Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

দুইবার প্রতারণার শিকার হয়েছি, আর নয়: মির্জা ফখরুল

প্রকাশিত:শনিবার ১০ জুন ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২৫৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জাতীয় নির্বাচন ইস্যুতে বিএনপি দুইবার প্রতারণার শিকার হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তবে দলটি আর প্রতারণার শিকার হবে না বলেও দাবি করেন তিনি। আজ শনিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন ফখরুল।

তত্ত্বাবধায়ক সরকার মৃত ইস্যু- আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের জবাবে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বাংলাদেশকে এই সরকার চরম ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছে। যে কারণে আমরা বারবার করে বলছি যে, এই সরকারের এখন থাকার আর কোনো কারণ নেই। তারপরও তার নেতা, তার মন্ত্রীরা বলেন যে তত্ত্বাবধায়ক সরকার নাকি এখন ডেড (মৃত) ইস্যু। ডেড ইস্যু হবে কেন? এটাই তো এখন সবচেয়ে লাইভ (জীবিত) ইস্যু।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা মনে করি যে, এই সরকারের এই মুহূর্তে পদত্যাগ করা উচিত। এত চুরি করেছে, এত দুর্নীতি করেছে এবং একটা সমস্যারও সমাধান করতে পারেনি সেই সরকারের ক্ষমতায় থাকার কারণ নেই। সেই কারণে আমরা বলেছি যে, একটা তত্ত্বাবধায়ক সরকার অথবা একটা নিরপেক্ষ সরকার এবং নির্দলীয় সরকারকে দায়িত্ব দিতে হবে।

 তিনি বলেন, ‘ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা, নির্বাচনী ব্যবস্থা এটাকে তারা ধ্বংস করে দিয়েছে পরিকল্পিতভাবে। কারণ তারা জানে যে, তারা এত চুরি-চামারি করেছে যে, সাধারণভাবে যদি ‍সুষ্ঠু-অবাধ নির্বাচন হয় তাহলে কোনোদিনই তারা ক্ষমতায় ফিরে আসা দূরে থাকুক, পার্লামেন্টে ১০ ভাগেরও বেশি ভোট পাবে না। সেই সরকার আজকে ক্ষমতায় বসে আছে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল আলমগীর বলেন, ‘আমরা খুব পরিষ্কার করে বলতে চাই যে, বাংলাদেশের মানুষ দুইটা ইলেকশন দেখেছে- ২০১৪ সালে ও ২০১৮ সালে। আবার ওই জায়গায় ফেরত যাওয়ার প্রশ্নই উঠতে পারে না। এখানে দাদা (সুব্রত চৌধুরী) আছেন। গত ১৮ সালে শেখ হাসিনা আমাদেরকে ডেকেছিলেন সংলাপের জন্য। আমরা গিয়েছিলাম এ জন্য যে, আমরা মনে করেছিলাম আলোচনার মাধ্যমে যদি একটা অবস্থা তৈরি হয় সেই অবস্থায় আমরা যদি একটা নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে পারি তাহলে হয়তো বা জনগণের সেই ইচ্ছা-আকাঙ্ক্ষা প্রতিফলন ঘটাতে পারব।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আইনমন্ত্রী পার্লামেন্টে কালকে বলেছেন যে, যখন নির্বাচন চলবে নির্বাচন কমিশনের সেই ক্ষমতা থাকবে যে, তখন আর কাউকে গ্রেপ্তার করা যাবে না বা কাউকে আটক করা যাবে না। এই কথা কে বিশ্বাস করবে? সেই রাখাল বালকের গল্পের মতো। আপনারা সেই রাখাল বালক গ্রামবাসীকে বোকা বানানোর জন্য যখন প্রায় চিৎকার করতো যে, বাঘ আসছে বাঘ আসছে বলে গ্রামবাসী তখন লাঠিসোটা নিয়ে দৌড়ে বেরিয়ে আসতো। এসে দেখে যে, কিছু নেই্ সেই রাখাল বালক দূরে দাঁড়িয়ে হাসছে।

তিনি বলেন, ‘থার্ড টাইম যখন সত্যি সত্যি বাঘ এসেছে, চিৎকার শুরু করেছে তখন দেখে গ্রামবাসী কেউ আসেনি। আমরা তো দুইবার প্রতারণার স্বীকার হয়েছি। থার্ড টাইম (তৃতীয়বার) এদেশের মানুষ আর প্রতারণার স্বীকার হবে না। আমরা পরিষ্কার করে বলতে চাই, তোমাদের এই সমস্ত কথায় কেউ ভুলবে না। কারণ কখনোই তোমরা প্রমিজ (প্রতিশ্রুতি) রক্ষা করনি।

সরকারের উদ্দেশে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা কোনো কথা শুনতে চাই না। আগে পদত্যাগ করুন, তারপরে সংসদ বিলুপ্ত করে নির্বাচনকালীন একটা নির্দলীয় সরকার গঠন করবার জন্য সেই ব্যবস্থা নিন। নতুন নির্বাচন কমিশন নতুন পার্লামেন্ট নির্বাচন করবে।

 হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান কল্যাণ ফ্রন্টের উদ্যোগে সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক গৌতম চক্রবর্তী প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এই আলোচনা সভা হয়। সংগঠনের চেয়ারম্যান বিজন কান্তি সরকার ও মহাসচিব তরুন কুমার দের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক সুব্রত চৌধুরী, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান কল্যাণ ফ্রন্টের উপদেষ্টা অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, তপন চন্দ্র মজুমদার, সুশীল বড়ুয়া, ভাইস চেয়ারম্যান অর্পনা রায়, নিতাই চন্দ্র ঘোষ, রমেশ দত্ত, প্রয়াত নেতার ছেলে গৌরব চক্রবর্তী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে গৌতম চক্রবর্তীর সহধর্মিনী ও ফ্রন্টের উপদেষ্টা দিপালী সাহা চক্রবর্তী উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



এমপি আনার হত্যা: কলকাতায় ডিবির প্রতিনিধিদল

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | ১২২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যার ঘটনা তদন্তে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশিদের নেতৃত্বে কলকাতা গেছেন তিন সদস্যের একটি দল।

রোববার (২৬ মে) সকালে কলকাতার উদ্দেশে রওনা হয় প্রতিনিধিদলটি।তদন্ত কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন, ওয়ারী বিভাগের ডিসি মুহাম্মদ আব্দুল আহাদ ও এডিসি শাহীদুর রহমান।

বিমানবন্দরে ডিবিপ্রধান বলেন, শাহীন এই হত্যার মাস্টারমাইন্ড বলে নিশ্চিত হয়েছে কলকাতা ও ঢাকার গোয়েন্দারা। বাংলাদেশের তদন্ত দল কলকাতায় প্রথমে ঘটনাস্থলে যাবে। এরপর ভারতে গ্রেফতার জিহাদ হাওলাদারকেও জিজ্ঞাসাবাদ করবে।

তিনি বলেন, শাহীনকে দেশে ফিরিয়ে আনতে পুলিশের মহাপরিদর্শকের মাধ্যমে আবেদন করা হবে। ইন্টারপোলের সহায়তা চাওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে তদন্ত শেষে আজ কলকাতা পুলিশের প্রতিনিধিদলটির ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে।


আরও খবর



সৈয়দপুরে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেফতার -১

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮০জন দেখেছেন

Image

জহুরুল ইসলাম খোকন সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর সৈয়দপুর থানা পুলিশের উ-পুলিশ পরিদর্শক (এস আই) আহসান হাবিবের সঙ্গীয় ফোর্স অভিযান চালিয়ে নাসিম (৩৭) নামে এক যুবককে ২৪৫ ইয়াবা ট্যাবলেট সহ গ্রেফতার করেছে ।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) দিবাগত রাত প্রায়  সাড়ে নয়টায়  নতুনবাবুপাড়া এলাকার মৃত্যু শামসুদ্দিন এর ছেলে মোঃ নাসিম কে তার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে।এস আই আহসান হাবিব জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে ২৪৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মো. নাসিম কে গ্রেফতার করা হয়। এর আগেও আসামির বিরুদ্ধে ছয়টি মামলা রয়েছে ।

এ ঘটনায় নাসিমের বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে-৩৬-(১) ১০ (ক) ধারায়, এস আই আহসান হাবিব মামলার বাদি হয়ে সৈয়দপুর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন।, শুক্রবার গ্রেফতারকৃতকে নীলফামারীর জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।  মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা অব্যহত থাকবে বলে জানান তিনি। 

আরও খবর



নতুন বাজেট অর্থনীতির সংকট সমাধানে যথোপযুক্ত নয়: সিপিডি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৯৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি) বলেছেন অর্থনীতির অস্বাভাবিক সময়ে একটি সাধারণ বাজেট দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার (৭ জুন) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত বাজেট-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেছেন বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) নির্বাহী সভাপতি ফাহমিদা খাতুন।

সিপিডির নির্বাহী পরিচালক বলেন, একটা চ্যালেঞ্জিং সময়ে বাজেটটি হলো। আমাদের প্রত্যাশা ছিল এই বাজেট অনেক উদ্ভাবনী হবে। এখানে সৃজনশীল ও কিছু সাহসী পদক্ষেপ থাকবে। কারণ অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জিং সময়ে গতানুগতিক বাজেট কোনো ধরনের সমস্যার সমাধান দিতে পারবে না। নতুন বাজেট আমাদের কাছে অতীতের বাজেটের মতোই মনে হয়েছে। বর্তমান সময়ের সমস্যা, ক্রান্তিকালীন সংকট দেখা দিয়েছে অর্থনীতিতে, সেগুলো সমাধানে এই বাজেট যথোপযুক্ত পদক্ষেপ বা দিকনির্দেশনা দিতে পারেনি।

সিপিডির নির্বাহী পরিচালক বলেন, আয়করের সর্বোচ্চ হার যেখানে বাড়িয়ে ৩০ শতাংশ করা হলো, সেখানে ১৫ শতাংশ কর দিয়ে কালোটাকা সাদা করার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। এটা নৈতিক ও অর্থনৈতিক কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। যাঁরা নিয়মিত কর দেন, এর মধ্য দিয়ে তাদের তিরস্কৃত করা হচ্ছে।

ফাহমিদা খাতুন বলেন, বাজেটে মুদ্রাস্ফীতি, জিডিপি প্রবৃদ্ধির, বিনিয়োগের যেসব লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে তা অতি উচ্চাভিলাষী ও বাস্তবসম্মত নয়। বাজেটে অর্থনৈতিক সূচকের অনেক লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হবে না। চলমান অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ অনুধাবন করতে না পারায়, বাজেটে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় যেসব পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তা দুর্বল ও অপর্যাপ্ত।

ফাহমিদা খাতুন আরও বলেন, অর্থনীতিতে এখন যেসব সমস্যা আছে, প্রথমত, সেগুলো মেনে নিয়ে তার গভীরতা বুঝতে হবে। এরপর সমাধানের দিকে যেতে হবে। কিন্তু প্রস্তাবিত বাজেটে তেমন কোনো ঘোষণা দেখা যায়নি।


আরও খবর



'প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাবেন'

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৫৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আবহাওয়া ভালো হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাবেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (২৭ মে) দুপুরে রাজধানীর ধানমণ্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উপকূলবর্তী এলাকায় জলোচ্ছ্বাস হয়েছে অনেক বেশি। বেড়িবাঁধ ভেঙেছে। ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। বৈদ্যুতিক লাইন, রাস্তাঘাট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উপকূলবর্তী এলাকার দলীয় জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অনেক এলাকা এখনও পানির নিচে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পানীয় জলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। নগদ অর্থ দিতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, এসএম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, সুজিত রায় নন্দী, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।


আরও খবর



ইসলামপুরে কাফনের কাপড়সহ অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৯৮জন দেখেছেন

Image
লিয়াকত হোসাইন লায়ন,ইসলামপুর(জামালপুর)প্রতিনিধি:জামালপুরের ইসলামপুর কাফনের কাপড়সহ অজ্ঞাত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।  পৌর শহরের ধর্মকুড়া আয়শা মেডিকেল হলের সামনে থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। 

জানা গেছে, ২৮ মে মঙ্গলবার ভোরে পথচারীরা  ইসলামপুর পৌর শহরের ধর্মকুড়া বাজারের আয়শা মেডিকেল হলের সামনে বৃদ্ধের লাশ দেখতে পায়। কে বা কাহারা মৃত ব্যক্তিকে কাফন পড়িয়ে রেখে যায়। এ সময় পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা।

অফিসার ইনচার্জ সুমন তালুকদার বলেন, খবর পেয়ে  লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

আরও খবর