Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশ ছেড়েছেন সাবেক ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া!

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২৯৩জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার,স্টাফ রিপোর্টার: ডিএমপির সাবেক কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া ও তার পরিবারের বিপুল সম্পদের খবর গণমাধ্যমে প্রকাশের পর দেশজুড়ে বিভিন্ন মহলে আলোচনা-সমালোচনা চলছে। ঈদুল আজহার ছুটি শেষে তার সম্পদের বিষয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রম শুরু করতে পারে দুদক।

এদিকে এরইমধ্যে আছাদুজ্জামান সস্ত্রীক দেশ ছেড়েছেন। গেল সপ্তাহে তারা আমেরিকায় গেছেন। আছাদুজ্জামান দেশটিতে বিভিন্ন সম্পত্তি গড়েছেন। বিনিয়োগ করেছেন বিভিন্ন খাতে। এছাড়া সেখানে তাদের ছোট ছেলে আসিফ মাহাদীন পড়াশুনা করেন।

জানা যায়, আছাদুজ্জামান নিজ নামে, স্ত্রী আফরোজা জামান, দুই ছেলে আসিফ শাহাদাত, আসিফ মাহদীন ও মেয়ে আয়েশা সিদ্দিকার নামে দেশে প্লট, ফ্ল্যাট, বাড়িসহ বিভিন্ন সম্পত্তি গড়ার পাশাপাশি আমেরিকাসহ কয়েকটি দেশেও বিপুল পরিমাণ অর্থের বিনিয়োগ করেছেন।

সম্প্রতি, সরকারের একটি গোয়েন্দা সংস্থা আছাদুজ্জামানের দুর্নীতিলব্ধ আয়ে গড়া নানা সম্পত্তির খোঁজখবর নিতে শুরু করেন। আছাদুজ্জামান তা বুঝতে পেরেই আগেভাগে গা ঢাকা দেন। একপর্যায়ে গেল সপ্তাহে সস্ত্রীক আমেরিকায় চলে যান।

এদিকে গণমাধ্যমে আছাদুজ্জামানের দুর্নীতির খবর আসার পর নড়েচড়ে বসেছে দুর্নীতি দমন কমিশন। ঈদুল আজহার ছুটির পর তার বিষয়ে অনুসন্ধান কার্যক্রমের সিদ্ধান্ত নিতে পারে দুর্নীতিবিরোধী সংস্থাটি।

দুদক কমিশনার জহুরুল হক গণমাধ্যমকে বলেছেন, আছাদুজ্জামান মিয়ার সম্পদের তথ্য প্রকাশের খবর তাঁর নজরে আসেনি।... যদি সাবেক এই পুলিশ কর্মকর্তার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদের খোঁজ পাওয়া যায়, তাহলে দুদক ব্যবস্থা নেবে।

জানা যায়, আছাদুজ্জামান মিয়ার সম্পদের বাড়াবাড়ির বিষয়টি বেশ কয়েক বছর আগে নজরে এসেছিল দুদকের। শুরু হয় অনুসন্ধানও। তবে তা খুব একটা এগোয়নি। অনুসন্ধান না আগানোর পেছনে কারণও খুব একটা স্পষ্ট নয়।

তবে সংস্থাটির আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলছেন, ছুটির পর অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেবেন তারা। আস্থা নিয়ে পুলিশের উচ্চ পদে আসীনদের এমন কর্মকাণ্ডে, বাহিনীটিতে শুদ্ধি অভিযান জরুরি হয়ে পড়েছে বলেও মন্তব্য করেন এ জ্যেষ্ঠ আইনজীবী।

‘মিয়া সাহেবের যত সম্পদ’ নামে দৈনিক মানবজমিন একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশের পর নতুন করে শিরোনামে এলেন আসাদুজ্জামান মিয়া। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, আছাদুজ্জামান মিয়া ও তার পরিবারের সম্পদের পাহাড়। অনেক সম্পদের নথি ধরে সরজমিনে সেসবের সত্যতা মিলেছে।

এ বিষয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘রাজনৈতিক আশীর্বাদ ছাড়া এ ধরনের দুর্বৃত্তায়ন সম্ভব নয়। একদিকে প্রতিষ্ঠানের উচ্চ পদস্থ অবস্থান অপরদিকে রাজনৈতিক আশীর্বাদ একত্রিত হয়ে তাদের দুর্নীতি এবং অসামঞ্জস্য আয় বৃদ্ধি পাচ্ছে। তারা আইনের সুরক্ষার পরিবর্তে ভক্ষক হয়ে গেছেন। তারা অপরাধ নিয়ন্ত্রক। তার মানে তারা জানেন কোন অপরাধ কীভাবে করতে হয়। এটা জেনে বুঝেই করেছেন ‘

‘তারা যে অসামঞ্জস্য অপরাধগুলো করেছেন প্রতিটি ক্ষেত্রেই কিন্তু এক ধরনের সহযোগী আছে। তাদের অনেকেই হয়তো জেনে বা না জেনে অংশীদার হয়েছেন। এ অবস্থায় সব অপরাধের ক্ষেত্রে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা ছাড়া অন্য কোনো ম্যাজিক বুলেট নেই।’

আরও খবর



চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৯৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চীনে তিন দিনের সরকারি সফর শেষে দেশে ফিরেছেন। প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিমানটি বুধবার (১০ জুলাই) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেছে।

সফরসূচি অনুযায়ী, নির্ধারিত চার দিনের সফর শেষে বৃহস্পতিবার দেশের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার কথা ছিল তার। কিন্তু মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুল অসুস্থ থাকায় রাতেই বেইজিং ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে, বুধবার (১০ জুলাই) বেইজিংয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরত যাওয়ার কথা ছিল ১১ জুলাই। সেটি না হয়ে বেইজিংয়ের স্থানীয় সময় বুধবার রাত ১০টায় বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন। এতে কিন্তু তার আনুষ্ঠানিক যে কর্মসূচি, সেটির বিন্দুমাত্র হেরফের হয়নি।

নির্ধারিত সময়ের আগেই প্রধানমন্ত্রীর বেইজিং সফর সমাপ্ত করার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে তার কন্যা ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) আঞ্চলিক পরিচালক সায়মা ওয়াজেদ পুতুলেরও বেইজিং সফরের কথা ছিল। কিন্তু অসুস্থতার কারণে তিনি বেইজিং সফর করতে পারেননি। আমরা যেদিন বেইজিংয়ের উদ্দেশ্যে রওনা করি, সেদিন সকালে হঠাৎ করে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তিনি এখনও অসুস্থ। সফরসূচির অন্তর্ভুক্ত সব আনুষ্ঠানিক কাজ এরই মধ্যে সম্পন্ন হয়ে যাওয়ায় আর মেয়েকে ছেড়ে দূরে থাকতে চাইছেন না প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের আমন্ত্রণে গত সোমবার বেইজিং সফরে যান।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



কালুপাড়া গ্রামে গভীর নলকূপ প্রকল্পের এলাকায় অবৈধ্যভাবে ড্রেন ভাঙ্গন ও পুকুর খনন এর বিরুদ্ধে অভিযোগ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৩৩জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:দিনাজপুর জেলার বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি এলাকার কালুপাড়া গ্রামে প্রতিপক্ষরা গভীর নলকূপ প্রকল্পের এলাকায় অবৈধ্যভাবে ড্রেন ভাঙ্গন ও পুকুর খনন এর বিরুদ্ধে পার্বতীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর গত ২৬/০৬/২০২৪ইং তারিখে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন মোঃ রাজু আহম্মেদ। পার্বতীপুর উপজেলার কালুপাড়া গ্রামে মৃত্যু মোজাফ্ফর মন্ডল এর পুত্র মোঃ রাজু আহম্মেদ এর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কালুপাড়া কৃষক সমবায় সমিতি নামে একটি সরকারি রেজিষ্টার সমবায় সমিতি রয়েছে। যাহার রেজি নং-৫৬/৮৭। উক্ত সমবায় সমিতির আওতায় মোঃ রাজু আহম্মেদ ঐ কমিটির সহ সভাপতি হিসাবে গভীর নলকূপ পরিচালনা করে আসছেন। গত ২৫/০৬/২০২৪ইং তারিখে পার্বতীপুর উপজেলার হামিদপুর ইউপির কালুপাড়া গ্রামের মৃত্যু মবার উদ্দীন  এর পুত্র মোঃ মিজানুর রহমান ও মৃত্যু পওয়াতুল মোল্লার পুত্র মোঃ আফসার আলী, মোঃ ্আফসার আলীর পুত্র মোঃ মিলন, মৃত্যু নজির উদ্দিন তেলির পুত্র মোঃ আইয়ুব আলীগংরা গভীর নলকূপটির পাশের্^ পুকুর খনন এর কারণে গভীর নলকূপ এর ঘরটি ভেঙ্গে পড়ে যাচ্ছে এবং ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। বিষয়টি আফসার আলীকে অবগত করলে তিনি ব্যবস্থা না নিয়ে গভীর নলকূপ এর ঘরটি সরিয়ে নেওয়ার কথা বলেন। মোঃ মিজানুর রহমান এর নির্দেশে এবং মিলন এর নির্দেশে গভীর নলকূপ এর সেচ ড্রেন তুলে ফেললে এতে সাধারণ কৃষকদের চলতি বছর আমন মৌসুমে সেচ নিতে ব্যহত হবে। কালুপাড়া গ্রামে গভীর নলকূপ সাময়িক কমিটির সভাপতি মোঃ আইয়ুব আলীকে বিষয়টি জানালে গভীর নলকূপ এর ঘরটি যেহেতু তাদের জায়গায় সে ক্ষেত্রে তারা ঘরটি ভেঙ্গে দিতে পারে। রাজু আহম্মেদ অভিযোগে উল্লেখ করেন, গভীর নলকূপটি স্থাপনের আওতার মধ্যে প্রতিপক্ষদের একটি নিজেস্ব স্যালোমেশিন অগভীর নলকূপ থাকায় তারা চানা গভীর নলকূপটি অকেজ হয়ে থাক। এবং স্যালোমেশিন এর মাধ্যমে কৃষদেরকে সেচ সুবিধা দিতে পারেন। এতে প্রায় ৪০ জন কৃষক সেচ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে। কালুপাড়া কৃষক সমবায় সমিতির সাময়িক পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ আইয়ুব আলীর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, গভীর নলকূপ তারাই পরিচালনা করছিলেন। হিসাব চাইলে তারা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেন। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উপজেলা সেচ কমিটির সভাপতির আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন অভিযোগকারী রাজু আহম্মেদ। 


আরও খবর



খাগড়াছড়িতে 'সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নিরসনে সচেতনতা' শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৭৫জন দেখেছেন

Image

জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়িতে জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের আয়োজনে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ নিরসনে সচেতনতা শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।মঙ্গলবার (০৯জুলাই) সকাল ১১টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ নিরসনে সচেতনতা শীর্ষক আলোচনা সভায় খাগড়াছড়ি  অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মোঃ সহিদুজ্জামান, প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। 


বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন  খাগড়াছড়ি জেলার পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার)।

বিশেষ অতিথি,র বক্তব্যে খাগড়াছড়ি  পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার) বলেন, প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের ক্ষেত্রে যেভাবে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে সেটা অর্থনৈতিক ও কৃষি হোক অথবা অন্যান্য যে কোন সেক্টরের হোক আমাদের সুনাগরিক হিসেবে সে দায়িত্ব পালন করতে হবে। যার যার অবস্থান থেকে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও অন্যান্য নেতিবাচক যে সমস্ত কর্মকাণ্ড আছে প্রতিহত করার জন্য আমাদের রুখে দাঁড়াতে হবে। আইন-শৃঙ্খলার একজন সদস্য হিসেবে বলতে পারি যে আমি ব্যক্তিগতভাবে কাজ করলে হবে না আমরা সবাই মিলে কিন্তু এই দেশকে সোনার বাংলা ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলবো।তিনি আরো বলেন, আমি একটি বার্তা সবার কাছে পৌঁছে দিতে চাই আমরা যে সম্প্রীতির মধ্যে খাগড়াছড়ি জেলার সবাই একত্রে বসবাস করছি সে সম্প্রীতির মিলবন্ধন বজায় থাকবে।

জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ খলিলুর রহমানের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো.  দিদারুল আলম দিদার, সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাঈমা ইসলাম, জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি চৌধুরী আতাউর রহমান প্রমুখ।

আলোচনায় সভায় জেলার বিভিন্ন মসজিদ, মাদ্রাসা এবং এতিমখানা'র ইমাম ও মুয়াজ্জিনরা অংশ নেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



পোরশায় পুনর্ভবা নদী থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির ভাসমান লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৪১জন দেখেছেন

Image

ডিএম রাশেদ,পোরশা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:নওগাঁর পোরশা সীমান্তের পুনর্ভবা নদী থেকে এক অজ্ঞাত ব্যক্তির ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধায় নদীর টেকঠা ঘাট নামক এলাকা থেকে ঐ লাশ উদ্ধার করে পোরশা থানা পুলিশ।

জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধার আগে স্থানীয়রা নদীতে ভাসমান অবস্থায় এক ব্যক্তির লাশ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দিলে সন্ধায় থানা পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করেন।

আনুমানিক ৪০ বছর বয়সের ওই ব্যক্তির শরীরে কাল চেক শার্ট ও কাল প্যান্ট পরা ছিলেন। 

পোরশা থানার অফিসার ইনচার্জ আতিয়ার রহমান জানান, উদ্ধার করা অজ্ঞাত ঐ ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া যায়নি। লাশটি মর্গে প্রেরন করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



তাহিরপুরে চোরাচালান ও চাঁদাবাজি বৃদ্ধি : নৌকাসহ ৫জন গ্রেফতার

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৫২জন দেখেছেন

Image

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া-সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুরে দিনদিন বেড়েই চলেছে চোরাচালান ও চাঁদাবাজি বাণিজ্য। সরকারের কোটিকোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে চোরাকারবারীরা প্রতিদিন ভারত থেকে অবৈধ ভাবে কয়লা ও চুনাপাথরসহ বল্ডার পাথর, গরু, ঘোড়া, মদ, গাঁজা, ইয়াবা, নাসির উদ্দিন বিড়ি, পেয়াজ ও চিনিসহ আরো বিভিন্ন প্রকার মালামাল ওপেন পাচাঁর করছে। পরে পাঁচারকৃত অবৈধ মালামাল থেকে পুলিশ, বিজিবি ও সাংবাদিকদের নাম ভাংগিয়ে সোর্স পরিচয়ধারী একাধিক মামলার আসামীরা উত্তোলন করছে লাখলাখ টাকা চাঁদা। সোর্সদের নেতৃত্বে চোরাচালান করতে গিয়ে বিএসএফের গুলিতে, নদীতে ডুবে ও গর্তে পড়ে এপর্যন্ত কয়েক হাজার শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু আজ পর্যন্ত সোর্সদের বিরুদ্ধে নেয়া হয়নি আইনগত কোন পদক্ষেপ। তবে নৌ-পুলিশ সীমান্তের পাটলাই নদীতে অভিযান চালিয়ে ইঞ্জিনের নৌকাসহ ৫জনকে গ্রেফতার করেছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে- প্রতিদিনের মতো আজ রবিবার (৩০ জুন) সকাল ৯টা থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলার চারাগাঁও সীমান্তের এলসি পয়েন্টের পাহাড়ি ছড়া দিয়ে চোরাকারবারী কাঞ্চন মিয়া, সোহেল মিয়া, দীপক মিয়া, আনোয়ার হোসেন বাবলুগং প্রায় ১২০মেঃটন কয়লা পাচাঁর করে একাধিক ডিপু ও তাদের বসতবাড়িতে মজুত করে। তার আগে ভোর ৫টায় উপজেলার বীরেন্দ্রনগর ও চারাগাঁও সীমান্তের লামাকাটা, সুন্দরবন, জঙ্গলবাড়ি, কলাগাঁও, বাঁশতলা ও লালঘাট এলাকা দিয়ে গডফাদার তোতলা আজাদের সোর্স রফ মিয়া, আইনাল মিয়া, লেংড়া জামাল, সাইফুল মিয়া, রিপন মিয়া, বাবুল মিয়া, রুবেল মিয়া ও হারুন মিয়াগং প্রায় ৩৫০মেঃটন পাচাঁরকৃত অবৈধ কয়লা ১২টি স্টিলবডি ইঞ্জিনের নৌকা দিয়ে নিয়ে যায়। এছাড়াও কলাগাঁও নদী থেকে প্রতিদিন অবৈধ ভাবে বালি ও পাথর বিক্রি করছে একাধিক মামলার আসামী সোর্স রফ মিয়া ও আইনাল মিয়া। এদিকে গত শুক্রবার (২৮জুন) বিকেলে সীমান্তের পাটলাই নদীর সোলেমানপুর নামকস্থানে পাচাঁরকৃত অবৈধ মালামাল বোঝাই নৌকা থেকে চাঁদা উত্তোলনের সময় নৌ-পুলিশ অভিযান চালিয়ে সোর্স পরিচয়ধারী ফজলুল হক (৫২), হাবিবুর রহমান (৪৮), কহিনুর মিয়া (৩৮), কামরুল মিয়া (৩৫) ও এমরান মিয়া (৩২) কে হাতেনাতে গ্রেফতার করে। কিন্তু গত এক সপ্তাহে বালিয়াঘাট সীমান্তের লাকমা ও লালঘাট এলাকা দিয়ে গডফাদার তোতলা আজাদ ও তার সোর্স জিয়াউর রহমান জিয়া, মনির মিয়া, ইয়াবা কালাম, হোসেন আলী, রতন মহলদার, কামরুল মিয়াগং প্রায় ২শ মেঃটন কয়লা পাচাঁর করে সীমান্তের বসতবাড়ি, নিলাদ্রী লেকপাড় ও দুধেরআউটা গ্রামে নিয়ে মজুত করাসহ টেকেরঘাট সীমান্তের বুরুঙ্গাছড়া ও রজনীলাইন এলাকা দিয়ে সোর্স আক্কল আলী, রুবেল মিয়া ও কামাল মিয়াগং প্রায় ৩হাজার মেঃটন চুনাপাথর ও ১হাজার মেঃটন কয়লা পাচাঁর করে বিজিবি ক্যাম্পের আশেপাশে অবস্থিত বিভিন্ন ডিপুতে মজুত করলেও এব্যাপারে কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। এছাড়াও পাশের চাঁনপুর সীমান্তের নয়াছড়া, রাজাই, কড়ইগড়া ও বারেকটিলা এলাকা দিয়ে সোর্স জামাল মিয়া, নজরুল মিয়া, রুসমত আলী, জম্মত আলী, সাহিবুর মিয়া, বুটকুন মিয়া ও লাউড়গড় সীমান্তের জাদুকাটা নদী, সাহিদাবাদ, দশঘর ও পুরান লাউড়গড় এলাকা দিয়ে সোর্স বায়েজিদ মিয়া, জসিম মিয়া, নুরু মিয়া, নবীকুল, জজ মিয়াগং প্রতিদিন ভারত থেকে ওপেন পাচাঁর করছে গরু, ঘোড়া, কয়লা, পাথর, নাসির উদ্দিন বিড়ি, মদ, গাঁজা, ইয়াবা, চিনি ও পেয়াজসহ বিভিন্ন মালামাল। কিন্তু তাদেরকে গ্রেফতারের জন্য নেওয়া হয়না কোন পদক্ষেপ।

এব্যাপারে টেকেরঘাট কোম্পানীর বিজিবির কমান্ডার দীলিপ বলেন- আমার এলাকা দিয়ে চোরাচালানের কোন খবর আমি পাইনা, পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। চারাগাঁও বিজিবি ক্যাম্পের কমান্ডার শফিকুল বলেন- আমাদের পক্ষ থেকে সীমান্ত এলাকা দিয়ে অবৈধ ভাবে কোন মালামাল পাচাঁরের অনুমতি নাই। তাহিরপুর থানার ওসি কাজী নাজিম উদিন বলেন- থানা পুলিশের কোন সোর্স নাই। সীমান্ত চোরাচালান বন্ধের দায়িত্ব বিজিবির। তবে নৌ-পুলিশ সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ৫জনকে আটক করেছে জানতে পেরেছি। সুনামগঞ্জের টুকেরবাজার নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ আতাউর রহমান বলেন- সীমান্তের জাদুকাটা ও পাটলাই নদীসহ বিভিন্ন স্থানে মালামাল পরিবহনকারী নৌকায় চাঁদাবাজি হয় জানতে পেরেছি। আমরা অভিযান চালিয়ে ইতিমধ্যে নৌকাসহ ৫জনকে গ্রেফতার করেছি। মামলা পক্রিয়াধীন রয়েছে। আমাদের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।


আরও খবর