Logo
আজঃ Tuesday ২৪ May ২০২২
শিরোনাম

বিড়াল পোষেন বেশীরভাগ পরকীয়ায় জড়িত নারীরা

প্রকাশিত:Thursday ২১ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১২৪জন দেখেছেন
Image

খবর প্রতিদিন ডেস্কঃ

পরকীয়া বিশ্বব্যাপী মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। ফলে বিচ্ছেদের হারও বাড়ছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এ ধরনের সম্পর্ক পারিবারিক জীবনে অশান্তি ডেকে আনে। যা বিচ্ছেদ পর্যন্ত গড়ায়।


পরকীয়া নিয়ে মানুষের মধ্যে কৌতূহলের শেষ নেই। সম্প্রতি একটি ডেটিং ওয়েবসাইট ‘ইলিসিটএনকাউন্টারস’র সমীক্ষা বলছে, পরকীয়ায় জড়িত নারীদের বেশিরভাগই বিড়ালপ্রেমী। অর্থাৎ এমন নারীরা বিড়াল পোষেন বেশি।



আমেরিকার একটি জনপ্রিয় ডেটিং ওয়েবসাইট সম্প্রতি পরকীয়ায় জড়িত ১৪০০ নারীর মধ্যে এ সমীক্ষা চালায়। এতে অংশ নেওয়া নারীদের বয়স, পেশা বা অন্য কোনো আর্থ-সামাজিক তথ্য গোপনই রাখা হয়েছে।


সমীক্ষায় জানতে চাওয়া হয়, যেসব নারীরা পরকীয়া করছেন তারা কোন প্রাণী পোষেন? সমীক্ষার ফল বলছে, পরকীয়ায় জড়িত নারীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পোষাপ্রাণী হলো বিড়াল।


এ সমীক্ষায় অংশ নেওয়া ২২ শতাংশ নারী যারা পরকীয়ায় লিপ্ত; তারা বিড়াল পোষার কথা জানান। তবে শুধু বিড়াল নয়, অন্য প্রাণী পোষার আগ্রহও দেখা গেছে অংশগ্রহণকারী নারীদের মধ্যে।



এর মধ্যে বিড়াল ২২ শতাংশ, মাছ ১৯ শতাংশ, হ্যামস্টার ১৭ শতাংশ, গিনিপিগ ১৬ শতাংশ, টিকটিকি ১৫ শতাংশ, কচ্ছপ ১৪ শতাংশ, পাখি ১৩ শতাংশ, কুকুর ১২ শতাংশ, সাপ ৫ শতাংশ ও খরগোশ ২ শতাংশ।


তবে এ ধরনের সমীক্ষার কোনো বৈজ্ঞানিক প্রমাণ এখনো জানা যায়নি। তাই একে বৈজ্ঞানিক গবেষণা না ভাবাই উচিত।

 


আরও খবর

বুফে ইফতার

Sunday ১৭ April ২০২২




তিন দিন ধরে স্কুলছাত্রী নিখোঁজ

কিশোরগঞ্জে তিন দিনেও নিখোঁজ স্কুল ছাত্রীর সন্ধান পাওয়া যায়নি

প্রকাশিত:Sunday ১৫ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
Image

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলায় স্কুলে গিয়ে আর বাড়ি ফিরে আসেনি এক স্কুলছাত্রী (১৬)। এ নিয়ে তিন দিন ধরে তার পরিবার উৎকণ্ঠায় রয়েছেন।




ওই স্কুলছাত্রী নিখোঁজ হওয়ায় শনিবার (১৪ মে) দিনগত রাতে পরিবারের পক্ষ থেকে হোসেনপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। জিডি নং-৫২৪, তারিখ-১৪/০৫/২০২২ইং।


নিখোঁজ মেয়েটি হোসেনপুর সরকারি মডেল পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রভাতী শাখার ১০ম শ্রেণির ছাত্রী।


জিডি ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১২ মে) সকালে মেয়েটি স্কুলে যাওয়ার পর আর বাড়ি ফিরে আসেনি।


পরে পরিবারের লোকজন তার খোঁজ করেও সন্ধান পায়নি। নিখোঁজের সময় তার গায়ে ছিল সাদা রঙের স্কুল ড্রেস।


তার উচ্চতা ৫ ফুট এবং গায়ে রং ফর্সা। গত তিন দিন ধরে মেয়েটিকে না পেয়ে পরিবারে চলছে কান্নার রোল। এ ব্যাপারে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। যার জিডি নং-৫২৪, তারিখ-১৪/০৫/২০২২ইং।


কোনো সহৃদয়বান ব্যক্তি মেয়েটির সন্ধান পেলে ০১৭৯১-০৯৪৪৭১ মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করতে মেয়েটির বাবা অনুরোধ জানিয়েছেন।


আরও খবর



কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন ১৫ জুন

প্রকাশিত:Monday ২৫ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১৩৯জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন ১৫ জুন অনুষ্ঠিত হবে। সোমবার (২৫ এপ্রিল) কমিশন বৈঠক শেষে নির্বাচন ভবনে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার।


তিনি বলেন, কুসিক নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ১৭ মে, মনোনয়নপত্র বাছাই ১৯ মে, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ২৬ মে। আর ভোটগ্রহণ ১৫ জুন।মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ১৭ মে।



ইসি সচিব বলেন, একই তফসিলে ছয়টি পৌরসভা ও ১৩৫টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোট হবে। আর সবগুলো নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করা হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে।


২০১৭ সালের ৩০ মার্চ সর্বশেষ কুসিক নির্বাচন হয়েছিল। নির্বাচিত করপোরেশনের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিল ওই বছর ১৭ মে। এক্ষেত্রে ভোটগ্রহণ করার শেষ সময়১৬ মে। তবে সময় মতো নির্বাচন করতে পারেনি ইসি।


কর্মকর্তারা বলছেন, আইন অনুযায়ী প্রথম সভা থেকে পরবর্তী পাঁচ বছর হয় নির্বাচিত করপোরেশনের মেয়াদ। এজন্য মেয়াদ শেষ হবে ২০২২ সালের ১৬ মে। আর ভোটগ্রহণ করতে হয়, মেয়াদ শেষ হওয়ার আগের ১৮০দিনের মধ্যে। এই হিসাবে ২০২১ সালের ১৬ নভেম্বর থেকে এ সিটি নির্বাচনের সময়গণনা শুরু হয়।


২০১৭ সালের নির্বাচনে বিএনপি নেতা মনিরুল হক সাক্কু দ্বিতীয়বারের মতো এ সিটিতে নির্বাচিত হয়েছিলেন। এই সিটিতে সে সময় ভোট হয়েছিল ১০৩টি কেন্দ্রে। মোট ভোটার ছিল ২ লাখ ৭ হাজার ৫৬৬ জন।২০১১ সালে দুটি পৌরসভাকে একীভূত করে গঠন করা হয় কুমিল্লা সিটি করপোরেশন।


আরও খবর



কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন

শ্রমিক সংকটে কৃষকের ভরসা কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন

প্রকাশিত:Thursday ১২ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১২০জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার কৃষকদের মধ্যে আশার আলো হয়ে এসেছে অত্যাধুনিক ধান কাটা ও মাড়াইয়ের মেশিন কম্বাইন্ড হারভেস্টার।


চলতি বোরো মৌসুমে পুরোদমে ধান কাটা শুরু হলেও অতিবৃষ্টি আর শ্রমিক সংকটে বিপাকে পড়েন এ অঞ্চলের কৃষকরা।


অতিরিক্ত মূল্য দিয়েও মিলছে না শ্রমিক। তার ওপর পাকা ধানের জমিতে জমে আছে পানি।


অবশেষে হারভেস্টার মেশিনের সাহায্যে এ অঞ্চলের কৃষকরা রাত-দিনে ধান কেটে ঘরে তুলছেন। এতে শ্রমিক সংকট মেটানোর পাশাপাশি ধান উৎপাদন খরচও কমে এসেছে।


জানা গেছে, প্রতিবছর ইরি ও বোরো ধান কাটার মৌসুমে রায়গঞ্জের তাড়াশ অঞ্চলে শ্রমিকের চাহিদা বেড়ে যায়। চাহিদার পাশাপাশি বেড়ে যায় পারিশ্রমিকও।


এতে বোরো ধান উৎপাদন খরচ বেড়ে যায়। এজন্য কৃষকের দুশ্চিন্তা লাঘবে রায়গঞ্জে আনা হয়েছে কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন।


মেশিনটি অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে ধান কাটা ও মাড়াই করতে পারে। শুধু রোদে শুকিয়ে ধান ঘরে তুলতে হয়।


এ মেশিন দিয়ে খুব সহজেই এখন ধান ঘরে তুলতে পারছেন কৃষকরা। প্রতি ঘণ্টায় দুই থেকে তিন বিঘা জমির ধান কাটা যাচ্ছে। এতে ঘণ্টায় ৮ থেকে ১০ লিটার তেল খরচ হচ্ছে।


দুই বিঘা জমির ধান কাটতে সর্বোচ্চ এক হাজার টাকা খরচ হয়। অথচ শ্রমিক দিয়ে ধান কাটালে পাঁচ থেকে সাতজন শ্রমিক সারা দিনে এক বিঘা জমির ধান কাটতে পারেন। তাতে বিঘা প্রতি খরচ হয় তিন থেকে চার হাজার টাকা।


রায়গঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম বলেন, উপজেলায় ১২টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি মেশিনের দাম ৩০-৩২ লাখ টাকা। সরকার প্রতিটি মেশিনের ওপর ১৪ লাখ টাকা ভর্তুকি দিয়েছে।


মেশিনের সাহায্যে ধান কেটে ও মাড়াই করে শুধুমাত্র রোদে শুকিয়ে ঘরে তুলতে হয়। চালক অভিজ্ঞ হলে ঘণ্টায় এক একর জমির ধানও কাটা সম্ভব। কিন্তু রায়গঞ্জে এখনও অভিজ্ঞ চালক না থাকায় ঘণ্টায় দেড় থেকে দুই বিঘা জমির ধান কাটতে পারছেন কৃষকরা। এছাড়া জমিগুলো সমতল হলে আরও বেশি ধান কাটা যেত।


প্রতিবছরই বোরো ধান কাটার সময় শ্রমিক সংকট তীব্র আকার ধারণ করে। এ কারণে সময় মতো ধান ঘরে তুলতে না পেরে বৃষ্টি ও অকাল বন্যাতে কৃষকের ধান নষ্ট হয়ে যায়। এখন কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন দিয়ে স্বল্প খরচে ধান ঘরে তোলা যাচ্ছে। এছাড়া আরও পাঁচটি রিপার মেশিন আনার চেষ্টা চলছে। তবে ওই মেশিন দিয়ে ধান কাটা যাবে কিন্তু মাড়াই করতে শ্রমিক লাগবে।


আরও খবর



ইউক্রেন যুদ্ধের ধাক্কা পড়েছে পণ্যের বাজারে

প্রকাশিত:Thursday ২৮ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১২৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ইউক্রেন রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে ইতোমধ্যেই বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন পণ্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। সামনের দিনগুলোতে পণ্যের দাম আরও বাড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এরই মধ্যে বিশ্ব ব্যাংক সতর্ক করে বলেছে, ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে গত ৫০ বছরের মধ্যে বিশ্বের পণ্য বাজারে সবচেয়ে বড় ধাক্কা আসতে যাচ্ছে। অর্থাৎ ১৯৭০ সালের পর প্রথম বারের মতো এমন সংকট তৈরি হতে পারে।


নতুন এক পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সংঘাতের কারণে প্রাকৃতিক গ্যাস থেকে শুরু করে গম ও তুলা পর্যন্ত বিভিন্ন পণ্যের দাম ইতোমধ্যেই বেড়ে গেছে। সামনের দিনগুলোতে এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।


বিশ্ব ব্যাংকের নতুন এই প্রতিবেদনের সহ-লেখক পিটার ন্যাগল বলেন, পণ্যের দামের এই ঊর্ধ্বগতি এরইমধ্যে বড় ধরনের অর্থনৈতিক ও মানবিক প্রভাব ফেলতে শুরু করেছে। তিনি বলেন, বিশ্বজুড়ে জীবনযাত্রার খরচ মেটাতে গিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়ছে মানুষ।


বিশ্ব ব্যাংকের এই শীর্ষ অর্থনীতিবিদ বলেন, গরীব পরিবারগুলোর ক্ষেত্রে এই সংকট আরও ভয়াবহ। কারণ তাদের আয়ের সিংহভাগ খাবার ও জ্বালানির পেছনে ব্যয় হয়ে যায়। পণ্যের দাম বাড়ার প্রভাব তাদের ওপরই সবচেয়ে বেশি পড়বে।


বিশ্ব ব্যাংক বলছে, জ্বালানির দাম ৫০ শতাংশের বেশি বাড়তে পারে। ফলে সংসারের ব্যয় এবং ব্যবসায়ের খরচ অনেক বেড়ে যাবে।



বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউরোপে সবচেয়ে বেশি বাড়বে প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম, যা দ্বিগুণের বেশি হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী বছর পণ্যের দাম কিছুটা কমতে পারে এবং ২০২৪ সালের পূর্বাভাসে দেখা যাচ্ছে, গত বছরের তুলনায় ২০২৪ সালে গ্যাসের দাম ১৫ শতাংশ বেশি থাকবে।


বিশ্ব ব্যাংক বলছে, ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত বিশ্ব টানা ২৩ মাস জ্বালানির দামে ঊর্ধ্বগতি দেখা যাচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিরতার কারণে ১৯৭৩ সালে জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধির পর এটাই দীর্ঘতম সময় ধরে জ্বালানির দাম যাওয়ার ঘটনা।


একইভাবে জ্বালানি তেলের দামও ২০২৪ সাল পর্যন্ত বাড়তি থাকবে এবং চলতি বছরজুড়ে প্রতি ব্যারেল ব্রেন্ট ক্রুডের দাম গড়ে ১০০ ডলারে বিক্রি হবে, যা বিশ্বজুড়ে মূল্যস্ফীতির হার বাড়ার অন্যতম কারণ হিসেবে ভূমিকা রাখবে।



বিশ্বের ১১ শতাংশ তেল উৎপাদন করে রাশিয়া, যা তৃতীয় সর্বোচ্চ। বিশ্ব ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউক্রেনে যুদ্ধের কারণে সরবরাহে বিঘ্ন ঘটা এবং পশ্চিমা অবরোধের ফলে একটি দীর্ঘমেয়াদী নেতিবাচক প্রভাব দেখা দেবে। অবরোধের কারণে পশ্চিমা কোম্পানিগুলো রাশিয়া ছেড়ে যাবে এবং দেশটির নতুন প্রযুক্তি পাওয়ার সুযোগ কমে আসবে।


রাশিয়া বর্তমানে ইউরোপীয় ইউনিয়নের চাহিদার ৪০ শতাংশ গ্যাস ও ২৭ শতাংশ তেল সরবরাহ করে। কিন্তু ইইউ রাশিয়ার ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে বিকল্প উৎস থেকে জ্বালানি চাহিদা পূরণের চেষ্টা করছে, যা বিশ্বজুড়ে তেল এবং গ্যাসের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। মূলত চাহিদা ও সরবরাহ ভারসাম্য নষ্ট হওয়ায় সমস্যা বেড়ে যাচ্ছে।


অনেক খাদ্য পণ্যের দাম হঠাৎ করেই লাফিয়ে বেড়ে গেছে এবং আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। গমের দাম ৪২ দশমিক ৭ শতাংশ বাড়তে পারে। খাদ্য পণ্যের মধ্যে বার্লি ৩৩ দশমিক ৩ শতাংশ, সয়াবিন ২০ শতাংশ, ভোজ্য তেল ২৯ দশমিক ৮ শতাংশ ও মুরগির দাম ৪১ দশমিক ৮ শতাংশ বাড়তে পারে। রাশিয়া ও ইউক্রেন থেকে এসব পণ্যের রপ্তানি কমে যাওয়ার কারণেই এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।


যুদ্ধ শুরুর আগে বিশ্বের মোট সয়াবিনের ৬০ শতাংশ এবং গম রপ্তানির ২৮ দশমিক ৯ শতাংশ এ দুই দেশ থেকেই আসতো। সার, বিভিন্ন ধাতু ও খনিজ দ্রব্যের মতো কাঁচামালের দামও বাড়তে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে। তবে কাঠ, চা ও চালের মত কয়েকটি পণ্যের দাম কমবে বলে আশা করা হচ্ছে।


আরও খবর



অটোরিকশায় করে বাড়ি ফেরার পথে

বউ ছিনতাইয়ের চেষ্টায় আটক ২

প্রকাশিত:Sunday ২২ May 20২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জ উপজেলায় সাবেক বউকে ছিনতাইয়ের চেষ্টার অভিযোগে দুই ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে এলাকাবাসী। এ ঘটনায় ওই সাবেক স্বামীসহ আরও দুইজন পালিয়ে যায়।



 শনিবার (২১ মে) বিকেলে কামালপুর ইউনিয়নের মাঝগেদরা বটতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে একটি সাদা প্রাইভেটকার ও দুইজনকে আটক করে স্থানীয়রা। পরে তাদের স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে আটকে রাখা হয়।


স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার বগারচর ইউনিয়নের গলাকাটি গ্রামের হামেজ উদ্দিনের ছেলে আব্দুল মান্নানের সঙ্গে প্রায় ৩ বছর আগে ধানুয়া কামালপুর ইউনিয়নের নয়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান জুবায়ের হিটলারের মেয়ে আয়শা জুবাইদা শশীর বিয়ে হয়৷


 বিয়ের পর থেকেই স্ত্রী শশীকে নানাভাবে নির্যাতন করে আসছিলেন মান্নান। দিনদিন নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় গত ৬/৭ মাস আগে স্ত্রী আয়শা জুবাইদা শশী স্বেচ্ছায় মান্নানকে তালাক দেন।


শনিবার সকাল থেকেই মাঝগেদরা এলাকায় সহযোগীদের নিয়ে ওত পেতে থাকেন মান্নান। সাবেক স্ত্রী শশী বকশীগঞ্জ খা‌তেমুন মঈন মহিলা ডিগ্রি কলেজ থেকে অটোরিকশায় করে বাড়ি ফেরার পথে মাঝগেদরা এলাকায় তার গতিরোধ করেন মান্নান। 


একপর্যায়ে মান্নান তার সহযোগী পৌর শহরের মাঝপাড়া গ্রামের আকতার হোসেনের ছেলে মজনু মিয়া ও মাঝগেদরা এলাকার জহুরুল হকের ছেলে মোস্তাইন তাকে জোরপূর্বক মাইক্রোবাসে তোলে।  স্থানীয়রা ‌বিষয়‌টি বুঝ‌তে পে‌রে তা‌দের আটক ক‌রেন। এ সময় সাবেক স্বামী মান্নান পালিয়ে গেলেও তার দুই সহযোগী মজনু ও মোস্তাইনকে আটক করা হয়। পরে খবর পেয়ে বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়৷


বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তরিকুল ইসলাম তালুকদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


আরও খবর