Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

খাগড়াছড়িতে চাঞ্চল্যকর শিশুধর্ষণ মামলার মূল আসামী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১৩০জন দেখেছেন

Image

জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়িতে চাঞ্চল্যকর শিশুধর্ষণ মামলার মূল আসামী মো. রইস মিয়া (৫৩) কে খাগড়াছড়ি পৌরসভার  শালবন রসুলপুরস্থ  ভাড়া বাসা থেকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।

সোমবার (২৭ নভেম্বর)খাগড়াছড়ি জেলার অপরাধ দমন, আসামি গ্রেফতার ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষণাবেক্ষণে মান্যবর পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার) মহোদয়ের সুদক্ষ দিক নির্দেশনায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ। এরই ধারাবাহিকতায় খাগড়াছড়ি জেলার সদর থানার পুলিশের চৌকস  অফিসার ও সঙ্গীয় ফোর্সের সহায়তায় মূল আসামী মো. রইস মিয়া (৫৩)কে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী হলেন-মো. রইস মিয়া (৫৩)  মৃত শাহেদ আলী ছেলে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে চাঞ্চল্যকর ৩ বছর বয়সী শিশু ধর্ষন মামলাটি  ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধনী ২০০৩ এর ধারা এ ৯(১) একটি মামলা রুজু হয়।পরে খাগড়াছড়ি সদর থানার পুলিশের চৌকস  অফিসার ও সঙ্গীয় ফোর্সের সহায়তায় মূল আসামী মো. রইস মিয়া (৫৩)কে খাগড়াছড়ি পৌরসভার  শালবন রসুলপুরস্থ  ভাড়া বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

গ্রেপ্তারকৃত আসামীকে ঘটনার বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদে সে উক্ত ঘটনার সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেন এবং আসামি বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিবে বলে স্বীকার করেন। ঘটনার দিন গত ২৭/১১/২০২৩ইং তারিখ সকাল অনুমান ১০.৩০ ঘটিকা হইতে ১১.০০ ঘটিকার সময়ের মধ্যে ভিকটিম শিশু (০৩) কে শালবন রসুলপুরস্থ জনৈক মোঃ সুজন মিয়ার মালিকানাধীন টিনের ঘরের ভিতর আসামীর ভাড়া বাসার শয়ন কক্ষে ভিকটিমের সাথে আসামী উক্ত শিশু ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটায় মর্মে প্রতীয়মান হয়।

খাগড়াছড়ি সদর থানায়  আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করে, সু—চিকিৎসার জন্য বর্তমানে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।


আরও খবর



বিনামূল্যে বই পেল ২৬৬ কলেজ শিক্ষার্থী

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৩জন দেখেছেন

Image

এম আনোয়ার হোসেন, মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:মিরসরাই ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেনীর মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের ২৬৬ জন শিক্ষার্থী নানা সংকটের কারণে বই কেনা সম্ভব হয়ে উঠছিল না। তাই তারা ক্লাশেও অনুপস্থিত থাকতো। আবার কেউবা সবগুলো বই কেনার সামর্থ্য না থাকায় কিছু বই কিনতে সক্ষম হয়, বাকি বই কিনতে পারছিল না। এমন শিক্ষার্থীদের মিরসরাই ডিগ্রি কলেজ পরিচালনা পরিচালনা পরিষদের সদস্য সাফাত ইশতিয়াকের উদ্যোগে বই বিতরণ করা হয়। এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগ মিরসরাই কলেজে প্রথম। বই পেয়ে ক্লাশে ফেরার আনন্দে আতœহারা শিক্ষার্থীরা। এই উদ্যোগের জন্য সাফাত ইশতিয়াকের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন কলেজ পরিচালনা পরিষদ, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার সকালে মিরসরাই কলেজ হলরুমে বিনামূল্যেও এসব বই বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মিরসরাই ডিগ্রি কলেজ পরিচালনা পরিষদের সদস্য সাফাত ইশতিয়াক। মিরসরাই ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল আফছারের সভাপতিত্বে এবং বাংলা বিভাগের প্রভাষক ইকবাল হোসেন ও ইংরেজী বিভাগের প্রভাষক সাইদুল ইসলামের যৌথ সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতালের ফাইন্যান্স ডিরেক্টর আজম খান, মিরসরাই কলেজের উপাধ্যক্ষ নাছির উদ্দিন, সাংবাদিক বিপুল দাশ।

বই পাওয়া একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী জয়ন্তী রানী দেবী বলেন, পারিবারিক সমস্যার কারণে বই কিনতে না পারায় লেখাপড়ায় সমস্যা দেখা দিয়েছিল। বই ছাড়াই কলেজে ক্লাস করতে হতো। বইগুলো পেয়ে সত্যিই খুশি হয়েছি। এখন নিয়মিত লেখাপড়ার মাধ্যমে আমরা কলেজকে ভালো ফলাফল এনে দিতে পারবো। জয়ন্তী রানী দেবীর মতো আকাশ নাথ, সাজেদা আক্তার, মমতাজ, জান্নাতুল ফেরদৌসসহ ২৬৬ জন গবীর শিক্ষার্থীর হাতে বই তুলে দেন কলেজ পরিচালনা পরিষদের সদস্য সাফাত ইশতিয়াক।

মিরসরাই ডিগ্রি কলেজ পরিচালনা পরিষদের সদস্য সাফাত ইশতিয়াক বলেন, মিরসরাই কলেজের ২৬৬ জন সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীর হাতে বই তুলে দিতে পেরে আমি সত্যিই অত্যন্ত আনন্দিত। এসব সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীরা ২০২৫ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। আমি আশা করছি তারা পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করে কলেজের সুনাম বয়ে আনবে। ভবিষ্যতেও শিক্ষার মানোন্নয়নে আমি কাজ করে যাবো। আমার এই কাজে সমর্থন করার জন্য আমি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ভিসি ডা. ইসমাইল খানের প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

মিরসরাই ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল আফছার জানান, বই ছাড়া অনেক শিক্ষার্থী ক্লাস করতে সমস্যা হচ্ছিল। কলেজ পরিচালনা পরিষদের সদস্য সাফাত ইশতিয়াক যেনে তাদের বই কিনে দেন। এমন মহৎ কাজের জন্য তাকে ধন্যবাদ জানাই।


আরও খবর

প্রতিষ্ঠান গড়া ও গুনগত শিক্ষা বিস্তার:

শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




তিতুমীর কলেজ ছাত্রলীগের শীর্ষ পদে শরণখোলার শাহিন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩০৮জন দেখেছেন

Image
নাজমুল ইসলাম বিশেষ প্রতিনিধি:ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সরকারী তিতুমীর কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।গত ৩০ শে জানুয়ারি মঙ্গলবার কলেজ শাখার সভাপতি মোহাম্মদ রিপন মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হক জুয়েল স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। নবগঠিত এই কমিটিতে মোঃ মিলন আলীকে সভাপতি এবং আলী হাসান মেহেদীকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।

কমিটির শীর্ষপদে নতুন করে স্থান পেয়েছেন শরণখোলার সোহান ইসলাম শাহিন (২৪)। তাকে সিনিয়র সহ-সভাপতি নির্বাচিত করা হয়েছে। এতে সংগঠনের উত্তরোত্তর উন্নতি হবে বলে মনে করেন সংগঠনের সদস্যরা।

নতুন এই কমিটির ব্যাপারে জানতে চাইলে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল জিয়াদ বলেন, যথোপযুক্ত এবং সার্বিক বিবেচনায় এই কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। প্রয়োজন অনুপাতে কমিটিতে পরিবর্তন আনা হয়েছে। নতুন করে শীর্ষপদে যোগ্যরা স্থান পেয়েছেন। এতে সংগঠনের ভালো কিছুই হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

আরও খবর

বিনামূল্যে বই পেল ২৬৬ কলেজ শিক্ষার্থী

শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




শেখ হাসিনা হচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মুক্তির উত্তরাধিকার: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা নির্বাচন করি পাঁচ বছর পরে। আর শেখ হাসিনা নির্বাচন করেন প্রতিদিন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, তিনি (শেখ হাসিনা) যখন কোনো অঞ্চলে যান, সেখান থেকে এক দুইজনের নাম লিখে রাখেন। যখন জাতীয় সংসদ বা সংরক্ষিত নারী আসনে নির্বাচন হয়, তখন ওই ডায়েরি থেকে নামগুলো এনে ঠিক করে নেন।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনা হচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মুক্তির উত্তরাধিকার। বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর গত ৪৮ বছরে তার মত জনপ্রিয় নেতা সৃষ্টি হয়নি। সাহসী রাজনীতিকের নাম শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু হত্যার পর গত ৪৮ বছরে তার (শেখ হাসিনা) মতো জনপ্রিয় নেতা সৃষ্টি হয়নি। একজন দক্ষ প্রশাসকের নাম শেখ হাসিনা, সাহসী রাজনীতিবিদের নাম শেখ হাসিনা। তিনি বাংলাদেশের রূপান্তরের রূপকার। যিনি মৃত্যুর মিছিলে দাঁড়িয়ে বার বার বাংলার জয়গান গেয়েছেন।


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রীর জার্মানি সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলন শুরু

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৩৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিনদিনের জার্মানি সফর সম্পর্কে জাতিকে অবহিত করতে সংবাদ সম্মেলন করছেন। আজ (শুক্রবার) সকাল ১০টা ৩৩মিনিটে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এ সংবাদ সম্মেলন শুরু হয়।

এর আগে, প্রধানমন্ত্রী মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলন ২০২৪-এ যোগ দিতে ১৫ ফেব্রুয়ারি জার্মানি যান। তিনি দেশে ফিরে আসেন ১৯ ফেব্রুয়ারি। মিউনিখে অবস্থানকালে প্রধানমন্ত্রী সম্মেলনে যোগ দেয়া ছাড়াও বিশ্বনেতাদের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন।

তাদের মধ্যে ছিলেন জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শোলৎজ, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি, নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটে, আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ, কাতারের প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন আবদুল রহমান আল-থানি এবং ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেটে ফ্রেডেরিকসেন।

মিউনিখ সিকিউরিটি কনফারেন্সের সভাপতির আমন্ত্রণে সেখানে যান প্রধানমন্ত্রী। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়লাভের পর দেশের বাইরে এটিই তার প্রথম সরকারি সফর। জার্মানিতে অবস্থানকালে মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন শেখ হাসিনা। এ সফরে জার্মানিতে বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশিদের একটি নাগরিক সংবর্ধনায়ও অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী।


আরও খবর



বইমেলার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৪০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাংলা একাডেমি আয়োজিত ‘অমর একুশে বইমেলা ২০২৪’ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টায় বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে উপস্থিত হন প্রধানমন্ত্রী। পরে বিকাল ৪টায় মেলার উদ্বোধন করেন তিনি।

এর আগে সাহিত্য বিশেষ অবদানের জন্য ১১টি ক্যাটাগরিতে ১৬ জনকে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার-২০২৩ তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী।

মেলার মূল এবারের প্রতিপাদ্য ‘পড়ো বই গড়ো দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’। সবমিলিয়ে বরাবরের মতো এবারো বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে থাকছে মেলার আয়োজন।

জানা যায়, এবারের মেলায় ৬৩৫ প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান বরাদ্দ পেয়েছে ৯৩৭টি ইউনিট। এবার প্রকাশনা সংস্থা বেড়েছে ৩৪টি। একাডেমি প্রাঙ্গণে ১২০ প্রতিষ্ঠানকে ১৭৩টি ইউনিট এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ৭৬৪ ইউনিট বরাদ্দ পেয়েছে ৫১৫ প্রতিষ্ঠান।

বইমেলার সময়সূচি:

এবারের বইমেলা অধিবর্ষের বইমেলা। ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মেলা অনুষ্ঠিত হবে। ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। তবে রাত ৮টা ৩০ মিনিটের পর নতুন করে কেউ মেলা প্রাঙ্গণে প্রবেশ করতে পারবেন না। আর ছুটির দিন বইমেলা চলবে বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত।

তবে ২১ ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের দিন মেলা সকাল ৮টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলবে বলেও জানান তিনি।


আরও খবর