Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

ইসির ৩৩ কর্মকর্তা পদোন্নতি পেলেন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৯ আগস্ট ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৪২৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পদোন্নতি পেলেন নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ৩৩ জন কর্মকর্তা। আজ মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সহকারী সচিব মোহাম্মদ শহীদুর রহমান স্বাক্ষরিত আলাদা তিনটি প্রজ্ঞাপনে এই পদোন্নতি দেওয়া হয়।

প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, ৯ জন কর্মকর্তাকে জাতীয় বেতন স্কেল-২০১৫’র চতুর্থ গ্রেডভুক্ত আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে।

আরেক প্রজ্ঞাপনে ১১ জন কর্মকর্তাকে জাতীয় বেতন স্কেলের পঞ্চম গ্রেডভুক্ত উপসচিব বা পরিচালক বা সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে।

আলাদা আরেক প্রজ্ঞাপনে ১৩ জন কর্মকর্তাকে জাতীয় বেতন স্কেল-২০১৫’র ষষ্ঠ গ্রেডভুক্ত সিনিয়র সহকারী সচিব বা উপপরিচালক বা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বা অতিরিক্ত আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা বা অতিরিক্ত জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



সৈয়দপুরে ফাইলেরিয়া হাসপাতাল সিলগালা,সরিয়ে নেওয়া হলো রোগী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৬৪জন দেখেছেন

Image
সৈয়দপুর (নীলফামারি)প্রতিনিধি:স্বাস্থ্য বিভাগের অনুমোদন না থাকায় নীলফামারীর 'সৈয়দপুর ফাইলেরিয়া এন্ড জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ল্যাব' সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনজন রোগীকে সদর জেনারেল হাসপাতালে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। বুধবার ১২ জুন উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের ধলাগাছ এলাকায় ‘সৈয়দপুর ফাইলেরিয়া এন্ড জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ল্যাবে অভিযান চালান নীলফামারীর সিভিল সার্জন (ভারপ্রাপ্ত) ডা: আবু হেনা মোস্তফা কামাল। অভিযানের সময় উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আবু মো. আলেমুল বাশার, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের ডা: আতিয়ার রহমান শেখ সৈযদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য পরিদর্শক মো. আলতাফ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, দেশের উত্তরাঞ্চলের নীলফামারী জেলাসহ ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধায় ফাইলেরিয়া রোগের প্রাদুর্ভাব বেশি। এ রোগের চিকিৎসার জন্য ২০০২ সালে জাপান সরকারের অর্থায়নে উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের ধলাগাছ এলাকায় যাত্রা শুরু করে ফাইলেরিয়া হাসপাতালটি। বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ক্লিনিক্যাল ইম্যুনোলজি (আইএসিআইবি) হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠার দায়িত্বে ছিল। হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও প্রকল্প পরিচালক ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন ওই সময় স্থানীয়ভাবে ১৮ জন দেশি-বিদেশি চিকিৎসককে নিয়ে কার্যক্রম শুরু করেন। জাপান, কানাডা ও বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক সহায়তায় দুটি বহুতল ভবন নিয়ে হাসপাতালের কার্যক্রম শুরু হয়। জাপান ও অন্যান্য দেশ থেকেও গবেষণাকর্মীরা আসেন এই হাসপাতালে।  তবে ২০১২ সালে হাসপাতালটিকে ঘিরে স্থানীয়ভাবে সংকট সৃষ্টি হয়।

পরিচালনা কমিটির দ্বন্দ্বে ভেঙে পড়ে সেবা কার্যক্রম। মুখ ফিরিয়ে নেয় দাতা সংস্থাগুলো। পরবর্তীতে ২০২১ সালের ৩ অক্টোবর সুবিধাবঞ্চিত মানুষকে টোকেন মূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার প্রত্যয়ে সৈয়দপুর ফাইলেরিয়া জেনারেল হাসপাতাল অ্যান্ড ল্যাব নামে নতুন করে যাত্রা শুরু করে হাসপাতালটি। যুক্তরাজ্যভিত্তিক বেসরকারি সংস্থা লেপরা বাংলাদেশের সঙ্গে বাংলাদেশ প্যারামেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি অনুযায়ী হাসপাতালের স্বাস্থ্যসেবাবিষয়ক সব ধরনের সহযোগিতা করবে লেপরা বাংলাদেশ। বাংলাদেশ প্যারামেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব রাকিবুল ইসলাম তুহিন পরিচালকের দায়িত্ব নেন। এরপর বিভিন্ন জেলা থেকে নতুন করে প্রায় ৩৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ দেওয়া হয়। প্রত্যেকের কাছে ফেরতযোগ্য জামানতের কথা বলে নেওয়া হয়েছে ৫০ হাজার থেকে ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত। এভাবে প্রায় ৫০ লাখ টাকা নিয়ে গা-ঢাকা দেন পরিচালক। এর পর থেকে বেতন-ভাতা   না পেয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নিরুপায় হয়ে চাকরি ছেড়ে অন্যত্র চলে যান। কিন্তু সম্প্রতি তারা পত্রিকায় আবারও ২২ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দেন।  

ডাঃ আবুহেনা মোস্তফা কামাল বলেন, পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখে আমরা জানতে পারি এই ফাইলেরিয়া হাসপাতালের অনুমোদন নেই। এছাড়া এ হাসপাতালে নিয়মিত কোনো চিকিৎসক, নার্স, টেকিনেশিয়ান কিংবা স্বাস্থ্যকর্মীসহ সেসব সুবিধা থাকা দরকার সেগুলোর কিছুই নেই। তাই হাসপাতালটি সিলগালা করা হয়েছে। এখানে যে দুইজন রোগী ছিল তাদের সদর জেনারেল হাসপাতালে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

আরও খবর



মেহেরপুর সরকারী মহিলা কলেজে শিক্ষার্থীদের মনোসামাজিক সহায়তা কেন্দ্রের উদ্বোধন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮০জন দেখেছেন

Image

মেহেরপুর প্রতিনিধি:মেহেরপুর সরকারী মহিলা কলেজে শিক্ষার্থীদের মনোসামাজিক সহায়তা কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের মধ্যে মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতনতা তৈরী, মনোসামাজিক সমস্যা চিন্হিতকরণ ও সহায়তা প্রদান।  শিক্ষার্থীরা তাদের বিভিন্ন শারীরিক ও মানসিক বিষয়ে যে সমস্ত কথা অকপটে বাবা মা বা  অন্য কারো কাছে সহজে বলতে পারেনা সে সমস্ত বিষয়ে প্রতিষ্ঠানের একজন শিক্ষককে যাতে বলতে পারে এবং সে বিষয়ে সহায়তা পেতে পারে সে লক্ষ্য কে সামনে রেখে সরকারী মহিলা কলেজে এ সহায়তা কেন্দ্রে উদ্বোধন করা হয়েছে। বুধবার সকালে কলেজে  এ সহায়তা কেন্দ্র উদ্বোধন করেন প্রতিষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত অধ্যাক্ষ কাজি আশরাফুল আলম। এ সময় সেখানে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য যে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে এবং ব্রাকের সার্বিক সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠানের ইংরেজী বিভাগের প্রভাষক  রেকসোনা  আক্তার মে  মাসের ০২,  তারিখ থেকে ৩০ তারিখ পর্যন্ত অনলাইন এবং অফলাইনে ট্রেনিং প্রাপ্ত হন।  জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ উদ্যোগে প্রথম পর্যায়ে ১০০ জন শিক্ষক ট্রেনিং প্রাপ্ত হন পরবর্তীতে আরও ৪০০ জন শিক্ষক কে ট্রেনিং করানো হবে। মেহেরপুর জেলায় প্রথম একজন শিক্ষক এ বিষয়ে ট্রেনিং করেছেন। মেহেরপুর সরকারী মহিলা কলেজ যখন শিক্ষা, সংস্কৃতিসহ সকল দিক  দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে তখন এ ধরনের একটি নুতন বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশনায় ও পরামর্শে মেহেরপুর মহিলা কলেজে একটি সেল খোলা অবশ্যই প্রশংসার দাবীদার। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় মহিলা কলেজের একজন  শিক্ষককে  প্রশিক্ষণ  দেয়ায় মেয়েদের জন্য অবশ্যই  এটা বাড়তি প্রাপ্তি । শিক্ষার্থীদের মধ্যে মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতনতা তৈরীতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তরভুক্ত কলেজ গুলোতে একটি সাপোর্ট সিস্টেম তৈরী করা। কলেজের একজন শিক্ষককে ট্রেনিং 

এর  মাধ্যমে  তিনি মেয়েদের সাপোর্ট সিস্টেম সহায়তাকারী আপা হিসেবে কলেজে মেয়েদের বিভিন্ন মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্য বিষয়ে যে কোন সমস্যা চিন্হিত করে তার যথাযথ প্রক্রিয়ায় তার সমাধান করা যদি সেটা সম্ভব না হয়ে তবে সঠিক পদ্ধতিতে রেফার করার ব্যবস্থা করা। এর আগে সহায়তাকারী আপা এবং প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের  মধ্যে এব  বিষয়ে প্রচারণা ও সচেতন করা হয়।   মেহেরপুর জেলার সর্ববৃহৎ নারী  শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মেহেরপুর সরকারী মহিলা কলেজ। এ প্রতিষ্ঠান  থেকে দেশের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজ, বুয়েটসহ অসংখ্যা ছাত্রী দেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করছে। দীর্ঘদিন শিক্ষক সংকট থাকলেও কলেজ অধ্যক্ষ কাজী আশরাফুল আলমের ঐকান্তিক চেষ্টায় ও জনপ্রশাসন মন্রী ও মেহেরপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য ফরহাদ হোসেনের সার্বিক সহযোগিতায়  গতমাসে  ১৩ জন্  শিক্ষক পদায়ন হওয়ায় কলেজটি এখন সকল দিক দিয়ে শিক্ষার্থীদের মনের মতো সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রুপান্তর হয়েছে। কলেজটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কাজি আশরাফুল আলম দায়িত্ব নিয়েই কলেজের বিভিন্ন সমস্যা চিন্তিত করে তা সমাধানের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।  কলেজ অধ্যাক্ষ আশা করছেন সকলের সহযোগিতায় কলেজটি মেহেরপুর  জেলা তথা খুলনা বিভাগের মধ্যে সেরা    নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে উঠবে। 

আরও খবর



সিরাজদিখানে নির্বাচনী সহিংসতায় বাসাইল ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের গাড়ি চালক নিহত

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৫৬জন দেখেছেন

Image

মিরাজ মাহমুদঃমুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার রামকৃষ্ণদী এলাকায় প্রতিপক্ষের হামলায় হাশেম (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। সোমবার ৩জুন বিকেল সাড়ে চারটার দিকে এই ঘটনা ঘটে। নিহত হাশেম বরিশাল জেলার বাসিন্দা । সিরাজদিখান উপজেলার বাসাইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম যুবরাজ এর ব্যক্তিগত সহকারি এবং গাড়ি চালক। তার শ্বশুরবাড়ি চান্দের চর এলাকায় স্বস্ত্রীক বসবাস করতেন।

গত ২৯ মে সিরাজদিখান উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোটর সাইকেল মার্কার প্রার্থী মাইনুল হাসান নাহিদ এর পক্ষে কাজ করেন নিহত হাশেম।কাপ পিরিচ মার্কায় প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী আবু বক্কর এর সমর্থকদের সাথে এ নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল তার সাথে। সোমবার বিকেলে হাশেমের উপর আগ্নেয়াস্ত্র ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় তারা। এ সময় নিহতের পায়ে গুলি করে এবং মাথায় দা দিয়ে কোপ মেরে মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। সিরাজদিখান থানার পুলিশ এসে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ থানায় নিয়ে গেছে। 

৫ নং বাসাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম জানান, নির্বাচনী সহিংসতা কে কেন্দ্র করে খুন হন হাসেম।

এই খুনের বিষয়টি নিয়ে এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে।


আরও খবর



বাজেট পাস হয়নি,অনেক কিছু পুনর্বিবেচনা করা সম্ভব: অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৫৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জাতীয় সংসদের বাজেট পেশ করার পর নানা মহল থেকে নানা প্রতিক্রিয়া আসছে,বলেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।আমরা সব প্রতিক্রিয়া আমলে নিচ্ছি। যেগুলো বাস্তবসম্মত এবং বাজেটে বাস্তবায়নযোগ্য সেগুলো অবশ্যই পুনর্বিবেচনা করা হবে। কারণ এখনো বাজেট পাস হয়নি।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) রাজধানীর ফার্মগেটে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল (বিএআরসি) মিলনায়তনে ‘বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের অর্থনীতি : প্রবৃদ্ধি, মুদ্রাস্ফীতি, খাদ্য ও পুষ্টি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বাজেট পেশ করার পর নানা মহল নানা বক্তব্য দিচ্ছে। আবার অনেকেই সমালোচনা করছেন। তাদের উদ্দেশে বলব আমাদের অর্থনীতি নিয়ে, বাজেট নিয়ে বিশ্বব্যাংক কি বলছে সেদিকেও নজর দিয়েন।

তিনি বলেন, বাজেট নিয়ে আরও বক্তব্য আছে, বিশ্বব্যাংক বলেছে ভালো হয়েছে। আমার টাকা লাগবে, বিশ্বব্যাংকের কথা শুনতে হবে। না হলে আপনারা (সমালোচকরা) টাকা দেন।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, শেখ হাসিনা সরকার জনবান্ধব সরকার। অনেকেই বলে, সরকার শিগগিরই পড়ে যাবে, কই সরকার তো পড়ে না। সরকার দেউলিয়া হয়ে গেছে, দেউলিয়া মানে কি? দেউলিয়া তো হলো না। বিশ্বব্যাংক কিছু বোঝে না, আপনি সব কিছু বোঝেন? বাজেট দিলাম, এটা দেখেন ও বোঝার চেষ্টা করেন। এই বাজেট জনবান্ধব বাজেট। কোনো কিছুতে সমস্যা থাকলে পুনর্বিবেচনা করার সম্ভাবনা আছে।

সংসদ সদস্য সাজ্জাদুল হাসানের সভাপতিত্ব সেমিনারে আরও বক্তব্য দেন বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু, বাংলাদেশে নিযুক্ত জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার প্রতিনিধি ড. জিয়াকুন শি, সাবেক পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম প্রমুখ।


আরও খবর



খাগড়াছড়িতে অফিসার ও ফোর্সদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা প্রীতিভোজে অংশগ্রহণ করেন পুলিশ সুপার মুক্তা ধর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৫০জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়িতে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষ্যে  অফিসার ও ফোর্সদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়  ও বিশেষ প্রীতিভোজ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার)

সোমবার ( ১৭ জুন)  খাগড়াছড়ি পুলিশ লাইন্স জামে মসজিদে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার প্রধান ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। ঈদের জামাতে সর্বস্তরের মুসল্লিগণ অংশগ্রহণ করেন।
নামাজ শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ, দেশের অব্যাহত অগ্রযাত্রা, সমৃদ্ধি এবং দেশবাসীর সুখ-শান্তি ও সার্বিক মঙ্গল কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।

ঈদের জামাত শেষে খাগড়াছড়ি পুলিশ লাইন্সে  খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশের অফিসার ও ফোর্সদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন খাগড়াছড়ি জেলার পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার)।

শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে দুপরে পবিত্র ঈদুল আযহা  উপলক্ষ্যে খাগড়াছড়ি পুলিশ লাইন্স সহ জেলা পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের পুলিশ সদস্যদের অংশগ্রহণে বিশেষ প্রীতিভোজ অনুষ্ঠিত হয়। খাগড়াছড়ি পুলিশ লাইন্স-এ অফিসার ও ফোর্সের সাথে প্রীতিভোজ অংশগ্রহণ করেন খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার)।

পরবর্তীতে সম্মানিত পুলিশ সুপার মহোদয় জেলা পুলিশের সকল পদমর্যাদার সহকর্মীদের নিয়ে এক সাথে বসে দুপুরের খাবার পরিবেশন করেন।

ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় ও বিশেষ প্রীতিভোজ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল)  তফিকুল আলমসহ জেলা পুলিশের সকল পদমর্যাদার সদস্যগণ।

খাগড়াছড়ি বাসীর ঈদ আনন্দকে নিরাপদ করতে, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্থিতিশীল রাখতে জেলা পুলিশের সদস্যরা দিনভর পেশাদারিত্বের সাথে জেলাব্যাপী দায়িত্ব পালন করে।পেশাগত দায়িত্বকে সর্বাগ্রে বিবেচনা করে বিশেষ দিন ছাড়াও প্রতিটি দিনকে গুরুত্ব দিয়ে খাগড়াছড়িবাসীকে নিরাপত্তা দিতে জেলা পুলিশ বদ্ধ পরিকর বলে জানান খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার)।

আরও খবর