Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার বর ও কনের বাড়ীতে শোকের মাতম রাশিয়ায় বন্দুকধারীদের ভয়াবহ হামলায় ১৫ পুলিশ সদস্য নিহত

গ্রিসে দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২৬

প্রকাশিত:বুধবার ০১ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২২৯জন দেখেছেন

Image

অনলাইন ডেস্ক; গ্রিসের উত্তরাঞ্চলে দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে ২৬ জন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও ৮৫ জন। দেশটির ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে আজ বুধবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গ্রিসের লরিসা শহরের কাছে একটি মালবাহী ট্রেনের সঙ্গে আরেকটি যাত্রীবাহী ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে আগুন ধরে যায়। খবর পেয়ে আহতদের উদ্ধারে এবং আগুন নেভাতে সেখানে দ্রুত ছুটে যান জরুরি পরিষেবা সংস্থার সদস্যরা।

এ সময় যাত্রীবাহী ট্রেনটিতে কমপক্ষে সাড়ে ৩শ যাত্রী ছিল। ওই ট্রেন দুটি থেসালোনিকি এবং লারিসার মধ্যে চলাচল করছিল।

দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ফুটেজে সংঘর্ষে লাইনচ্যুত হয়ে যাওয়া বগিগুলো থেকে আগুনের শিখা এবং কালো ধোঁয়ার কুণ্ডলি বের হতে দেখা গেছে। ফায়ার সার্ভিস বলছে, ঘটনাস্থলে তাদের ১৭টি গাড়ি আগুন নেভানোর চেষ্টা করছে।

তবে কী কারণে এই সংঘর্ষ হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। 

ঘটনাস্থল থেকে সরিয়ে নেওয়া এক অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছেন, গাড়িতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছিল, লোকজন চিৎকার করছিল।

অ্যাঞ্জেলোস সিমাউরাস নামের আরেক যাত্রী স্থানীয় গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘এটি একটি ভূমিকম্পের মতো ছিল।

লাজোস নামে আরেক যাত্রী বলেছেন, অভিজ্ঞতাটি ছিল খুবই মর্মান্তিক। তিনি বলেন, ‘আমি আহত হইনি, কিন্তু আমার কাছের অন্যান্য লোকেদের রক্তে রঞ্জিত ছিলাম।

সেন্ট্রাল থেসালির আঞ্চলিক গভর্নর কস্টাস অ্যাগোরাসটোস রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে বলেছেন, ‘এটি খুবই শক্তিশালী সংঘর্ষ ছিল। এ ছিল এক ভয়াবহ রাত... দৃশ্যটি বর্ণনা করা কঠিন।’


আরও খবর



মাগুরার চাঞ্চল্যকর জোড়া খুনের বিচার ও আসামী গ্রেফতারের দাবিতে মিছিল ও মানববন্ধন

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১২২জন দেখেছেন

Image
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরার মহম্মদপুরে জোড়া খুনের আসামিদের গ্রেপ্তার ও বিচার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল এবং মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মামলার  ৫ মাস অতিক্রান্ত হলেও হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন ও  কাঙ্খিত অগ্রগতি না হওয়ায় নিহতের পরিবার এবং এলাকাবাসী  ক্ষোভ প্রকাশ করে এ মানববন্ধনে যোগ দেয়।

বুধবার ২৯ মে  দুপুরে মাগুরা প্রেসক্লাবের সামনে নিহতর পরিবার ও এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল এবং মানববন্ধন করে। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ইমদাদুল হক ক্যাপ্টেন,  মামলার বাদী আবুল কালাম, নিহত সবুজের স্ত্রী আলেয়া খাতুন ও ছোট ভাই আব্দুল্লাহ।বক্তারা অভিযোগ করেন,মামলার আসামিরা প্রকাশ্যে এলাকায় ঘোরাফেরা করলেও পুলিশ অজ্ঞাত কারণে নিষ্ক্রিয় রয়েছে।

উল্লেখ্য, গ্রাম্য  দলাদলি কে কেন্দ্র করে গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর রাতে মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা ইউনিয়নের পানিঘাটা গ্রামের সবুজ মোল্যা (৩০) ও তার আপন ভাই হৃদয় মোল্যা(১৭) কে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ঐ গ্রামের পুকুর পাড়ে গলা কেটে হত্যা করে প্রতিপক্ষরা।

মাগুরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ কালিমুল্লাহ জানান, পানিঘাটার দুই সহোদর সবুজ ও হৃদয় হত্যার পরদিন তার বড় ভাই আবুল কালাম বাদী হয়ে মোহাম্মদপুর থানায় ১০ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা রুজু করেন। পুলিশ ইতিমধ্যে এজাহার ভুক্ত  ৪ আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে। একজন আসামী ইতিমধ্যে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে এবং তদন্ত চলছে।

আরও খবর



আমতলীতে এনএসএস ও ওয়ার্ল্ড ভিশনের বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালিত

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮৫জন দেখেছেন

Image

নোমান,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি:‘করবো ভূমি পুনরুদ্ধার,হবে রুখবো মরুময়তা, অর্জন করতে হবে মোদের খরা সহনশীলতা।’ এই শ্লোগান নিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে আমতলী পৌরসভা চত্ত্বরে বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালন উপলক্ষে র‌্যালি, আলোচনাসভা ও বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পালন করা হয়। এনএসএস (নজরুলস্মৃতি সংসদ) ও ওয়ার্ল্ড ভিশন আমতলীর উদ্যোগে দিবসটি পালন করা হয়।

সকাল ১০টায় আমতলী পৌরসভা চত্ত্বর থেকে একটি বর্নাঢ্য র‌্যালি  শহর প্রদক্ষিণ শেষে পৌরসভার হল রুমে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওয়ার্ল্ড ভিশন আমতলীর ম্যানেজার সুরভী বিশ্বাসের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আমতলী পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. মতিয়ার রহমান, বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. আনোয়ার হোসেন ফকির, সাংবাদিক জাকির হোসেন, কাউন্সিলর হোসেন সিদ্দিকী রেজওয়ান, সেলিম রেজা টিটু, মো. মুছা মোল্লা, মেয়াজ্জেম হোসেন ফরহাদ, ইসরাত জাহান লাভলী ও এনএসএর প্রোগ্রাম ম্যানেজার মৃদুল সরকার প্রমুখ। সভা শেষে পৌরসভা চত্বরে মেয়রের নেতৃত্বে দুটি ফলের চারা রোপন করে বৃক্ষরোপন কর্মসূচীর উদ্বোধন করা হয়।


আরও খবর



মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে ৬ মাস অপেক্ষা করতে হবে: অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী জানিয়েছেন মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আরও ৬ মাস অপেক্ষা করতে হবে।

শুক্রবার (৭ জুন) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অর্থ মন্ত্রণালয় আয়োজিত বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, আপনারা নিশ্চয়ই লক্ষ্য করেছেন বাজেটের আকার আমরা কমিয়ে রেখেছি। যাতে করে মূল্যস্ফীতির ওপর কোনো চাপ না পড়ে। এই বছরের শেষের দিকে মূল্যস্ফীতি কমতে শুরু করবে।

অর্থ সচিব ড. মো. খায়রুজ্জামান মজুমদারের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত আছেন- অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, শিল্প মন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, পরিকল্পনা মন্ত্রী মেজর জেনারেল (অব) আব্দুস সালাম, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর অর্থ বিষয়ক উপদেষ্টা মসিউর রহমান, কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুস শহীদ, শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল প্রমুখ।

এর আগে বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে উত্থাপন করা ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের আকার ধরা হয় ৭ লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকা। বিশাল অংকের এ বাজেটের ঘাটতি ধরা হচ্ছে ২ লাখ ৫১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা। আর অনুদান ছাড়া ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়াবে ২ লাখ ৫৬ হাজার কোটি টাকা। যা মোট জিডিপির ৪ দশমিক ৬ শতাংশ।


আরও খবর



বাকেরগঞ্জে ছাগল বাঁধাকে কেন্দ্র করে শিশুসহ ৩ জনকে পিটিয়ে জখম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮৫জন দেখেছেন

Image
রবিউল ইসলাম,বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি:বরিশালের বাকেরগঞ্জে ছাগল বাঁধাকে কেন্দ্র করে ঝগড়ার একপর্যায়ে শিশুসহ তিনজনকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। আহত শিশুপুত্র মোঃ হোসেইন মাহামুদ (৮), আল আমিন হাওলাদার (১৭) ও রোজিনা বেগম (৩২) কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

বুধবার (১২জুন) বিকেল ৪.৫০ টায় উপজেলার ভরপাশা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটেছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ভরপাশা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ভরপাশা গ্রামের মোঃ হারুন মোল্লার পালিত ছাগল একই গ্রামের নজরুল ইসলামের রোপনকৃত সবজি ক্ষেত নষ্ট করে। এ ঘটনায় তার দুই পুত্র মোঃ হুসেইন মাহামুদ ও আল আমিন হাওলাদার ওই ছাগলটি বাড়ির কাছে বেঁধে রাখেন। ছাগল বেঁধে রাখা নিয়ে হারুন মোল্লার সাথে তাদের ঝগড়া হয়।ঝগড়ার একপর্যায়ে হারুন লাঠি দিয়ে পিটিয়ে তাদেরকে রক্তাক্ত যখন করে। এ সময় তাদের ডাকচিৎকার শুনে বাঁচাতে গেলে মা রোজিনা বেগমকেও পিটিয়ে জখম করে। 

গৃহবধূ রোজিনা বেগম জানান, তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে একই গ্রামের হারুন মোল্লা ও তার স্ত্রী নুরজাহান বেগম তাকেসহ তার দুই পুত্রকে পিটিয়ে রক্তাক্ত যখন করেছে। তিনি আরও জানান, হারুন মোল্লার মেয়ে জামাতা পুলিশে চাকরি করে। সেই প্রভাব খাটিয়ে তিনি এলাকার বিভিন্ন মানুষের উপর হামলা ও তাদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। এমনকি তাদের এ ঘটনা নিয়ে থানায় কোন মামলা-মোকদ্দমা দায়ের করলে তার দুই পুত্রকে খুন জখমের হুমকি দেয় হারুন মোল্লা। এতে তিনি ও তার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছেন। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।

আরও খবর



হিলিতে বাড়ছে মসলা জাত পণ্যের দাম

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | ১১৫জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:এখনো প্রায় একমাস বাকি কোরবানি ঈদ।এর আগেই দিনাজপুরের হিলিতে বেড়েছে মসলা জাত পণ্যের দাম। কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে জিরাসহ মসলা জাতীয় পণ্য আমদানি বৃদ্ধি পেয়েছে। যেখানে ১/২ গাড়ি জিরাসহ অন্যান্য মসলাপণ্য আমদানি হতো।এখন প্রতিদিনই ৫/৭ গাড়ী জিরাসহ মসলা পণ্য আমদানি হচ্ছে। প্রতি টন জিরা আমদানি হচ্ছে ৩ হাজার ১৩০ ডলার মুল্যে। কোরবানি ঈদের একমাস আগে দাম বৃদ্ধিতে অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, এটা ব্যবসায়ীদের কারসাজি।তারা অধিক মুনাফার আশায় মসলা জাত পণ্য মজুদ রেখে দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন। আর খুচরা বিক্রেতারা বলছেন,আমরা ভারতীয় জিরা,আদা,চায়না রসুন বিক্রি করি। আমদানিকারকদের কাছ থেকে আমাদের বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। তাই বিক্রিও করতে হচ্ছে বেশি দামে। আমদানিকারকরা বলছেন,ডলার সংকটের কারণে ভারত অভ্যন্তরে জিরাসহ অন্যান্য মসলা জাত পণ্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে দাম কয়েক দিনের স্বাভাবিক হয়ে আসবে বলে জানান আমদানিকারকরা ।  

আজ শনিবার দুপুরে হিলি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, এক মাস আগে মানভেদে জিরা বিক্রি হয়েছে প্রতিকেজি ৫৭০ থেকে ৫৮০ টাকা দরে। এখন সেই জিরাই কেজিতে ১৩০ টাকা বেড়ে ৭০০ থেকে ৭১০ টাকা কেজি দরে হচ্ছে। অন্যান্য মসলা পণ্যের দাম দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। কালো এলাচ ২৬০০ থেকে ২৯০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও তা এখন ১০০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ২৭০০ থেকে ৩০০০ টাকা কেজি দরে এবং সাদা এলাচ মাঝারি ৩৪০০ শত টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও তা এখন কেজিতে ১০০ টাকা বেড়ে ৩ ৫০০ শত টাকা কেজি দরে, সাদা এলাচ বড় ধরণের ৪১০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও তা কেজিতে ১০০ টাকা বেড়ে ৪২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়াও দারুচিনি, লং, গোল মরিচ,ধনিয়া,কালো জিরা কেজিতে ৫০ থেকে ১০০ টাকা বেড়েছে। এদিকে আমদানিকৃত আদা গেলো শনিবার (১৮ মে) প্রতিকেজি আদা ২৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ শনিবার (২৫ মে) বিক্রি হচ্ছে ২৮০ টাকায়। প্রতিকেজি দেশীয় রসুন ২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ বিক্রি হচ্ছে ২৪০ টাকায়। এক মাস আগে দেশীয় শুকনা মরিচ ২৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা কেজিতে ৩০ টাকা বেড়ে ২৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আর গতকাল শুক্রবার দেশীয় পেঁয়াজ ৬৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা কেজিতে ৫ টাকা বেড়ে ৭০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আর ভারতীয় পেঁয়াজ ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।   

রংপুর থেকে জিরা কিনতে আসা আকবর আলী জানান, আমি এক মাস আগে হিলিতে ঘুরতে এসে তখন ৫৮০ টাকা কেজি দরে জিরা কিনেছি। আজ হিলিতে একটি কাজে এসে জিরা কিনলাম ৭০০ টাকা কেজি দরে। 

আদা কিনতে আসা ফরহার হোসেন বলেন, কোরবানি ঈদের আগে হঠাৎ করেই আদার দাম বেড়ে গেছে। গত শনিবার প্রতিকেজি আদা বিক্রি হয়েছিল। ২৪০ টাকা কেজি দরে। আমি ৬০ টাকা দিয়ে ২৫০ গ্রাম আদা কিনি। আর আজ শনিবার বিক্রি হচ্ছে ২৮০ টাকা কেজি দরে। ৭০ টাকা দিয়ে ২৫০ গ্রাম আদা কিনলাম। 

আরেক ক্রেতা ধরন্দা গ্রামের গোলাম মোর্শেদ বলেন, প্রতিবছর কোরবানি ঈদের আগে সব ধরনের মসলার দামে বাড়ে। এবারও বেড়েছে। গেলো শনিবার প্রতিকেজি রসুন কিনি ২০০ টাকা কেজি দরে। আর আজ শনিবার কিনতে হলো ২৪০ টাকা কেজি দরে।তিনি আক্ষেপ করে বলেন,হিলি বন্দর দিয়ে প্রতিদিন আদা আসছে। কিন্তু আমদানিকারক ও পাইকারি ব্যবসায়ীরা মজুদ রেখে বেশি দামে বিক্রি করছেন।

শুকনা মরিচ,আদা-রসুন ও পেঁয়াজ বিক্রেতা ময়নুল ইসলাম বলেন,আদা হিলিবন্দর দিয়ে আমদানি হয়। আর চায়না রসুন আমদানি হয় অন্যদিকে দিয়ে। পাইকারি বিক্রেতাদের কাছ থেকে এক সপ্তাহ আগে এতিকেজি আদা ২২০ টাকায় কিনে ২৪০ টাকায় বিক্রি করি। আর রসুন ১৮০ টাকা কেজি দরে কিনে ২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করি। কিনতেই পড়ছে প্রতিকেজি আদা ২৬০ টাকা এবং রসুন কিনতে পড়ছে ২২০ টাকা। আমরা কেজিতে ২০ টাকা লাভ রেখে বিক্রি করছি। এ কারণেই শুকনা মরিচ,পেঁয়াজ আদা-রসুনের দাম বেড়েছে।

ডলার সংকট কাটিয়ে উঠলে ও জিরা আমদানিতে শুল্ক কমলে দাম আরও কমে আসবে বলে মনে করছেন আমদানিকারকেরা।

হিলি কাষ্টমস সূত্রে জানা গেছে,চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ২০ মে পর্যন্ত ভারতীয় ৩৮৩ টি ট্রাকে ১০ হাজার ৭১৭ মেট্রিক টন জিরা ও ভারতীয় ১৬ টি ট্রাকে ২৫৩ মেট্রিকটন এলাচ এবং ভারতীয় ২৪১ টি ট্রাকে ৪১৩৭ মেট্রিক টন আদা আমদানি হয়েছে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে।


আরও খবর