Logo
আজঃ Tuesday ২৪ May ২০২২
শিরোনাম

এক দিনে করোনা শনাক্ত সাড়ে ৯ হাজার, মৃত্যু ১২

প্রকাশিত:Wednesday ১৯ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ২৩৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে শনাক্ত হয়েছে ৯ হাজার ৫০০ জন। ফলে শনাক্তের হার বেড়ে দাঁড়াল ২৫ দশমিক ১১ শতাংশে। দেশে করোনায় এ পর্যন্ত মোট ২৮ হাজার ১৭৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনাক্ত হয়েছে ১৬ লাখ ৪২ হাজার ২৯৪ জনের।

আজ বুধবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৪৭৩ জন, এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ৫৪ হাজার ২৬৮ জন।

এতে আরও বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ হাজার ৫৭৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ৩৭ হাজার ৮৩০টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ২৫ দশমিক ১১ শতাংশ। মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭২ শতাংশ।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবারের আগের ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু হয় ১০ জনের। শনাক্ত হন ৮ হাজার ৪০৭ জন। শনাক্তের হার ছিল ২৩ দশমিক ৯৮ শতাংশ।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।


আরও খবর



জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ

হাজী সেলিম কে জেলেই যেতেহলো

প্রকাশিত:Sunday ২২ May 20২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় সাজা ভোগের জন্য আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য হাজী মোহাম্মদ সেলিমকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। এরপর বিকেল ৫টা ৫ মিনিটে আদালত থেকে পিকআপ ভ্যানে করে তাকে নিয়ে কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয় পুলিশ।


এর আগে রোববার (২২ মে) বিকেল ৩টা ১০ মিনিটে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৭ এর বিচারক শহিদুল ইসলামের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন হাজী সেলিম। শুনানি শেষে বিচারক তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।


বিচারক আদেশে উল্লেখ করেন, সাজাপ্রাপ্ত আসামি হাজী মোহাম্মদ সেলিম হাইকোর্টের নির্দেশে আজ আত্মসমর্পণ করিয়া জামিনের দরখাস্ত দাখিলপূর্বক আপিল দায়েরের শর্তে জামিনের প্রার্থনা করেছেন। পৃথক দরখাস্ত দাখিল করিয়া কারাগারে ১ম শ্রেণির মর্যাদা প্রদানের ও কারাগারের তত্ত্বাবধানে দেশের উন্নতমানের হাসপাতালে বেটার ট্রিটমেন্টের আদেশের প্রার্থনা করেছেন।


যেহেতু আসামি দশ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত, সেহেতু আসামিকে জামিন প্রদান সঙ্গত মনে করি না। ফলে আসামির জামিনের প্রার্থনা নামঞ্জুর করা হইল। সাজা ভোগের নিমিত্তে সাজা পরোয়ানা মূলে আসামিকে কারাগারে প্রেরণ করা হোক।


আসামিকে কারাগারে ১ম শ্রেণির মর্যাদা প্রদান ও কারাগারের তত্ত্বাবধানে দেশের উন্নতমানের হাসপাতালে বেটার ট্রিটমেন্ট প্রদানের দরখাস্ত বিষয়ের পক্ষে বিজ্ঞ কৌঁসুলি ও বিপক্ষে বিজ্ঞ পাবলিক প্রসিকিউটরের বক্তব্য শ্রবণ করিলাম। দাবি মতে দরখাস্তকারী আসামি একজন সংসদ সদস্য এবং ভালো চরিত্রের অধিকারী। তাহার সামাজিক মর্যাদা, আসামি যে অপরাধে সাজাপ্রাপ্ত হইয়াছেন তাহার ধরন ইত্যাদি বিবেচনায় তাহাকে জেলকোড অনুযায়ী ডিভিশন প্রদান কিংবা উন্নতমানের চিকিৎসা প্রদানের প্রয়োজনীয়তা থাকিলে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ প্রদান করা হইল।


এদিন বিকেল ৩টা ১০ মিনিটে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৭ এর বিচারক শহিদুল ইসলামের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন হাজী সেলিম। এরপর তার সঙ্গে আসা সমর্থকরা আদালতে প্রবেশ করেন। হাজী সেলিম তাদের কোর্ট থেকে বের হতে হাত ও মুখ দিয়ে ইশারা করেন। এরপর তারা কোর্ট থেকে বের হয়ে যায়। বিকেল ৩টা ১৯ মিনিটে বিচারক এজলাসে ওঠেন। এরপর আসামিকে কাঠগড়ায় উঠতে বলেন। ৩টা ২৩ মিনিটে কাঠগড়ায় ওঠেন হাজী সেলিম। এরপর তার আইনজীবী সাইদ আহম্মেদ রাজা জামিন চেয়ে শুনানি করেন।


এছাড়া কারাগারে উন্নত চিকিৎসা ও প্রথম শ্রেণির ডিভিশন চেয়েও শুনানি করেন আইনজীবী। অন্যদিকে দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল তার জামিনের বিরোধিতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন। একই সঙ্গে কারাবিধি অনুসারে কারাগারে উন্নত চিকিৎসা ও প্রথম শ্রেণির ডিভিশন দিতে কারা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। বিকেল ৩টা ৩৬ মিনিটে কাঠগড়া থেকে নেমে এজলাসে বসেন হাজী সেলিম।


এর আগে আদালতে আত্মসমর্পণ করে যে কোনো শর্তে জামিনের আবেদন করেন হাজী মোহাম্মদ সেলিম।



আরও খবর



মা মারা যাওয়ায় এক বছর যেতে না যেতেই মেয়ে পানিতে ডুবে মারা গেলো

মা মরেছে আগুনেপুড়ে মেয়ে মরল পানিতে ডুবে

প্রকাশিত:Sunday ২২ May 20২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
Image


নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

এক বছর আগে আগুন পোহাতে গিয়ে পুড়ে মারা গিয়েছিলেন মা।ওই নারীর দেড় বছর বয়সী শিশুটির মৃত্যু হয়েছে পানিতে ডুবে ।


বৃহস্পতিবার (১৯ মে) সকালে টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার দিঘলকান্দী ইউনিয়নের বাদেপারশী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।


শিশুটির নাম মারিয়া আক্তার। সে গোপালপুর উপজেলার দিঘলআটা গ্রামের মিল্টন মিয়ার মেয়ে। তার মায়ের নাম আছিয়া বেগম।


ঘাটাইল থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, মারিয়া জন্মের পর বাবার বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে শীতে আগুন পোহানোর সময় আগুনে পুড়ে মারা যান আছিয়া বেগম। এরপর থেকে নানা-নানির কাছে বড় হচ্ছিল শিশু মারিয়া আক্তার।


বুধবার (১৮ মে) সকালে শিশুটি বাড়ির উঠানে খেলাধুলা করছিল। এক পর্যায়ে বাড়ির লোকজন তাকে খুঁজে পাচ্ছিলেন না। খুঁজে না পেয়ে শিশুটির নানা থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির পাশের ডোবায় শিশুটির মরদেহ ভাসতে দেখেন প্রতিবেশীরা। পরে তারা ডোবা থেকে মরদেহ উদ্ধার করেন।


শিশু মারিয়া আক্তারের নানা লেবু মিয়া বলেন, ‘মারিয়ার বয়স যখন পাঁচ মাস তখন তার মা আমার বাড়িতে অবস্থানকালেই আগুন পোহাতে গিয়ে পুড়ে মারা যায়। মা মারা যাওয়ায় এক বছর যেতে না যেতেই মেয়েটা পানিতে ডুবে মারা গেলো। এই কষ্ট আমি কোথায় রাখবো?’


এ বিষয়ে ঘাটাইল থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল হক বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে এ ঘটনায় পরিবার থেকে থানায় কোনো অভিযোগ করা হয়নি।


আরও খবর



বঙ্গোপসাগরে জাহাজ ডুবি

বঙ্গোপসাগরে গম বোঝাই জাহাজ ডুবি

প্রকাশিত:Wednesday ১৮ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১১৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

বঙ্গোপসাগরে প্রায় ৬ কোটি ৬৪ লাখ টাকার গমসহ  ডুবে গেছে লাইটার জাহাজ ‘এমভি তামিম’।  


বুধবার (১৮ মে) বিকেল ৩টার দিকে জাহাজটি রামগতি পাইলট বিচের নিচে তিল্লার চর এলাকায় ডুবে যায়।


আগের দিন মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে অবস্থানরত বড় জাহাজ ‘এমভি প্রোফেল গ্রেস’ থেকে প্রায় ১ হাজার ৬০০ টন গম বোঝাই করে ঢাকার নাবিল অটো ফ্লাওয়ার মিলের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছিল জাহাজটি। 


দুর্ঘটনার পর জাহাজটির ১২ জন নাবিককে অপর একটি জাহাজ এসে উদ্ধার করেছে।


এমভি তামিম জাহাজটি ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট সেলের (ডব্লিউটিসি) সিরিয়ালে পরিচালনা করছিল সমতা শিপিং অ্যান্ড লজিস্টিকস। সমতার কর্মকর্তা জামাল হোসেন  জানান, চলার পথে পানির নিচে অদৃশ্য বস্তুর সঙ্গে লেগে জাহাজের সামনের হেজ ফেটে যায়।


এ সময় হেজে পানি ঢুকে যায়। পরে মাঝের ও সামনের হেজেও পানি ঢুকে জাহাজটি ডুবে যায়।


শুধু জাহাজের ব্রিজ দেখা যাচ্ছে। নাবিকদের নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।  




আরও খবর



জুমাতুল বিদা,মসজিদে মুসল্লিদের ঢল

প্রকাশিত:Friday ২৯ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১২৬জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

যথাযথ মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) ২৭ রমজান সারাদেশে পবিত্র জুমাতুল বিদা পালিত হয়েছে। রমজান মাসের শেষ শুক্রবার জুমাতুল বিদা হিসেবে পালন করেন মুসলমানরা।


বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) রমজানের শেষ শুক্রবারে জুমার নামাজের পর বিশেষ ইবাদত করতেন। তার উম্মতরা এরই ধারাবাহিকতায় এদিন জুমার নামাজের পর নফল নামাজ আদায় করেন ও বিশেষ দোয়া করেন।

রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের মাস রমজানের শেষ জুমা ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের কাছে বিশেষ গুরুত্ব ও মর্যাদাপূর্ণ। রমজানের শেষ জুমা হওয়ায় দিনটিকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। জুমাতুল বিদার দিন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা এলাকার মসজিদে আগে ভাগেই উপস্থিত হন।


এবছর বায়তুল মোকাররম মসজিদ জুমার আজানের আগেই কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। রোজা রেখে সবাই জুমাতুল বিদার জামাতে শরিক হওয়ার চেষ্টা করেন। শুক্রবার প্রধান মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ রাজধানীর পাড়া-মহল্লার সব মসজিদেও মুসল্লিদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।




মসজিদ ছাড়িয়ে আশপাশের রাস্তায় মুসল্লিরা কাতারবন্দি হয়ে নামাজ আদায় করেন। পবিত্র জুমাতুল বিদায় মসজিদে মসজিদে দেশ জাতি ও মুসলমানদের কল্যাণে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।


আরও খবর



মহাখালী বাস টার্মিনালে ঈদে বাড়ি ফেরা মানুষের ভিড়

প্রকাশিত:Friday ২৯ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১২৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

মুসলমানদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর আসন্ন। কয়েকদিন পরে পালিত হবে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের ঈদুল ফিতর।ঈদ পালনে স্বজনদের সঙ্গে মিলিত হতে বাড়ি ফিরছেন অনেকেই। মহাখালী বাস টার্মিনালে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভিড় বাড়ছে মানুষের।


 ঈদযাত্রায় জনস্রোতের সুযোগ নিচ্ছে কিছু পরিবহন। আবার কিছু পরিবহনে ভাড়া অপরিবর্তিত আছে।


শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত রাজধানীর মহাখালী বাস টার্মিনাল ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।আজ শুক্রবার ২৭ রমজান শেষ হচ্ছে। 


দুই-তিন দিন পরে ঈদ। বাড়ি ফেরা মানুষের চাপ বাড়ছে। ২৮-২৯ রোজায় যাত্রীদের ভিড় আরো বাড়বে।



মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে সিলেট, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, নওগাঁ, গাইবান্ধা, ময়মনসিংহ জামালপুর, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জ রুটের বাস চলাচল করছে।  


আরও খবর