Logo
আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

কোকোর স্ত্রী খালেদা জিয়াকে দেখতে ঢাকায় এসেছেন

প্রকাশিত:বুধবার ২২ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ২৪৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক ;বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিথি দেশে এসেছেন। মঙ্গলবার মধ্যরাতে তিনি লন্ডন থেকে ঢাকায় আসেন।

শর্মিলা রহমান খালেদা জিয়াকে দেখতে এসেছেন। তিনি ঢাকার গুলশানে খালেদা জিয়ার বাসভবনে উঠেছেন বলে তাদের পরিবারিক সূত্র জানিয়েছে।

এর আগে খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে দেখার জন্য ২০২১ সালের ২৫ অক্টোবর ঢাকায় আসেন শর্মিলা রহমান। তার কিছু দিন পর কোকোর বড় মেয়ে জাহিয়া রহমানও ঢাকায় আসেন এবং মায়ের সঙ্গে অবস্থান করেন।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে গত বছরের ১৬ জানুয়ারি লন্ডনের উদ্দেশে বাংলাদেশ ত্যাগ করেন শর্মিলা।

২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে মারা যান আরাফাত রহমান কোকো। তার বয়স হয়েছিল ৪৫ বছর। মৃত্যুর চার দিন পর ২৮ জানুয়ারি তার মরদেহ দেশে আনা হয়। পরে বনানী কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হয়।


আরও খবর



দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জার্মানিতে তিন দিনের সরকারি সফর শেষে দেশে ফিরেছেন।

স্থানীয় সময় রোববার রাত ৯টা ১০ মিনিটে মিউনিখ বিমানবন্দর থেকে যাত্রা করে সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানটি ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায় বলে জানান প্রধানমন্ত্রী উপ প্রেস সচিব এম এম ইমরুল কায়েস।

মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে (এমএসসি) যোগ দিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মিউনিখে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়লাভের পর সরকারপ্রধান হিসেবে এটিই তার প্রথম কোনো রাষ্ট্রীয় সফর। সম্মেলন শেষে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি নিয়মিত ফ্লাইটে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীসহ দেশে ফিরেন।

শেখ হাসিনা মিউনিখে অবস্থানকালে এমএসসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন। পাশাপাশি তিনি বেশ কয়েকজন বিশ্বনেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শুলজ, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি, নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটে, আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ, কাতারের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন আবদুলরহমান আল থানি এবং ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেটে ফ্রেডেরিকসেনের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন তিনি।

জার্মানি, ইউক্রেন ও আজারবাইজানের নেতাদের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় আলোচনায় শেখ হাসিনা যুদ্ধ থামানো, বিশেষ করে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের অবসান এবং গাজায় হামলা বন্ধের আহ্বান জানান।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানান।


আরও খবর



তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম মার্চ থেকে বাড়ছে

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বিদ্যুতের দাম ৫ শতাংশ বাড়ছে। কাছাকছি সময়ে বিদ্যুৎ উৎপাদনে গ্যাসের দামও বাড়ানো হবে আগামী মার্চ মাস থেকে। তবে আবাসিকে গ্যাসের দাম বাড়বে না। এ বিষয়ে আগামী সপ্তাহে প্রজ্ঞাপন জারি হতে পারে।

এদিকে আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে নির্দিষ্ট সময় পর পর স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয়ের সিদ্ধান্ত কার্যকর হচ্ছে মার্চ থেকেই।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব তথ্য জানান বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

তিনি বলেন, আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে দাম সমন্বয় করতে চাই। বিদ্যুতের দাম গ্রাহক পর্যায়ে বাড়লেও গ্যাসের দাম শুধু বিদ্যুৎ উৎপাদনেই বাড়বে। যারা বড় গ্রাহক তাদের দাম তুলনামূলক বেশি বাড়তে পারে। আমরা স্বাবলম্বী গ্রাহকদের ভর্তুকি দিতে চাই না।

নসরুল হামিদ বলেন, বেশি সমস্যা হয়ে গেছে ডলারের রেট। আগে ডলার ৭৮ টাকায় পাওয়া যেতো এখন প্রায় ১২০ টাকার মতো হয়ে গেছে। এক ডলারে প্রায় ৪০ টাকার মতো বেশি খরচ হচ্ছে। এতে বিশাল ঘাটতি তৈরি হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম অপরিবর্তিত থাকলেও ডলারের মূল্যবৃদ্ধির কারণে দাম সমন্বয় জরুরি হয়ে পড়েছে। তবে বড় গ্রাহকদের দাম বাড়ানো হবে যাতে কম ব্যবহানরকারীরা ভর্তুকি মূল্যে বিদ্যুৎ পায়।

জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগামী মার্চ থেকে দেশে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে জ্বালানি তেলের দাম নির্ধারণ শুরু হবে। সেখানে ট্যারিফ, ইনভয়েসসহ অনেকগুলো সূচক বা ফ্যাক্টর ঠিক করা হয়েছে।

তাতে আগামী মাসে দাম বাড়বে নাকি কমবে– সেই প্রশ্নে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখন বলা যাচ্ছে না। ট্যারিফ ধরে হিসাব করলে দাম কিছুটা বাড়ে। আবার ইনভয়েস হিসাব করলে বাড়ার কথা না।

সরকার সর্বশেষ ২০২২ সালের ৩০ অক্টোবর জ্বালানি তেলের দাম পুনর্র্নিধারণ করে। সে অনুযায়ী, এখন ভোক্তা পর্যায়ে প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিন ১০৯ টাকা, পেট্রোল ১২৫ টাকা এবং অকটেন ১৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

অন্যদিকে সর্বশেষ ২০২৩ সালের ৩০ জানুয়ারি গ্রাহক পর্যায়ে নির্বাহী আদেশে বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়। তার ৩ সপ্তাহ আগে ১২ জানুয়ারি গড়ে ৫ শতাংশ বাড়িয়ে গেজেট প্রকাশ করা হয়।


আরও খবর



জেলেনস্কিসহ ৭ দেশের নেতার সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৬৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জার্মানিতে আয়োজিত মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিতে যাচ্ছেন। সেখানে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিসহ সাত দেশের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে পার্শ্ববৈঠক করবেন তিনি।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অডিটোরিয়ামে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর মিউনিখ সফরের বিভিন্ন কর্মসূচির তথ্য তুলে ধরেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১৬ থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য ৬০তম মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিতে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুওয়ারি) জার্মানির উদ্দেশে রওনা হচ্ছেন।

মিউনিখ সিকিউরিটি কনফারেন্সের সভাপতি রাষ্ট্রদূত ড. ক্রিস্টোফ হিউজেনের আমন্ত্রণে এ সম্মেলনে অংশগ্রহণের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে অন্তত সাতটি দেশ ও তিনটি আন্তর্জাতিক সংস্থার শীর্ষনেতৃবৃন্দের সৌজন্য সাক্ষাতের কথা রয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, মিউনিখ সম্মেলনে প্রায় ৬০টি দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থা, মিডিয়া, সুশীল সমাজ, সরকারি এবং বেসরকারি খাতের শীর্ষস্থানীয় প্রায় ৫শ’ প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সম্মেলনের উদ্বোধনী আয়োজনে এবং ক্লাইমেট ফিন্যান্স সংক্রান্ত উচ্চপর্যায়ের প্যানেল আলোচনায় অংশ নেবেন।জার্মান প্রবাসী বাংলাদেশিদের আয়োজিত একটি নাগরিক সংবর্ধনায়ও অংশ নেবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী তার সফরসঙ্গী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন ও উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণসহ আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে বাংলাদেশ বিমানের একটি বাণিজ্যিক ফ্লাইটে ৪ দিনের সরকারি সফরে যাত্রা করবেন। পরে একইদিন সন্ধ্যায় মিউনিখ পৌঁছাবেন তারা।

সফর শেষে প্রধানমন্ত্রী আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার উদ্দেশ্যে মিউনিখ ত্যাগ করে ১৯ ফেব্রুয়ারি পৌঁছার কথা রয়েছে।

হাছান মাহমুদ জানান, জার্মানির চ্যান্সেলর ওলাফ শোলজ, নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রাটা, ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেতে ফ্রেডেরিকসেন এবং ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন।

পাশাপাশি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর, যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন, জার্মানির আন্তর্জাতিক সহযোগিতা এবং উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী ভেনজা শুলজ, বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ব্যবস্থাপনা পরিচালক এক্সেল ভ্যান ট্রটসেনবার্গ এবং মেটা’র গ্লোবাল এফেয়ার্স প্রেসিডেন্ট স্যার নিক ক্লেগের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের কথা রয়েছে।

সংলাপের মাধ্যমে বিশ্বে শান্তি আনয়নের মূলমন্ত্র নিয়ে বিগত ১৯৬৩ সাল থেকে জার্মানির মিউনিখে অনুষ্ঠিত হয়ে আসা এ সম্মেলনের ২০১৭ ও ২০১৯ সালের আসরে অংশ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জার্মানি ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অন্যতম প্রভাবশালী দেশ। সেইসঙ্গে একক দেশ হিসেবে জার্মানি বিশ্বে বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এবং ইউরোপে সর্ববৃহৎ রপ্তানি বাজার।

তিনি আরও জানান, তারা বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী। রোহিঙ্গা সমস্যা মোকাবিলায় জার্মানি গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক এবং মানবিক সহায়তা প্রদান করে যাচ্ছে।


আরও খবর



ফন্টু-মিলনসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে সোহাগ হত্যা মামলার চার্জগঠন

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৪৪জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:যশোরের শরিফুল ইসলাম সোহাগ (২৬) হত্যা মামলায় যুবলীগ নেতা তৌহিদ চাকলাদার ফন্টু, পৌর কাউন্সিলার জাহিদ হাসান মিলনসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে চার্জগঠন করেছে আদালত। গত মঙ্গলবার যশোরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ সুরাইয়া সাহাব আসামিদের আইনজীবীদের ডিসচার্জের আবেদন না মঞ্জুর করে চার্জগঠন করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আসামি পক্ষের আইনজীবী আর এম মঈনুল হক খান ময়না, গাজী আব্দুল কাদির ও মিলন আহম্মেদ। এসময় সকল আসামিরা উপস্থিত ছিলেন।

আইনজীবী আর এম মঈনুল হক খান বলেন, এ মামলার সাত আসামির আইনজীবী। তার মধ্যে রয়েছেন কাউন্সিলার জাহিদ হাসান মিলনও। মামলার চার্জগঠনের পর সকল আসামিকেই জামিন প্রদান করেছেন আদালত। তবে, মিলন আরেকটি মামলায় আটক থাকায় তাকে কারাগার থেকে এ মামলার আসামি হিসেবে আদালতে আনা হয়। পরবর্তিতে এ মামলায় তিনি জামিন পান। আগের মামলায় তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ২৮ আগস্ট রাত সোয়া ১২টার দিকে যশোর শহরের কাজীপাড়ায় নিজ বাড়ির সামনে খুন হন যুবলীগ কর্মী সোহাগ। এ ঘটনায় নিহতের ভাই ফেরদাউস হোসেন সোমরাজ ৮ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও কয়েক জনকে আসামি করে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্ত শেষে তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের বিদায়ী ওসি মারুফ আহম্মদ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। চার্জশিটে অভিযুক্ত অন্য ৯ জন হলেন শহরের কাজীপাড়া গোলামপট্টির আব্দুল খালেকের ছেলে ইয়াসিন মোহাম্মদ কাজল, ধর্মতলার কালিমের ছেলে টিপু, কাজীপাড়া গোলামপট্টির আবুল কাশেম ওরফে পিকুলের ছেলে সাগর, সিরাজের ছেলে তরুণ, আব্দুল বাকেরের ছেলে আলামিন, কাজীপাড়ার মোহাম্মদ আলীর ছেলে ডাবলু, কাজীপাড়া আমতলার এসএম আকাশ, ঘোপ জেল রোডের এসএম মহিউদ্দিন এবং সদর উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামের লিটন।


আরও খবর



ফকিরহাটে ভাড়া বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য উর্দ্ধার, আটক-২

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৮জন দেখেছেন

Image

ফকিরহাট(বাগেরহাট)সংবাদদাতা:বাগেরহাটের ফকিরহাটে ভাড়া বাড়ি থেকে ৯৪ কেজি গাঁজা, ইয়াবা ট্যাবলেট, ফেন্সিডিলসহ দু’টি মোটরসাইকেল জব্দ করেছে খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের একটি দল। এসময় ঘটনাস্থল থেকে দু’জনকে আটক করেছে তারা। বৃহস্পতিবার সকালে ফকিরহাট মডেল থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা করা হয়েছে।

আটককৃত মাদককারবারিরা হলেন পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার পশ্চিম সেনের টিকিকাটা গ্রামের মোঃ আলী হোসেনের ছেলে মোঃ ফয়সাল হোসেন (২৩) এবং একই এলাকার লতিফ খলিফার ছেলে মোঃ সোহেল রানা (২৬)। এসময় লখপুর এলাকার বনিকপাড়া মোসাঃ বিথি খাতুনের ভাড়াটিয়া আক্তার মিয়া (৩৬) পালিয়ে গেছে। সে লখপুর বনিকপাড়া গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে।

খুলনা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর ও স্থানিয়রা জানান, বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের খুলনা বিভাগীয় অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ আহসানুর রহমানের নেতৃত্বে একটি দল ফকিরহাট উপজেলার লখপুর এলাকার বিথি বেগমের বাড়ির দুই তলার ভাড়াটিয়া আক্তার মিয়ার বাসায় অভিযান পরিচালনা করেন।

এসময় ওই ঘর থেকে ৯৪ কেজি গাঁজা, ১৫২০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও ৩৩ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। এ অভিযানে পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার পশ্চিম সেনের টিকিকাটা গ্রামের মোঃ আলী হোসেনের ছেলে মোঃ ফয়সাল হোসেন (২৩) এবং একই এলাকার লতিফ খলিফার ছেলে মোঃ সোহেল রানা (২৬) কে আটক করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর। তবে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় মোসাঃ বিথি খাতুনের ভাড়াটিয়া আক্তার মিয়া (৩৬)। সে লখপুর বনিকপাড়া গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে। এসময় তাদের ব্যবহৃত দু’টি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়েছে।

ফকিরহাট মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) জানান, বিপুল পরিমানে মাদকদ্রব্য উদ্ধারের ঘটনায় খুলনা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ‘ক’ সার্কেলের উপ-পরিদশর্ক মো. রাকিবুল ইসলাম রাসেল বাদী হয়ে মো. ফয়সাল হোসেন (২৩), সোহেল রানা (২৬) ও আক্তার মিয়ার (৩৫) মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা করেছেন। আটককৃতদের বৃহস্পতিবার সকালে বাগেরহাট বিজ্ঞ আদালতে সোর্পদ করা হয়েছে।


আরও খবর