Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

জাসাস নেতা আনোয়ার হোসেন আনুর পাশে কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১৭৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব সংবাদদাতা:বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস) কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমানের  নির্দেশ  মোতাবেক  জাসাস  উত্তর কমিটির  সদস্য সচিব  জনাব  আনোয়ার হোসেন  আনু রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে  হঠাৎ  অসুস্থ হয়ে পড়ায় বাংলাদেশের  চিকিৎসা শেষে  এখন চেন্নাই  হাসপাতালে  চিকিৎসা  নিচ্ছেন। চিকিৎসার  খরচ বহনের  জন্য  জাসাস কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটির পক্ষে  যুগ্ম আহবায়ক  প্রকৌশলী জাকির হোসেন, দপ্তরের দায়িত্ব প্রাপ্ত মিজানুর রহমান মিজান,  অন্যতম সদস্য  পায়েল রহমান ও চলচ্চিত্র পরিচালক মো: তারিকুল ইসলাম ভুঁইয়া (সায়মন  তারিক) নগদ অর্থ প্রদান করেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



দীঘিনালা থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবাসহ মাদক কারবারি গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫৭জন দেখেছেন

Image

জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ইমন হোসেন(২৩),নামের এক মাদক কারবারিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৫ফেব্রুয়ারি)রাত সাড়ে ১০টার দিকে দীঘিনালা থানার একটি চৌকস আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দীঘিনালা থানা এলাকার বোয়ালখালী ইউনিয়নে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে  ৯নং ওয়ার্ডস্থ  জামতলী আনসার ক্যাম্পের গেটের সামনে পাকা রাস্তার উপর হতে  আসামী  ইমন হোসেন(২৩)এর দেহ তল্লাসী চালিয়ে তার পরিহিত প্যান্টের ডান পকেট হতে ৫১ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী- ইমন হোসেন(২৩) জেলার দীঘিনালা উপজেলার বোয়ালখালী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড জামতলী এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা মো.জাহাঙ্গীর আলম,এর ছেলে।

দীঘিনালা থানা পুলিশ জানান,গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজু করা হইয়াছে। । গ্রেফতারকৃত আসামীকে বিধি মোতাবেক যথাসময়ে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হবে।


আরও খবর



মাদক ব্যবসায়ির বিরুদ্ধে তথ্য দেয়ায় যশোরে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে যুবক খুন

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১২৮জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:মাদক ব্যবসায়ির বিরুদ্ধে তথ্য দেয়ায় যশোরে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে সোলায়মান হোসেন (৩৫) নামে এক ট্রাভেলস কর্মী খুন এবং জসিম সিদকার নামে আরেকজন আহত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় শহরের টিবি ক্লিনিক মোড়ে এই ঘটনা ঘটে।

আহত জসিম সিকদার পুলিশকে তথ্য দিয়ে একই এলাকায় শহিদুল ও শাহিন নামে দুই মাদক কারবারিকে ধরিয়ে দেয়ার ঘটনায় তার উপর হামলা চালায় ওই দুর্বৃত্তরা। নিহত সোলায়মান হোসেন টিবি ক্লিনিক মোড়ের আব্দুল হকের ছেলে এবং আহত জসিম সিকদার একই এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে।

সোলায়মান জেস টুরস এন্ড ট্রাভেলসে ম্যানেজার পদে চাকরি করতেন। নিহতের ভগ্নিপতি এবং আহত জসিম সিকদারের ভাই আলমগীর হোসেন আলম জানিয়েছেন, টিবি ক্লিনিক এলাকায় নৈশ প্রহরী পদে চাকরি করেন তার ভাই জসিম সিকদার। একই এলাকার আরাফাত, সিরাজুল, শরীফ, সুজন, মেহেদী, শহিদুল ও শাহিন দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা, ফেরসিডিলসহ নানা ধরণের মাদকের কারবার করে এবং সেবন করে আসছে।নৈশ প্রহরী জসিম সিকদার তাদের মাদক সেবন ও বিক্রিতে নিষেধ করে। এতে তারা জসিমের উপর ক্ষীপ্ত হয়।

গত মঙ্গলবার কোতোয়ালি থানার এএসআই টমাস মণ্ডলের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে শহিদুল ইসলাম ও শাহিনকে আটক করে। এসময় তাদের কাছ থেকে সাড়ে ৪শ’পিস ইয়াবা উদ্ধার করে পুলিশ। কিন্তু অদৃশ্য কারণে ১৩০ পিস ইয়াবা দিয়ে ওই দুইজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করে পুলিশ। বাকি ইয়াবা বিক্রি করে জসিম সিকদারকে ২০ হাজার টাকা সোর্স মানি পেয়েছে। কিন্তু শহিদুল ও জসিমকে কেন পুলিশে ধরিয়ে দেয়া হয়েছে এবং তাদের সাড়ে ৪শ’ পিস ইয়াবার টাকা ফেরৎ দাবি করে। এসময় জসিম সিকদারের কাছে থাকা সোর্স মানির ২০ হাজার টাকা তারা নিয়ে নেয়। এরপরও বাকি ইয়াবার টাকার জন্য জসিমকে তারা খুন করতে বার্মিজ চাকু দিয়ে আঘাত করে। এরই মধ্যে সেখানে উপস্থিত থাকা সোলায়মান হোসেন ঠেকাতে গেলে তাকেও এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে। তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে ওই দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। সোলায়মান হোসেন ও জসিম সিকদারকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক আসিফ মোহাম্মদ আলী হাসান তাকে মৃত ঘোষণা করে।

নিহতের স্ত্রী আসমা খাতুন বলেছেন, তার স্বামী জেএস টুরস এন্ড ট্রাভেলসে চাকরি করতেন। এলাকার এলাকার আরাফাত, সিরাজুল, শরীফ, সুজন, মেহেদী, শহিদুল ও শাহিন দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা, ফেরসিডিলসহ নানা ধরণের মাদকের কারবার করে এবং সেবন করে আসছে। আর এরই মধ্যে গত মঙ্গলবার শহিদুল ও শাহিন ইয়াবাসহ পুলিশের হাতে আটক হয়েছে। আটক দুইজনের সহযোগি আরাফাত, সিরাজুল, শরীফ, সুজন, মেহেদী গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে টিবি ক্লিনিকের মোড়ে আসে। এসময় কেন পুলিশকে তথ্য দিয়ে শহিদুল ও শাহিনকে আটক করানো হয়েছে জানতে চায় জসিম সিকদারের কাছে। তবে জসিমের কাছে থাকা ২০ হাজার টাকা এরই মধ্যে ওই দুর্বৃত্তরা নিয়ে নেয়। সাথে সাথে তাকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, আহত জসিম সিকদার পুলিশের সোর্সের কাজ করে বলে এলাকায় প্রচার রয়েছে। কারণে অকারণে পুলিশ দিয়ে মানুষকে হয়রানির করার কারণে তার বিরুদ্ধে অনেকেই ক্ষীপ্ত হয়ে ওঠে। আর তাই গত মঙ্গলবার শহিদুল ও শাহিনকে আটকের বিষয়টিও জসিমকে সন্দেহ করা হয়েছে।

এই খবর পেয়ে হাসপাতালে হাজির হন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ক-সার্কেল জুয়েল ইমরান, কোতোয়ালি থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক সহ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের কর্মকর্তারা। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত লাশ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।

যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক আসিফ মোহাম্মদ আলী হাসান বলেছেন, অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের কারণে সোলায়মানের মৃত্যু হয়েছে। নিহত সোলায়মানের লাশ হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।

এই ব্যাপারে কোতোয়ালি থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, সোলায়মান হোসেন নিহতের ব্যাপারে ভুক্তভোগী পরিবার এখনও থানায় কোন অভিযোগ দেয়নি। পাশাপাশি খুনিদের আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জুয়েল ইমরান বলেছেন, ঘটনার পরই হাসপাতাল এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। পাশাপাশি এই ঘটনায় জড়িতদের প্রাথমিকভাবে নাম-ঠিকানা পাওয়া গেছে। তাদের আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


আরও খবর



মামার বিরুদ্ধে ভাগিনার সম্পত্তি আত্মসাৎ ও প্রতারণার অভিযোগ !

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৯৫জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার , স্টাফ রিপোর্টার:সাম্প্রতিক সময়ে ফরিদপুরের মধুখালিতে বাবার সম্পত্তি থেকে বোনদের বঞ্চিত করতে ভাগিনাদের ঘরছাড়া করেছেন মামা আব্দুর রাজ্জাক মোল্যা। এমন অভিযোগ এনে রাজ্জাক মোল্যার বিরুদ্ধে স্বরাস্ট্র মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ করেছেন বোন সেলিনা সুলতানা।

সেলিনা তার অভিযোগে বলেছেন, তারা চার বোন, দুই ভাই। আব্দুর রাজ্জাক ভাইবোনদের মধ্যে চতুর্থ এবং ভাইদের মধ্যে প্রথম। বাবা জীবিত থাকতেই সব বোনকে লেখাপড়া শিখিয়ে বিয়ে দেন। বাবার মৃত্যুর পর ভাই রাজ্জাক মোল্যা বোনদেরকে বাবার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করতে নানা ফন্দি-ফিকির করতে থাকে। ওয়ারিশ সূত্রে বোনদের অধিকার থাকলেও রাজ্জাক মোল্যা বোনদের প্রাপ্য হিস্যা বুঝিয়ে দিচেছ না। এ বিষয়ে নানা দেন-দরবার হলেও রাজ্জাক মোল্যা আজ দেব, কাল দিব বলে কাল ক্ষেপন করছে। বোনদের অংশে লাগানো মেহগনি গাছ বিক্রি করে রাজ্জাক মোল্যা হাতিয়ে নিয়েছেন কোটি টাকা।

এদিকে মামার ভয়ে সেলিনা সুলতানার ছেলেরা বাড়ি ফিরতে পারছেন না। মামা রাজ্জাক মোল্যার সন্ত্রাসীরা তাদেরকে নানাভাবে ভয়-ভীতি দেখাচ্ছে। রাজ্জাকের পালিত একটি কিশোর গ্যাং বাহিনী মোটর সাইকেল দিয়ে বোন সেলিনার বাড়ির চারপাশে পাহারা দিচ্ছে।

এছাড়াও রাজ্জাক মোল্যার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনে অভিযোগ করেছেন ঢাকার মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা আঃ কুদ্দুস। অভিযোগে আঃ কুদ্দুস জানান, এক সময়ে বিএনপির রাজনীতি করা রাজ্জাক মোল্যা জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের পক্ষে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-সংসদের সদস্য ছিলেন। পেশীশক্তির প্রভাব খাটিয়ে তিনি ঐ সংসদে ছাত্র মিলনায়তন সম্পাদকের পদও ভাগিয়ে নেন। ক্ষমতার পরিবর্তন হলে আব্দুর রাজ্জাক বঙ্গবন্ধুর সৈনিক বনে যান।

তৎকালিন বন ও পরিবেশ মন্ত্রী সাজেদা চৌধুরির আস্থাভাজন হয়ে পরিবেশ ও বন বিভাগে চাকুরি জুটিয়ে নেন। এই চাকুরির সুবাদেই অবৈধভাবে সম্পদের পাহাড় গড়ে তুলেন। আব্দুর রাজ্জাক বর্তমানে ঢাকার মোহাম্মদপুরের ২২/৯ ইকবাল রোডে বিলাসবহুল দুটি ফ্লাটের মালিক।বিভিন্ন ব্যাংকে নানা একাউন্টসহ রয়েছে একাধিক ব্যাক্তিগত গাড়ি। ড্রাইভার-কর্মচারিসহ বেতনভূক্ত নানা লোকজন লালন-পালন করেন এই রাজ্জাক বলে অভিযোগ করা হয়।ভুক্তভোগী বোন সেলিনা সুলতানা ও আঃ কুদ্দুসসহ এলাকার অনেকেই আব্দুর রাজ্জাকের অন্যায় অপকর্ম বন্ধ করতে প্রশাসনের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এই বিষয়ে রাজ্জাক মোল্ল্যার  কাছে জানতে চাইলে পুরো বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন ।

আরও খবর



মেহেরপুরের বিস্তির্ণ মাঠ যেন হলুদের সাম্রাজ্য

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৬২জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুর প্রতিনিধি:হলুদে ছেয়ে গেছে পুরো মাঠ। চারিদিকে হলদে আভার দেখা মেলে। মেহেরপুর জেলার বিভিন্ন প্রান্তে সরিষার চাষ শুরু হয়েছে ব্যাপকহারে। ফসলটি চাষে প্রতি মৌসুমেই কৃষকদের উৎসাহ বাড়ছে। আবহাওয়া অনুকুল হওয়া আর বাজারে চাহিদা ও ন্যয্যমূল্য পাওয়ায় সরিষা চাষে ঝুঁকে পড়েছে চাষিরা। কৃষি অফিস বলছে, স্থানীয়ভাবে তেলের ঘাটতি পুরুনের জন্য কৃষি বিভাগ প্রণোদনা ছাড়াও প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করছে।

জেলার বিভিন্ন অঞ্চলের সরিষার মাঠ ঘুরে দেখা যায়, ধুলা আর কুয়াশায় ধূসর প্রান্তরের মাঝেও দূর থেকে চোখে ভেসে উঠে সরিষার হলুদ। বিস্তীর্ণ মাঠের চারদিকে হলুদের সমাহার। মাঘের ভর শীতেও প্রকৃতিতে মনে হচ্ছে বসন্তের ছোঁয়া।

নানা রঙের প্রজাপতিতে ভরে আছে সরিষার ক্ষেত। নীল, সবুজ, লাল-নীলের ডোরাকাটা বিভিন্ন রঙের প্রজাপতি উড়ে বেড়াচ্ছে। কোথাও ঝলক দিয়ে উঠছে কালো ডানায় হলুদ-লালের মিশ্রণ। রঙ-বেরঙের প্রজাপতির এমন ডানা ঝাপটানো হৃদয়ে জাগাবে নবতর আনন্দ। প্রজাপতিরা এখানে আসে বিশ্রাম নিতে। অনেক দূর উড়ে উড়ে ঘুরে বেড়ানোর পর সরিষার মাদকতা তাদের আকৃষ্ট করে। প্রজাপতির সঙ্গে ভ্রমরও মধু খুঁজে ফিরছে এই ফুলে। এই সুযোগে মৌয়ালরা মৌমাছি চাষ করে এই মধু সংগ্রহ করছেন সরিষার মাঠে।

বিভিন্ন মাঠে দুপুরের পর থেকে বিভিন্ন বয়সি লোকজন সরিষার হলুদ ক্ষেতে বেড়াতে আসছেন। অনেকেই আসছেন বন্ধু বান্ধব নিয়ে ছবি তুলতে। কেউ বা বানাচ্ছেন টিকটক ভিডিও। দেখা গেছে মালসাদহ মাঠের মধ্যে স্কুল শিক্ষক ইছারদ্দীনের রচিত ‘মোড়ল ধরা পড়েছে’ গ্রামীণ নাটকের শুটিং। স্থানীয়রাও মনভরে উপভোগ করছেন এসব। সরিষার ঝাঁজালো ঘ্রাণে মুখরিত চারদিক। বেশিরভাগই ফুলে এই সময়ে গন্ধ থাকে না কেবল সরিষা ফুল ছাড়া। এ ঘ্রাণে ফুসফুসের উপকার হয়।

জেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা গেছে, জেলায় চলতি মৌসুমে সরিষার লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৬হাজার ৭০০ হেক্টর জমিতে। এবার সেই লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে সরিষার আবাদ হয়েছে ৭ হাজার ১৩৫ হেক্টর। আর উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্র ধরা হয়েছে ৯ হাজার মেট্রিক টন। স্থানীয় সরিষা জাতের পাশাপাশি বারি সরিষা ১৪, ১৫, ১৭,বিনা ৯,৪, ১১ ও টোরি ১৭ সরিষা চাষ করেছেন। কয়েক বছর ধরে ক্রমাগত ভোজ্য তেলের মূল্য বৃদ্ধি ও বাজারে সরিষার চাহিদা থাকায় চাষিরা আগ্রহী হয়ে উঠেছেন । অনেকেই দো-ফসলি জমিতে সরিষা আবাদ করছেন। আবার অনেকেই সাথী ফসল হিসেবে ও সরিষা আবাদ করছেন।

জোড়পুকুর গ্রামের আব্দুর রশিদ জানন, তিনি এক বিঘা জমিতে সরিষা বপন করেছেন এবং আরো দুই বিঘা সাথী ফসল হিসেবে সরিষা চাষ করছেন। তিনি আরো জানান, জমিতে ধান থাকতে থাকতে সরিষার বীজ বপন করে দেওয়া হয়। এত খরচ কম হয় লাভ বেশি। তিনি আড়াই বিঘা জমিতে সরিষা চাষ করেছেন। এতে খরচ হয়েছে মাত্র এক হাজার টাকা। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকার সরিষা বিক্রি করতে পারবেন বলেও জানান তিনি।

বামন্দীর সৈকত আলী জানান, প্রতি বছর আমন ধান কাটার পর জমিতে সরিষা চাষ করি। সরিষা বিক্রি করে যে টাকা পাওয়া যায় ওই টাকা দিয়ে আবার ইরি ধানের আবাদ করি। সরিষা চাষে খরচ কম, লাভ বেশি হয়। এক বিঘা জমিতে ৭-৮ মণ সরিষা হচ্ছে। গেল বছরে সরিষার দাম বেড়েছে। তিনি এবার তিন বিঘা সরিষা চাষ করেছেন। ভোজ্য তেলের চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি অধিক মুনাফার জন্য কয়েক বিঘা জমিতে সরিষা চাষ করা হয়। হাড়াভাঙ্গা গ্রামের চাষি আব্দুর রাজ্জাক জানান, তিনি এবার এক বিঘা জমিতে সরিষা চাষ করেছেন। তেলের দাম বৃদ্ধি হওয়ায় নিজেদের প্রয়োজনে সরিষা চাষ করেন।

মেহেরপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক বিজয় কৃষ্ণ হালদার জানান, গেল বছরে চলতি বছরে সরিষার আবাদ লক্ষমাত্রার চেয়ে বেড়েছে। চাষিদেরকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও প্রণোদনা দেয়া হচ্ছে সরিষা চাষে আগ্রহী করে তোলার জন্য। স্থানীয়ভাবে যে পরিমাণ সরিষা চাষ হয়েছে দূর্যোগ না হলে বাম্পার ফলন হবে বলে আশা করেন এই কৃষি কর্মকর্তা।


আরও খবর

গাংনীতে বালাইনাশক ব্যবহারে উদাসিন কৃষকরা

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মোরেলগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে দোয়া অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬০জন দেখেছেন

Image
শেফালী আক্তার রাখি মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধিঃবাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সোমবার সকাল ১১টায় ২০২৪ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় উপলক্ষে দোয়া অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোরেলগঞ্জ উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মো.বাকি বিল্লাহ। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এইচ.এম.শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনা রাখেন সিনিয়র শিক্ষক মো.জাকির হোসেন, সহকারি প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত), সিনিয়র শিক্ষক  মো.হাবিবুর রহমান।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারি শিক্ষক মো. আশরাফুল ইসলাম, সহকারি শিক্ষক আবু বকর মো. তাজুল ইসলাম, সহকারি শিক্ষক মো. রাকিবুল ইসলাম, সহকারি শিক্ষক জগন্নাথ কুমার হালদার ও সহকারি শিক্ষক শেখ মো. মামুন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা সুন্দর ও সুশৃঙ্খলভাবে পরীক্ষা অংশগ্রহণ করার বিষয়ে সার্বিক পরামর্শ দেন এবং শিক্ষার্থীদের সার্বিক সাফল্য কামনা করেন। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনায় ছিলেন বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক আলী মোহাম্মদ ফারুক।

আরও খবর

গাংনীতে বালাইনাশক ব্যবহারে উদাসিন কৃষকরা

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪