Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কোটাবিরোধী আন্দোলনে স্থবির ঢাকা, ভোগান্তি চরমে

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৯১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজধানী ঢাকা সকাল-সন্ধ্যা সর্বাত্মক ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচিতে অচল হয়ে পড়েছে। সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা বাতিল করে ২০১৮ সালে জারি করা পরিপত্র পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সারাদেশে চালিয়ে যাচ্ছেন এ কর্মসূচি।

বুধবার (১০ জুলাই) সকাল ১০টা থেকে রাস্তায় নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। ফলে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।কোটা নিয়ে হাইকোর্টের রায়ে স্থিতাবস্থার প্রতিক্রিয়ায় শিক্ষার্থীরা বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবেই।

এদিকে, সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতি বাতিলের পরিপত্র ‘অবৈধ’ ঘোষণা করে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের ওপর একমাসের স্থিতাবস্থা দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। ফলে কোটা বাতিল করে ২০১৮ সালে জারি করা পরিপত্রটি বহাল থাকছে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। বুধবার (১০ জুলাই) দুপুরে প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ (এএম) আমিন উদ্দিন জানান, আপিল বিভাগ স্থিতাবস্থা বজায় রাখার আদেশ দিয়েছেন। ফলে যা ছিল, তা-ই থাকবে। অর্থাৎ, কোটা বাতিল নিয়ে ২০১৮ সালের পরিপত্র বহাল থাকছে।

কোটা নিয়ে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের ওপর এক মাসের স্থিতিবস্থার আদেশ দিয়েছেন আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে কোটাবিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান। তিনি বলেন, প্রতিবাদকারীরা চাইলে আদালতে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করতে পারবে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফিরিয়ে নিতে ভিসিদেরও উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

দেখা গেছে, শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণায় স্থবির হয়ে পড়েছে রাজধানীর ঢাকা। দুপুর ১২টার দিকে অনেকটা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে যাতায়াত ব্যবস্থা। বাসসহ অন্য যানবাহন প্রধান সড়কগুলোয় আটকা পড়েছে। নগরজুড়ে দেখা দিয়েছে তীব্র যানজট। অনেকে গাড়ি থেকে নেমে হেঁটে গন্তব্যের উদ্দেশে রওয়ানা দিচ্ছেন। মোড়ে মোড়ে আন্দোলনকারীর বেরিকেট দিয়ে রাস্তা বন্ধ করে দিচ্ছে। তবে অ্যাম্বুলেন্স ও সাংবাদিকদের গাড়ি তারা ছেড়ে দিচ্ছে।

‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচিতে সতর্ক রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পূর্বনির্ধারিত স্থানে, এমনবি মোড়ে মোড়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। সড়কে ব্যারিকেড প্রস্তুত রেখেছে পুলিশ। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত পুলিশ সদস্যরা।

এ বিষয়ে ডিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. ফারুক হোসেন বলেন, সকাল থেকে সতর্ক পুলিশ। মানুষ ও যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে মোড়ে মোড়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। কেউ যাতে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি করতে না পারে সেজন্য যথেষ্ট প্রস্তুতি নেওয়া আছে।


-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



মির্জাপুরে সাপের কামড়ে যুবকের মৃত্যু

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image

লুৎফর অরেঞ্জ মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি:টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলায় বিষাক্ত সাপের কামড়ে মোঃ আশিক (২৬ ) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি উয়ার্শী ইউনিয়নের উয়ার্শী গ্রামের ৭ নং ওয়ার্ডে। সে মৃত শাকিল খানের ছেলে।

জানা যায়, শনিবার (৬ জুলাই) রাত ১০ টার দিকে শাকিল গোয়াল ঘরে গরু দেখতে গেলে তার পায়ে সাপে কামড় দেয়। সাথে সাথে সে রশি দিয়ে পা বেঁধে ফেলে। পরে তার পরিবারের সদস্যরা শাকিলের বন্ধুদের সহযোগিতায় মির্জাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিয়ে যায়। হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসকরা বলেন, তাকে ভ্যাকসিন দিয়ে আইসিইউতে রাখতে হবে। কিন্তু আমাদের এখানে কোন আইসিইউ'র ব্যবস্থা নেই। তখন তার পরিবারের সদস্যরা তাকে ঢাকার শমরিতা হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তাকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। রবিবার ভোর ৬ টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাকিল মারা যায়।

উল্লেখ্য, মির্জাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পর্যাপ্ত ভ্যাকসিন থাকলেও এখানে আইসিইউ'র কোন ব্যবস্থা না থাকায় প্রায় সময়ই মুমূর্ষু সাপে কাঁটা রোগীদের নিয়ে অভিভাবকদের অন্য হাসপাতালে ছোটাছুটি করতে হয়।


আরও খবর



শেরপুরে প্রধান শিক্ষকের অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ,বিক্ষোভ

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৭৪জন দেখেছেন

Image
শেরপুর প্রতিনিধি:শেরপুর জেলার সদর উপজেলায়  গাজীরখামার উচ্চ বিদ্যালয়ের বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহবুবুর রহমান বুলবুল এর বিরুদ্ধে অসহনীয়  অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে দুইদিন ব্যাপী ৭ জুলাই রোববার অত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা শেরপুর - নালিতাবাড়ী  সড়ক অবরোধ এবং বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে। খবর পেয়ে সদর থানার পুলিশ বিক্ষুদ্ধ ছাত্রছাত্রীদের অবরোধ তুলে নেয়ার জন্য বলেন এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনেন। 

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, সদর উপজেলার গাজীরখামার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহবুবুর রহমান বুলবুল ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই সে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির সাথে জড়িয়ে পড়েন। এদিকে ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত ছাড়াই ওই বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের ১০ম শ্রেণির মাসিক বেতন ৬০ টাকার স্থলে ১৫০ টাকা করে আদায় এবং অন্যান্য শ্রেণির বেতন বৃদ্ধি করার ফলে ছাত্রছাত্রীরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে পড়ে।যদিও সরকারী নির্দেশনায় সরকার  বা বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যয়নত উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি বা বেতন মওকুফ থাকবে। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কে উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অনুকূলে স্কিম ডকুমেন্ট মোতাবেক নির্ধারিত হারে টিউশন ফি বা বেতন দেয়া হবে। উপবৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোনক্রমেই টিউশন ফি বা বেতন আদায় করা যাবে না। 

এছাড়াও গরীব, অসহায় ও প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী এবং একই পরিবারের দুই শিক্ষার্থী পড়ালেখা করলেও পরীক্ষার ফিসহ অন্যান্য কোন সুযোগ সুবিধা দেন না প্রধান শিক্ষক। 

বিক্ষুদ্ধ ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ বিগত দুই বছর পূর্বে পরিচয় পত্র দেয়ার জন্য প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ২০০ শত করে টাকা নেয়ার পরেও অদ্যবধি তাদের পরিচয় পত্র দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ করে তারা। 

অপরদিকে প্রধান শিক্ষক মাহবুবুর রহমান বুলবুল ২২ জন শিক্ষকের মধ্যে তার কাছের ৪ জন শিক্ষক ছাড়া অন্যান্য ১৮ জন শিক্ষককে বাদ দিয়ে সে বিদ্যালয় পরিচালনা করেন এবং ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সদস্যদের সিদ্ধান্ত ছাড়াই নিজেই মনগড়া বিদ্যালয় পরিচালনা করে থাকেন বলে প্রকাশ্যে ওই বঞ্ছিত শিক্ষকরা অভিযোগ করেন। এমন উদ্বৃত পরিস্থিতির খবর পেয়ে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ রেজুয়ার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ চাঁন মিয়া, গাজীরখামার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আওরাদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে যান। এসময় বিক্ষুদ্ধ ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ গুলো শুনেন শিক্ষা অফিসারসহ অন্যান্যরা। পরে ছাত্রছাত্রীদের দাবি দাওয়া ও সমস্যার সমাধান করার আশ্বাস দিয়ে বক্তব্য রাখেন জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ রেজুয়ান, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ চাঁন মিয়া, ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আওলাদুল ইসলাম, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বেলাইয়ের হোসেন, বাংলা শিক্ষক জিকরুল ইসলাম, অভিভাবক সাহাদত হোসেন খান মিন্টু প্রমুখ। পরে বিক্ষুদ্ধ ছাত্রছাত্রীরা তাদের দেয়া আশ্বাসের প্রেক্ষিতে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ কর্মসূচি তুলে নেন এবং পরিস্থিতি শান্ত হয়। 

এব্যাপারে প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহবুবুর রহমান বুলবুল এর বিরুদ্ধে ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ এবং বিক্ষোভের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, একটি মহল তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র এবং ছাত্রছাত্রীদের উস্কানি দিয়ে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছে। তবে এঘটনায় বিষয় গুলো তিনি শীঘ্রই সমাধান করে বিদ্যালয়ের ভালো পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য চেষ্টা করবেন বলে এমনটাই বলেন তিনি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রফিক আলম হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ২৬৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাংলাদেশ ১৭ থেকে ২০ গ্রেড, সরকারি কর্মচারী সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অসুস্থ মোঃ রফিক আলম কে দেখতে হাসপাতালে এসেছেন নেতাকর্মীরা।শনিবার বিকেলে  বাংলাদেশ ১৭থেকে ২০ গ্রেড,সরকারি কর্মচারী সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রফিক আলম কে দেখতে কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ নূর আলমের নেতৃত্বে রাজধানীর ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল মুগদা মেডিকেলে আসেন নেতাকর্মীরা।পরে নেতাকর্মীরা রফিক আলমের সুস্থতায় দোয়া করেন।এসময় উপস্থিত ছিলেন কার্যকারী সভাপতি মোঃ নাসির উদ্দীন,সভাপতি মোঃ আব্দুর রহিম,সহ-সভাপতি, মোঃ জহিরুল ইসলাম খান,অর্থ সম্পাদক, মোঃ আমির হোসেন,মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর,সাবেক নির্বাচন কমিশনার হোসেন খান প্রমুখ।


আরও খবর



তিন দফা দাবি নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৮৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সর্বজনীন পেনশন স্কিম ‘প্রত্যয়’ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দল,আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। সেখানে তিন দফা নিয়ে আলোচন হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের মহাসচিব এবং ঢাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূঁইয়া।

শনিবার (১৩ জুলাই) বেলা ১১টায় ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয় বৈঠক শুরু হয়। দুপুর ১টায় বৈঠকটি শেষ হয়।

বৈঠক শেষে নিজামুল হক বলেন, আমাদের তিন দফা দাবি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। খোলামেলা আলোচনা হয়েছে। শিক্ষক সমিতির ফেডারেশনে আলোচনা করে মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলব।

শিক্ষকদের চলমান কর্মবিরতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সবগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ে ফেডারেশনের সাথে কথা বলে, শিক্ষক সমিতির সাথে কথা বলে, সভা করে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।

রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনায় কেন সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক একজন জাতীয় নেতা। প্রধানমন্ত্রীর নিদের্শে তিনি আমাদের সঙ্গে বসেছেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



মসজিদের টাকা আত্মসাত কারীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৮৪জন দেখেছেন

Image
আব্দুস সবুর তানোর থেকে:রাজশাহীর তানোরে মসজিদে সরকারি অনুদানের টাকা আত্মসাত করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার কামারগাঁ ইউনিয়ন (ইউপির) চকপ্রভুরাম জামে মসজিদে ঘটে রয়েছে এমন ঘটনা। এঘটনায় চকপ্রভুরাম গ্রামের আব্দুস সাত্তার বাদি হয়ে ওয়ার্ড মেম্বার লুৎফর রহমান ও মসজিদ কমিটির সভাপতি জসিম উদ্দিন সহ ১১ জনের নাম উল্লেখ করে গত ৩০ জুলাই থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এর আগে ওই মেম্বারের বিরুদ্ধে  হেয়ারিংবন্ড রাস্তা ও মসজিদের টাকা আত্মসাতের ঘটনায় জেলা প্রশাসক (ডিসি) বরাবর ইয়াহিয়া নামের এক ব্যক্তি লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে এলজিইডি অফিসের এসও শাহিন সালাম তদন্ত আসেন। তারপর থেকেই টাকা আত্মসাতের ঘটনাটি প্রকাশ পায়। কিন্তু সেই ঘটনা ধামাচাপা দিতে মরিয়া হয়ে পড়েন মেম্বার সহ তাদের অনুসারীরা। 

অভিযোগে উল্লেখ, গত মাসের ২৮ জুন শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে গ্রামের মাতবর শের শাহ ঘোষণা দেন ২৯ জুন শনিবার এশার নামাজের পরে মসজিদের আয় ব্যয়ের হিসাব নেয়া হবে। সে মোতাবেক শনিবার এশার নামাজ পর ফয়েজের বাড়িতে হিসাব নেয়ার জন্য গ্রামের লোকজন উপস্থিত হন। এসময় মসজিদ কমিটির কোষাধ্যক্ষ শহিদুল মাস্টার ২০২৩ সাল থেকে ২০২৪ সালের মে মাস পর্যন্ত হিসাব দেয়। কিন্তু সরকারি অনুদানের টাকা পাননি বলে অবহিত করেন। এঅবস্থায় মসজিদ কমিটির সভাপতি জসিম উদ্দিন উপস্থিত গ্রামবাসী কে জানায় ২০২৩ সালে সরকারি অনুদানের ২ লাখ ৬০ হাজার টাকা এবং ২০২৪ সালে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা মেম্বার লুৎফর রহমান সহ আমি উত্তোলন করি। উপস্থিত গ্রামবাসী সেই টাকা চাইলে মোবাইলে মেম্বারের সাথে কথা বলার পরামর্শ দেন। মেম্বার তার অনুসারীদের পাঠিয়ে উপস্থিত গ্রামবাসী সহ মাতবরকে গালমন্দ করে উপস্থিত রেজুলেশন খাতা ছিড়ে ফেলে নানা ধরনের হুমকি ধামকি দেন।

মসজিদ কমিটির সভাপতি জসিম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন আগামী রোববার গ্রামে বসে মিমাংসা করা হবে।মেম্বার ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি লুৎফর রহমান বলেন, মসজিদের টাকা আত্মসাত করা হয়নি। তারপরও আমি মসজিদে দেড় লাখ টাকা দিতে চেয়েছি। আপনি হিসাব নিকাশে উপস্থিত না হয়ে পালিয়ে যান জানতে চাইলে তিনি জানান আমি পালায়নি যে অভিযোগ করেছে তারাই পালিয়েছে। 

অভিযোগ কারী আব্দুস সাত্তার বলেন, গ্রামের লোকজন ভোট দিয়ে মেম্বার বানিয়েছেন, মেম্বার হয়ে মসজিদের টাকা আত্মসাত করছেন। এর চেয়ে লজ্জার আরকি হতে পারে। আমিসহ গ্রামবাসীর দাবি অভিযোগ টি আমলে নিয়ে মেম্বারসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক। যাতে করে মসজিদ বা আল্লাহর ঘরের টাকা আত্মসাত করতে কেউ সাহস না পায়।
থানার এসআই মজিবুর রহমান জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্তে গিয়ে মেম্বার সহ গ্রামের লোকজন বসে মিমাংসা করবে বলেছে এবং আগামী রবিবার ও সোমবার পর্যন্ত সময় নিয়েছেন। 

আরও খবর