Logo
আজঃ মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে বইছে চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের নির্বাচনী আমেজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২২ নভেম্বর 20২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ৪৩৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক    

প্রার্থীদের ব্যানার ফেস্টুনে ভরে গেছে হাসপাতাল এলাকা। অনেক প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চাদাঁবাজি অভিযোগ উঠেছে।


এ সব চাদাঁ আদায় করছে বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানির ও ডায়গণস্টিক সেন্টারের প্রতিনিধি সদস্যদের কাজ থেকে  এবং হাসপাতালের বর্হিরাগত এ্যাম্বোলেন্সের মালিকদের কাছ থেকে নির্বাচনের কথা তারা টাকা আদায় করছে। এমন কি হাসপাতালের আশপাশের দোকান গুলোতেও বাদ নেই।


হাসপাতালের সাধারণ কর্মচারীদের কাছ থেকে এ সব অভিযোগ পাওয়া গেছে। তারা আরও অভিযোগ করে বলেন, সভাপতি পদ প্রার্থী মো. রমিজ,  মো.আলম ওরফে ভাগ্নে আলম ও মো. দিনাসহ ডজন খানেক প্রার্থী এই চাঁদাবাজিতে নিপ্ত হয়ে পড়েছে।


এমনকি জরুরি বিভাগসহ হাসপাতালের আনাছে কানাছে প্রচারণার জন্য প্রার্থীদের প্লেকার্ড এমনভাবে রাখা হয়েছে যে, চিকিৎসকের নেমপ্লেটও সম্পূর্ণ ঢেকে গেছে। অথচ জরুরি বিভাগে রাত দিন ২৪ ঘন্টা রোগীরা চিকিৎসা নিতে আসেন। তবে তৎক্ষণিকভাবে এর ছবি তুলতে গেলে প্রার্থীরা সেগুলো সরিয়ে ফেলেন।


এছাড়া হাসপাতালের ভিতরের দেওয়ালে পোস্টার লাগানো নিষেধ থাকলেও কেউ কেউ সেখানেও পোস্টার লাগিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। সোমবার ঢামেক হাসপাতালের তিনটি ভবনের সামনে ও বিভিন্ন ওয়ার্ডসহ জরুরি বিভাগে প্রার্থীদের বিভিন্ন রঙয়ের ব্যানার-ফেস্টুন লাগিয়ে নির্বাচনী প্রচার করতে দেখা যায়।


এর আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার আগামী ৮ ডিসেম্বর এই নির্বাচনের ভোট গ্রহণের তারিখ ঘোষণা করেন। ২৭ টি পদে ১০৪ জন পদ প্রার্থী।  এরপরই শুরু হয়েছে হাসপাতালে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা। এ নির্বাচনের কমিশন জানিয়েছেন, কারো প্রচার-প্রচারণায় আচরণ বিধি লঙ্ঘন হলেই সেই প্রার্থীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


বেশ কয়েকটি আচরণবিধির মধ্যে একটি হচ্ছে রোগীদের সেবা নিশ্চিত করে তারপর নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে হবে। যদি নির্বাচনী প্রচার চালাতে গিয়ে রোগীরা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে- এরকম প্রমাণ পেলে ওই প্রার্থীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


এরই মধ্যে নির্বাচন কমিশন ৯২৩ জনের খসড়া ভোটার তালিকা হাসপাতালের প্রশাসনিক ব্লকের বোর্ডে টাঙিয়ে দিয়েছে। এর মধো ১০৪ জন ঠিকেছে। আর চাঁদাবাজির অভিযোগ পেলে ওই প্রার্থীর বিরুদ্ধে ব্যবস্হা গ্রহণ করা হবে।


নাম প্রকাশ করতে অনিচ্ছুক হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণীর এক সিনিয়র কর্মচারী জানান, উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচনের প্রচারণা চালাচ্ছি। প্রচারণার সময় কোনো রোগী যেন চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত না হয় সেটি সবার আগে মাথায় রেখে আমরা প্রচার চালাচ্ছি।

এছাড়া আচরণবিধির মধ্যেও এটা আছে। এর পাশাপাশি অনেকগুলো আচরণ বিধির মধ্যে যেমন কোনো প্রার্থী হাসপাতালে ভিতরের দেয়ালে পোস্টার লাগাতে পারবে না।


হয়তো নির্বাচনী আনন্দে আত্মহারা হয়ে দুয়েকজন লাগাতে পারে, কিন্তু  সব প্রার্থীই আচরণবিধির প্রতি শ্রদ্ধাশীল।চতুর্থ শ্রেণীর সরকারি কর্মচারী সমিতি: ঢামেক হাসপাতালের সাংগঠনিক সংসদের নির্বাচনের প্রধান কমিশনার হাসপাতালের সহকারি পরিচালক ডা. মো. আসরাফুল আলম জানান, নভেম্বর মাসের শুরুতেই প্রার্থীদের কাছে ফরম বিক্রি শুরু হবে। ৬ নভেম্বর প্রার্থীরা ফরম জমা দিবে। ৮ ডিসেম্বর ঢামেকের ডা. মিলন অডিটোরিয়ামে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।


তিনি জানান, কোনো প্রার্থীর নামে আচরণবিধি লঙ্ঘনের প্রমাণে পেলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আচরণ বিধির মধ্যে সর্বপ্রথম কঠোরভাবে নির্দেশনা আছে হাসপাতালে আগে রোগিদের সেবা নিশ্চিত করতে হবে, তারপরে প্রচার-প্রচারণা।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



নির্বাচনের পর দিল্লি যাবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ | ৮৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের আসন্ন নির্বাচনের পরে দেশটিতে সফর করবেন। বুধবার (৩ এপ্রিল) বিকেলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

জুনের শেষ সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের কথা রয়েছে, এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী অবশ্যই ভারত সফরে যাবেন। তবে ভারতের নির্বাচনের পরে। সেটা কখন হবে সেটি নিয়ে কোনো আলোচনা অফিসিয়াল লেভেলে হয়নি।

জুনে ভারতে এ সফর হবে চতুর্থমেয়াদে সরকার গঠনের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রথম দ্বিপক্ষীয় সফর।

এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে জার্মানিতে অনুষ্ঠিত মিউনিখ সিকিউরিটি কনফারেন্সে যোগ দেন সরকারপ্রধান। তবে সেটি ছিল বহুপাক্ষিক প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ। দিল্লি সফরের আগে এমন আরও বহুপাক্ষিক ফোরামে যোগ দিতে পারেন প্রধানমন্ত্রী।


আরও খবর



জাভেদ আখতারের প্রতিদিন এক বোতল মদ লাগতো

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ১২৭জন দেখেছেন

Image

বিনোদন প্রতিনিধি:বলিউডের বর্ষীয়ান গীতিকার জাভেদ আখতার। ব্যক্তিগত জীবন প্রসঙ্গেও খোলামেলা আলোচনা করতেই পছন্দ করেন। জীবনের একটা সময় কী ভুল করেছেন ও প্রাক্তন স্ত্রী হানি ইরানির সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের নেপথ্য কি কারণ ছিল। তার সবকিছুই তুলে ধরেছেন এই গীতিকার।

১৯৭২ সালে চিত্রনাট্যকার হানি ইরানিকে বিয়ে করেন জাভেদ। কিন্তু ১১ বছর পর তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। হানির সঙ্গে তার বৈবাহিক সম্পর্কের অবনতির নেপথ্যে নিজের সুরাপানের আসক্তিকে দায়ী করেছেন জাভেদ।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ২০ বছর বয়সে আমি মদ্যপান শুরু করি। ৪২ বছর বয়সে সেই অভ্যাসে ইতি টানি। প্রতিদিন এক বোতল মদ শেষ করতাম। কারণ, উর্দু কবিদের মধ্যে এই অভ্যাসের প্রচলন ছিল আর আমিও সেটা অনুসরণ করতাম। এখন বুঝি ভুল করেছিলাম।

জাভেদ আরও জানান, মদ্যপানের পর নিজের ওপর তার আর নিয়ন্ত্রণ থাকত না। মদ্যপানের পর আমি তখন অন্য মানুষ। খারাপ ভাষায় কথা বলতাম। হানির সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্কেও সেটা প্রভাব ফেলেছিল। যদি মদ্যপানে আসক্ত না হতাম তা হলে হানির সঙ্গে আমার সম্পর্ক অন্য রকম হতো।


আরও খবর



জয়পুরহাটে নানা আয়োজনে একুশে টেলিভিশনের ২৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ১০১জন দেখেছেন

Image

এস এম শফিকুল ইসলাম,জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃজয়পুরহাটে নানা আয়োজনে বাংলাদেশের সর্ব প্রথম বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল একুশে টেলিভিশনের ২৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী, কেক কাটা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বৃহস্পতিবার সকালে জয়পুরহাট প্রেসক্লাবের সামনে একটি র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে প্রেসক্লাব চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এরপরে প্রেসক্লাব মিলনায়তনে একুশে টেলিভিশনের জয়পুরহাট জেলা প্রতিনিধি এস এম শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জয়পুরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য এ্যাডভোকেট সামসুল আলম দুদু। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জয়পুরহাট প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক মায়ের আঁচলের সম্পাদক এ্যাডভোকেট নৃপেন্দ্রনাথ মন্ডল পিপি, সহ- সভাপতি শাহাদুল ইসলাম সাজু, যুগ্ম সম্পাদক মাসুদ রানা, কোষাধ্যক্ষ মাশরেকুল আলম, সাবেক সভাপতি মোস্তাকিম ফাররোখ, এনটিভির জেলা প্রতিনিধি শাহজাহান সিরাজ মিঠু, কালের কন্ঠের নিউজ টুয়েন্টিফোরের জেলা প্রতিনিধি আলমগীর চৌধুরী, যমুনা টেলিভিশনের সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল আলিম, বাংলাভিশনের জেলা প্রতিনিধি আবু বক্কর সিদ্দিক, জিটিভির জেলা প্রতিনিধি খ ম আব্দুর রহমান রনি, চ্যালেন টুয়েন্টিফোরের জেলা প্রতিনিধি হারুনুর রশিদ, একাত্তর টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি মোয়াজ্জেম হোসেন, ডিবিসি নিউজ ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের জেলা প্রতিনিধি শামীম কাদির, আরটিভির জেলা প্রতিনিধি রাশেদুজ্জামান, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি রবিঊল ইসলাম রুবেল, ভোরের কাগজের ক্ষেতলাল উপজেলা প্রতিনিধি আক্তারুজামান রিপন সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা।

একুশে টেলিভিশনের সমৃদ্ধি ও উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন অতিথিরা বলেন,স্বাধীনতার পরে দেশের সর্বপ্রথম বেসরকারি টেলিভিশন হচ্ছে একুশে টেলিভিশন।দেশের ক্রান্তিলগ্নে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে এই টেলিভিশন। একুশে টেলিভিশন দেশে সাংবাদিকতার পথ প্রদর্শক, গণমাধ্যমে সৃষ্টি করেছে নতুনধারা।আলোচনা সভা শেষে প্রতিষ্ঠার ২৫ বছর পদার্পণে একুশে টিভির উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি ও মঙ্গল কামানা করে কেক কাটেন অথিতিরা।


আরও খবর



এবার ঈদুল ফিতরে যশোরের প্রায় সাড়ে তিন লাখ পরিবার চাল পাচ্ছে

প্রকাশিত:রবিবার ৩১ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:এবারের ঈদুল ফিতরে যশোরে ৩ লাখ ৪০ হাজার ৩৪৭ দুস্থ ও অসহায় মানুষ ভিজিএফ কার্ডের মাধ্যমে ১০ কেজি করে চাল পাচ্ছেন।  ১ লাখ ৫৪ হাজার ৭৭০টি কার্ডে আট উপজেলায় ১৫৪৭ দশমিক ৭০০ মেট্রিক টন চাল দেয়া হবে। ১ লাখ ৮৫ হাজার ৫৭৭টি কার্ডে আটটি পৌরসভায় দেয়া হবে ১৮৫৫ দশমিক ৭৭০ মেট্রিক টন চাল।

চাল বিতরণে কোনো অনিয়ম হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোনো স্বচ্ছল বা এক পরিবারের একাধিক ব্যক্তি ভিজিএফ কার্ডে চাল নিতে পারবে না। ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা রিজিবুল ইসলাম এমনটি জানিয়েছেন।

ত্রাণ ও পুনর্বাসন অফিস জানিয়েছে, আট উপজেলায় ১ লাখ ৫৪ হাজার ৭৭০টি কার্ডের মধ্যে অভয়নগর উপজেলায় ৯ হাজার ৮৩ কার্ডে দেয়া হবে ৯০ দশমিক ৮৩০ মেট্রিকটন চাল। বাঘারপাড়া উপজেলায় ১৬ হাজার ৩৬৩ কার্ডে দেয়া হবে ১৬৩ দশমিক ৬৩০মেট্রিক টন চাল। চৌগাছা উপজেলায় ১২ হাজার ৪৬৫ কার্ডে দেয়া হবে ১২৪ দশমিক ৬৫০ মেট্রিকটন চাল। ঝিকরগাছায় উপজেলায় ১৫ হাজার ২২৫ কার্ডে দেয়া হবে ১৫২ দশমিক ২৫০ মেট্রিকটন চাল, কেশবপুর উপজেলায় ১৬ হাজার ৯৫২ কার্ডে দেয়া হবে ১৬৯ দশমিক ৫২০ মেট্রিকটন চাল, সদর উপজেলায় ৩১ হাজার ৩৩০ কার্ডে দেয়া হবে ৩১৩ দশমিক ৩০০ মেট্রিকটন চাল, মণিরামপুর উপজেলায় ২৯ হাজার ৭৫০ কার্ডে দেয়া হবে ২৯৭ দশমিক ৫০০ মেট্রিকটন চাল ও শার্শা উপজেলায় ২৩ হাজার ৬০২ কার্ডে দেয়া হবে ২৩৬ দশমিক ২০ মেটিকটন চাল।

সূত্রমতে, আট পৌরসভার ১ লাখ ৮৫ হাজার ৫৭৭ কার্ডের মধ্যে যশোর পৌরসভায় ৪৬২১ কার্ডে দেয়া হবে ৪৬ দশমিক ২১০ মেট্রিকটন চাল, নওয়াপাড়া পৌরসভায় ৪৬২১ কার্ডে দেয়া হবে ৪৬ দশমিক ২১০ মেট্রিকটন চাল, কেশবপুর পৌরসভায় ৪৬২১ কার্ডে দেয়া হবে ৪৬ দশমিক ২১০ মেট্রিকটন চাল, বেনাপোল পৌরসভায় ৪৬২১ কার্ডে দেয়া হবে ৪৬ দশমিক ২১০ মেট্রিকটন চাল, মণিরামপুর পৌরসভায় ৪৬২১ কার্ডে দেয়া হবে ৪৬ দশমিক ২১০ মেট্রিকটন চাল, ঝিকরগাছায় পৌরসভায় ৩০৮১ কার্ডে দেয়া হবে ৩০ দশমিক ৮১০ মেট্রিকটন চাল, চৌগাছা পৌরসভায় ৩০৮১ কার্ডে দেয়া হবে ৩০ দশমিক ৮১০ মেট্রিকটন চাল ও বাঘারপাড়া পৌরসভায় ১৫৪০ কার্ডে দেয়া হবে ১৫ দশমিক ৪০০ মেট্রিক টন চাল।


আরও খবর



ইসরাইলে ইরানের হামলা, প্রতিক্রিয়ায় যা বলল বাংলাদেশ

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ৫১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:রোববার (১৪ এপ্রিল) ইসরায়েলে ইরানের রকেট হামলা এবং সিরিয়ায় ইরানি কনস্যুলেটে হামলার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বাংলাদেশ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ যুদ্ধ-বিগ্রহ বন্ধে দায়িত্বশীল রাষ্ট্রগুলোকে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান।

সন্ধ্যায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী চিট গ্রিনের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের বিষয়টি একেবারে পরিষ্কার। আমরা যেকোনো যুদ্ধের বিরুদ্ধে। আমরা চাই পৃথিবীতে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হোক, সব যুদ্ধ বন্ধ হোক।

গাজায় অবিলম্বে মানবতাবিরোধী অপরাধ বন্ধের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, নির্বিচারে নারী ও শিশু, সাধারণ মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে, সেখানে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হচ্ছে, সেটি অবিলম্বে বন্ধ হোক।

ইসরায়েল-ইরান সংঘাতের প্রসঙ্গ টেনে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘ইসরায়েল সিরিয়ায় ইরানি দূতাবাসে আক্রমণ করার প্রেক্ষিতেই ইরান এই আক্রমণ করার সুযোগ পেয়েছে। আমরা আশা করি, দায়িত্বশীল রাষ্ট্রগুলো যুদ্ধ-বিগ্রহ বন্ধে ভূমিকা রাখবে।

প্রসঙ্গত, স্থানীয় সময় শনিবার (১৩ এপ্রিল) রাতে ইসরাইলে হামলা চালিয়েছে ইরান। ইরাক, সিরিয়া ও ইয়েমেন থেকেও হামলা চালানো হয়।

ইসরায়েল বলছে, তিনশর বেশি ড্রোন, ক্রুজ ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়েছে।

রোববার ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনী আইডিএফ দাবি করেছে, ইরানের বেশিরভাগ ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন প্রতিহত করা হয়েছে। ইসরাইলি ভূখণ্ড অতিক্রম করার আগেই এই অঞ্চলের কৌশলগত মিত্রদের সঙ্গে নিয়ে আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ব্যবহার করে সেগুলো ঠেকিয়ে দেওয়া হয়। তবে ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলে একটি সামরিক ঘাঁটিতে কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন আঘাত হেনেছে। এতে সামান্য অবকাঠামোগত ক্ষতি হয়েছে।


আরও খবর