Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

লিবিয়ার ভূমধ্যসাগর উপকূল থেকে পাঁচ শতাধিক বাংলাদেশী আটক

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৯২জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ইউরোপে পাড়ি দেওয়ার প্রস্তুতিকালে লিবিয়ার ভূমধ্যসাগর উপকূল থেকে পাঁচ শতাধিক বাংলাদেশিকে আটক করেছে দেশটির পুলিশ।  গত শনিবার (২৩ এপ্রিল) তাদের আটক করা হয়।ভয়েস অব আমেরিকা এ খবর প্রকাশ করেছে।


লিবিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল এস এম শামীম উজ জামান এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে লিবিয়ার পুলিশ আমাদের ৫০০ জন বাংলাদেশিকে আটকের কথা জানিয়েছে। তবে আমরা এ পর্যন্ত ২৪০ জনের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পেরেছি। এটা এখন নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে।


লিবিয়ার মিসরাতা সৈকত থেকে ইউরোপ যাত্রার প্রস্তুতিকালে ৫৪২ জন অভিবাসীকে আটক করে ত্রিপোলির নিরাপত্তাকর্মীরা। লিবিয়ার রাজধানী থেকে প্রায় ২০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত মিসরাতা সমুদ্র সৈকতের অবস্থান।


আটক হওয়া অভিবাসীরা লিবিয়ার পশ্চিম উপকূল থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। রাজধানী থেকে প্রায় ২০০ কিলোমিটার দূরে মিসরাতার সমুদ্র সৈকতের কাছে তাদের আটক করা হয়। তাদের একটি কেন্দ্রে রাখা হয়েছে।


আরও খবর



পি কে হালদারকে আদালতে তোলা হচ্ছে আজ

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশের কয়েক হাজার কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে ভারতে গ্রেফতার পি কে হালদারসহ ৬ আসামির ১১ দিনের জেল হেফাজত শেষে আদালতে তোলা হবে আজ (৭ জুন)।

পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনা, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, ইস্টার্ন মেট্রোপলিটন বাইপাস ছাড়াও বিভিন্ন অঞ্চলে পি কে হালদারসহ তার সহযোগীরা বেআইনি ব্যবসা চালু করে। নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে গত ১৪ মে পি কে হালদারসহ আসামিদের গ্রেফতার করে ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

পরে তাদের আদালতে তোলা হলে প্রথমে ৩ দিনের ও পরে আরও ১০ দিনের হেফাজতে নেয় ইডি। গ্রেফতার ছয়জনের কাছ থেকে প্রায় দেড়শ কোটি টাকাসহ বিভিন্ন দেশের পাসপোর্ট ও মোবাইল উদ্ধার করা হয়।

হেফাজতে থাকাকালীন ইডি অনেক তথ্যই সংগ্রহ করতে পেরেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। গ্রেফতারের পর তাদের নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালায় সংস্থাটি।

ইডির আইনজীবী অরিজিৎ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, তদন্তের স্বার্থে এখনই কোনো প্রভাবশালীর নাম প্রকাশ করা হবে না। কলকাতাতেও প্রচুর নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। এসব বিপুল টাকার উৎস জানাতে পারেনি তারা।


আরও খবর



ওমর সানিকে গুলি করার হুমকি: জায়েদ বললেন, ‘মিথ্যাচার’

প্রকাশিত:Sunday ১২ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৮০জন দেখেছেন
Image

অভিনেতা ডিপজলের ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে ঝগড়া হয়েছে ওমর সানি ও জায়েদ খানের। এসময় জায়েদকে চড় মারেন সানি। ক্ষেপে গিয়ে পিস্তল বের করে সানিকে গুলি করার হুমকি দেন জায়েদ খান।

গত ১০ জুন শুক্রবার রাতের এ ঘটনাটি শনিবার দিনভর ছিল আলোচনায়। চাপা উত্তেজনাও ছিল চলচ্চিত্রপাড়ায়।

তবে ঘটনাটি সম্পূর্ণ বানোয়াট বলে দাবি করলেন জায়েদ খান। তিনি জাগো নিউজকে শনিবার রাত ১২টার দিকে বলেন, ‘বিয়ের অনুষ্ঠানটি হয়েছে বসুন্ধরার কনভেনশন সেন্টারে। এর ভেতরে কোনো রকমের অস্ত্র নিয়ে প্রবেশ নিষেধ। সেই সুযোগ নেই। তাহলে আমার কাছে পিস্তল আসবে কোথা থেকে?’

‘আমাকে অপমান করতে এসব গল্প বানানো হয়েছে। আমার কথা বিশ্বাস না হলে দয়া করে এটা আপনি বসুন্ধরা কনভেনশন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করলেই জানতে পারবেন।’

জায়েদ আরও বলেন, ‘তাছাড়া আমি অনুষ্ঠানের পুরোটা সময় ডিপজল ভাইয়ের সঙ্গে ছিলাম। আপনি ডিপজল ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলেও জানতে পারবেন। আমার বিরুদ্ধে নতুন ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। ওমর সানি ভাই আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা বলছেন। এ রকম কোনো ঘটনা ঘটেনি।’

এদিকে নানা সূত্রে জানা গেছে, অনেকদিন ধরেই অভিনেত্রী মৌসুমীকে বিরক্ত করছিলেন অভিনেতা জায়েদ খান। এ নিয়ে দ্বন্দ্ব হয় মৌসুমীর স্বামী ওমর সানির সঙ্গে। ওমর সানি এ নিয়ে ডিপজলের কাছে নালিশও দিয়েছিলেন।

ডিপজল সানিকে আশ্বস্ত করেছিলেন জায়েদ আর মৌসুমীকে বিরক্ত করবে না। কিন্তু জায়েদ শোধরাননি। তাই তার উপর রেগে ছিলেন ওমর সানি৷ ডিপজলের ছেলের বিয়েতে জায়েদকে পাবেন নিশ্চিত হয়ে সেখানে যান তিনি।

বিয়েতে জায়েদকে পেয়েই চড় মেরে বসেন ওমর সানি৷ তখন ক্ষেপে গিয়ে প্রকাশ্যে পিস্তল বের করে ওমর সানিকে গুলি করে দেয়ার হুমকি দেন।

বিষয়টি নিয়ে ওমর সানি মুখ খুলেছেন। তিনি বলেন, ‘ঘটনা সত্যি৷ এ নিয়ে আমি এখন কথা বলার মুডে নাই। কাল (রোববার) কথা বলবো।’

অন্যদিকে ডিপজল গণমাধ্যমে বলেছেন, 'আমি এসব জানি না। একটু ধাক্কাধাক্কি হয়েছে। এসব ব্যাপারে আমার কোনো কিছু বলার ইচ্ছা নেই। আমি বিয়ে নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম, এর বেশি কিছু জানি না।’

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জানান, ওমর সানীকে পিস্তল বের করে গুলি করার হুমকি দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র অঙ্গনের অনেকেই। জায়েদ খান পিস্তল বের করে ওমর সানিকে হুমকি দেয়ায় বিস্মিত ও হতবাক হয়েছেন অই সময় বিয়ের অনুষ্ঠানে থাকা চলচ্চিত্রের কয়েকজন জ্যেষ্ঠ অভিনয়শিল্পী।


আরও খবর



বৃহত্তর স্বার্থে কালো টাকা সাদা করার সুযোগ: প্রতিমন্ত্রী শামসুল

প্রকাশিত:Wednesday ১৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
Image

বৃহত্তর স্বার্থ ও অবদান বিবেচনা করে অপ্রদর্শিত অর্থ বা কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দেওয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।

বুধবার (১৫ জুন) ক্যাপিটাল মার্কেট জার্নালিস্ট ফোরাম (সিএমজেএফ) ও বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত প্রস্তাবিত বাজেট পরবর্তী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সভায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, সব সরকারের আমলেই কিছুটা ছাড় দিয়ে অপ্রদর্শিত অর্থ অর্থনীতির মূলধারায় আনার সুযোগ দেওয়া হয়েছ। এতে ভালো পরিমাণ টাকা অর্থনীতির মূলধারায় এসেছে ও ভালো রাজস্ব আদায় হয়েছে।

ড. শামসুল আলম বলেন, অপ্রদর্শিত অর্থ সাদা করার সুযোগ দেওয়ায় অনেকে সমালোচনা করেন। যে অর্থনীতিবিদরা সমালোচনা করেন তারাও এই অপ্রদর্শিত অর্থকে নির্দিষ্ট পরিমাণ কর দিয়ে অর্থনীতির মূলধারায় আনার সুযোগ দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, ২০০১ সাল থেকে আমরা দেখেছি, যে সরকারগুলো ক্ষমতায় এসেছেন তারা কর প্রণোদনা দিয়ে অপ্রদর্শিত টাকা অর্থনীতির মূলধারায় আনার প্রক্রিয়া গ্রহণ করেছেন। এর ফলে আমরা কয়েকশ কোটি টাকা রাজস্ব আসতে দেখেছি। কখনো কখনো চার-পাঁচ হাজার কোটি টাকা এবং সর্বশেষ প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা সাদা হয়েছে এই সরকারের আমলে। এটা মোটেই নগন্য পরিমাণ না।

‘কৃষি খাতে ভর্তুকি দেওয়া হয়েছে ৯ হাজার কোটি টাকা। কাজেই ১০ হাজার কোটি টাকা যদি মূলধারায় আসে, সেটাকে একেবারেই কম বলা যাবে না। অনেক মন্ত্রণালয়ের মোট বাজেটই ১০ হাজার কোটি টাকা। কাজেই কিছুটা ছাড় দিয়ে হলেও যদি অপ্রদর্শিত অর্থ মূলধারায় আনা হয়, সেক্ষেত্রে অর্থনৈতিকভাবে অবদান রাখার সুযোগ সৃষ্টি হয়।’

‘সব সরকারই… সেটা গণতান্ত্রিক সরকার, এমনকি তত্ত্ববধায়ক সরকার বা ২০০৭-০৮ সময়ে যে সরকার ছিলো তারাও ছাড় দিয়েছে। এর আগে ২০০১ থেকে ২০০৬-০৭ সময়ে যে সরকার ছিলো তারাও দিয়েছে। সে ধারাবাহিকতায় বর্তমান সরকারও কয়েকবার ছাড় দিয়েছে, যাতে অপ্রদর্শিত অর্থ মূলধারায় চলে আসে।’

‘অর্থনীতিতে যখন টাকার প্রবাহ বেশি প্রয়োজন, তখন এই সুযোগগুলো দেওয়া হচ্ছে। এই সুযোগ ক্রমান্বয়ে সীমিত হয়ে আসবে। সবাইকে যথাযথ ট্যাক্সের আওতায় নিয়ে আসার প্রচেষ্টা আরও জোরদার করতে হবে। তবে যা দেওয়া হয়েছে, তা অর্থনীতিতে কিছুটা হলেও ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছে।’

সভায় শেয়ারবাজার সংশ্লিষ্টরা ছাড় দিয়ে কালো টাকা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের সুযোগ দেওয়ার যে দাবি জানান, এ সময় তার সঙ্গেও একমত পোষণ করেন প্রতিমন্ত্রী।

আলোচনা সভায় বিএমবিএর সভাপতি ছায়েদুর রহমান ৫ শতাংশ কর দিয়ে অপ্রদর্শিত আয় পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের সুযোগ দেওয়ার দাবি জানান। এরই প্রেক্ষিতে শামসুল আলম বলেন, আমি আপনাদের কথায় একমত। আমি সুযোগ পেলে, (পরে) বিষয়টি নিয়ে কথা বলবো।

এর আগে, বিএমবিএর পক্ষ থেকে আলোচনা সভায় পাঁচটি দাবি তুলে ধরা হয়। এর মধ্যে রয়েছে-

১. তালিকাভুক্ত ও তালিকাবিহীন কোম্পানির মধ্যকার কর হারের ব্যবধান কমপক্ষে ১৫ শতাংশ করা।

২. প্রস্তাবিত বাজেটে মার্চেন্ট ব্যাংকের কর হার সাড়ে ৩৭ শতাংশ থেকে কমিয়ে সাড়ে ২৭ শতাংশ করা হয়েছে। এটা আরও কমিয়ে ২৫ শতাংশ করা।

৩. লভ্যাংশ দেওয়ার সময় ১০ শতাংশ হারে অগ্রিম কর কাটা হয়। পরবর্তীতে আবার লভ্যাংশ পাওয়া বিনিয়োগকারীর ব্যক্তিগত আয়কর রির্টানের সময় তার ওপর প্রযোজ্য হারে কর দিতে হয়। এর ফলে বিনিয়োগকারীরা লভ্যাংশ না নিয়ে রেকর্ড ডেটের (তারিখ) আগেই বিক্রি করে দেয়, যা বাজারকে অস্থির করে। তাই অগ্রিম করটিকে চূড়ান্ত কর হিসাবে বিবেচনা করতে হবে।

৪. তালিকাভুক্ত কোম্পানির ভ্যাট হার ১০ শতংশ করা।

৫. পাঁচ শতাংশ কর দিয়ে অপ্রদর্শিত অর্থ পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের সুযোগ দেওয়া।


আরও খবর



অপো এফ২১ প্রো ফাইভজি’র বিক্রি শুরু

প্রকাশিত:Wednesday ০৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৮৮জন দেখেছেন
Image

দেশের বাজারে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্ট ডিভাইস ব্র্যান্ড অপোর এফ সিরিজের নতুন ডিভাইস অপো এফ২১ প্রো ফাইভজির বিক্রি শুরু হচ্ছে বুধবার (৮ জুন)। সেই সঙ্গে থাকছে আকর্ষণীয় অফার। ফার্স্ট সেল চলাকালীন ক্রেতাদের জন্য থাকছে অসাধারণ সব অফার ও আকর্ষণীয় পুরস্কার। অসাধারণ এ ডিভাইসটিতে শক্তিশালী প্রসেসর, ছবি তোলার জন্য অসাধারণ ক্যামেরাসহ বিভিন্ন আকর্ষণীয় ফিচার রয়েছে, যা ব্যবহারকারীদের ফোন ব্যবহারের চমৎকার অভিজ্ঞতা দেবে।

যেসব আগ্রহী ক্রেতারা ফার্স্ট সেল চলাকালীন এ ডিভাইসটি ক্রয় করবেন তারা তিন হাজার ৯৯ টাকা সমমূল্যের এক্সক্লুসিভ গিফট বক্স পাবেন। এছাড়া বাংলাদেশের অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের সই সম্বলিত লিমিটেড এডিশনের ব্যাক কাভার পাবেন। পাশাপাশি ক্রেতারা তিন মাসের জন্য বিনামূল্যে স্ক্রিন রিপ্লেসমেন্টের সুবিধা পাবেন ও সোয়াপ মার্কেটপ্লেসে এক্সচেঞ্জ অফারে ১৫ শতাংশ অতিরিক্ত ক্যাশ ভ্যালু পাবেন। এছাড়াও ফার্স্ট সেল চলাকালীন গ্রামীণফোনের সিম ব্যবহারকারীরা ১১ জুন পর্যন্ত ৬৮জিবি পর্যন্ত ডাটা বান্ডেল অফার সুযোগ থাকছে।

অপো এফ২১ প্রো ফাইভজি ডিভাইসে কোয়ালকম স্ন্যাপ ড্রাগন ৬৯৫ ফাইভজি মোবাইল প্ল্যাটফর্ম ৬এনএম চিপসেট রয়েছে, যা সুপার-ফাস্ট ইন্টারনেট ফোরজি প্লাস সাপোর্ট করে। অন্যান্য স্মার্টফোনের তুলনায় এই ফোনটি অনেক ভালো ফোরজি প্লাস নেটওয়ার্ক নিশ্চিত করবে। ডিভাইসটির সিপিইউতে ‘বড়’ কোর (আর্ম কোরটেক্স-এ৭৬ থেকে আর্ম কোরটেক্স-এ৭৮) রয়েছে; যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা আরও ভালো স্মার্টফোন অভিজ্ঞতা পাবেন। এফ২১ প্রো ফাইভজিতে ভিওএলটিই রয়েছে। এর পূর্ণ রূপ হলো ভয়েস ওভার এলটিই।

এই প্রযুক্তির সাহায্যে ব্যবহারকারী ভিওএলটিই সমর্থিত নেটওয়ার্কে ভয়েস কোয়ালিটিকে প্রভাবিত না করেই নেটওয়ার্কে ভয়েস ও ডেটা পাঠাতে পারবেন।

অসাধারণ ফিচারসমৃদ্ধ এফ সিরিজের ডিভাইসটিতে আল্ট্রা-থিন ফ্ল্যাট এজ রেট্রো ডিজাইন ব্যবহার করা হয়েছে। স্প্লাইসড গ্লস ও ম্যাট টেক্সাচের অপো এফ২১ প্রো ফাইভজি ডিভাইসটি দু’টি ভিন্ন রঙে-রেইনবো স্পেকট্রাম ও কসমিক ব্ল্যাক- পাওয়া যাচ্ছে।

অপো এফ২১ প্রো ফাইভজি ডিভাইসটিতে অপোর ডুয়াল অরবিট লাইট নিয়ে আসা হয়েছে, যা দুটি মেইন ক্যামেরার পেছনে সুন্দরভাবে একত্রিত। ডিভাইসটিতে ৬৪ মেগাপিক্সেল হাই-রেজ মেইন ক্যামেরা, ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো ক্যামেরা, ২ মেগাপিক্সেল ডেপথ ক্যামেরা ও ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে। পাশাপাশি, ডিভাইসটিতে বোকেহ ফ্লেয়ার পোর্ট্রেট, সেলফি এইচডিআর, এআই প্যালেটস, এআই কালার পোর্ট্রেট ও পোর্ট্রেট রিটাচিং সহ অসাধারণ সব ফিচার রয়েছে।

ফোনটিতে ৬০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটসহ ৬ দশমিক ৪ ইঞ্চি পাঞ্চ হোল অ্যামোলেড এফএইচডি প্লাস ডিসপ্লে রয়েছে, যা ব্যবহারকারীদের উন্নত ভিজ্যুয়াল অভিজ্ঞতা দেবে। এফ২১ প্রো ফাইভজিতে রয়েছে ৪ হাজার ৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ও ৩৩ ওয়াট সুপারভুক ফ্ল্যাশ চার্জিং প্রযুক্তি, যা ব্যাটারির দীর্ঘস্থায়িত্বের বিষয়টি নিশ্চিত করবে। অপো এফ২১ প্রো ফাইভজি ডিভাইসে আট জিবি র‌্যাম ও ১২৮ রম (এটি ১ টেরাবাইট পর্যন্ত অতিরিক্ত স্টোরেজ বাড়ানো যাবে) রয়েছে। অপোর র‌্যাম সম্প্রসারণ প্রযুক্তির মাধ্যমে স্মার্টফোনটিতে থাকা আট জিবি র‌্যামটির পাশাপাশি অতিরিক্ত পাঁচ জিবি পর্যন্ত সম্প্রসারণ করা যাবে।

পাশাপাশি, কালারওএস১২ ভিত্তিক এ ডিভাইসিটিতে এআই সিস্টেম বুস্টার, কুইক স্টার্টআপ, গেম ফোকাস মোড ও এআই ফ্রেম রেট স্ট্যাবিলাইজার রয়েছে।

অসাধারণ ফিচারসমৃদ্ধ অপো এফ২১ প্রো ফাইভজি ডিভাইসটি কানেক্টিভিটি সুবিধাকে এক নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবে।


আরও খবর



ভোলার নিম্নাঞ্চলের ১০ গ্রাম প্লাবিত

প্রকাশিত:Friday ১৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
Image

মেঘনা নদীর পানি বিপৎসীমার ৩১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে ভোলার মনপুরা উপজেলার নিম্নাঞ্চলের ১০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। তলিয়ে গেছে পুকুর ও মাছের ঘের।

প্লাবিত গ্রামগুলো হলো হাজিরহাট ইউনিয়নের সোনারচর, চরযতিন, দাসেরহাট ও চরজ্ঞান; মনপুরা ইউনিয়নের আন্দিরপাড়, কূলাগাজী তালুক, কাউয়ারটেক; নতুন ইউনিয়ন কলতালী ইউনিয়নের চরকলাতলী ও চরখালেক এবং উত্তর সাকুচিয়া ইউনিয়নের মাস্টারহাটের বিচ্ছিন্ন চরনিজাম।

jagonews24

মনপুরা ইউনিয়নের আন্দিরপাড়, কূলাগাজী তালুক ও কাউয়ারটেক গ্রামের পানিবন্দি মাকছুদ, কামাল, রহিমা, ঝুমুর, হাবিব বলেন, ‘শুক্রবার (১৭ জুন) সকাল ও দুপুরের জোয়ারের পানিতে আমাদের উঠান ডুবে বসতঘরে পানি ঢুকে পড়ে। দুপুরের দিকে আরও বেশি বৃদ্ধি পেয়ে বসতঘরে হাঁটুসমান পানি হয়েছে। রান্নাঘরের চুলা ডুবে যাওয়ায় দুপুরে রান্না হয়নি। তখন থেকে আমরা কিছুই খেতে পারিনি।’

তারা আরও বলেন, ‘বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) থেকে আমরা জোয়ারের পানিতে কষ্ট পাচ্ছি। বৃহস্পতিবার কম হলেও শুক্রবার জোয়ারের পানির পরিমাণ বেশি। জোয়ারের পানি প্রবেশ করলে আমরা ৩-৪ ঘণ্টা পানিবন্দি থাকি। এ অবস্থা থেকে আমরা পরিত্রাণ চাই।’

পুকুরের মালিক মো. ইউনুস ও নুরন্নবী জানান, জোয়ারের পানি প্রবেশ করে তাদের পুকুরের সব মাছ ভেসে গেছে। এতে তাদের প্রায় চার লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

jagonews24

ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) ডিভিশন-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. হাসান মাহমুদ বলেন, গত দুদিনের টানা বৃষ্টি ও মেঘনা নদীর অতি জোয়ারের কারণে মনপুরা উপজেলার নিম্নাঞ্চলের কয়েকটি গ্রামে পানি ঢুকেছে। তবে তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে দাবি করেন তিনি।

মনপুরা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা চরফ্যাশন ইউএনও মো. আল নোমান জাগো নিউজকে বলেন, আমরা খোঁজখবর নিচ্ছি। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।


আরও খবর