Logo
আজঃ রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম

জেলে বসে আবারও সালমানকে যে হুমকি দিলেন গ্যাংস্টার

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ | ২৮১জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক ;বলিউড সুপারস্টার সালমান খানকে জেল থেকে হুমকি দিয়েছেন গায়ক সিধু মুসে ওয়ালা হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত কুখ্যাত গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই। সম্প্রতি এবিপি নিউজ-এর স্পেশাল শো ‘অপারেশন দুরন্ত’-তে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ হুমকি দেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়, লরেন্স বিষ্ণোই আট বছর ধরে জেলবন্দী।

জেলের ভেতর থেকে দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে লরেন্স বলেন, তিনি সালমান খানের কাছ থেকে ক্ষমাপ্রার্থনা আশা করছেন এবং যদি তিনি তা করতে ব্যর্থ হন, তা হলে পরিণতির জন্য যেন প্রস্তুত থাকেন।

তিনি জানান, সালমানকে কখনোই ক্ষমা করবেন না। তার কথায়, ‘আমাদের গোষ্ঠীর মধ্যে তাকে নিয়ে ক্ষোভ রয়েছে। যদি তিনি ক্ষমা না চান, তা হলে পরিণতি ভোগ করতে প্রস্তুত থাকুক। আমি অন্য কারও ওপর নির্ভর করব না। ছোটবেলা থেকে ওর ওপর রাগ রয়েছে। তবে যদি আমাদের বিষ্ণোই সমাজ মাফ করে দেয়, তা হলে আমি কিছু করব না।’

১৯৯৮ সালে রাজস্থানের জোধপুরে কৃষ্ণসার হরিণ ‘হত্যা’ করেন সালমান। কয়েক বছর আগে গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই সালমান খানকে কালো হরিণ মামলায় জড়িত থাকার জন্য হত্যার হুমকি দিয়েছিলেন। সেই ঘটনার প্রতিশোধ নিতেই ভাইজানকে লরেন্স খুন করতে চেয়েছিলেন বলে দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে।  

উল্লেখ্য, গত বছরের মে মাসে জনপ্রিয় পাঞ্জাবি গায়ক সিধু মুসে ওয়ালার হত্যার পর আবারও হুমকি পেয়েছেন সালমান। বেনামে চিঠি দেওয়া হয়েছিল যেখানে লেখা ছিল, ‘মুসে ওয়ালার মতো তোমাকেও মেরে ফেলব’।

যদিও এ ধরনের কোনো চিঠির কথা অস্বীকার করেন সালমান। সালমানকে খুন করার জন্য ২০১৮ সালে লরেন্স চার লাখ টাকা দিয়ে একটি রাইফেলও কিনেছিলেন বলে গুঞ্জন রয়েছে।


আরও খবর

ঈদ উৎসবে ডিএমএস চমক

সোমবার ০৮ এপ্রিল ২০২৪




নওগাঁয় ঝুঁকিপূর্ণ উপকরণ দিয়ে তৈরি করছে ভেজাল লাচ্ছা সেমাই

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪ | ৭৬জন দেখেছেন

Image
নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি:পবিত্র ঈদকে সামনে রেখে ভেজাল লাচ্ছা সেমাই তৈরির করছে নওগাঁ সদর উপজেলার বর্ষাইল ইউনিয়নের তেতুলিয়া বাজারে নূর নেহা লাচ্ছা সেমাই কারখানায় স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর রং ও ঝুঁকিপূর্ণ উপকরণ দিয়ে নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি করা হচ্ছে লাচ্ছা সেমাই। ভেজালবিরোধী অভিযান শিথিল হওয়ায় বিএসটিআইয়ের অনুমোদন নাম্বার যেটা আছে (বিডিএস ১৬২০) সেই নাম্বার আবার নওগাঁ সদর উপজেলার মাসুদ রানা নামের এক ব্যক্তি নিজের লাকী লাচ্ছা সেমাই নামে ( বিডিএস ১৬২০) দাবী করেন।  এছাড়াও এই কারখানায় নেই কোন পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র, যার কারণে কারখানার পরিবেশটাও নোংরা। এই কারখানায় নিম্নমানের পাম অয়েল ও ডালডা দিয়ে তৈরি করছে এসব সেমাই। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের চোখ ফাঁকি দিয়ে তৈরি করা সেমাই স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর বলে মন্তব্য চিকিৎসকদের। 

স্থানীয়রা বলছেন, ঈদ সামনে রেখে তেতুলিয়া বাজারে নুর নেহা ব্রেড এন্ড বিস্কুট ফ্যাক্টরিতে বিস্কুটের কাজ বন্ধ রেখে গড়ে তুলেছেন লাচ্ছা সেমাইয়ের কারখানা। মাঝেমধ্যেই ভ্রাম্যমান আদাল এসে লিখিত নিয়ে জরিমানা করেন। তারপরেও কারখানাটির মালিক মোহাম্মদ আবু বক্কর সিদ্দিক (ফারুক) ইসলামী আন্দোলন দলের নেতা হওয়ায় নিজের প্রভাব খাটিয়ে  অধিক মুনাফা পাওয়ার আশায় ভেজাল পন্য তৈরি করেন। 

তেতুলিয়া বাজারের স্থানীয় (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) এক দোকানদার বলেন, প্রশাসনের দুর্বলতার সুযোগে ও তদারকির অভাবে ভেজাল লাচ্ছা তৈরির করছেন ফারুক’ এই কারখানার  কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া উচিত তা না হলে এই ভেজাল লাচ্ছা সেমাই খেয়ে শিশু বৃদ্ধসহ সকলেই অসুস্থ হয়ে যেতে পারে।

এ বিষয়ে কারখানাটির মালিক মোহাম্মদ আবু বক্কর সিদ্দিক (ফারুক) এর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি নিজেকে ইসলামী আন্দোলনের নেতা পরিচয় দিয়ে বলেন, আমার কারখানায় মাঝেমধ্যেই ভ্রাম্যমান আদালত আসে তারা এসে ২.৪.৫ হাজার টাকা জরিমানা করে চলে যায় আমার কিছুই করতে পারে না। আমি কিভাবে ব্যবসা করছি এটা আমার বিষয় আপনাদের সমস্যা কি আপনারা থাকেন আমার লোকজন যাচ্ছে আপনার কি করতে আমার কারখানায় আসছেন সেটা আমি দেখছি।

জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক রুবেল আহমেদ জানান, পচা ডিম, অ্যানিমেল চর্বি এবং কৃত্রিম ঘি ও সুগন্ধি মিশ্রিত সেমাই তৈরি যাতে না হয়, সে জন্য কারখানাগুলোতে নজরদারি রাখা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দিয়ে এসব ভেজাল কারখানায় নিয়মিত অভিযান চালানো হচ্ছে এবং আমরা এই বিষয়ে জেনেছি ব্যবস্থা নিব।

আরও খবর

স্বাগত ১৪৩১, আজ পহেলা বৈশাখ

রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪




১৩ বছরপর বাবার পৈত্রিক ভিটা ফিরে পেলো রোকন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪ | ৭৪জন দেখেছেন

Image

ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর ডোমারে দীর্ঘ ১৩ বছরপর আদালতের নির্দেশনায় বাবার রেখে যাওয়া পৈত্রিক ভিটা ফিরে পেলো রোকনুজ্জামান রোকন (৪৫)। যার জন্য মহামান্য বিজ্ঞ আদালতের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে ভুক্তভুগি রোকনের পরিবার।

মামলা সুত্রে জানাযায়, ডিমলা বাবুরহাট এলাকার মৃত আব্দুল জব্বারের সর্বকনিষ্ঠ ছেলে রোকনুজ্জামান রোকন। তার বাবার রেখে যাওয়া ডোমার পৌর এলাকার ছোটরাউতা মৌজায় কাজী পাড়া এলাকায় জেএল নং-২৩, খতিয়ান-৩৭৪, ১৩১৬ হালদাগে ৮৫ শতক জমি রেখে রোকনের বাবা আব্দুল জব্বার ১৯৭৯ সালে মৃত্যু বরণ করেন। তারা ৯ ভাই বোনের মধ্যে রোকন ছিলো সর্বকনিষ্ঠ বাবার মৃত্যু কালীন সময়ে রোকনের বয়স ছিলো ৩ বছর। নাবালক থাকাকালীন অবস্থায় সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রোকনের বড় ভাইবোনেরা ১৯৮০ সালে উক্ত জমিটি রোকনকে ঠকিয়ে এলাকার আনোয়ার, মোকলেছার, আঃ আজিজ নামক ব্যাক্তির কাছে বিক্রি করে দেয়। রোকন সাবালক হওয়ার পর জমি বিক্রির বিষয়টি জানতে পেরে দিশেহারা হয়ে পড়ে এবং স্ত্রী সন্তান নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করতে থাকে। রোকনুজ্জামান

রোকন তার নাবালকের সম্পত্তি এবং বাবার পৈত্রিক জমি উদ্ধারের জন্য গত ০৫/০৬/২০১১ইং তারিখে নীলফামারী জেলার বিজ্ঞ বিচারক আদালতে অন্য-১৯/১১ মোকদ্দমা দায়ের করে। দীর্ঘদিন মামলা চলাকালীন সময়ে যাহা-২৮/০২/২০১৮ইং তারিখে বিজ্ঞ আদালত রোকনের পক্ষে রায় প্রদান করেন। ০৬/০৩/২০১৮ইং তারিখে ডিক্রী লাভ করে। নীলফামারী জেলা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক জনাব মোঃ মাহমুদুল করিম এ রায় প্রদান করেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৪/০২/২০২৪ ইং তারিখে আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী ডোমার থানা পুলিশ এবং বিজ্ঞ আদালতের লোকজন ভেকু মেশিন দিয়ে উক্ত জমিটির স্থাপনা ভেঙেদিয়ে বাদী রোকনুজ্জামান রোকনকে ২ দাগে প্রায় ৯ শতক জমি উদ্ধার করে দখল বুঝিয়ে দেয়।

এ বিষয়ে রাকনুজ্জামান রোকন জানান, দীর্ঘ ১৩ বছর পর আমার নাবালকের সম্পত্তি আমাকে সুন্দর ও সুষ্ঠ ভাবে ফিরিয়ে দেয়ায় সেখানে আমার স্ত্রী, সন্তান পরিবার মিলে ঘড়বাড়ী তুলে সুখে শান্তিতে বসবাস করছি। বাংলাদেশ বিচার বিভাগ এবং বিজ্ঞ আদালতের প্রতি চির কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।


আরও খবর



মহাখালীর কড়াইল বস্তিতে ভয়াবহ আগুন

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ মার্চ 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪ | ১৭৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:রোববার (২৪ মার্চ) বিকেল ৪টার দিকে রাজধানীর মহাখালীর টিঅ্যান্ডটি মাঠের পাশে কড়াইল বস্তিতে ভয়াবহ আগুন লেগেছে।

আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ৭টি ইউনিট। তবে আগুনে এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার লিমা খানম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বিকাল ৪টার ১০ মিনিটে আমাদের কাছে আগুন লাগার খবর আসে। সংবাদ পেয়ে আমাদের সাতটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করেছে।

প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও হতাহতের কোনো তথ্য জানাতে পারেননি ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা।



আরও খবর



নবীন সৈনিকদের মানবতার সেবায় নিজেদের আত্ম নিয়োগ করার আহ্বান: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ | ৮৩জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি নবীন পুলিশ কমান্ডো প্রশিক্ষণ জ্ঞান কাজে লাগিয়ে সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, সংঘাত নিরসনে দেশ, জাতির ও মানবতার সেবায় নিজেদের আত্ম নিয়োগ করার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আজীবন মানুষের মুক্তির জন্য লড়াই-সংগ্রাম করে গেছেন। আজ তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) দুপুরে খাগড়াছড়ি এপিবিএন ও বিশেষায়িত ট্রেনিং সেন্টারে পুলিশের কমান্ডো কোর্সের ১৩ তম ব্যাচের সমাপনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে ৩৪ জন নবীন পুলিশ সদস্যকে সনদ প্রদান করা হয়।

এসময়, খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সুপার মুক্তা ধর, খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়র মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী,খাগড়াছড়ি প্রেস-ক্লাবের সভাপতি চৌধুরী আতাউর রহমান রানা সহ পুলিশের পদস্থ কর্মকর্তা সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি,র বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেন,দেশের আত্মসামাজিক উন্নয়নের পূর্ব শর্ত হচ্ছে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ও স্থিতিশীলতা। রাষ্ট্রীয় অভ্যন্তরীণ শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রেখে রাষ্ট্রকে সহযোগিতা মহান দায়িত্ব পালনে সজাগ থাকার আহবান জানিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী  কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বাংলাদেশে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সকল বাহিনীর উদ্দেশ্যে বলেন, বাংলাদেশের সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী, নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড, বাংলাদেশ পুলিশ, আনসার সকল বাহিনী দেশের কল্যাণে অবদান রেখে যাচ্ছেন। শান্তি মিশনে বাংলাদেশের সৈন্যরা বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছেন। পার্বত্য এলাকার সমস্যাবলী ও ঝঞ্ঝাট অত্যন্ত দক্ষতার সাথে মোকাবিলা করেছেন। প্রতিমন্ত্রী  কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি সংশ্লিষ্ট সকলকে এজন্য সরকারের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

প্রধান অতিথি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি  কমান্ডো প্রশিক্ষণ কোর্সে অংশ নেওয়া ৩৪ জন প্রশিক্ষণার্থীর মাঝে ব্যাজ পড়িয়ে দেন ও  নবীন পুলিশ সদস্যকে সনদ তুলেদেন।

আরও খবর



জলদস্যুদের হাতে জিম্মি নাবিকদের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

প্রকাশিত:শনিবার ১৬ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ | ৯৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জলদস্যুদের হাতে জিম্মি হওয়া বাংলাদেশি জাহাজ ‘এমভি আব্দুল্লাহ’র নাবিকদের সঙ্গে সবার যোগাযোগ বিচ্ছন্ন রয়েছে। শনিবার (১৬ মার্চ) দিনভর জিম্মি থাকা নাবিকদের কেউ জাহাজ মালিক কিংবা স্বজনদের সঙ্গে কোনোভাবে করতে পারেনি।

মঙ্গলবার ২৩ নাবিকসহ এমভি আবদুল্লাহকে জিম্মি করার পর প্রতিদিন নাবিকদের কেউ না কেউ যোগাযোগ করেছেন স্বজন কিংবা জাহাজ মালিকদের সঙ্গে। এই প্রথম একটি দিন পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন ছিলেন নাবিকরা। ধারণা করা হচ্ছে, মালিক পক্ষের উপর চাপ তৈরি করতেই এমন যোগাযোগ বিচ্ছিন্নতা তৈরি করেছে জলদস্যুরা।

বৃহস্পতিবার থেকে জলদস্যুদের কবলে পড়া ‘এমভি আবদুল্লাহ’র নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে জলদস্যুদের নতুন আরেকটি দল। মঙ্গলবার জাহাজটি জলদস্যুর কবলে পড়ার পর বৃহস্পতিবার সোমালিয়ার উপকূল হতে ৭ নটিক্যাল মাইল দূরে জাহাজটি নোঙর করেছিল। এরপর জলদস্যুদের আগের দল জাহাজ থেকে নেমে পড়ে। আরও ভারী অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ১৫-২০ জনের নতুন আরেকটি দল জাহাজের দায়িত্ব বুঝে নেয়।

নোঙর তুলে শুক্রবার বিকেলে তারাই জাহাজটির অবস্থান পরিবর্তন করে। এদের সঙ্গে আছেন ইংরেজি জানা একজন দোভাষী। আজ শনিবার পর্যন্ত সোমালিয়ার জলদস্যুরা মুক্তিপণ দাবি করেনি। এ ব্যাপারে মালিকপেক্ষরও কারও সঙ্গে যোগাযোগ করেনি তারা। ধারণা করা হচ্ছে, শিগগির তাদের প্রতিনিধির মাধ্যমে মুক্তিপণের প্রস্তাব পাঠাবে জলদস্যুরা।

এদিকে, শনিবার দিনভর নাবিকদের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় উদ্বেগ উৎকন্ঠা বেড়েছে স্বজনদের।


আরও খবর