Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
গ্রীষ্মের রুক্ষ প্রকৃতিতে শোভা ছড়াচ্ছে সোনালু ফুল ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২৬২ জন নিহত মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার

গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক ফুটবল টুর্নামেন্ট- ২০২৪ এর শুভ উদ্বোধন

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ মে 20২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৩২৩জন দেখেছেন

Image

মুশফিকুর রহমানঃ 

রুপগঞ্জ উপজেলা কায়েত পাড়া ইউনিয়নের পূর্ব গ্রাম স্পোর্টস এন্ড ইয়থস ওয়েলফেয়ার ক্লাবের উদ্যোগে গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২৪ (সিজন-৫) এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার ২৪ মে বিকাল ৪ ঘটিকায় পূর্ব গ্রাম বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক স্বর্ণপদক প্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ নুরুজ্জামান খান।  সভাপতিত্ব করেন কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান, পূর্ব গ্রাম স্পোর্টস এন্ড ইয়থস ওয়েলফেয়ার ক্লাবের সভাপতি এবং কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মোঃ জাহেদ আলী। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন মোহাম্মদ সাইদুর রহমান, মোহাম্মদ আনিস খান, মোঃ আসলাম হোসেন।অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ কর্নেল কামরুজ্জামান খান, সরকারি চৌমুহনী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ শহিদুল্লাহ ভূঁইয়া, স্কয়ার হসপিটাল লিমিটেডের কনসালটেন্ট মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মোঃ সাজ্জাদ হোসেন তুহিন, সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ নিউরোলজি প্রফেসর ডাক্তার রাশেদুন নবী খান সোহেল, কায়েত পাড়া ইউনিয়ন ৭ নং ওয়ার্ডের সদস্য প্যানেল চেয়ারম্যান মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন, ডিএসসিসির ৬৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ মাহমুদুল হাসান পলিন,পূর্ব গ্রাম স্পোর্টস এন্ড ইয়থস ওয়েলফেয়ার ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কে.এম ওবায়দুল্লাহ খান রাকিব।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি সার্বিক পরিচালনায় ছিলেন, সংগঠনের ক্রীড়া সম্পাদক আলমগীর হোসেন, সহ-ক্রীড়া সম্পাদক মোঃ শরিফুল ইসলাম (শাকিল সওদাগর)। উক্ত ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন অনুষ্ঠানটি উপভোগ করতে আশেপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে হাজার হাজার লোক উপস্থিত হন। 


টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী দিনে সারুলিয়া স্পোর্টিং ক্লাব এবং পূর্বগ্রাম স্পোর্টস এন্ড ইয়থস ক্লাব এর মধ্য  দিয়ে প্রথম ম্যাচ আয়োজন করা হয়। খেলার প্রথমার্ধে ১-১ গোলে ম্যাচে সমতা বজায় থাকে, দ্বিতীয়র্ধ্বে ৬৫ মিনিটের সময় সারুলিয়া স্পোটিং ক্লাবের ৭ নং জার্সি পরিহিত খেলোয়াড়ের দেওয়া গোলে বিজয় সুনিশ্চিত হয়। খেলায় ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন সাব্বির আহমেদ। 

ডিএসসিসির ৬৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাহমুদুল হাসান পলিন সারুলিয়া স্পোর্টিং ক্লাব বিজয়ী হওয়ায় সকল খেলোয়াড় এবং আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান।


আরও খবর



সুইজারল্যান্ডের শুভ সূচনা ইউরোতে হাঙ্গেরিকে হারিয়ে

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮৪জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:সুইজারল্যান্ড ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের শুরুটা দারুণ করলো। ‘এ’ গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচে হাঙ্গেরির বিপক্ষে দুয়াহ, এবিশার ও এমবোলোর গোলে ৩-১ ব্যবধানে জয় পেলো সুইজারল্যান্ড। হাঙ্গেরির হয়ে একমাত্র গোলটি করেন ভার্গা।

ম্যাচের শুরু থেকেই দাপট দেখিয়ে খেলতে থাকে গতবার ইউরোতে ফ্রান্সকে বিদায় করে দেওয়া সুইসরা। ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিট প্রথম আক্রমণ থেকে হাঙ্গেরির সাজালাইর হেড সুইস গোলবারের উপর দিয়ে চলে যায়।

ম্যাচের ১২ মিনিটের মাথায় গোল পেয়ে যায় সুইসরা। এবিশারের ক্রস থেকে দুয়াহ গোল করে দলকে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে এটি তার দ্বিতীয় গোল। সুইজার‍্যান্ডের হয়ে তৃতীয় ফুটবলার হিসেবে অভিষেক ইউরো ম্যাচেই গোল করলেন তিনি।

২১ মিনিটে দারুণ সুযোগ পেয়েছিলেন হাঙ্গেরির ভার্গাস। কিন্তু তার শট রুখে দেন সুইস গোলরক্ষন ইয়ান সোমার। ম্যাচের ৩৯ মিনিটে সমতায় ফেরার সবচেয়ে সহজ সুযোগটা পেয়েছিল হাঙ্গেরি। সজোবজলাইর ফ্রি কিক ক্রস থেকে উওলি ওরবান খালি জায়গায় বল পেয়ে হেড দিলেও সোজা চলে যায় সুইস গোলরক্ষকের হাতে।

প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে দুর্দান্ত এক গোল করেন এবিশার। ডি বক্সের বাইরে থেকে ডান পায়ের বাকানো শটে গোল করে সুইসদের ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে দিয়েই বিরতিতে যান তিনি ও তার দল।

দ্বিতীয়ার্ধেও আক্রমণ অব্যাহত রাখে সুইজারল্যান্ড। ৪৮ মিনিটে দুয়াহর শট রুখে দেন হাঙ্গেরিয়ান গোলরক্ষক। ৫৪ মিনিটে আবারো সুযোগ পায় সুইসরা। এবার রুবেন ভার্গাসের শট রুখে দেন গোলরক্ষক।

দুই গোলে পিছিয়ে পড়ে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে হাঙ্গেরি। এর ফলও পায় তারা। ৬৬ মিনিটে বারবাস ভার্গা সজোবজলাইর দারুণ এক ক্রস থেকে হেডে গোল করে এক গোল পরিশোধ করেন।

ম্যাচ যখন ২-১ ব্যবধানে শেষের দিকে যাচ্ছে, তখন আরেক গোল করেন বদলি হিসেবে নামা এমবোলো। হাঙ্গেরির ডিফেন্ডারের ভুল বল ডিবক্সের কাছে পেয়ে গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে জালে জড়ান এই স্ট্রাইকার। ৩-১ ব্যবধানের জয়ে গ্রুপের দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসলো সুইজারল্যান্ড।


আরও খবর



সিয়ামের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৪১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে হত্যার উদ্দেশ্যে অপহরণের মামলায় মো. সিয়াম হোসেনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুবুল হক তদন্তকারী কর্মকর্তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

সোমবার (৩ জুন) আদালত সূত্র থেকে এ তথ্য জানা যায়। এর আগে রোববার তদন্তকারী কর্মকর্তা আসামি সিয়ামের বিরুদ্ধে এ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন করেন। আদালত তদন্তকারী কর্মকর্তার আবেদন গ্রহণ করে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। নেপালে পলাতক সিয়ামের বাড়ি ভোলার বোরহানউদ্দিনে। তিনি আক্তারুজ্জামানের সহকারী হিসেবে কাজ করতেন।


আরও খবর



ঈদ ঘিরে নিরাপত্তা হুমকি নেই: র‌্যাব ডিজি

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১০৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পবিত্র ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে সুনির্দিষ্ট কোনো হামলা বা নাশকতার তথ্য নেই,বলেছেন র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) ব্যারিস্টার মো. হারুন অর রশিদ। তবে যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুতি ও সক্ষমতা আমাদের রয়েছে।

রোববার (১৬ জুন) সকালে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

র‍্যাব ডিজি বলেন, পবিত্র ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে রাজধানীসহ সারাদেশে পশুর হাট জমে উঠেছে। হাটকেন্দ্রীক মলম পার্টি, অজ্ঞানপার্টি প্রতিরোধে র‍্যাব সার্বক্ষণিক নজরদারি রেখেছে। হাটগুলোতে পর্যাপ্ত ফোর্স মোতায়েন রাখা হয়েছে, জাল টাকা শনাক্তের জন্য ডিভাইস রয়েছে। প্রতিটা বাস টার্মিনাল, লঞ্চঘাট, ট্রেন স্টেশনে র‍্যাব সদস্য মোতায়েন রয়েছে। টিকিট কালোবাজারির সঙ্গে সংঘবদ্ধ ১০ জনের একটি দলকে র‍্যাব গ্রেপ্তার করেছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে পশুবাহী গাড়ি ঢাকায় আসছে। এসব গাড়ি যাতে কোথাও বাধাগ্রস্ত না হয় আমরা নজর রাখছি।

তিনি বলেন, ঈদের দিনে ঢাকায় জাতীয় ঈদগাহে সবচেয়ে বড় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া, শোলাকিয়া, রংপুর, দিনাজপুরে বড় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এসব ঈদ জামাতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থাসহ নজরদারি জোরদার করা হয়েছে। র‍্যাব সদর দপ্তর থেকে কন্ট্রোলরুম স্থাপন করে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা মনিটরিং করা হবে। চামড়া নিয়ে যাতে কোনো কারসাজি না হয়, সেজন্য ব্যবস্থা নিয়েছি। ঈদ ঘিরে আমরা যথেষ্ট সতর্ক রয়েছি, গোয়েন্দা নজরদারি জোরদার করা হয়েছে। ঈদকে কেন্দ্র করে সুনির্দিষ্ট কোনো হামলা-নাশকতার তথ্য নেই। তবে কোনো আশঙ্কাকে উড়িয়ে দিচ্ছি না, সবকিছু মাথায় রেখেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা সাজানো হয়েছে। আমরা সতর্ক রয়েছি। র‍্যাবের ডগ স্কোয়াড, বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটসহ দুটি হেলিকপ্টারকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যেকোনো ধরনের নাশকতা-হামলা প্রতিরোধ করতে র‍্যাব প্রস্তুত রয়েছে। সাইবার ওয়ার্ল্ডে সাইবার পেট্রোলিং জোরদার করা হয়েছে, যেকোনো গুজব প্রতিরোধ করতে প্রস্তুতি রয়েছে।

মো. হারুন অর রশিদ আরও বলেন, কোনো ধরনের হামলার সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য নেই। তারপরেও যদি এমন কিছু হয়ও আমরা প্রস্তুত আছি। যেকোনো ঘটনা প্রতিহত করতে র‍্যাবের প্রস্তুতি রয়েছে। র‍্যাব বর্তমানে ত্রিমাত্রিক এলিট ফোর্সে পরিণত হয়েছে। জলে-স্থলে-আকাশে আমাদের সক্ষমতা রয়েছে। নিশ্চয়তা দিচ্ছি শোলাকিয়ায় হামলার মতো এ ধরনের ঘটনা ঘটবে না।


আরও খবর



কম দামে ধান কিনতে জোটবদ্ধ ব্যবসায়ীরা,বিক্রি করতে এসেই ধরা চাষীরা

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৫৭জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃজয়পুরহাটে ব্যবসায়ীরা বেশী লাভের আশায় জোটবদ্ধ হয়ে ধান কিনছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। কম মূল্যে ধান ক্রয় করে মিল-চাতাল মালিকরা সেই ধান থেকে চাল তৈরী করে সরকার নিদ্ধারিত রেটে খাদ্যগুদামে সরবরাহ করে মোটা অংকের লাভ করবেন বলে শংঙ্খা কৃষকদের। আবার স্থানীয় ব্যবসায়ীরা বাহির থেকে আশা মহাজনদের হাটে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না বলেও অভিযোগ রয়েছে। তবে ব্যবসায়ীরা বলছেন ভিন্ন কথা। ভেজা ধান বলে কম দামে ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে। রোদ ওঠলেই দাম বেড়ে যাবে। আর বাজার সবার জন্য উম্মোক্ত। যে কেউ বাজার থেকে ধান ক্রয় করতে পারেন। 

মিল-চাতাল মালিক, ফরিয়া ও মহাজনরা বাজারে বিভিন্ন গুজব ছড়িয়ে কৃষকদের উৎপাদিত ধান অনেক কম মূল্যে ক্রয় করছেন। মাড়াইয়ের পর চাষীরা বাজারে ধান নিয়ে এসে ব্যবসায়ীদের ফাঁদে পা দিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করে অনেকেই বিক্রি করতে না পেড়ে ফেরত নিয়ে যাচ্ছেন। ধান বিক্রি করে চাষীরা লোকসান গুণলেও কৌশলে লাভোবান হচ্ছেন এলাকার মিল-চাতাল মালিক, ফরিয়া ও মহাজনরা। কম দামে ধান কিনে অল্প দিনেই বেশী লাভ করছেন তারা। 

গতকাল জেলার বৃহত ধানের বাজার পাঁচশিরা, পুনট ও ইটাখোলা হাটে কৃষকদের জিম্মি করে ব্যবসায়ীরা মোটা জাতের মামুন ও স্বর্ণা-৫ ধান ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকা এবং চিকন কাটারি জাতের ১০৫০ থেকে ১১০০ টাকা (৪০ কেজির) মণ দরে ক্রয় করেছেন। এতে প্রতি কেজি মোটা ধান ১৭-১৮ টাকা এবং চিকন ধান ২৬-২৭ টাকা দরে বিক্রি করছেন কৃষকরা। অথচ প্রতি কেজি ধানের সরকার নিদ্ধারিত মূল্য ৩২ টাকা আর চালের মূল্য ৪৫ টাকা ঘোষনা করা হয়েছে। ৪০ কেজি ধান থেকে চাল হয় ৩০ কেজি। সে অনুপাতে ৩০ কেজি চালের সরকারি মূল্য আসে ১৩৫০ টাকা। চাতাল ব্যবসায়ীরা কৃষকদের নিকট থেকে ধান ক্রয়ের পর চাল বিক্রয় করে লাভ করবেন ৬৫০ টাকা। কৃষকদের অভিযোগ, মিল-চাতাল মালিকরা জোটবদ্ধ হয়ে বেশী লাভের আশায় কম দামে ধান কেনার জন্য বাজারে মাঝে-মধ্যে ধান কেনা বন্ধ রাখেন। যখন বাজারে ধানের আমদানী বেশী হয়, তখন ব্যবসায়ীরা ক্রয় করার চাহিদা কমে দেয়। কম দামে বেশী পরিমান ধান ক্রয়ের জন্য ব্যবসায়ীরা এসব নাটক করেন। শ্রমিক বিদায়সহ সেচের টাকা পরিশোধ করতে বাধ্য হয়ে কম দামেই বিক্রি করতে হচ্ছে ধান। ভ‚ক্তভোগী কৃষকরা উৎপাদিত ধানের ন্যায্য মূল্য না পেয়ে দিনের পর দিন লোকশান গুণলেও অল্প সময়ে মোটা অংকের লাভ গুণছেন মধ্যে সত্ত¡ভোগী ব্যবসায়ীরা।

জেলা খাদ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, জয়পুরহাটের পাঁচটি উপজেলার খাদ্যগুদামগুলোতে এবার সরকার নিদ্ধারিত ৩২ টাকা কেজি দরে ৬ হাজার ৬৫৭ মে.টন ধান এবং সরকারের সাথে চুক্তিবদ্ধ মিল-চাতাল মালিকদের নিকট থেকে ২১ হাজার ৫৯৭ মে.টন চাল ক্রয় করবেন। স্থানীয় মিলারদের নামে ইতমধ্যে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে এবং ক্রয় শুরু হয়েছে। বরাদ্দ পেয়ে জেলার বিভিন্ন হাট-বাজার থেকে ব্যবসায়ীরা সুযোগ বুঝে যে যার মত করে কৌশলে ধান ক্রয় করছেন। আবওহাওয়ার কারনে তারা এমন কৌশল চাষীদের উপর প্রয়োগ করছেন।  

ক্ষেতলালের মুন্দাইল গ্রামের কৃষক শাহিন বলেন,‘ধান বিক্রি করতে এসে যে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে, লাভতো দুরের কথা, মোটা অংকের লোকশান গুণতে হচ্ছে আমাদের। যাও একটু দাম বাড়তো, আবওহাওয়ার সাথে ব্যবসায়ীদের কারণেই সেটা সম্ভব হচ্ছেনা। এবার বিগা প্রতি উৎপাদন খরচ হয়েছে ১৬ হাজার টাকা। ৮ বিঘা জমিতে ধান পেয়েছি গড়ে ২০ মণ করে ১৬০ মণ, হিসাব করে বিগা প্রতি ৪ হাজার করে মোট ৩২ হাজার টাকা লোকশান হয়েছে।’

জোটবদ্ধ হয়ে ধান ক্রয়ের বিষয় অস্বীকার করেছেন পাঁচশিরা বাজারের মা চাউল-কলের স্বত্তাধীকার মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেন,‘আবওহাওয়াজনিত কারনে ধান ভেজা হওয়ায় গত সপ্তাহের চেয়ে বর্তমানে মণে এক থেকে দেড়শ টাকা কমে গেছে। রোদ ওঠলেই ধানের দাম বেড়ে যাবে। ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা মিথ্যা, বাজার সবার জন্য উম্মোক্ত। যে কেউ এসে ধান ক্রয় করতে পারবে। কৃষকরা অনবরত ব্যবসায়ীদের দোষ দিয়ে থাকেন। এটা নতুন কিছু নয়।’  

জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কামাল হোসেন বলেন,‘এ জেলার কৃষকরা চিকন জাতের ধান চাষ করে। সরকারের নিদ্ধারিত মূল্যের চেয়ে বাজারে দাম বেশি হওয়ায় তারা গুদামে ধান দিতে চায় না। ফলে ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব হচ্ছে না। তবে আশা করছি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এবার শতভাগ চাল সংগ্রহ হবে।’

জেলা কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা রতন কুমার রায় বলেন,‘ধানের দাম নিয়ে বিভিন্ন কথাই শুনতে পাচ্ছি। সরকার ধান-চালের যে দর বেঁধে দিয়েছেন, সে অনুপাতে বিক্রি করতে পারলে কৃষকরা লাভবান হবেন। ধানের বাজার এতো কম হওয়ার কথা নয়। ধানের বাজারমূল্য কম হওয়ার পেছনে কোন রহস্য আছে কিনা তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আরও খবর



অপু হত্যা: ২ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল আপিল বিভাগে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৩৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজধানীর সূত্রাপুরের আশিকুর রহমান খান অপু হত্যা মামলায় দুই আসামি মঞ্জুরুল আবেদীন রাসেল ও নওশাদ হোসেন মোল্লা রবিনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

মঙ্গলবার (৪ জুন) প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার সদস্যের বিচারপতির বেঞ্চ এ রায় দেন। বেঞ্চের অপর তিনজন হলেন, বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম, বিচারপতি মো. আবু জাফর সিদ্দিকী ও বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন।

একই সঙ্গে হাইকোর্টে খালাস পাওয়া আসামি ইফতেখার বেগ ঝলককে আমৃত্যু কারাদণ্ড ও খালাস পাওয়া অপর আসামি মোহাম্মদ আলী মুন্নাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন সর্বোচ্চ আদালত। আসামি মোহাম্মদ আলী মুন্না জামিনে থাকায় তাকে ৩০ দিনের মধ্যে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে।

এর আগে, রাজধানীর সূত্রাপুরের আশিকুর রহমান খান অপু হত্যা মামলায় হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আসামি ও রাষ্ট্রপক্ষের দায়ের করা আপিল আবেদনের ওপর শুনানি শেষ হয়। এ বিষয়ে রায় ঘোষণার জন্য ৪ জুন ঠিক করেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

উভয়পক্ষের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার (২১ মে) প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার সদস্যের বিচারপতির বেঞ্চ রায়ের জন্য এ দিন ঠিক করেন।

আদালতে আসামি পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী সারোয়ার আহমেদ। আর রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সারওয়ার হোসেন বাপ্পী। তারই ধারাবাহিকতায় আজ রায় ঘোষণা করা হলো।

রাজধানীর সূত্রাপুরের আশিকুর রহমান খান অপু হত্যা মামলায় বিচারিক আদালতের দেওয়া দুই আসামির ফাঁসির দণ্ড বহাল রাখেন হাইকোর্ট। তবে দণ্ডপ্রাপ্ত চারজনের মধ্যে দুইজনকে খালাস দেন উচ্চ আদালত। বাকি দুইজন পলাতক থাকায় তাদের বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি আদালত।

এ মামলার ডেথ রেফারেন্স এবং আসামিদের জেল আপিল ও আপিলের চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে ২০১৮ সালে হাইকোর্টের বিচারপতি রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রায় দেন। আদালতে ওই সময় রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মনিরুজ্জামান রুবেল। তিনি বলেন, দুইজনের ফাঁসির দণ্ড বহাল রেখেছেন তথা ডেথ রেফারেন্স গ্রহণ করেন। যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত চারজনের মধ্যে দুইজনকে খালাস দেন। দুইজন পলাতক থাকায় তাদের বিষয়ে মন্তব্য করেননি আদালত।


আরও খবর