Logo
আজঃ Wednesday ১০ August ২০২২
শিরোনাম
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ২৪৩৫ লিটার চোরাই জ্বালানি তেলসহ আটক-২ নাসিরনগরে বঙ্গ মাতার জন্ম বার্ষিকি পালিত রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড

ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা আজ, আসনপ্রতি লড়বেন ৩৩ শিক্ষার্থী

প্রকাশিত:Friday ০৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ১৩৪জন দেখেছেন
Image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আজ। গত বছরের মতো এবারও দেশের আট বিভাগে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে একযোগে এ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে৷

শুক্রবার (৩ জুন) বেলা ১১টা থেকে শুরু হয়ে দেড় ঘণ্টার এ পরীক্ষা চলবে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত।

এবারও ঢাকা বিভাগের পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্র থাকছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে৷ পরীক্ষা শুরুর পরপরই বেলা সোয়া ১১টায় ক্যাম্পাসের বাণিজ্য অনুষদ ভবনে পরীক্ষাকেন্দ্র পরিদর্শন করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান৷

ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষার মধ্য দিয়েই শুরু হচ্ছে এবারের ভর্তিযুদ্ধ। এ বছর ইউনিটটিতে ৯৩০টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ৩০ হাজার ৭০৪ জন ভর্তিচ্ছু৷ সে হিসাবে প্রতি আসনের বিপরীতে লড়ছেন ৩৩ জন শিক্ষার্থী৷ গত বছর আসনপ্রতি গড়ে পরীক্ষার্থী ছিল ২১ জন।

গত বছরের মতো এবারও ‘গ’ ইউনিটে ১০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষায় ৬০ নম্বরের এমসিকিউ এবং ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। এমসিকিউ পরীক্ষা ৪৫ মিনিট আর লিখিত পরীক্ষা হবে ৪৫ মিনিট। এ পরীক্ষায় প্রাপ্ত ফলাফলের সঙ্গে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের ফলাফলের (জিপিএ) ওপর ২০ নম্বর যোগ করে মেধাতালিকা প্রস্তুত করা হবে।

আগামীকাল শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিট, ১০ জুন বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিট, ১১ জুন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিট আর ১৭ জুন চারুকলা অনুষদভুক্ত ‘চ’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে৷ ‘চ’ ইউনিট ছাড়া অন্য সব পরীক্ষা হবে বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত৷ তবে ‘চ’ ইউনিটে চারুকলার সাধারণ জ্ঞান পরীক্ষাটি হবে বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত৷

এ বছর ঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে আবেদন করেছেন ২ লাখ ৯০ হাজার ৩৪০ শিক্ষার্থী। যেখানে মোট আসন সংখ্যা ৬ হাজার ৩৫টি। এর মধ্যে ‘ক’ ইউনিটের ১ হাজার ৮৫১ আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ১ লাখ ১৫ হাজার ৭১০ জন। এছাড়া ‘খ’ ইউনিটের ১ হাজার ৭৮৮ আসনের বিপরীতে ৫৮ হাজার ৫৫১ জন, ‘গ’ ইউনিটে ৯৩০ আসনের বিপরীতে ৩০ হাজার ৬৯৩ জন, ‘ঘ’ ইউনিটে ১ হাজার ৩৩৬ আসনের বিপরীতে ৭৮ হাজার ২৯ জন এবং ‘চ’ ইউনিটে ১৩০ আসনের বিপরীতে ৭ হাজার ৩৫৭ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছেন।


আরও খবর



দেশে ১০০ নারীর বিপরীতে পুরুষ ৯৮ জন

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
Image

বর্তমানে দেশে প্রতি ১০০ জন নারীর বিপরীতে পুরুষের সংখ্যা ৯৮ জন। দেশের মোট জনসংখ্যা এখন ১৬ কোটি ৫১ লাখ ৫৮ হাজার ৬১৬ জন। যেখানে ৮ কোটি ১৭ লাখ পুরুষ ও ৮ কোটি ৩৩ লাখ নারী। ১২ হাজার ৬২৯ জন তৃতীয় লিঙ্গের।

দেশে ১০০ নারীর বিপরীতে পুরুষ ৯৮ জন

বুধবার (২৭ জুলাই) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) প্রথম ডিজিটাল ‘জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২’-এর প্রাথমিক প্রতিবেদন প্রকাশনা অনুষ্ঠানে এ ফলাফল জানানো হয়। সারাদেশে গত ১৫ জুন একযোগে শুরু হয় জনশুমারি ও গৃহগণনা কার্যক্রম। গত ২১ জুন জনশুমারি শেষ হওয়ার কথা থাকলেও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের জেলায় বন্যা শুরু হওয়ায় এসব জেলায় শুমারি কার্যক্রম ২৮ জুন পর্যন্ত চলে।


আরও খবর



ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে ‘স্কুল অব ফার্মেসি’র যাত্রা শুরু

প্রকাশিত:Monday ০১ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৪৬জন দেখেছেন
Image

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে দেশের প্রথম স্কুল অব ফার্মেসির আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে। শনিবার (৩০ জুলাই) ‘লঞ্চিং অব স্কুল অব ফার্মেসি’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এটি রাজধানীর একটি হোটেলে যাত্রা শুরু করেছে।

প্রধান অতিথি হিসেবে স্কুল অব ফার্মেসির এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারপারসন তামারা হাসান আবেদ, ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ভিনসেন্ট চ্যাং এবং স্কুল অব ফার্মেসির ডিন প্রফেসর ড. ইভা রহমান কবির। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার ড. ডেভিড ড্যাউল্যান্ড।

বাংলাদেশে নিযুক্ত ভুটানের রাষ্ট্রদূত রিনচেন কুয়েন্টশিল, ঢাকায় নেপাল দূতাবাসের সেকেন্ড সেক্রেটারি রঞ্জন যাদব ছাড়াও অনুষ্ঠানে ফার্মাসিউটিক্যাল ইন্ড্রাস্টির নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিত্ব এবং বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির স্কুল অব ফার্মেসির এই যাত্রা ফর্মুলেশন থেকে অ্যাকটিভ ফার্মাসিউটিক্যাল ইনগ্রেডিয়েন্ট (এপিআই) রূপান্তরে বাংলাদেশের ওষুধ শিল্পকে শিখরে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে। একই সঙ্গে এটি গাজীপুরে ২০০ একরের ওপর নির্মিতব্য এপিআই পার্ক তৈরির প্রচেষ্টাকেও আরও জোরদার করবে।

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের ওষুধ শিল্প এরইমধ্যে দেশের ৯৭ ভাগ চাহিদা পূরণ করছে। এছাড়াও ১৫৭টি দেশে আমরা আমাদের ফার্মাসিউটিক্যাল পণ্য রপ্তানি করছি। ২০২৫ সাল নাগাদ এই রপ্তানি আয় প্রায় ৬ বিলিয়ন ডলার হবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারপারসন তামারা হাসান আবেদ বলেন, বাংলাদেশে ফার্মেসি শিক্ষার গবেষণা এবং রোগীর যত্ন বিষয়ক ধারণাকে নতুনভাবে সংজ্ঞায়িত করবে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির স্কুল অব ফার্মেসি। আমরা চাই আমাদের শিক্ষার্থীরা এমন নেতৃত্বসম্পন্ন হয়ে গড়ে উঠুক যারা সমাজে চিন্তাশীল এবং টেকসই অবদান রাখবে।

অনুষ্ঠানে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ভিনসেন্ট চ্যাং বলেন, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের জন্য দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। একটি দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে প্রযুক্তি এবং পুঁজির মতো এটিও প্রধান চালিকাশক্তি।

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সদস্য প্রফেসর সাজ্জাদ হোসেন বলেন, স্কুল অব ফার্মেসির এই যাত্রা ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির স্লোগান ‘ইন্সপায়ারিং এক্সিলেন্স’ কেই প্রতিফলিত করছে।


আরও খবর



দেশ ভয়াবহ সংকটের দিকে ধাবিত হচ্ছে: মোস্তফা ভুইয়া

প্রকাশিত:Tuesday ১৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | ৪৫জন দেখেছেন
Image

শাসকদের একগুঁয়েমি নীতির ফলে দেশ ভয়াবহ সংকটের দিকে ধাবিত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি- বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।

সোমবার (১৮ জুলাই) মগবাজার দিলু রোডে নিজের ৫২তম ও বাংলাদেশ গণ আজাদী লীগের মহাসচিব মুহাম্মদ আতাউল্লাহ খানের ৫১তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত এক আড্ডায় এ মন্তব্য করেন গোলাম মোস্তফা।

তিনি বলেন, অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, দেশ-জাতি এখন পাগলের হাতে। দুর্নীতিবাজ আর লুটেরা সিন্ডিকেট নামক ‘চোরদের’ পাহারাদার হচ্ছে সরকার।

অর্থনৈতিক সংকট এখন শুধু শ্রীলঙ্কাতেই সীমাবদ্ধ নেই জানিয়ে তিনি বলেন, ইউরোপ থেকে শুরু করে এশিয়া, আফ্রিকা ও দক্ষিণ আমেরিকার বেশ কয়েকটি উদীয়মান অর্থনীতির দেশ একই সংকটের দিকে ধাবিত হচ্ছে। বাংলাদেশও এর বাইরে নয়।

‘এই অবস্থায়ও সরকার জাতীয় ঐকমত্য প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি। এটি আগামী দিনে চলমান সংকটকে আরও বেশি ঘনীভূত করবে।’

গোলাম মোস্তফা বলেন, সপ্তাহে একদিন পেট্রোলপাম্প বন্ধ থাকবে, মসজিদে এসি চলেবে না, এলাকা ভিত্তিক লোডশেডিং চলবে- এসব সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে সরকার প্রমাণ করলো, মন্ত্রীরা যতই উঁচু গলায়ই কথা বলেন না কেন, দেশ সংকটের মধ্যে রয়েছে।

ন্যাপ মহাসচিব বলেন, দেশবাসীকে বিদ্যুৎ নিয়ে সরকারের অতিকথন ও আত্মতুষ্টির খেসারত দিতে হচ্ছে। সরকারের ভুল নীতি, জ্বালানি খাতে দুর্নীতি, অব্যবস্থাপনা ও সিস্টেম লসের কারণে আজ বিদ্যুতের এই বেহাল দশা। অথচ সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা দম্ভ করে বলে আসছিলেন যে, শতভাগ বিদ্যুৎ নিশ্চিত করে লোডশেডিং তারা যাদুঘরে পাঠিয়ে দিয়েছেন।

‘ভর্তুকির নামে প্রতিদিন জনগণের করের কোটি কোটি টাকা অপচয় করেও বিদ্যুৎ পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সরকারের ব্যর্থতা এখন প্রমাণিত।’

‘নির্বাচনী মৌসুম আসলেই হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের উপাসনালয় বসতবাড়ি, সহায় সম্পত্তি আক্রান্ত হয়। পুরোপুরি রাজনৈতিক চক্রান্ত বলেই দলগুলো এসব ঘটনাকে সাম্প্রদায়িকতা বলে প্রচার করে মাঠ গরম রাখে। এ দেশের হিন্দু সম্প্রদায়কেই চিহ্নিত করতে হবে, কারা নেপথ্য শক্তি।’

‘সবাইকে মনে রাখতে হবে, সংখ্যালঘু বলে কোনো জাত নেই। আমরা সবাই বাংলাদেশি, আমরা বাঙালি। প্রতিটি বাংলাদেশিকে সমান নিরাপত্তা দেওয়ার দায়িত্ব রাষ্ট্রের।’

এ সময় আতাউল্লাহ খান বলেন, রাজনীতিতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে, তা মোকাবিলায় বিকল্প রাজনৈতিক শক্তি গঠনে সবাইকে প্রস্তুত হতে হবে। দেশের কোথাও জবাবদিহিতা নেই। এমন দেশের জন্য মুক্তিযুদ্ধ হয়নি।

‘দেশের জন্য রাজা পেতে মুক্তিযুদ্ধে জীবন দেননি বীর শহীদরা। মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে জনগণের প্রতিনিধি পেতে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমরা প্রতিনিধি পাইনি, পেয়েছি দুনীর্তিবাজ-লুটেরা শাসক।’

‘দেশে চলমান আদর্শহীন রাজনীতির বলয়ের বাইরে জনগণের নিজস্ব রাজনৈতিক শক্তিতে বিকল্প গড়ে তোলা জরুরি। বিকল্প রাজনৈতিক ধারা গড়ে তুলতে ব্যর্থ হলে সমগ্র জাতিকে মাসুল দিতে হবে।’

অনুষ্ঠানে দুই নেতাকে শুভেচ্ছা জানান জাতীয় পার্টি- জেপির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাদেক সিদ্দিকী, দেশপ্রেমিক মঞ্চের প্রধান সমন্বয়কারী মু. এনামুল হক, বিডিবি প্রতিষ্ঠাতা শামসুল আলম সুরমা, বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান মুহিউদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ জাতীয় লীগের সভাপতি ড. শাহরিয়ার ইফতেখার ফুয়াদ, এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, বাংলাদেশ ন্যাপের যুগ্ম মহাসচিব এহসানুল হক জসীম, সাংগঠনিক সম্পাদক মিতা রহমান, জাগো নারী ফাউন্ডেশনের সভাপতি রেহানা আক্তার রানু, মানবাধিকার সংগঠক সোহেল মৃধা ও জাতীয় জনতা ফোরামের মুহম্মদ ওয়ালিদ সিদ্দিকী তালুকদার প্রমুখ।


আরও খবর



শাবিপ্রবি ছাত্র হত্যা: আদালতে আবুলের স্বীকারোক্তি

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ০৪ August ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) ছাত্র বুলবুল আহমেদ হত্যার দায় স্বীকার করেছেন আটক আবুল হোসেন।

বুধবার (২৭ জুলাই) বিকেলে সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সুমন ভূঁইয়ার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন তিনি। বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) দেবাশীষ দেবু।

তিনি বলেন, আদালতে আবুল হোসেন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। জবানবন্দি নেওয়া শেষে তাকে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তবে আটক হওয়া অপর আসামি কামরুল ও মো. হাসানকে আদালতে তোলা হয়নি।

সোমবার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যা সাতটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে গাজীকালুর টিলায় দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকেন বুলবুল আহমেদ নামে ওই শিক্ষার্থী। পরে তাকে অজ্ঞান অবস্থায় এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় সোমবার রাতে আবুল হোসেনকে আটক করে পুলিশ। তার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে পরবর্তীতে অভিযান চালিয়ে আরও দুজনকে আটক করা হয়। মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সিলেটের জালালাবাদ থানায় একটি হত্যা মামলা হয়।


আরও খবর



সিলেটে বেড়েছে আদা-কাঁচামরিচের দাম, কমেছে সয়াবিন-পেঁয়াজের

প্রকাশিত:Saturday ৩০ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ১৭জন দেখেছেন
Image

সিলেটে কেজিপ্রতি পাঁচ টাকা করে কমেছে পেঁয়াজের দাম। সেইসঙ্গে লিটারে ১৪ টাকা কমেছে সয়াবিন তেলের দর। এছাড়া নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার তালিকায় যোগ হয়েছে চাল, ডাল, কাঁচামরিচ, আলু ও আদার নাম। কাঁচামরিচ ছাড়া প্রতিটি পণ্যের দাম বেড়েছে কেজিতে পাঁচ টাকা করে। তবে কাঁচামরিচের দাম কেজিতে বেড়েছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা। এছাড়া সব ধরনের সবজির বাজার প্রায় স্থিতিশীল রয়েছে।

শনিবার (৩০ জুলাই) বাজার ঘুরে দেখা গেলো, পেঁয়াজের দাম কেজিতে কমেছে পাঁচ টাকা করে। গত সপ্তাহেও প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৪০ টাকায়। আজ এই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩৫ টাকায়। হাঁসের ডিমে ডজনে দাম কমেছে ১৫ টাকা। আর সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে সরকার নির্ধারিত ১৮৫ টাকা লিটার দরে। তবে গত সপ্তাহ পর্যন্ত প্রতি লিটার সয়াবিন বিক্রি হয়েছে ১৯৯ টাকা দরে। এ হিসাবে দাম কমেছে প্রতি লিটারে ১৪ টাকা।

সিলেট নগরের আম্বরখানা, বন্দরবাজার, রিকাবীবাজার, মেডিকেল রোড, কাজিরবাজর, কালিঘাটসহ বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে নিত্যপণ্যের দরদামের এমন চিত্র দেখা গেছে।

সিলেটে বেড়েছে আদা-কাঁচামরিচের দাম, কমেছে সয়াবিন-পেঁয়াজের

মেডিকেল রোডের লিবার্টি ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের মালিক আলমগীর হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, খুচরা বাজারে পেঁয়াজের দাম কেজিতে পাঁচ টাকা করে কমেছে। এলসির ভালোমানের পেঁয়াজ গত সপ্তাহে ছিল ৪০ টাকা কেজি। এ সপ্তাহে ওই পেঁয়াজ বিক্রি করছি ৩৫ টাকা দরে। তবে সুপার মালা ও জিরা সিদ্ধসহ সব ধরনের চালের দর কেজিতে বেড়েছে পাঁচ টাকা করে। গত সপ্তাহে যে সুপার মালা চাল ৫৪ টাকা কেজি বিক্রি হয়েছে, সেই চাল এখন ৫৯ টাকা এবং ৭০ টাকার জিরা সিদ্ধ এখন ৭৫ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

তিনি জানান, চায়না আদা গত সপ্তাহে ৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও এ সপ্তাহে ১০ টাকা বেড়ে ১০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। ছোট-বড় সব ধরনের মসুর ডালের কেজিতে বেড়েছে পাঁচ টাকা করে।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, মাছ, গরুর মাংসের দাম বর্তমানে স্থিতিশীল রয়েছে। গত সপ্তাহের মতো এ সপ্তাহেও গরুর মাংস ৬৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। প্রতি কেজি খাসির মাংস বিক্রি হচ্ছে ৭৫০ টাকা দরে। তবে গরু ও খাসির কলিজা বিক্রি হচ্ছে ৭০০ টাকা কেজিতে।

সিলেটে বেড়েছে আদা-কাঁচামরিচের দাম, কমেছে সয়াবিন-পেঁয়াজের

এদিকে, বর্ষায় সরবরাহ কিছুটা কমে আসায় দুই-একটি সবজির বাজারদর চার থেকে পাঁচ টাকা বেড়েছে।

নগরের কাজিরবাজারের সবজি বিক্রেতা সুজেল আহমদ বলেন, বাজারে সবজির দাম স্থিতিশীল রয়েছে। তবে বেশ কিছুদিন ধরে বাড়ছে কাঁচামরিচ ও ধনিয়া পাতার দাম। গত সপ্তাহে কাঁচামরিচের কেজি ১৫০ টাকায় বিক্রি হলেও এই সপ্তাহে কাঁচামরিচ প্রতি কেজি ১৯০ থেকে ২০০ টাকা দরে বিক্রি করতে হচ্ছে। এখানে আমাদের কিছু করার নেই।

সিলেটে বেড়েছে আদা-কাঁচামরিচের দাম, কমেছে সয়াবিন-পেঁয়াজের

মেডিকেল রোডের সবজি বিক্রেতা মো. রহম আলী জানান, এই বর্ষায়ও সবজির বাজার স্থিতিশীল রয়েছে। প্রতি হালি কাঁচকলা ২৫/৩০ টাকা, প্রতি কেজি বেগুন ৪০ টাকা, পেঁপের কেজি ২৫/৩০ টাকা, আমড়া ৩০/৩৫ টাকা কেজি, টমেটোর কেজি ১০০ টাকা, কাঁচামরিচ ২০০ টাকা, ঢেঁড়স ৩০ টাকা কেজি, ঝিঙা ৫০ টাকা, চিচিঙ্গা ৩০/৩৫ টাকা কেজি, করলা ৪০ টাকা কেজি, প্রতি কেজি মুলা ৩০ টাকা, পাতা কপির কেজি ৫০ ও প্রতি কেজি শসা ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় উপ-পরিচালক মো. ফখরুল ইসলাম বলেন, কেউ যাতে নিত্যপণ্য অতিরিক্ত দরে বিক্রি করতে না পারে সেজন্য আমাদের একাধিক দল বাজার তদারকি করছে। তদারকি আগামীতে আরও বাড়ানো হবে।


আরও খবর