Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

ফরিদপুরে মাটি ধসে তিন শ্রমিকের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২৫০জন দেখেছেন

Image

সদরপুর প্রতিনিধি:ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলায় নির্মাণাধীন সেতুর কাজ চলার সময় মাটি ধসে তিন নির্মাণশ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও চার শ্রমিক। আহতদের উদ্ধার করে সদরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আজ বুধবার বেলা ১২ টার দিকে উপজেলার ভাষানচর ইউনিয়নের জমাদ্দার ডাঙ্গী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, বাগেরহাট জেলার মোল্যারহাট থানার উদয়পুর গ্রামের আলামিন খার ছেলে জাবেদ খা (২৩), ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানার কবিরপুর গ্রামের আফজাল শেখের ছেলে অন্তর শেখ (২২), ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানার কুফুর দিয়া গ্রামের ইসমাইল মীরের ছেলে জুলহাস মীর (২১)।

এ বিষয়ে সদরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আহসান মাহমুদ রাসেল বলেন, ‘এ ঘটনায় আমরা মর্মাহত। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা হয়েছে, তারা তদন্ত কমিটি গঠন করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

সদরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত গোলদার বলেন, ‘খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে যাই এবং উদ্ধার কাজে সহযোগিতা করি। প্রাথমিক তথ্য বিবরণী শেষে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর পাঠান হবে।

সদরপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন লিডার আ. সালাম খান বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ফায়ারসার্ভিসের দুটি ইউনিট কাজ শুরু করে। প্রায় দুই ঘণ্টার চেষ্টায় মাটির নিচে চাঁপা পরা ৩ শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, আমিরাবাদ ভাষানচর-কৃষ্ণপুর সড়কে ৪ কোটি ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে একটি সেতু নির্মাণের কাজ করা হচ্ছে। প্রজেক্টটি বাস্তবায়নে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করছিল এমডি ইমতিয়াজ আসিফ কনাস্ট্রাকশন।


আরও খবর



সেনাপ্রধানের দায়িত্ব নিলেন জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান সেনাবাহিনীর প্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন । তিনি জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হলেন।

রবিবার (২৩ জুন) এ তথ্য জানায় আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)। আগামী তিন বছরের জন্য সেনাপ্রধানের দায়িত্বে থাকবেন তিনি।

গত ১১ জুন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামানকে ২৩ জুন থেকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে জেনারেল পদে পদোন্নতি দিয়ে তিন বছরের জন্য সেনাবাহিনী প্রধান হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

এর আগে এক বিজ্ঞপ্তিতে আইএসপিআর জানায়, ওয়াকার-উজ-জামান ১৯৮৫ সালের ২০ ডিসেম্বর ১৩তম দীর্ঘমেয়াদি কোর্সের সঙ্গে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কমিশন লাভ করেন। তিনি ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ, মিরপুর এবং যুক্তরাজ্যের জয়েন্ট সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করেন। এ ছাড়া তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘মাস্টার্স অব ডিফেন্স স্টাডিজ’ এবং যুক্তরাজ্যের কিংস কলেজ, ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন থেকে ‘মাস্টার্স অব আর্টস ইন ডিফেন্স স্টাডিজ’ ডিগ্রি অর্জন করেন।

ওয়াকার-উজ-জামান সুদীর্ঘ ৩৯ বছরের বর্ণাঢ্য সামরিক জীবনে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদের পাশাপাশি নবম পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং এবং সাভার এরিয়ার এরিয়া কমান্ডার, সেনা সদরে সামরিক সচিব এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চিফ অব জেনারেল স্টাফ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়া তিনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আর্মড ফোর্সেস ডিভিশনে প্রধানমন্ত্রীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এরিয়া কমান্ডার সাভার এরিয়া ও জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) নবম পদাতিক ডিভিশন হিসেবে ওয়াকার-উজ-জামান টানা তিন বছর অত্যন্ত সফলভাবে বিজয় দিবস প্যারেড ২০১৪, ২০১৫ ও ২০১৬-এর প্যারেড কমান্ডারের দায়িত্ব পালন করেন। বিরল এই কৃতিত্বের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি ‘সেনাগৌরব পদক’ (এসজিপি) পান।

ওয়াকার-উজ-জামান স্টাফ হিসেবে পার্বত্য চট্টগ্রামে নিয়োজিত একটি ব্রিগেড, স্কুল অব ইনফ্যান্ট্রি অ্যান্ড ট্যাকটিকস (এসআইএন্ডটি) এবং সেনা সদরে বিভিন্ন পদবি ও নিয়োগে দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়া তিনি প্রতিক্ষণ হিসেবে জেসিও এনসিও একাডেমি (জেএনএ), স্কুল অব ইনফ্যান্ট্রি অ্যান্ড ট্যাকটিকস ও বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিস সাপোর্ট অ্যান্ড ট্রেনিংয়ে (বিপসট) অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে সব পদবির দেশি-বিদেশি সেনাসদস্যদের প্রশিক্ষণ দেন।

জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান জাতিসংঘের ব্যানারে মিলিটারি অবজারভার হিসেবে অ্যাঙ্গোলা এবং সিনিয়র অপারেশন অফিসার হিসেবে লাইবেরিয়াতে দায়িত্ব পালন করেন। সেনাবাহিনীতে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য তিনি ‘অসামান্য সেবা পদকে’ (ওএসপি) ভূষিত হন। তার স্ত্রীর নাম সারাহনাজ কমলিকা জামান। এ দম্পতির সামিহা রাইসা জামান ও শাইরা ইবনাত জামান নামে দুই কন্যাসন্তান রয়েছে।


আরও খবর



সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য ১০০০ফিক্সের ‘শিখবে ওরা গড়বে দেশ’

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮২জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার:দেশের শীর্ষ আইটি, ডিজিটাল, মোবাইল ও হোম অ্যাপ্লায়েন্সেস সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ১০০০ফিক্স সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য নিয়ে এলো ‘শিখবে ওরা গড়বে দেশ’ ক্যাম্পেইন। দরিদ্রতার কারণে শিক্ষা যাতে বাধা না হয়ে দাঁড়ায়, সেই লক্ষ্যে দরিদ্র শিশুদের শিক্ষা ব্যবস্থা এবং শিক্ষা সরঞ্জাম প্রদান করতে ভিন্নমাত্রার আয়োজন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। 

এ বিষয়ে ১০০০ফিক্স ও স্মার্ট ফাউন্ডেশনের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ১০০০ফিক্সের পক্ষ থেকে চুক্তিপত্র স্বাক্ষর করেন ১০০০ফিক্সের চিফ সার্ভিস অফিসার (সিএসও) ইফতেখার রাসেল এবং স্মার্ট ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে নূর মোহাম্মদ শাহরিয়ার, জেনারেল ম্যানেজার, স্মার্ট ফাউন্ডেশন, এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মাদ আবুবক্কর সিদ্দিক, প্রিন্সিপ্যাল, স্মার্ট একাডেমি হেফজ ডিপার্টমেন্ট, স্মার্ট ফাউন্ডেশন, রিজওয়ানুল হক চৌধুরী, চিফ অপারেটিং অফিসার, ১০০০ফিক্স, উল্লাস কুমার ধর, হেড অফ টেকনিক্যাল অপারেশনস, এবিএম গোলাম মহিউদ্দিন, হেড অফ কর্পোরেট সার্ভিসি এবং ইমদাদুল হক মিলন, ব্রান্ড এন্ড মার্কেটিং ম্যানেজার।

মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, ১০০০ফিক্স ২০১৭ সাল থেকে কর্পোরেট ও রিটেইল কাস্টমারদের আইটি ডিভাইস, হোম অ্যাপ্লায়েন্সেস, মোবাইল ও এক্সেসরিজ রিপেয়ার সার্ভিস, ইন্সটলেশন এবং রেন্টাল সার্ভিস দিয়ে আসছে। নিজেদের ব্যবসার প্রসার বৃদ্ধির পাশাপাশি দেশ ও সমাজের প্রতি দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে নানান উদ্যোগ নিয়ে থাকে প্রতিষ্ঠানটি। 

তারই ধারাবাহিকতায় ১০০০ফিক্স শুরু করেছে ‘শিখবে ওরা গড়বে দেশ’ নামক ক্যাম্পেইন, যা সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষাগ্রহণ কার্যক্রমে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। দরিদ্র শিশুদের শিক্ষা উন্নয়ন কার্যক্রমে থাউজেন্ড ফিক্স থেকে গ্রাহকের ক্রয়কৃত প্রতিটি সার্ভিস হতে ২০ টাকা মূল্য প্রদান করা হয়।

এ বিষয়ে ১০০০ফিক্সের মূল প্রতিষ্ঠান স্মার্ট গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম বলেন, স্মার্ট গ্রুপ ব্যবসার পাশাপাশি দেশের জনগণের কল্যাণে সর্বদাই অগ্রগামী ভূমিকা পালন করে। তারই অংশ হিসেবে স্মার্ট ফাউন্ডেশনের সঙ্গে থাউজেন্ড ফিক্স সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষার উন্নয়নে কাজ করছে। দরিদ্রতার কারণে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের পড়াশোনা যাতে বাঁধাগ্রস্ত না হয়। এ জন্য আমরা দরিদ্র শিশুদের পাশে থাকতে শিক্ষা ব্যবস্থা এবং শিক্ষা সরঞ্জাম প্রদান করছি। আগামীতেও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কল্যাণে আমরা পাশে থাকতে চাই।

আরও খবর



সব কোচিং সেন্টার দেড় মাস বন্ধ থাকবে

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১০৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দেশের সব কোচিং সেন্টার এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ২৯ জুন থেকে ১১ আগস্ট পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বুধবার (৫ জুন) সচিবালয়ে এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক সভা শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এইচএসসি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁস কিংবা পরীক্ষার্থীদের নিকট উত্তর সরবরাহে জড়িত হলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন। এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও জেলা প্রশাসন সতর্ক রয়েছে।

মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রশ্ন ফাঁস সংক্রান্ত গুজব এবং এ কাজে তৎপর চক্রগুলোর বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছে। ২০২৪ সালের উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা আগামী ৩০ জুন শুরু হবে। লিখিত পরীক্ষা শেষ হবে ১১ আগস্ট।

ব্যবহারিক পরীক্ষা ১২ আগস্ট থেকে ২১ আগস্টের মধ্যে শেষ করতে হবে বলেও জানান তিনি

উল্লেখ্য, ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদরাসা শিক্ষা আর কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৪ লাখ ৫১ হাজার। কেন্দ্রের সংখ্যা ২ হাজার ৭২৫টি। এছাড়া দেশে বাইরে ৮টি পরীক্ষা কেন্দ্র রয়েছে।


আরও খবর



আজিজের দুর্নীতির অনুসন্ধান চেয়ে দুদকে আবেদন

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১২৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দুর্নীতির অভিযোগের অনুসন্ধান চেয়ে সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদের বিরুদ্ধে দুদকে আবেদন করেছেন এক আইনজীবী।

বুধবার (২৯ মে) দুপুরে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সালাহ উদ্দিন রিগ্যান এ আবেদন করেন।

সুপ্রিম কোর্টের এই আইনজীবী গণমাধ্যমকে জানান, আজিজের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে, তা আইন অনুযায়ী অনুসন্ধানের উদ্যোগ নিতে এ আবেদন করা হয়েছে। দুদক ব্যবস্থা না নিলে জনস্বার্থে হাইকোর্টে রিট দায়ের করবেন বলেও জানান তিনি।

বড় ধরনের দুর্নীতিতে সম্পৃক্ততার অভিযোগে সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদ ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে গত ২১ মে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এই নিষেধাজ্ঞার পর তারা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন না।

গত ২০ মে দিবাগত রাতে ইউনাইটেড স্টেট ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট’র ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, জেনারেল আজিজ আহমেদের কর্মকাণ্ড বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান এবং সরকারি প্রতিষ্ঠাণের প্রতি জনগণের বিশ্বাসকে ক্ষুণ্ন করেছে। আজিজ আহমেদ তার ভাইকে বাংলাদেশে অপরাধমূলক কার্যকলাপের জন্য জবাবদিহিতা এড়াতে বেশ কিছু ক্ষেত্রে দুর্নীতিতে জড়িত ছিলেন। সামরিক চুক্তির বিষয়ে আজিজ তার ভাইয়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছিলেন এবং তার ব্যক্তিগত স্বার্থে সরকারি নিয়োগের বিনিময়ে ঘুষ গ্রহণ করেন।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আজিজ আহমেদের বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠা ও আইনের শাসন শক্তিশালী করতে যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গীকার পুনরায় নিশ্চিত করা হলো। সরকারি সেবা আরও স্বচ্ছ ও নাগরিকদের সেবা লাভের সুযোগ তৈরি, ব্যবসা ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার উন্নয়ন এবং মুদ্রা পাচার ও অন্যান্য অর্থনৈতিক অপরাধের অনুসন্ধান ও বিচার নিশ্চিতে সক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে বাংলাদেশে দুর্নীতিবিরোধী প্রচেষ্টায় সহায়তা দেয় যুক্তরাষ্ট্র।

এতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশের সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান, ডিপার্টমেন্ট অব স্টেট, ফরেন অপারেশন অ্যান্ড রিলেটেড প্রোগ্রামস অ্যাপ্রোপ্রিয়েশনস অ্যাক্টের ৭০৩১ (সি) ধারার আওতায় অন্তর্ভুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে পররাষ্ট্র দপ্তর। এ পদক্ষেপের ফলে আজিজ আহমেদ এবং তার পরিবারের সদস্যরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে অযোগ্য হিসেবে বিবেচিত হবেন।


আরও খবর



রৌমারীতে স্মার্ট ভুমিসেবা সপ্তাহ উদ্বোধন

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭৫জন দেখেছেন

Image

মাজহারুল ইসলাম,রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:স্মার্ট ভুমিসেবা, স্মাট নাগরিক প্রতিপাদ্যের উপর রৌমারীতে ভুমিসেবা সপ্তাহের শুভউদ্বোধন করা হয়েছে। ৮ জুন শনিবার সকাল ১১ টায় ফিতা কেটে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়। 

রৌমারী উপজেলা ভুমি অফিস আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রৌমারী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম শালু। উপজেলা ভুমি অফিস কার্যালয়ের সামনে, উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদ হাসান খানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মুক্তার হোসেনের সঞ্চলানায় সভায় উপজেলা কমিশনার ভুমি আশিফ উদ্দিন মিয়ার শুভেচ্ছা বক্তব্যের পর অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, অফিসার ইনচার্জ তদন্ত মোশাহেদ হোসেন, শৌলমারী ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তা রুহুল্্যাহ, কৃষক মজনু মিয়া, প্রভাষক মোশারফ হোসেন, নির্বাচন অফিসার এমদাদুল হক, সাংবাদিক শওকত আলী মন্ডল, সাংবাদিক এসএম মমিন, উপজেলা ভাইচ চেয়ারম্যান সামসুল দোহা, মহিলা ভাইচ চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার স্মৃতি। এ সময় স্কুলের শিক্ষার্থী, গণমাধ্যমকর্মী, ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তা ও গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ। 

তবে স্মার্ট ভুমিসেবা উপজেলার কৃষকদের নিয়ে আলোচনা সভা করার কথা থাকলেও সভায় কৃষকদেরকে ডাকা হয়নি। কিভাবে স্মার্ট ভুমিসেবা ভুমি মালিকগণ পাবে এবং সমস্যা হবে না, সে জন্য ভুমি মালিকদের আলোচনার মাধ্যমে জানিয়ে দেয়ার প্রয়োজন বলে বক্তব্যের মাধ্যমে উঠে আসে।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের অঞ্চল দরিদ্র অঞ্চল। চরাঞ্চল ও নদী ভাঙ্গন এলাকা। এখানকার মানুষ খুব অসহায়। জানা গেছে, ভুমিসেবা পেতে হয়রানি হতে হয়। আমি ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তাদেরকে অনুরোধ করে বলতে চাই। ভুমি মালিকরা যেন সেবা নিতে এসে হয়রানির শিকার না হয়। ভুমি মালিকরা যাতে হয়রানির শিকার না হয় সে সরকার বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা করে দিয়েছেন। আপনারা শুধু তাদেরকে সুন্দর ভাবে বুঝিয়ে দিয়ে কাজ করে দিবেন।



আরও খবর