Logo
আজঃ বুধবার ১৯ জুন ২০২৪
শিরোনাম

বিয়ে করলেন সংগীতশিল্পী ইমরান

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৩৩৯জন দেখেছেন

Image

বিনোদন প্রতিবেদক:বিয়ে করলেন হালের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ইমরান মাহমুদুল। আজ বুধবার পারিবারিক আয়োজনে তার বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। পাত্রীর নাম মেহের আয়াত জেরিন।

সুখবরটি ইমরান নিজেই দিয়েছেন। নিজের ফেসবুক পেজে বিয়ের সাজে স্ত্রীর সঙ্গে তোলা কয়েকটি ছবি পোস্ট করে চেয়েছেন দোয়া। বলেছেন, ‘আমাদের জন্য সবাই দোয়া করবেন, আমরা যেন একে-অপরের পাশে থেকে নিজেদের সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করে চলতে পারি জীবনের বাকিটা পথ।

এর আগে বিয়ে সংক্রান্ত কিছু তথ্য দিলেন ইমরান। তার ভাষ্য, ‘বিয়ে মানুষের জীবনের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। আল্লাহর অশেষ রহমতে আজ থেকে আমি ও আমার স্ত্রী মেহের আয়াত জেরিন আমাদের জীবনের নতুন এই অধ্যায় শুরু করলাম। পারিবারিকভাবেই আমাদের এই বিয়ের আয়োজন। তাই ছোট পরিসরে অনেকটা ঘরোয়া পরিবেশেই বিয়েটা হলো।

একেবারে ঘরোয়া আয়োজনে তো তারকাদের বিয়ে পূর্ণতা পায় না। তাই আগামী নভেম্বরে বড় পরিসরে বিবাহোত্তর সংবর্ধনার আয়োজন করবেন বলে জানালেন ইমরান। সে আয়োজনে সংগীত ও সিনেমা অঙ্গনের ঘনিষ্ঠজনদের নিমন্ত্রণ করবেন এ গায়ক।

উল্লেখ্য, ইমরান মাহমুদুলের সংগীত ক্যারিয়ার শুরু হয় ২০০৮ সালে ‘চ্যানেল আই সেরাকণ্ঠ’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে। এরপর তিনি একক গায়ক ও সংগীত পরিচালক হিসেবে কাজ শুরু করেন। গত এক দশকের দেশের অন্যতম সফল সংগীতশিল্পী তিনি। তার কণ্ঠে বহু গান শ্রোতাপ্রিয়তা পেয়েছে। অর্জন করেছেন বেশ কিছু পুরস্কারও।


আরও খবর



বাংলাদেশ জাতিসংঘের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার: জাতিসংঘ মহাসচিব

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জুন ২০২৪ | ১৩৫জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক :জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বর্ণনা করেছেন বাংলাদেশকে জাতিসংঘের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার বলে।

নিউইয়র্কে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (৩০ মে) বিকেলে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে সরকারি দায়িত্বে যুক্তরাষ্ট্র সফররত পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে বৈঠকে তিনি একথা বলেন।

আন্তোনিও গুতেরেস বলেন, ‘বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা, টেকসই উন্নয়ন, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলাসহ জাতিসংঘের অনেক কর্মযজ্ঞে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখে চলেছে এবং সেই কারণেই আমরা বাংলাদেশকে জাতিসংঘের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার হিসাবে বিবেচনা করি।

জাতিসংঘ মহাসচিব রোহিঙ্গাদের প্রতি বাংলাদেশের উদারতার জন্য গভীর কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতি, বিশেষ করে সে দেশের সেনাবাহিনী তরুণ রোহিঙ্গাদের জোরপূর্বক নিয়োগ করার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

দ্বিপাক্ষিক এ বৈঠকে মহাসচিব জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে বাংলাদেশের অভিযোজন ও প্রতিকূলতা মোকাবিলার সক্ষমতার প্রশংসা করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান নিম্ন আয়ের দেশের কাতার থেকে বাংলাদেশের উত্তরণের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় জাতিসংঘের সহযোগিতা কামনা করলে গুতেরেস এ বিষয়ে বিশ্বসংস্থার পূর্ণ সমর্থন ব্যক্ত করে বলেন, ‘এ জন্য বাংলাদেশকে পুরস্কৃত করা উচিত, শাস্তিদান নয়‘।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান ফিলিস্তিনের গাজায় সংঘাতসহ চলমান বিশ্বের কঠিন চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবিলায় মহাসচিবকে তার নেতৃত্বের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, রাফায় সংঘাত এড়াতে সেখানে জাতিসংঘ মহাসচিব যেভাবে নিজে উপস্থিত হয়েছিলেন, শান্তিপ্রিয় বিশ্ববাসী তার প্রশংসা করেছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব গত দশকে বাংলাদেশের অসামান্য অগ্রগতির প্রশংসা করলে ড. হাছান মহাসচিব গুতেরেসকে জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টি ও দক্ষ নেতৃত্বের কারণেই বাংলাদেশ অনেক আগেই সামাজিক, অর্থনৈতিক, মানবিক সূচকসহ সকল সূচকে পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে গেছে এবং গত কয়েক বছরে অনেক সূচকে ভারতকেও ছাড়িয়ে গেছে। আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিলের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০২১ সালে মাথাপিছু আয়েও ভারতকে ছাড়িয়ে গেছে, উল্লেখ করেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান গত ৫০ বছর ধরে বাংলাদেশ ও জাতিসংঘের দৃঢ় অংশীদারিত্ব এবং উন্নয়নে সহায়তার জন্য জাতিসংঘ মহাসচিবকে ধন্যবাদ জানান এবং বাংলাদেশের জাতিসংঘে যোগদানের অর্ধশত বছরপূর্তিতে গুতেরেসকে বাংলাদেশ সফরের সাদর আমন্ত্রণ জানান।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ আবদুল মুহিত, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরসঙ্গীরা ও মিশনের কর্মকর্তাবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী দিবস উদযাপন উপলক্ষে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে বাংলাদেশ ও অস্ট্রিয়ার যৌথ অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার বক্তৃতায় জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে অন্যতম সর্বোচ্চ অবদান রাখা বাংলাদেশের অব্যাহত সমর্থন ও সহযোগিতার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বৈদেশিক নীতি অনুযায়ী বাংলাদেশ সবসময় শান্তির প্রচেষ্টায় জাতিসংঘের অগ্রভাগে রয়েছে।

বাংলাদেশী শান্তিরক্ষীরা জাতিসংঘ শান্তিরক্ষায় অত্যন্ত আন্তরিকতা, পেশাদারিত্ব এবং নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন, উল্লেখ করেন মন্ত্রী হাছান।

শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে এ যাবৎ নিহত সকলের পরিবার ও স্বজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিশ্বময় সংঘাত ও সহিংসতার ক্রমাগত বৃদ্ধি শান্তির জন্য ক্রমবর্ধমান হুমকি এবং এ কারণে শান্তিরক্ষা কার্যক্রম জোরদার করার বিকল্প নেই।

এ দিন বিকেলে জাতিসংঘ সদর দফতরের ওআইসি সম্মেলন কক্ষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ নিউইয়র্কে ওআইসিভুক্ত দেশগুলোর রাষ্ট্রদূতদেরকে মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত করেন।

রোহিঙ্গাদের দুর্দশা নিরসনে আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টার অগ্রভাগে থাকার জন্য তিনি অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশনের প্রশংসা করেন।

এ সময় রোহিঙ্গা সংকটের ওপর বিশ্বের আলোকপাত বজায় রাখা, মিয়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে বাংলাদেশে আশ্রিত প্রায় ১৩ লাখ রোহিঙ্গার মর্যাদার সঙ্গে নিরাপদ ও টেকসই প্রত্যাবাসন এবং মিয়ানমারের রাখাইনে সংঘাতময় পরিস্থিতির উন্নতিকল্পে জাতিসংঘের জোরদার ভূমিকা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।


আরও খবর



উলিপুরকে সিসিক্যামেরা'র আওতায় এনে উদ্বোধন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ৫৬জন দেখেছেন

Image
সহিদুল আলম বাবুল, কুড়িগ্রাম ব্যুরো:কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলাকে গুরুত্বপূর্ণ একটি শহর আখ্যায়িত করে জেলা পুলিশের ঐকান্তিক চেষ্টা ও উপজেলা বণিক সমিতির সহযোগিতায় সিসি ক্যামেরা বসানোর কাজ সমাপ্ত হয়েছে lআজ ১৪ ই জুন শুক্রবার উলিপুর গবার মোড়ে আনুষ্ঠানিকভাবে এসব সিসি ক্যামেরার উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রংপুর রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি অপারেশন পংকজ চন্দ্র রায় পিপিএম lউদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ২৭ কুড়িগ্রাম-৩  আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য সৌমেন্দ্র প্রসাদ পান্ডে গবা lবিশেষ অতিথি ছিলেন, আল আসাদ  মোঃ  মাহফুজুল ইসলাম, পিপিএম-সেবা, পুলিশ সুপার কুড়িগ্রাম lসিসি ক্যামেরার উদ্বোধনি  অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় সংসদ সদস্যের সহধর্মিনী কাবেরী পান্ডে,  মোঃ  গোলাম মর্তুজা, অফিসার ইনচার্জ উলিপুর থানা l

এসময় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বণিক সমিতির সদস্য আল মামুন সবুজ, বণিক সমিতির সহ-সভাপতি  ইকবাল হোসেন চাঁদ,আরো মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন,  উলিপুর বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাইনুল ইসলাম দুলু, আব্দুল কাদের, উলিপুর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা  গোলাম মোস্তফা, নুরে আলম সিদ্দিকী, সরকার রহমান বুলেট প্রমুখ lউদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা পর্যায়ক্রমে উলিপুর উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ইউনিয়নের হাট বাজারগুলোকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন l

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, উলিপুরকে স্মার্ট উলিপুর হিসেবে গড়ে তুলতে তার ঐকান্তিক প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে lতিনি আরো বলেন, স্মার্ট উলিপুর গড়তে এটি একটি মাত্র পদক্ষেপ lস্মার্ট স্টুডেন্ট, স্মার্ট সোসাইটি, স্মার্ট  ইকোনোমিসহ স্মার্ট উপজেলা ঘোষণা করতে যা যা করা দরকার সরকারের পাশাপাশি তিনি তার সাধ্যমত চেষ্টা করে যাবেন l

কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশের আওতায় ইতোপূর্বে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা শহর তথা কুড়িগ্রাম জেলা সদর ও নাগেশ্বরী উপজেলা সদরে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের কাজ শেষ হয়েছে lকুড়িগ্রামের নয়টি উপজেলার  মধ্যে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা সিসি ক্যামেরার আওতায় এসেছে l
আগামীতে পর্যায়ক্রমের সবগুলি উপজেলাকে  সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হবে l

আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




দু’দিনের ব্যবধানে হিলিতে দেশীয় পেঁয়াজ কেজিতে বেড়েছে ১০ টাকা

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১০০জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:আর মাত্র বাঁকি ১৩ দিন কোরবানী ঈদ। দিনাজপুরের হিলিতে দুদিনের ব্যবধানে দেশীয় পেঁয়াজ কেজিতে দাম বেড়েছে ১০ টাকা। দু’দিন আগে শনিবার (১ জুন) প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৭০ টাকা দরে। আর সোমবার (৩ জুন) প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা দরে। এতে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ক্রেতারা। ক্রেতরা বলছেন,ঈদুল আজহার আগে ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন। ব্যবসায়ীরা বলছেন,সরবরাহ কমে যাওয়ায় মোকামগুলোতেই দাম বেশি। এদিকে প্রায় ৫ মাস ৬ দিন বন্ধ থাকার পর ভারত সরকার পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। তবে রফতানিতে ৪০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করায় পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ করে রেখেছেন বন্দররের আমদানিকারকরা। 

আজ সোমবার (৩ জুন) দুপুরে হিলি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, দুই দিন আগে দেশীয় পেঁয়াজ ৭০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। এর দু’দিন যেতে না যেতেই তা বেড়ে দেশীয় পেঁয়াজের দাম ৮০ টাকা কেজিতে ওঠেছে। এখন সেই পেঁয়াজ কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এদিকে গেলো মাসের (১৪ মে) বিকেল ৬ টায় ভারতীয় একটি   ট্রাকে ৩০ মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়। ব্যবসায়ীরা জানান, ৫৫০ মার্কিন ডলার রপ্তানীমূল্য ও ৪০ শতাংশ শুল্ক হার নির্ধারণ করেছে। এতে আমদানি করে লোশানের গুনতে হচ্ছে। তাই গত মাসের ৫ তারিখে আমদানির অনুমতি মিললেও আমদানি বন্ধ করে রাখা হয়েছে। 

হিলি বাজারের খুচরা পেঁয়াজ বিক্রেতা আবু তাহের বলেন, বেশি কিছু দিন আগে আমদানির খবরে দেশীয় পেঁয়াজের মোকামগুলোতে দাম ওঠা নামা করেছে। গতকাল রোববার (২ জুন) মোকামে পাইকারী পেঁয়াজ কিনেছি ৩ হাজার টাকা মন। এতে মোকামে কিনতেই ৭৫ টাকা কেজিতে পড়েছে। এরপর পরিবহন খরচ আছে। আজকে আমি ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি দেশীয় পেঁয়াজ। আর ভারত থেকে এক গাড়ি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছিল না। সেই পেঁয়াজগুলো আমরা ৬২ টাকা কেজি দরে কিনে খুচরা ৬৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। 

হিলি বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা ফরহাদ আলী বলেন,২ দিন আগেই  ৭০ টাকা কেজি দরে কিনেছি দেশীয় পেঁয়াজ। আর আজ কিনলাম ৮০ টাকা কেজি দরে। মাত্র দুদিনের ব্যবধানেই প্রতিকেজি পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ১০ টাকা।

তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন,ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিচ্ছে। ভারত থেকে পেঁয়াজ না আসার সুযোগে তারা দেশি পেঁয়াজের দাম ইচ্ছে মতো বাড়াচ্ছেন। দুই সপ্তাহ আগেও প্রকিকেজি পেঁয়াজ ৬০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। এরপর ভারত থেকে একদিন পেঁয়াজ এলে তারা দাম কমিয়ে ৫০ থেকে ৫৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি করেন। 

হিলি স্থলবন্দর পেঁয়াজ আমদানিকারকরা জানান, ভারত সরকার পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর  ইতিমধ্যেই ২০ জন আমদানিকারক নতুন করে ২৭ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি পেয়েছেন। পেঁয়াজ রফতানিতে ভারত সরকারের আরোপ করা ৪০ শতাংশ শুল্ক এখনও অব্যাহত আছে। ৪০ শতাংশ শুল্ক প্রত্যাহার না করলে পেঁয়াজ আমদানি করা সম্ভব হবে না। ৪০ শতাংশ শুল্ক পরিশোধ করে প্রতি কেজি পেঁয়াজ আমদানিতে অতিরিক্ত ২৫ টাকা গুনতে হবে। এতে করে বন্দরের চার্জসহ সব খরচ দিয়ে কেজি প্রতি পেঁয়াজের দাম পড়বে ৭০ টাকার ওপরে। বর্তমান দেশের বাজার অনুযায়ী ওই দামে পেঁয়াজ আমদানি করলে লোকসানের মুখে পড়তে হবে আমদানিকারদের। পেঁয়াজ আমদানি করলে ট্রাক প্রতি সাড়ে ৬ লাখ টাকার মতো লোকসান গুনতে হবে। তাই ক্ষতির আশঙ্কায় আমদানিকারকরা পেঁয়াজ আমদানিতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছে। 

আামদানিকারকরা আরও জানান,ভারত থেকে এক গাড়ি পেঁয়াজ আমদানি করে ক্রেতা না পাওয়ায় স্থানীয় বাজারের খুচরা বিক্রেতাদের কাছে ৬২ টাকা কেজি দরে বিক্রি করা হয়েছে। এতে অনেক টাকা লোকশান গুনতে হয়েছে।


আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




পুলিশের গুলিতে পুলিশ নিহত, যা বললেন আইজিপি

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৯৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পুলিশ কনস্টেবল কাউসার আহমেদের গুলিতে সহকর্মী মনিরুল ইসলাম নিহত হয়েছেন রাজধানীর গুলশানে। এ হত্যাকাণ্ড কী কারণে ঘটানো হয়েছে তা জানতে এরই মধ্যে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

শনিবার (৮ জুন) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান আইজিপি পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল-মামুন। এ সময় ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমানসহ পুলিশ সদর দপ্তর ও ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রাত পৌনে ১২টার দিকে বারিধারা কূটনীতিক এলাকায় অবস্থিত ফিলিস্তিন দূতাবাসের সামনে হত্যাকাণ্ডটি ঘটে।

আইজিপি বলেন, রাত ১১টা ৪৫ মিনিটের দিকে ফিলিস্তিনি দূতাবাসের সামনে আমাদের দুজন কনস্টেবল ডিউটিরত ছিলেন। এদের মধ্যে কনস্টেবল কাউসারের গুলিতে কনস্টেবল মনিরুল ইসলাম ঘটনাস্থলে মারা যান। এ সময় জাপান দূতাবাসের গাড়িচালক সাজ্জাদ হোসেন গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন। ঘটনার সময় তিনি পথচারী হিসেবে সেখান দিয়ে যাচ্ছিলেন। তাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গাড়িচালক সাজ্জাদ হোসেনের গায়ে তিন রাউন্ড গুলি লেগেছে।

পুলিশ প্রধান বলেন, আক্রমণকারী কনস্টেবলকে থানায় নেওয়া হয়েছে এবং তাকে নিরস্ত্র করা হয়েছে। আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছি। মনিরুল ইসলামের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে কিছু গুলির খোসা ও ২০ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় আমরা তদন্ত করছি। প্রকৃত রহস্য জানাটা খুব কঠিন হবে না।

দূতাবাস এলাকা খুবই সুরক্ষিত এলাকা। এ ধরনের ঘটনায় আইনশৃঙ্খলার দুর্বলতা প্রকাশ পায় কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, ঘটনাস্থলে আমাদের লোক ছিল। ঘটনা যে ঘটিয়েছে সেও আমাদের লোক। আসলে ঘটনাটা কী কারণে ঘটেছে সেটা আমরা জানার চেষ্টা করছি। ঘটনার পর কাউসার তার অস্ত্র রেখে ঘটনাস্থলের আশপাশে ঘোরাফেরা করছিলেন। তখন তাকে আটক করা হয়।

কূটনীতিক এলাকায় একজন কনস্টেবলকে দিনে ১৬ ঘণ্টা ডিউটি করতে হয়। এই ডিউটি করার কারণে অনেকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হচ্ছেন কি-না, বা কাউসার মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন কি-না, প্রশ্ন করা হলে আইজিপি বলেন, সবগুলো বিষয়ে আমরা তদন্ত করব।


আরও খবর



চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে বসত ঘরে কুপিয়ে দাদী নতিকে হত্যা করেছে দুর্বত্তরা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১০২জন দেখেছেন

Image

চৌধুরী ইয়াসিন ইকরাম,  চাঁদপুর থেকে:রাহেলার প্রচন্ড ঝড়বৃষ্টির মধ্যে গভীর রাতে দুর্বত্তরা বসত ঘরে ডুকে  দাদি, নাতি ও নাতিনকে কুপিয়েছে।

পরে লোকজন খবর পেযে ওই ঘরে উপস্থিত হয়ে দাদি হামিদুনেছা  (৭০) মৃত ও নাতি আরাফাত (১২) ও নাতনি  হালিমা (১৫) গুরুতর আহত অবস্থায় দেখতে পায়। তবে ঘটনাস্থলে প্রান হারান দাদী।

এ ঘটনায়  মঙ্গলবার  সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে পিবিআই তদন্ত টিম ঘটনাস্থলে পোঁছেছে। এর পরেই হামিদুনেচার লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হবে।

এসময় আহতদের উদ্ধার করে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে নাতি আরাফাত হোসেনকে (১২) মৃত ঘোষণা করেন এবং নাতিন হালিমাকে (১৫) উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে রেপার করেন। হালিমার শারিরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

২৭ মে  দিবাগত রাতে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার বাকিলা ইউনিয়ন পশ্চিম রাধাসার বকাউল বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।

হত্যার শিকার হামিদুনেছা ঐ বাড়ির সিরাজ বকাউলের স্ত্রী  নিহত আরাফাত ও আহত হালিমা ওই বাড়ির প্রবাসী ইউসুফের সন্তান। আরাফাত শ্রীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী এবং হালিমা একই বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী এবং নিহত হামিদা বেগম হলেন ইউসুফের মা।

পাশের খাঁন বাড়ির ইউসুফ জানান, রাত সাড়ে ১২টার দিকে নিহত আরাফাতের মা শাহিন আমাকে ফোন করে তাদের বাড়ীতে ডাকাত ডুকছে, অনেককে কুপিয়েছে বলে ফোন করে। পরে স্থানীয় মসজিদের মাইকে বকাউল বাড়ীর ডাকাত ডুকেছে বলে প্রচার করা হয়। পরে আমিসহ কয়েকজন ওই বাড়ীতে যাই।

তিনি  আরো বলেন ওই বাড়িতে গিয়ে দেখি প্রবাসি ইউসুফের মায়ের মৃতদেহ খাটের উপর পড়ে আছে। তার ছেলে আরাফাত ও মেয়ে হালিমা নিচে আহত অবস্থায় নিচে পড়ে আছে।

পরে মসজিদের ইমাম ও অন্যদের সহযোগিতায় আহতদের কাঁধে করে রাস্তায় এনে পাশের বাড়ী থেকে অটো নিয়ে হাসপাতালে আসি।

তিনি জানান, হাসপাতালে আসার পথেই আরাফাত মারা যায়। পরে হাসপাতাল এলে ডাক্তার আরাফাতকে মৃত ঘোষণা করেন এবং হালিমাকে কুমিল্লায় রেফার করা হয়। শুনেছি সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলে রেফার করা হয়েছে। তার পিঠে ও বুকে কোপ দেয়া হয়েছে।

আহতদের বহনকারী অটো চালক জহির জানান, রাতে প্রচণ্ড বৃষ্টি হচ্ছিল। তখন রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টার পরে হবে। আমার বাড়ীতে আহত আরাফাত ও তার বোন হালিমাকে নিয়ে আসে স্থানীয়রা। পরে আমার ব্যাটারী চালিত অটোরিকশায় করে তাদেরকে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসি।

একই বাড়ীর সাহাবুদ্দিন জানান, ডাকাতির ঘটনায় ফোন পেয়ে আমরা ওই বাড়ীতে যাই। আমার বড় ভাইয়ের স্ত্রী ফাতেমা জানান, ঘরের তালা ভেঙ্গে তার ঘরেও ডাকাত দল প্রবেশ করেছে। সে অন্য রুমের দরজা আটকিয়ে বিভিন্ন জনকে ফোন করে বাড়ীতে ডাকাতির খবর জানাচ্ছিল। ডাকাত দল কালো বোরকা পড়া ছিলো।

স্থানীয়রা জানান, বাড়ীতে ডাকাতির ঘটনা ঘটলেও ৩টি বিল্ডিং রেখে কেন ডাকাত দল টিনের ঘরে ডুকলো ? ডাকাত দল ডাকাতির উদ্দেশ্য ওই ঘরে প্রবেশ করলে, ঘর থেকে কোন স্বর্ণালংকার খোয়া যায়নি। এমনকি নিহত বৃদ্ধ মহিলা হামিদা বেগমের গলায়ও স্বর্ণের চেইন ও কানে স্বর্ণের দুল আছে। হামিদুনেছাকে জবাই করা হয়েছে আর আরাফাতকে গলায় কাটা দাগ রযেছে।

খবর পেয়ে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আবদুর রশিদসহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে প্রচণ্ড ঝড় বৃষ্টিতে ডাকাতির খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়েছি। বিষয়টি গুরুত্বসহকারে দেখা হচ্ছে। পরে বিস্তারিত জানানো হবে।


আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪