Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার বর ও কনের বাড়ীতে শোকের মাতম রাশিয়ায় বন্দুকধারীদের ভয়াবহ হামলায় ১৫ পুলিশ সদস্য নিহত

জয়পুরহাটে সাংবাদিকের ওপর হামলা, হত্যার হুমকি, থানায় জিডি

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২৯০জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম,জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃজয়পুরহাটে জেএমবি’র সাজাপ্রাপ্ত নেতা মন্তেজার রহমানের মৃত্যু ও মরদেহ দাফনের ছবি নিতে গেলে যমুনা টিভির সিনিয়র রিপোর্টার আব্দুল আলীমের ওপর হামলা ও হত্যার হুমকি দেয়া হয়। এ বিষয়ে শুক্রবার (১৭ মে) বিকেলে ক্ষেতলাল থানায় জিডি করা হয়েছে।

জিডি সুত্রে জানা যায়, ২০০৬ সালে পুলিশের উপর জেএমবির হামলার ঘটনায় আসামি হয়ে ২০০৭ সাল থেকে কারাগারে থাকা মন্তেজার মঙ্গলবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় বগুড়ায় মারা যান। গত বুধবার (১৫ মে) বিকেলে তার মরদেহ বাড়িতে আনা হলে উৎসুক জনতা ভিড় করে।
সেখানে যমুনা টিভির রিপোর্টার আব্দুল আলীম ও নাগরিক টিভির প্রতিনিধি মাহফুজার রহমান সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে তাদের বাঁধা দেয়া হয়। একপর্যায়ে সাংবাদিক হিসেবে পরিচয় দেন আব্দুল আলীম। তবে পরিচয় দেয়ার পরেও তার ওপর আক্রমন করা হয়। এসময় কয়েকজন গালিগালাজ করে তাকে হত্যার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় ওই রিপোর্টার ক্ষেতলাল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

ক্ষেতলাল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইমায়েদুল জাহেদী বলেন, সাংবাদিককে হত্যা ও হুমকির জিডি গ্রহণ করা হয়েছে। ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, মন্তেজার জেএমবির শীর্ষ নেতা শায়খ আ. রহমান ওরফে বাংলা ভাইয়ের অন্যতম সহযোগী ছিলেন। ২০০৬ সালে পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় সে এতদিন জেলে ছিল।

আরও খবর



এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চল থেকে ভিসা অ্যাকসেলেরেটর প্রোগ্রাম ২০২৪- এ অংশগ্রহণ করবে আইফার্মার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | ৮৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জেনারেটিভ এআই ও এমবেডেড ফাইন্যান্স সমাধান (সল্যুশন) তৈরির লক্ষ্যে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চল থেকে ভিসা অ্যাকসেলেরেটর প্রোগ্রাম ২০২৪- এর জন্য পাঁচটি স্টার্টআপকে নির্বাচিত করেছে ডিজিটাল পেমেন্টে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান ভিসা। ৩শ’ জনেরও বেশি আবেদনকারীর মধ্যে থেকে আইফার্মারসহ মাত্র পাঁচটি স্টার্টআপ এই প্রোগ্রামে অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছে। হংকং, সিঙ্গাপুর, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ভিয়েতনাম থেকে নির্বাচিত হয়েছে বাকি চারটি স্টার্টআপ।

আগামী ছয় মাস আইফার্মার অন্যান্য স্টার্টআপগুলোর সাথে (আইপিইডি, অন-আস, অপলেইন এবং কিউকো) ভিসা’র প্রোডাক্ট আর্কিটেক্টদের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণের এবং বাণিজ্যিক কার্যক্রম ত্বরান্বিত করার উপযোগী নতুন সমাধান তৈরি ও নিরীক্ষা করার সুযোগ পাবে। ডেমো ডে’র মাধ্যমে এই প্রোগ্রামটি শেষ হবে। এছাড়াও, এই ব্যাচ থেকে নির্বাচিত একটি স্টার্টআপ ‘ভিসা এভরিহয়্যার ইনিশিয়েটিভ’ অনুষ্ঠানে সবার সামনে এর উদ্ভাবনী সমাধান তুলে ধরার সুযোগ পাবে। টেকক্রাঞ্চের উদ্যোগে আয়োজিত এই ইনোভেশন প্রোগ্রাম সান ফ্রান্সিসকোতে অনুষ্ঠিত হবে।

ভিসা বাংলাদেশ, ভুটান ও নেপালের কান্ট্রি ম্যানেজার সাব্বির আহমেদ বলেন, “ভিসা অ্যাকসেলেরেটর প্রোগ্রাম উদ্ভাবন ও এর ইতিবাচক প্রভাবের মধ্যে সংযোগ হিসেবে কাজ করে। এই প্রোগ্রামটি আইফার্মারের মতো দূরদর্শী স্টার্টআপকে প্রযুক্তিগত উৎকর্ষ অর্জন ও আর্থিক অন্তর্ভুক্তির মধ্যে সমন্বয় করে ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যেতে ভূমিকা রাখে। ভবিষ্যতেও এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের স্টার্টআপগুলো যেন সম্ভাবনা কাজে লাগিয়ে উন্নতি করতে পারে সেজন্য আমাদের সহায়তা অব্যাহত থাকবে।”

আইফার্মারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী ফাহাদ ইফাজ বলেন, “আমরা কৃষিখাতের বর্তমান ও আগামীর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করার জন্য একটি গঠনমূলক পদ্ধতি অনুসরণ করি। আমাদের অর্জিত সম্যক ধারণা এই খাতের জন্য উপযোগী সমাধান বের করতে ভূমিকা রাখে। কৃষকসহ কৃষি সাপ্লাই চেইনের সাথে জড়িত সকলের জীবনের মানোন্নয়নে ভূমিকা রাখছে এসব সমাধান। আমাদের পেমেন্ট (অর্থ পরিশোধ) সংক্রান্ত সমাধান ভিসা অ্যাকসেলেরেটর প্রোগ্রামের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। এই সমাধানের মাধ্যমে আমরা আর্থিক অন্তর্ভুক্তির পরিসর বৃদ্ধিতে এবং বাংলাদেশের সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীকে সহায়তা করতে কাজ করে যাচ্ছি।”

২০১৯ সালে প্রতিষ্ঠিত আইফার্মার একটি প্রযুক্তিগত এবং ডেটা-নির্ভর স্টার্টআপ, যা কৃষকদের লাভবান হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ানোর লক্ষ্যে বিভিন্ন আর্থিক এবং ডিরেক্ট-টু-ফার্ম কমার্স সংক্রান্ত পরামর্শ প্রদান করে। আইফার্মার আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিদের কৃষি প্রকল্পে বিনিয়োগ করতে উৎসাহিত করে। এছাড়াও, কৃষি ইনপুট প্রতিষ্ঠানসমূহকে প্রান্তিক পর্যায়ে পণ্য ও সেবা বিতরণে সহায়তা এবং প্রক্রিয়াকরণে নিয়োজিত কোম্পানি ও রপ্তানি বাজারে উচ্চমানের কৃষি পণ্য সরবরাহ করতে সহায়তা করে আইফার্মার।

এই বছরের নির্বাচিত স্টার্টআপগুলো কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই)/জেনারেটিভ এআই), এমবেডেড ফাইন্যান্স, গ্লোবাল মানি মুভমেন্ট, ডিজিটাল অ্যাক্সেপটেন্স ও লয়্যালটি অব দ্য ফিউচারের মতো নতুন খাতের সম্ভাবনা কাজে লাগানোর লক্ষ্যে বিভিন্ন অত্যাধুনিক সমাধান নিয়ে কাজ করছে। ভিসা অ্যাকসেলেরেটর প্রোগ্রাম ইতোমধ্যে অনেক স্টার্টআপের বিকাশে এবং বিভিন্ন ইউজ কেস বাস্তবায়নে সহায়ক ভূমিকা রেখেছে।


আরও খবর



ঈদের আগের তিনদিন রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলা থাকবে যেসব এলাকায়

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১২৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:১৪ জুন থেকে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত তিনদিন রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যাংকিং কার্যক্রম চলবে ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরী এবং নাটোরের সিংড়া পৌরসভায় ব্যাংকের শাখা ও উপ-শাখায় বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

মঙ্গলবার (১১ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ (বিআরপিডি) এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এবং নাটোরের সিংড়া পৌরসভার তত্ত্বাবধানে ও ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত কোরবানির পশুর হাটগুলোতে অধিক সংখ্যক ব্যবসায়ীর সমাগম ঘটে এবং বিপুল পরিমাণ নগদ অর্থের লেনদেন হয়ে থাকে। ফলে হাটগুলোতে আর্থিক লেনদেনের নিরাপত্তার বিষয়টি অতীব গুরুত্বপূর্ণ।

এই পরিস্থিতিতে ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরী এবং নাটোরের সিংড়া পৌরসভার পশুর হাটগুলোর নিকটবর্তী ব্যাংকের শাখা বা উপ-শাখাগুলোতে বিশেষ ব্যবস্থায় আগামী ১৪ জুন থেকে ঈদের আগের দিন পর্যন্ত রাত ১০টা পর্যন্ত স্বাভাবিক ব্যাংকিং কার্যক্রম চলবে। আর পর্যাপ্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করে কোরবানির পশুর হাটে অস্থায়ী বুথ স্থাপনের ব্যবস্থা গ্রহণ ও সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের শাখা, উপ-শাখা ও বুথগুলোতে অতিরিক্ত সময়ে দায়িত্ব পালনকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিশেষ ভাতা প্রদানের নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

উল্লেখ্য, ঈদুল আজহা ১৭ জুন (সোমবার) উদযাপিত হবে।


আরও খবর



সিলেটের বন্যা পরিস্থিতি আরও অবনতি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রতিনিয়ত বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। ভারতের চেরাপুঞ্জিতে অধিক বৃষ্টিপাত হওয়ায় জেলার সীমান্ত উপজেলাগুলোর অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মঙ্গলবার ১৮ জুন সকাল থেকে সুরমা নদীর পানি সুনামগঞ্জ প‌য়েন্টের বিপৎসীমার ৬৭ সেন্টিমিটার ও ছাতক পয়েন্ট ১৩৭ সেন্টিমিটার ওপ‌র দিয়ে প্রবাহিত হ‌চ্ছে।

সুরমা নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করে সুনামগঞ্জের পৌরশহরের পশ্চিম তেঘিরয়া, সাহেববাড়ি ঘাট, পশ্চিম বাজার, মাছবাজার, কাজির পয়েন্ট, ষোলঘর পয়েন্ট, নবীনগরসহ বিভিন্ন আবাসিক এলাকায় প্রবেশ করেছে।

এছাড়াও জেলার ছাতক, দোয়ারাবাজার, সুনামগঞ্জ সদর ও তা‌হিরপুর উপ‌জেলার অন্তত শতাধিক গ্রামের মানুষ পানিবন্দি হয়ে আছে। জেলার শতা‌ধিক অভ্যন্তরীণ সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় চরম দুর্ভোগ প‌ড়েছেন বা‌সিন্দারা।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী মামুন হাওলাদার বলেন, বৃ‌ষ্টিপাত আরও ৪৮ ঘণ্টা অব‌্যাহত থাক‌বে এবং নিম্নাঞ্চলেও বন‌্যা প‌রি‌স্থি‌তি সৃ‌ষ্টি হ‌য়ে‌ছে।

এদিকে, বৃষ্টিপাত ও উজানের ঢলে সিলেটের সীমান্তবর্তী উপজেলাসহ বেশ কয়েকটি উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। গোয়াইনঘাট, কোম্পানীগঞ্জ, ওসমানীনগর, বালাগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার উপজেলার বেশকিছু পরিবার এরই মধ্যে আশ্রয়কেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছে। এছাড়াও পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন জেলার বিভিন্ন উপজেলার অসংখ্য মানুষ। তবে সোমবার বিকেল থেকে বৃষ্টিপাত কিছুটা কমায় সিলেট নগরীর জলাবদ্ধতাও কমতে শুরু করেছে।

পাউবো সিলেটের তথ্যমতে, কুশিয়ারা নদীর পানি মঙ্গলবার সকাল ৯টায় আমলশীদ পয়েন্টে বিপৎসীমার ১৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর আগে সকাল ৬টায় বিপৎসীমার ১ সেন্টিমিটার ওপরে ছিল। এই নদীর পানি ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে সকাল ৬টায় বিপৎসীমার ৭৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। সকাল ৯টায় তা আরও বেড়ে ৭৯ সেন্টিমিটারে পৌঁছায়। সারি নদীর পানি সারিঘাট পয়েন্টে সকাল ৯টায় বিপৎসীমার ৩৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর আগে সকাল ৬টায় বিপৎসীমার ৪০ সেন্টিমিটার উপরে ছিল। সারিগোয়াইন নদীর পানি মঙ্গলবার সকাল ৬টায় বিপৎসীমার ১১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। সকাল ৯টায় তা আরও বেড়ে বিপৎসীমার ১৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়াও সারি, সারিগোয়াইন, লোভাছড়া ও ধলাইসহ সবকটি নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, ২৪ ঘণ্টায় সিলেটে বৃষ্টি হয়েছে ১৫৩ মিলিমিটার। মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৪৪ মিলিমিটার। অন্যদিকে, ভারতের চেরাপুঞ্জিতে গত ২৪ ঘন্টায় ৩৯৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে দেশটির আবহাওয়া অফিস।


আরও খবর



ধানের রাজ্য আত্রাইয়ে গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে কাঁঠাল

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১২৯জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:উত্তর জনপদের ধানের রাজ্য হিসেবে খ্যাত নওগাঁর আত্রাইয়ে গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে মধু মাস জ্যৈষ্ঠের বেশ জনপ্রিয় পুষ্টিগুণ সম্পন্ন রসালো ফল কাঁঠাল। যদিও কাঁঠাল পাকতে সময় বাকি রয়েছে আরও প্রায় মাস।

প্রবাদ আছে ‘গাছে কাঁঠাল গোঁফে তেল’- জ্যৈষ্ঠ মাসে এ কথাটি আর কথার কথা থাকে না। গাছে কাঁঠাল দেখলে এ কথা সবাই বলতেই পারে। বর্তমানে উপজেলার প্রতিটি এলাকার গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে রসালো ফল কাঁঠাল। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বাড়ির পাশে, রাস্তার ধারে, জঙ্গলের ভেতরে থাকা গাছে ধরেছে প্রচুর পরিমাণে কাঁঠাল। গাছের গোঁড়া থেকে আগা পর্যন্ত শোভা পাচ্ছে সর্বোচ্চ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ এই ফল।

খাদ্য শষ্য ভান্ডার হিসেবে নওগাঁ জেলা বিখ্যাত হলেও এখানকার মানুষের অতি প্রিয় ফল ও তরকারি হিসেবে কাঁঠাল যুগ যুগ ধরে কদর পেয়ে আসছে। কাঁঠালের বিচি উপজেলার মানুষের একটি ঐতিহ্যপূর্ণ তরকারি। বিশেষ করে কাঠালের বিচি দিয়ে শুটকি ভর্তা অত্যন্ত প্রিয় সকলের। বিভিন্ন ধরনের শাক ও কাঁঠালের বিচির সমন্বয়ে রান্না করা তরকারি এখানকার মানুষ তৃপ্তির সঙ্গে ভাত খেতে পারেন। তাছাড়া গবাদিপশুর জন্যও কাঁঠালের ছাল উন্নতমানের গো-খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এক প্রকারের সবুজ রঙের সুমিষ্ট গ্রীষ্মকালীন ফল।

এটি বাংলাদেশের জাতীয় ফল হিসেবে সরকারিভাবে নির্ধারিত। বাংলাদেশের সর্বত্র কাঁঠাল গাছ পরিদৃষ্ট হয়। কাঁঠাল গাছের কাঠ আসবাবপত্র তৈরির জন্য সমাদৃত। কাঁঠাল পাতা বিভিন্ন প্রাণির পছন্দের খাদ্য। তুলনামূলকভাবে বিশালাকার এই ফলের বহির্ভাগ পুরু এবং কান্টকাকীর্ণ, অন্যদিকে অন্তরভাগে একটি কান্ড ঘিরে থাকে অসংখ্য রসালো কোয়া। কাঁঠালের বৃহদাকার বীজ কোয়ার অভ্যন্তরভাগে অবস্থিত।

উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের ব্যবসায়ী খন্দকার রফিকুল ইসলাম বলেন, তার ২০টি কাঁঠাল গাছে সমানতালে কাঁঠাল ধরেছে। তিনি এবার ৫০ হাজার টাকার কাঁঠাল বিক্রি করবেন বলে আশা করছেন। এ বছর প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে না পড়ায় কাঁঠালের ভালো ফলন হয়েছে।

 উপজেলার দিঘা গ্রামের কামরুল জানান, আমার নিজের ১০টি কাঁঠাল গাছ আছে। তার গাছে প্রচুর কাঁঠাল ধরেছে। এ বছর তার কাঁঠাল বিক্রির আশা ৩০ হাজার টাকা।

এ বিষয়ে উপজেলার বজ্রপুর গ্রামের মজিদ মন্ডল বলেন, কাঁঠাল আমার একটি প্রিয় ফল। এটি অত্যধিক পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ ফল। কাঁঠালের কোনো অংশই পরিত্যক্ত থাকে না। কাঁঠাল যেমন জনপ্রিয়, কাঁঠালের বিচি ও খুব জনপ্রিয় খাবার। বিভিন্ন সবজির সাথে কাঁঠালের বিচি মিশিয়ে ছোট মাছ দিয়ে রান্না করা তরকারি, শুটকি মাছের সাথে কাঁঠালের বিচি আর ডাঁটার তরকারি, কাঁঠালের বিচি ভর্তা এ রকম অসাধারণ সব স্বাদের খাবার তৈরিতে কাঁঠাল বিচি আলুর বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা হয়। কাঁঠালের কদরও বহুগুণের এমন কথা জানালেন কাঁঠালপ্রেমি প্রবীণ ব্যক্তিরাও। বহুগুণ সমৃদ্ধ এ কাঁঠাল এখানকার হাট-বাজারে এখনও উঠতে শুরু করেনি। তবে জ্যৈষ্ঠের শেষ ও আষাঢ় মাসের শুরু থেকে এখানকার হাট-বাজারে কাঁঠাল কেনাবেচা শুরু হবে এমনটি কাঁঠাল ব্যবসায়ীদের ধারণা।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ প্রসেনজিৎ তালুকদার বলেন, এ উপজেলায় তেমন একটা কাঁঠালের বাগান নেই তবে দিন দিন বাড়ছে।

তিনি আরও বলেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর উপজেলায় কাঁঠাল ভালো হয়েছে। দিন দিন উপজেলার মানুষের মাঝে কাঁঠালের চারা রোপনের আগ্রহ বাড়ছে। 

তবে এ উপজেলায় কাঁঠাল প্রক্রিয়াজাত করার কোনো ব্যবস্থা না থাকায় কৃষকরা তাদের ন্যায্য দাম থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অবিলম্বে অত্র এলাকায় একটি কাঁঠাল প্রক্রিয়াজাত ব্যবস্থা গড়ে তুললে এ উপজেলার মানুষ অর্থনৈতিকভাবে উপকৃত হবে বলে মনে করছেন এলাকার সচেতন মহল।


আরও খবর



রাতে ভারতের মুখোমুখি বাংলাদেশ

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৪১জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:আজ মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ভারত সুপার এইটে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে । অ্যান্টিগায় রাত সাড়ে আটটায় শুরু হবে ম্যাচটি। সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে এই ম্যাচে জয় পেতে হবে শান্ত'র দলকে। টাইগারদের হারালে শেষ চার অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে যাবে টিম ইন্ডিয়ার।

গ্রুপপর্বে চার ম্যাচে তিন জয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো সুপার এইটে কোয়ালিফাই করে বাংলাদেশ। যদিও সুপার এইটের শুরুটা ভালো হয়নি শান্তদের। বৃষ্টি আইনে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ২৮ রানে হেরে গেছে। সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে অ্যান্টিগার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে নামছে টাইগাররা। আজ বাংলাদেশ সময় রাত ৮টা ৩০ মিনিটে শুরু হবে ম্যাচটি।

টাইগারদের জন্য এই ম্যাচটা কার্যত বাঁচা-মরার। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলতে এই ম্যাচে জয়ের কোনো বিকল্প নেই। সংবাদ সম্মেলনে পেসার তাসকিন আহমেদও জানিয়েছেন নিজেদের জয়ের প্রত্যাশার কথা। আশা রাখছেন এখনো শেষ হয়নি সেমি-ফাইনাল খেলার স্বপ্ন।

এদিকে এই ম্যাচের আগে বাংলাদেশ বিশেষ সুবিধা পাবে বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠোর। ভারতীয় এ কোচের মতে অ্যান্টিগার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস স্টেডিয়ামের উইকেট স্পিনারদের সহায়তা করছে। আর এ ধরনের কন্ডিশনে বাংলাদেশ সব সময় ভালো করে। ফলে ভারতের বিপক্ষেও বাংলাদেশের ভালো করার সম্ভাবনা আছে বলে মনে করেন তিনি।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চারবার দেখা হয়েছে দু’দলের। সব ম্যাচই জিতেছে টিম ইন্ডিয়া। পরিসংখ্যান বাংলাদেশের পক্ষে না থাকলেও, ভারতকে বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ানোর আশা টিম টাইগার্সের।


আরও খবর