Logo
আজঃ Wednesday ২৬ January ২০২২
শিরোনাম
অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সহ-শিল্পীদের নগ্ন ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিদেশের মাটিতে কৃষিপণ্য সরবরাহ বাড়াণোর লক্ষ্যে : ইরান রাজনৈতিক কঠিন চাপে রয়েছেন মেয়র আরিফুল স্বপ্নের মেট্রোরেল রওনা হলো আগারগাঁওয়ের উদ্দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণে ভারতে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত নিয়মিত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ মুরাদ হাসান এমিরেটসের ফ্লাইটে কানাডা গেলেন সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আগামী বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের উন্নতি দেখতে চান করোনাভাইরাসে আরও ছয়জনের মৃত্যু বিশ্বের ৪৩তম ক্ষমতাধর নারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

কাল জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:Thursday ০৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১২৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল শুক্রবার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন।

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৭ জানুয়ারি (শুক্রবার) সন্ধ্যা সাতটায় আওয়ামী লীগ সরকারের বর্তমান মেয়াদের তিন বছর পূর্তি ও চতুর্থ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন।


আরও খবর



ওমিক্রন প্রতিরোধে নির্দেশনা জারি করলেন পুলিশ সদস্যদের

প্রকাশিত:Thursday ০৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১৬৫জন দেখেছেন
Image

করোনাভাইরাসের এর নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। বাংলাদেশেও এর প্রাদুর্ভাব দেখা যাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ পুলিশ সদস্যদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে এবং করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন প্রতিরোধে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। গতকাল বুধবার বাংলাদেশ পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের এআইজি (অপারেশনস-২) মোহাম্মদ উল্ল্যা স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

নির্দেশনাগুলো হলো

১. প্রত্যেক পুলিশ সদস্য ডিউটি পালনের সময় অবশ্যই মাস্ক, গ্ল্যাভস, হেডকভার, ফেসশিল্ড প্রভৃতি পরিধান করবেন।

২. ডিউটি পালনকালে কিছু সময় পর পর হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে এবং নিয়মিত ডিউটি শেষে সাবান/হ্যান্ড ওয়াশ দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে।

৩. কোডিড-১৯ (ওমিক্রন) উপসর্গ দেখা দিলে আইসোলেশন সেন্টারে রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে।

৪. প্রত্যেক পুলিশ সদস্যকে দ্রুত সময়ের মধ্যে কোডিড-১৯ ভ্যাকসিন গ্রহণ করতে হবে। এক্ষেত্রে ইউনিট ইনচার্জ কর্তৃক অধীন পুলিশ ও নন-পুলিশ সদস্যদের ভ্যাকসিন গ্রহণ নিশ্চিত করা।

৫. পুলিশের সব ইউনিটে ‘No Mask No Service’ এবং ’No Mask No Entry’ নির্দেশনা প্রতিপালন করা এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে মাস্কের ব্যবস্থা রাখা।

৬. ডিউটিরত সব ক্ষেত্রে শারীরিক দূরত্ব (কমপক্ষে ৩ ফুট বা ১ মিটার), হাঁচি-কাশির শিষ্টাচার ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা।

৭. সেবা গ্রহীতা ও দর্শনার্থীদের পুলিশ স্থাপনায় প্রবেশের ক্ষেত্রে শরীরের তাপমাত্রা নির্ণয় ও হাত ধোয়া/স্যানিটাইজ নিশ্চিত করা।

৮. প্রত্যেক পুলিশ সদস্যের ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রী (মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ইত্যাদি) ব্যবহার নিশ্চিত করা।

৯. অপারেশনাল কাজে ব্যবহৃত অস্ত্র, হ্যান্ডকাফ, রায়ট গিয়ার, হ্যান্ডমাইক, মেটাল ডিটেক্টর, আর্চওয়ে ইত্যাদি যথাযথভাবে জীবাণুমুক্ত করা।

১০. ডিউটি শেষে আবাসস্থলে প্রবেশের আগে ইউনিফর্ম ও জুতা ভালোভাবে জীবাণুমুক্ত করা এবং সাবান দিয়ে গোসল করা।

১১. ডাইনিং রুম, ক্যান্টিন, বিনোদন কক্ষ, রোল কল, ডিউটিতে যাবার পূর্বে ও ডিউটি হতে ফেরার পরে, সমাবেশস্থলে সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং স্বাস্থ্যসুরক্ষা সামগ্রীর ব্যবহার নিশ্চিত করা।

১২. কোভিড-১৯ উপসর্গ দেখা দিলে কিংবা আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে ছিল বা এসেছে এমন পুলিশ সদস্যদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে কোভিড পরীক্ষার ব্যবস্থা করা।

১৩. কোভিড-১৯ পজেটিভ সদস্যদের ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী কেন্দ্রীয়/বিভাগীয়/জেলা পুলিশ দাসপাতাল ও স্থানীয় হাসপাতালে রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা।

১৪. জরুরি প্রয়োজনে রোগীকে অন্যত্র স্থানান্তরের ক্ষেত্রে ইউনিট ইনচার্জ কর্তৃক তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা।

১৫. ইউনিট ইনচার্জ ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের নিজ ইউনিটের আক্রান্ত সদস্য ও তার পরিবারের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখা এবং সার্বিক সহায়তা প্রদান করা।

১৬. হাজতখানা সর্বদা জীবাণুমুক্ত রাখা এবং হাজতে থাকাকালীন কোন ব্যক্তির কোডিড-১৯ এর লক্ষণ প্রকাশ পেলে অবিলম্বে তাকে পৃথক করে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া।

১৭. রেশন সামগ্রী, ওষুধ ইত্যাদি সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও বিতরণের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি এবং সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করা।

১৮. কোডিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স কর্তৃক প্রণীত এসওপি এর নির্দেশনাসমূহ অনুসরণ এবং রোলকলে সচেতনতামূলক ব্রিফিং প্রদান করা।

১৯. কোডিড-১৯ সংক্রাতে ইতিপূর্বে প্রেরিত নির্দেশনা যথাযথ ও আন্তরিকভাবে প্রতিপালন করবেন।

২০. প্রত্যেক পুলিশ ইউনিটে কর্মরত সব সদস্যদের স্থানীয় স্বাস্থ্য প্রশাসনের সঙ্গেসমন্বয়পূর্বক কোভিড-১৯ (বুস্টার ডোজ) ভ্যাকসিন গ্রহণে নিশ্চিত করতে হবে।

২১. কোভিড-১৯ সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী বিধায় সব পুলিশ সদস্য ও তাদের পরিবারবর্গকে অবশ্যই যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করতে হবে


আরও খবর



নীতি দুর্নীতি--এ দায়ভার কার,নেতা- নেত্রীর না জনতার?

প্রকাশিত:Tuesday ১৮ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১০৬জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নানঃ

নির্বাচন আসে,নির্বাচন চলে যায়।সাধারণ জনগণ তাদের মুল্যবান ভোটও সুচিন্তিত মতামত দিয়ে তাদের পছন্দের নেতানেত্রী বা জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করে। তেমনি সারা দেশের ন্যায় ২০২১ সালের ১১ অক্টোবর ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে অনুষ্টিত হয় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন।নির্বাচনে চেয়ারম্যান,মেম্ভার ও সংরক্ষিত মহিলা মেম্ভার পদে অনেকেই প্রতিদ্বন্ধিতা করে, কেউ বিজয়ী আবার কেউ পরাজিত হয়েছে।নির্বাচনে জনগণ তাদের অনেক মুল্যবান ভোট ও সুচিন্তিত মতামত দিয়ে বিভিন্ন ইউনিয়নে  ভাল মানুষকে আবার কোন কোন ইউনিয়নে  বির্তকিত মাদক ব্যবসায়ী আর অযোগ্য লোককেও  মনোনীত করেছেন। আবার কোন কোন ইউনিয়নে ভাল মানুষকে ও রায় না দিয়ে বাড়িতে পাটিয়ে দিয়েছেন।সবই জনগণের ইচ্ছা। 


তারই বাস্তব উদাহরণ স্বরুপ যেমন বিগত নির্বাচনে ফান্দাউক ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ইউপি সদস্য পদে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন ফান্দাউক গ্রামের কুখ্যাত মাদক ও ইয়াবা ব্যবসায়ী মৃত আরব আলীর ছেলে মোঃ জাকারিয়া জাকির।যার ভয়াল মাদক ব্যবসার ছোবলে ধ্বংস হচ্ছে এলাকার যুব সমাজ।যার ভয়ে মুখ খোলে কেউ কথা বলার সাহস পায়না।২০১৮ সালের ২২ মার্চে যার বাড়িতে জধন এর লোকজন অভিযান চালিয়ে প্রচুর পরিমান ইয়াবা,ফেনসিডিল,ল্যাপটপ,সিসি ক্যামেরা,বিদেশী টর্চলাইট,কয়েকটি পাসর্পোট সহ আরো বিভিন্ন দ্রব্য ও মাদক ব্যবসার প্রায় নগদ ৩ লক্ষ টাকা উদ্বার করে।এসময় জধন এর উপস্থিতি বুঝতে পেরে জাকির সুকৌশলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।পরে জধন -৯ ইসলামপুর সিলেটের এস আই আল ইমরান বাদি হয়ে জাকারিয়া জাকিরকে আসামী করে নাসিরনগর থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে  থানার মামলা নং ২৫ তারিখ ২২/৩/২০১৮ রুজু করে।মামলার পর থেকে পালিয়ে যায় জাকির।অনেক দিন পালিয়ে থাকার পর আদালতে হাজিরা দিতে গেলে আদালত জাকিরের জামিন না মঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরনের নির্দেশ দেন।বেশ কিছু দিন জেলবাস শেষে জামিনে মুক্তি নিয়ে এলাকায় এসে ব্যবসা য়ীক ধরন পাল্টিয়ে সম্পুর্ন নতুন নিয়মে আবারো শুরু করে দেন। বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইউপি সদস্য পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করলে ফান্দাউক ইউনিয়নের বুদ্বিবান  সচেতন সাধারণ জনগণ  জাকিরকে তাদের মুল্যবান ভোট ও সুচিন্তিত রায় দিয়ে ইউপি সদস্য নির্বাচিত করে তাদের পক্ষে কথা বলতে ও কাজ করতে ইউনিয়ন পরিষদে পাটিয়ে দেয়।

অপরদিকে জনগনের অনুরোধে বুড়িশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ১,২,৩ মহিলা আসন থেকে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন আশুরাইর গ্রামের সিনিয়র সাংবাদিক পত্নী শিক্ষিত, নম্র, ভদ্র সেলিনা বেগম।
সেলিনা দীর্ঘদিন যাবৎ তার নিজ এলাকার নিরক্ষর বয়স্ক ও শিশুদের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়ি যাচ্ছেন।

মানুষের বিপদে আপদে সব সময় পাশে রয়েছেন।সেলিনার স্বামী একজন স্বনামধন্য সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী।সে সারা জীবণ মানুষের বিপদে আপদে পাশে থেকে মানুষকে নানা ভাবে সহযোগিতা করে আসছেন।যেমন অন্ধকারাচ্ছন্ন রাস্তায় স্ট্রিট লাইটের মাধ্যমে বিদ্যুতায়িত করা,রাস্তাঘাট সংস্কার করা,মসজিদে অনুধান প্রদান, রোগীর চিকিৎসা সেবা এগিয়ে যাওয়া,বিভিন্ন দুর্যোগে খাবার নিয়ে সাধারণ মানুষের পাশে দাড়ানো,সমাজের অবহেলিত বঞ্চিত,দুস্থ দরিদ্র অসহায মানুষের মাঝে বিধবা ভাতা,বয়স্কভাতা,প্রতিবন্ধীভাতা গর্ভবতীভাতা, শীতে অসহায় মানুষের পাশে কম্বল নিয়ে হাজির হওয়া সহ আরো নানা ধরনের কাজে সহযোগিতা করা যার কাজ। সেই সাংবাদিক পত্নী সেলিনা বেগম নির্বচনে প্রতিদন্ধীতা করলে জনগণ সেলিনাকে তাদের মহামুল্যবান ভোট ও সুচিন্তিত মতামত  দিয়ে পরিষদে না পাটিয়ে একদম সোঁজা ফেল করিয়ে বাড়িতে পাটিয়ে দিয়েছে।

তেমনি ভাবে শুধু ফান্দাউক আর বুড়িশ্বর নয় অনেক ইউনিয়ন পরিষদেই জাকিরের মত লোকজনকে জনগণ ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করে পরিষদে পাঠিয়েছেন,আবার অনেক পরিষদেই লোকজন সেলিনার মত প্রার্থীকে তাদের মহামুল্যবান ভোট ও মতামত না দিয়ে বাড়িতে ফেল করিয়ে বাড়িতে পাটিয়ে দিয়েছেন।তাহলে এবাব আপনারাই বলেন,নেতা নেত্রী বা জনপ্রতিনিধি নির্বাচনে এ দায়ভার কার? জনতার উপর দিলাম এ বিচারের ভার।


আরও খবর



বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ফাউন্ডেশনের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন রিপন সভাপতি ও রাকেশ সম্পাদক

প্রকাশিত:Thursday ৩০ December ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ১৪২জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নান, 

২৬ সদস্য বিশিষ্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ফাউন্ডেশনের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কমিটি গঠন  করা হয়েছে। কমিটিতে এডভোকেট আবু শামীম মোঃ রিপনকে সভাপতি ও  এডভোকেট রাকেশ সরকারকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।


২৯ ডিসেম্বর ২০২১ রোজ বুধবার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মোঃ নুরুল ইসলাম মজুমদার সবুজ স্বাক্ষরিত এ কমিটির অনুমোদন দিয়েছে। কমিটিতে সহ-সভাপতি পদে আমীর ফারুক,কাঞ্চন কুমার পাল, মিসেস জাকারিয়া বারী, যুগ্ন সাধারণ পদে ইসতিয়াক আহমেদ রুমেল, মোঃ আব্দুল হান্নান, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মাইনুল করিম পাপ্পু , সহ সাংগঠনিক পদে এডভোকেট এমদাদুল হক চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক পদে নয়ন সাহা, সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে মাহাদিয়া শামীম রাইসা ও সাধারণ সদস্য পদে এডঃ কামরুজ্জামান চৌধুরী, এডঃ আব্দুল হক, এডঃ ছাদেকুর রহমান, এডঃ এনামল হক, মোঃ শফিকুল ইসলাম, দিদারুল ইসলাম রিমন, মোঃ পারভেজ মোশারফ, মিসেস নুজাবা খান, এডঃ সুমন রায়, সাইফুল ইসলাম, মোঃ জামান খান, বাহার হাজারী, মনোয়ার হোসেন রানা, শেখ জুবায়ের আহমেদ জুয়েল ও এড: জয়লাল বিশ্বাসকে রাখা হয়েছে।


-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 

আরও খবর



চিকিৎসার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাহায্য চাইলেন হতদরিদ্র আওয়ামীলীগ নেতা হাবিবুর

চিকিৎসার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাহায্য চাইলেন হতদরিদ্র আওয়ামীলীগ নেতা হাবিবুর

প্রকাশিত:Saturday ২২ January 20২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ৭৪জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নান ,নাসিরনগর

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার মজলিশপুর ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামের হাবিবুর রহমান পেশায় একজন দিনমজুর। তিনি ও তার স্ত্রী দুজনই গলগণ্ড রোগে আক্রান্ত। ৬ মেয়ে ও স্ত্রীকে নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন  হাবিবুর।তার স্ত্রী ও একই রোগে আক্রান্ত হয়েছে।দুজনের গলার অপারেশন করতে ২ লক্ষ টাকার প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। চিকিৎসার অভাবে দিনদিন মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছে হাবিবুর ও তার স্ত্রী।।অভাবের সংসারে দুই বেলা সন্তানদের মুখে খাবার তুলে দেওয়া যেখানে অসাধ্য সেখানে ব্যববহুল এই চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়া হাবিবুরের পক্ষে অসম্ভব। তিনি মজলিশপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ১০ বছর যাবৎ দায়িত্ব পালন করে আসছেন বলে জানা গেছে। 


 শুক্রবার বিকেলে সরেজমিনে গেলে স্থানীয় লোকজন জানান,এলাকার হাজার হাজার মানুষের চলাচলের কষ্ট লাগব করার জন্য হাবিবুর রহমান নিজের একমাত্র সম্বল জমি বিক্রি করে মজলিশপুর ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামের দক্ষিণ দিকে তিতাসের পূর্বপাড়ে বটতলী ( কাটাখালী) থেকে পূর্ব দিকে লইস্কা বিলের উপর দিয়ে ৬৫০ ফুট রাস্তা ও ৫০ ফুট কাঠের ব্রিজ তৈরি করেন৷মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করা মানুষটির এখন করুণ অবস্থা, চিকিৎসা করার টাকা নাই৷তার এমন দূর্দিনে আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ এবং সমাজের ধনাঢ্য হৃদয়বান মানুষের উচিত তার পাশে দাড়িয়ে সহযোগিতা করা।


মজলিশপুর ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন,হাবিবুর রহমান প্রায় ৩০ বছর যাবৎ আওয়ামীলীগের একজন নিবেদিত কর্মী। সে খুবই গরীব মানুষ, দারিদ্র সীমার নিচে বাস করছে।৬ মেয়ে ও স্ত্রী নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে।সংগঠন করতে গিয়ে অনেক কষ্ট করেছে।আমাদের দলীয় নেতৃবৃন্দ,এমপি মহোদয় সহ বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কাছে তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করার জন্য অনুরোধ করছি। 


হাবিবুর রহমান জানান, আমি ক্ষেতে খামারে দিনমজুরের কাজ করে ৬ মেয়ের পড়াশুনা এবং সংসার চালাচ্ছি। আমি এবং আমার স্ত্রী দুজনের গলা দিনদিন ফুলে যাচ্ছে। ডাক্তার বলছে অপারেশন করাতে দুই লক্ষ টাকা লাগবে। এখন চিকিৎসা করার মতো আমার কোনো সামর্থ্য নাই।১০ বছর যাবৎ ওয়ার্ড আওয়ামিলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। দলীয় নেতৃবৃন্দ ও র.আ.ম.উবায়দুল মুক্তাদির চৌধুরী এমপি সহ বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চিকিৎসার সাহায্যের জন্য আকূল আবেদন জানান তিনি।সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা হাবিবুর রহমানের পার্সোনাল বিকাশ নাম্বার 01791-388452।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা   

আরও খবর



বাংলাদেশ স্কাউটস ঢাকা মেট্রোপলিটন যাত্রাবাড়ী থানার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন জিয়াউদ্দিন জিয়া

বাংলাদেশ স্কাউটস ঢাকা মেট্রোপলিটন যাত্রাবাড়ী থানার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন জিয়াউদ্দিন জিয়া

প্রকাশিত:Monday ১০ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১১১জন দেখেছেন
Image


সোহরাওয়ার্দীঃ

বাংলাদেশ স্কাউটস ঢাকা মেট্রোপলিটনের থানাভিত্তিক কাউন্সিলে যাত্রাবাড়ী থানা থেকে এস.এম.জিয়াউদ্দিন জিয়া সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন।


যাত্রাবাড়ী থানা আওতাধীন সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান ও ইউনিট লিডারগণের উপস্থিতিতে নির্বাচন পক্রিয়ার মাধ্যমে জিয়া উদ্দিন (জিয়া) সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।ইমপিসা ওপেন স্কাউট গ্রুপের গ্রুপ সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন যাবত দ্বায়িত্ব পালন করছেন এস.এম.জিয়াউদ্দিন জিয়া।


ইমপিসা ওপেন স্কাউট গ্রুপ গত লকডাউনে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ, নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে বাজার করা, চলাচল করা এবং মাস্ক সঠিকভাবে পরিধান করার বিষয়ে ধলপুর বাজার, মানিকনগর বাজার, গোপীবাগ বাজার ও বিভিন্ন স্থানে  নানা কর্মসুচী পালন করেছে।


এছারাও করোনা দুর্যোগে দুর্দশাগ্রস্ত মানুষকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করে।ভোট ও সমর্থন দিয়ে নির্বাচিত করায় সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান ও ইউনিট লিডারগণের প্রতি ধন্যবাদ জানিয়েছেন এস.এম.জিয়াউদ্দিন জিয়া।


আরও খবর