Logo
আজঃ Wednesday ১০ August ২০২২
শিরোনাম
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ২৪৩৫ লিটার চোরাই জ্বালানি তেলসহ আটক-২ নাসিরনগরে বঙ্গ মাতার জন্ম বার্ষিকি পালিত রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড

গাইবান্ধায় ভাইয়ের লাঠির আঘাতে বোন নিহত

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
Image

গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলায় পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে ভাইয়ের লাঠির আঘাতে নাদিরা বেগম (৫৪) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (৭ জুন) সকালে উপজেলার দক্ষিণ সাথালিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নাদিরা বেগম উপজেলার সাঘাটা ইউনিয়নের দক্ষিণ সাথালিয়া গ্রামের নাদের মিয়ার স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, পারিবারিক কিছু বিষয় নিয়ে বেশ কিছুদিন থেকে আপন বড় ভাই লেবু মিয়ার সঙ্গে নাদিরার দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এর জেরে মঙ্গলবার সকালে তাদের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। একপর্যায়ে লেবু মিয়ার লাঠির আঘাতে গুরুতর আহত হন নাদিরা। পরে তাকে উদ্ধার করে সাঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

সাঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মতিয়ার রহমান বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। এ পর্যন্ত দুইজনকে আটক করা হয়েছে। তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানা যাবে।


আরও খবর



কক্সবাজারে হোটেল-মোটেল জোনে ‘টর্চার সেলের’ ঘটনায় মামলা

প্রকাশিত:Tuesday ০৯ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
Image

কক্সবাজারে হোটেল-মোটেল জোনের টর্চার সেলে জিম্মি অবস্থা থেকে পর্যটকসহ চারজনকে উদ্ধারের ঘটনায় অজ্ঞাতনামা ১১ জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) সকালে ভূক্তভোগী কক্সবাজার সদরের ঝিলংজার ডিককুল এলাকার আব্দুল্লাহ আল মামুনের বাবা মো. বেলাল আহমেদ বাদী হয়ে কক্সবাজার থানায় মামলাটি করেন।

মামলায় আসামিদের মধ্যে আটজন পুরুষ ও তিনজন নারী রয়েছেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার অঞ্চলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম।

তিনি জানান, সোমবার ভোরে কক্সবাজার শহরের লাইট হাউজ এলাকা সংলগ্ন আবাসিক কটেজ জোন এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি টর্চার সেলের সন্ধান পায় পুলিশ। এসময় কটেজ ব্যবসার আড়ালে টর্চার সেলে জিম্মি রাখা অবস্থায় দুই পর্যটক ও দুই কিশোরকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে সাইনবোর্ড বিহীন ‘শিউলি রিসোর্ট’ নামের ওই আবাসিক কটেজে তল্লাশি চালিয়ে নির্যাতন চালানো ও আপত্তিকর কাজে ব্যবহৃত কিছু সংখ্যক উপকরণ উদ্ধার করা হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরও বলেন, কক্সবাজারে হোটেল-মোটেল জোনের লাইট হাউজ এলাকায় দেড়শতাধিক আবাসিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এগুলোর মধ্যে অন্তত ২০-৩০টি কটেজে আবাসন কার্যক্রম চালাচ্ছে সাইনবোর্ডবিহীন। যেগুলোতে পর্যটকসহ সাধারণ মানুষকে জিম্মি রেখে নির্যাতন চালিয়ে মোটা অংকের টাকা আদায়ের পাশাপাশি নারীদের আপত্তিকর কাজে ব্যবহার করা হয়। দীর্ঘদিন ধরে সংঘবদ্ধ একটি চক্র এ ধরনের কাজে সক্রিয় রয়েছে।

পুলিশ মামলার আসামিদের তদন্তপূর্বক চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারে অভিযান চালাবে বলে উল্লেখ করেন পর্যটন পুলিশের এ কর্মকর্তা।

এদিকে ঘটনার পর কটেজ জোন সৈকত ও স্বরণ হাউজিংয়ের কটেজের মালিকদের সঙ্গে ট্যুরিস্ট পুলিশের মতবিনিময় সভা হয়। মঙ্গলবার বিকেলে ট্যুরিস্ট পুলিশ অফিসের হলরুমে এ বৈটকের আয়োজন করা হয়। বৈঠকে ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার অঞ্চলের এসপি জিল্লুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউলসহ পদস্থ কর্মকর্তা, কটেজ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলন। সবাই মিলে সহনশীল পর্যটন নিশ্চিতে কাজ করার অঙ্গীকার করেন।


আরও খবর



‘ভোট হবে ইভিএমে, কে কোথায় ভোট দেবেন আমাদের কাছে চলে আসবে’

প্রকাশিত:Sunday ২৪ July ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
Image

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার নাজিরপুর তাঁতেরকাঠী ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচন বুধবার (২৭ জুলাই)। এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ নিয়ে পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও কেন্দ্রীয় নেতা জোবায়দুল হক রাসেলের একটি বিতর্কিত বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

শনিবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যায় তাঁতেরকাঠী মাধ্যমিক বিদ্যালয় এলাকার একটি উঠান বৈঠকে জোবায়দুল হক রাসেল ওই বক্তব্য দেন। এ সময় আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী ইব্রাহিম ফারুক তার পাশে বসা ছিলেন।

ফেসবুকের ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিও বক্তব্যে জোবায়দুল হক রাসেলকে বলতে শোনা যায়, ‘ভোট হবে ইভিএমে। কে কোথায় ভোট দেবেন তা কিন্তু আমাদের কাছে চলে আসবে। অতএব ভয় পাওয়ার কোনো কারণ নাই, টেনশনেরও কিছু নাই।’

আওয়ামী লীগ নেতার এমন বক্তব্য ঘিরে সব মহলে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে। বিব্রতবোধ করছেন নির্বাচন সংশ্লিষ্টরাও।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পটুয়াখালী জেলা সিনিয়র নির্বাচন অফিসার খান আবি শাহানুর খান বলেন, ‘ইভিএমে ভোটগ্রহণ নিয়ে মিথ্যা ও ভুল তথ্য দিয়ে বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্যের বিষয়ে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার জন্য সবধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

তবে মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও আওয়ামী লীগ নেতা জোবায়দুল হক রাসেলের এ বিষয়ে বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এরআগে নাজিপুর তাঁতেরকাঠী ইউনিয়নের সুলতানাবাদের একটি উঠান বৈঠকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি তালুকদার মো. জাহাঙ্গীরও একটি বিতর্কিত বক্তৃতা দেন। সেখানে তিনি বিএনপির নেতাকর্মী ও সমর্থকদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আপনাদের দল বিএনপি নির্বাচন বর্জন করেছে। যেহেতু বিএনপি নির্বাচন বর্জন করেছে, তাহলে আপনি যদি সেই দলের সমর্থক হন, তাহলে আপনিও তো নির্বাচন বর্জন করেছেন। আর যদি মনে করেন নৌকা প্রতীকে আদৌ ভোট দিবেন না, ইব্রাহিম ফারুককে হারাতে হবে, নৌকাকে ঠেকাতে হবে; তাহলে আমিও কিন্তু একটা কথা আপনাদের পরিষ্কার বলে রাখি— সময় আছে মাত্র তিন-চারদিন। পরিষ্কার ভাষায় এ কথা বলতে চাই যে সব বন্ধুরা নৌকায় ভোট দিবেন না বলে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছেন, তারা অনুগ্রহপূর্বক আপনার দল নির্বাচন বর্জন করেছে, আপনিও নির্বাচন বর্জন করেছেন। আপনাকে কিন্তু আমরা ভোটের দিন কাছাকাছি দেখতে চাই না।’


আরও খবর



শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিদ্যুতের ব্যবহার ২৫ শতাংশ কমানোর নির্দেশ

প্রকাশিত:Sunday ২৪ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
Image

দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সংশ্লিষ্ট অফিসে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ ব্যয় কমাতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ২৫ শতাংশ বিদ্যুৎ ব্যয় ও ২০ শতাংশ জ্বালানি খরচ কমাতে বলা হয়েছে।

রোববার (২৪ জুলাই) মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) উপপরিচালক (সাধারণ প্রশাসন) অধ্যাপক বিপুর চন্দ্র বিশ্বাস স্বাক্ষরিত এ-সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে- শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের নির্দেশনার প্রেক্ষিতে চলমান পরিস্থিতি বিবেচনায় মাউশির অধীনস্থ সব অফিস ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিদ্যুৎ-জ্বালানি সাশ্রয় করতে হবে। সে লক্ষ্যে নতুন করে পাঁচ দফা নির্দেশনা অনুসরণ করতে বলা হয়েছে।

এসব নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে-

১, মাউশি ও তার অধীনস্থ সব অফিস, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিদ্যুতের ব্যবহার ২৫ শতাংশ কমাতে হবে। প্রতিষ্ঠান প্রধানেরা বিষয়টি নিশ্চিত করবেন। এ-সংক্রান্ত একটি সাশ্রয়ী প্রতিবেদন প্রতি মাসের ৩ তারিখের মধ্যে এ অধিদপ্তরের মনিটরিং অ্যান্ড ইভালুয়েশন উইংয়ে পাঠাতে হবে।

২, শিক্ষক-কর্মকর্তার গাড়ির জ্বালানি সংক্রান্ত মাসিক প্রাপ্যতা থেকে ২০ শতাংশ হ্রাস করতে হবে।

৩, যে সব সভা-অনুষ্ঠান অনলাইনে করা সম্ভব সেসব অনুষ্ঠান সশরীরে আয়োজন পরিহার করতে হবে।

৪, যেসব কর্মকর্তাদের রুমে এসি রয়েছে সেসব এসি ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় চালাতে হবে।

এছাড়াও উল্লেখিত নির্দেশনা অনুযায়ী বিদ্যুৎ ও জ্বালানির ব্যবহার সঠিকভাবে করা হচ্ছে কি না তা তদারকি করার জন্য প্রত্যেক অফিস ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মনিটরিং টিম গঠন করতে হবে।


আরও খবর



ইন্দোনেশিয়া থেকে এলো রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের কয়লা

প্রকাশিত:Thursday ০৪ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
Image

ইন্দোনেশিয়া থেকে রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের জ্বালানি কয়লা আমদানি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বিকেলে বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জেটিতে তিনটি লাইটারেজ জাহাজে করে কয়লা আসার পর তা খালাস শুরু হয়েছে।

রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) আনোয়ারুল আজীম রাত পৌনে ৯টায় দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এই প্রথম রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য জ্বালানি কয়লা আমদানি করা হয়েছে। বাংলাদেশের পতাকাবাহী এম ভি আকিজ হেরিটেজ জাহাজে করে ইন্দোনেশিয়া থেকে এই কয়লা এসেছে।

আনোয়ারুল আজীম আরও বলেন, চট্টগ্রাম বন্দরে খালাস হওয়া ১৮ হাজার ৬৫০ টন কয়লা লাইটারেজে (নৌযান) করে এখানে আনা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে এই কয়লা খালাসের কাজ শুরু হয়। এখন থেকে ধারাবাহিকভাবে এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রে জ্বালানি কয়লা আসবে।

এদিকে, জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট টগি শিপিংয়ের ব্যবস্থাপক মো. খন্দকার রিয়াজুল হক বলেন, গত ২০ জুলাই ইন্দোনেশিয়ার তানজুম ক্যাম্ফা বন্দর থেকে ৫৪ হাজার ৬৫০ মেট্রিক টন কয়লা নিয়ে আকিজ হেরিটেজ জাহাজটি ছেড়ে আসে। এরপর ৩১ জুলাই চট্টগ্রাম বন্দরে জাহাজটি ভিড়ে সেখানে ১৮ হাজার ৬৫০ মেট্রিক টন কয়লা খালাস করে। পরে ৩৬ হাজার টন কয়লা নিয়ে মোংলা বন্দরের উদ্দেশে জাহাজটি ছেড়ে আসে। শুক্রবার (৫ আগস্ট) সন্ধ্যায় মোংলা বন্দরের হাড়বাড়ীয়া-১১ নম্বর বয়ায় জাহাজটি অবস্থান করবে।

আমদানি করা এই কয়লা দিয়ে আগস্ট ও সেপ্টেম্বর মাসে রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র পরীক্ষামূলক চালানো হবে। তারপর অক্টোবর থেকে আনুষ্ঠানিক উৎপাদনে যাবে বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি।

রামপাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র সূত্র জানায়, এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির মূল অবকাঠামো নির্মাণের দায়িত্বে রয়েছে ভারত হেভি ইলেক্ট্রিক্যালস লিমিটেড (বিএইচইল) নামে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংস্থা। ২০১০ সালে ভূমি অধিগ্রহণের মাধ্যমে প্রকল্পটির কাজ শুরু হয়। ২০১২ সালে আনুষ্ঠানিক শুরু হয় নির্মাণ কাজ। বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি নির্মাণে মোট ১৬ হাজার কোটি টাকা খরচ হচ্ছে। এখান থেকে দুই ইউনিটে ৬৬০ মেগাওয়াট করে ১৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের কথা রয়েছে।


আরও খবর



‘কমনওয়েলথ পয়েন্টস অব লাইট’ পুরস্কার পেলেন কিশোর কুমার

প্রকাশিত:Friday ২২ July 20২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | ২৮জন দেখেছেন
Image

ব্যতিক্রমী স্বেচ্ছাসেবা ও মানবিক উদ্যোগের জন্য ‘কমনওয়েলথ পয়েন্টস অব লাইট’ পুরস্কার পেয়েছেন বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা কিশোর কুমার দাশ।

বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) দুপুরে প্রতিষ্ঠানটির মিরপুর কার্যালয়ে ব্রিটেনের রাণীর প্রতিনিধি হিসেবে ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটার্টন ডিকসন তার হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

এসময় বিদ্যানন্দের বোর্ড মেম্বারসহ স্বেচ্ছাসেবকরা উপস্থিত ছিলেন।

পুরস্কার তুলে দেওয়ার সময় ব্রিটিশ হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশের মানুষ সব সময় অনুপ্রেরণামূলক কাজ করে থাকে। বিদ্যানন্দ তারই প্রতিনিধিত্ব করছে। ব্রিটিশ সরকার খুবই গর্বিত এমন একটি প্রতিষ্ঠানকে সম্মান জানাতে পেরে।

পুরস্কার প্রাপ্তির অনুভূতি জানাতে গিয়ে কিশোর কুমার জানান, পুরস্কার বা স্বীকৃতিকে আমি কখনো অর্জন বলতে চাই না। এটা শুধু আমাদের অনুপ্রাণিত করে। বিদ্যানন্দে অসংখ্য মানুষ শ্রম দেয় এবং অনুদান পাঠান। তাই এটা আমার জন্য নয়, বরং আমাদের দেশের জন্য একটি অনুপ্রেরণার।

কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর অনুপ্রেরণামূলক স্বেচ্ছাসেবকদের ধন্যবাদ জানাতে এই পুরস্কার দেওয়া হয় ব্রিটিশ রানীর পক্ষ থেকে।


আরও খবর