Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বাতাসের গতিবেগ ১৭০ কিমি ‘মোখা’র কেন্দ্রে

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৫৪জন দেখেছেন

Image

অনলাইন ডেস্ক: পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। অতি প্রবল এ ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১৫০ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ১৭০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আজ শনিবার আবহাওয়া অধিদপ্তরের ১৩ নম্বর বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি আজ ভোররাতে চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৮৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৭৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৮৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৭৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছিল।

‘মোখা’ আরও উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর ও ঘণীভূত হয়ে আগামীকাল রোববার সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে কক্সবাজার-উত্তর মিয়ানমার উপকূল অতিক্রম করতে পারে। আর আজ সন্ধ্যা থেকে কক্সবাজার ও তৎসংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় ‘মোখা’র অগ্রভাগের প্রভাব শুরু হতে পারে।

গতকাল রাত থেকেই কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরকে ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেত এবং পায়রা ও মোংলা সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, ফেনী, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, ভোলা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোও ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ঘূর্ণিঝড়টির অগ্রবর্তী অংশ ও বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্যের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৮-১২ ফুট অধিক উচ্চতার বায়ুতাড়িত জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে। একই প্রভাবে উপকূলীয় জেলা ফেনী, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর ভোলা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরগুলোর নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৫-৭ ফুট অধিক উচ্চতার বায়ুতাড়িত জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে।

আজ শনিবার ভারতীয় আবহাওয়া বিভাগের ১৬ নম্বর বুলেটিনে বলা হয়, বঙ্গোপসাগরের মধ্য ও দক্ষিণ-পূর্বে সৃষ্ট অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়টি ঘণ্টায় ৮ কিলোমিটার গতিতে উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড়টি ভারতের আন্দামানের রাজধানী পোর্ট ব্লেয়ার থেকে ৫৬৫ কিলোমিটার, বাংলাদেশের কক্সবাজারের দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিম উপকূল থেকে ৭৬০ কিলোমিটার ও মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রাজধানী সিত্তে থেকে ৬৯০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে।


আরও খবর



কুষ্টিয়ায় দু’টি ব্রিজের কাজ শেষ নিয়ে শঙ্খায় জনসাধারণ

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৯৪জন দেখেছেন

Image
হাবিবুর রহমান, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃকুষ্টিয়ায় ‘পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প’ এর অধীন সদর উপজেলার বিত্তিপাড়া হাট-জামজামী ভায়া ঝাউদিয়া সড়কের কুমার নদীর উপর প্রি-ষ্ট্রেজড গার্ডার ব্রিজটি ৪ বছরেও নির্মান শেষ হয়নি। ৭ কোটি ২৫ লাখ টাকা প্রাক্কলন ব্যায়ে ৮১ মিটার দৈর্ঘের ব্রিজটি দুই বছর বা ২৪ মাস সময় ধরে নির্মান বাস্তবায়ন শুরু হয় মার্চ ২০২১সালে। নির্ধারিত সময়কাল ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারীতে শেষ হলেও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এলজিইডি কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পটির ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাজ ফেলে পালিয়ে যাওয়ায় ঝুলে গেছে প্রকল্পটি। এতে গত ৪বছর ধরে সীমাহিন ভোগান্তির শিকার হয়েছে এই ব্রিজের সুবিধাভোগী কৃষি প্রধান অঞ্চলের কয়েক লক্ষ মানুষ। এছাড়াও হরিনাকুন্ডু ও আলমডাঙ্গা উপজেলার সাথে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার একমাত্র সংযোগ সড়কটিতে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ এলজিইডি ও ঠিকাদাদের গাফিলতি ও যোগাসাজসী অবহেলায় এমন পরিস্থিতি। দ্রুত ব্রিজটির নির্মান সম্পন্নের দাবি স্থানীয়দের। তবে অভিযোগ নাকচ করে এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী জানালেন খুব শীঘ্রই ব্রিজটির নির্মানকাজ শেষ করে জনগণ চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হবে। কুষ্টিয়া সদর উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের নভেম্বরে কুষ্টিয়া আলমডাঙ্গা সড়কের বিত্তিপাড়া হতে ঝাউদিয়া বাজার যেতে উজানগ্রাম এলাকার গঙ্গা কপোতাক্ষ সেচ প্রকল্পের (জিকে) খালের উপর ২৫ কিঃমিঃ দৈর্ঘ্য সেতু নির্মানের আদেশ দেয়া হয়। এই ব্রীজের ব্যয় ধরা হয়েছে ৯২ লাখ ৩৮ হাজার টাকা। একই বছরের ৩ নভেম্বর কার্যাদেশ পাওয়া সেতু নির্মাণ কাজ ২০২১ সালের ৪ নভেম্বর শেষ করার কথা। নির্ধারিত সময় পার হলেও কাজ হয়েছে মাত্র ২৫ থেকে ৩০% । ওই সেতু থেকে মাত্র এক কিঃমিঃ দুরে একই সড়কের কুমার নদীর উপর ৮১ মিটার দৈর্ঘের আরেকটি সেতু নির্মানের কার্যাদেশ দেয়া হয়। এই সেতুটিতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৭ কোটি ২৫ লাখ টাকা। কিন্তু কাজ হয়েছে আনুমানিক মাত্র ৩০%। শুধু মাত্র কয়েকটি পিলার দেখা যাচ্ছে। সেতু দু’টি নির্মাণের কাজ পান পাবনা জেলার এমএনএম এ্্যান্ড এসই (জেভি) নামের যৌথ ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। এই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মালিক পাবনার বেড়া উপজেলার কাশিনাথপুর এলাকার নুরুজ্জামান মিয়া। ঠিকাদারের আবেদনের প্রেক্ষিতে এলজিইডি কাজের মেয়াদও বাড়িয়েছে। তার পরেও কাজ হয়নি। পরবর্তীতে অন্য এক ঠিকাদরকে ব্রীজ নির্মানের কাজ দেয়া হলে সেও কাজ না করে পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ উঠেছে। বাস্তবায়নাধীণ প্রকল্পটি দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে থাকায় সীমাহিন দুর্ভোগ ও কৃষি পন্য বহন করা দু:সাধ্য হয়ে পড়েছে বলে দাবি স্থানীয়দের। দ্রুততম সময়ের মধ্যে ব্রিজটির নির্মান শেষ করে স্বাভাবিক চলাচলের রাস্তাটিও মেরামতের দাবি তাদের। ব্রিজ সংলগ্ন স্থানীয় বাসিন্দা জরিনা খাতুন (৫৫)র অভিযোগ সেই ৪বছর আগে শুরু হয়ছে এই কাম এতোদিন সহ্য কইরি ছিলাম যে কাজ শ্যাষ হলিই তো আবার সব ঠিক হয়ে যাবিনি। কিন্তু একন দেখতিচি, এডি আমারে গলার গাড় হয়ে গেছে। সরকার যিন কামডা তাড়াতারি শ্যাষ কইরি দেয় এই আমার আবেদন। উজানগ্রাম এলাকার বাসিন্দারা তাদের প্রতিক্রিয়ায় বলেন, গা গ্রামের মানুষের কষ্ট দ্যাকার কেউ নেই গো। এই যে গাংয়ের উপর ব্রিজটা আইজ ৪বছর ধরি শেষ করতি পারতেছে না। কি এর সমস্যা আর কিইবা তার সুমাধান হবি কিডা দেকপি কও, আমরা মাঠ ঘাটের ফসল আনতি কত কষ্ট কত্তি হচ্ছে, কষ্টডা তো আমরাই পাচ্ছি। একই ভাবে চলাচলরত ড্রাইভাররা বলেন, কাম কত্তি কত্তি অদ্দেক কইরি ফ্যালা থুয়ে চইলি গেছে। এতোদিন ধইরি আমারে ভুগান্তিই যাচ্ছেনা। ব্রিজটা হয়ে গেলি আমরা বাঁচি। কুষ্টিয়া জেলা সচেতন মহলের প্রতিনিধি শেখ মোঃ সুভীন আক্তার বলেন, কুষ্টিয়ায় নির্মানাধীন রাস্তাঘাট ব্রিজ কালভার্ট ও অবকাঠামো নির্মান প্রকল্পগুলি নানা অনিয়ম অবহেলায় অসম্পন্ন ভাবে ঝুলে আছে দীর্ঘদিন ধরে। প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ সাপেক্ষে সকল প্রস্ততি ও সক্ষমতাসহ প্রকল্প বাস্তবায়নের যাত্রা শুরু হলেও ঝুলে থাকা এসব প্রকল্পে একদিকে বাড়ছে ব্যয় অন্যদিকে স্বভাবিক চলাচল ব্যহতের পাশাপাশি দীর্ঘ হচ্ছে ভোগান্তি। এই যদি হয় বাস্তব চিত্র তাহলে মাসে মাসে এসব মিটিং করে আদৌ কি পরিস্থিতির পরিবর্তন হচ্ছে। সচেতন নাগরিক কমিটি সনাক এর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল আলম টুকু প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, এই পরিস্থিতি সৃষ্টি জন্য প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার দায়িত্বহীণতার প্রমান থাকলে অবশ্যই তার জবাবদিহিতাসহ শাস্তি হওয়া উচিত। টেকসই উন্নয়ন অভিযাত্রা বাস্তবায়নে সরকারের অর্থ বরাদ্দ দেয়ার পরও কেনো এমন জনভোগান্তি হবে, এতে হয় তাদের অনিয়ম অবহেলা আছে নচেৎ তারা অযোগ্য। তিনি এমন প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন উন্নয়ন সমন্বয় সভাতে। তিনি আরও বলেন, গত উন্নয়ন সমন্বয় সভাতে যোগ দিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহবুব উল আলম হানিফ চরম অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এবিষয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তর এলজিইডি কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী মো: আব্দুর রাজ্জাক বলেন, উজানগ্রাম-ঝাউদিয়া সড়কের কুমার নদীর উপর নির্মানাধীণ ৮১ মিটার দৈর্ঘের ব্রিজটির নির্মান কাজ কিছু দিন বন্ধ ছিলো তবে খুব দ্রুততম সময়ের মধ্যে শেষ করা হবে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



বিশ্বমানের এল. জি. টিভি তৈরি করবে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৫৮জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:এবার দেশে টেলিভিশন শিল্পে যোগ হলো আর একটি নতুন অধ্যায়। টেলিভিশন উৎপাদনে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড এর সাথে ফ্যাক্টরি উদ্বোধন করলো এলজি ইলেক্ট্রনিক্স। এখন থেকে এলজি ব্রান্ডের সকল লেটেস্ট মডেলের স্মার্ট টেলিভিশন উৎপাদন হবে গাজীপুরে সাত লক্ষ স্কয়ার ফিট জায়গা জুড়ে গঠিত র‍্যানকন ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে।

টেলিভিশন উৎপাদনে এরই মধ্যে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড তাদের সক্ষমতা প্রমাণ করেছে।প্রতিষ্ঠানটির রয়েছে অত্যাধুনিক টিভি ম্যানুফ্যাকচারিং প্লান্ট। দেশে স্মার্ট টেলিভিশনের বাজারও বড় হচ্ছে। গত ১১ বছর ধরে ওলেড টেলিভিশনের ক্ষেত্রে এলজি সারা বিশ্বে শীর্ষস্থানে রয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়াভিত্তিক এলজি কোম্পানির বিভিন্ন আকারের এবং মডেলের টেলিভশন বাজারজাত করবে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স। জানা গিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি দেশের বাজারে বছরে প্রায় ১ লক্ষ্য গ্রাহক চাহিদা মেটাতে সক্ষ্যম হবে।

এই অনুষ্ঠানে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স লিমিটেডের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির গ্রুপ এমডি- রোমো রউফ চৌধুরী, এমডি- ফারহানা করিম, বিভাগীয় পরিচালক- ইমরান জামান এবং নির্বাহী পরিচালক কাজী আশিক উর রহমান। এলজি ইলেকট্রনিক্সের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন আঞ্চলিক সিইও- জা সেউং কিম, সিঙ্গাপুর এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি)- সুংহো চুন এবং বাংলাদেশ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি)- পিটার কো।

অনুষ্ঠানে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স লিমিটেডের গ্রুপ ম্যানেজিং ডিরেক্টর রোমো রউফ চৌধুরী বলেন, “আমরা সাশ্রয়ী মূল্যে এবং দেশব্যাপী সেবার মাধ্যমে এলজি ব্র্যান্ডটিকে বাংলাদেশের জনগণের মাঝে পৌছে দিতে চাই” ।

এলজি ইলেকট্রনিক্স এর আঞ্চলিক সিইও- জা সেউং কিম বলেন, “বাংলাদেশ মার্কেট আমাদের জন্য অনেক গুরুতপূর্ন এবং প্রতিটি ঘরে ঘরে বিশ্বসেরা প্রযুক্তি পৌঁছে দেওয়াই আমাদের লক্ষ্য।


আরও খবর



জিন্স প্যান্ট ও চোখে কালো চশমা পরলে স্মার্ট হওয়া যায় না, পড়াশুনাও স্মার্ট হতে হবে: খাদ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা; নওগাঁ প্রতিনিধি:পুরস্কার নেওয়া যেমন আনন্দের। তা ধরে রাখাও অনেকটা চ্যালেঞ্জ এবং দায়িত্ব এখন অনেক বেড়ে গেলো। তাই মনোযোগ সহকারে পড়াশুনা করে এইচএসসিতে ফলাফলও ধরে রাখতে হবে। এক্ষেত্রে ভাল প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হওয়ার সুযোগ হবে। জিন্স প্যান্ট ও চোখে কালো চশমা পরলে স্মার্ট হওয়া যায় না। পড়াশুনাও স্মার্ট হতে হবে। তোমরা সুশিক্ষায় এগিয়ে যাবে এবং মানবিক মানুষ হবে। শনিবার দুপুরে নওগাঁয় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

খাদ্যমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, জীবনে বড় হতে হলে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। বই আর বালিসকে আপন করতে হবে। মাদক ও মোবাইলের অপব্যবহার হতে নিজেদের বিরত রাখার কঠোর সংকল্প থাকতে হবে।

অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনাদের সন্তানরা যেন অসৎ সঙ্গে না জড়ায় সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন। সন্তানদের ডিজিটাল প্রযুক্তির ভালো দিক গ্রহণ আর খারাপ বিষয়গুলো বর্জন শেখাতে হবে। মোবাইলের অতিরিক্ত ব্যবহার তাদের উপকারের পরিবর্তে ক্ষতি বেশি করে এটা বোঝাতে হবে। এসময় শিক্ষার্থীদের সাবজেক্ট পছন্দের ক্ষেত্রে তাদের পছন্দ ও পারদর্শিতাকে গুরুত্ব দেওয়ার আহবান জানান তিনি।

নওগাঁ চেম্বার অফ কর্মাস এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি সভাপতি ও ইথেন এন্টাপ্রাইজ এর স্বত্তাধিকারী ইকবাল শাহরিয়ার রাসেল এর সভাপতিত্বে নওগাঁ সদর আসনের সংসদ সদস্য ব্যরিস্টার নিজাম উদ্দিন জলিল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজিউর রহমান এবং জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাব্বির রহমান রিজভী বক্তব্য  রাখেন।

পরে ২০২৩ সালে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ৫৭০ জন কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান শেষে ক্রেস্ট, সনদ ও পুরুষ্কার তুলে দেন। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



সুনামগঞ্জে গডফাদার তোতলা আজাদের শাস্থির দাবীতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৫৩জন দেখেছেন

Image

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া,সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:সুনামগঞ্জে সীমান্ত চোরাকারবারী ও সোর্সদের গডফাদার তোতলা আজাদের শাস্থির দাবীতে ফুসে উঠেছে জনসাধারণ। আজ রবিবার (১৪ জুলাই) দিনব্যাপী জেলার তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট বাজার, বড়ছড়া ও চারাগাঁওসহ বিভিন্ন স্থানে পৃথক ভাবে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। এরআগে গতকাল শনিবার (১৩ জুলাই) বিকাল ৫টা থেকে ঝাড়– হাতে নিয়ে কয়েক হাজার ব্যবসায়ী ও ভুক্তভোগীরা গডফাদার তোতলা আজাদকে গ্রেফতারের জন্য বাদাঘাট বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে সন্ধ্যায় বাজারের প্রধান সড়কে বিশাল মানববন্ধন হয়।

ওই সময় ভোক্তভোগীরা জানান- জেলার তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের কামড়াবন্দ গ্রামের মৃত বদ মিয়ার ছেলে হাবিব সারোয়ার তোতলা আজাদ নিজেকে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার স্টাফ রিপোটার পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষকে নানান ভাবে হয়রানী ও ব্ল্যাকমেইল করছে দীর্ঘদিন যাবত। সেই সাথে লাউড়গড়ে সীমান্তে বায়েজিদ, জসিম, চাঁনপুর সীমান্তে সাহিবুর, জম্মত আলী, বুটকুন, জামাল, কালাম, নজরুল, রুসমত, নাসির মিয়া, টেকেরেঘাট সীমান্তে আক্কল আলী, রুবেল, কামাল, মহিবুর, রফিকুল, বালিয়াঘাট সীমান্তে রতন মহলদার, কামরুল মিয়া, জিয়াউর রহমান জিয়া, মনির মিয়া, কালাম মিয়া, হোসেন আলী, চারাগাঁও সীমান্তে রফ মিয়া, আইনাল মিয়া, রিপন মিয়া, সাইফুল মিয়া, বাবুল মিয়া, আনোয়ার হোসেন বাবলু, সোহেল মিয়া, দীপক, হারুন মিয়া, আমির আলী, রুবেল মিয়া ও বীরেন্দ্রনগর সীমান্তে লেংড়া জামাল, গোলাম মস্তোফা, হযরত আলীসহ আরো একাধিক মামলার আসামীদেরকে সোর্স নিয়োগ করে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে প্রতিদিন ভারত থেকে কয়লা, চুনাপাথর, মরা সিংগল পাথর, বাঁশ, কাঠ, মোটর সাইকেল, গরু, ঘোড়া, চিনি, পেয়াজ, ফুসকা, নাসির উদ্দিন বিড়ি, মদ, গাঁজা, ইয়াবা ও অস্ত্র পাচাঁর করাসহ যাদুকাটা নদীর তীর কেটে বালি ও পাথর বিক্রি করে করছে।

এব্যাপারে ব্যবসায়ী আফজাল হোসেন বলেন- তোতলা আজাদ নিজেকে সাংবাদিক, পুলিশ ও র‌্যাবসহ প্রশাসেনর সোর্স পরিচয় দিয়ে সীমান্ত চোরাচালান ও চাঁদাবাজি করে গত ৫বছরে প্রায় ২০কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ মজুত করেছে। তার কথা মতো চাঁদা না দিলে নানান ভাবে হয়রানী করে। তার অত্যাচার থেকে এলাকার সাধারণ মানুষকে রক্ষা করার জন্য ওই গডফাদারকে অভিলম্বে গ্রেফতারের দাবী জানাচ্ছি।

ছাত্রলীগ নেতা নাঈম আহমেদ, কামরুল ইসলাম বলেন- তোতলা আজাদ ও তার সোর্স বাহিনী যাদুকাটা ও পাটলাই নদীতে চাঁদাবাজি, বালি-পাথর বিক্রি করাসহ সীমান্ত এলাকা দিয়ে প্রতিদিন নানান মাদকদ্রব্য পাচাঁর করে বিভিন্ন হাট বাজারের ওপেন বিক্রি করছে। তার অত্যাচারে সর্বস্থরের মানুষ অতিষ্ঠ হলেও দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার কর্তৃপক্ষের টনক নড়ে না। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সহযোগীতা জরুরী প্রয়োজন।

ভোক্তভোগী ব্যবসায়ী আব্দুল হক বলেন- তোতলা আজাদ প্রশাসনে নাম ভাংগিয়ে ওপেন চাঁদাবাজি ও মাদক ব্যবসা করছে। তার কারণে এলাকার যুব সমাজ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে তোতলা আজাদ তার বাড়ির অন্দর মহলে বসে অপরাধ জগত নিয়ন্ত্রণ করে। তারপরও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়না। আমরা তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্থি দাবী করছি।

জানাগেছে- ২০১৮ সালে ৩৪৫পিছ ইয়াবার চালানসহ চরগাঁও নামকস্থান থেকে তোতলা আজাদকে আটক করে গণধৌলাই দিয়ে থানায় সোপর্দ করেছিল এলাকাবাসী। এরপর থেকে তার দৌড়াত্ব আরো দ্বিগুন বেড়ে যায়। এরপর তোতলা আজাদের ভাতিজা জুবায়ের শাহ কে ৫শ পিছ ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। এঘটনার পর তোতলা আজাদের ছেলে কিশোর গ্যাং লিডার শিহাব সারোয়ার শিপু তার ২ সহযোগীকে নিয়ে মসজিদ থেকে মোটর সাইকেল চুরি করে পালানোর সময় বিজিবি হাতে গ্রেফতার হয়।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



প্রাণ গ্রুপে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১০২জন দেখেছেন

Image

চাকরি ডেস্ক:প্রাণ গ্রুপ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। প্রতিষ্ঠানটি অ্যাসিস্ট্যান্ট টেরিটোরি সেলস ম্যানেজার পদে ১০০ জনকে নিয়োগ দেবে। আগ্রহী প্রার্থীরা আগামী ৮ আগস্ট পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। বেতন ছাড়াও বিক্রয় প্রণোদনা, টিএ/ডিএ, মোবাইল বিল, উৎসব বোনাস, প্রভিডেন্ট ফান্ড, ইনস্যুরেন্সসহ প্রতিষ্ঠানের নীতিমালা অনুযায়ী বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা পাবেন নির্বাচিত প্রার্থীরা।

পদের নাম: অ্যাসিস্ট্যান্ট টেরিটোরি সেলস ম্যানেজার

প্রতিষ্ঠানের নাম: প্রাণ গ্রুপ

চাকরির ধরন: বেসরকারি চাকরি

আবেদন করার মাধ্যম: অনলাইন

আবেদনের শেষ তারিখ: ৮ আগস্ট ২০২৪

পদসংখ্যা: ১০০টি

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এমবিএ/এমএসসি

অন্যান্য যোগ্যতা: এমএস অফিস অ্যাপ্লিকেশনে দক্ষতা (ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ারপয়েন্ট)। ইংরেজি ভাষায় ভালো দক্ষতা।

অভিজ্ঞতা: প্রয়োজন নেই

প্রার্থীর ধরন: শুধু পুরুষ

বয়সসীমা: ২৩ থেকে ৩০ বছর

কর্মস্থল: দেশের যেকোনো স্থানে

বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

অন্যান্য সুবিধা: মাসিক বিক্রয় কমিশন, বিক্রয় প্রণোদনা, টিএ/ডিএ, মোবাইল বিল, উৎসব বোনাস, প্রভিডেন্ট ফান্ড, ইনস্যুরেন্স পলিসি, প্রতি বছর বেতন পর্যালোচনা, কোম্পানির নীতিমালা অনুযায়ী আরো অন্যান্য সুবিধা।

আবেদন যেভাবে: আগ্রহী প্রার্থীরা আবেদন করতে ও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর