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী: প্রধানমন্ত্রী বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ সামন্ত লাল সেন

মান্দায় পানির অভাবে জমিতেই নষ্ট হচ্ছে পাট

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৩ আগস্ট ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৩৯৬জন দেখেছেন

Image

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, নওগাঁ প্রতিনিধি :নওগাঁর মান্দায় সনাতন পদ্ধতি ব্যবহার করে পাট পচানো ও আঁশ ছড়ানোর কাজ করছেন কৃষকেরা। কিন্তু চলতি মওসুমে বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় পর্যাপ্ত পানি নেই ডোবা, নালা ও খাল-বিলে। তাই পানির অভাবে সময়মত পাট কাটতে না পারায় চরম বেকাদায় পড়েছেন তাঁরা।

কৃষি সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কম বৃষ্টিপ্রবণ এলাকায় পাট পচাতে কৃষকের জন্য আধুনিক প্রযুক্তি হচ্ছে রিবন রেটিং পদ্ধতি। বাড়ির উঠানে কিংবা পাটখেতের এক কোণে চৌবাচ্চা খনন করতে হবে। গর্তে পলেথিন বিছিয়ে দিতে হবে যাতে পানি জমা থাকে। এরপর কাঁচা পাট থেকে ছড়ানো আঁশ বা-িল বা মোড়া বেঁধে ওই চৌবাচ্চায় ডুবিয়ে দিতে হবে।

চৌবাচ্চার পানিতে সামান্য ইউরিয়া সার ছিটিয়ে দিলে পচনক্রিয়া খুব দ্রত হবে। ডুবানো পাটের আঁশ যাতে শুকিয়ে না যায় সেজন্য খড় কিংবা কচুরিপানা দিয়ে ঢেকে দেওয়া প্রয়োজন। এ পদ্ধতিতে এক সপ্তাহের মধ্যেই পাট ধুয়ে শুকানো সম্ভব। কিন্তু প্রচার-প্রচারণার অভাব ও সচেতনতা সৃষ্টি না হওয়ায় রিবন রেটিং পদ্ধতি নিয়ে আগ্রহ তৈরি হয়নি কৃষকের মাঝে।

তবে কৃষকেরা বলছেন, এ পদ্ধতি সম্পর্কে তাঁদের কোনো ধারণাই নেই। অল্প জায়গা ও পানি ব্যবহার করে পাট পচানো যায় এটি ভাবতেই তাদের অবাক লাগছে। কৃষি বিভাগ থেকেও তেমন প্রচার-প্রচারণা করা হয়নি।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি মওসুমে উপজেলায় ১ হাজার ৩২০ হেক্টর জমিতে বিভিন্নজাতের পাটের আবাদ হয়েছে। গতবছর ১ হাজার ৭৫০ হেক্টর জমিতে সোনালী আঁশ পাটের আবাদ করেছিলেন কৃষকেরা। কিন্তু পানির সংকটে পরিপক্ক পাট কেটে জাগ দেওয়ার সমস্যায় এবছর ৪৩০ হেক্টর জমিতে পাটের আবাদ কম হয়েছে।   

বর্দ্দপুর গ্রামের কৃষক মজিবর রহমান  বলেন, পাট কেটে ওইসব জমিতে আমন ধানের আবাদ করেন তাঁরা। সঠিক সময়ে পরিপক্ক পাট কাটতে না পারলে এর গুনগতমান নষ্ট হবে। একই সঙ্গে দেরিতে রোপণ করতে হবে আমন ধানের চারা। এতে আমনের উৎপাদন ব্যাহত হবে।

উপজেলার প্রসাদপুর গ্রামের কৃষক আয়েজ উদ্দিন ফকির বলেন, ‘ নব্বই দশকের শুরুতে গ্রামের নুরুল ইসলাম প্রামানিকের উদ্যোগে ও কৃষি অফিসের সাহায্যে প্রথম এলাকায় রিবন রেটিং পদ্ধতির সাহায্য একটি পাটের আঁশ ছড়ানোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল। এ পদ্ধতির সাহায্যে কীভাবে পাটের আঁশ ছাড়াতে হয় তাও তখন দেখেছিলাম। এটি চালু হলে কৃষকের খরচও কমতে পারে।’ কিন্তু নানা ঝামেলার কারণে তিনি গতানুগতিক পদ্ধতিতে পাটের জাগ দিয়ে পাটের আঁশ ছাড়ানোর কাজ করেন। 

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, কাঁচা পাট কেটে দু’তিন দিন জমিতে ফেলে রেখে পাতা ঝরিয়ে নিয়ে রিবন রেটিং পদ্ধতিতে আঁশ ছড়াতে হবে। এ পদ্ধতিতে পাট পচালে আঁশের মান ও রঙ ভালো হবে। বাজারে আশানুরূপ দামও মিলবে। এ পদ্ধতিতে ছড়ানো পাটকাঠি দিয়ে জ¦ালানির পাশাপাশি ঘরের বেড়া তৈরির কাজ করা যাবে। বর্তমানে এসব পাটকাঠি থেকে ফটোস্ট্যাস্ট মেশিন ও কম্পিউটার প্রিন্টারের কালি তৈরি হচ্ছে।

এ বিষয়ে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর নওগাঁর উপপরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, রিবন রেটিং পদ্ধতিতে পাটের আঁশ ছড়ানোর কাজে অভ্যস্ত নন কৃষকেরা।প্রচলিত পদ্ধতি ব্যবহার করেই এ কাজটি করেন তাঁরা। তাই রিবন রেটিং পদ্ধতি জনপ্রিয়তা লাভ করেনি।



আরও খবর



সৈয়দপুরে ট্যারিফ কমিশনের সভায় চিনি চোরাচালান বন্ধের দাবি

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১৫২জন দেখেছেন

Image
জহুরুল ইসলাম খোকন সৈয়দপুর( নীলফামারী) প্রতিনিধি:বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশনের উদ্যোগে নীলফামারীর সৈয়দপুরে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে ওই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সৈয়দপুর উপজেলা বিপনন কমিটি ওই সভার আয়োজন করে। সভায় চিনি চোরাচালান বন্ধ ও নিত্যপণ্যের বাজার দর নিয়ন্ত্রনে রাখতে দাবি জানানো হয়।সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন  বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশনের যুগ্ম প্রধান মোস্তফা জামান হায়দার। বিশেষ অতিথি ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াদ আরফান সরকার ও ট্যারিফ কমিশনের উপ-প্রধান আব্দুল লতিফ।সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূর-ই আলম সিদ্দিকী সভায় সভাপতিত্ব করেন। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সৈয়দপুর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ও আমদানিকারক আলতাফ হোসেন, শিল্পপতি আমিনুল ইসলাম, ব্যবসায়ী বাবুল হোেসেন, একরামুল হক, আলী ইমাম, সৈয়দপুর উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. শ্যামল কুমার রায়, সৈয়দপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আবু-বিন আজাদ, সাংবাদিক সাকির হোসেন বাদল, এম আর আলম, আমিরুল বাপ্পী, বাঙ্গালীপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ডা. শাহাজাদা সরকার প্রমুখ।
সভায় বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যবসায়ী, শিল্পপতি, জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর



লাশ নিয়ে লঙ্কাকান্ড,পরে গভীর রাতেই দাফন লাশ

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১১৮জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:হাসপাতালে চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণার পর লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে গ্রামে আসে সাপের কামড়ে নিহত সাইফুলের লাশ। কাপনের কাপড়ে মুড়িয়ে জানাযার নামাজ ও দাফনের প্রস্তুতি চলছিল তার লাশের। এমন সময় হঠাৎ এক কবিরাজের বেলকিবাজিতে লাশ দাফনে বাঁধা দেয় স্বজনরা। মৃত ব্যক্তিকে ঝাড়ফুঁক দিয়ে জীবিত করা হবে এমন খবরে হাজারো উৎসুক মানুষ সেখানে ভিড় জমায়। কবিরাজ লাপাত্তা হলে অবশেষে গভীর রাতে লাশের দাফন সম্পূর্ণ করা হয়। গত শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত উপজেলার বাসুরা এলাকায় এমন লঙ্কাকান্ডের ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনার ঝড়। নিহত হলেন, কালিয়াকৈর উপজেলার বাসুরা গ্রামের ইউনুছ আলীর ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪০)।

এলাকাবাসী ও নিহতের স্বজন সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার রাঁতে সাইফুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তিকে কালিয়াকৈর উপজেলার বাসুরা গ্রামের একটি বিলে রাতে মাছ ধরতে গেলে বিষধর সাপে কামড়ে দেয়। এরপর সঙ্গে থাকা অন্য ব্যক্তি টেঁটা দিয়ে সাপটি মেরে ফেলেন। পরে মৃত সাপটি নিয়ে সাইফুল বাড়িতে ফিরে স্বজন ও এলাকাবাসীকে ঘটনাটি জানায়। প্রথমে কবিরাজের কাছে নিয়ে ঝাড়ফুঁক শেষে রাতেই তাঁকে

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে কুমুদিনী হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার ভোরে তিনি মারা যান। হাসপাতালে চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণার পর লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে গ্রামে আসে সাইফুলের লাশ। কাপনের কাপড়ে মুড়িয়ে বেলা ২টার দিকে জানাযার নামাজ ও দাফনের প্রস্তুতি চলছিল। এমন সময় হঠাৎ এক কবিরাজের আভির্ভাব ও তার বেলকিবাজীতে পড়ে লাশ দাফনে বাঁধা দেয় স্বজনরা। ঝাড়ফুঁক ও কড়ি চালান দিয়ে মৃত ওই ব্যক্তিকে জীবিত করা সম্ভব, এমন আজব তথ্য দিয়ে ব্যাপক আয়োজন চালাচ্ছিলেন এক কবিরাজ।বাড়ির পাশে একটি খেতে চারটি কলাগাছ পুঁতে চার পাশে ঘেরাও করে কয়েকটি নতুন সিলভারের পানির কলস বসানো হয়।

কলাগাছের চার কোনায় চারটি গ্লাসে দুধ ও একটা মহিষের শিং রাখা, রাতের আঁধার দূর করতে একাধিক বৈদ্যুতিক বাতির ব্যবস্থা করা হয়। এছাড়াও ওই চারটি কলাগাছের মধ্যে টেবিলের ওপর মৃত সাইফুলের লাশ রাখা হবে। এরপাশেই রাখা ছিল সেই মৃত সাপটি। এভাবেই কবিরাজ তাঁকে জীবিত করার চেষ্টা করছিলেন। এমন খবর পেয়ে বাসুরা পশ্চিমপাড়া বাইতুন নুর জামে মসজিদ এলাকার আশপাশে কয়েকটি গ্রামের হাজারো উৎসুক মানুষ সেখানে ভিড় করে। কিন্তু কবিরাজ কড়ি আনার কথা বলে প্রথমে ঢাকার সাভারে পরে গাজীপুর টঙ্গী যান। এরপর থেকে ওই কবিরাজ লাপাত্তা হলে অবশেষে শনিবার গভীর রাতে লাশের দাফন সম্পূর্ণ করা হয়। এদিকে এই আধুনিক যুগে এমন ঝাড়ফুঁক কুসংস্কার মেনে নেওয়া যায় না। গভীর রাত পর্যন্ত এমন লঙ্কাকান্ডের ঘটনাস্থলে পুলিশ ও সচেতন মহলের লোকজনের উপস্থিতি থাকলেও কোনো প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। তবে লাশ নিয়ে এমন লঙ্কাকান্ডের ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মহলে ব্যাপক আলোচনা- সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

স্থানীয় মসজিদের ইমাম আবদুল জলিল জানান, মৃত সাইফুলের জানাজার জন্য দুপুরে এলাকায় মাইকে ঘোষণা ও কবরও খোঁড়া হয়েছিল। কাফনের কাপড় পরানো হয়েছিল। হঠাৎ এক কবিরাজ এসে মৃত সাইফুলকে দেখে চিকিৎসার মাধ্যমে তাঁকে জীবিত করা সম্ভব বলে স্বজনদের জানায়। পরে স্বজনেরা কবিরাজের কথা বিশ্বাস করে ঝাড়ফুঁকের আয়োজন করেছিল। কিন্তু কবিরাজ লাপাত্তা হলে অবশেষে গভীর রাতে তার লাশ দাফন সম্পূর্ণ করা হয়।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম নাসিম জানান, যেহেতু তাঁর পরিবারের আত্মবিশ্বাস, যদি ওঝা ভালো করতে পারেন, সেজন্য এমন আয়োজন করে তারা। সেখানে উৎসুক জনতার ভিড় ছিল। সেখানে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে, সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল।


আরও খবর



বরগুনায় সেতু ধসে ১০ বরযাত্রী নিহত, আহত অনেক

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১১৩জন দেখেছেন

Image

বরগুনা প্রতিনিধি:সেতু ধসে ১০ বরযাত্রী নিহত হয়েছেন বরগুনার আমতলীতে। এতে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

শনিবার (২২ জুন) দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, দুপুরে হলদিয়া ইউনিয়নের ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ দিয়ে একটি মাইক্রোবাস ও অটোরিকশা পার হওয়ার সময় ব্রিজ ভেঙে খালে পড়ে যায়। এ সময় অটোরিকশার যাত্রীরা বের হয়ে এলেও মাইক্রোবাসের যাত্রীরা বের হতে পারেনি। স্থানীয় লোকজন ও পরবর্তীতে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা ১০ জনের মরদেহ উদ্ধার করে আমতলী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠিয়েছেন।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাখাওয়াত হোসেন তপু জানান, হলদিয়া এলাকায় বৌভাতে যাওয়ার সময় একটি ব্রিজ ভেঙে মাইক্রোবাস খালে পড়ে যায়। এ সময় স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করে। এখন পর্যন্ত ১০ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। এখন পর্যন্ত নিহতদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।


আরও খবর



হামিদপুর ইউনিয়নে বাল্যবিবাহ

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | ৯৫জন দেখেছেন

Image

আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার ৯নং হামিদপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের শাহাগ্রামে নাবালক পুত্র আরহাম আল মুক্তাক্তীর বাল্য বিবাহ হয়। পার্বতীপুর উপজেলার ৯নং হামিদপুর ইউপির শাহাগ্রামের মোঃ গোলাম রব্বানীর পুত্র আরহাম আল মুক্তাক্তীর সাথে বগুড়া জেলার ধুনট উপজেলার চৌকিবাড়ী গ্রামের মোঃ রফিকুল ইসলামের কন্যা মোছাঃ রাফিয়া নূর নিলা এর সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক এর মাধ্যমে পরিচয় হলে তাকে সেখান থেকে গত ১৮/০৬/২০২৪ ইং তারিখে পালিয়ে এলে আরহাম আল মুক্তাক্তীর পিতা মোঃ গোলাম রব্বানীর উপস্থিতিতে গত ২০/০৬/২০২৪ইং তারিখে কোট এফিডেভিটের মাধ্যমে পুত্রকে বিবাহ দেন। উল্লেখ্য যে, পুত্র মোঃ আরহাম আল মুক্তাক্তীর জন্ম তারিখ- ০৯/০৭/২০০৮ইং। তার বর্তমান বয়স ১৫ বছর ১১ মাস ১৪দিন। তার এখনও পরিপূর্ণ বিবাহের বয়স হয়নি। সেদিকে লক্ষ্য রেখে ঐ বিবাহ বাল্য বিবাহ হয়। মেয়ের বয়স দেখা যায় যে, জন্ম তারিখ ১৭/০৬/২০০৬ইং তারিখ থেকে বর্তমান বয়স ১৮ বছর ০০ মাস ০৬ দিন। এই বিবাহটি একেবারে বাল্য বিবাহের মধ্যে পড়ে। এই ঘটনায় নাবালকের পুত্রের বাবা বাল্য বিবাহ কিভাবে দেয় এলাকাবাসীর প্রশ্ন? ২০১৭ সালের বাল্য বিবাহ নিরোধ আইনে ৭(১) ও ৮ ধারামতে শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছে। এই ঘটনায় এলাকাবাসী দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কাছে বাল্য বিবাহ রোধ কল্পে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির প্রতিকার চেয়ে আবেদন করেছেন। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী তদন্তস্বাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে আইন প্রয়োগ কারী সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।


আরও খবর



বিএনপির আন্দোলন ভুয়া: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১৫৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিএনপির সমালোচনা করে বলেছেন, বিএনপি বড় বড় কথা বলে। তাদের আন্দোলন ভুয়া।

শনিবার (২৯ জুন) দুপুরে আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, লন্ডনের বসে কর্মসূচি দেয় মেইড ইন লন্ডন। নতুন নেতৃত্ব পাঠায় ফরমান আকারে। লন্ডনে বসে নেতা বানায়, কর্মসূচি দেয়। এই মেইড ইন লন্ডন কর্মসূচি মানে কী? খেলা কিন্তু হবে, ছেড়ে দেওয়া হবে না।

তিনি বলেন, বিএনপিতে এখন আতঙ্কের নাম তারেক রহমান। মধ্যরাতে টেমস নদীর পার থেকে ফরমান আসে। একজন গেল, আরেকজন এলো, মধ্যরাতের ফরমান। তারেক রহমানের এ ফরমানে ফখরুল ইসলাম, গয়েশ্বর বাবু কোথায় যান? কেউ জানে না।

বাংলাদেশের জনগণের ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালনকারী প্রতিষ্ঠান আওয়ামী লীগ উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ৭৫ বছর এই প্রতিষ্ঠানের বয়স। দীর্ঘ সংগ্রাম, আন্দোলন, ঝড় অন্ধকার, স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে দীপ্ত পায়ে এগিয়ে যাওয়ার নাম আওয়ামী লীগ।


আরও খবর