Logo
আজঃ Wednesday ০৮ December ২০২১
শিরোনাম
নৌকা পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান হলো তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু! তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা কুমিল্লায় নৌকা পেয়েও সরে দাড়ালেন বাহালুল, প্রাথমিক সদস্য না হয়েও মনোনীত নূরুল! মাতুয়াইলে সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্ধোধন করলেন সংসদ সদস্য কাজী মনু পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা গাজীপুরে ৩০ সেকেন্ডেই মা-মেয়ের জীবন শেষ করল দুই খুনি হয়নি হাফ পাসের সিদ্ধান্ত,টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব আলেম-ওলামাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা-ভক্তি রয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত কুমিল্লার তিতাস ও মেঘনা উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা !
দুইজনে নামলো মৃত্যু, শনাক্ত ২১৪

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ২, শনাক্ত ২১৪

প্রকাশিত:Monday ০১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ১৯১জন দেখেছেন
Image



ঢাকাসহ সারাদেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২৭ হাজার ৮৭০ জনে। একই সময়ে নতুন করে ২১৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে সর্বমোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ১৫ লাখ ৬৯ হাজার ৭৫৩ জনে।

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা পরিস্থিতি সংক্রান্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গ বিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২০২ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ৩৩ হাজার ৬২৫ জন।

সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৮৩৩টি ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৯ হাজার ৬০৯টি এবং নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৯ হাজার ৯৩৪টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে এক কোটি তিন লাখ ৬৯ হাজার ৬০৪টি।  

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ১ দশমিক ০৮ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ১৪ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৭০ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

-খবর প্রতিদিন /সি.বা


আরও খবর



নাসিরনগরে শহিদ শেখ ফজলুল হক মনির জন্মদিন পালন

প্রকাশিত:Saturday ০৪ December ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ December ২০২১ | ৫৮জন দেখেছেন
Image

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া), 

জেলার নাসিরনগর উপজেলার যুবলীগের উদ্যোগে মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান বিশিষ্ট লেখক ও সাংবাদিক শহিদ শেখ ফজলুল হক মনির ৮৩ তম জন্মদিন পালন করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে ৪ ডিসেম্বর ২০২১ রোজ শনিবার সকাল ১১ ঘটিকার সময় স্থানীয়  ডাকবাংলো চত্বরে এক আলোচনা সভা ও দোয়ার  মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মোঃ রায়হান আলী ভূইয়ার সভাপতিত্বে আর যুগ্ন আহবায়ক ভানু চন্দ্র দেব ও মোজাম্মেল হক দানার সঞ্চালনায় উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ সংসদীয় ২৪৩ নাসিরনগরের আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব আলহাজ্ব বিএম ফরহাম হোসেন সংগ্রাম এমপি, বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি রাফি উদ্দিন আহমেদ, স্বাগত

বক্তব্য রাখেন যুবলীগ নেতা মহিউদুজ্জামান টিটু, অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন সাবেক উপজেলা যুবলীগের সভাপতি অঞ্জন কুমার দেব, যুবলীগ নেতা ও ভলাকুট ইউপি চেয়ারম্যান রুবেল মিয়া, চাপরতলা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মনছুর আহমেদ ভূইয়া, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা নির্মল চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক নাছির উদ্দিন রানা প্রমুখ।

পরে কেক কাটা ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের পরিসমাপ্তি ঘটে। 



আরও খবর



হাজার হাজার শৌখিন মৎস শিকারিদের আনা গোনায় রহুল বিল

পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ December ২০২১ | ১৬৬জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

মাছ ধরা বা মাছ শিকার করা বিলাঞ্চলের মানুষদের আজন্ম শখ। বিশেষ করে চলন বিল এলাকায় বর্ষা মৌসুমে নিম্নাঞ্চলের খাস বা সরকারি জলাভূমিতে পানি অল্প থাকাকালে মাছ শিকারিরা দল বদ্ধ হয়ে পলো, ছোট জাল নিয়ে একটি নিদিষ্ট দিনে মাছ শিকার করে থাকে। এলাকায় এটি পলো উৎসব বা বাউত উৎসব নামের পরিচিত।

 

শনিবার পাবনার ভাঙ্গুড়ার উপজেলার পারভাঙ্গুড়া ইউপির বিল রুহুলে এমনই এক শৌখিন মাছ শিকারিদের মিলন মেলা হয়েছে। এতে সবার কাছে মাছ ধরা পড়ুক বা না পড়ুক এক সঙ্গে বছরের এই দিনে মাছ ধরতে আসার মজাই যেন অন্য রকম।

 

সরেজমিন শনিবার উপজেলার বিল রুহুল এলাকা ঘুরে দেখা যায় , পাবনাসহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে শৌখিন মাছ শিকারিরা ভোর বেলার কুয়াশা ভেদ করেই বিভিন্ন যানবাহন বাস, নছিমন, আটো ভ্যান, ভটভটি যোগে এই বিল পাড়ে আসতে থাকে। তাদের হাতে পলো, জাল ঠেলাজাল, ধর্মখরাসহ মাছ ধরার বিভিন্ন উপকরণ নিয়ে বিলের পাড়ে এসে হাজির হয়ে এক সঙ্গে মাছ ধরতে পানিতে নামে। তারা মাছ ধরার সময় বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। কেউ মাছ পেলে সবাই মিলে তাকে আরো উৎসাহ দিতে থাকে।

 

এদিনে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে বিলপাড়ে বিস্কুট রুটি ও চায়ের দোকান নিয়েও বসেছে। মাৎস শিকারিদের কেউ কেউ পেয়েছে সোল, বোয়াল, রুই, গজার । আবার অনেকেই মাছ পায় নি। তবে প্রায় সবার মুখেই ছিল মাছ ধরতে আসতে পারায় আনন্দের ছোয়া।

শিশু, কিশোর, যুবক, বৃদ্ধসহ সব ধরণের হাজার হাজার শৌখিন মৎস শিকারিদের আনা গোনায় রহুল বিল ছিল কানায় কানায় পরিপূর্ণ।

জানা গেছে, ভাঙ্গুড়া উপজেলার পারভাঙ্গুড়া ইউপি ও পার্শ্ববর্তী চাটমোহর উপজেলার পার্শ্বডাঙ্গা ইউপির কিছু অংশ নিয়ে কয়েক হাজার একর জমি নিয়ে রয়েছে রুহুল বিল। বিশেষত বর্ষার পানি চলে যাওয়ার পর কয়েক শ’ একর জমিতে বিভিন্ন গভীরতায় পানি থাকে। সেখানে বর্ষার পানিতে আটকে থাকা বোয়াল, সোল, গজার, পুঁটি, সিং সহ দেশীয় প্রজাতির বিভিন্ন মাছ।

 

বছরের একটি নিদিষ্ট দিনে একে অন্যেরে সঙ্গে মোবাইল ফোন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যোগাযোগ করে নাটোর, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল থেকে বাস, ভটভটি, নছিমন যোগে ভোরে এই বিলে মাছ ধরার জন্য এসে হাজির হয়। এদিনে তাদের হাতে ধরা পড়ে নানা ধরণের মাছ। বেলা বাড়ার  সঙ্গে সঙ্গে মাছ শিকারির সংখ্যাও কমতে থাকে।

মাছ ধরতে আসা নাটোরের পঞ্চাশোর্ধ আলম হোসেন বলেন, এই দিনটিতে রহুল বিলে মাছ ধরার জন্য প্রতি বছর অপেক্ষা করে থাকি। লোক মুখে খবর পেয়ে মাছ ধরতে এসেছি।

টাঙ্গাইলের বাছের উদ্দীন বলেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মাছ ধরার খবর পেয়ে তারা একাধিক বাস রিজার্ভ করে পলো ও মাছ ধরার উপকরণ নিয়ে কয়েকশ শৌখিন মাৎস শিকারি মাছ ধরতে এসেছেন।

 

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



নাসিরনগরে খেলনার প্রলোভনে শিশুকে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:Friday ০৩ December ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ December ২০২১ | ১০২জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নান,

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ভলাকূট ইউনিয়নে ৭ বছরের শিশুর সাথে যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘঠেছে।

ওই ঘটনায় শিশুর  মা সালেহা বেগম বাদী হয়ে নাসিরনগর থানায় একটি এজাহার দায়ের করলে। অভিযুক্ত হাকিম মিয়া (৩০)কে আটক করে পুলিশ। 

এজাহার ও ভুক্তভোগীর পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ২৯ নভেম্বর  সাড়ে ৪ ঘটিকার সময় ভলাকূট নদীর তীরে মেলায় ঘুরতে যায় ওই শিশু। এসময় একই গ্রামের হাকিম মিয়া শিশুকে খেলনা কিনে দেয়ার কথা বলে নৌকাতে করে নদীর অপর পাড়ে নিয়ে যায়।

সেখানে নিয়ে ওই শিশুকে যৌন নির্যাতনের পর মেলাতে রেখে পালিয়ে যায় হাকিম। 

পরে শিশুটির কান্নাকাটিতে আশেপাশের লোকজন এসে শিশুটিকে বাড়িতে নিয়ে যায়। তখন ওই শিশুর বায়ু পথে রক্তক্ষরণ হলে চিকিৎসার জন্য প্রথমে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে জেলা সদর হাসপতালে ভর্তি করা হয়।

বর্তমানে ওই শিশু জেলা সদর হাসপতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলার বাদী ও ভিকটিমের মা সালেহা বেগম বলেন,, আমার ভিকটিম  বর্তমানে হাসপতালে ভর্তি আছে।

আমাদেন বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে।

আমরা ওই ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চাই।

নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ  হাবিবুল্লা সরকার বলেন,আমরা  ১ জনকে গ্রেফতার করেছি।

তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা হবে বলে ও জানান এ কর্মকর্তা।


-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



কুমিল্লায় প্রকাশ্যে শিয়াল জবাই করে মাংস বিক্রি

প্রকাশিত:Thursday ১১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ৩৯৩জন দেখেছেন
Image


 

কুমিল্লার লাকসামে প্রকাশ্যে শিয়ালের মাংস বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (১০ নভেম্বর) বিকেলে শহরের রাজঘাট এলাকায় এমন দৃশ্য দেখা যায়। এরপর থেকে এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ফেসবুকে ঘুরপাক খাচ্ছে।

 

স্থানীয় সূত্রে খবর, বুধবার সকালে লাকসাম রেললাইন এলাকায় একটি শিয়াল বিক্রি করার জন্য চট্টগ্রাম থেকে আসেন দুই যুবক। খবর পেয়ে পৌরশহরের রাজঘাট এলাকার বাসিন্দা সাইফুল, মরণ ও লিটনসহ কয়েক যুবক মিলে তাদের কাছ থেকে দেড় হাজার টাকা দিয়ে শিয়ালটি কিনে নেন। বিকেলে রাজঘাট ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় নিয়ে শিয়ালটি জবাই করা হয়। এজন্য স্থানীয় কসাই জিয়াকে ১৫০ টাকা দেওয়া হয়। শিয়ালটি জবাই করার দৃশ্য কেউ একজন মোবাইলে ভিডিও করে। পরে সেই ভিডিও ভাইরাল হয়।

 

ভিডিওতে দেখা যায়, সাইফুল, মরণ ও লিটনসহ কয়েকজন যুবক শিয়াল জবাই করে মাংস বিক্রির স্থানের বর্ণনা দেন। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে শিয়ালের মাংসের নানা উপকারিতার কথা উল্লেখ করেন। প্রতি কেজি মাংসের দাম ১০০০ টাকা বলে জানানো হয় ভিডিওতে। খবর পেয়ে কয়েকজন সেই মাংস কিনে নেন। এরপরই শিয়ালের মাংস বিক্রেতারা সটকে পড়েন।

 

লাকসামের ইউএনও এ কে এম সাইফুল আলম বলেন, বন্যপ্রাণী জবাই করে মাংস বিক্রি করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  খবর প্রতিদিন- সি/বা

নিউজ ট্যাগ: শিয়াল জবাই

আরও খবর



গাজীপুরে ৩০ সেকেন্ডেই মা-মেয়ের জীবন শেষ করল দুই খুনি

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ০৮ December ২০২১ | ৩২৫জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image

 

 

 গাজীপুরে মা-মেয়েকে গলা কেটে হত্যার রহস্য ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে উদঘাটন করেছে পুলিশ। একই সঙ্গে দুই খুনিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মাত্র ৩০-৪০ সেকেন্ডেই মা-মেয়েকে হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছেন তারা।

 

জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার সালদিয়া গ্রাম থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাররা হলেন- একই গ্রামের সাত্তার খানের ছেলে জাহিদুল ইসলাম ও মনির হোসেনের ছেলে মহিউদ্দিন ওরফে বাবু।

শনিবার দুপুরে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর দফতরে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম) মো. জাকির হাসান।

তিনি জানান, ১২ বছর আগে রাজশাহী জেলার বাসিন্দা জয়নাল আবেদীনের সঙ্গে ফেরদৌসীর বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ১১ বছরের মেয়ে হাফসা ও চার বছরের তাসমিয়া রয়েছে। কিন্তু বনিবনা না হওয়ায় স্বামীকে তালাক দিয়ে বাবার বাড়িতে চলে আসেন ফেরদৌসী। এরপর মোবাইল ফোনে পরিচয়ের মাধ্যমে তিন বছর আগে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার রবিউল ইসলামের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। রবিউলেরও আরেক সংসার ছিল। কিন্তু দুই বছর আগে তার সঙ্গেও ফেরদৌসীর ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়।

 

এরপর দুই মেয়েকে নিয়ে হাড়িনাল এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে গার্ডিয়ান লাইফ ইনস্যুরেন্স লিমিটেডে চাকরি করেন। এছাড়া তিন মাস আগে স্ত্রীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয় বাবুর। পরে ফেরদৌসীর সহায়তায় একই কোম্পানিতে চাকরি নেন বাবু। কিন্তু বিচ্ছেদের ঘটনায় ফেরদৌসীকেই দায়ী মনে করেন তিনি। আর এ প্রতিশোধ নিতেই হত্যার পরিকল্পনা।

 

পরিকল্পনা অনুযায়ী বুধবার সন্ধ্যায় ইনস্যুরেন্সের টাকা দেওয়ার কথা বলে মোবাইল ফোনে ফেরদৌসীকে ডাকেন বাবুর বন্ধু জাহিদুল। ফোন পেয়ে মেয়ে তাসমিয়াকে নিয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের দেশীপাড়া এলাকায় যান ফেরদৌসী। সেখানে যেতেই তাকে ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কাটেন জাহিদুল ও বাবু। মাকে রক্তাক্ত দেখে চিৎকার করলে মেয়েকেও গলা কেটে হত্যা করেন তারা। দুটি খুন করতে তারা সময় নেন মাত্র ৩০-৪০ সেকেন্ড। এরপর তারা মোটরসাইকেলে পালিয়ে যান।

বুধবার রাতে দেশীপাড়া এলাকায় সড়কের পাশে মা-মেয়ের লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন এক কেয়ারটেকার। পরে লাশ দুটি উদ্ধার করে পুলিশ।

 

নিহতরা হলেন- গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার জাঙ্গালীয়া ইউনিয়নের বড়াইয়া গ্রামের বাছির উদ্দিন বছুর মেয়ে ফেরদৌসী আক্তার ও তার চার বছর বয়সী মেয়ে তাসমিয়া আক্তার। ফেরদৌসী স্থানীয় চান্দনা চৌরাস্তার এলাকার গার্ডিয়ান লাইফ ইনস্যুরেন্স লিমিটেডের মাঠকর্মী হিসেবে কাজ করতেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা


আরও খবর