Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

বিএনপির কারণে সাম্প্রদায়িক শক্তি এখনও মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৪৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মন্তব্য করেছেন বিএনপির কারণে সাম্প্রদায়িক শক্তি এখনও মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে বলে।

শনিবার (২৫ মে) সকালে সাড়ে ৭টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদ প্রাঙ্গণে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৫তম জন্মবার্ষিকীতে আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী হয়েছি বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে। কিন্তু সেই বিজয়কে সংহত করার এখনও অনেক কাজ বাকি। আজকের দিনে আমাদের অঙ্গীকার, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা সাম্প্রদায়িক বিষবৃক্ষকে সমূলে উৎপাটিত করে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ব। সেটিই হবে নজরুলের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনের সার্থকতা।

বিএনপি নেতাকর্মীকে জেলে পাঠানো হচ্ছে দলের সিনিয়র নেতাদের এমন দাবি অস্বীকার করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, কোনো রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীকে জেলে পাঠানোর এজেন্ডা আমাদের নেই। যারা অপরাধে জড়িত তারা রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী নন। তারা দুর্বৃত্ত। এদের শায়েস্তা করতে হবে জাতীয় স্বার্থেই।


আরও খবর



তাহিরপুর সীমান্তের কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা: বেড়েছে চোরাচালান

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৫২জন দেখেছেন

Image

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া,সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা সীমান্তে সরকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে সোর্স ও তাদের গডফাদার সিন্ডিকেডের মাধ্যমে প্রতিদিন ভারত থেকে ওপেন মাদকদ্রব্য, কয়লা, চুনাপাথর, চিনি, পেয়াজ, গরু, ঘোড়া, বাঁশ, কাঠ ও বিড়িসহ বিভিন্ন মালামাল পাচাঁরের পর সাংবাদিক, পুলিশ ও বিজিবির নাম ভাংগিয়ে চাঁদাবাজি করছে বলে খবর পাওয়া গেছে। সম্প্রতি পুলিশ অভিযান চালিয়ে পাচাঁরকৃত অবৈধ কয়লা বোঝাই ৫টি নৌকা আটককের পর ছেড়ে দিয়েছে বলে জানা গেছে। তাই সীমান্ত চোরাকারবারীদের গডফাদার ও সোর্স বাহিনীকে গ্রেফতারের জন্য প্রশাসনের উপরস্থ কর্মকর্তাদের সহযোগীতা জরুরী প্রয়োজন।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে- গতকাল শনিবার (২২ জুন) ভোরে উপজেলার বীরেন্দ্রনগর সীমান্তের সুন্দরবন ও লামাকাটা এলাকা দিয়ে সোর্স মস্তোফা ও লেংড়া জামালগং ও চারাগাঁও সীমান্তের লামাকাটা এলাকা দিয়ে সোর্স লেংড়া জামাল, জঙ্গলবাড়ি এলাকা দিয়ে সোর্স আইনাল মিয়া, রিপন মিয়া, সাইফুল মিয়া, কলাগাঁও এলাকা দিয়ে সোর্স রফ মিয়া,দীপক মিয়া, চারাগাঁও এলসি পয়েন্ট ও বাঁশতলা এলাকা দিয়ে সোর্স আনোয়ার হোসেন বাবলু, সোহেল মিয়া, বাবুল মিয়া ও লালঘাট এলাকা দিয়ে রুবেল মিয়াগং পৃথক ভাবে ১৫টি ইঞ্জিনের নৌকা বোঝাই করে প্রায় ৪শ মেঃটন কয়লা ও মাদকদ্রব্য পাচাঁর করে নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা উপজেলার ব্রিজের কাছে নিয়ে। এরআগে গত শুক্রবার (২১ জুন) রাত ২টায় একই ভাবে ওই গডফাদার ও তার সোর্স বাহিনী ১৮টি ইঞ্জিনের নৌকা বোঝাই করে প্রায় ৫শ মেঃটন কয়লা, গত বৃহস্পতিবার (২০ জুন) ভোরে ২০টি নৌকা বোঝাই করে পাচাঁরকৃত ৬শ মেঃটন কয়লা ও চুনাপাথরসহ চিনি, পেয়াজ পাচাঁর করে নিয়ে যায়। তবে গত বুধবার (১৯ জুন) ভোরে একই ভাবে ওই গডফাদার ও তার সোর্স বাহিনী ৩০টি ইঞ্জিনের নৌকা বোঝাই করে পাচাঁরকৃত প্রায় ১হাজার মেঃটন কয়লা ও মাদকদ্রব্য নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৫টি নৌকা আটক করে। এরপরে গডফাদার তোতলা আজাদের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে আটককৃত কয়লা বোঝাই ইঞ্জিনের নৌকাগুলো ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে খবর পাওয়া যায়। তার আগে গত মঙ্গলবার (১৮ জুন) রাত ১টায় ২৫টি ইঞ্জিনের নৌকা বোঝাই করে প্রায় ৭শ মেঃটন কয়লা ও মাদকদ্রব্য পাচাঁর করে গডফাদার ও তার সোর্সরা। একই ভাবে গত ৫দিনে পাশের বালিয়াঘাট সীমান্ত দিয়ে সোর্স জিয়াউর রহমান জিয়া, মনির মিয়া, ইয়াবা কালাম মিয়া, হোসেন আলী, রতন মহলদার, কামারুল মিয়াগং প্রায় ৫হাজার মেঃটন ও টেকেরঘাট সীমান্তের চুনাপাথর খনি প্রকল্প, নিলাদ্রী লেক, বুরুঙ্গাছড়া, রজনী লাইন ও বড়ছড়া এলাকা দিয়ে সোর্স আক্কল আলী, রুবেল মিয়া, মহিবুর মিয়া, সাইদুল মিয়া প্রায় ৭ হাজার মেঃটন কয়লা ও মাদকদ্রব্য পাচাঁর করাসহ পাশের চাঁনপুর সীমান্তের নয়াছড়া, রাজাই, কড়ইগড়া ও বারেকটিলা এলাকা দিয়ে সোর্স জামাল মিয়া, নজরুল মিয়া, বুটকুন মিয়া, সাহিবুর মিয়াগং ১২হাজার মেঃটন কয়লা, চুনাপাথর, শতাধিক গরু, ঘোড়া ও মাদকদ্রব্য পাচাঁর করাসহ লাউড়গড় সীমান্তের যাদুকাটা নদী, সাহিদাবাদ, পুরান লাউড়, দশঘর এলাকা দিয়ে সোর্স বায়েজিদ মিয়া, জসিম মিয়া, রফিক মিয়া ও নুরু মিয়াগং বিপুল পরিমান কয়লা, পাথর, গরু, ঘোড়া, পেয়াজসহ বিভিন্ন মালামাল পাচাঁর করেছে বলে জানাগেছে। কিন্তু পাচাঁরকৃত অবৈধ মালামাল আটক করা কিংবা সোর্স ও তাদের গডফাদারকে গ্রেফতারের কোন খবর পাওয়া যায়নি। অথচ সুনামগঞ্জে পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান ও তাহিরপুর থানায় ওসি আব্দুল লতিফ তরফদার কর্মরত থাকাকালীন সময় সীমান্তে অভিযান চালিয়ে গডফাদার তোতলা আজাদের ছেলে কিশোর গ্যাংলিডার সিহাব সারোয়ার শিপুসহ তার অর্ধশতাধিক সোর্সকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানোসহ জব্দ করা হয়েছিল কয়েক কোটি টাকার অবৈধ কয়লা, চুনাপাথর, মোটর সাইকেল ও বালি বোঝাই ইঞ্জিনের নৌকা। এছাড়াও তোতলা আজাদের বাড়ি কামড়াবন্দসহ লাউড়গড়, শিমুলতলা, বিন্নাকুলি, বালিজুরী, তাহিরপুর সদর ও ফকির নগর গ্রামে অভিযান চালিয়ে ইয়াবা, মদ, গাঁজা ও নাসির উদ্দিন বিড়িসহ জুয়ার বোর্ড থেকে তোতলা আজাদের শতাধিক লোকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। কিন্তু ওই দুই কর্মকর্তা অন্যত্র বদলি হয়ে যাওয়ার পর সবকিছু উন্মুক্ত হয়ে যায়। গডফাদার তোতলা আজাদ ও তার সোর্স বাহিনীর দাপট বেড়ে যায় এবং ভারত থেকে অবৈধ ভাবে বিভিন্ন মালামাল পাচাঁরের পর সাংবাদিক, পুলিশ ও বিজিবির নাম ভাংগিয়ে সোর্স দিয়ে ওপেন চাঁদাবাজি করে বর্তমানে গডফাদার তোতলা আজাদ প্রায় ১৫ কোটি, তার সোর্স আক্কল আলী ৫কোটি, রতন মহলদার ২কোটি, কামরুল মিয়া ১কোটি, ইয়াবা কালাম ৭কোটি, জিয়াউর রহমান জিয়া ৬কোটি, বাবুল মিয়া  ২কোটি, রফ মিয়া ৮ কোটি, আইনাল মিয়া ১১কোটি টাকার মালিক হয়েছে। তাদের নেতৃত্বে চোরাচালান করতে গিয়ে এপর্যন্ত চারাগাঁও সীমান্তে ১২জন,বালিয়াঘাট সীমান্তে ৩৩জন,টেকেরঘাট সীমান্তে ১৫জন,চাঁনপুর সীমান্তে ৮জন ও লাউড়গড় সীমান্তে ৪৮জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানাগেছে। তারপরও গডফাদার ও তার সোর্সরা রয়েগেছে অধরা।

এব্যাপারে তাহিরপুর কয়লা ও চুনাপাথর আমদানী কারক সমিতির আর্ন্তজাতিক বিষয়ক সম্পাদক আবুল খায়ের বলেন- সীমান্ত চোরাচালানের কারণে একদিকে কোটিকোটি টাকার সরকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে,অন্যদিকে বৈধ ব্যবসায়ীরা সীমাহীন ক্ষতিগ্রস্থ্য হচ্ছে। এব্যাপারে প্রশাসনের স্থানীয় কর্মকর্তাদেরকে বারবার অবগত করার পরও তারা কোন পদক্ষেপ নেয়না। এউপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার ও আওয়ামীলীগ নেতা কফিল উদ্দিন বলেন-রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে প্রতিদিন ভারত থেকে ওপেন গরু, কয়লা ও চুনাপাথরসহ বিভিন্ন প্রকার মাদকদ্রব্য পাচাঁর করা হচ্ছে। কিন্তু বিজিবি ও পুলিশ এব্যাপারে কোন পদক্ষেপ নেয়না। সুনামগঞ্জ জেলার সিনিয়র সাংবাদিক মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া বলেন- সীমান্ত চোরাচালানের বিষয়ে বিজিবি ক্যাম্প গুলোতে ফোন করে বারবার জানানোর পরও তারা কোন পদক্ষেপ নেয়না। তাই গডফাদার ও তার সোর্স বাহিনীকে গ্রেফতারের জন্য প্রশাসনের উপরস্থ কর্মকর্তাদের সহযোগীতা জরুরী প্রয়োজন।

তাহিরপুর থানার ওসি কাজী নাজিম উদ্দিন বলেন- সীমান্ত চোরাচালান বন্ধের দায়িত্ব বিজিবির, তাদের সাথে যোগাযোগ করুন। এব্যাপারে চারাগাঁও বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার শফিকুল ও চাঁনপুর বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার আব্বাস বলেন- তাদের সীমান্ত দিয়ে কোন কিছু পাচাঁর হলে, জানালে তারা ব্যবস্থা নেবে। সুনামগঞ্জে টেকেরঘাট কোম্পানী কমান্ডার নায়েব সুবেদার দিলীপ বলেন- আমার সীমান্ত এলাকা দিয়ে কোন কিছু পাচাঁর হওয়ার খবর আমি পাইনা।


আরও খবর



গোমস্তাপুরে বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ ও শিক্ষা সপ্তাহের পুরস্কার বিতরণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ | ১১৭জন দেখেছেন

Image

শহিদুল ইসলাম গোমস্তাপুর (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি:চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ ও জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে বিভিন্ন প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।

বুধবার উপজেলা সভাকক্ষে এই পুরস্কার বিতরণের আয়োজন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার তুলে দেন বিদ্যুৎ,জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রাণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মু.জিয়াউর রহমান এমপি। পরে একই স্থানে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নিশাত আনজুম অনন্যা। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হুমায়ুন রেজা। উপজেলা একাডেমি সুপারভাইজার আসমা খাতুনের সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মুসহাক আলি, রহনপুর আহম্মদি বেগম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম মোর্শেদ, আলিনগর স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ রবিউল আওয়াল, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আতিকুল ইসলাম আজম, জাতীয় পর্যায়ে পুরস্কারপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী নওশিন তাসফিয়াহ।

উল্লেখ্য জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতার বিজয়ী ৬২ জনকে এবং বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ ১৪ জনের হাতে পুরস্কার তুলে দেন অতিথিরা।

আরও খবর



খাগড়াছড়িতে পুলিশের সপ্তাহব্যাপী দক্ষতা উন্নয়ন কোর্সের উদ্বোধন করেন-পুলিশ সুপার মুক্তা ধর

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১২০জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর দক্ষতা উন্নয়ন কোর্স  প্রফেশনালিজম বাড়ানো, সেবা মান উন্নত করা, এবং সামাজিক বিশ্বাস ও নিরাপত্তা বজায় রাখার লক্ষে খাগড়াছড়িতে  সপ্তাহব্যাপী  পুলিশের সকল সদস্যের পদমর্যাদাভিত্তিক ১৭ তম ব্যাচের  দক্ষতা উন্নয়ন কোর্সের উদ্বোধন করা হয়েছে।

শনিবার (২৫  মে,)  খাগড়াছড়ি জেলার  পুলিশ লাইন্স, ড্রিল শেডে সপ্তাহব্যাপী বাংলাদেশ পুলিশের সকল সদস্যের পদমর্যাদাভিত্তিক  ১৭ তম ব্যাচের  দক্ষতা উন্নয়ন কোর্সের উদ্বোধন করেন  খাগড়াছড়ি জেলার পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার)  

খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার) প্রশিক্ষণার্থী পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশ্যে  বলেন , পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা দক্ষতা উন্নয়ন কোর্সের মাধ্যমে পেশাদারিত্বের উচ্চতর মান অর্জন করতে সক্ষম হন। এতে করে তাদের কাজের গুণমান এবং নির্ভুলতা বৃদ্ধি পায়। আইনি জ্ঞানের উন্নতি হয়, যা পুলিশকে ন্যায়বিচার প্রদানে আরও দক্ষ করে তোলে। তারা আইন অনুযায়ী কাজ করতে আরও সচেতন এবং সক্ষম হয়। মানবাধিকার সচেতনতা বৃদ্ধির ফলে পুলিশ নাগরিকদের অধিকার লঙ্ঘন করার পরিবর্তে তাদের অধিকার রক্ষায় আরও বেশি মনোযোগী হয়। প্রযুক্তির প্রয়োগ এবং দক্ষতায় উন্নতির ফলে পুলিশ অপরাধ অনুসন্ধানে আরও দক্ষ হয়। তারা সহজেই তথ্য সংগ্রহ এবং বিশ্লেষণ করতে পারে, যা অপরাধ প্রতিরোধ ও অনুসন্ধানে সাহায্য করে। শারীরিক ফিটনেস এবং মানসিক দৃঢ়তা বৃদ্ধির মাধ্যমে পুলিশ সদস্যরা কঠিন পরিস্থিতি এবং চাপ সামলানোর ক্ষমতা অর্জন করে।বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ব্যাকগ্রাউন্ডের লোকজনের সাথে কাজ করার দক্ষতা অর্জনের ফলে পুলিশ আরও সহানুভূতিশীল এবং কার্যকর হয়। উন্নত দক্ষতা এবং পেশাদারিত্ব জনগণের মধ্যে পুলিশের প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস বৃদ্ধি করে।

এসময় খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশের পদস্থ কর্মকর্তা বৃন্দ সহ অন্যান্য পদমর্যাদার পুলিশ সদস্যরা  উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর



মেলান্দহ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৩০জন দেখেছেন

Image
লিয়াকত হোসাইন লায়ন,জামালপুর প্রতিনিধি:জামালপুরের মেলান্দহে সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশের মধ্য দিয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৯ মে (বুধবার) মেলান্দহ উপজেলায় এ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয় । মেলান্দহ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে হাজী দিদার পাশা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ইব্রাহিম খলিলুল্লাহ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জোনাকী আক্তার বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছে।

জানাগেছে, তৃতীয় ধাপে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে  ফলাফল ও পরিবেশন কেন্দ্র থেকে বেসরকারি ফলাফল আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষণা করা হয়। ফলাফল ঘোষণা করেন,   সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহবুবা হক। উপজেলার মির্জা আজম আধুনিক অডিটোরিয়ামে হাজারো উতসুক ভোটারদের উপস্থিতিতে এই ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এই নির্বাচনে ভোট পরে শতকরা  ৩২.০৪।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে মোটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে ৭৮ হাজার ৬শ ৬৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও মেলান্দহ পৌরসভার সাবেক মেয়র হাজী দিদার পাশা। তার বিপরীতে আনারস প্রতীকে এমদাদুল ইসলাম পেয়েছেন ১২হাজার ৩শ ১১ ভোট। 

অন্যদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে চশমা প্রতীক নিয়ে ৪৩হাজার ৫২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ইব্রাহিম খলিলুল্লাহ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হাসমত উল্লাহ তালা প্রতীকে পেয়েছেন ২৮ হাজার ৩শ ৩২ভোট।

আবার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৭হাজার ৬শ ৮০
ভোট পেয়ে জয় লাভ করেছেন জেনিন তাসনীন জোনাকি।  তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ফুটবল প্রতীকে পেয়েছেন ১৯ হাজার ৬শ ১৮ ভোট।

বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এর মাধ্যমে পর্যাপ্ত নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ১১০টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ চলে। নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানববৃন্দ মেলান্দহ উপজেলাবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। 

সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহবুবা হক জানান, নির্বাচনে কোন ধরনের অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটেনি। সুন্দর পরিবেশের মধ্য দিয়ে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়াও প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তিনি।

আরও খবর



প্রকাশ্যে 'তুফান' ট্রেলার, গ্যাংস্টার শাকিব যেন ওয়ান ম্যান আর্মি

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১০১জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:ট্রেলার মুক্তি পেয়েছে মেগাস্টার শাকিব খানের নতুন সিনেমা তুফান। ২ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের ট্রেলারে দেখানো হয়েছে কিশোরের গ্যাংস্টার হয়ে ওঠার গল্প।

শনিবার (১৫ জুন) রাত ৮টায় চরকি ও এসভিএফের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ্যে আসে ট্রেলারটি। শাকিবের সঙ্গে সিনেমায় রয়েছে মিমি চক্রবর্তী, মাসুমা রহমান নাবিলা, ফজলুর রহমান বাবু, শহিদুজ্জামান সেলিম, গাজী রাকায়েত, মিশা সওদাগর, চঞ্চল চৌধুরীসহ আরও অনেকে।

তুফান মানুষ নয়, আবার পশুও নয়, তুফান যা হতে চেয়েছিল তাই হয়েছে, রাক্ষস। ‘তুফান’-এর সঙ্গে ঠিক এভাবেই পরিচয় হলো দর্শকদের। কিন্তু কে এই ‘তুফান’?

ট্রেলারের শুরুতে একজনকে মেশিনগান চালাতে দেখা গেল। সে এক ভয়ঙ্কর মুহূর্ত। এরপরই দেখা মিলল কাঙ্ক্ষিত তুফানের। ইনি আর কেউ নন, শাকিব খান। তাকে বলতে শোনা গেল, বাশির ভাই জানত না, আমি একদিন ন্যাশনাল লেভেলে খেলব।’ ফের বললেন, ‘তুফান হতে অ্যটিটিউড লাগে, চোখের দৃষ্টি লাগে, অ্যাকশন, স্পিচ সব লাগে। এই বাশির ভাই চরিত্রে সিনেমায় রয়েছেন মিশা সওদাগর।

পুরো ট্রেলারে শাকিব খান ছিলেন ফুল অন অ্যাকশন। তবে শুধু অ্যাকশনই নয়, রয়েছে প্রেমও। আর এরপরই তুফান-এর ‘দুষ্টু কোকিল’ হয়ে ধরা পড়লেন মিমি চক্রবর্তী। তাকে প্রেম নিবেদনও করতে দেখা গেল শাকিবকে।

তবে ট্রেলারে তুফান-এর সঙ্গে খেলার যিনি পরামর্শ দিলেন তিনি আর কেউ নন অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। তার সাফ কথা তুফান-এর সঙ্গে খেলতে হবে মাথা দিয়ে। এদিকে শাকিব তখন বলছেন, ‘তুফান পোষ মানে না, পোষ মানায়’। ট্রেলারে শেষে শাকিবকে যখন প্রশ্ন করা হল, সে কী চায়? উত্তর এল ‘পুরো দেশ’।

ঈদুল আজহায় মুক্তি পাচ্ছে শাকিব-মিমি’র তুফান। ঈদের পর ২৮ জুন ভারতে এরপর যুক্তরাষ্ট্র, কানাডাসহ অন্যান্য দেশেও মুক্তি পাবে রায়হার রাফি পরিচালিত এই ছবি।


আরও খবর