Logo
আজঃ Wednesday ২৬ January ২০২২
শিরোনাম
অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সহ-শিল্পীদের নগ্ন ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিদেশের মাটিতে কৃষিপণ্য সরবরাহ বাড়াণোর লক্ষ্যে : ইরান রাজনৈতিক কঠিন চাপে রয়েছেন মেয়র আরিফুল স্বপ্নের মেট্রোরেল রওনা হলো আগারগাঁওয়ের উদ্দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণে ভারতে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত নিয়মিত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ মুরাদ হাসান এমিরেটসের ফ্লাইটে কানাডা গেলেন সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আগামী বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের উন্নতি দেখতে চান করোনাভাইরাসে আরও ছয়জনের মৃত্যু বিশ্বের ৪৩তম ক্ষমতাধর নারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ পাসের বিষয়ে পরিষ্কার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি

হয়নি হাফ পাসের সিদ্ধান্ত,টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১৯১জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ পাসের বিষয়ে পরিষ্কার কোনো সিদ্ধান্ত না হলেও সড়ক-পরিবহন-মালিক-শ্রমিকসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে সমন্বিত করে একটি টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব করা হয়েছে।

 

শনিবার রাজধানীর বনানীতে বিআরটিএ কার্যালয়ে বেলা পৌনে ১২টা থেকে দুপুর সোয়া ২টা পর্যন্ত চলা বাস মালিক সমিতি, শ্রমিক ফেডারেশনের সঙ্গে বিআরটিএসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বৈঠকে কয়েকটি প্রস্তাবের সঙ্গে এ প্রস্তাব আনা হয়।

 

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকে হাফ পাসের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে কী কী কারণে বা কী উপায় হাফ পাসের দাবি পূরণ করা যায়, সে বিষয়ে সবার মধ্যে বিস্তর আলোচনা হয়। হাফ পাসের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই বৈঠক শেষ হয়েছে। পরিবহন নেতাদের পক্ষ থেকে টাস্কফোর্স গঠনসহ বেশ কয়েকটি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। প্রস্তাবগুলো বিবেচনা নিয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। 

 

বৈঠক শেষে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্লাহ বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবি যৌক্তিকভাবে সমাধানে চেষ্টা চলছে। ঢাকার ৮০ শতাংশ বাস মালিক গরিব। হাফ ভাড়া নিলে মালিকদের যে ক্ষতি হবে, তা সরকার কীভাবে পূরণ করবে? সেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আমরা কিছু প্রস্তাব দিয়েছি। সবার সমন্বয়ে টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব দিয়েছি। 

 

ছাত্রদের অনুরোধ জানিয়ে এ পরিবহন নেতা বলেন, হাফ ভাড়ার দাবিতে বাস ভাঙচুর, শ্রমিকদের মারধর অব্যাহত রয়েছে। শিক্ষার্থীদের প্রতি অনুরোধ থাকবে, তারা যেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে যায়। 

 

টাস্কফোর্স কবে গঠন করা হবে এ প্রশ্নে বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, এটা নতুন প্রস্তাব। টাস্কফোর্স গঠনের বিষয়ে পরে সিদ্ধান্ত হবে। টাস্কফোর্স গঠনের মাধ্যমে যে সিদ্ধান্ত আসবে তা সেভাবে বাস্তবায়ন হবে।

তিনি আরো বলেন, পরিবহন নেতাদের পক্ষ থেকে কনসেশন (সুবিধা) দেওয়ার প্রস্তাব এসেছে। কত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কত ছাত্র, কতজন বাস ব্যবহার করে তার একটা পরিসংখ্যান চেয়েছেন নেতারা। শিক্ষা মন্ত্রণালয় সেই তথ্য দেবে। 

 

টাস্কফোর্স গঠনের বিষয়ে বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ বলেন, বাসে হাফ ভাড়া বাস্তবায়নে পরিবহন নেতারা আন্তরিক। কিন্তু তাদের যে ক্ষতি হবে তা কীভাবে পূরণ করা হবে, কত ভর্তুকি দেবে সেসব বিষয়ে সিদ্ধান্তের জন্য সরকার ও পরিবহনে সম্পৃক্তদের নিয়ে টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব এসেছে। সরকারকে টাস্কফোর্সের বিষয়ে জানাবে।

 

এদিকে বাসে হাফ পাসের সিদ্ধান্ত আসার আগ পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের সড়ক ছেড়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে যাওয়ার আহবান জানিয়েছেন বিআরটিএ চেয়ারম্যান এবং পরিবহন নেতারা।


-খবর প্রতিদিন/ সি.বা   


আরও খবর



নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে

প্রকাশিত:Sunday ১৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১১৪জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। আজ রোববার সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া এই ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। ২০১১ সালে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন গঠিত হওয়ার পর এটি তৃতীয় নির্বাচন।

এবার নির্বাচনে মেয়র পদে সাত এবং সাধারণ ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১৮২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মোট ভোটার রয়েছেন পাঁচ লাখ ১৭ হাজার ৩৫৭ জন। প্রচার-প্রচারণায় একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেও এ নির্বাচনকে ঘিরে এখন পর্যন্ত কোনো সহিংসতার ঘটনা ঘটেনি।

এই নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সাত প্রার্থী। তারা হলেন-আওয়ামী লীগের সেলিনা হায়াৎ আইভী (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমুর আলম খন্দকার (হাতি), খেলাফত মজলিশের এ বি এম সিরাজুল মামুন (দেয়াল ঘড়ি), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাও. মো. মাসুম বিল্লাহ (হাতপাখা), স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. কামরুল ইসলাম (ঘোড়া), বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের মো. জসীম উদ্দিন (বটগাছ) ও বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির মো. রাশেদ ফেরদৌস (হাত ঘড়ি)। এ ছাড়া সিটির ২৭ ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৪৮ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ভোটাররা মনে করছেন, মেয়র পদে মূল লড়াইটা হবে আইভী ও তৈমুরের মধ্যে।

জানা গেছে, মোট ভোটারের দুই লাখ ৫৯ হাজার ৮৪৬ জন পুরুষ ও দুই লাখ ৫৭ হাজার ৫১১ জন নারী। এ ছাড়া তৃতীয় লিঙ্গের চার জন ভোটার রয়েছেন। নগরীর ২৭ ওয়ার্ডের ১৯২ কেন্দ্রের এক হাজার ৩৩৩ কক্ষে ভোটগ্রহণ চলবে। এ জন্য নারায়ণগঞ্জে দুই হাজার ৯১২টি ইভিএম মেশিন আনা হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে প্রয়োজনের তুলনায় দেড়গুণ ইভিএম রাখা হবে বলে জানিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার। শনিবার দুপুর থেকে কেন্দ্রগুলোতে নির্বাচনি সরঞ্জাম পাঠানো শুরু হয়।

স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ১৯২ কেন্দ্রের মধ্যে ৩০টি ঝুঁকিপূর্ণ বলে চিহ্নিত করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তবে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, ‘সবগুলো কেন্দ্রকেই গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচনায় রেখে সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।’

জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম বলেন, ‘অবাধ, সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিচালনা করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে।’

নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন পরিচালনায় রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্বে রয়েছেন ঢাকা আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার। সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে রয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাসহ ৯ জন।

তারা হলেন, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মতিয়ুর রহমান, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান, বন্দর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুল কাদির, সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আফরোজা খাতুন, সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ইউসুফ উর রহমান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের নির্বাচন কর্মকর্তা প্রতিভা বিশ্বাস, আড়াইহাজার উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সুলতানা এলিন, কেরানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুল আজিজ ও ডেমরা থানা নির্বাচন কর্মকর্তা আল-আমিন।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনে ১৯২ কেন্দ্রের ভেতরে ও বাইরে নিরাপত্তা নিশ্চিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ৫ হাজারেরও বেশি সদস্য নিয়োজিত আছেন। প্রতি কেন্দ্রে আছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ২৬ জন সদস্য। পুলিশের ২৭ ইউনিট স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে আছেন। এ ছাড়া পুলিশের ৬৪টি মোবাইল টিম; প্রতি টিমে একজন এসআইয়ের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্য আছেন। নির্বাচনি মাঠে র‌্যাবের স্ট্রাইকিং ফোর্স ৩, চেকপোস্টে ছয়, টহলে সাত ও দুটি স্ট্যাটিক টিম আছে। এ ছাড়া এই নির্বাচনে আছে বিজিবির ২০ প্লাটুন সদস্য।

নির্বাচনে দায়িত্ব পালনের জন্য ১৪ জন ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়। পেনাল কোডের অধীনে তারা মামলা নিয়ে সংক্ষিপ্ত বিচারকাজ পরিচালনা করবেন। গত ১৪ জানুয়ারি থেকে আগামী ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত মোট পাঁচদিন নির্বাচনি এলাকায় কাজ করবেন তারা। এ ছাড়া ২৭টি ওয়ার্ডে থাকবেন ২৭ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) রাত থেকে নির্বাচনি এলাকায় মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ভোটের দিন নির্বাচন কমিশনের অনুমোদন ছাড়া কোনও যান্ত্রিক বাহন চলাচলও নিষিদ্ধ। এ ছাড়া নির্বাচনি এলাকায় সব ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র বহন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

নির্বাচন পর্যবেক্ষণে ৯ সংস্থার ৪২ পর্যবেক্ষককে অনুমোদন দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। সংস্থাগুলো হলো-জাতীয় নির্বাচন পর্যবেক্ষণ পরিষদ (জানিপপ), সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন, আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) ফাউন্ডেশন, সমাজ উন্নয়ন প্রয়াস, তৃণমূল উন্নয়ন সংস্থা, তালতলা যুব উন্নয়ন সংগঠন, রিহাব ফাউন্ডেশন, বিবি আছিয়া ফাউন্ডেশন এবং মানবাধিকার ও সমাজ উন্নয়ন সংস্থা (মওসুস)।


আরও খবর



করোনায় আক্রান্ত তাহসান-মিথিলার মেয়ে আইরা

প্রকাশিত:Thursday ০৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১২৪জন দেখেছেন
Image

বিনোদন প্রতিবেদক: গায়ক-অভিনেতা তাহসান খান ও অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলার মেয়ে আইরা তেহরীম খান করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছে। এর আগে চলতি বছরের শুরুতেই করোনায় আক্রান্ত হন মিথিলার বর্তমান স্বামী ভারতীয় নির্মাতা সৃজিত মুখার্জি। বর্তমানে মিথিল-আইরা কলকাতাতেই আছেন।

মিথিলা বলেন, ‘সৃজিতের পর আমার মেয়ে আইরারও করোনা পজিটিভ এসেছে। গত তিন দিন ধরে তার জ্বর ছিল। পরীক্ষা করার পর গতকাল (৫ জানুয়ারি) তার করোনা পজিটিভ আসে। তবে আমরা আগে থেকেই ওষুধ খাওয়ানো শুরু করি। এখন বেশ ভালো আছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শুরুতে জ্বর এবং কাশির পর দুজনই এখন আগের চেয়ে অনেক ভালো আছে। তারা যাতে দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠে সেজন্য সবাই দোয়া করবেন।’

মিথিলা জানান, করোনার কারণে স্বামী এবং কন্যা দুজনের কাছ থেকে আলাদা থাকছেন তিনি। দূর থেকেই তাদের সেবা করছেন। তার বিশ্বাস দ্রুতই স্বামী সৃজিত ও কন্যা আইরা করোনামুক্ত হবেন।

তাহসানের সঙ্গে মিথিলার বিয়ে হয় ২০০৬ সালের ৩ আগস্ট। ২০১৭ সালের জুলাই মাসে তাদের বিচ্ছেদ হয়। তাদের একমাত্র সন্তান আইরা। ২০১৯ সালের ৬ ডিসেম্বর কলকাতার নির্মাতা সৃজিতকে বিয়ে করেন মিথিলা।


আরও খবর



হারানো ইমেইল খুঁজতে গিয়ে পেলেন ২৬ কোটি টাকা

প্রকাশিত:Monday ২৪ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
Image

অনলাইন ডেস্ক: পুরোনো ইমেইল খুঁজতে গিয়ে লটারিতে জেতা ৩০ লাখ ডলারের সন্ধান পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানের এক নার্স। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ২৬ কোটি টাকার সমপরিমাণ। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে জানা যায়, তার ইনবক্সের স্পাম ফোল্ডারেই ছিল লটারিতে তার ৩০ লাখ ডলার জয়ের খবরটি।

রোববার (২৩ জানুয়ারি) ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মিশিগানের বাসিন্দা লরা স্পিয়ার্স (৫৫) পেশায় একজন নার্স। গত ৩১ ডিসেম্বর ওই লটারির টিকিট কেটেছিলেন তিনি, কিন্তু ভুলেই গিয়েছিলেন ওই টিকিটের কথা। স্পাম ফোল্ডারে পাওয়া মেসেজের সূত্রেই পরে জানতে পারেন যে, তার কাটা টিকিটের নাম্বারটিই ড্রতে সর্বোচ্চ পুরস্কার পেয়েছে।

মিশিগানের ওকল্যান্ড কাউন্টির বাসিন্দা লরা জানান, আমি শুনছিলাম মিশিগান লটারির মেগা মিলিয়ন ড্রতে অনেকেই পুরস্কার পাচ্ছেন, তাই আমিও বছরের শেষ দিনে হঠাৎ ঝোঁকের বশেই একটা টিকিট কিনে নিয়েছিলাম। আমি এর আগে কখনো লটারির টিকিট কাটিনি।

তিনি আরও জানান, টিকিট কাটার প্রায় ১৫ দিন পরও ইনবক্সে কোনো ইমেইল না আসায় ভেবেছিলাম হয়তো কোনো পুরস্কার জিতিনি আমি। তবে এক বন্ধুর প্রয়োজনেই পুরোনো ইমেইল খুঁজতে স্পাম বক্সে ঢুকে আবিস্কার করি যে পুরস্কার জিতেছি।

লটারি সংস্থাটি জানিয়েছে, লরার টিকিটের নম্বর ছিল ২-৫-৩০-৪৬-৬১। লাকি ড্রয়ে নম্বর মিলে যাওয়ায় লটারির সর্বোচ্চ পুরস্কার ৩০ লাখ ডলার পেয়ে যান লরা।

আকস্মিক এমন লটারি জয়ের পর স্তম্ভিত লরা জানান, আমি বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। তাই আবারও নিশ্চিত হতে আমি লটারির অ্যাকাউন্টে লগ ইন করি। আমি এখনো বিশ্বাস করতে পারছি না যে, আমি আসলেই ৩০ লাখ ডলার পুরস্কার পেয়েছি! তবে আমি আমার ইমেইলের সেটিংস অবশ্যই পরিবর্তন করবো, যাতে ভবিষ্যতে লটারি জয়ের খবর আর মিস না হয়।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে লরা জানিয়েছেন, এখন আগেভাগেই চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার কথা ভাবছি। পরিবারের সাথে পুরস্কারের অর্থ ভাগাভাগির পরিকল্পনাও আছে।


আরও খবর



ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নে জনপ্রিয়তার শীর্ষে চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউল করিম রিপন

ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নে জনপ্রিয়তার শীর্ষে চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউল করিম রিপন

প্রকাশিত:Monday ১৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৪ January ২০২২ | ৯৩জন দেখেছেন
Image


নাজমুল হাসানঃ

ময়মনসিং জেলার ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়নে আসন্ন ৩১ জানুয়ারী ২০২২ ইং তারিখে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে অন্যান্যদের মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মোঃ রেজাউল করিম রিপন ।


রিপন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ঘোড়া মার্কা নিয়ে নির্বাচন যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছেন।জানা যায় মোঃ রেজাউল করিম রিপন ছাত্রজীবন থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে প্রথমে ছাত্রলীগ এবং দীর্ঘদিন হতে স্থানীয় যুবলীগে সফলতার সাথে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে। ইউপি নির্বাচনে ধারাবাহিক প্রক্রিয়া মোঃ রেজাউল করিম রিপন আওয়ামীলীগ হতে সরাসরি সমর্থন না পাওয়ায় দলীয় কর্মী ও নেতা এবং সাধারণ মানুষের সমর্থন ও দোয়া নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রচারণা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন।


আরো জানা যায় কর্মীবান্ধবও সমাজ সংগঠক রিপন ইতিপূর্বে ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় শিক্ষা স্বাস্থ্য ও জনকল্যাণে দৃষ্টান্ত মূলক ভাবে অবদান রেখে আসছেন।এলাকার জনসাধারণের যেকোনো ছোট-বড় সমস্যায় দ্রুত ছুটে গিয়ে সমাধান করাসহ ইউনিয়নের নানা উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকেন তরুণ এই চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী।


আমাদের সংবাদদাতা হবিরবাড়ী ইউনিয়ন এলাকায় পরিদর্শন করে জানতে পারেন আদর্শ ও সৎ চরিত্রবান রিপন কে ভোটযুদ্ধে জনগণ সুচিহ্নিত রায় প্রদান করে জয় করবেন এবং রিপন এর অনুকূলে নির্বাচনী পরিবেশ বিরাজ করছে মোঃ রিপন সর্বস্তরের জনগণের নিকট আন্তরিক সহায়তা ও দোয়া প্রার্থনা করেছেন।এদিকে, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে ব্যানার, ফেস্টুন, পোস্টারিং করাসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেরও ইউনিয়ন চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে তার সরব ভূমিকা বিদ্যমান।


এলাকার বিভিন্ন হাট-বাজার ও চায়ের দোকানে তাকে নিয়ে চলছে সর্বত্র আলোচনা এবং জনসাধারণের মধ্যে তাকে নিয়ে রয়েছে নানা জল্পনা-কল্পনা। এলাকার বিভিন্ন শেণি-পেশার মানুষ নিজ থেকেই মোঃ রেজাউল করিম রিপন এর পক্ষে প্রচারণাসহ দোয়া চেয়ে জনসাধারণের দ্বারপ্রান্তে যাচ্ছেন।


আরও খবর



তানোর পৌরসভায় ও চান্দুড়িয়ায় চেয়ারম্যান ময়নার শীতবস্ত্র বিতরণ

প্রকাশিত:Thursday ০৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১২৫জন দেখেছেন
Image
তানোর প্রতিনিধি :রাজশাহীর তানোরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা সরকারের দরিদ্র জনসাধারণের জন্য উপহার হিসেবে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করেছেন স্হানীয় সাংসদের প্রতিনিধি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না। তিনি সন্ধ্যার পরে পৌর সদর গোল্লাপাড়া হাফেজিয়া মাদ্রাসার কোমল মতি শিশু দের মাঝে নিজ হাতে তুলে দেন কম্বল ।এসময় পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ প্রদীপ সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল কাশেম,পৌর আওয়ামী লীগ নেতা ওয়াজির হাসান প্রতাপ সরকার, ফিটোসহ মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ ছাড়াও সুধীজনরা উপস্থিত ছিলেন। 
এর আগে দুপুর দুই টার দিকে উপজেলার চান্দুড়িয়া বাজারে দরিদ্র ছিন্নমূল মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না ।এসময় ইউনিয়ন পরিষদের তিনবারের চেয়ারম্যান ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সোনিয়া সরদার, ছাত্রলীগ নেতা রিয়াদ, দুলাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 



আরও খবর