Logo
আজঃ Tuesday ২৪ May ২০২২
শিরোনাম

ফেসবুকে রঙধনু

প্রকাশিত:Saturday ০৯ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১৬৯জন দেখেছেন
Image

সংগৃহীতঃ

পৃথিবীটা যখন একেবারে নতুন তখনকার কথা।  নানবোজোদের বাড়ির পাশে ছিল বিশাল এক ঝরনা।


আর ঝরনাটির কাছেই ছিল বিস্তীর্ণ তৃণভূমি। ঘাস ও লতাপাতায় ছাওয়া সবুজ ওই তৃণভূমিতে অনেক ফুল ফুটতো। কিন্তু সবগুলো ফুলই ছিল ফ্যাকাসে সাদা রঙের। কারণ, তখন ফুলদের কোনো রংই ছিল না।


নানবোজো একদিন ঘরের জানালা দিয়ে তৃণভূমির দিকে তাকিয়ে ভাবলো, ইশ! ফুলগুলো যদি রঙিন হতো। যেই ভাবা সেই কাজ।

ঘর থেকে সব রঙের পাত্র আর তুলি নিয়ে সোজা তৃণভূমিতে চলে গেলো সে।

নানবোজো নরম লম্বা ঘাসের উপর বসে রঙের বাটিগুলো সাজিয়ে নিলো। প্রথমে রাখলো লাল, তারপর কমলা, তারপর হলুদ, সবুজ, নীল এবং বেগুনি। এবার ফুলগুলো রং করবার পালা।  

ছোট ছোট ভায়োলেট ফুলগুলোতে সে দিল গাঢ় নীল রং আর লিলিগুলোর গায়ে আঁকিয়ে দিল বাঘের চামড়ার মতো ডোরাকাটা দাগ। ড্যাফোডিলগুলো পেলো উজ্জ্বল হলদে রং। কিন্তু গোলাপগুলোকে সে তিনটি ভিন্ন রঙে রাঙায়। কোনোটা লাল, কোনোটা হাল্কা লাল, কোনোটা আবার ময়ূরের পেখমের মতো রক্তবেগুনি। দিনের ঝলমলে রোদে কাজ করতে করতে মনের সুখে গুনগুন করে গান ধরে নানবোজো।  

এসময় নানবোজোর মাথার উপরে খেলা করতে শুরু করে দু’টি নীলকণ্ঠ পাখি। প্রথম পাখিটা দ্বিতীয় পাখিটাকে ধাওয়া করে নিয়ে যায় তৃণভূমির শেষ প্রান্তে। দ্বিতীয় পাখিটা আবার প্রথম পাখিটাকে ধাওয়া করে নিয়ে আসে তৃণভূমির শুরুর মাথায়। পাখি দু’টির নাম জিপ আর জিং।  

কাজের ফাঁকে ফাঁকে সীমাহীন নীল আকাশের দিকে তাকিয়ে ওদের খেলা দেখছিল নানবোজো। সে যখন ডেইজি ফুলগুলোতে হলদে রং মাখাচ্ছিল, জিপ আর জিং তখন নতুন আরেকটা খেলা শুরু করে। কে কত দ্রুত আকাশ থেকে মাটির সবুজ ঘাসের কাছে নেমে আসতে পারে।  

প্রথমে নামলো জিপ। ঘাসের কাছাকাছি নেমে ও যখন আবার উড়াল দিতে যাবে, তখনই ওর একটা ডানা ডুবে গেলো লাল রঙের বাটিতে। আর জিং যখন মাটির কাছে নেমে আসছিল ওর একটা ডানাও তলিয়ে গেলো কমলা রঙের বাটিতে।

 

ওহ! যা শুরু করেছো তোমরা, পাখি দু’টির উপর খুব বিরক্ত হয়ে বললো, নানবোজো।  

কিন্তু কে শোনে কার কথা। জিপ আর জিং তবু খেলতেই থাকলো। ওরা একবার নেমে আসে মাটিতে রঙের বাটিগুলোর কাছে, আবার সাঁই সাঁই করে উড়াল দিয়ে হারিয়ে যায় দূর আকাশে। এভাবে খেলতে খেলতে ওদের পা আর পালকগুলো একে একে সবক’টি রঙে ভরে গেলো।  

অবশেষে নানবোজো উঠে দাঁড়ালো। হিস্‌ হিস্‌ শব্দ করে হাত নাড়িয়ে পাখিদু’টিকে তাড়িয়ে দিলো সে।

নানবোজোর কাছ থেকে উড়ে চলে গেলো নীলকণ্ঠ পাখি দু’টি। এবার ওরা চলে গেলো নানবোজোদের বাড়ির পাশে ঝরনার কাছে। ওখানে গিয়ে আবার আগের মতো ধাওয়া-ধাওয়ি খেলায় মেতে উঠলো।  

ঝরনার আশপাশের হাওয়ায় তখন মেঘ আর কুয়াশা ভেসে বেড়াচ্ছিল। প্রথমবার জিপ যখন তার সঙ্গী জিংকে কুয়াশার ভেতর দিয়ে ধাওয়া করলো, কুয়াশার গায়ে তখন লালরঙা একটি আঁকাবাঁকা দাগ বসে যায়।  

জিং আবার যখন জিপকে উল্টো দিকে ধাওয়া করলো, তখন সেও এঁকে দেয় কমলা রঙের একটি আঁকাবাঁকা দাগ। এভাবে খেলতে খেলতে সাতটি রঙের আঁকাবাঁকা ডোরা পড়ে রইলো মেঘ আর কুয়াশার গায়ে।  

ধীরে ধীরে রংগুলো আরও জীবন্ত হয়ে ওঠে। সূর্যের আলোয় রঙিন দাগগুলো জ্বলজ্বল করতে থাকল।  

ঝরনার দিকে তাকিয়ে ভারি আনন্দ হয় নানবোজোর। সাতটি রঙের উজ্জ্বল আভা যেন পুরো তৃণভূমিটায় ছড়িয়ে পড়ে। লাল, কমলা, হলুদ, সবুজ, নীল, বেগুনি ও আসমানি রং ধনুকের মতো আকাশের নিচে চক্‌মক্‌ করতে থাকে। দুষ্টু নীলকণ্ঠ পাখি দু'টির কথা ভেবে মনে মনে হাসে নানবোজো। সে বলে, তোমরা তো দেখছি আস্ত একটা রংধনুই বানিয়ে ফেলেছ! 

তারপর থেকে রংধনুটা ভাসতে থাকে আকাশের নিচে, সেই ঝরনাটির উপরে। সেদিন থেকে বৃষ্টির পর সূর্য যখন পূর্ণ আলো ছড়ায়, আকাশের কোলে হেসে ওঠে সুন্দর একটি রংধনু।


আরও খবর



অটোরিকশায় করে বাড়ি ফেরার পথে

বউ ছিনতাইয়ের চেষ্টায় আটক ২

প্রকাশিত:Sunday ২২ May 20২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জ উপজেলায় সাবেক বউকে ছিনতাইয়ের চেষ্টার অভিযোগে দুই ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে এলাকাবাসী। এ ঘটনায় ওই সাবেক স্বামীসহ আরও দুইজন পালিয়ে যায়।



 শনিবার (২১ মে) বিকেলে কামালপুর ইউনিয়নের মাঝগেদরা বটতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে একটি সাদা প্রাইভেটকার ও দুইজনকে আটক করে স্থানীয়রা। পরে তাদের স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে আটকে রাখা হয়।


স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার বগারচর ইউনিয়নের গলাকাটি গ্রামের হামেজ উদ্দিনের ছেলে আব্দুল মান্নানের সঙ্গে প্রায় ৩ বছর আগে ধানুয়া কামালপুর ইউনিয়নের নয়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান জুবায়ের হিটলারের মেয়ে আয়শা জুবাইদা শশীর বিয়ে হয়৷


 বিয়ের পর থেকেই স্ত্রী শশীকে নানাভাবে নির্যাতন করে আসছিলেন মান্নান। দিনদিন নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় গত ৬/৭ মাস আগে স্ত্রী আয়শা জুবাইদা শশী স্বেচ্ছায় মান্নানকে তালাক দেন।


শনিবার সকাল থেকেই মাঝগেদরা এলাকায় সহযোগীদের নিয়ে ওত পেতে থাকেন মান্নান। সাবেক স্ত্রী শশী বকশীগঞ্জ খা‌তেমুন মঈন মহিলা ডিগ্রি কলেজ থেকে অটোরিকশায় করে বাড়ি ফেরার পথে মাঝগেদরা এলাকায় তার গতিরোধ করেন মান্নান। 


একপর্যায়ে মান্নান তার সহযোগী পৌর শহরের মাঝপাড়া গ্রামের আকতার হোসেনের ছেলে মজনু মিয়া ও মাঝগেদরা এলাকার জহুরুল হকের ছেলে মোস্তাইন তাকে জোরপূর্বক মাইক্রোবাসে তোলে।  স্থানীয়রা ‌বিষয়‌টি বুঝ‌তে পে‌রে তা‌দের আটক ক‌রেন। এ সময় সাবেক স্বামী মান্নান পালিয়ে গেলেও তার দুই সহযোগী মজনু ও মোস্তাইনকে আটক করা হয়। পরে খবর পেয়ে বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়৷


বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তরিকুল ইসলাম তালুকদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


আরও খবর



আমিরাতে আল হারামাইন পারফিউমসের উদ্যোগে বৃহৎ ইফতার মাহফিল

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১৬৩জন দেখেছেন
Image


মোঃশাজাহান খান, আরব আমিরাত থেকে 

সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশের গর্বিত প্রতিষ্ঠান বিশ্ববিখ্যাত পারফিউমস কোম্পানি আল হারামাইন গ্রুপের উদ্যোগে ৫ হাজার প্রবাসীদের সম্মানে  ইফতার মাহফিল আয়োজন করা হয়। রবিবার ২৪ এপ্রিল আমিরাতের আজমানে অবস্থিত কোম্পানির প্রধান কার্যালয় এবং কারখানা প্রাঙ্গণে এ ইফতার মাহফিল আয়োজন করা হয়। 

এতে  দুবাইতে নিযুক্ত বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল, বাংলাদেশে নিযুক্ত আমিরাতের রাস্ট্রদূত, আমিরাত সরকারের  উধ্বত্বন কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীসহ প্রবাসী বাংলাদেশী বিশিষ্ট ব্যক্তি ও তাদের পরিবারবর্গ, আমিরাতে অবস্হানরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিকস মিডিয়ার প্রতিনিধিবৃন্দসহ বিপুল সংখ্যক দেশী বিদেশী প্রবাসী উপস্থিত ছিলেন। 

অনুষ্ঠানে আল হারামাইনের কর্ণধার মাহাতাবুর রহমান নাসির সিআইপি ও আল হারাইমাইনের পরিচালক ডাঃ মুনীরা মাহতাব( মাহতাব কন্যা) উপস্থিত অতিথিদের স্বাগত, শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন। এবং সকলের প্রতি অনুস্ঠানে উপস্থিত হওয়াতে ধন্যবাদ জানান। 


আরও খবর



তৃতীয় ধাপে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেল ৩৩ হাজার পরিবার

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১১৬জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

দেশের ৩২ হাজার ৯০৪ গৃহ ও ভূমিহীন পরিবার আসন্ন ঈদের আগে তৃতীয় ধাপে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে ঘর পেয়েছেন।গণভবন থেকে মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) ভিডিও কনফারেন্সে এসব ঘর হস্তান্তর করেন শেখ হাসিনা।


প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দাদের হাতে ঘরের চাবি তুলে দেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও মাঠ প্রশাসনের কর্মকর্তারা।


তৃতীয় ধাপের এসব ঘর হস্তান্তর কার্যক্রমের উদ্বোধন করে শেখ হাসিনা বলেন, আমার সবচেয়ে ভালো লাগে যখন দেখি একটা মানুষ ঘর পাওয়ার পর তার মুখের হাসি। জাতির পিতা দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে চেয়েছিলেন।


সবার জন্য আবাসন নিশ্চিত করতে সরকারের কার্যক্রমের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাকি যে ঘরগুলো আছে সেগুলো আস্তে আস্তে তৈরি করে সব মানুষ যেন মানুষের মতো বাঁচতে পারে, সুন্দর জীবন পেতে পারে। সেটাই আমাদের লক্ষ্য। বাংলাদেশের একটি মানুষও গৃহহীন থাকবে না, ভূমিহীন থাকবে না। এটাই আমাদের লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য নিয়েই কাজ করে যাচ্ছি।



শেখ হাসিনা মুজিববর্ষ উপলক্ষে ঘোষণা দিয়েছেন যে, বাংলাদেশের কোনো মানুষ যাতে ভূমি ও গৃহহীন না থাকে। সেজন্য তিনি দুই শতক জমির উপর দুই রুম বিশিষ্ট একটি ঘর উপহার দিচ্ছেন। এসব ঘরের ডিজাইন প্রধানমন্ত্রী নিজেই প্রণয়ন করেছেন।


তৃতীয় ধাপে এসব ঘর দেওয়ার আগে প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ঘর পেয়েছে ১ লাখ ১৭ হাজার ৩২৯টি পরিবার। তৃতীয় ধাপের আরও ৩২ হাজার ৭৭০টি ঘর নির্মাণাধীন রয়েছে।


আশ্রয়ণের প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপের চেয়ে তৃতীয় ধাপের ঘরগুলো অনেক বেশি টেকসই। তৃতীয় ধাপে একেকটি ঘর নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ২ লাখ ৫৯ হাজার ৫০০ টাকা। তৃতীয় ধাপের ঘরগুলোতে আরসিসি পিলার, গ্রেড ভিম, টানা লিংকটারসহ বেশ কিছু বিষয় সংযোজন করা হয়।  



এসব ঘর হস্তান্তর অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার কাইচাইল ইউনিয়নের পোড়াদিয়া বালিয়া, বরগুনা সদর উপজেলার গৌরিচন্না ইউনিয়নের খাজুরতলা, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার খোকশাবাড়ী ইউনিয়নের খোকশাবাড়ী ও চট্টগ্রামের আনোয়ারার বারখাইন ইউনিয়নের হাজিগাঁওয়ে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত হয়ে উপকারভোগীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।


আরও খবর



সিদ্ধিরগঞ্জে ১০বছরের শিশুর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকা থেকে ১০বছরের শিশুর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:Sunday ১৫ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ৭৫জন দেখেছেন
Image

শরীফ আহমেদঃ   

নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন মিজমিজি এলাকার আলাউদ্দিনের বাসা থেকে ১০ বছরের শিশুর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ।


নিহতের নাম মেহেদী হাসান সে মিজমিজি এলাকার আলাউদ্দিনের বাড়ির ভাড়াটিয়া জাহাঙ্গীরের পুত্র তার মায়ের নাম পারভিন বেগম।


নিহত মেহেদী হাসানের পিতা জাহাঙ্গীর পেশায় ইমারত নির্মাণ শ্রমিক এবং মা পারভীন বেগম গার্মেন্টস শ্রমিক বলে জানা গেছে।


রবিবার ১৪ মে বিকেলে মেহেদী হাসানের গলায় গামছা প্যাঁচানো মৃত দেহটি ঘরের আড়ার সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ।


প্রাথমিকভাবে মেহেদী হাসানের রহস্যজনক মৃত্যুর সঠিক কারণ জানাতে পারেনি পুলিশ। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।


আরও খবর



যুক্তরাষ্ট্রের ম্যানহাটনে বাংলাদেশী সিনেমার প্রিমিয়ার

প্রকাশিত:Monday ২৫ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১৮০জন দেখেছেন
Image

বিনোদন প্রতিবেদকঃ

নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরীর ‘রিকশা গার্ল’-এর প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনে। আগামী ৫ মে শহরটির বিখ্যাত মুভি থিয়েটার ‘ভিলেজ ইস্ট বাই অ্যাঞ্জেলিকা’য় সিনেমাটি দেখানো হবে।


বায়োস্কোপ ফিল্মসের সৌজন্যে আয়োজিত এই প্রিমিয়ারে পরিচালক অমিতাভ রেজার সঙ্গে অংশ নেবেন ‘রিকশা গার্ল’র নির্বাহী প্রযোজক আসাদুজ্জামান সকাল, সহ-প্রযোজক মেহজাবিন রেজা, কেন্দ্রীয় চরিত্রের অভিনয়শিল্পী নভেরা রহমান, মোমেনা চৌধুরীসহ অন্যান্যরা।  


এ প্রসঙ্গে অমিতাভ রেজা বলেন, বাংলাদেশের সিনেমাকে বিশ্বমঞ্চে তুলে ধরতে ‘রিকশা গার্ল’ নিয়ে আমরা বড় বড় সব চলচ্চিত্র উৎসব ও শহরে হাজির হয়েছি। ম্যানহাটনের মতো বৈচিত্র্যময় শহরে এই সিনেমাটির প্রিমিয়ার করতে পেরে আমার ভিন্ন রকম অনুভূতি হচ্ছে।


যেহেতু ‘রিকশা গার্ল’র গল্পটি ভারতীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের লেখক মিতালি পারকিনসের কিশোরসাহিত্য থেকে নেওয়া, তাই সেখানকার বাসিন্দারা সিনেমাটি উপভোগ করবেন বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন ‘আয়নাবাজি’খ্যাত এই নির্মাতা।


‘রিকশা গার্ল’-এ নাইমা চরিত্রে অভিনয় করেছেন নভেরা রহমান। আরো রয়েছে- চম্পা, মোমেনা চৌধুরী, নরেশ ভূঁইয়া, অ্যালেন শুভ্র ও অন্যান্যরা। সিনেমাটির চিত্রনাট্য লিখেছেন নাসিফ ফারুক আমিন ও শর্বরী জোহরা আহমেদ।



আরও খবর