Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা
গ্যাস নির্গমনের জন্য কোন বিকল্প ব্যবস্থা বা কোন পাইপ ছিল না

ডগাইড় নতুন পাড়ায় সেপটিক ট্যাঙ্কির গ্যাস বিস্ফোরণ আহত ১

প্রকাশিত:Monday ২৩ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৮৪জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

ডগাইর নতুন পাড়া সাততলা মিনার মসজিদ সংলগ্ন ফজলুল হক চেয়ারম্যান বাড়ির ছয়তলা ভবন টির নিচতলা দক্ষিণ-পূর্ব কর্নারে সৃজন কনস্ট্রাকশন এর নিচে সেপটিক ট্যাঙ্কি বিস্ফোরণে বাবুল নামের একজন আহত হয়েছে। আহত বাবুল পাশের ভবনের নিচতলায় বিসমিল্লাহ ফার্নিচার এর কর্মচারী। 


বিস্ফোরণে সৃজন কনস্ট্রাকশনের মূল্যবান আসবাবপত্র ও প্রয়োজনীয় জরুরী কাগজপত্র ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সৃজন কনস্ট্রাকশনের ডেকোরেশন এর গ্লাস ভেঙ্গে বাবুলের পায়ে ঢুকে যায়। এতে তিনি আহত হন।


 ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স এর সারুলিয়া ডেমরা ইউনিট প্রধান ওসমান গনি জানান, সেপটিক ট্যাংকের গ্যাস নির্গমনের জন্য কোন বিকল্প ব্যবস্থা বা কোন পাইপ ছিল না বিধায় বিস্ফোরণটি ঘটে। পাশের বাড়ির গ্যাস লাইন লিকেজ থাকাতে এতে আগুন ধরে যায়, ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।


 সরেজমিনে তদন্ত করে দেখা যায় সেপটিক ট্যাঙ্কির কোথাও কোনো রকম গ্যাস বাহির হওয়ার জন্য কোন ব্যবস্থা ছিলনা। এতেই গ্যাসের অতিরিক্ত চাপে বিস্ফোরণটি ঘটে। তবে ভবনের নিচতলার শুধুমাত্র সৃজান কনস্ট্রাকশন ব্যতীত অন্য কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি ।



আরও খবর



অর্থপাচারের কোনো তথ্য নেই: গভর্নর

প্রকাশিত:Friday ১০ June ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ২৪ June ২০২২ | ৩৭জন দেখেছেন
Image

সরাসরি বাংলাদেশ থেকে অর্থপাচার হয় এমন তথ্য বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (বিএফআইইউ) কাছে নেই বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। তিনি বলেন, তবে বিদেশে থাকা বাংলাদেশিরা এক দেশ থেকে অন্য দেশে অর্থপাচার করে, এমন তথ্য আছে।

শুক্রবার (১০ জুন) বিকেলে রাজধানীর ওসমানী মিলনায়তনে ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। অর্থ মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে এ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

গভর্নর বলেন, আমার কাছে অর্থপাচারের তথ্য না থাকলেও অর্থমন্ত্রীর কাছে আছে। টাকার ধর্ম আছে, যেখানে টাকা সুযোগ-সুবিধা বেশি পায় সেখানেই টাকা চলে যায়।

এসময় অর্থমন্ত্রী বলেন, টাকার একটা ধর্ম আছে, একটা বৈশিষ্ট্য আছে। টাকা যেখানে বেশি সুখ পায় সেখানে চলে যায়। টাকা কেউ শোকেসে করে পাচার করেন না। বিভিন্ন ডিজিটাল ডিভাইসের মাধ্যমে পাচার হয়। সেই জায়গা থেকে আমরা দায়িত্ব নিয়েই এ কাজটা করতে যাচ্ছি।

তিনি বলেন, জার্মানি, ফ্রান্সসহ অনেক দেশ তাদের পাচার হওয়া টাকা ফেরত আনার সুযোগ দিয়েছে। বিশ্বে কখনো কখনো টাকা পাচার হয়ে যায়। টাকা পাচার হয় না এটা আমি কখনো বলিনি। কিন্তু কোনো তথ্য না দিয়ে বলা ঠিক না। পাচারের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের বিষয়ে আমাদের কাছে তথ্য আছে। অনেকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে এবং অনেকে জেলেও আছে।

এর আগে, মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে প্রথা ভেঙে ২০২০-২১ অর্থবছরের ভার্চুয়ালি বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে অর্থ মন্ত্রণালয়। এরপর ২০২১-২২ অর্থবছরে সীমিত পরিসরের পাশাপাশি ভার্চুয়ালি বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলন করা হয়। অর্থাৎ তিন বছর পর স্বাভাবিকভাবে বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলন হচ্ছে আজ (শুক্রবার)।

এবারের বাজেটের আকার দাঁড়িয়েছে ছয় লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকা। অর্থমন্ত্রী হিসেবে আ হ ম মুস্তফা কামালের এটি চতুর্থ বাজেট। আর বাংলাদেশের জন্য এটি ৫১তম বাজেট। পাশাপাশি রাষ্ট্র পরিচালনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের ২০তম বাজেট হলেও ২০০৮ সাল থেকে বর্তমান সরকার টানা বাজেট দিয়ে যাচ্ছে।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনিসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।


আরও খবর



সব সময় উদ্যোক্তাদের পাশে থাকবে ‘ঐক্য’

প্রকাশিত:Tuesday ১৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৩৫জন দেখেছেন
Image

কয়েকদিন পরই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দেশের সবচেয়ে সম্ভাবনাময় সংগঠন ই-ক্যাবের ২০২২-২০২৪ সালের ৪র্থ দ্বি-বার্ষিক কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন। একটি সুসংগঠিত ই-ক্যাব গড়ার পাশাপাশি সময়ের চাহিদা মেনে ই-কমার্সের উন্নয়নের ব্রত নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে ‘ঐক্য’ প্যানেল।

নির্বাচনকে সামনে রেখে ঐক্যের টিম লিডার, শিক্ষা ও ই-কমার্স খাতের পরিচিত মুখ প্রকৌশলী আব্দুল আজিজ নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন। গত ১৩ জুন সন্ধ্যায় রাজধানীর হোটেল শেরাটনে এক অনুষ্ঠানে নিজেদের ভাবনা ও পরিকল্পনা তুলে ধরেন তিনি।

বক্তারা বলেন, ই-কমার্স খাতের বিভিন্ন বিভাগে বিগত বছরসমূহে সরকার যেমন বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নিয়ে নতুন সম্ভাবনা হিসেবে জেগে ওঠার সুযোগ করে দিয়েছে; তেমনই তরুণ উদ্যোক্তারা এগিয়ে এসে এসব সমস্যা সমাধানে ভূমিকা রেখেছেন। প্রতিনিধিত্বকারী বাণিজ্য সংগঠন হিসেবে ই-ক্যাবও রেখেছে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা। টিম ঐক্য সব পক্ষকে নিয়ে একসাথে কাজ করার মানসিকতা ও পরিবেশ তৈরি করতে চায়।

ঐক্য প্যানেলের টিম লিডার প্রকৌশলী আব্দুল আজিজ বলেন, ‘আগামী ২ বছরের জন্য আমাদের মূল লক্ষ্য থাকবে ই-কমার্সের বাজার সম্প্রসারণ। পাশাপাশি উদ্যোক্তা, বিনিয়োগ, তথ্য ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্তি সহজ করা। এমনকি ই-কমার্স বান্ধব আইন, বাজেট ও নীতি প্রণয়নে জোরালো ভূমিকা পালন করা।’

ঐক্য প্যানেলের সদস্যরা ঘোষণা করেন, নির্বাচনের আগে ও পরে সব সময় উদ্যোক্তারা তাদের পাশে পাবেন। উদ্ভুত সমস্যা সমাধানে সরাসরি সদস্যদের মতামত নিয়ে সমাধান করা হবে। নির্বাচনের আগেও তারা ই-ক্যাবের পাশে ছিলেন, নির্বাচিত না হলেও সব সময় ই-ক্যাবের পাশে থাকবেন।

এ সময় প্যানেল সদস্য হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ সাজ্জাদুল ইসলাম (অংশীদার-ক্রাফটসম্যান সলুশন), মো. তাজুল ইসলাম (আই এক্সপ্রেস লিমিটেড), আরিফ মোহাম্মদ আব্দুস শাকুর চৌধুরী (স্কুপ ইনফোটেক লিমিটেড), মো. সেলিম শেখ (নূরতাজ ডটকম বিডি), সামদানি তাব্রীজ (র্যাপিডো ডেলিভারিস), ইঞ্জিনিয়ার তৌহিদা হায়দার রিমা (মেনসেন মিডিয়া), মো. আরিফুল ইসলাম ডিপেন (পরান বাজার) এবং ছোফায়েত মাহমুদ লিখন (কোরিয়ান মার্ট বিডি)।

আগামী ১৮ জুন অনুষ্ঠিত হবে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ই-ক্যাব) নির্বাচন। নির্বাচনে ভোটার আছেন ৭৯৫ জন।


আরও খবর



পাঁচ মিনিটের মাথায় গোল শোধ করে দিলো বাংলাদেশ

প্রকাশিত:Saturday ১১ June ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ২৫ June ২০২২ | ৫৩জন দেখেছেন
Image

তুর্কমেনিস্তান অচেনা প্রতিপক্ষ। কখনও তাদের বিপক্ষ খেলা হয়নি বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের। এই অচেনা প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ম্যাচ শুরু হতে না হতেই ধাক্কা খায় লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।

বুকিত জলিল স্টেডিয়ামে এএফসি এশিয়া কাপের বাছাইপর্বের ম্যাচে সপ্তম মিনিটের মাথায় পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ। গোল করেন আলতিমিরাত আনাদুর্দি।

তবে সেই গোল শোধ করতে মাত্র পাঁচ মিনিট নিয়েছে বাংলাদেশ। ম্যাচের ১২তম মিনিটে ১-১ সমতা এনেছেন মোহাম্মদ ইব্রাহিম।

আগের ম্যাচে বাহরাইনের কাছে বাংলাদেশ হেরেছে ২-০ গোলে। তুর্কমেনিস্তান ৩-১ গোলে হেরেছে স্বাগতিক মালয়েশিয়ার কাছে। প্রতিদ্বন্দ্বিতায় টিকে থাকতে হলে দুই দলের জন্যই ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ। হারলে বিদায় নিশ্চিত।


আরও খবর



শুধু বাবা-মায়েরাই পারে অটিজম শিশুদের গড়ে তুলতে

প্রকাশিত:Friday ০৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
Image

বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের গড়ে তোলা শুধু বাবা-মায়ের দ্বারাই সম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। তিনি বলেছেন, আমরা বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের নিয়ে কাজ করি। কিন্তু একজন বাবা-মা যতটা হৃদয়ের স্পর্শ দিয়ে কাজ করেন, সেটা আমরা কখনোই করি না।

শুক্রবার (৩ জুন) বিকেলে রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টশালী প্রদর্শনী কক্ষে অটিজমে আক্রান্ত শিল্পী আদিল হকের একক চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের প্রত্যেকটি উপজেলায় বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হয়েছে। সেখানে অনাদর অবহেলায় থাকা বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের শিক্ষা দেওয়া হয়। সরকার থেকে তাদের একটি মাসিক ভাতাও দেওয়া হয়। অটিজম শিশুদের বাবা-মায়েরাও এখন তাদের নিয়ে স্বপ্ন দেখেন।

আদিল হকের শিল্পকর্ম দেখে তিনি বলেন, শুধু তাকিয়ে দেখলাম সে কত সুন্দর করে এঁকেছে। আমি এক কলমও আঁকতে পারি না। সন্তানকে এমন বিশেষ গুণে গড়ে তোলার জন্য আদিলের বাবা-মায়ের প্রতি শ্রদ্ধা জানাই। আদিলকে বেড়ে ওঠার জন্য যেভাবে তারা সহযোগিতা করেছেন এটা শুধু বাবা-মায়ের দ্বারাই সম্ভব। আমরা বাহিরে যারা থাকি, সহজে তাদের হাতও ধরতে পারি না।

কে এম খালিদ বলেন, যে আদিল কথা বলতে পারতো না, চলতে ও ফিরতে কষ্ট হতো, সেই আদিলকে তার বাব-মা সমাজের উচ্চ পর্যায়ের নিয়ে গেছেন। এবার সুস্থতার কথাই বলেন বা মানবতার দিক থেকেই বলেন, আদিল আর বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন নয়, সে এখন খুব চাহিদা সম্পন্ন সন্তান। আমাদের মতো সুস্থ মানুষের চেয়েও তার চাহিদা অনেক বেশি। এই সফলতা শুধু বাবা-মায়ের কারণেই হয়েছে। আমরা আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই এভাবে একটি সন্তানকে তুলে ধরেছেন।

চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন পর তিনি বিভিন্ন চিত্রকর্ম ঘুরে দেখেন। এসময় প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন- আদিল হকের মা ডা. লীডি হক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেন, ভাস্কর অধ্যাপক হামিদুজ্জামান খান প্রমুখ।


আরও খবর



বাজেট পেশ: রাজস্ব কর্মকর্তাদের অপ্রয়োজনীয় ছুটি না নেওয়ার নির্দেশ

প্রকাশিত:Saturday ০৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬৯জন দেখেছেন
Image

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এনবিআর প্রস্তাবিত বাজেট প্রণয়ন ও বাস্তবায়নকে সামনে রেখে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের আগামী ১৫ জুলাই পর্যন্ত অপ্রয়োজনীয় ছুটি না দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বাজেট সম্পর্কিত কাজ দ্রুত ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে রাজস্ব কর্মকর্তাদের এক গুচ্ছ নির্দেশনা দিয়েছে রাজস্ব বোর্ড।

আগামী ৯ জুন বিকেল ৩টায় জাতীয় সংসদে ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল। প্রস্তাবিত বাজেটকে সামনে রেখে মাঠ পর্যায়ের সব কমিশনারেট ও বিভাগীয় দপ্তর এবং সার্কেল দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের গত ২ জুন এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানা যায়।

নির্দেশনাগুলো হলো-

১. মূল্য সংযোজন কর (মূসক) কর্মকর্তাদের বাজেট ঘোষণার আগের দিন ৮ জুন কমিশনারেটের আওতাধীন সম্পূরক শুল্ক আরোপযোগ্য (সম্ভাব্য) সব করদাতা, পণ্য সরবরাহকারীর প্রাঙ্গণ পরিদর্শন ও পণ্যের সমাপনী স্থিতি বিষয়ে সংশ্লিষ্ট রেজিস্টারে প্রত্যয়ন ও সই করবেন।

২. বাজেট পেশকালে বাজেটের বিভিন্ন প্রস্তাবনা বাজেট সংক্রান্ত দলিল প্রাপ্তির আগেই বাজেটে গৃহীত কার্যক্রম বাস্তবায়নের উদ্দেশে ত্বরিত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সদর দপ্তর, সব বিভাগ ও সার্কেলের সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের স্ব-স্ব নির্ধারিত পোশাক পরিহিত অবস্থায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজ নিজ দপ্তরে উপস্থিত থাকতে হবে।

৩. বাজেট পেশকালে অর্থমন্ত্রীর ঘোষণা অনুসরণ করে যেসব পণ্য বা সেবার ক্ষেত্রে মূসক, সম্পূরক শুল্ক ও আবগারি শুল্ক নতুনভাবে আরোপ অথবা সম্পূরক শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব করা হবে সেসব পণ্য উৎপাদনকারী বা সেবা প্রতিষ্ঠান সনাক্তকরণপূর্বক তাদের সরবরাহযোগ্য ও খালাসযোগ্য পণ্য বা সেবার প্রকৃত মজুতে হিসাব নিতে হবে।

৪. রাজস্ব ফাঁকির কোনো সম্ভাবনা থাকলে সুনির্দিষ্ট পণ্যাগারকে সীলমোহরকৃত অবস্থায় রাখার ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে। তবে পরবর্তীসময়ে কর্ম দিবসের মধ্যেই মজুত গণনা সম্পন্ন নিশ্চিত করতে হবে।

৫. বাজেট পেশের দিন কোনো পণ্য খালাস করা হলে বাজেটে প্রস্তাবিত হারে সম্পূরক শুল্ক ও মূসক প্রদেয় হবে।

৬. কমিশনারেটের অধীন সব দপ্তরের বাজেট সংক্রান্ত দলিলাদি জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে সংগ্রহ করতে হবে। অতঃপর উক্ত দলিলাদি বিভাগীয় দপ্তর ও সার্কেল দপ্তরগুলোর মধ্যে বিতরণ করতে হবে। কমিশনারেট, বিভাগীয় দপ্তর ও সার্কেল দপ্তরে যানবাহনগুলো সচল রাখা ও চালকদের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে।

৭. বাজেটের বিভিন্ন প্রস্তাবনা ও তা বাস্তবায়নের কর্মসূচি নির্ধারণের জন্য ১০ জুন সকাল সাড়ে ৯টায় সকল সদর দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করতে হবে।

৮.বাজেট দলিলাদি পর্যালোচনা করে এ বিষয়ে কোনো মতামত ও পরামর্শ থাকলে তা লিখিতভাবে আগামী ১৬ জুনের মধ্যে অবশ্যই জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে পাঠাতে হবে।

৯. বাজেট পেশের আগে ও অব্যবহিত পরে সরকারের ঘোষিত রাজস্ব নীতি বাস্তবায়ন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সুতরাং এখন থেকে ১৫ জুলাই পর্যন্ত কোনো কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে অত্যন্ত জরুরি প্রয়োজন ব্যতীত কোনো প্রকার ছুটি গ্রহণ বা প্রদান বা কর্মস্থল ত্যাগের অনুমতি না দেওয়ার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।


আরও খবর