Logo
আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

জাপানে পুলিশসহ ৪ জনকে হত্যা, স্পিকারের ছেলে গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ২১৪জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জাপানে এক ব্যাক্তির ছুরিকাঘাত ও বন্দুক হামলার দুই পুলিশ সদস্যসহ ৪ জন নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার বিকেলে মধ্য জাপানের নাকানো শহরে এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, প্রথমে ছদ্মবেশে ওই ব্যক্তি ছুরি নিয়ে এক নারীর ওপর হামলা চালায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে বন্দুক হামলার শিকার হন দুই পুলিশ সদস্য।

আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসকরা তিনজনকেই মৃত ঘোষণা করেন। তবে চতুর্থজনের মৃত্যুর বিষয়টি বিস্তারিত জানা যায়নি।

এদিকে ঘটনার প্রায় ১২ ঘণ্টা পর ভোর বেলা সন্দেহভাজন হামলাকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। হামলাকারী সিটি অ্যাসেম্বলির স্পিকারের ছেলে বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম।


আরও খবর



মধুপুরে পৌর বিএনপির উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

প্রকাশিত:সোমবার ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৬জন দেখেছেন

Image

বাবুল রানা বিশেষ প্রতিনিধি মধুপুর টাঙ্গাইল:টাঙ্গাইলের মধুপুরে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদীদল (বিএনপি) মধুপুর পৌর শাখার উদ্যোগে অসহায় হতদরিদ্র ও শীতার্ত  মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার (১২ফেব্রুয়ারী) বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব ফকির মাহবুব আনাম স্বপন এর দিক নির্দেশনায় এবং মধুপুর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব খন্দকার মোতালিব হোসেন এর সার্বিক সহযোগিতায় এ শীত বস্ত্র বিতরণ করা হয়।

পৌরবিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি রেজাউল করিম সিদ্দিক এর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্হিত ছিলেন উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. নাসির উদ্দিন, পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান রবিন, ৫ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আঃ ছালাম আকন্দ  সহ পৌর বিএনপির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ ও  সকল সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী গন উপস্থিত ছিলেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



পত্নীতলায় উপজেলা পর্যায়ে এক দিনের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৭জন দেখেছেন

Image

দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:পত্নীতলায় প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট সমন্বিত উপবৃত্তি কর্মসূচির আওতায় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের আয়োজনে শনিবার উপজেলা সভাকক্ষে উপজেলা পর্যায়ে উপবৃত্তি বাস্তবায়ন ও মনিটরিং সম্পর্কিত এক দিনের প্রশিক্ষণ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) শহিদুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার লুৎফর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল গাফফার। এসময় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এটিএম জিল্লুর রহমান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য  রাখেন সহকারী পরিচালক উপবৃত্তি - পিএসইএটি ঢাকার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, গবেষণা কর্মকর্তা এসইডিপি, পিসিইউ ঢাকার আমিনুল ইসলাম, নজিপুর সরকারি ডিগ্রী কলেজর অধ্যক্ষ মতিউর রহমান, সহকারি প্রোগ্রামার মাউসি রফিকুল ইসলাম,  অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ, সুধীজন প্রমূখ।

আরও খবর



ভাষা শহিদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬১জন দেখেছেন

Image
কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক:অমর একুশের প্রথম প্রহরে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মহান ভাষা আন্দোলনের বীর শহিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

আজ মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে প্রথমে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন এবং এরপরপরই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

এবার প্রথম একুশের বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাষ্ট্রপতি হিসেবে মো. সাহাবুদ্দিন।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে সেখানে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থেকে ভাষা শহিদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

একুশের প্রথম প্রহরে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ফুল দেওয়ার পর দলীয় নেতাদের নিয়ে শহিদদের শ্রদ্ধা জানান আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তারা ফুল দেওয়ার পর স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী ও জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার শামসুল হক টুকু ফুল দেন শহিদ বেদীতে। এরপর প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানসহ বিচারপতিরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। শ্রদ্ধা জানান মন্ত্রিপরিষদের সদস্য এবং প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টারা।

এরপর তিন বাহিনীর প্রধানদের মধ্যে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল এম নাজমুল হাসান ও বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নান শহিদ বেদীতে ফুল দেন।

উল্লেখ্য, ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি, তৎকালীন পাকিস্তান সরকার বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি না দিয়ে পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা উর্দুকে মাতৃভাষা হিসেবে চাপিয়ে দেওয়ার ঘোষণা দেয়। এর প্রতিবাদে ঢাকার ছাত্র-জনতা রাস্তায় নেমে আসে।

বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তি সংগ্রামের প্রধান মাইল ফলক হিসেবে গণ্য করা হয় একুশে ফেব্রয়ারিকে। ১৯৫২ সালের এই দিনে, মাতৃভাষার অধিকার আদায়ে প্রাণ উৎসর্গ করেছিলেন, বরকত, সালাম, রফিক জব্বারসহ অনেক ছাত্র তরুণ।

ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর, বাংলাদেশের ভাষা শহিদ দিবস একুশে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। এরপর থেকে বিশ্বজুড়ে দিনটি পালিত হয়। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে।


আরও খবর



নবীনগরে পারিবারিক পাঠাগার প্রতিষ্ঠার তাগিদে ৭১ পাঠচক্রের বই বিতরণ

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১১৬জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মাদ হেদায়েতুল্লাহ্ নবীনগর ব্রাহ্মণবাড়ীয়া প্রতিনিধি:ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় দীর্ঘদিন পর "নিজে বই পড়ি, পারিবারিক পাঠাগার গড়ি" এই স্লোগানকে হৃদয়ে লালন করে ৭১ পাঠচক্র নামক একটি সংগঠন থেকে বই বিতরণ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানটিতে কেন্দ্র করে নবীনগরে একটি গুণীজনদের মিলন মেলায় পরিণত হয়।২৭শে জানুয়ারি শনিবার সকালে নবীনগর উপজেলার অডিটরিয়াম নান্দনিক আয়োজনের মধ্য দিয়ে এই এই অভিনব কর্মসূচি পালন করা হয়।

আলোচনা সভা, কবিতা আবৃত্তি, সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে দুপুর পর্যন্ত চলে।পরে নবীনগর উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৭১জন শিক্ষার্থীদের মাঝে বিভিন্ন লেখকের বই উপহার হিসেবে তুলে দেন।৭১ পাঠচক্রের সভাপতি শিক্ষাবিদ ও কবি কামরুল হুদা পথিক এর সভাপতিত্বে বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আব্বাস উদ্দিন হেলাল এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নবীনগর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর একেএম রেজাউল করীম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নবীনগর পৌরসভার মেয়র এডঃ শিব শংকর দাস, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ শ্যামা প্রসাদ ভট্টাচার্য,চ্যানেল আই এর নির্বাহী প্রযোজক(সংবাদ)শান্ত মাহমুদ,সময় টিভির বার্তা কক্ষ সম্পাদক সরদার মোঃ আরিফ, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বীরমুক্তিযোদ্ধা ইকবাল আহমেদ, নবীনগর মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ কান্তি কুমার ভট্টাচার্য নবীনগর প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবু কামাল খন্দকার, সিনিয়র সাংবাদিক গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপু।

নবীনগর উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি এটিএম রেজাউল করিম সবুজ, মাছরাঙা টেলিভিশনের কুমিল্লা জেলা প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর আলম ইমরুল,নবীনগর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় সাহা,ইব্রাহিম পুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন,নবীনগর থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি এম কে জসিম উদ্দিন,গ্লোবাল নেট পত্রিকার সম্পাদক মিঠু ধর,কবি ফখরুল আলম মুক্তি,কবি জামির হোসেন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত সুর সম্রাট উস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ নাতি দেশ বরেণ্য একুশে পদকপ্রাপ্ত গীতিকার ও সুরকার শেখ সাদী খান ও বিশিষ্ট নজরুল ও শাস্ত্রীয় শিল্পী করিম হাসান খান ও নজরুল গবেষক রফিক সুলাইমান।এছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।বক্তারা দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের তীর্থস্থান হিসেবে পরিচিত নবীনগর উপজেলায় হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে পাঠচক্র ৭১ নামক সংগঠনের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান।

প্রতিটি নাগরিক যেন প্রকৃত মানুষ হয়ে দেশ ও জাতির কল্যাণে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয় সেই মেধাবী মানবিক মূল্যবোধের অফুরন্ত ভান্ডার হিসেবে সংগঠনটি প্রসার লাভ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এবং ছাত্রদের বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে আহ্বান জানান। সংগঠনটি নবীনগর উপজেলায় একটি সাংস্কৃতিক বলয় তৈরি করে একটি সুন্দর সমাজ গঠনের প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



কাজী আশ্রাফউদ্দিন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯১জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হাসানঃ 

কাজী আশ্রাফউদ্দিন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান, পুরস্কার বিতরনী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারি  বিদ্যালয় মাঠে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।


এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডিএসসিসি ৭০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ্ব আতিকুর রহমান। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু গবেষনা পরিষদের সাধারন সম্পাদক  এম এ ছিদ্দিক মিয়া। আরো উপস্থিত ছিলেন এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, অভিবাবকবৃন্দ। 


প্রধান বক্তা এম এ ছিদ্দিক মিয়া বলেন, “বিদ্যালয়টি আজও কেনো সরকারীকরন করা হয় নাই” বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা, ঢাকা জেলার ডেমরা থানার ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৭০নং ওয়ার্ডের দেইল্লা গ্রামে কাজী আশ্রাফ উদ্দিন প্রাথমিক বিদ্যালয় অবস্থিত। দেইল্লা গ্রামের দক্ষিন পাশে ডেমরা গুলিস্থান রোড, পশ্চিম ও উত্তরে কারখানা ও জলাশয়, পূর্ব পাশে দিঘি ও স্টাফ কোয়ার্টার, রামপুরা রোড। দেইল্লা গ্রামে শিশুরা সহ বিভিন্ন জেলা হতে আগত মিল-কারখানার কর্মকর্তা, কর্মচারি, প্রতিষ্ঠানের মালিক ও শ্রমিক (যারা ভাড়া থাকেন) তাদের শিশুদের একমাত্র লেখাপড়ার প্রতিষ্ঠান কাজী আশ্রাফউদ্দিন প্রাথমিক বিদ্যালয়। ঢাকা-৫ আসনের প্রয়াত সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান মোল্লা বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। 


 বিদ্যালয়টি সরকারীকরনের জন্য কিছু শর্ত পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়, ১। বিদ্যালয়ের জায়গা বিদ্যালয়রে নামে নিয়মতান্ত্রীকভাবে রেজিষ্টার করে দিতে হবে। ২। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ পর্যায় ক্রমে বিদ্যালয় পরিদর্শন করার ব্যবস্থা করতে হবে। ৩। শিক্ষা বিভাগীয় যথাযথ কর্তৃপক্ষ বরাবর দলিল, মিউটিশন পর্চা ইত্যাদি কাগজ পত্র সংযুক্ত করে আবেদন প্রেরন করতে হবে নতুবা সরকারী করনের কোনো সম্ভাবনা থাকবে না।


আরও খবর