Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ইংল্যান্ডের পথে মিরাজ-রনিরা

প্রকাশিত:সোমবার ০১ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২৫০জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক: আয়ারল্যান্ডে বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খেলেতে ইংল্যান্ডের পথে দ্বিতীয় ধাপে রওয়ানা দিয়েছেন মেহেদি হাসান মিরাজ-শরিফুল ইসলাম ও হাসান মাহমুদরা। আজ সোমবার সকালে ১০টা ৪০ মিনিটে একটি ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে জাতীয় দলের দ্বিতীয় বহর।

এর আগে সিলেট থেকে তিন দিনের ক্যাম্প শেষ করে ঢাকায় পৌঁছে গতকাল রোববার দিবাগত রাতে প্রথম বহরে ইংল্যান্ডের উদ্দেশে দেশ ছাড়েন পাঁচ ক্রিকেটার। প্রথম ভাগে কোচিং স্টাফরাও ছিলেন।

আইপিএল থেকে পারিবারিক কারণে দেশে ফেরা লিটন দাস অবশ্য দ্বিতীয় ধাপে ইংল্যান্ডে যাননি। জানা যায়, আগামী ৩ মে তিনি ইংল্যান্ডে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন।

সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমানও পরে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন।

আগামী ৫ মে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে টাইগারদের। এরপর আইরিশদের বিপক্ষে ৯, ১২ ও ১৪ মে চেমসফোর্ডে তিন ম্যাচের সিরিজ খেলবে তামিম ইকবালের দল।


আরও খবর



যশোরে পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্সের বীমাদাবীর চেক হস্তান্তর ও অর্ধ বার্ষিক ব্যবসা ক্লোজিং সভা

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৬৬জন দেখেছেন

Image

এস এম শফিকুল ইসলাম, জয়পুরহাট:পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের যশোর অঞ্চলের বীমা গ্রাহকের বীমাদাবীর চেক হস্তান্তর ও অর্ধ বার্ষিক ব্যবসা ক্লোজিং  সভা  অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১২ জুলাই )  যশোরে পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের নিজস্ব ভবন মিলনায়তনে  এ  বীমা দাবীর চেক হস্তান্তর ও অর্ধ বার্ষিক ব্যবসা ক্লোজিং  সভা অনুষ্ঠিত হয়।

পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের  আল আমিন বীমা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ও জেলা সমন্বয়কারী সৈয়দ সাইফুল ইসলাম রুবেলের  সভাপতিত্বে বীমাদাবীর চেক হস্তান্তর ও অর্ধ বার্ষিক ব্যবসা ক্লোজিং  সভায়জগ প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের  ভারপ্রাপ্ত  ব্যবস্থাপনা পরিচালক  বি এম  শওকত আলী। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন  পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের উর্ধ্বতন  উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (আইটি) ফিরোজ ইফতেখার, জনপ্রিয় বীমা প্রকল্পের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক কামাল হোসেন মহসিন,  ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক খলিলুর রহমান সিকদার। 

এ সময়ে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন  পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পপানী লিমিটেডের ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার কামরুজ্জামান, আল আমিন বীমা প্রকল্পের প্রকল্প ইনচার্জ মিজানুর রহমান, আল বারাকা ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের প্রকল্প ইনচার্জ রিয়াদুল ইসলাম সোহাগ, জনপ্রিয় বীমা প্রকল্পের প্রকল্প ইনচার্জ শরিফুল ইসলাম ও আব্দুল হাই আল হাদি প্রমুখ।

অর্ধ বার্ষিকী ব্যবসা ক্লোজিং সভা শেষে মেয়াদ উত্তীর্ণ বীমা গ্রাহকের হাতে বীমাদাবীর  চেক হস্তান্তর করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কোম্পানীর ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক বি এম শওকত আলী।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



মধুপুর থানার অফিসার দ্বয়ের বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | ৮১জন দেখেছেন

Image

বাবুল রানা বিশেষ প্রতিনিধি মধুপুর টাঙ্গাইল:টাঙ্গাইলের মধুপুর থানা পুলিশ পরিদর্শক(নিঃ) তদন্ত অফিসার মোঃ মুরাদ হোসেন ও অরণখোলা পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ মোঃ আব্দুস সাত্তারের বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

সোমবার (৮জুলাই) বিকেলে থানা হল রুমে মধুপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মোল্লা আজিজুর রহমান এর সভাপতিত্বে এবং থানা কর্তৃক আয়োজিত এ বিদায়ী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মধুপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার ফারহানা আফরোজ জেমি।

উক্ত অনুষ্ঠানে সহকারী পুলিশ সুপার বিদায়ী কর্মকর্তাদ্বয়’দের বর্তমান ইউনিটে কর্মকালের স্মৃতিচারণ করেন এবং নতুন কর্মস্থলে উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করেন।

এ সময় মধুপুর থানা সহ অরণখোলা ও আলোকদিয়া পুলিশ ফাঁড়ির অফিসার ও ফোর্সগন উপস্থিত ছিলেন। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



যাবজ্জীবন কারাদন্ড আসামী মামুন রৌমারী থেকে গ্রেফতার

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১২৭জন দেখেছেন

Image

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:ঢাকার আশুলিয়ায় কান্তা বিউটি পার্লারের মালিক মার্জিয়া কান্তাকে (২৬) তার স্বামী কুয়াকাটার আবাসিক হোটেল কক্ষে গলা টিপে হত্যার ঘটনায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী মামুনকে আটক করেছে রৌমারী থানা পুলিশ। গত ২৬ জুন বুধবার সহকারী পুলিশ সুপার মমিনুল ইসলাম ও রৌমারী থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ হিল জামান ও মুশাহেদ খান পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রৌমারী থানা, কুড়িগ্রামের নেতৃত্বে রৌমারী থানাধীন ৪ নং রৌমারী ইউনিয়নের ভারতীয় সীমান্তবর্তী রতনপুর এলাকা হইতে এসআই জুয়েল আলী সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্সের সহায়তায় অত্যন্ত সাহসিকতা ও দক্ষতার সহিত সু-কৌশলে ঝুকিপুর্ন ভাবে নরসিংদী এর বেলাবো থানার এফআইআর নং-৯, ৩১ জানুয়ারী ২০১৯ জিআর নং-৯ ৩১ জানুয়ারী ২০১৯ ধারা-১১ (ক)/৮/৩০-২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধনী ২০০৩, জিআর ৯(১) ১৯, প্রসেস-২১৫/২৪ (কুড়িগ্রাম) সংক্রান্ত যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তসহ ৫০ হাজার টাকা জরিমানাসহ সাজাপ্রাপ্ত দন্ডিত আসামী রৌমারী সীমান্ত এলাকা রতনপুর গ্রামের শাহিনুর ইসলাম এর পুত্র মামুন মিয়াকে আটক করে কুড়িগ্রাম বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করেছেন রৌমারী থানা পুলিশ। 

উল্লেখ্য যে, ঢাকার আশুলিয়ায় কান্তার বিউটি পার্লারের মালিক মার্জিয়া কান্তাকে (২৬) তার স্বামী কুয়াকাটার একটি আবাসিক হোটেল কক্ষে গলা টিপে হত্যা করে। আর পুলিশি ঝামেলা এড়াতে কান্তার লাশ বস্তায় ভরে সাগরে ভাসিয়ে দেয় হোটেল কর্তৃপক্ষ।

কান্তা হত্যার প্রায় দুই বছর পর পিবিআইয়ের তদন্তে এই তথ্য বেরিয়ে এসেছে। স্বামী ও তার এক সহযোগী কান্তাকে নিয়ে ওই হোটেলে পর্যটক হিসেবে ওঠার পর কোন এক সময় তাকে হত্যা করে পলিথিনে লাশ মুড়িয়ে খাটের নিচে রেখে দুই খুনি পালিয়ে যায়। এরপর হোটেল কর্তৃপক্ষের নজরে এলে তারা ঝামেলা এড়াতে রাতের অন্ধকারে কান্তার লাশ বস্তায় ভরে মোটর সাইকেলের পেছনে তুলে নিয়ে সাগরে ভাসিয়ে দেয়। এভাবে ঘটনাটি আবাসিক হোটেল কর্তৃপক্ষের ধামাচাপা দেবার অপচেষ্টা এবং খুনিরা এতদিন ধরা ছোঁয়ার বাইরে থাকলেও পিবিআইয়ের তদন্তে বিস্তারিত বেরিয়ে এসেছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নরসিংদী জেলার পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ইন্সপেক্টর মো. মনিরুজ্জামান সাংবাদিকদের জানান, বেলাবো থানার নরসিংদী জেলার সোহরাব হোসেন রতনের মেয়ে মার্জিয়া আক্তার কান্তা ঢাকার আশুলিয়ায় বিউটি পার্লারের ব্যবসা করতেন। সেখানে কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারীর শহিদুল ইসলাম সাগরের সঙ্গে পরিচয়ের সূত্রে দুই লাখ টাকার কাবিননামায় তাদের বিয়ে হয়।

বিয়ের কিছুদিন পর মার্জিয়া কান্তা জানতে পারেন তার স্বামী শহিদুল ইসলাম সাগরের আরও এক স্ত্রী রয়েছে। বিষয়টি গোপন করে তাকে বিয়ে করায় সহজে মেনে নিতে পারছিলেন না কান্তা। এ নিয়ে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক স্ট্যাটাসে স্বামী শহিদুল ইসলাম সাগরকে প্রতারক লম্পট হিসেবে তুলে ধরাই কাল হয় কান্তার জীবনে।

এ ঘটনায় কৌশলের আশ্রয় নেন স্বামী শহিদুল ইসলাম সাগর। ভালবাসার অভিনয় করে ভারতে বেড়াতে নিয়ে যাবার কথা বলে দ্বিতীয় স্ত্রী মার্জিয়া কান্তার মন জয়ের চেষ্টা করে সফলও হন স্বামী সাগর।

এরপর ২০১৮ সালের ২১ সেপ্টেম্বর আশুলিয়া থেকে স্বামী-স্ত্রী প্রথমে শরীয়তপুরে আবাসিক হোটেল নূর ইন্টারন্যাশনালে এসে রাত কাটান। সেখানে স্বামী শহিদুলের মামাতো ভাই মামুন এসে তাদের সঙ্গে যুক্ত হন। এর পরদিন তারা শরীয়তপুর থেকে কুয়াকাটার উদ্দেশে এসে আবাসিক হোটেল আল-মদিনার বি-১ নং কক্ষে ওঠেন। কোনো এক সময় কান্তাকে গলা টিপে হত্যা করে পলিথিনে লাশ মুড়িয়ে খাটের নিচে রেখে তারা দুজন পালিয়ে যান।

২৩ সেপ্টেম্বর বিকালে ওই হোটেলকক্ষে তালা ঝুলতে দেখে কোনো সাড়াশব্দ না পাওয়ায় হোটেল কর্তৃপক্ষের সন্দেহ হলে মহিপুর থানা পুলিশকে খবর দেয়া হয়। পুলিশ এসে কান্তার ব্যবহৃত জামাকাপড় জব্দ করে নিয়ে গেলেও খাটের নিচে লাশ থাকার বিষয়টি তাদের নজরে আসেনি।

এর দু’দিন পর ওই কক্ষ থেকে দুর্গন্ধ বের হলে হোটেল ম্যানেজার আমির এবং হোটেল বয় সাইফুলের নজরে লাশটি এলে তারা হোটেল মালিক দেলোয়ারকে জানান। এরপর দেলোয়ার, তার ছোট ভাই আনোয়ার, ম্যানেজার আমির ও বয় সাইফুল চারজনে মিলে হত্যার আলামত নষ্ট করে লাশ গুমের সিদ্ধান্তনেয়।

পরিকল্পনা অনুযায়ী রাত এগারোটার দিকে বস্তায় ভরে মোটরসাইকেলের পেছনে তুলে দেলোয়ার ও আনোয়ার কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের পশ্চিম দিকে লেম্বুচর এলাকায় নিয়ে যায়। সেখানে গলা সমান সাগরের পানিতে নেমে লাশ ভাসিয়ে দিয়ে দুইভাই হোটেলে ফিরে আসেন। এরপর তারা এ বিষয়টি নিয়ে আর কোথাও মুখ খোলেনি।

এ ঘটনার প্রায় একবছর পর নরসিংদী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে স্বামী শহিদুল ইসলাম সাগরসহ তার পরিবারের পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে মার্জিয়া কান্তার বাবা সোহরাব হোসেন রতন বাদী হয়ে গত ৩১ জানুয়ারি ২০১৯ হত্যা করে লাশ গুমের মামলা দায়ের করে।

মামলাটি আদালত আমলে নিয়ে নরসিংদীর বেলাবো থানায় এজাহার হিসেবে গণ্য করে তদন্তের নির্দেশ দেয়। পরবর্তীতে আদালতের নির্দেশে পিবিআই মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব গ্রহণ করে। অভিযুক্ত স্বামী শহিদুল ইসলাম সাগরকে গ্রেফতারের পর তদন্তের হালে পানি পায়। এরপর সহযোগী অপর খুনি মামাতো ভাই মামুন পিবিআইর জালে চলতি বছর ১ সেপ্টেম্বর ধরা পড়লে তদন্তে আরও গতি পায়।

মামুনের দেয়া তথ্য অনুযায়ী তাকে নিয়ে পিবিআই কুয়াকাটার আবাসিক হোটেল আল-মদিনায় বৃহস্পতিবার অভিযানে গেলে খুব সহজেই হোটেল মালিক দোলোয়ার ও তার ছোট ভাই আনোয়ার এবং হোটেল ম্যানেজার এবং বয় মার্জিয়া কান্তার লাশ গুমের সত্যতা স্বীকার করলে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এরপর কুয়াকাটা থেকে তাদের চারজনকে নরসিংদী নিয়ে যায় পিবিআই।

মামলার তদন্তের বিস্তারিত অগ্রগতি তুলে ধরে পিবিআই তাদের নরসিংদী কার্যালয়ে শনিবার বিকালে একটি সংবাদ সম্মেলন করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হত্যাকান্ড ও লাশ গুমের সত্যতা স্বীকার করেছে বলে এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নরসিংদী পিবিআইর পরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান গ্রেফতারকৃতদের আদালতে সোপর্দ করার কথা জানান।

মহিপুর থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান বলেন, হোটেলে অবস্থানকারীরা ভাড়া পরিশোধ না করেই তাদের ব্যবহৃত কিছু জামাকাপড় রেখে পালিয়েছে মর্মে হোটেল আলমদিনার পক্ষ  থেকে পুলিশকে জানানো হয়। পুলিশ ওইসব ব্যবহৃত জামাকাপড় তখন জব্দ করে থানায় রাখে। পরবর্তীতে খাটের নিচে লাশ পাওয়ার বিষয়টি পুলিশকে না জানিয়ে হোটেল মালিক ও কর্মচারীরা আলামত নষ্ট করে লাশ গুম করে।

এ ঘটনার প্রায় একবছর পর নরসিংদী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে স্বামী শহিদুল ইসলাম সাগরসহ তার পরিবারের পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে মার্জিয়া কান্তার বাবা সোহরাব হোসেন রতন বাদী হয়ে গত ৩১ জানুয়ারি ২০১৯ হত্যা করে লাশ গুমের মামলা দায়ের করে।


আরও খবর



বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৫২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে। আমার দল ও মতের সঙ্গে মিল না থাকলেও মুক্তিযোদ্ধারা আমার কাছে সব সময় সম্মানিত,বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ফেলোশিপ অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের ছেলে-মেয়েরা সবচেয়ে বেশি মেধাবী। তাদের সুযোগ তৈরি করে দিতে হবে। সেটাই আমাদের কর্তব্য। সেই সুযোগটি আমরা করে দিতে চাই। সেই কারণে ফেলোশিপটা চালু করেছি।

সরকারপ্রধান বলেন, ২০২১ থেকে ২০৪১ সাল নির্দিষ্ট করেছি। ২০৪১ সালে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ব। আমাদের জনশক্তি স্মার্ট জনশক্তি হবে। আমাদেরকে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধারা নিজের জীবনের মায়া ত্যাগ করে যার যা কিছু ছিল তা নিয়ে ঝাপিয়ে পড়েছিল। তাদের আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে আমাদের বিজয় নিশ্চিত হয়েছে। তাদের সব সময় সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে। আমি জানি হয়ত অনেকে আমাদের দলের সমর্থনে নাই। অন্য জায়গা চলে গেছে বা অনেকের অনেক কিছু থাকতে পারে। যে যেখানে যাক সেটা আমার বিবেচ্য বিষয় না। আমার বিবেচ্য হলো তারা তাদের সর্বোচ্চ ত্যাগ করে শত্রুকে পরাজিত করে বিজয় এনে দিয়েছেন। সেক্ষেত্রে তাদের সম্মানটা সর্বোচ্চ থাকবে বলে আমি মনে করি।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক উপদেষ্টা ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী ও প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ফুলবাড়ীর পল্লীতে বিষ প্রয়োগে আমন ধানের চারা নষ্ট

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৯৮জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার বেতদিঘী ইউপির দলদলিয়া গ্রামের মোঃ আবু ফাজেল গংরা মোঃ সারেজুল ইসলাম এর ১২ বিঘা জমির আমন ধানের বীজতলা বিষ প্রয়োগ করে নষ্ট করে দেন। 

ফুলবাড়ী উপজেলার বেতদিঘী ইউপির দলদলিয়া গ্রামের মৃত্যু মকছেদ আলীর পুত্র মোঃ সারেজুল ইসলাম এর ফুলবাড়ী থানায় গত ২৬/০৬/২০২৪ইং তারিখে দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ১২ বিঘা জমিতে আমন ধানের চারা রোপনের জন্য তৈরি করা হয়। এ সময় প্রতিপক্ষ মোঃ আবু ফাজেল (৫১), পিতা: মৃত তোফাজ্জাল হোসেন; মোঃ জাকিরুল ইসলাম (৩৫), পিতা: আব্দুস সালাম; মোঃ শরিফুল ইসলাম (৩৮), পিতা: মৃত নাজিমুদ্দিন উভয়ের সাং-দলদলিয়া ও গঙ্গাপুর, মোঃ নজরুল ইসলাম (৪৫), পিতা: মৃত আফাজ উদ্দিন; মোঃ আনোয়ার হোসেন (৪০), পিতা: আবুল হোসেন সর্ব সাং-দলদলিয়া, ফুলবাড়ী, দিনাজপুর। তারা দলবদ্ধ হয়ে গত ০২দিন আগে তার নিজস্ব সম্পত্তির উপর আমন ধানের চারা জমিতে লাগানো অবস্থায় বিষাক্ত কীটনাশক প্রয়োগ করে নষ্ট করে দেয়। গত ২৬/০৬/২০২৪ইং তারিখে দুপুর ২টায় জমিতে গিয়ে দেখেন আমন ধানের চারাগুলি হলুদ ও লাল হয়ে গেছে। ১২ বিঘা জমিতে ঐ আমন ধানের চারা রোপন করার প্রস্তুতি নিলে উল্লেখ্য ব্যক্তিরা এই ঘটনা ঘটায়। এতে তার অফুরন্ত ক্ষতিসাধন হয। 

এই ঘটনায় সারেজুল ইসলাম বাদী হয়ে গতকাল সোমবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও কৃষি অফিসার কে লিখিত ভাবে অভিযোগ করেন। 

এ ব্যাপারে সারেজুল ইসলাম উল্লেখ্য ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে প্রশসনের অশুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। 

এই ঘটনায় ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 


আরও খবর