সর্বশেষ

আজঃ বুধবার ২৮ জুলাই ২০২১

জাজিরায় অবৈধ ড্রেজার দিয়ে পদ্মা সেতুর পিলারের পাশ থেকে বালু উত্তোলন

এ আর হানিফঃ

শরীয়তপুর জেলার জাজিরায় পদ্মা সেতু পিলারের স্প্যান এর পাশে অবৈধ ড্রেজার দ্বারা বালু উত্তোলন করছে বালু দস্যুরা ।দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে এসব অবৈধ ড্রেজার দ্বারা বালু উত্তোলনকারীরা ।প্রভাবশালীরা প্রশাসনকে তোয়াক্কা না করে নদীতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে নির্বিচারে বালু উত্তোলন করছে। এতে ওই এলাকায় স্থানীয় ঘরবাড়ি-স্থাপনা হুমকির মুখে পড়েছে।পদ্মা নদীতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে সরকারি অনুমোদন না নিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে সেই বালুদিয়ে চলছে শেখ হাসিনা তাঁতপল্লী প্রকল্পে উন্নয়ন কাজ।শরীয়তপুর ও মাদারীপুর জেলায় চলছে শেখ হাসিনা তাঁত পল্লী নির্মানের কাজ।শরীয়তপুরের জাজিরা এলাকায় খোকন কন্সট্রাকশন নামে একটি প্রতিষ্টান শেখ হাসিনা তাঁত পল্লী নির্মানের প্রকল্পে বালুভরাটের কাজের অনুমতি পেলেও তা পদ্মানদী থেকে ড্রেজার দিয়ে কেটে নেওয়ার চুক্তি হয়নি।অবৈধ ড্রেজার ব্যাহার কারীরা নৌযান চলাচলের অনুমতিকে এতদিন বালু কাটার অনুমতি হিসেবে এতদিন মৌখিকপ্রচার চালিয়ে আসছিল।জেলাপ্রশাসক বলেন যেহেতু এই এলাকায় কোন বালু মহাল নেই তাই স্বাভাবিকভাবেই এখানে কাউকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনের অনুমতি দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।স্থানীয় কয়েকটি গ্রামের মানুষ এসব অবৈধ ড্রেজার মালিকদের দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে বার বার জাজিরা থানার ওসি,জাজিরা উপজেলার ইউএনও,শরীয়তপুরের ডিসি বরাবর অভিযোগ দিয়েও কোন সুরাহা পায়নি।এসব অবৈধ ড্রেজার দিয়ে বালু কাটায় অসময়ে নদীর ভাঙন দেখা দিয়েছে।স্থানীয়রা জানায় বর্ষা মৌসুম এলে এসব গ্রামগুলো তীব্র ভাঙনের কবলে পড়বে।১১০ জন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পক্ষে এসব অবৈধ ড্রেজার মালিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেয়া হয়েছে।



এই বিভাগের আরও খবর