Logo
আজঃ মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম

গাজীপুরে নৌকার জয়, পরাজয় হয়েছে ব্যক্তির: জাহাঙ্গীর আলম

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৬ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ২৫৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আজমত উল্লা খানকে ১৬ হাজার ১৯৭ ভোটের ব্যবধানে হারিয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা খাতুন। তিনি সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের মা।

নির্বাচনে জায়েদা খাতুন মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর ছেলে জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, ‘এখানে নৌকার জয় হয়েছে, পরাজয় হয়েছে ব্যক্তির।’ এ সময় মাকে সঙ্গে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

গাজীপুরের সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পাওয়ায় তিনি ও তার মা জায়েদা খাতুন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছিলেন। কিন্তু ঋণখেলাপির জামিনদার হওয়ায় জাহাঙ্গীর আলমের প্রার্থিতা শেষ পর্যন্ত বাতিল হয়ে যায়। পরে আওয়ামী লীগ থেকেও বহিষ্কৃত হন তিনি। কিন্তু ভোটের লড়াইয়ে কার্যত আজমত উল্লার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন জাহাঙ্গীর। মায়ের পক্ষে দিনরাত প্রচার চালিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার গভীর রাতে নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘আমি জন্মের পর থেকেই আওয়ামী লীগ করি। আমি এখানকার আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত ব্যক্তি। মানুষ আমার মায়ের পাশে দাঁড়িয়েছে। আমি ও আমার মা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে যাব। আমরা সবার সহযোগিতা নিয়ে একটা সুন্দর শহর গড়ে তুলব।

নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালনে মাকে সহযোগিতা করবেন বলে জানান জাহাঙ্গীর। তিনি বলেন, ‘আমার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে গাজীপুর সিটি করপোরেশনকে একটি পরিকল্পিত নগরে পরিণত করব। মহান সৃষ্টিকর্তা আমার মায়ের পাশে ছিলেন। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী আজমত উল্লাহ খানকে নিয়েও কথা বলেন জাহাঙ্গীর আলম। তিনি বলেন, ‘যারা এখানে মেয়র নির্বাচন করেছেন। তাদের মধ্যে আমার বড় ভাই আজমত উল্লা খানও এখানে নির্বাচন করেছেন। আমাদের ব্যক্তিগতভাবে কারও প্রতি রাগ, ক্ষোভ নাই। আমরা সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে কাজটি করতে চাই।


আরও খবর



সিরাজগঞ্জে ইজিবাইক চালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image
রাকিব সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:সিরাজগঞ্জে আরমান শেখ (২২) নামের এক ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক চালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার সলঙ্গা থানা পুলিশ।সোমবার (২৫ মার্চ) কামারখন্দ ও ভদ্রঘাট ইউনিয়নে ঝাকড়ি এলাকায় সড়কের পাশে লাশটি দেখে পথচারীরা পুলিশে খবর দেয়। 

পুলিশ ও স্বজনদের তথ্যসূত্রে জানা যায়, নিহত আরমান শেখ উল্লাপাড়া উপজেলার অলিপুর গ্রামের আয়নাল শেখের ছেলে । পরিবারের স্বজনরা বলেন, নিহত আরমান ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক চালক ছিলেন। রোববার সন্ধ্যায় নিজের ইজিবাইক নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর  তিনি নিখোঁজ ছিলেন। অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে বা তার গাড়ি কোনটিই পাওয়া যায়নি। সোমবার সকালে ঝাকরি এলাকায় রাস্তার পাশে তার গলাকাট মরদেহ দেখে পথচারীরা পুলিশে খবর দেয়। প্রথমে কামারখন্দ থানা এবং পরবর্তীতে সলঙ্গা থানার আওতায় পড়ায়  সলঙ্গা থানায় জানানো হয়।

এ বিষয়ে সলঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে ধারণা করা হচ্ছে চালকের গলাকেটে হত্যার পর গাড়িটি নিয়ে পালিয়ে গেছে ছিনতাইকারীরা। এ ব্যাপারে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

আরও খবর



নিটারে "দ্যা হাউজ অব ইল জিনিয়া" পরিবারের ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ১৭২জন দেখেছেন

Image

মিঠুন দাস মিঠু, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি, নিটার:ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি অনুষদের শিক্ষা ও টেক্সটাইল গবেষণা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সাভারের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড রিসার্চ (নিটার) এ ২৪ই মার্চ, ২০২৪ রোজ রবিবার বাদ আসর "দ্যা হাউজ অব ইল জিনিয়া" রিসার্চ কমিউনিটির   আয়োজনে এক ইফতার ও দোয়া মাহফিল এর আয়োজন করা হয়।

পবিত্র রমজানুল মোবারক উপলক্ষে গতকাল রবিবার ১৩ ই রমজান "দ্যা হাউজ অব ইল জেনিয়া" রিসার্চ কমিউনিটি ও জার্মান, যুক্তরাজ্য এবং যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত নিটারের সম্মানিত প্রাক্তন শিক্ষার্থীবৃন্দের পৃষ্ঠপোষকতায় এ ইফতার ও দোয়া মাহফিল নিটারের একাডেমিক ভবনের একটি কক্ষে এই আয়োজন করা হয়।

"দ্যা হাউজ অব ইল জিনিয়া" মূলত নিটারের দশম ব্যাচের শিক্ষার্থী ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং  ডিপার্টমেন্টের ছাত্র মো: রবিউল আলম মারুফের দ্বারা পরিচালিত একটি রিসার্চ কমিউনিটি  যারা সার্বক্ষণিক বিভিন্ন নতুন গবেষণা প্রচেষ্টায় মগ্ন থাকেন এবং দেশব্যাপী আয়োজিত বিভিন্ন বিজ্ঞানভিওিক কনফারেন্স ও প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে থাকে। এই কমিউনিটির সদস্যদের জাতীয় পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন, গবেষণায় সরকারি অনুদান লাভসহ বিভিন্ন গবেষণা কনফারেন্সে কাজের উল্লেখযোগ্য উৎসাহমূলক প্রসংশা পেয়ে আসছেন।

"দ্যা হাউজ অব ইল জেনিয়া" রিসার্চ কমিউনিটির এ আয়োজনে রিসার্চ কমিউনিটির সদস্যরা ছাড়াও আমন্ত্রিত ছিলেন নিটার ডিবেটিং সোসাইটি, নিটার সায়েন্স সোসাইটি, নিটার ক্যারিয়ার ক্লাব, নিটার কালচারাল ক্লাব, নিটার সাংবাদিক সমিতি, মাস্তুল, নিটার বিজনেস এন্ড ইনোভেশন ক্লাব, নিটার গেইমস এন্ড স্পোর্টস ক্লাব, নিটার ফিল্ম এন্ড ফটোগ্রাফিক সোসাইটি, নিটার ইসলামিক সোসাইটি এর সম্মানিত প্রতিনিধিত্বগন।

সরেজমিনে দেখা যায়,  বাদ আসর থেকে "দ্যা হাউজ অব ইল জিনিয়া" এর প্রায় সকল মেম্বার ও আমন্ত্রিত অতিথিরা অনুষ্ঠান স্থলে উপস্থিত হতে থাকে এবং সকলে আসন গ্রহণ করলে নিটার কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম মো: আব্দুল ওয়াহিদ ইফতারের গুরুত্ব ও বিধান সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন। পরবর্তীতে আয়োজকরা সম্মিলিতভাবে সকলে মিলে ইফতার গ্রহণ করেন। ইফতার পর্ব শেষে বাদ মাগরিবের পর অনুষ্ঠান স্থলে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা ও রাতের ভোজের আয়োজন করা হয়। সংক্ষিপ্ত এই আলোচনা সভায় "দ্যা হাউজ অব ইল জেনিয়া" এর প্রতিষ্ঠাতা মো: রবিউল আলম মারুফ সকলের মাঝে সংগঠনটির কার্যক্রম সম্পর্কে তুলে ধরেন এবং ভবিষ্যত পরিকল্পনা সম্পর্কে ব্যক্ত করেন। আমন্ত্রিত অতিথিদের পক্ষ  থেকে দশম ব্যাচের আইপিই ডিপার্টমেন্টের  জাওয়াদ আবরার এরকম সুন্দর ইফতার ও দোয়া মাহফিল আয়োজনের জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান এবং পাশাপাশি রিসার্চের গুরুত্ব সম্পর্কে সকলকে অবহিত করেন।

এভাবেই, সংক্ষিপ্ত আলোচনা শেষে  প্রায় অর্ধশত অতিথিদের অংশগ্রহণে উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে দ্যা হাউজ অব ইল জেনিয়া পরিবারের ইফতার ও দোয়া মাহফিলের সমাপ্তি ঘটে।


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রী পাহাড়ের কৃষ্টি, সংস্কৃতি ও জন জীবনের অভূতপূর্ব উন্নয়ন ঘটিয়েছেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪ | ৫২জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য চট্টগ্রামের কৃষ্টি, সংস্কৃতি ও জনজীবনের অভূতপূর্ব উন্নয়ন ঘটিয়েছেন। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের পার্বত্যবাসীদের মধ্যে শান্তি ও উন্নয়নের যে সোপান রচনা করেছেন তা দেশবাসীর কাছে আজীবন এক মাইলফলক স্বীকৃতি হয়ে থাকবে।

বুধবার (১০এপ্রিল) খাগড়াছড়ি সদরের টাউন হল প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ (বিটিকেএস) এর আয়োজনে এবং বাংলাদেশ ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরাম ও বাংলাদেশ ত্রিপুরা যুব কল্যাণ সংসদের সহযোগিতায় ত্রিপুরা জাতির ঐতিহ্যবাহী বৈসু উৎসব ২০২৪ উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য র‌্যালির শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উদ্বোধক ও প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি এসব কথা বলেন।

পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি আরও বলেন, দেশের কর্ণধার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশকে অনেক উচ্চে আসীন করতে নিরন্তর প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছেন। আমরা সবাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ূ কামনা করি। প্রধানমন্ত্রী যেন আমাদের দেশের উন্নয়নের ধারাকে ত্বরান্বিত করে একটি উন্নত ও স্মার্ট বাংলাদেশে পরিণত করতে পারেন সেজন্য আমরা সকলে আন্তরিকতার সাথে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যেতে চাই।

প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি বলেন, সকল সংস্কৃতির মাঝে আমরা ঐক্যের বন্ধন সৃষ্টি করতে চাই। তিনি বলেন, ঐতিহ্যবাহী বৈসু এ উৎসবের মাধ্যমে পার্বত্য অঞ্চলে বসবাসরত বিভিন্ন গোত্র ও সম্প্রদায়ের মাঝে হৃদ্ধতার মেল বন্ধন আরও সুদৃঢ় হবে। বৈসু মানুষের মধ্যে বৈষম্য দুর করবে, শান্তি, শৃঙ্খলা ও ঐক্যের বন্ধন গড়ে তুলবে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মানুষ হিসেবে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গী ভিন্ন হতে পারে, কিন্তু বাংলাদেশের শান্তি ও উন্নয়নের জন্য আদর্শ নাগরিক হিসেবে কোনো বিভেদ নয়, কোনো হানাহানি নয়, শান্তি, শৃঙ্খলা, সৌহার্দ্র সম্প্রীতি বজায় রেখে আমাদের সকলেরই দেশের উন্নয়নে কাজ করা বাঞ্ছনীয় বলে আমি মনে করি বলে মন্তব্য করেন পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।

পরে রঙীন বেলুন উড়িয়ে বৈসু উৎসবের শুভ উদ্বোধন করেন পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি। তিনি বর্ণাঢ্য এক র‌্যালিতে অংশ নেন। র‌্যালিটি খাগড়াছড়ি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ত্রিপুরা সংসদের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। এসময় ত্রিপুরা গোষ্ঠীর ঐতিহ্যবাহী পোশাকে সজ্জিত হয়ে ত্রিপুরা শিশু, কিশোর, তরুণরা গান, নৃত্যসহ এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করে। প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি তা উপস্থিত সকলের সাথে উপভোগ করেন।

এসময় খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, খাড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো. সহিদুজ্জামান, পুলিশ সুপার মুক্তা ধর,পৌর মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী,সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান  মোঃ শানে আলম, পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য কল্যাণ মিত্র বড়ুয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক  মোঃ দিদারুল আলম, খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়ন (কেইউজে) সভাপতি প্রদীপ চৌধুরী সহ প্রশাসনের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর



ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সুহিলপুরে ঈদ পুনঃমিলনী অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ৮৬জন দেখেছেন

Image

আব্দুল হান্নানঃএকতাই  শক্তি, একতাই বল,এই শ্লোগানকে সামনে রেখেই  ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা সুহিলপুর চাঁন্দের হাটি ( সুতার মুড়া)  আব্বাস আলী ফাউন্ডেশনের কর্তৃক আয়োজিত ঈদ পুনঃমিলনী অনুষ্ঠান ও দোয়া মাহফিল  অনুষ্টিত হয়েছে। রবিবার বিকেলে চান্দের হাঁটিতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আব্দুর রশিদ ভূঁইয়া চেয়ারম্যান সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদ, প্রধান বক্তৃা স্বর্ণ পদক প্রাপ্ত সাবেক চেয়ারম্যান মোবারক মুন্সী, বিশেষ অতিথি , ৪, ৫, ৬  ওয়ার্ডের নারী সদস্য সুমি আক্তার।

প্রধান উপদেষ্টা হাজ্বী উসমান গনী, হামিদ মিয়া,  ৩ বারের সাবেক মেম্বার চাঁন মিয়া,হাজ্বী  হাবিবুর রহমান, রৌশন  সরদার, আবদুর রহমান, , বিশিষ্ট  ঠিকাদার আবুল কাশেম, কাউসার মিয়া, কাদের মিয়া,  আব্দুস সাত্তার, লোকমান মিয়া,  উপদেষ্টা গণ।  মরহুম আব্বাস উদ্দিন ফাউন্ডেশনের সভাপতি  ফারুক ওসমান সভাপতিত্বে, সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক এহসানুল হক রিপনের সঞ্চালনায়, সাধারণ সম্পাদক  বিশিষ্ট সমাজসেবক  ও সালিশ কারক  সাদির মিয়ার দিক  নির্দেশনায়  অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন হয়।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন  সহ সভাপতি আব্দুল হাসিম  , যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শফিক আহমেদ , আব্দুর রাহিম কোষাধক্ষ্য , শাহিন মিয়া শানু মিয়া প্রচার  সম্পাদক , নিজাম উদ্দিন, দপ্তর সম্পাদক , সালাউদ্দিন ও নানু মিয়া,ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অলি মিয়া, আব্দুল জব্বার,মুসলিম মিয়া,  সোহেল মিয়া প্রমুখ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



ইউসিবি'র ফ্যালকন মার্ট উপশাখার উদ্বোধন

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪ | ৯৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সর্বোত্তম ব্যাংকিং সেবার প্রতিশ্রুতি নিয়ে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক পিএলসি (ইউসিবি)-র ফ্যালকন মার্ট উপশাখার উদ্বোধন করা হয়েছে। গত ২৮ মার্চ ২০২৪ সকাল ১০টায় এই উপশাখা উদ্বোধন করা হয়। 

ইউসিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও জনাব আরিফ কাদরীর সভাপতিত্বে ফ্যালকন মার্ট চত্বরে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিমান বাহিনী ঘাঁটি বাশার এর এয়ার অফিসার কমান্ডিং, এয়ার ভাইস মার্শাল শরিফ উদ্দীন সরকার ওএসপি, জিইউপি, বিপিপি, এনডিসি. পিএসসি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিচালক অর্থ এয়ার কমোডর জামিল উদ্দিন আহমেদ, বিইউপি। স্বাগত বক্তব্য দেন ইউসিবির অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক এটিএম তাহমিদুজ্জামান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ঘাঁটি এর এয়ার অফিসার কমান্ডিং এয়ার ভাইস মার্শাল শরিফ উদ্দীন সরকার বলেন, বিমান বাহিনীর স্লোগান হচ্ছে, “বাংলার আকাশ রাখিব মুক্ত”। ইউসিবি বিমান বাহিনীর সদস্যদের ব্যাংকিং সেবা প্রদানের মাধ্যমে আর্থিক লেনদেন ও হিসাব নিরাপদ রাখবে বলে আমি আশা করি।

তিনি আরো বলেন, ব্যক্তির আর্থিক হিসাব অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাংক এই কাজটিতে সহায়তা করে। ইউসিবি প্রথম বেসরকারি ব্যাংক যারা সেনানিবাস এলাকায় তাদের কার্যক্রম পরিচালনার সুযোগ পেয়েছে। তারা এই সুযোগের সদ্ব্যবহার করে সেনানিবাসের সকলের ব্যাংকে পরিণত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সভাপতির বক্তব্যে ইউসিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও জনাব আরিফ কাদরী বলেন, ইউসিবি দীর্ঘ চার দশক ধরে সারাদেশে সুনামের সঙ্গে ব্যাংকিং সেবা প্রদান করছে। সময়ের পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে গ্রাহক চাহিদাকে বিবেচনায় নিয়ে ব্যাংকিং সেবাকে আধুনিক, নিরাপদ, সহজ ও গ্রাহকবান্ধব করতে ইউসিবি সর্বোচ্চ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় ফ্যালকন মার্টে বিমান বাহিনীর সদস্যদের আর্থিক সেবা প্রদানের দায়িত্ব গ্রহণ করেছে। বিমান বাহিনীর সদস্যদের চাহিদা বিবেচনায় নিয়ে সব ধরনের ব্যাংকিং সেবা প্রদানের ব্যাপারে ইউসিবি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ইউসিবি ও বিমান বাহিনী একসাথে এক পথে এগিয়ে যেতে চায়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে নতুন উপশাখা অফিস ও এটিএম বুথ ঘুরে দেখেন বিমান বাহিনী ও ইউসি


আরও খবর