Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

ড. ইউনূসের মামলা কার্যতালিকা থেকে বাদ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২৫১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: নোবেল জয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসের ১১শ কোটি টাকা কর ফাঁকির অভিযোগে দায়ের করা মামলা কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আজ মঙ্গলবার কার্যতালিকা থেকে মামলাটি বাদ দেওয়া হয়। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ (এএম) আমির উদ্দিন।

এর আগে গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা ড. মুহাম্মদ ইউনূস ২০১২-১৭ এই পাঁচ বছরে ১১শ কোটি টাকা কর ফাঁকি দিয়েছেন বলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) হাইকোর্টকে জানায়।

কর ফাঁকির বড় মামলার বিষয়ে গতকাল সোমবার উচ্চ আদালত হাইকোর্টে আদেশ দেওয়ার কথা থাকলেও সেটি পিছিয়ে আজ মঙ্গলবার দিন ঠিক করেন হাইকোর্ট। তারই ধারাবাহিকতায় আজ মামলাটি তালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এর আগে ইউনূসের প্রতিষ্ঠিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রায় সাড়ে ১১শ কোটি টাকার আয়কর রিটার্নের মামলা চালুর জন্য হাইকোর্টে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ।


আরও খবর



ডোমারে বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ বিষয়ক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | ১০১জন দেখেছেন

Image

মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর ডোমারে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত এবং ব্র্যাক সামাজিক ক্ষমতায়ন ও আইনি সুরক্ষা কর্মসূচি সেল্প এর সহযোগিতায় বল্যবিয়ে প্রতিরোধ বিষয়ক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  

মঙ্গলবার (২৮ মে) সকাল ১১টায় ডোমার উপজেলা পরিষদ হলরুমে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা সহকারী কমিমনার (ভুমি) জান্নতুল ফেরদৌস হ্যাপি। ব্র্যাক সামাজিক ক্ষমতায়ন ও আইনি সুরক্ষা কর্মসূচি সেল্প এর জেলা ব্যবস্থাপক উত্তম কুমার বিশ^সের সঞ্চালনায় অতিথি হিসাবে ডোমার থানা অফিসার ইনচার্জ মহসীন আলী, উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা শাকেরিনা বেগম, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নরুন্নাহার শাহজাদী, ডোমার বহুমূখি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবিউল আলম, ইউপি চেয়ারম্যান মোমিনুর রহমান, নারী নেত্রী আসমা সিদ্দিকা বেবী, নিকাহ রেজিষ্ট্রার (কাজী) জাহানুর রহমান, সনাতন ধর্মীয় রেজিষ্ট্রার সুমন্ত কুমার রায়, ব্র্যাক সামাজিক ক্ষমতায়ন ও আইনি সুরক্ষা কর্মসূচি সেল্প এর উপজেলা কর্মকর্তা লতিফুল ইসলাম প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। 

অনুষ্ঠানে বোড়াগাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম রিমুন, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান, সমবায় কর্মকর্তা রাজেদুল ইসলাম প্রধানসহ উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তগণ উপস্থিত ছিলেন। 

সমাজে বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলনের পাশাপাশী জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের এগিয়ে আসার আহবান জানান অনুষ্ঠানের সভাপতি উপজেলা সহকারী কমিমনার (ভুমি) জান্নতুল ফেরদৌস হ্যাপি।


আরও খবর



মাগুরার শ্রীপুরে ৩ ইউপি সদস্যকে পেটালেন চেয়ারম্যান ও তার লোকজন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭৯জন দেখেছেন

Image
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার ৪ নং শ্রীপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মশিয়ার রহমান ও তার লোকজন বুধবার দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদের তিনজন নির্বাচিত সদস্যকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে।ইউপি সদস্যগণ হলেন, মদনপুর ওয়ার্ডের আব্দুল আলিম, খড়িবাড়িয়া ওয়ার্ডের আব্দুল মজিদ এবং তখলপুর ওয়ার্ডের মকবুল হোসেন। 
আব্দুল আলিম ও আব্দুল মজিদ গুরুতর আহত অবস্থায় শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

আহত ইউপি সদস্য আব্দুল আলিম জানান, নির্বাচনের পর থেকে গত আড়াই বছর তাদেরকে পরিষদের ঢুকতে দেয়া হতো না। সরকারের বিভিন্ন ধরনের উন্নয়নমূলক কার্যক্রম তাদেরকে বাদ দিয়ে চেয়ারম্যানের পছন্দের লোক দিয়ে করানো হয়। কিছুদিন ধরে তারা পরিষদে যাওয়া আশা করলেও তাদের দিয়ে কোনো কাজ করানো হয় না। তাই বুধবার দুপুরে তারা তিনজন ইউনিয়ন পরিষদে যান। গিয়ে তারা মাতৃত্বকালীন ভাতাসহ বিভিন্ন ভাতার বিষয়ে তাদেরকে বাদ দিয়ে তাদের প্রতিপক্ষদের দিয়ে তালিকা করা ও ভাতা প্রদান করার বিষয়টি বাদ দিতে বলেন। তারা নির্বাচিত সদস্য হলেও মদনপুর ওয়ার্ডে ছাত্রদলের সাবেক উপজেলা সভাপতি বাবলু মিয়া, খড়িবাড়িয়া ওয়ার্ডের পরাজিত প্রার্থী আব্দুল মতিন ও তখলপুর ওয়ার্ডের পরাজিত প্রার্থী কাজী আব্দুর রউফকে দিয়ে কাজ করাতে নিষেধ করেন। এতে চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে প্রথমে আব্দুল আলীমকে তিল ঘুষি মারতে শুরু করেন। এ সময় চেয়ারম্যানের কক্ষে থাকা তার অনুসারী বুলেট ও আশরাফুল তাদেরকে কিল ঘুষি মারতে শুরু করেন। 

পরে চেয়ারম্যানের কক্ষে থাকা হকস্টিক দিয়ে তাদের তিনজনকে মারতে শুরু করে। 
এ সময় ইউপি সদস্য মকবুল হোসেন প্রাণ বাঁচাতে দৌঁড় দিলে তাকে গেট থেকে চেয়ারম্যানের লোকজন মারধর করে। এদিকে আব্দুল মজিদকেও আটকিয়ে মারধর করে।পরে স্থানীয় লোকজন তাদেরকে উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স  ভর্তি করেন। 
আব্দুল আলীমের মাথায় হকিস্টিকের প্রচন্ড আঘাত লেগেছে। 

এ ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়লে মদনপুর ও শ্রীপুর গ্রামের চেয়ারম্যানের প্রতিপক্ষের লোকজন মশিউর রহমানের বাড়ি ঘরে ইট ছোড়ে । অপরদিকে চেয়ারম্যানের লোকজনও তিন তলার ছাদ থেকে প্রতিপক্ষের লোকজনের ওপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে। এতে তৈয়ব খান ও আব্দুল হান্নান নামে দুই যুবলীগ নেতা আহত হয়।  

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ তাসমীম আলম বলেন, এ বিষয়ে কোনো লিখিত অভিযোগ তিনি পাননি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া নেবেন। 
এ ঘটনার পর এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

আরও খবর



মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা ৭২ ঘণ্টার জন্য

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১০৬জন দেখেছেন

Image

চতুর্থ ধাপের নির্বাচন ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদের সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষে ৫৮টি উপজেলায় মধ্যরাত থেকে মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ।

সোমবার (৩ জুন) মধ্যরাত ১২টা থেকে আগামী ৬ জুন মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে মোটরসাইকেল চলাচল। ইতোমধ্যে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে জন্য জেলা প্রশাসনকে ক্ষমতাও দেওয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ৫ জুন চতুর্থ ধাপে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ এর ৩২ ধারা অনুযায়ী অনুষ্ঠেয় নির্বাচন উপলক্ষে ৪ জুন মধ্যরাত ১২টা থেকে ৫ জুন মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত ট্যাক্সি ক্যাব, পিকআপভ্যান, মাইক্রোবাস, ট্রাক চলাচল বন্ধ থাকবে। সেইসঙ্গে ৩ জুন মধ্যরাত ১২টা থেকে ৬ জুন মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হলো।

নির্বাচনি এলাকায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, যানজট নিরসন ইত্যাদি প্রয়োজনে বাস্তবতার নিরিখে ও স্থানীয় বিবেচনায় উল্লিখিত যানবাহন ছাড়াও যেকোনো যানবাহন চলাচলের ওপর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারবে।

এ নিষেধাজ্ঞা রিটার্নিং অফিসারের অনুমতি সাপেক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী/তাদের নির্বাচনি এজেন্ট, দেশি/বিদেশি পর্যবেক্ষকদের (পরিচয়পত্র থাকতে হবে) ক্ষেত্রে শিথিলযোগ্য। তাছাড়া নির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত দেশি/বিদেশি সাংবাদিক (পরিচয়পত্র থাকতে হবে) নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, নির্বাচনের বৈধ পরিদর্শক এবং কতিপয় জরুরি কাজ যেমন-অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ, গ্যাস, ডাক, টেলিযোগাযোগ ইত্যাদি কার্যক্রমে ব্যবহারের জন্য উল্লিখিত যানবাহন চলাচলের ক্ষেত্রে উক্ত নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে না।


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহারের চাল পেলো ৩ হাজার ৮১ টি পরিবার

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৫৭জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:আসছে ১৭ জুন মুসলিম সম্প্রদায়ের বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে দিনাজপুরের হিলি হাকিমপুরে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার ৩ হাজার ৮১ পরিবারের দরিদ্র,অসহায় ও দুস্থদের মাঝে (ভিজিএফ) এর ১০ কেজি চাল বিতরণ করা হয়েছে।

বুধবার (১২ জুন )সকাল ৯ টায় উৎসব মুখর পরিবেশে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর ভিজিএফ কর্মসূচীর আওতায় পৌরসভা চত্বরে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত। এসময় সেখানে প্যানেল মেয়র মিনহাজুল ইসলাম লিটনসহ ৯ টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলরা উপস্থিত ছিলেন।

উপহারের চাল নিতে আসা পৌরসভার মাঠপাড়া এলাকার জোৎসানা বেগম বলেন,আর মাত্র কয়েক দিন পরেই পবিত্র ঈদুল আজহা। ঈদের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের ১০ কেজি চাল পেয়ে খুব খুশি। আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও এমপি শিবলী সাদিক এর জন্য দোয়া করি। আল্লাহ যেন তাদের দীর্ঘয়ু দান করেন। 

হাকিমপুর পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত বলেন,বর্তমান সরকার গরীব অসহায় দুস্থদের সরকার। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে যতো দিন থাকবে দেশ, পথ হারাবে না বাংলাদেশ। ঈদুল আজহা উপলক্ষে সবাই যেন এক সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে পারে সে কারণে ঈদের আগেই দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রাণালয়ের মাধ্যমে মানবিক সহায়তা কর্মসূচীর আওতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার হিসেবে বিনামূল্যে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ করা হয়েছে।  পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ডে ৩০৮১ জনকে ১০ কেজি করে চাল প্রদান করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহারের চাল পেয়ে খুশি এলাকার নিন্ম আয়ের মানুষ। তারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্থানীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক এর দোয়া ও দীর্ঘয়ু কামনা করেছেন।


আরও খবর



পল্লবী থানা এলাকা মাদকের স্বর্গরাজ্য : পাপ্পুর নিয়ন্ত্রনে চলছে অবাধ বানিজ্য

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১২৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিনিধী:রাজধানীর পল্লবী থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক হারে মাদক ব্যবসা বেড়ে গেছে। এই মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন প্রশাসনে কর্মকর্তা , দলীয় নেতাকর্মীরা ও স্থানীয় সন্ত্রাসীরা কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এই মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, মারামারি ও খুনের ঘটনাও ঘটে।মিল্লাত ক্যাম্প এলাকায় পুলিশের সহযোগিতায় পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক পাপ্পু ওরফে কুত্তা পাপ্পু তার নিয়ন্ত্রণে এক ডজন মাদক ব্যবসায়ী ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের কাছ থেকে মাসোহারা হিসাবে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে পাপ্পু। পাপ্পুকে সহযোগিতা করছে পল্লবী থানার বিট ইনচার্জ উপ পরিদর্শক (এসআই) আতিকুল ইসলাম। তার বিনিময়ে পাপ্পুর কাছ থেকে মাসে এক লাখ টাকা করে নেয় বলে স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগে জানা গেছে ।

পাপ্পুর পরিবারে  সদস্য বোন বুল্লি, ভাগ্নে বিকি ও আত্মীয় আব্দুল করিম এরা সবাই ওই এলাকায় মাদক ব্যবসা করছে। ইতিমধ্যে পাপ্পুর বোন বুল্লি হেরোইন সহ পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে । বর্তমানে কারাগারে আছে । মিল্লাত ক্যাম্প এলাকায় পাপ্পুর নিয়ন্ত্রণে মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে সনি আক্তার, বিজলী ও তার স্বামী কাল্লু, আফসার, নাদিম , সামীর ও মুরাদ সহ আরো অনেকেই।

তাদের সবার বিরুদ্ধে পল্লবী থানা সহ রাজধানী বিভিন্ন থানায় মাদক মামলা সহ অন্যান্য মামলা রয়েছে। এইসব মাদক ব্যবসায়ীরা ছোট ছোট শিশুদেরকে ব্যবহার করে তাদের মাদক ব্যবসা জমজমাট ভাবে চালিয়ে যাচ্ছে। ওইসব মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে মাসোহারা লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে পাপ্পু ওরফে কুত্তা পাপ্পু।

স্থানীয় ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন জানান, তার কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নেই কি করে এত টাকার মালিক হলেন, সবার কাছে জানতে পারি মাদক ব্যবসার সাথে জড়িয়ে রাতারাতি অর্ধশতাধিক কোটি টাকার মালিক হয়েছে। তাই এখন এলাকার কাউকে পাত্তা দেয় না সব সময় পুলিশের সহযোগিতায় মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে । এদিকে একই এলাকার পৃথিবী আক্তার নামে এক অভিযোগ করে বলেন, গত ৩১ মে শুক্রবার বিকেলের দিকে পাপ্পু তাকে ডেকে নিয়ে যায়।

পৃথিবী কে বলে তুমি মাদক ব্যবসা কর এবং প্রতি সপ্তাহে আমাকে ২০ হাজার টাকা করে দিবি। এবং আমার সঙ্গে মাঝে মাঝে আবাসিক হোটেলে থাকবি। পাপ্পুর এইসব প্রস্তাবে রাজি না হয়ে পৃথিবী বাসায় চলে আসে। তারপরও পাপ্পুর লোকজন দিয়ে একের পর এক ওইসব প্রস্তাব দিতে থাকে। তখন পৃথিবী পাপ্পুকে বলে আমি তোর বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হব। ভুক্তভোগী পৃথিবী আরো বলেন, গত সাতই জুন রাতে পল্লবী থানার ৫ নাম্বার বিট ইনচার্জ এস আই আতিকুল ইসলামের সহযোগিতায় মাদক ব্যবসায়ী পাপ্পুর নেতৃত্বে ২০-২৫ জন কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যদের নিয়ে বাসায় হামলা করে।

 হামলা করে বাসার আসবাবপত্র ভাঙচুর ও সাত ভরি স্বর্ণালংকার নগদ ৩ লাখ টাকা সহ অন্যান্য মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়। ভুক্তভোগী অভিযোগ করেন, আতিকুল ইসলাম সবকিছু দেখেও না দেখার ভান করে দাঁড়িয়ে থাকেন। আমরা যদি প্রশাসনের লোকজনের কাছে সহযোগিতা না পাই তাহলে কি মাদক ব্যবসায়ীরাই তাদের সহযোগিতা পাবে । পৃথিবী আরো অভিযোগ করে বলেন, এ হামলার ঘটনা পরিপ্রেক্ষিতে আমি পল্লবী থানার মামলা করতে গেলে আমার মামলা নেইনি পুলিশ। এবং কি এস আই আতিকুল ইসলাম আমাকে হুমকি দেয় তুই যদি মামলা করতে আবার আসোস তোকে হেরোইন দিয়ে চালান করে দেব কাশিমপুরে ।

কিছু অসাধু পুলিশ  কর্মকর্তাদের জন্য পুরোপুর পুলিশ বাহিনী দুর্নাম হচ্ছে। এ ব্যাপারে পল্লবী থানার ৫ নাম্বার বিটের ইনচার্জ এস আই আতিকুল ইসলামের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমি পাপ্পু কে চিনি কিন্তু পৃথিবী কে চিনি না। পৃথিবীর বাসায় ভাঙচুর হওয়ার ঘটনা আমি কিছু জানি না। আপনারা সরোজমিনে এসে তদন্ত করুন যা পাবেন তাই লিখবেন ।

পৃথিবী বলেন, যতদিন পাপ্পু প্রশাসনের মাধ্যমে গ্রেপ্তার না হবে ততদিন মিল্লাত ক্যাম্প এলাকায় মাদক মুক্ত হবে না। এলাকাবাসীর দাবি বিশিষ্ট মাদক ব্যবসায়ী ও নিয়ন্ত্রণকারী পাপ্পু ওরফ কুত্তা পাপ্পুকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে শাস্তি মূলক ব্যবস্থা করার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপি মহোদয়ের কাছে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে আমার আকুল আবেদন ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর