Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ডেঙ্গুতে একজনের মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ১০১

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ জুন ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২৯৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১০১ জন। একই সময়ে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

আজ সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৩৯২ জন। আর চলতি বছর এ পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৭ জন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে নতুন ভর্তি হওয়া রোগীদের ৮৭ জন ঢাকার বাসিন্দা। আর ঢাকার বাইরের ১৪ জন। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের ৩৩৬ জন ঢাকার এবং ৫৬ জন ঢাকার বাইরে।

প্রসঙ্গত, দেশে ডেঙ্গুর প্রকোপ মারাত্মক আকার ধারণ করে ২০১৯ সালে। ওই বছর ১ লাখের বেশি মানুষ ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। মারা যান ১৪৮ জন। পরের বছর ডেঙ্গু রোগের বিস্তার ঘটেনি। ২০২১ সালের মাঝামাঝি ও ২০২২ সালে এসে উদ্বেগজনকহারে বাড়তে থাকে ডেঙ্গু রোগী।


আরও খবর



বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে সেনাপ্রধানের পুষ্পস্তবক অর্পণ

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৩৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ধানমন্ডি ৩২ নং রোডের বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন বিদায়ী সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

শুক্রবার (২১ জুন) তিনি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।

আইএসপিআর জানায়, বিদায়ী সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ ধানমন্ডি ৩২ নং রোডের বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরবর্তীতে সেনাবাহিনী প্রধান জাতির পিতা এবং তার পরিবারের সদস্যসহ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শাহাদাতবরণকারী সকলের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া করেন।

এসময় সেনাসদরের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা, জেসিও ও অন্যান্য পদবির সেনাসদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসায় নতুন আবেদন পাইনি: আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | ১২২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার জন্য নতুন কোনো আবেদন পাইনি,বলেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক । নির্বাহী আদেশে খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর সুযোগ নেই।

রোববার (২৩ জুন) রাজধানীর বিচার প্রশাসন ইনস্টিটিউটে বিচারকদের এক প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, আমি যতটুকু তথ্য পেয়েছি আজ সকালে খালেদা জিয়ার হার্টের প্রেস মেকার বসানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খালেদা জিয়ার অসুস্থতার বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিতে দেখেন বলেন, ২০২০ সাল থেকে তার সাজা স্থগিত রেখে বাসায় থাকার ব্যবস্থা করেছেন। খালেদা জিয়া তার পছন্দমত হাসপাতালে বিদেশ থেকে চিকিৎসক এনে চিকিৎসা করাচ্ছেন।

তিনি বলেন, যে আইনি ব্যবস্থায় খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত রাখা হয়েছে, একই আইনি প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়াকে বিদেশ পাঠানো সম্ভব নয়।

এক প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী বলেন, যুদ্ধাপরাধী চৌধুরী মাঈনুদ্দিনকে নিয়ে ব্রিটেনের আদালত যে রায় দিয়েছেন, তা পক্ষপাতমূলক ও একপেশে। এই রায়ে সঠিক তথ্য পুরোটা আসেনি।


আরও খবর



মেহেরপুরের মুজিবনগর সীমান্ত দিয়ে ভারত থে‌কে ১০-১২ জন পুশ ইন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৬১জন দেখেছেন

Image

মে‌হেরপুর প্রতিনিধি:মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার নাজিরাকোনা সীমান্ত দিয়ে ভারত থে‌কে ১০ জন পুশ ইন  হ‌য়ে‌ছে।ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ তা‌দের‌কে বৃস্পতিবার ভোরের দিকে পা‌ঠি‌য়ে দেয়।  পুশ ইন হ‌য়ে আসা লোকজন তাদের নিজ বাড়ির উদ্দেশ্যে ফিরে গেছে। তা‌দের বা‌ড়ি য‌শোর, সাতক্ষীরাসহ বি‌ভিন্ন জেলায়। 

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, ভোর চারটার দিকে নাজিরাকোনা সীমান্তের কাটাতারের গেট খুলে দেয় বিএসএফ। এসময় ১০ জন ভারত থেকে বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করে। পায়ে হেঁটে তারা নাজিরাকোনা গ্রামের ভেতরে গিয়ে ভ্যানযোগে মুজিবনগর উপজেলা শহর কেদারগঞ্জে পৌঁছায় ভোরের দিকে। সেখানে স্থানীয় সাংবাদিকরা তাদের গন্তব্যে ফেরার ভিডিও ধারণ করেন। 

পুশ ইন হয়ে আসা কয়েকজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, তারা সকলেই দরিদ্র। কাজের খোঁজে অনেক আগে তারা ভারতে গিয়েছিলেন। সেখানে শ্রমিকের কাজ করার এক পর্যায়ে তারা ভারতীয় পুলিশের হাতে আটক হয়। বেশ কিছুদিন হাজতবাসের পর গেল রাতে তাদেরকে আনা হয় নাজিরাকোনা সীমান্তে। সেখানে তাদের আঙ্গুলের ছাপ নেয় বিএসএফ সদস্যরা। এক পর্যায়ে কাটাতারের গেট খুলে তাদেরকে বাংলাদেশের ভেতরে পাঠিয়ে দেয়। 

মুজিবনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উজ্জল দত্ত জানান, পুশব্যাকের বিষয়টি পুলিশের কাছে কোন তথ্য নেই। বিজিবির কাছে কোন তথ্য আছে কি না তাও জানা নেই। 

তবে পুশব্যাকের বিষয়ে জানতে চেয়ে বিজিবি মুজিবনগর নাজিরাকোনা বিও‌পি কমান্ডার  বলেন, পুশব্যাকের কোন তথ্য আমাদের কাছে নেই।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ভোলার দৌলতখানে জমি নিয়ে বিরোধ, বসত ঘরের বারান্দায় বৃদ্ধাকে দাফন

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | ৯৮জন দেখেছেন

Image

শরীফ হোসাইন, ভোলা বিশেষ প্রতিনিধি:ভোলার দৌলতখানে জমি জমা বিরোধের জের ধরে জোবেদা খাতুন (৫৫) নামে এক বৃদ্ধা নারীকে তার বসত ঘরের বারেন্দার মধ্যে দাফন করা হয়েছে। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে দৌলতখানের দক্ষিণ জয়নগর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সর্দার বাড়িতে।

স্থানীয়সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ দেড় বছর পূর্বে জোবেদা খাতুনের স্বামী আব্দুর রশিদ মৃত্যুবরণ করেন। তখন তাকে দাফন করা হয়েছিল তার ভাতিজা রফিক এর জায়গায়। পারিবারিক কলহের জের ধরে ঐ কবরের উপরে রফিকের স্ত্রী তাসনুর বেগম ঝাড়ু দিয়ে কবরকে অসম্মান করায় জোবেদা খাতুন তার ছেলে-মেয়েকে মৃত্যুর আগে অছিয়ত করেছিল তাকে যেন মৃত্যুর পর কারো জায়গায় দাফন না করা হয়। প্রয়োজনে তার ঘরের মধ্যে দাফন করতে বলেছেন।

মৃত জোবেদা খাতুনের বড় ছেলে রফিজল জানান, তাদের বাড়িতে সাড়ে ৫ শতক জমি রয়েছে। ঘরের ভিটায় আড়াই শতক এবং বাকি ৩ শতক জমি তার চাচাতো ভাই রফিক দখল করে বিল্ডিং নির্মাণ করিতেছেন। ঘরের ভিতর তার মাকে দাফন না করলে হয়তো এক সময় তাঁর চাচাতো ভাই রফিক বাকি জমি জবর দখল করে নিয়ে যাবে। তিনি আরো বলেন, এক দিকে মায়ের কবর হলো; অন্যদিকে তাদের ঘর ভিটা তাদের নিয়ন্ত্রণে রহিলো। রফিকের বিল্ডিংয়ের দরজার সামনেই জোবেদা খাতুনকে কবর দেয়া হয়েছে। পরে এলাকাবাসী জোবেদা খাতুনের কবরটি ইট দিয়ে পাকা করে দিয়েছে। যাতে করে রফিক ভবিষ্যতে জোবেদা খাতুনের কবরসহ ঘর ভিটা দখল করতে না পারে। রফিকের বাবার সাথে কথা বললে তিনি জানান, এ বাড়িতে সব জমি আমার। এখানে অন্য কারো জমি নেই।


আরও খবর



নেচার ফটো কনটেস্ট ২০২৪ শুরু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১০৩জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক:দেশের জনসংখ্যা বাড়ছে জ্যামিতিক হারে, তার সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে পরিবেশ বিপর্যয়। দেশকে এই বিপর্যয়ের হাত থেকে বাঁচাতে চাইলে দরকার প্রচুর পরিমানে বৃক্ষরোপন। এই লক্ষ্যে উদ্ভুদ্ধ হয়ে ‘মিশন গ্রিন বাংলাদেশ’ এবং ভ্রমণ ও পরিবেশ বিষয়ক জনপ্রিয় কন্টেন্ট ক্রিয়েটর ‘গো উইথ আশরাফুল আলম’ আয়োজন করেছে নেচার ফটো কনটেস্ট ২০২৪।

গাছ লাগানোর সময়ে একটি ফটো তুলে সেটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে #MissionGreenBangladesh এবং #GowithAshrafulAlam হ্যাশট্যাগ লিখে পোস্ট করলেই দশজন পাবেন শ্রীমঙ্গলে দিনব্যাপী নেচার ট্রিপ ও ৫০ জন পাবেন আকর্ষনীয় পোলো শার্ট। গাছ লাগানো এবং প্রতিযোগিতার বিষয়ে বিষয়ে জানতে চাইলে মিশন গ্রিন বাংলাদেশের আহ্বায়ক আহসান রনি জানান, গাছ ঘরে (ইন্ডোর), বারান্দা, ছাদ, বাড়ির বাহিরে কিংবা যেকোন যায়গায় গাছ লাগানো যাবে।

তিনি আরও বলেন প্রতিটি পোস্টে ১ টি ফটো দেয়া যাবে। তবে অনেকগুলো গাছ লাগানো হলে গাছপ্রতি আলাদা আলাদা পোস্ট দেয়া যাবে। কমেন্ট ও রিয়েক্টের ভিত্তিতে সেরা বিজয়ী নির্বাচন করা হবে।

ইচ্ছামত বন্ধুদের ট্যাগ/ম্যানশন করা যাবে এবং সেটাও কমেন্ট হিসেবে বিবেচিত হবে।গো উইথ আশরাফুল আলম প্ল্যাটফর্মের কনটেন্ট ক্রিয়েটর আশরাফুল আলম বলেন ‘বৃক্ষরোপনের অনেক উপকারিতা আছে এবং এইজন্যই বিপন্ন পরিবেশকে ঠিক করতেই আমরা এই ধরনের উদ্যোগ নিয়েছি। মূলত এই ধরনের ছোট ছোট কাজ আমাদের নিজেদেরই জন্যই করা উচিৎ কেননা আমরা প্রকৃতি থেকে যে বিপুল পরিমান অক্সিজেন নেই সেটা কিন্তু বিনামূলতে নিয়ে থাকি। বেঁচে থাকার দায় মেটানোর জন্য হলেও আমাদের নিজেদের অক্সিজেনের যোগান নিজেদেরই দেয়া উচিৎ’।

প্রসঙ্গত, একটি গাছ গড়ে পঞ্চাশ বছরে যে উপাদান ও সেবা দিয়ে থাকে তার আর্থিকমূল্য বিবেচনা করলে গিয়ে দাঁড়াবে প্রায় চল্লিশ লাখ টাকার অংকে। একটি গাছ এক বছরে দশটি এসি’র সমপরিমাণ শীতলতা দেয়, ৭৫০ গ্যালন বৃষ্টির পানি শোষণ করে, ৬০ পাউন্ড ক্ষতিকর গ্যাস বাতাস থেকে শুষে নেয়। এক হেক্টর সবুজ ভূমির উদ্ভিদ সালোকসংশ্লেষণ চলাকালে প্রতিদিন গড়ে প্রায় নয়শ কেজি কার্বন ডাই অক্সাইড গ্রহণ করে এবং ৬৫০ কেজি বিশুদ্ধ অক্সিজেন প্রকৃতিতে ছেড়ে দেয়। এছাড়াও বৃক্ষরাজি আবহাওয়ার তাপমাত্রা হ্রাস করে, বাতাসে আর্দ্রতা বাড়ায় ও ভূমিক্ষয় রোধ করে। তাই পরিবেশ রক্ষায় গাছ লাগানোর কোনো বিকল্প নেই।

উল্লেখ্য, প্রতিযোগিতাটি যৌথভাবে আয়োজন করেছে মিশন গ্রিন বাংলাদেশ ও কনটেন্ট ক্রিয়েটর গো উইথ আশরাফুল আলম অংশগ্রহনেরর শেষ সময় ৩১ জুলাই, ২০২৪ রাত ১১:৫৯ পর্যন্ত।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর