Logo
আজঃ শনিবার ২৫ মে ২০২৪
শিরোনাম

কদমতলীতে ট্রাকচাপায় ভ্যানচালকের প্রাণ গেল

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১২৬জন দেখেছেন

Image

ঢামেক প্রতিবেদক ;রাজধানীর কদমতলীতে ট্রাকচাপায় শাহাবুদ্দিন (৩০) নামের এক ভ্যানচালক (ডেলিভারি ম্যান) নিহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার দিবাগত রাতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শাহাবুদ্দিন নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার সরদার পাড়া গ্রামের মোখলেসুর রহমানের ছেলে। বর্তমানে তিনি জুরাইন বউ বাজার এলাকায় থাকতেন। তার দুই মেয়ে রয়েছে। তিন ভাই, তিন বোনের মধ্যে শাহাবুদ্দিন ছিলেন চতুর্থ।

শাহাবুদ্দিনের ভগ্নিপতি আনিসুর রহমান বলেন, ‘শাহাবুদ্দিন একটি প্রতিষ্ঠানে ভ্যান চালাতেন। ওই প্রতিষ্ঠানে অর্ডার হওয়া প্লাস্টিকের মালামাল বিভিন্ন জায়গায় পৌঁছে দেওয়ার কাজ করতেন। গতকাল রাতে কাজ শেষে বাসায় ফিরছিলেন শাহাবুদ্দিন। তিনি ধলেশ্বরী ঘাট এলাকায় পৌঁছালে ট্রাকের ধাক্কায় রাস্তায় ওপর ছিটকে পড়েন। তখন ওই ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হন তিনি। খবর পেয়ে রাত ১টা ২৫ মিনিটে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘মরদেহটি ঢামেক মর্গে রয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানায় জানানো হয়েছে। এ ঘটনায় ট্রাকটি জব্দ ও চালককে আটক করা হয়েছে।’


আরও খবর



শার্শা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১১০জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:২য় ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে শার্শা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ করেছেন নির্বাচন কমিশন।

২ মে বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও রিটার্নিং অফিসার এস এম শাহীন প্রার্থীদের মাঝে এ প্রতীক বরাদ্দ করেন। চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপিত ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মিন্নু ( মটরসাইকেল), যুগ্ম সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ ইব্রহিম খলিল (ঘোড়া), উপজেলা যুবলীগের সভাপতি অহিদুজ্জামান অহিদ (আনারস) ও উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সোহারাব হোসেন (দোয়াত কলম) মার্কা।

বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী আলেয়া ফেরদৌস (হাঁস), নাজমুন নাহার (ফুটবল), জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শামিমা আলম সালমা (কলস) মার্কা।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সরদার সাহরিন আলম বাদল (টিউবওয়েল), সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার (তালা), যুবলীগ নেতা তরিকুল ইসলাম মিলন (টিয়া পাখি)। শফিকুল ইসলাম মন্টু (চসমা) মার্কা। আগামী ২১ মে শার্শা উপজেলার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।


আরও খবর



গোদাগাড়ীতে নামের মিলে জেল খাটলেন কলেজছাত্র, আসল আসামি ভারতে

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৬০জন দেখেছেন

Image

মুক্তার হোসেন,গোদাগাড়ী(রাজশাহী)প্রতিনিধিঃরাজশাহীর গোদাগাড়ীতে মাদক মামলার আসামির সঙ্গে নিজের ও বাবার নামের মিল থাকায় বিনা দোষে একদিন জেল খাটলেন এক কলেজছাত্র। গতকাল সোমবার ভোরে এই কলেজছাত্রকে ধরে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। পরে আসামি শনাক্তে ভুল হওয়ার ব্যাপারে পুলিশ বুঝতে পেরে আদালতে একটি প্রতিবেদন দিলে মঙ্গলবার(১৪মে) আদালত এই কলেজছাত্রকে মুক্তি দিয়েছেন। এই কলেজছাত্রের নাম ইসমাইল হোসেন (২১) তিনি গোদাগাড়ী পৌরসভার ফাজিলপুর মহল্লার আব্দুল করিমের ছেলে।

তাঁর মায়ের নাম মনোয়ারা বেগম। ইসমাইল হোসেন গোদাগাড়ী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের একাদশ শ্রেণির মানবিক বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র।মাদক মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত পলাতক ওই আসামির নামও ইসমাইল হোসেন (২০)।তাঁর বাড়ি গোদাগাড়ী পৌরসভার লালবাগ হেলিপ্যাড মহল্লায়। বাবার নাম আবদুল করিম। তাঁর মায়ের নাম মোসা. বেলিয়ারা। আসামি ইসমাইল পেশায় কাঠমিস্ত্রি। মাদক মামলায় জামিন নেওয়ার পর তিনি ভারতের চেন্নাই গিয়ে রাজমিস্ত্রির কাজ করছেন। মাদক মামলার এই আসামি এবং ওই কলেজছাত্রের দুজনের নিজের নাম এবং তাদের বাবার নামও একই। মহল্লা এবং মায়ের নাম আলাদা হলেও পুলিশ এই কলেজছাত্রকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায়।কলেজছাত্র ইসমাইল হোসেনের ভাই আব্দুল হাকিম রুবেল জানান, গত রোববার (১২ মে) এশার নামাজের সময় গোদাগাড়ী মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আতিকুর রহমান তাদের বাড়ি যান। এ সময় তিনি একটি মাদক মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা দেখিয়ে তার ভাই ইসমাইল হোসেনকে ধরে নিয়ে যান। ওই সময় তাঁরা পুলিশকে জানান, তার ভাইয়ের নামে কোনো মাদক মামলা নেই। কোনো গ্রেপ্তারি পরোয়ানাও নেই।

পুলিশ কোনো কথা না শুনেই ধরে নিয়ে যায়। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০২৩ সালের ২৯ আগস্ট রাত পৌনে ১১টার দিকে গোদাগাড়ীর মাদারপুর জামে মসজিদ মার্কেটের সামনে থেকে রাজমিস্ত্রি ইসমাইল হোসেনকে ৫০ গ্রাম হেরোইনসহ গ্রেপ্তার করে রাজশাহী জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) একটি দল। রাতেই তাঁর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে গোদাগাড়ী মডেল থানায় মামলা করেন ডিবির এসআই ইনামুল ইসলাম। এরপর দিন তাঁকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এর এক মাস পর গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর মামলার অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। এরপর গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ইসমাইল হোসেন জামিনে মুক্তি পান। কিছুদিন পর তিনি কাঠমিস্ত্রির কাজে চেন্নাই চলে যান। তার বাবা ছয় বছর ধরেই সেখানে আছেন।

এই মামলায় কলেজছাত্র ইসমাইলকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল মতিনকে পরিবারের সদস্যরা অবহিত করলেও তিনি তাকে ছাড়েননি। তিনি তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়ে দেন। পরে পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি গোদাগাড়ী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সোহেল রানাকে অবগত করেন। পরে সোহেল রানা বিষয়টি ভালোভাবে খতিয়ে দেখার জন্য থানা-পুলিশকে নির্দেশ দেন। পরে পুলিশ খোঁজখবর নিয়ে দেখতে পায়, আসামি ইসমাইলের বদলে অন্য ইসমাইলকে ধরা হয়েছে।গোদাগাড়ী থানার ওসি আবদুল মতিন বলেন, ‘আমরা সোমবার(১৩ মে) এই ইসমাইলকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠাই। দুজনের নিজের এবং বাবার নাম একই থাকার কারণে ভুলটা হয়ে গেছে। পরে ভুল বুঝতে পেরে সোমবার বিকেলেই আমরা একটা প্রতিবেদন দিয়েছি। আজ আদালত এই ইসমাইলকে মুক্তি দিয়েছেন। আসল আসামি ভারতে পালিয়ে আছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। দেশে ফিরলে তাকে গ্রেপ্তার করা হবে।


আরও খবর



লেগুনায় লুকিং গ্লাস লাগাতে বাধ্য করলো ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগ

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১০৭জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হাসানঃমেগাসিটি ঢাকার যানজটকে সহনীয় পর্যায়ে রেখে এবং নগরবাসীর সড়কে চলাচলকে নির্বিঘ্ন ও স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ করতে ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে কাজ করে যাচ্ছে সকল ট্রাফিক বিভাগ। যানজটকে নিয়ন্ত্রণের জন্য সৃজনশীলতা ও বিভিন্ন কল্যাণমূলক পদক্ষেপ নিয়ে ডিসি মোহাম্মদ আশরাফ ইমামের নেতৃত্বে কাজ করে যাচ্ছে ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগ। 


ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগে জনসংখ্যার ঘনত্ব অধিক হওয়ায় এবং অধিক সংখ্যক যানবাহনের তুলনায় রাস্তাঘাট অপ্রতুল হওয়ায় মাঝে মাঝেই বিভিন্ন দুর্ঘটনার শিকার হয়ে থাকে পরিবহনের চালক, হেলপার, যাত্রী এবং সড়কের পথচারীবৃন্দ। সড়ক দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ প্রধান সড়কে ব্যাটারি রিকশা এবং লেগুনার চলাচল। ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের অধীনে কাপ্তান বাজার, দয়াগঞ্জ, জুরাইন, পোস্তগোলা, লাল মসজিদ, ঢাকা ম্যাচ ফ্যাক্টরি, মুন্সিখোলা, যাত্রাবাড়ী, কাজলা, স্টাফ কোয়াটার, কুতুবখালী এবং দনিয়া এলাকায় লেগুনা স্ট্যান্ড রয়েছে। দুর্ঘটনার কারণ যাচাই করে দেখা যায়, লেগুনার লুকিং গ্লাস না থাকা, অপরিপক্ক চালক দিয়ে লেগুনা চালানো এবং যান্ত্রিক ত্রুটি থাকা। পর্যায়ক্রমে ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের লেগুনাগুলোকে সড়কে যান চলাচলের উপযোগী করার লক্ষ্যে ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের পক্ষ থেকে সকল লেগুনার মালিককে তিন দিন বা ৭২ ঘণ্টার মধ্যে লুকিং গ্লাস লাগানোর জন্য কড়া নির্দেশনা দেয়া হয়। গত ১৬/০৫/২৪ খ্রিস্টাব্দ উক্ত সতর্কবার্তা তৃতীয় দিন শেষ হওয়ার পরে লেগুনার বিরুদ্ধে অভিযানে নামে ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের সদস্যবৃন্দ। ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের ডিসি মোহাম্মদ আশরাফ ইমামের প্রত্যক্ষ দিকনির্দেশনায় এডিসি (ট্রাফিক-ওয়ারী) বিভাগ সুলতানা ইশরাত জাহান এর নেতৃত্বে কাজ করে এসি (ট্রাফিক ওয়ারী) জোন কপিল দেব গাইন, এসি (ট্রাফিক যাত্রাবাড়ী) জোন তানজিল আহমেদ এবং এসি (ট্রাফিক ডেমরা) জোন মোস্তাইন বিল্লাহ ফেরদৌস এর টিম। 

অভিযান শেষে লক্ষ্য করা যায় যে, ৬৮৪টি লেগুনা তাদের গাড়ির দুই সাইডে লুকিং গ্লাস লাগিয়েছে, লুকিং গ্লাস না লাগানোর জন্য ৪৩টি লেগুনার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগ। অন্যান্য যারা লুকিং গ্লাস লাগায়নি তারা আইনের আওতায় শাস্তির ভয়ে স্ট্যান্ডে আসেনি। ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগ আশা করছে লেগুনার লুকিং গ্লাস থাকাতে তাদের দ্বারা দুর্ঘটনার হার কমে যাবে। এরপরে ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগ লেগুনার গাড়ির চালকগণ যাতে বৈধ লাইসেন্স নিয়ে লেগুনা ড্রাইভ করেন তার বিরুদ্ধে প্রচারণাপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে মর্মে ডিসি (ট্রাফিক ওয়ারী) বিভাগ জানান।


আরও খবর



খাগড়াছড়িতে প্রোটিন অলিম্পিয়াড ও স্কুল ফেস্টিভ্যাল উদ্বোধন করেন.পুলিশ সুপার মুক্তা ধর

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৭৩জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়িতে বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাস্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিল (বিপিআইসিসি) ও ইউ. এস. সয়াবিন এক্সপোর্ট কাউন্সিল এর উদ্যোগে ২দিন ব্যাপি প্রোটিন অলিম্পিয়াড ও স্কুল ফেস্টিভ্যাল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুত্রুবার (৩ মে) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে খাগড়াছড়ি পুলিশ লাইন্স হাই স্কুল মাঠে বাংলাদেশ পোল্টি ইন্ডাষ্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিল এর আয়োজনে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সহযোগিতায় ২দিন ব্যাপি প্রোটিন অলিম্পিয়াড ও স্কুল ফেস্ট উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ি পুলিশ লাইন্স হাই স্কুল এর প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার নাথ এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে বেলুন উড়িয়ে প্রোটিন অলিম্পিয়াড ও স্কুল ফেস্টভ্যাল উদ্বোধন করেন খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার) 

স্বাগত বক্তব্য খাগড়াছড়ি পুলিশ লাইন্স হাই স্কুল প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার নাথ।এসময় বাংলাদেশ পোল্টি ইন্ডাষ্ট্রিজ সেন্টাল কাউন্সিল এর সেক্রেটারি (বিপিআইসিসি) দেবাশীষ নাগ, খাগড়াছড়ি জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ত্রুাইম এন্ড অপস) মো.জসীম উদ্দিন,  খাগড়াছড়ি জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এস এম মোসলেম উদ্দিন, বাংলাদেশ পোল্টি ইন্ডাষ্ট্রিজ সেন্টাল কাউন্সিল এর গণমাধ্যম ও যোগাযোগ উপদেষ্টা মো.সাজ্জাদ হোসাইন  বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

খাগড়াছড়ি জেলার ৮টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮জন প্রধান শিক্ষক, প্রতিটি বিদ্যালয় থেকে ৪০জন করে  ৩২০ জন শিক্ষার্থী ২দিন ব্যাপি প্রোটিন অলিম্পিয়াড ও স্কুল ফেস্টে অংশগ্রহন করেন।

অন্যান্যের মাঝে সহকারী পুলিশ সুপার সৈয়দ মুমিদ রায়হান, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো.মনিরুজ্জামান খাগড়াছড়ি প্রেস ক্লাবের সভাপতি চৌধুরী আতাউর রহমান রানা, সহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক,  সাংবাদিক, শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকা বারডেম হাসপাতালের বিভাগীয় প্রধান ও প্রধান পুষ্টিবিদ শামসুন্নাহার নাহিদ (মহুয়া),
প্রোটিন অলিম্পিয়াড ও স্কুল ফেস্টের বিস্তারিত আলোচনা করেন।

প্রধান অতিথি,র বক্তব্যে খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার) বলেন শিক্ষার্থীদের মানসিক বিকাশের জন্য প্রোটিন  আমাদের শরীরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। প্রোটিন না থাকলে আমাদের মেধা ও বুদ্ধি সমৃদ্ধ হবেনা। প্রোটিন আমাদের শরীরের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে কাজ করে থাকে। আমাদের নখ, চুল ও শরীরের সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য প্রোটিন প্রয়োজন। এছাড়াও রোগ প্রতিরোধের জন্য প্রোটিন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। প্রত্যেককে দৈনিক কিংবা নিয়ম অনুযায়ী প্রোটিন খাওয়া জরুরি। 

আলোচনা সভার পরে শিক্ষার্থীদের কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

আরও খবর



সিরাজগঞ্জে ভাষায় লিঙ্গীয় বৈষম্য নিয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভা

প্রকাশিত:সোমবার ২০ মে ২০24 | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ মে 20২৪ | ১৯জন দেখেছেন

Image
রাকিবুল ইসলাম সিরাজগঞ্জ থেকে:সিরাজগঞ্জে গণমাধ্যম কর্মীদেরকে নিয়ে ভাষায় লিঙ্গীয় বৈষম্য নারীপক্ষ নামে একটি সংগঠন সিরাজগঞ্জ ও পাবনা সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
 
রবিবার (১৯ মে) সকালে এস.এস রোডস্থ নর্থ টাউন রেস্তোরাঁয় প্রোগ্রাম ফর উইম্যান ডেভোলপমেন্ট (পি ডাব্লিউডি)  সার্বিক সহযোগিতা ও নারীপক্ষ আয়োজনে ভাষায় লিঙ্গীয় বৈষম্য দিনব্যাপী মতবিনিময় সভা শুভ উদ্বোধন করেন নারীপক্ষ চেয়ার পারসন গীতা দাস। 

মতবিনময় সভায় নারীপক্ষ চেয়ার পারসন গীতা দাস তিনি বলেন, মানুষ কোনো ভালো কর্ম করলে তাকে বিশেষায়িত করা যায়। কিন্তু নারীরা নির্যাতিত হলেও তাদেরকে বিশেষায়িত করা হয়। যেমন ধর্ষণের শিকার হলে তাকে ধর্ষিতা,নির্যাতনের শিকার হলে নির্যাতিতা বলা হয়। অথচ ধর্ষণের শিকার,নির্যাতনের শিকার লিখলেও হয়। একজন নারীকে মানুষ হিসেবে দেখলে এ অবস্থার পরিবর্তন ঘটবে।এসময়ে উপস্থিত ছিলেন,কামরুন নাহার,  ফেরদৌসী আখতার,পিডাব্লিউডি নির্বাহী পরিচালক হুসনে আরা জলি। 

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,বেসরকারি চ্যানেল ২৪ এর সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার সাংবাদিক হীরক গুণ,এনটিভি জেলা প্রতিনিধি শরিফুল ইসলাম ইন্না,প্রেসক্লাবের সদস্য ও দৈনিক যমুনা প্রবাহ পত্রিকার সিনিয়র রিপোর্টার নওশাদ আহমেদ,দৈনিক বিপ্লবী সময়  পাবনা জেলা প্রতিনিধি সাবেক বার্তা সম্পাদক এম.এ ছালাম, দীপ্ত টিভি পাবনা  জেলা প্রতিনিধি শামসুল আলম, দৈনিক বিবৃতি পাবনা নির্বাহী সম্পাদক কাজী বাবলাসহ সিরাজগঞ্জ ও পাবনা গণমাধ্যম কর্মী বৃন্দ ।

আরও খবর