Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশজুড়ে লোডশেডিং শূন্যের কোটায়: জয়

প্রকাশিত:শনিবার ১০ জুন ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২৩৬জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক :সারা দেশে লোডশেডিং এখন শূন্যের কোটায় বলে দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। আজ শনিবার নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে দেওয়া এক পোস্টে এমনটা দাবি করেন।    

সজীব ওয়াজেদ জয় লেখেন, ‘গত ৮ জুন থেকে সারা দেশে ব্যাপকহারে কমেছে লোডশেডিং। আস্থা রাখুন জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি। জনগণের সেবা করাই আওয়ামী লীগ সরকারের মূল লক্ষ্য।

পোস্টে সংযুক্ত ভিডিওতে দাবি করা হয়, ‘৯ জুন লোডশেডিং একেবারে শূন্যের কোটায় নেমে আসে। এদিন বিদ্যুৎ উৎপাদন হয় ১২ হাজার ৫৬৮ মেগাওয়াট। ঢাকা, ময়মনসিংহ, সিলেট, খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী ও রংপুরে লোডশেডিং একেবারেই ছিল না। কুমিল্লা ও চট্টগ্রাম বিভাগে উৎপাদনে ঘাটতি হলেও লোডশেডিং দেয়নি জাতীয় লোড ডিসপ্যাচ সেন্টার। ঘাটতি ছিল মাত্র ১.০১ শতাংশ।



আরও খবর



মধ্য আমেরিকায় ভারী বর্ষণ ও ঝড়ে নিহত ৩০

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | ১২৭জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:অবিরাম বর্ষণে বন্যা ও ভূমিধসের ঘটনায় অন্তত ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে মধ্য আমেরিকার দেশ গুয়াতেমালা, হন্ডুরাস ও এল সালভাদরে গত কয়েকদিনের। চলতি সপ্তাহে টানা কয়েকদিন ধরে এই প্রবল বৃষ্টিপাত চলছে। এ ছাড়া ঘরবাড়ি ছেড়ে যেতে বাধ্য হয়েছে কয়েক হাজার মানুষ।

আন্তর্জাতিক বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, শুক্রবারেই (২১ জুন) ১৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। স্থানীয় কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে ৬ জন শিশুও রয়েছে। প্রায় ৩ হাজার মানুষ এখনও অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রে রয়েছে।

এল সালভাদরের নাগরিক সুরক্ষা সংস্থার প্রধান লুইস আমায়া সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের অবশ্যই মানুষের জীবন বাঁচাতে হবে। বস্তুগত পণ্য আসে এবং যায়, কিন্তু এখন আমাদের জীবন রক্ষায় মনোযোগ দিতে হবে।’

গুয়েতেমালায় ঝড় ও বন্যায় ১০ জন মারা গেছেন। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, দুর্গত এলাকা থেকে ১১ হাজার মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। ৪টি সেতু ধ্বংস হওয়ার পাশাপাশি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৩০০টি সেতু। অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রে রয়েছেন ৩৮০ জন।

হন্ডুরাসেও প্রাণহানির ঘটেছে। সেখানে ১ জন মারা গেছে এবং ১ হাজার ২০০ জনের বেশি মানুষকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় প্রবল বৃ্ষ্িটপাতে ২২টি বাড়ি ধসে পড়েছে।


আরও খবর



পারশায় আম চাষীদের প্রাণের দাবী হিমাগার

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৯১জন দেখেছেন

Image

ডিএম রাশেদ পোরশা (নওগাঁ):নওগাঁর পোরশায় আম সংরক্ষণের জন্য হিমাগারের প্রয়োজন। এটি এখন আম চাষীদের প্রাণের দাবিতে পরিণত হয়েছে। পোরশা উপজেলায় কোন ফসলের জন্য এখনো কোন প্রকার হিমাগার স্থাপন হয়নি। পূর্বেও এখানে হিমাগার ছিলনা। হিমাগারের অভাবে সংরক্ষণ করে রাখা যায়না এ অঞ্চলের সুস্বাদু ফল আম। মৌসুমে গাছের আম একসাথে পেকে যাওয়ায় দাম পাননা চাষীরা। বাজারে আমের দর কম থাকলে পাকা আম নিয়ে বিপাকে পড়তে হয় আম চাষীদের। তখন বাধ্য হয়ে উৎপাদিত আমগুলো কম দামে বিক্রি করে লোকসানের মুখে পড়তে হয় আম চাষীদের। এ এলাকায় আম সংরক্ষনের জন্য হিমাগার না থাকায় হতাশায় ভুগছেন চাষীরা।

নওগাঁ জেলার পোরশা ও সাপাহার উপজেলাকে এখন আমের দ্বিতীয় রাজধানী বলা হয়। এখানকার আম দেশের বিভিন্ন এলাকার চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রপ্তানি করা হচ্ছে। এ দুই উপজেলায় এখন আমের বাম্পার ফলন হচ্ছে। এ এলাকার আম অনেক সুমিষ্ট তবুও মাঝে মধ্যেই আম চাষীরা আমের ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। আম সংরক্ষনের জন্য হিমাগার থাকলে চাষীরা বাজারে আমের দর কম থাকলে হিমাগারে রাখতে পারবেন। তাছাড়া চাষীরা হিমাগারে আম রেখে প্রয়োজনমত বিক্রি করতে পারবেন।

আম চাষীরা বলছেন, বাজারে আমের পর্যাপ্ত চাহিদার পূর্বেই এখানকার গাছের আম পাকতে শুরু করে। তাই গাছে আম পাকা দেখা দিলে আর ঐ আম গাছে বেশিদিন ধরে রাখা যায় না। পাকা আম গাছ থেকে অতি সহযেই ঝরে পড়ে। গাছের পাকা আম বিভিন্ন পাখি-পোকায় খেয়ে ফেলে। তাছাড়া পাকা আম নেমেও বেশিদিন ধরে রাখা যায় না। তাই বাজারে আমের চাহিদা থাক আর না থাক, দাম ভাল থাক আর না থাক, খুব দ্রুতই গাছের পাকা আম নামিয়ে বাজারে বিক্রি করতে বাধ্য হন আম চাষীরা। আর হিমাগার থাকলে ঐ আমগুলো সংরক্ষন করে রেখে পরে বাজারে আমের চাহিদামত বিক্রি করা সম্ভব হয়।

পোরশা উপজেলার আমচাষী হাবিবুর রহমান জানান, গাছের আম একবার পাকা দেখা দিলে আর ঐ গাছের আম ধরে রাখা সম্ভব নয়। এমনিভাবে যে জাতের আম একবার পাকা দেখা দেয় ঐ জাতের সমস্ত বাগানের আম প্রায় একসাথেই পেকে যায়। আর তখনই বাজারে আমের আমদানী বেশি হয়। আর আমদানী বেশি হলে বাজারে আমের দর কমে যায়। হিমাগার থাকলে পাকা আম সংরক্ষন করে বাজারের চাহিদামত বিক্রি করা যায়। এতে চাষীরা লাভবান হবেন বলে তিনি জানান।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মেহেদী হাসান জানান, এ বছর শুধুমাত্র পোরশা উপজেলায় আম চাষ হচ্ছে ১০হাজার ৬০ হেক্টর জমিতে। এ উপজেলায় ব্যাপক আম চাষ হচ্ছে। প্রতি বছর এখানে আমের চাষ বেড়েই চলেছে। গাছের আম দ্রুত পেকে যাওয়ায় বেশিদিন ধরে রাখতে পারছেন না এখানকার আম চাষীরা। যে কারনে আশানুরূপ দাম পায়না আম চাষীরা। তাই এ উপজেলায় হিমাগার স্থাপন করা হলে, গাছে না হোক, হিমাগারে আম সংরক্ষন করে সময়মত ভাল দামে চাষীরা আম বিক্রি করে লাভবান হতে পারবেন বলে তিনি মনে করেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



রাণীশংকৈলে ৫২ জন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর মাঝে ২ লাক্ষ ৫৬ হাজার টাকার শিক্ষাবৃত্তি প্রদান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | ১০৩জন দেখেছেন

Image
মাহাবুব আলম,রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি:ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় বুধবার ( ৩ জুলাই) দুপুরে উপজেলা হলরুমে ইউএনও রকিবুল হাসানের সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের বরাদ্দকৃত তহবিল থেকে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়। 

এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান আহাম্মদ হোসেন বিপ্লব, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা স্যামিয়েল মার্ডি, আদিবাসী সমাজ উন্নয়ন সমিতির সভাপতি নিকেল বর্মনসহ কমিটির বিভিন্ন সদস্যরা প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। 

উল্লেখ, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী প্রাইমারী স্কুলের ২৫ জন ছাত্র ছাত্রী মাঝে প্রত্যেককে ২৫০০ টাকা, হাইস্কুলের ছাত্র ছাত্রী ১৮ জনের মাঝে ৬ হাজার টাকা,  এবং কলেজ লেভেলের ৯ জন ছাত্র ছাত্রী মাঝে ৯ হাজার ৫ শত টাকা করে। মোট ৫২ জন ছাত্র ছাত্রীর মাঝে ২ লাক্ষ ৫৬ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। 

আরও খবর



আমেরিকায় এমন সহিংসতার স্থান নেই, এটা ক্ষমা করা যায় না: বাইডেন

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৮২জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:সমাবেশে হামলার ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। এতে সাবেক এই রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট কানে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এরপরই এই হামলার বিষয়ে কঠোর নিন্দা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

তিনি বলেছেন, আমেরিকায় এ ধরনের সহিংসতার কোনো স্থান নেই। এমনকি এই ধরনের হামলা ক্ষমা করা করা যায় না বলেও জানিয়েছেন তিনি।

রোববার (১৪ জুলাই) এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

সংবাদমাধ্যমটি বলছে, স্থানীয় সময় শনিবার একটি সমাবেশে ট্রাম্পকে লক্ষ্য করে এই হামলা হয়। এরপরই নিজের প্রতিক্রিয়া জানান প্রেসিডেন্ট বাইডেন। তিনি বলেন, ‘আমেরিকাতে এই ধরনের সহিংসতার কোনো স্থান নেই। এটি অসুস্থ, এটি অসুস্থ (হামলা)।

তিনি বলেন, আমি নিশ্চিত করতে চাই, আমাদের কাছে সমস্ত তথ্য আছে। যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এজেন্সিগুলো গুলিবর্ষণের এই ঘটনায় তদন্তে কাজ করছে।

এটি হত্যার প্রচেষ্টা ছিল বলে তিনি বিশ্বাস করেন কিনা তা বাইডেনের কাছে একজন প্রতিবেদক জানাতে চান। জবাবে বাইডেন বলেন, ‘আমি নিশ্চিত করতে চাই যে, আমাদের কাছে সমস্ত তথ্য আছে।

এদিকে ট্রাম্পের ওপর হামলার পরপরই মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন একটি সংক্ষিপ্ত বিবৃতি দেন। সেখানে তিনি বলেন, পেনসিলভেনিয়ায় সহিংস এই হামলার ঘটনায় ‘সবাইকে নিন্দা করতে হবে’।

তিনি বলেন, তিনি আজ (শনিবার) রাতে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে কথা বলার বিষয়ে আশা করছেন। তিনি আরও বলেন, সমাবেশে হামলার সময় যা ঘটেছিল সে সম্পর্কে তাকে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে অবহিত করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেছি। তিনি এখন তার ডাক্তারদের সাথে আছেন।

মার্কিন ডেমোক্র্যাটিক এই প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমরা এটি (এই ধরনের হামলা) ঘটতে দিতে পারি না। আমরা এমনটা হতে পারি না। আমরা এটি ক্ষমাও করতে পারি না।

উল্লেখ্য, স্থানীয় সময় শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের বাটলার শহরে এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলাকারী নিজেও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গুলিতে নিহত হয়েছেন।

গোয়েন্দা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ট্রাম্পকে লক্ষ্য করেই এ হামলা চালানো হয়েছিল এবং এটি ছিল গুপ্তহত্যার প্রচেষ্টা।

মূলত আগামী নভেম্বর মাসে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হবে যুক্তরাষ্ট্রে। সেই নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন ট্রাম্প। নির্বাচনের প্রচারে শনিবার বাটলার শহরে গিয়েছিলেন তিনি।

সেখানে অস্থায়ী মঞ্চে বক্তব্য দিতে ওঠার পরই একপর্যায়ে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



হিলি স্থলবন্দর দিয়ে যে কারণে পেঁয়াজ আমদানি কমেছে

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১১১জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:ভারত সরকার রপ্তানি মূল্য বৃদ্ধি করায় দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি কমেছে। এর আগে যেখানে প্রতিদিন ৩০ থেকে ৪০ ট্রাক পেঁয়াজ আমদানি হতো। এখন তা কমিয়ে ২ থেকে ৩ ট্রাক পেঁয়াজ আমদানি হচ্ছে। আর সেই প্রভাব পড়ছে দেশের বাজারে। 

বন্দরের আমদানিকারকেরা বলছেন,ভারত সরকার পেঁয়াজ রপ্তানিতে ৪০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করায় সেকারণে পেঁয়াজ আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন। ৪০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করায় প্রতিকেজি পেঁয়াজের অতিরিক্ত ২৫ টাকা গুনতে হচ্ছে। ভারত সরকার ৪০ শতাংশ শুল্ক প্রত্যাহার করলে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম ৫০ টাকা কেজির নিচে নেমে আসবে। 

আজ শুক্রবার হিলি বাজার ঘুরে দেখা গেছে,তিন আগে দেশীয় পেঁয়াজ ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ সেই পেঁয়াজ কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে তা এখন ৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আর ভারত থেকে আমদানিকৃত পেঁয়াজ ৭৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও আজ তা ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। 

হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক এটিএম রবিউল ইসলাম সুইট বলেন, ভারত সরকার পেঁয়াজ রপ্তানিতে ৪০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করায় প্রতিকেজি পেঁয়াজে ২৫ টাকা অতিরিক্ত গুনতে হচ্ছে। এ কারণে আমদানিকারকেরা পেঁয়াজ আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন। তবে স্বল্প পরিসরে আমদানিকারকরা পেঁয়াজ আমদানি করছেন। 

শাহিন আরও বলেন,আগে পেঁয়াজ আমদানি করে কেজিপ্রতি দাম পড়তো ৪০ টাকা। কিন্তু ভারত সরকার ৪০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করায় প্রতিকেজি পেঁয়াজের আমদানি মূল্য পড়ছেন ৬৫ টাকা। এর সঙ্গে ট্রাক ভাড়া,বাংলাদেশের কাস্টমসের শুল্কসহ অন্যান্য খরচ মিলিয়ে প্রায় ৭০ থেকে ৭২ টাকা খরচ পড়ছে । ভারত সরকার ৪০ শতাংশ শুল্ক প্রত্যাহার করলে দেশে পেঁয়াজের দাম ৫০ টাকার নিচে নেমে আসবে বলে আশা করছেন তিনি। 

হিলি কাষ্টমস সূত্রে জানা গেছে, গেলো সোমবার ১ জুলাই থেকে ৪ জুলাই বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভারতীয় ৭ টি ট্রাক ২০২ মেট্রিক টন ৪০০ কেজি পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে এই বন্দর দিয়ে।


আরও খবর